আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

জাপা মহাসচিব চুন্নুর প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে কমিশনে আপিল

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

কিশোরগঞ্জ-৩ (করিমগঞ্জ-তাড়াইল) আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী নাসিরুল ইসলাম খান একই আসনের জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রার্থী দলটির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুর মনোনয়নপত্র বাতিল চেয়ে নির্বাচন কমিশনে আপিল করেছেন।

শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে নিজের প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার আপিল করার সময় চুন্নুর প্রার্থিতা বাতিলের আপিলও করেন তিনি।

জনপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ ১৯৭২-এর অনুচ্ছেদ ১৪ (৫)-এর অধীনে এই আপিল করেন তিনি।

নাসিরুল ইসলামের আইনজীবী মো. জিশান মাহমুদ বলেন, মুজিবুল হক ঋণ খেলাপির তথ্য গোপন করে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তার হলফনামা জমা দিয়েছেন। তার মনোনয়নপত্র কোনোভাবেই বৈধ হতে পারে না। এর বিরুদ্ধে আমরা ইসিতে আপিল করেছি।

আরও পড়ুন>> স্বতন্ত্র প্রার্থী থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন এমপি মনসুর

কমিশনের আপিলে নাসিরুল অভিযোগ করেন, মুজিবুল হক ঋণখেলাপি হয়েও তথ্য গোপন করে কিশোরগঞ্জের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছ থেকে মনোনয়নের বৈধতা পেয়ে যান। মানিকগঞ্জের আলবাটর ফ্যাশন লিমিটেডের নামে রূপালী ব্যাংক পুরানা পল্টন করপোরেট শাখা থেকে মুজিবুল হক ব্যক্তিগত গ্যারান্টার হয়ে ৫ কোটি ৭০ লাখ টাকা ঋণ তুলে দেন। দীর্ঘদিন ধরে ওই ঋণটি খেলাপি হয়ে আছে। বিষয়টি তিনি তার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হলফনামায় উল্লেখ করেননি। তিনি তথ্য গোপন করেছেন। তার মনোনয়ন আইন মোতাবেক বাতিলযোগ্য। এ ছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের সিআইবি রিপোর্ট গোপন করে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন মুজিবুল হক।

বৈধ প্রার্থীদের বিরুদ্ধে আপিল হলে কমিশন তা বিবেচনায় নেবে কি না- এ প্রসঙ্গে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ গণমাধ্যমকে বলেন, অবশ্যই, আইনে আছে, এবার আরপিও সংশোধন হয়েছে। আগে ছিল রিটার্নিং অফিসারের রিজেকশনের বিরুদ্ধে আপিল। আরপিওতে আছে, শুধু রিটার্নিং অফিসারের রিজেকশন না, রিটার্নিং অফিসারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করা যাবে। যেহেতু আইনে আছে, কমিশন যথাযথ সিদ্ধান্ত নেবে।


আরও খবর



শরীর নিয়ে কটাক্ষ পরিচালকের, জবাবে যা বলেন ম্রুনাল ঠাকুর

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

দক্ষিণ ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ম্রুণাল ঠাকুর। দক্ষিণী সিনেমা সীতা রামম থেকে হাই নান্নার মতো জনপ্রিয় সিনেমা দিয়ে দর্শক থেকে সমালোচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছেন। তবে নিজের শারীরিক গড়ন নিয়ে ক্যারিয়ারে কিছু ঘটনার সম্মুখীন হতে হয়েছে অভিনেত্রীকে। এমন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি নিয়ে এবার মুখ খুললেন তিনি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বডি শেমিং নিয়ে কথা বলেছেন ম্রুণাল। তিনি জানান, এক পরিচালক একবার মুখের ওপর তাঁকে বলেন, সে দেখতে একটুও সেক্সি নয়। অভিনেত্রী তখন পালটা জানতে চান, মন্তব্যটি কি তাঁর অভিনীত চরিত্রটির জন্য নাকি পরিচালক বাস্তব জীবনে ম্রুণালকে দেখে এ মন্তব্য করেছেন।

ম্রুণালের প্রশ্নে পরিচালক তখন জবাব দেন, হ্যাঁ, খুব সেক্সি একটা চরিত্র। তুমি তো এর ধারেকাছেও নেই। ম্রুনাল ছেড়ে দেওয়ার পাত্রী নন, পরিচালককে তখন লুক টেস্ট নেওয়ার কথা বলেন অভিনেত্রী। ফটোশুটের শুরুতে ফটোগ্রাফারও অপমান করেন ম্রুণালকে। বলে ওঠেন, এই গেঁয়ো মেয়েটা কে? মুখে জবাব দেননি ম্রুনাল, জবাব দিয়েছেন কাজে। পরে মত বদলে ক্ষমা চান ওই ফটোগ্রাফার। ম্রুণালের কথায়, অভিনেতা হিসেবে জরুরি হল ন্যাচারাল থাকা। হাসিমুখে তিনি বলেন, যখন সেক্সি কথাটা বলা হয়, আর সেটা যদি আমি ভাবি, তাহলে আমার পায়ের মরা চামড়াও তখন সেক্সি লাগবে।

যৌন আবেদন ব্যাপারটা সবার কাছে সমান নয় জানান অভিনেত্রী। ম্রুনাল যোগ করেন, আমি একবার একটা গান করেছিলাম। সেখানে লোকজন বলছিল আমাকে ওজন কমাতে হবে। আমি পালটা বলি, আমার থাই মোটা এবং সেটা একান্ত আমার নিজের। সেটা নিয়ে যদি আমার কোনও সমস্যা না হয়, তাহলে আপনাদের সমস্যাটা কোথায়?

উল্লেখ্য, ২০২৩ সালে একাধিক কাজে দেখা গেছে ম্রুণালকে। এ বছরই বিজয় দেবেরাকোন্ডা এবং পরিচালক পরশুরাম পেটলার সঙ্গে ফ্যামিলি স্টারে অভিনয় করবেন তিনি। এ ছাড়াও সামনে তাঁকে পূজা মেরি জান সিনেমায়ও দেখা যাবে।


আরও খবর
ফের বিয়ে করছেন অনুপম রায়, পাত্রী কে?

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ভারতের সঙ্গে রুপিতে বাণিজ্য চুক্তি : খালিদ মাহমুদ

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাজশাহী প্রতিনিধি

Image

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের চুক্তি হয়েছে। আমরা ভারতীয় মুদ্রায় ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারব। এতে করে দেশের রিজার্ভের উপর চাপ কমবে।

সুলতানগঞ্জ-মায়া নৌরুটের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এই তথ্য জানান।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার সুলতানগঞ্জে অবস্থিত পদ্মার তীরে এই নৌবন্দরের উদ্বোধন করা হয়।

এই নৌবন্দরে ভারতীয় রুপিতে ব্যবসার ভালো প্রতিফলন পড়বে বলে প্রতিমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন।

বিআইডব্লিউটিএর তথ্যমতে, ভারত থেকে স্থলবন্দর দিয়ে প্রতি টন পাথর আনতে খরচ পড়ে ১৩ মার্কিন ডলার। সমুদ্র পখে এই খরচ ২০ ডলার। সুলতানগঞ্জ নৌবন্দর দিয়ে পাথর আমদানি করতে খরচ পড়বে মাত্র ৯ থেকে ১০ ডলার। এছাড়া বাংলাদেশের কার্গো বা জাহাজে পাথর আনা যাবে। বিল দেওয়া যাবে আন্তঃদেশীয় মুদ্রায়। ফলে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হবে। সৃষ্টি হবে বহু কর্মসংস্থান।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মায়া বন্দর থেকে নৌপথে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার সুলতানগঞ্জ নৌবন্দরের দূরত্ব মাত্র ২০ কিলোমিটার। সুলতানগঞ্জ থেকে রাজশাহীর দূরত্ব ৩৬ কিলোমিটার। রাজশাহীর সঙ্গে পাবনা, সিরাগঞ্জ, বগুড়া, নওগাঁ, জয়পুরহাট, রংপুর, দিনাজপুর, কুষ্টিয়া, খুলনা ও যশোর এমনকি ঢাকার সাথে সড়কপথে সরাসরি যোগাযোগ রয়েছে। ফলে দেশের স্থলবন্দর বা সমুদ্রবন্দরের চেয়ে অনেক সাশ্রয় হবে সুলতানগঞ্জ-মায়া নৌপথ।

বাংলাদেশে মোট পাঁচটি আন্তর্জাতিক নৌপথ চালু আছে জানিয়ে বিআইডব্লিউটিএর বৈদেশিক পরিবহন শাখার উপপরিচালক শর্মিলা খানম গতকাল বলেন, এগুলোর মধ্যে সুলতাগঞ্জ থেকে মায়া বন্দরটি সবচাইলে স্বল্প দূরত্বের। নদীর নব্য বৃদ্ধি করতে পারলে এই রুট আরিচা পর্যন্ত দীর্ঘ হবে, যা অনুমোদন হয়ে আছে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সিরাজগঞ্জে চার মণ গাঁজাসহ আটক চার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

সিরাজগঞ্জে ৪ মণ গাঁজাসহ চারজনকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ জুলহাজ উদ্দীন জানান, মঙ্গলবার ভোরে লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা থেকে একটি ট্রাক পাবনা, সিরাজগঞ্জ আসার পথে হাটিকুমরুল মহাসড়কে অভিযান চালিয়ে  ট্রাক থেকে ৪ মন গাঁজা সহ ৪ জনকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

আটককৃতরা লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা উপজেলার বাড়াইপাড়া কালিবাড়ী গ্রামের আতিকুল ইসলাম (৪০), নারায়ণগঞ্জ জেলা সদরের সৈয়দপুর টানবাজার রেলবাগান এলাকার অপু মিয়া (৩৩), সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ঘোড়াচরা পূর্বপাড়া গ্রামের  নাজমুল শেখ (২৬) ও কামারখন্দ উপজেলার কর্ণসূতী গ্রামের আব্দুল লতিফ শেখ (৫১)।

আটক আতিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৭টি মাদক মামলাসহ ৮টি ও মো. আব্দুল লতিফ শেখের বিরুদ্ধে ২টি মাদক মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নিউজ ট্যাগ: সিরাজগঞ্জ

আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ইউক্রেইনের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ৬০ রুশ সেনা নিহত

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

রুশ অধিকৃত ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় একটি প্রশিক্ষণ এলাকায় দুইটি ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৬০ জন রুশ সেনা নিহত হয়েছে। আজ বুধবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এই ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত বিভিন্ন সূত্র বিবিসিকে বলেছে, সিনিয়র একজন রুশ কমান্ডারের আগমন নিয়ে দোনেতস্ক অঞ্চলে সেনারা জড়ো হয়েছিল। সেখানেই হামলা হয়েছে। ভিডিও ফুটেজে বহু সংখ্যক নিহত সেনাকে দেখা যাচ্ছে বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। তবে বিবিসির পক্ষ থেকে এখনো এসব ভিডিও-এর সত্যতা যাচাই করা হয়নি।

রাশিয়ার একজন কর্মকর্তা অঞ্চলটিতে এ হামলার তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে এই হামলা নিয়ে যেসব রিপোর্ট হয়েছে সেইসবকে 'অতিরঞ্জিত' হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগুর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কয়েক ঘণ্টা আগে এই হামলা হয়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

বৈঠকে শোইগু বিভিন্ন অঞ্চলের সম্মুখসারিতে রাশিয়ার সাফল্যের দাবি ও সম্প্রতি ইউক্রেনীয় শহর আভদিভকা দখলে নেওয়ার কথা বলেছেন। তবে দোনেতস্ক অঞ্চলে হামলা নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, ত্রুদোভস্কি গ্রামের কাছে এক প্রশিক্ষণ এলাকায় ৩৬তম মোটর চালিত রাইফেল ব্রিগেডের সদস্যরা পূর্ব সামরিক অঞ্চলের ২৯তম সেনাবাহিনীর কমান্ডার মেজর জেনারেল ওলেগ মোইসিয়েভের আগমনের জন্য অপেক্ষা করছিলেন।

এই ঘটনায় বেঁচে যাওয়া একজন সৈনিক জানান, ব্রিগেডের কমান্ডাররা তাদের একটি খোলা মাঠে দাঁড় করে রেখেছিলেন। সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি হিমার্স দিয়ে হামলা হয়েছে।

ট্রান্সবাইকালের গভর্নর আলেকজান্ডার ওসিপভ টেলিগ্রাম চ্যানেলে হামলার তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এদিকে এই হামলা নিয়ে এখন পর্যন্ত মুখ খুলেনি ইউক্রেন।


আরও খবর



সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে নিহত যুবকের মরদেহ হস্তান্তর

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

লালমনিরহাটের দহগ্রাম ইউনিয়নের আঙ্গোরপোতা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে নিহত বাংলাদেশি যুবক রবিউলের (৩৪) মরদেহ ফেরত দিয়েছে ভারত। সোমবার (২৯ জানুয়ারি) বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) রংপুর ৫১ ব্যাটালিয়নের পানবাড়ি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার আমানুজ্জামান আমান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রোববার (২৮ জানুয়ারি) রাত ১১টা ৪৫ মিনিটে ভারত-বাংলাদেশের পতাকা বৈঠকের মধ্য দিয়ে নিহত রবিউল ইসলাম টুকলুর মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। সীমান্তের প্রধান পিলার ডিএমপি ৭ এর উপ-পিলার ৩১ হতে ৫০ গজ অভ্যন্তরে ভারতের তিনবিঘা করিডর স্থান দিয়ে রবিউলের মরদেহ ফেরত দেওয়া হয়।

বিজিবি জানিয়েছে, গুলিতে যুবক রবিউলের মৃত্যুর ঘটনায় বিএসএফ দুঃখ প্রকাশ করে, ভবিষ্যতে এমন হবে না বলে জানায় ভারতের সীমান্ত সংলিষ্টরা।

এ ঘটনায় ওইদিন বেলা সাড়ে ১১টায় সীমান্তের ডিএমপি ১ নম্বর প্রধান পিলারের ৭ নম্বর উপ-পিলারের নিকট আঙ্গোরপোতা শূন্য রেখায় বিজিবি-বিএসএফের মধ্যে পতাকা বৈঠক হয়।

এর আগে, রোববার ভোরে ভারতের মেখলিগঞ্জ থানার ফুলকাডাবরী ও আমলাটারী এলাকা এবং বাংলাদেশের পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রামের আঙ্গোরপোতা এলাকার ৫ থেকে ৬ জনের গরু ও অন্যান্য সামগ্রী পাচারকারীদের একটি দল সীমান্তে যায়। ওই সময় নিকটস্থ এক স্থানে প্রসাধনী সামগ্রী ও চিনি পারাপারের সময় ভারতের ৬ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের অর্জুন কোম্পানি সদরের উমর ক্যাম্পের টহলরতদের চোরাকারবারিদের উদ্দেশ্যে ছোঁড়া গুলির একটি রবিউলের বুকে লাগলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪