আজঃ শনিবার ২৯ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

ঢাবির অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপককে ‘অপহরণের পর’ হত্যা

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৬২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাভারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সাইদা খালেকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তিন দিন আগে নিখোঁজ হয়েছিলেন তিনি। বিরোধের জেরে অপহরণের পর তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা ঢাবির প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের আবাসন প্রকল্প এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী বলেন, অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সাইদা খালেক ঢাকার সাভারে বসবাস করতেন। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করেছে। সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের আটক করে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা ঘটনার দায় স্বীকার করে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. নিজামুল হক ভূইয়া বলেন, সাভারে তিনি একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। সেখানে নতুন বাড়ি নির্মাণের কাজ চলছিল। শ্রমিকরা বাড়ি নির্মাণের জন্য কিছু দাবি করছিল তার কাছে। তাদের সঙ্গে হয়তো সাইদা খালেকের মনোমানিল্য হয়েছিল। তিনদিন আগে তিনি নিখোঁজ হন। আজ সকালে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। সন্দেহজনক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হলে তিনি হত্যার দায় স্বীকার করেন।


আরও খবর



সোমালিয়ায় গাড়ি বোমা হামলায় নিহত ৮

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | ২৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সোমালিয়ার রাজধানী মোগাদিসুতে গাড়ি বোমা হামলায় কমপক্ষে আটজন নিহত হয়েছেন। শহরের অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের প্রধান আবদিকাদির আবদিরহমান বলেন, একটি গাড়ি বহরকে লক্ষ্য করে হামলাটি করা হয়। বহরে একটি বুলেট প্রুফ গাড়িও ছিল।

তবে গড়ির বহরের প্রধান কে ছিলেন তা জানা যায়নি। বুধবার (১২ জানুয়ারি) কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

আবদিরহমান নিশ্চিত করে বলেন, আমরা ঘটনাস্থল থেকে আটজনের মরদেহ উদ্ধার করেছি। মোগাদিসুর বাসিন্দা মোহাম্মাদ ওসমান বলেন, যখন বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে তখন তিনি মসজিদে নামাজ পড়ছিলেন। এ সময় মসজিদের দেওয়াল ও ছাদ কেঁপে ওঠে বলেও জানান তিনি।

ওসমান বলেন, মসজিদের বাইরে বের হয়ে দেখি কয়েকটি পুরোনো বাড়ি ধ্বসে পড়েছে। অনেকের দেহ ছিন্নবিচ্ছিন্ন হয়ে রাস্তায় পড়ে আছে।

আহমেদ নুর নামে একজন স্থানীয় দোকানদার বলেন, কাগজে মোড়ানো অবস্থায় পাঁচজনের মরদেহ অ্যাম্বুলেন্সে নিয়ে যেতে দেখেছি। যাদের পা ফাঁক দিয়ে দেখা যাচ্ছিল।

তাৎক্ষণিকভাবে এ হামলার দায় এখনো কোনো গোষ্ঠী স্বীকার করেনি।


আরও খবর



টেক্সাসে ইহুদি উপাসনালয়ে জিম্মিদশার অবসান, নিহত ১

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জানুয়ারী ২০২২ | ৩০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে এক ইহুদি উপাসনালয়ে জিম্মি হওয়ার ১০ ঘণ্টা পর মুক্তি পেয়েছেন তিন ইহুদি। পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলিতে এক বন্দুকধারী নিহতের পরই মূলত জিম্মিদশা থেকে মুক্ত হন তাঁরা। স্থানীয় সময় শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে টেক্সাসের কলিভিলে।

কলিভিলের পুলিশ প্রধান মাইকেল মিলার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, এফবিআই-এর জিম্মি উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা তিন জিম্মিকে মুক্ত করতে সিনাগগে হামলা চালায়। এতে বন্দুকধারী নিহত হন এবং জিম্মিদেরকে উদ্ধার করা হয়।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ওই বন্দুকধারী প্রাথমিকভাবে কনগ্রেগেশন বেথ ইসরায়েলের এক রাব্বিসহ চারজনকে জিম্মি করেছিল। এরমধ্যে ছয় ঘণ্টা পর এক জিম্মিকে অক্ষত অবস্থায় ছেড়ে দেওয়া হয়।

স্থানীয় সাংবাদিকরা বলেছেন, টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট সংকটাবস্থা শেষ হওয়ার ঘোষণা দেয়ার কিছুক্ষণ আগেই তাঁরা বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছেন, সম্ভবত তা ছিল ফ্ল্যাশব্যাং এবং গুলির শব্দ।

গভর্নর অ্যাবট টুইটারে বলেন, "উপাসনালয়ে জিম্মিদশার জবাব দেয়া হয়েছে। জিম্মিরা সবাই জীবিত এবং নিরাপদে আছেন।"

এফবিআই বলেছে, তারা বন্দুকধারীর পরিচয় নিশ্চিত করেছে। তবে তাঁরা এখন তা প্রকাশ করবে না বলেও জানিয়েছে। এমনকি সংস্থাটি তাঁর মৃত্যুর কারণটাও নিশ্চিত করে জানাতে অস্বীকার করে বলেছে, এটি এখনও তদন্তাধীন।

জানা যায়, ওই বন্দুকধারীর হাতে বন্দি হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ইহুদি উপাসনালয়ের রাব্বিও ছিলেন। প্রাথমিকভাবে মোট চারজনকে জিম্মি করেছিল সে। পরে অবশ্য এক বন্দিকে ছেড়ে দেয়।

এদিকে, ঘটনার প্রতি নজর রেখেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ঘটনা প্রসঙ্গে খোঁজ নিয়েছেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেটও। 

নিউজ ট্যাগ: যুক্তরাষ্ট্র

আরও খবর



ফ্রান্সে সহস্রাধিক পুলিশ কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ | ৪০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ফ্রান্সে এ পর্যন্ত ৩০ হাজার পুলিশ কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। করোনায় আক্রান্ত দেশটির মোট ১ লাখ ৪৭ হাজার সরকারি কর্মকর্তার মধ্যে ২৫ শতাংশই পুলিশ কর্মকর্তা। খবর স্পুটনিকের।

বর্তমানে দেশটির সহস্রাধিক পুলিশ কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত।গত ২৪ ঘন্টায় দেশটিতে রেকর্ডসংখ্যক ২ লাখ ৮ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

বছর শেষের উৎসব প্রায় ম্লান ফ্রান্সে। দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে, আগামী আরও তিন সপ্তাহ সব নাইটক্লাব বন্ধ থাকবে।

৬ ডিসেম্বর থেকেই ১৬০০ ক্লাব বন্ধ রয়েছে। উৎসবের এই সময়ে প্রচুর লোক ঘুরতে-বেড়াতে যান। তাতে সংক্রমণ বাড়তে পারে আশঙ্কা করেই কড়াকড়ি শুরু করেছিল প্রশাসন। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না তাতেও।

গত একদিনে ২ লাখ ছাড়াল সংক্রমণ। গত শনিবার প্রথম করোনা সংক্রমণ লাখ ছাড়িয়েছিল ফ্রান্সে। কয়েক দিনের মাথায় সংক্রমণ দ্বিগুণেরও বেশি।

ফ্রান্সের পর্যটনমন্ত্রী বলেন, ব্যবসায়ী ও পর্যটনশিল্পের সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের আর্থিক সংকটের বিষয়টি বুঝতে পারছি। কিন্তু উপায় নেই। সরকারের পক্ষ থেকে সাহায্য করা হবে।

বর্তমানে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি টিকাদানের হার ফ্রান্সে। টিকা নেওয়ার যোগ্য জনসংখ্যার ৯০ শতাংশের ভ্যাকসিন নেওয়া হয়ে গেছে। তার পরও এ অবস্থা।

ভ্যাকসিন পাস নিয়ে পার্লামেন্টে আলোচনা চলছে। আলোচনা সফল হলে রেস্তোরাঁ, সিনেমা হল, জাদুঘর বা কোনো প্রদর্শনীতে ঢুকতে হলে ভ্যাকসিন পাস থাকা বাধ্যতামূলক করা হবে এবং সেই জন্য আইন করবে সরকার।


আরও খবর



৫০ বছর হলেই বুস্টার ডোজ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এখন থেকে ৫০ বছর বয়সীরাও করোনার টিকার বুস্টার ডোজ পাবেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের টিকা কার্যক্রম চলমান আছে। আমরা টিকার বুস্টার ডোজ দিয়ে যাচ্ছি। বুস্টার ডোজে খুব বেশি অগ্রগতি লাভ করেনি। কারণ ৬ মাস সবার পূরণ হয়নি। এ পর্যন্ত প্রায় ৭ লাখের মতো বুস্টার ডোজ দিতে পেরেছি। আমি প্রথমেই জানাচ্ছি, যে বুস্টার ডোজের বয়স ছিল ৬০ বছর। এখন থেকে ৫০ বছর বয়সীদের বুস্টার ডোজ দেয়া হবে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন রয়েছে।

তিনি বলেন, টিকা নিলে মৃত্যুঝুঁকি কমে। কিন্তু সংক্রমণের ঝুঁকি কমে না। এ বিষয়টি মনে রাখতে হবে। এ পর্যন্ত সাড়ে ১৪ কোটি টিকা দিয়েছি। আমাদের টিকা যা হাতে আছে এবং যা পাবো তাতে আমাদের জনগণের যতো টিকা প্রয়োজন তার চেয়ে বেশিই আছে। মাস্ক পড়বেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন এবং ভ্যাকসিনটা সময়মতো নিয়ে নেবেন। সরকারের যে ১১ দফা বিধিনিষেধ আছে তা মেনে চলার অনুরোধ জানান মন্ত্রী।


আরও খবর



টিকা ছাড়া রেস্টুরেন্টে খেতে পারবে না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টিকা ছাড়া কেউ রেস্টুরেন্টে খেতে পারবে না। খাওয়ার আগে তাকে টিকার সার্টিফিকেট দেখাতে হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, সার্টিফিকেট দেখানোর পর হোটেল কর্তৃপক্ষ তাকে এন্টারটেইন করবে। তানা হলে হোটেল মালিককেও জরিমানা দিতে হবে। এ বিষয়ে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলেও তিনি জানান।

সোমবার (৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সচিবালয়ে মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন’ ইস্যুতে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক শেষে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এ মুহূর্তে লকডাউনের কথা ভাবছে না সরকার। কারণ এখনো লকডাউন দেয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি।

মন্ত্রী বলেন, করোনা ও ওমিক্রন ঠেকাতে যে ধরণের পদক্ষেপ নেয়া উচিত সে সব বিষয়ে জোর দেয়া হবে।

গণপরিবহনে যাত্রী চলাচলের ক্ষেত্রে নির্ধারিত আসনের চেয়ে কম যাত্রী পরিবহনের বিষয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে টিকা নেয়ার বিষয়ে অনেক ঢিলেঢালা মনোভাব দেখা যাচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়টি আরও জোরদার করা হবে। তার জন্য আমরা পদক্ষেপ গ্রহণ করব।

এর আগে, সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে এ বৈঠক শুরু হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল প্রধান অতিথি হিসেবে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। মন্ত্রীপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর