আজঃ মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

রাজাপুরে স্কুল শিক্ষার্থী শাহারিয়ার হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
মো. নাঈম, রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি

Image

ঝালকাঠির রাজাপুরে শাহরিয়া ইসলাম তাওহীদ নামে চতুর্থ শ্রেণির এক শিশু স্কুল ছাত্রকে হত্যার বিচার ও জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ-মানববন্ধন করেছে তার স্বজন, এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীরা।

বোরবার (১৯ নভেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে রাজাপুর-ভান্ডারিয়া মহাসড়কের উপজেলার দক্ষিণ রাজাপুর বলাই বাড়ি নামক এলাকায় ঘন্টাব্যাপি এ বিক্ষোভ-মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে স্বজন, এলাকাবাসী ও ওই এলাকার শিক্ষার্থী বিভিন্ন শ্রেণি পেশার প্রায় এক হাজার মানুষ অংশ নেন। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, নিহত শাহারিয়ার মা তানিয়া বেগম, বাবা মিলন হাওলাদার, মামা তমাল হোসেব বাবু, মিলনসহ স্থানীয়রা।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, গত মঙ্গলবার ১৪ নভেম্বর স্কুল ছুটির পরে বাসায় ফেরেনি শাহারিয়ার।

মাসুদ তালুকদার নামের এক ব্যাক্তি বেলডিং ঘর নির্মাণ করেন। সেখানে বিকেলে ট্রলি চালক জাহাঙ্গীর ও সহকারী সাইফুল বালি নিয়ে আসার সময় আমার ছেলে শাহারিয়ারকে গাড়ি দিয়ে ধাক্কা দেয় পরে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে প্রথমে নির্মাণাধীন ওই ভবনে তাকে লুকিয়ে রাখে এবং পরে গুমের উদ্দেশ্যে মরদেহ বাড়ির পাশের তাফালবাড়ির খালের মধ্যে লুকিয়ে রাখে। এরপরে রক্তাক্ত অবস্থা মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। রোববার সকালে ওই ভবনের একটি কক্ষে রাজমিস্ত্রী নজরুল ইসলামের কোদাল এবং কনহিতে রক্তমাখা পাওয়া যায়। ঘটনার পর থেকে রাজমিস্ত্রী পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় ৫ দিন অতিবাহিত হলেও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিচার দাবি করা হয়।

রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান জানান, এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে, ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে এবং তদন্ত চলমান রয়েছে, জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সরকার গঠনের পথে নওয়াজ-বিলাওয়াল

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানে জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে কোনো দলই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় সরকার গঠন নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছে নওয়াজের দল। এমন পরিস্থিতিতে জোট সরকার গঠনে মরিয়া পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ।

জোট সরকার গঠনের লক্ষ্যে রোববার লাহোরে পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) এবং মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট-পাকিস্তান (এমকিউএম-পি)-এর সঙ্গে বৈঠক করেছে নওয়াজ শরিফ।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনের ভোটগ্রহণের পর পিএমএল-এনের প্রধান নওয়াজ শরিফ পাকিস্তান ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট অ্যালায়েন্সের মতো একটি সরকার গঠনের ইঙ্গিত দেন। সেই লক্ষ্যে তিনি তার ভাই শাহবাজ শরিফকে কাজ করতে বলেন। এ নির্দেশনা পাওয়ার পর অন্যান্য দলের সঙ্গে জোট করতে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ।

শুক্রবার রাতে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) প্রেসিডেন্ট শাহবাজ শরিফ পাকিস্তান পিপলস পার্টির নেতা আসিফ আলি জারদারি এবং তার ছেলে বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির সঙ্গে পাঞ্জাবে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মুখ্যমন্ত্রী মহসিন নাকভির বাসভবনে বৈঠক করেন। একটি সূত্র সাংবাদমাধ্যম ডনকে এ তথ্য জানিয়েছে।

পাকিস্তান পিপলস পার্টির একটি সূত্র জানিয়েছে, ওই বৈঠকে নির্বাচনপরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আলোচনা সংক্ষিপ্ত হলেও ফলপ্রসূ ছিল।

গতকাল রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) লাহরে বিলাওয়ালের বাসভবনে পিএমএল-এন এবং পিপিপির মধ্যে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে শাহবাজ শরিফ, বিলাওয়াল ভুট্টো, আসিফ আলি জারদারি, মরিয়ম আওরঙ্গজেভ, আজম নাসের তারারসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

ওই বৈঠকের পর দুই দলই জানায়, বৈঠকে তারা সরকার গঠনে নীতিগত সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে। তবে পিপিপি জানিয়েছে, বৈঠকে পিএমএল-এন যে প্রস্তাব দিয়েছে সেটি আজ সোমবার দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির কাছে উত্থাপন করবে।

এদিকে গতকাল পিএমএল-এন সঙ্গে বৈঠক করেছে এমকিউএম-পির নেতারা। লাহোরে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে এমকিউএম-পির নেতা সিদ্দিকী, ড. ফরুক সত্তার, কারমান তেসোরি ও মুস্তফা কামাল উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর
বিশ্ববাজারে আবারো কমেছে জ্বালানি তেলের দাম

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মিয়ানমারের ১৪ সীমান্তরক্ষী পালিয়ে বাংলাদেশে

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বান্দরবান প্রতিনিধি

Image

মিয়ানমার সীমান্ত এলাকায় শনিবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) রাত থেকে আবারও তুমুল সংঘর্ষ শুরু হয়েছে। দায়িত্বশীল কোনো পক্ষ এ বিষয়ে বিস্তারিত না জানালেও বিভিন্ন সূত্র বলেছে, মিয়ানমারের সরকারি সেনাবাহিনী ও সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) সঙ্গে সরকারবিরোধী সশস্ত্র গ্রুপ আরাকান আর্মির (এএ) এই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ চলছে।

এদিকে সূত্র জানায়, সশস্ত্র হামলার মুখে টিকতে না পেরে সেখান থেকে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপির ১৪ জন সদস্য বাংলাদেশ ভূখণ্ডে ঢুকে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) একটি বর্ডার অবজারভেশন পোস্টে আশ্রয় নেন।

তবে এ বিষয়ে বিজিবি বা স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য এখনো পাওয়া যায়নি।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, রবিবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে ওপার (মিয়ানমার) থেকে নিক্ষিপ্ত গুলিতে এপারের একজন নারী ও একজন পুরুষ আহত হয়েছেন। যদিও এ বিষয়েও বিস্তারিত জানা যায়নি।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সীমান্তের ওপারের উত্তেজনা সম্পর্কে তারা সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন।

মোজাহিদ উদ্দিন জানান, ঝুঁকিপূর্ণ বসতিগুলো থেকে লোকজনকে সরিয়ে তাদের স্বজনদের বাড়িতে নিয়ে আসতে ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদকে বলা হয়েছে। এ ছাড়া প্রয়োজন হলে সীমান্ত লাগোয়া স্কুলগুলোকে সাময়িক বন্ধ রাখার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ছে রোহিঙ্গারা, চলতি মাসে ৫১১ জন আটক

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোহাম্মদ ফারুক, কক্সবাজার

Image

মিয়ানমারে চলমান সংঘাতময় পরিস্থিতির কারণে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া দীর্ঘায়িত হ‌ওয়ার সুযোগ নিয়ে ক্যাম্প ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে উখিয়া ও টেকনাফের ৩৩টি আশ্রয়শিবিরে বসবাসরত অনেক রোহিঙ্গারা। তারা ছড়িয়ে পড়ছে দেশের নানাপ্রান্তে। চলতি মাসে ৫১১ জন রোহিঙ্গাকে আটক করে আবার ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকালেও চেকপোস্ট বসিয়ে কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কে যানবাহনে তল্লাশি চালিয়ে আটক করা হয়েছে ৪০ জন রোহিঙ্গাকে।

উখিয়ার ৮ এপিবিএনের অধিনায়ক মো. আমির জাফর এ সব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ক্যাম্পে কাঁটাতার কেটে রোহিঙ্গারা দেশের নানাপ্রান্তে ছড়িয়ে পড়ছে। তাই কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কে বাড়তি চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। সোমবার উখিয়া ডিগ্রি কলেজে এলাকায় চেকপোস্টে বসিয়ে যানবাহন তল্লাশি চালিয়ে ৪০ জন রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়। তাদের কুতুপালং ক্যাম্প ইনচার্জের কাছে হস্তান্তর করা হবে। মূলত কাজের সন্ধানে তারা নানা উপায়ে ক্যাম্প ছাড়ার চেষ্টা করেছে। তারা চট্টগ্রামের পটিয়ায় যাওয়ার চেষ্টা করছে। ওখানে একটি চক্র তাদের কাজ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ক্যাম্প ছেড়ে অন্যত্রে চলে যাওয়ার সময় যানবাহন তল্লাশি চালিয়ে চলতি মাসে ৫১১ জন রোহিঙ্গা ধরে ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হয়েছে। তারা মূলত প্রত্যাবাসন দীর্ঘায়িত হওয়ার কারণে ক্যাম্প ছেড়ে অন্যত্রে চলে যাওয়ার চেষ্টা করছে। তবে এপিবিএন সজাগ রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: রোহিঙ্গা

আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




প্রবাল দ্বীপে নিখোঁজ বনবিভাগের নারী কর্মকর্তা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কক্সবাজার প্রতিনিধি

Image

প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিন ভ্রমণে গিয়ে মাহমুদা আক্তার হ্যাপী (৩১) নামে এক নারী বন কর্মকর্তা নিখোঁজ হয়েছেন। নিখোঁজ মাহমুদা আক্তার হ্যাপী ৪১তম বিসিএস ক্যাডার। তিনি ঢাকা বনবিভাগে কর্মরত আছেন। রবিবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) থেকে তার খোঁজ মিলছে না। এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সেন্টমার্টিন পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাসুকুর রহমান।

তিনি জানান, ‌গত ২ ফেব্রুয়ারি ঢাকা থেকে ৭১ জনের একটি টিম সেন্টমার্টিন দ্বীপ ভ্রমণে যায়। সে টিমে মাহমুদা আক্তার হ্যাপীও ছিলেন। তারা হোটেলে এবং কয়েকটি রিসোর্টে উঠেন। রবিবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে তিনি বন্ধুর সাথে দেখা করার কথা বলে রিসোর্ট থেকে বের হন। বিকাল পর্যন্ত তিনি ফিরে না আসায় তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বন্ধুর সাথে আছেন বলে জানান। কিন্তু এর এক ঘণ্টা পর তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ উসমান গনি বলেন, গত ৩ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে মাহমুদা আক্তার হ্যাপী সহ তিন বান্ধবী একসাথে সেন্টমার্টিন দ্বীপের একটি হোটেলের কক্ষে ছিলেন। সেদিন রাতে হ্যাপী সবার আগে ঘুমিয়ে গেলেও অন্য দুই বান্ধবীর ঘুমাতে দেরি হয়। আর ওই দুই বান্ধবী সোমবার সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখে রুমে হ্যাপী নেই। তার কাপড় চোপড় ও ব্যাগ গোছানো। পরে সাড়ে ৯টার দিকে এক বান্ধবীর ফোনে হ্যাপীর নাম্বার থেকে একটি ম্যাসেজ আসে, আমি গোসল করে রুমে ফিরব। এরপর থেকেই হ্যাপীর আর কোনো হদীস নেই।

তিনি আরও বলেন, হ্যাপীর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের নম্বরটি ট্র্যাকিং করে দেখা গেছে তার সর্বশেষ অবস্থান কক্সবাজার শহরের সুগন্ধা পয়েন্ট। আমরা তার অবস্থান নিশ্চিত করে তাকে উদ্ধারের জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছি।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আদনান চৌধুরী বলেন, বিষয়টি জানার পর টেকনাফ থানায় একটি ডায়েরি করা হয়। এরই সূত্র ধরে কাজ করছে পুলিশ।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে সারাদেশে পবিত্র শবে বরাত পালিত

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা এবং দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মার শান্তি-সমৃদ্ধি কামনার মধ্য দিয়ে পালন হলো মহিমান্বিত রাত পবিত্র শবেবরাত। মহান আল্লাহর রহমত লাভের আশায় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা রাতভর ইবাদত-বন্দেগিতে মগ্ন ছিলেন।

প্রতি বছর হিজরি বর্ষের শাবান মাসের ১৪ তারিখ দিবাগত রাতটি শবে বরাত’ হিসেবে পালিত হয়। এবারও যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে সারাদেশে পবিত্র শবে বরাত’ পালিত হয়েছে। এদিন রাতে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা মহান আল্লাহর রহমত ও নৈকট্য লাভের আশায় নফল নামাজ আদায়, কোরআন তিলাওয়াত, জিকির, ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিলসহ নানা ইবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে রাতটি অতিবাহিত করেছেন।

সৌভাগ্যের এ রজনীতে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে নারী-পুরুষ-শিশু-বৃদ্ধসহ সর্বস্তরের মুসলমানরা মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহতায়ালার সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য ইবাদত-বন্দেগিতে মশগুল ছিলেন। কেউ কেউ ইবাদতে মশগুল থেকেছেন ফজরের নামাজ পর্যন্ত। এ উপলক্ষে অনেকে নফল রোজাও রেখেছেন।

মহিমান্বিত এ রাতে মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশের মুসলমানরাও বিশেষ মোনাজাত ও দোয়ায় শামিল ছিলেন। এদিন রাতে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে মিলাদ ও বিশেষ মোনাজাত হয়েছে।

এ ছাড়া রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানমালার মধ্যে ছিল-ওয়াজ মাহফিল, কোরআন তিলাওয়াত, মিলাদ মাহফিল, হামদ, নাত, নফল নামাজ, তাহাজ্জুদের নামাজ ও আখেরি মোনাজাত।

পবিত্র এ রাতে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের এবাদত বন্দেগির জন্য জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ দেশের সব মসজিদ সারা রাত খোলা রাখা হয়েছিল।

এদিকে পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।

এ ছাড়া পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সরকারি ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শবে বরাত সম্পর্কে হাদিসে বলা হয়েছে- নবী করিম (সা.) বলেছেন, আল্লাহতায়ালা অর্ধশাবানের রাতে (শবে বরাত) মাখলুকাতের দিকে রহমতের দৃষ্টি দেন এবং মুশরিক ও বিদ্বেষ পোষণকারী ছাড়া আর সবাইকে ক্ষমা করে দেন। যে রাতে বান্দাকে তার প্রতিপালক গোনাহ থেকে মুক্তি দিয়ে ক্ষমা করে দেন।


আরও খবর