আজঃ শনিবার ১৫ জুন ২০২৪
শিরোনাম

দুর্যোগে সহযোগিতার নামে ফটোসেশন করে বিএনপি : কাদের

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

দুর্যোগে সহযোগিতার নামে বিএনপির নেতাকর্মীরা ফটোসেশন করে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (২৭ মে) দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে জনপ্রতিনিধিসহ দলীয় নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ক্ষয়ক্ষতির ব্যাপারে এখনো পুরোপুরি বিবরণ জানা যায়নি। তবে গণমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী এখন পর্যন্ত ছয়জনের মৃত্যু নিশ্চিত হওয়া গেছে। নিহতদের স্বজনদের প্রতি শোক জানিয়ে তিনি বলেন, দলের সংশ্লিষ্ট সাংগঠনিক ইউনিটগুলো ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে যাবে।

বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, বিএনপির কথা বলি, একটি বিরোধী রাজনৈতিক দল হিসেবে দায়িত্ব পালনে তারা বারবার ব্যর্থ হয়েছে। তারা সহযোগিতার নামে ফটোসেশন করে। তারা কোনো দুর্যোগে মানুষের পাশে দাঁড়ায় না। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রোজার মাসেও আমরা সাধারণ মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ করেছি আর তারা ইফতার পার্টি করেছে। বিএনপির সঙ্গে আমাদের নীতিগতভাবেই অনেক পার্থক্য আছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উপকূলবর্তী এলাকায় জলোচ্ছ্বাস হয়েছে অনেক বেশি। বেড়িবাঁধ ভেঙেছে। ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। বৈদ্যুতিক লাইন, রাস্তাঘাট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অনেক এলাকা এখনো পানির নিচে। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নগদ অর্থ দিতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, মির্জা আজম, এস এম কামাল হোসেন, সুজিত রায় নন্দী, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, প্রচার ও প্রকাশনাবিষয়ক আব্দুস সোবহান গোলাপ, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণবিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ।


আরও খবর



আনোয়ারায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ২

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মো.আমজাদ হোসেন, আনোয়ারা

Image

আনোয়ারা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সাথে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অপর প্রার্থীর দুই সমর্থক মোঃ মামুন ও জাহিদ হাসান মির্জা আহত হয়।

বুধবার সকাল ১০ টায় উপজেলার বরুমচড়া ইউনিয়নের আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সকাল ৮ টা থেকে উপজেলা ৭৪টি কেন্দ্রে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিটি কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত হয়। কিন্তু ভোট পড়েছে কম। এদিকে সুন্দরভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হলেও সকাল দশটায় বরুমচড়া আখতারুজ্জামান ভোট কেন্দ্রে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ভোট গ্রহণের কিছুক্ষণ বিঘ্ন ঘটলেও পরে ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে ৬ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।এ উপজেলায় ১১টি ইউনিয়নের ৭৪টি ভোট কেন্দ্রে ব্যালেট পেপারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ উপজেলায় ২ লাখ ৩৩ হাজার ১০৯ জন ভোটার সংখ্যা রয়েছে। এরমধ্যে ১ লাখ ২৩ হাজার ৮৮৮জন পুরুষ এবং ১ লাখ ৯ হাজার ২২১জন মহিলা ভোটার।


আরও খবর



উপজেলা নির্বাচন

চতুর্থ ধাপে ভোট পড়েছে ৩৪.৩৩ শতাংশ: সিইসি

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ ধাপে ৬০ উপজেলায় ৩৪ দশমিক ৩৩ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

বুধবার (৫ জুন) রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।

সিইসি বলেন, ৬০ উপজেলায় ভোট হয়েছে। ভোট শান্তিপূর্ণ হয়েছে। কিছু ইন্সিডেন্ট হয়েছে। এ জন্য ২৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছি, ৯ জনকে বিভিন্ন অপরাধে দণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ব্যালটবাক্স ছিনতাইয়ের ঘটনায় ভৈরব উপজেলায় ভোট স্থগিত করা হয়েছে। বরিশালে সংঘর্ষে ৫ জন আহত হয়েছেন। তবে ইভিএমে ভালো কাজ হয়েছে।

সিইসি বলেন, ভোট নিয়ে কমিশন সন্তুষ্ট। কারণ এবারের উপজেলা নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে। বড় ধরনের কোনও সহিংসতা নেই।

এর আগে সকাল ৮টা থেকে দেশের ৬০ উপজেলার ৫ হাজার ১৪৪টি ভোটকেন্দ্রে চতুর্থ ধাপের ভোটগ্রহণ শুরু হয়। এর মধ্যে ছয়টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) এবং বাকিগুলোতে ব্যালটে ভোট হয়।


আরও খবর



তৃতীয় ধাপে ৮৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ শুরু

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে দেশের ৮৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া এ ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে ইতোমধ্যে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এ লক্ষ্যে এক লাখ ৪০ হাজার ৮৬১ জন সদস্য মোতায়েন করেছে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী। এছাড়া সারাদেশে ৩০০ প্লাটুন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) মোতায়েন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ মে) সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ইসি আলমগীর বলেন, এক শতাংশ ভোট পড়লেও কোনো অসুবিধা নেই। ভোটার যা আসবে তাই। আমাদের কঠোর নির্দেশ যে ভোটার যদি একজন আসেন একজনই দেখাতে হবে। ৫০ জন আসলে ৫০ জনই দেখাতে হবে। কেউ যদি বেশি দেখায় আমরা তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেব।

এবার সাতটি জেলার ১৬টি উপজেলায় ভোট গ্রহণ হচ্ছে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে। এসব উপজেলায় মোট ১ হাজার ১৫২ জন প্রার্থী। ভোটার ২ কোটি ৮ লাখ ৭৫ হাজার ১৮৪ জন। ভোটের একদিন আগে তিনটি এবং দুদিন আগে ১৯টি উপজেলাসহ ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে ২২টি উপজেলার ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়। নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্রে এসব তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ভোটের একদিন আগে স্থগিত হওয়া তিনটি উপজেলা হচ্ছে নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুরী এবং চাঁদপুর জেলার কচুয়া ও ফরিদগঞ্জ উপজেলা। খালিয়াজুরী উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়া এবং কচুয়া ও ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ইভিএমের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এর আগে গতকাল রিমালের প্রভাবে ১৯টি উপজেলার ভোট স্থগিত করা হয়। তার আগে মামলাজনিত কারণে যশোর সদর উপজেলা ও একজন প্রার্থীর মৃত্যুজনিত কারণে রায়পুর উপজেলার নির্বাচন স্থগিত করা হয়। অন্যদিকে সব পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় ভাণ্ডারিয়া উপজেলায় ভোট গ্রহণের প্রয়োজন নেই। ফলে তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে ঘোষিত তফসিলের ১১২টি উপজেলার মধ্যে ২৫টি উপজেলায় ভোট গ্রহণ হচ্ছে না।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, ৮৭টি উপজেলায় ৩৯৭ জন চেয়ারম্যান, ৪৫৬ জন ভাইস চেয়ারম্যান ও ২৯৯ জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। তৃতীয় ধাপে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন চেয়ারম্যান একজন, ভাইস চেয়ারম্যান চারজন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাতজন।


আরও খবর



হলফনামায় যে পরিমাণ সম্পত্তি দেখালেন কঙ্গনা রানাওয়াত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

বলিউডের অন্যতম অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। রিল থেকে রিয়েল লাইফে বেশ আলোচিত। ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল বিজেপির কড়া সমর্থক তিনি।

এবার হিমাচল প্রদেশের মান্ডি লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী হয়েছেন কঙ্গনা। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পরেই সম্পত্তির পরিমাণ নিয়ে ভক্তদের মাঝে শুরু হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা।

কঙ্গনা হলফনামায় জানিয়েছে, তার বাড়ি-গাড়ি থেকে শুরু করে প্রায় ৯১ কোটি টাকা হয়েছে। পাশাপাশি প্রায় ১৭ কোটি টাকার দেনা রয়েছে এ অভিনেত্রীর।

হলফনামা থেকে জানা যায়, মুম্বাইয়ে তিনটি বাড়িসহ প্রযোজনা সংস্থা রয়েছে। একটি বাংলো রয়েছে, যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ১৫ কোটি টাকা। কয়েক বছর আগে জন্মভূমি মানালিতে একটি বাড়ি বানিয়েছে যার বাজারমূল্যও প্রায় ১৬ কোটি টাকা। চণ্ডীগড়ে বেশ কিছু সম্পত্তি রয়েছে।

এছাড়া কঙ্গনার প্রায় সাড়ে ৬ কেজি গয়না রয়েছে। এবং রুপো রয়েছে ৬০ কেজির মতো। যার মূল্য প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা। ব্যাংকে রয়েছে  ১.৩২ কোটি টাকা। অভিনেত্রীর বেশ কিছু বিলাসবহুল গাড়ি রয়েছে, সঙ্গে একটি স্কুটারও আছে। ২০২২-২০২৩ অর্থ-বছরে অভিনেত্রীর বার্ষিক আয় ছিল ৪ কোটি।

উল্লেখ্য, কঙ্গনা রানাওয়াত তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং চারবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার পেয়েছেন। পাঁচবার ফোর্বস ইন্ডিয়ার সেরা ১০০ সেলিব্রিটির তালিকায় জায়গা পেয়েছেন তিনি। ২০১৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত কুইন ছবিতে অসাধারণ অভিনয়ের জন্য তাকে বলিউডের রানি বলা হয়। বিভিন্ন সময় বির্তকের কারণে সংবাদ শিরোনামে এসেছেন তিনি।


আরও খবর



নীলফামারীতে নির্বাচনী সরঞ্জাম বিতরণ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জুয়েল বসুনীয়া, নীলফামারী

Image

নীলফামারী সদর উপজেলা পরিষদে তৃতীয় ধাপে আগামীকাল ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ভোটগ্রহণের জন্য উপজেলার ১৫ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার মোট ১৪১ টি কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে ভোটগ্রহণের ভোট বাক্সসহ অন্যান্য সামগ্রী।

মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটায় সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্য়ালয়ের সামনে থেকে বিতরণ কার্য়ক্রমের উদ্বোধন করেন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেদী হাসান। এসময় সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সামসুল আজম ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তানভিরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। 

আগামীকাল বুধবার ভোর রাত চারটায় এসব কেন্দ্রে ব্যালট পেপার সরবরাহ করা হবে এবং সকাল আটটা থেকে বিকাল ৪:০০ টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে চলবে ভোটগ্রহণ জানান সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা। এছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রে ও বাহিরে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সক্রিয় ভূমিকা পালন করবে। যাহাতে কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে।

নিউজ ট্যাগ: নীলফামারী

আরও খবর