আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম

‘দেশ স্বাধীনের দল আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী’

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ জুন 20২২ | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রতিষ্ঠার পর থেকে বেশির ভাগ সময়ই কেটে গেছে লড়াই আর সংগ্রামে। হত্যা, ষড়যন্ত্র- সবই দেখেছে দলটি। এরইমধ্যে ৭৩ বছর পূর্ণ করলো আওয়ামী লীগ নামক দলটি। ১৯৪৯ সালের ২৩শে জুন জন্ম নেয়া দলটির ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ। ৭৪ বছরে পা দিলো টানা তৃতীয় মেয়াদে রাষ্ট্রের ক্ষমতায় থাকা দলটি। মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতা অর্জনে নেতৃত্ব দেয় আওয়ামী লীগ। বঙ্গবন্ধু, আওয়ামী লীগ, বাংলাদেশ- ইতিহাসে এই তিনটি নাম একই সূত্রে গাঁথা।

পুরান ঢাকার কে এম দাস লেনের ঐতিহ্যবাহী রোজ গার্ডেনে আওয়ামী মুসলিম লীগ নামে এই দলের আত্মপ্রকাশ ঘটলেও পরে শুধু আওয়ামী লীগ নাম নিয়ে অসাম্প্রদায়িক সংগঠন হিসেবে বিকাশ লাভ করে। পরবর্তীকালে দেশের অন্যতম প্রাচীন এই দল প্রতিটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক ও সামাজিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে এ দেশের গণমানুষের সংগঠনে পরিণত হয়। প্রতিষ্ঠার শুরুতে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে ছিলেন মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী, হোসেন শহীদ সোহ্‌রাওয়ার্দী, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং শামসুল হক।

পকিস্তানের সামরিক শাসন, জুলুম, অত্যাচার-নির্যাতন ও শোষণের বিরুদ্ধে সব আন্দোলন- সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে দলটি। স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয় ও আওয়ামী লীগের ইতিহাস এক সূত্রে গাঁথা। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন, ১৯৫৪ এর যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন, আইয়ুবের সামরিক শাসনবিরোধী আন্দোলন, ১৯৬৪ এর দাঙ্গার পর সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠা, ১৯৬৬ এর ৬ দফা আন্দোলন ও ১৯৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানের পথ বেয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের ২৪ বছরের আপসহীন সংগ্রাম-লড়াই এবং ১৯৭১ সালের ৯ মাসের মুক্তিযুদ্ধ তথা সমগ্র জাতির জনযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা লাভ করে।

আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন বঙ্গবন্ধু সরকার স্বাধীনতার মাত্র সাড়ে তিন বছরের মাথায় যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশকে যখন অর্থনৈতিক মুক্তির পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল, তখনই স্বাধীনতাবিরোধী চক্র আন্তর্জাতিক শক্তির সহযোগিতায় ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে। তারপর জেলখানায় জাতীয় চার নেতাকে হত্যার মাধ্যমে সংগঠনটিকে নিশ্চিহ্ন করার অপচেষ্টা চালানো হয়। ১৯৮১ সালের ১৭ই মে আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরে আসেন এবং দুঃসময়ে আওয়ামী লীগের হাল ধরেন। এরপর থেকে তিনি শক্ত হাতে দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

একুশ বছর লড়াই সংগ্রামের মাধ্যমে ১৯৯৬ সালের ১২ই জুন নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জয়ী হয়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ফিরে আসে। মাঝে এক মেয়াদে ক্ষমতার বাইরে থাকা অবস্থায় শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। তিনি প্রাণে বেঁচে গেলেও দলের অনেক নেতাকর্মী হতাহত হন। ২০০১ ও ২০০৭ সালের ১১ই জানুয়ারির পর আরেক দফা বিপর্যয় কাটিয়ে ২০০৮ সালের ২৯শে ডিসেম্বর নির্বাচনে তিন চতুর্থাংশ আসনে বিজয়ী হয়ে আবারো রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব পায় দলটি। পরবর্তী সময়ে ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারি এবং ২০১৮ সালের ৩০শে ডিসেম্বর সাধারণ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ।

বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে মানবতার জননী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যুদ্ধবিধ্বস্ত একটি দেশ থেকে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা হতে যাচ্ছে যা মোটেও সহজ কাজ নয়। এসব একমাত্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বের কারণে সম্ভব হচ্ছে।

সরকারি বেসরকারি মিলিয়ে স্বাস্থ্য খাতে বাংলাদেশের ব্যাপক ইতিবাচক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। সারা দেশে প্রায় ১৮ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিক এবং ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে গ্রামীণ নারী-শিশুসহ সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে বিনামূল্যে ৩০ ধরনের ওষুধ দেয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্যসেবার সম্প্রসারণ এবং গুণগত মানোন্নয়নের ফলে মানুষের গড় আয়ু বর্তমানে প্রায় ৭৩ বছরে উন্নীত হয়েছে, মহিলা ও শিশু মৃত্যু হার কমেছে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের তুলনায় অপেক্ষাকৃত কম খরচে মৌলিক চিকিৎসা চাহিদা পূরণ, সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল, অসংক্রামক রোগসমূহের নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে ব্যাপক উদ্যোগ, পুষ্টি উন্নয়ন, স্বাস্থ্যসূচকসমূহের ব্যাপক অগ্রগতিতে স্বাস্থ্য অবকাঠামো খাতে অভূতপূর্ব অর্জন বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়েছে বহুদূর। 

দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা, এমডিজি অর্জন, এসডিজি বাস্তবায়নসহ শিক্ষা, স্বাস্থ্য, লিঙ্গসমতা, কৃষি দারিদ্র্যসীমা হ্রাস, গড় আয়ু বৃদ্ধি, রপ্তানিমুখী শিল্পায়ন এবং বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা, পোশাক শিল্প, ওষুধ শিল্প, রপ্তানি আয় বৃদ্ধিসহ নানা অর্থনৈতিক সূচক বৃদ্ধি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দূরদৃষ্টি ও পরিশ্রমের ফসল। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঠিক পরিকল্পনা ও দিকনির্দেশনায় বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ এর করাল গ্রাস থেকে দেশের আপামর মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বিশাল অবকাশ রেখেছে। এ ছাড়া চলমান রয়েছে- পদ্মা সেতু, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র, পায়রা গভীর সমুদ্রবন্দর, ঢাকা মেট্রোরেলসহ দেশের মেগা প্রকল্পসমূহ।

১৯৮১ সালের ১৭ই মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দুঃসাহসী সিদ্ধান্তের কারণেই আওয়ামী লীগ আজ দল হিসেবে অনেক বেশি শক্তিশালী। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে ১৯৯৬ থেকে ২০০১ এবং ২০০৯ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ১৭ বছরের অধিক সময় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। বাংলাদেশে এর আগে কেউ এত বছর সরকার প্রধান হিসেবে দেশ পরিচালনা করতে পারেননি। এর বাইরে ১১ বছরেরও বেশি সময় তিনি ছিলেন জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর প্রায় ৩০ বছর ক্ষমতার বাইরে থাকা দলটি আজ আপনার নেতৃত্বে সামরিক শাসনের স্মৃতি পেছনে ফেলে দেশকে বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে শিখেছে। আপনার দেশে ফেরার সিদ্ধান্ত দল হিসেবে আওয়ামী লীগকে, জাতি হিসেবে বাঙালিকে এবং দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে নিয়ে গেছে এক ভিন্ন উচ্চতায়। আওয়ামী লীগের সর্বমোট ২১ বছরের শাসনামলে দেশের আর্থ-সামাজিক  উন্নয়ন দেশ-বিদেশে আলোচিত হয়েছে। মানুষের মাথাপিছু আয় বর্তমানে ২২২৭ মার্কিন ডলার এবং বৈদেশিক রিজার্ভ রেকর্ড পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়ে প্রায় ৪৫ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত হয়েছে। বড় বড় উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। মহাকাশে নিজস্ব স্যাটেলাইট স্থাপিত হয়েছে। কৃষি ও খাদ্য উৎপাদনে সাফল্য এসেছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং জঙ্গি দমনে সাফল্য সারা বিশ্বে আলোচিত। উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত থাকুক আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে এই প্রত্যাশা কামনা করি।

লেখক: ভিসি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।

নিউজ ট্যাগ: আওয়ামী লীগ

আরও খবর



ঢাকায় নিয়োগ দেবে মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ | ৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জনবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছ মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ। প্রতিষ্ঠানটিতে সিনিয়র এক্সিকিউটিভ/ এক্সিকিউটিভ’ পদে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী যোগ্য প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

পদের নাম:

সিনিয়র এক্সিকিউটিভ / এক্সিকিউটিভ (অ্যাকাউন্টস শিপিং)।

শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা:

স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে হিসাবরক্ষণ অথবা ফাইন্যান্স বিষয়ে এমবিএ অথবা স্নাতকোত্তর পাস প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। সিএ (সিসি) সার্টিফাইড প্রার্থীরা অগ্রাধিকার পাবেন। পদ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কমপক্ষে তিন বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। মাইক্রোসফট অফিসে অভিজ্ঞতা ও উপস্থাপন দক্ষতা থাকতে হবে।

কর্মস্থল:

ঢাকা।

বেতন:

আলোচনা সাপেক্ষে।

আবেদন প্রক্রিয়া:

আগ্রহী প্রার্থীরা বিডিজবস অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ তারিখ:

২ জুলাই, ২০২২।

নিউজ ট্যাগ: চাকরির খবর

আরও খবর



রাজধানীতে ‘বেটার টু গেদার ফোরাম’ এর সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ জুন ২০২২ | ৩১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সারা বিশ্ব এখন প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে পড়েছে, বিশ্ব যেভাবে এগিয়ে চলেছে তার সাথে সামঞ্জস্য মিলিয়ে না চলতে পারলে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অনেক পিছিয়ে যাবে। এজন্য এখনই থেকেই এর সুফল পেতে  সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা ও সঠিকভাবে এগিয়ে যাওয়া উচিত। সে লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার ক্ষেত্রে ডাচ গবেষণা ভিত্তিক পাবলিসারস এলসেভিয়ার এর একাডেমিক এবং গবেষণা মূলক কার্যক্রমকে কাজে লাগতে  বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি-লাইব্রেরিয়ান সহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) রাজধানীর দি ওয়েষ্টিনে এলসিভিয়ার আয়োজিত  "বেটার টু গেদার ফোরাম" অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান তিনি।

সঞ্চলনায় ডিজিটাল রিসোর্স  ই-বুকস এবং জার্নালের গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য প্রযুক্তি ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ড. কাজী মুহাইমিন-আস-সাকিব। আরো বক্তব্য রাখেন বুয়েটের ভিসি প্রফেসর সত্য প্রসাদ মজুমদারসহ আরো অনেকে।

অনুষ্ঠানে মিঃ নীতিন রাওয়াত -রিজিওনাল ম্যানেজার দক্ষিণ এশিয়া, অর্ণব কুমার ডে সিনিয়র সলিউশন ম্যানেজার, মনীশ  সিনিয়র মার্কেটিং ম্যানেজার, বিশাল গুপ্ত সিনিয়র কাস্টমার কনসালটেন্ট এবং ফারাহা সিদ্দিক- অ্যাকাউন্ট ম্যানেজার সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি-লাইব্রেরিয়ানসহ  সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রের বিশিষ্ট শিক্ষক ও পেশাজীবীগণ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



রাজশাহীতে অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩১ মে ২০২২ | ৪৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহীতে পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত এক কর্মকর্তার স্ত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের নাম নাজমা ইসলাম (৫৮)। তিনি অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার নুরুল ইসলামের স্ত্রী। চন্দ্রিমা আবাসিক এলাকায় নিজ বাড়িতে তারা বসবাস করেন।

সোমবার (৩০ মে) দুপুরে নগরীর চন্দ্রিমা আবাসিক এলাকার বাসার শয়নকক্ষে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

পরিবারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, চন্দ্রিমা আবাসিক এলাকার ৪নং রোডের একটি বাড়িতে সপরিবারে বসবাস করতেন অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার নুরুল ইসলাম। সোমবার তিনি বাড়ির বাইরে যান। দুপুর আনুমানিক দুটার দিকে তিনি বাড়িতে ফিরে দেখেন বেডরুমের ফ্যানের সঙ্গে তার স্ত্রী ঝুলছে। পরে তিনি পুলিশে খবর দেন।

চন্দ্রিমা থানার ওসি এমরান হোসেন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার মর্গে পাঠায়। তবে পুলিশ পৌঁছার আগেই বাড়ির নিচতলার ভাড়াটেদের সহযোগিতায় লাশ নামানো হয়। বিষয়টি আত্মহত্যা নাকি হত্যা, তা নিশ্চিতের জন্য লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রামেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



সীতাকুণ্ডে ডিপোতে বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৫ জুন ২০২২ | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এ ঘটনায় আজ রোববার বিকেল সাড়ে ৫টায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৪৯ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এ ছাড়া দগ্ধ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন চার শতাধিক। তাদের মধ্যে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীও রয়েছেন। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট। তাদের সঙ্গে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২৫০ জন সদস্য।

নিহতদের মধ্যে এ পর্যন্ত সাতজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন কুমিরা ফায়ার স্টেশনের নার্সিং অ্যান্টেনডেন্টস মো. মনিরুজ্জামান (৩২), নোয়াখালী চাটকিল উপজেলার আব্দুর রশিদের ছেলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মী আলা উদ্দিন (৩৫), বাঁশাখালী উপজেলার চনুয়া ইউনিয়নের মধুখালী গ্রামের বাসিন্দা মমিনুল হক (২৪), একই উপজেলার চারিয়ার নাপুরা এলাকার মাহমুদুর রহমানের ছেলে মো. মহিউদ্দীন (২৪), ভোলা জেলার হাবিবুর রহমান (২৬), রবিউল আলম (১৯) ও ডিপোর ফ্রক অপারেটর বাশখালীর নাপোড়া এলাকার হাসান আলীর ছেলে তোফায়েল আহমেদ (২২)। ।

এর আগে গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দগ্ধ ৬০-৭০ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রোববার সকালের দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হলো। দগ্ধদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, ডিপোতে আমদানি-রপ্তানির বিভিন্ন মালামালবাহী কনটেইনার ছিল। ডিপোর কনটেইনারে রাসায়নিক ছিল। এজন্য আগুন লাগার পর দ্রুত চারদিকে ছড়িয়ে পড়ায় হতাহত বেশি হয়েছে। চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শামীম আহসান বলেন, মরদেহগুলো হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।

চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক নিউটন দাশ বলেন, বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সব ইউনিটে সেখানে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। এখনো আগুন নিয়ন্ত্রণে না আসায় চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন জানান, আগুন নেভাতে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচজন কর্মী নিহত ও আহত হন ২১ জন। এ ছাড়াও অনেকেই নিখোঁজ রয়েছেন।

এদিকে, ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. আশরাফ উদ্দিন জানান, অগ্নিকাণ্ডে নিহত প্রত্যেক পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা ও আহতদের ২০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে।


আরও খবর



পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা: আহত ২

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ জুন ২০২২ | ২৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে দুই যুবক গুরুতর আহত হয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। রোববার (২৬ জুন) রাতে সেতুর ২৭ ও ২৮ নম্বর পিলারের মাঝামাঝি এ দুর্ঘটনা ঘটে। তবে আহত দুই যুবকের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

উদ্বোধনের একদিনের মাথায় সেতুটিতে প্রথম এই দুর্ঘটনা ঘটলো। রোববার (২৬ জুন) ভোর থেকেই সেতুটি যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়।

জানা গেছে, যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করার প্রথম দিনেই হাজারো বাইকারের আগমন ঘটে পদ্মা সেতুতে। দ্রুত গতিতে বাইক চালাতে গিয়ে দুটি বাইক দুর্ঘটনার শিকার হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, আহতাবস্থায় সেতুর ওপর শুয়ে কাতরাচ্ছেন দুই যুবক। রক্ত গড়িয়ে পড়ছে শরীর থেকে।

মুন্সিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব জানান, সেতুতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুইজন আহত হয়েছে বলে জেনেছি। এ বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।


আরও খবর