আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

বিএনপির নেতাদের আন্দোলনের দম ফুরিয়ে গেছে: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিএনপির আন্দোলনের হাট ভেঙে গেছে, নেতাদের দম ফুরিয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর মোহাম্মদপুর টাউন হল চত্বরে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত শান্তি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ সব কথা বলেন।

ড. হাছান বলেন, আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে তারা ড. ইউনূসের ওপর ভর করেছিল। বিভিন্ন সময় বিভিন্নজনের ওপর ভর করা বিএনপি যে কখন কবিরাজদের কাছে যায়, সেটাই দেখার বিষয়।

শান্তি সমাবেশ আয়োজনের কারণ তুলে ধরে সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, বিএনপি তাদের মিত্রদের নিয়ে দেশে অশান্তি-বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চায়। তারা আবার ২০১৩, ১৪, ১৫ সালের মতো আগুনসন্ত্রাস, মানুষ ও গাড়ি পোড়ানো, সহায়-সম্পত্তিতে আগুন দেওয়ার অজুহাত তৈরির জন্য আন্দোলন-আন্দোলন খেলা খেলছে। সে কারণে সরকারি দল হিসেবে আমাদের দায়িত্ব রয়েছে দেশে-সমাজে, শহরে-বন্দরে, গ্রামে-গঞ্জে কেউ যাতে শান্তি-শৃঙ্খলা-স্থিতি বিনষ্ট করতে না পারে সে জন্য জনগণের পাশে থাকার। এ জন্যই আমাদের শান্তি সমাবেশ।

হাছান মাহমুদ বলেন, গত ডিসেম্বরে বিএনপি নয়াপল্টনে তাদের পার্টি অফিসের সামনের রাস্তায় সমাবেশের গোঁ ধরেছিল, রাস্তায় নাশকতা শুরু করেছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বদান্যতায় গুলশানের বাসায় থাকা দণ্ডিত বেগম খালেদা জিয়ার নির্দেশেই নাকি ১০ ডিসেম্বর থেকে দেশ চলবে বলেছিল। এরপর তাদের অফিস থেকে পুলিশ তাজা বোমা, দুই লাখের বেশি পানির বোতল, বস্তা বস্তা চাল-ডাল উদ্ধারের পর তারা গেল গোলাপবাগ গরুর হাটে সমাবেশ করতে। তারপর থেকে তারা বিদেশিদের কাছে ধর্ণা দেয় আর প্রতি মাসেই বলে আওয়ামী লীগের দিন নাকি শেষ। এই করতে করতে তাদের আন্দোলনের হাট এখন ভেঙে গেছে, মির্জা ফখরুল সাহেবসহ নেতাদের দম ফুরিয়ে গেছে। কিন্তু ষড়যন্ত্র থামেনি, নির্বাচন ভন্ডুলের চক্রান্ত থামেনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, মির্জা ফখরুল সাহেব বলেছেন তিনি গ্রেপ্তারের আশংকায় আছেন। আমরা কাউকে গ্রেপ্তার করতে চাই না। কিন্তু চোরের মনে পুলিশ পুলিশ। তিনি যদি নাশকতা, হামলা বা কোনো অপরাধের পরিকল্পনা করেন, তাহলে নিজেই আশংকা করতে পারেন। কারণ আমরা গ্রেপ্তার করতে না চাইলেও অপরাধের পরিকল্পনাকারী ও অপরাধীদের পুলিশ ছেড়ে দেবে না।

এ সব কারণে নেতা-কর্মীদের সতর্ক থাকতে হবে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, দেশের ও মানুষের যে উন্নয়ন হয়েছে, তাতে আগামী নির্বাচনেও ইনশাআল্লাহ বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা জনগণের ভোটে ধস নামানো বিজয় অর্জন করে পরপর চতুর্থবার এবং শুরু থেকে পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হবেন। আমরা আওয়ামী লীগ রাজপথের দল, রাজপথে ছিলাম, আছি, থাকবো।

মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ এম এ সাত্তারের সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের মধ্যে দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সহসভাপতি সাদেক খান এমপি, সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক রানা সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন।


আরও খবর



কারাগার থেকে ইমরান খানের হুঁশিয়ারি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

চুরি করা ভোট নিয়ে সরকার গঠনের দুঃসাহসিকতার বিরুদ্ধে কারাগার থেকে পাঠানো বার্তায় হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইমরান খান।

ডনের খবর অনুসারে, পিটিআই প্রতিষ্ঠাতা ইমরান খান তার পরিবারের মাধ্যমে কারাগার থেকে এক বার্তায় পিটিআইকে দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্পণ করার জন্য পাকিস্তানের জনগণকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

তিনি পিটিআইয়ের সোশ্যাল মিডিয়ার প্রশংসা করেন এবং হয়রানি ও হুমকির মুখে ফর্ম -৪৫ পাওয়ার জন্য পোলিং এজেন্টদেরও প্রশংসা করেন।

ইমরান খান বলেন, পাকিস্তানের জনগণ তাদের রায় স্পষ্টভাবে ঘোষণা করেছে। পাকিস্তানের নির্বাচনে গণতন্ত্র ও নিরপেক্ষতার ভীষণ প্রয়োজন রয়েছে। ভোট চুরি করে সরকার গঠনের দুঃসাহসিকতার বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করছি। এ ধরনের দিবালোকে ডাকাতি শুধু নাগরিকদের প্রতি অসম্মান নয়, দেশের অর্থনীতিকে আরও নিম্নগামী দিকে ঠেলে দেবে।

তিনি বলেন, পিটিআই কখনোই জনগণের ইচ্ছার সঙ্গে আপস করবে না। আমি আমার দলকে স্পষ্টভাবে নির্দেশ দিয়েছি যে পিপিপি, পিএমএলএন এবং এমকিউএমসহ জনগণের ম্যান্ডেট ছিনতাই করেছে এমন কোনও রাজনৈতিক দলের সাথে জড়িত না হয়।


আরও খবর



চট্টগ্রামে এমবিবিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষায় সিএমপি ট্রাফিকের নির্দেশনা

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

Image

আগামী ০৯ ফেব্রুয়ারি (শুক্রবার) সকাল ১০টা হতে ১১ টা পর্যন্ত ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাস, চট্টগ্রাম কলেজ এবং ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত কেন্দ্রসমূহে পরীক্ষা চলাকালীন সুষ্ঠু ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার নগরীর সড়কে রাস্তায় রোড ব্যারিয়ার স্থাপনের মাধ্যমে সকল ধরনের যানবাহন চলাচল সাময়িকভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

বুধবার সকালে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (পিআর) স্পিনা রাণী প্রামাণিক।

সড়কসমূহ হলো- নগরীর অলিখাঁ মোড় হতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ সড়ক, কেয়ারির মোড় হতে চট্টগ্রাম কলেজ সড়ক, গণি বেকারি হতে চট্টগ্রাম কলেজ সড়ক, প্যারেড গ্রাউন্ড উত্তর-পূর্ব কর্ণার হতে কেয়ারি সড়ক, প্রবর্তক মোড় হতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ সড়ক।

এতে পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্রভিত্তিক সুবিধাজনক স্থান গণি বেকারি, কেয়ারি মোড়, প্যারেড গ্রাউন্ডের উত্তর-পূর্ব কর্ণার, অলিখাঁ মোড় ও প্রবর্তক মোড়সমূহকে ড্রপিং পয়েন্ট হিসেবে ব্যবহার করবে।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা/চিকিৎসক, পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, রোগী পরিবাহী এ্যাম্বুলেন্স এবং জরুরি রোগী পরিবাহী অন্যান্য যানবাহন অত্র ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনার আওতামুক্ত থাকবে।

অন্যান্য যানবাহনের ক্ষেত্রে পরীক্ষা কেন্দ্রসমূহের সম্মুখ রাস্তা ও আশ-পাশের সড়ক এবং রোড ব্যারিয়ার স্থাপনকৃত পয়েন্টগুলো যথাসম্ভব এড়িয়ে বিকল্প সড়ক ব্যবহারের জন্যে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। 

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু ও নিরবিচ্ছিন্নভাবে সম্পন্নের লক্ষ্যে সিএমপির ট্রাফিক বিভাগ নগরবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রত্যাশা করছে।

নিউজ ট্যাগ: চট্টগ্রাম

আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




পাকিস্তানে নির্বাচনী প্রচারণার সময় স্বতন্ত্র প্রার্থীকে গুলি করে হত্যা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়ার বাজাউর জেলার সিদ্দিকাবাদ এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণার সময় একজন স্বতন্ত্র প্রার্থীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। নিহত ওই স্বতন্ত্র প্রার্থীর নাম রেহান জেব খান।

বুধবার (৩১ জানুয়ারি) দেশটির পুলিশ এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বেলুচিস্তানের সিবিতে পিটিআইয়ের একটি সমাবেশে বোমা বিস্ফোরণে চারজন নিহত এবং ছয়জন আহত হওয়ার একদিন পর এ ঘটনা ঘটল।

খার থানার হাউস অফিসার (এসএইচও) রাশেদ খান বলেছেন, রেহান জেব খান এলাকায় প্রচার করছিলেন যখন অজ্ঞাত সশস্ত্র ব্যক্তিরা তার গাড়িতে গুলি চালায়। রেহানকে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। হামলায় আরও চারজন আহত হন।

বাজাউর জেলা পুলিশ অফিসার কাশিফ জুলফিকার ডন ডটকমকে বলেছেন, ঘটনাটি টার্গেটেড কিলিং বলে মনে হচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এলাকায় তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে।

এদিকে, পিটিআই রেহান হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পিটিআইয়ের সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রার্থীদের জনসমাবেশকে সন্ত্রাসী হামলার লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছে। যা নির্বাচনের নিরপেক্ষতার বিষয়টিকে মারাত্মকভাবে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। সিবিতে পিটিআই-এর নির্বাচনী সমাবেশে হামলার পর, স্বতন্ত্র প্রার্থীকে হত্যার দায় অযোগ্য তত্ত্বাবধায়ক সরকার কোনোভাবেই এড়াতে পারে না। 

আরও পড়ুন>> কোকেনের মামলায় তিন আফ্রিকানসহ ৫ জন রিমান্ডে

সম্প্রতি পাকিস্তানের বেলুচিস্তান ও খাইবার পাখতুনখাওয়ায় সন্ত্রাসী হামলার সংখ্যা বেড়েছে উল্লেখযোগ্য হারে। আসন্ন নির্বাচনকে ঘিরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে। বিশেষ করে উল্লেখিত প্রদেশে। এতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছেন ভোটাররা।

এদিকে সাইফার মামলায় ১০ বছরের কারাদণ্ড পাওয়ার পরদিনই আরও বড় দুঃসংবাদ পেলেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এবার তোশাখানা মামলায় তাকে ও তার স্ত্রী বুশরা বিবিকে ১৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন পাকিস্তানের একটি আদালত।

এর আগে, গত মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা আইন লঙ্ঘন, তথা সাইফার মামলায় ইমরান খান ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশিকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত।

নির্বাচনের মাত্র সপ্তাহখানেক আগে ইমরানের বিরুদ্ধে এমন রায় দিলেন পাকিস্তানি আদালত। ব্যাপক চাপের মধ্যেও নির্বাচনী আইকনিক ব্যাট প্রতীক ছাড়াই এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)।

নিউজ ট্যাগ: গুলি করে হত্যা

আরও খবর



পঞ্চগড়-দিনাজপুরে তাপমাত্র নামল ৫.৫ ডিগ্রিতে

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার কবলে পড়েছে দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড় ও দিনাজপুর। তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি নামায় সেখানে বইছে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ। ফলে ঘরবন্দি হয়ে পড়েছেন এই দুই জেলার মানুষ।

রবিবার সকাল ৬টায় পঞ্চগড়ে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। একই সময়ে দিনাজপুরেও রেকর্ড করা হয়েছে ৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা।

পঞ্চগড়ের প্রথম শ্রেণির আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাসেল শাহ তাপমাত্রা রেকর্ডের তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এটি চলতি মৌসুমের সর্বনিম্ন। এর আগে গত শুক্রবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

দিনাজপুরের আবহাওয়া অফিস বলছে, তাপমাত্রার পারদ নেমে যাওয়ায় জেলায় বেড়েছে শীতের তীব্রতা। এতে কনকনে শীতে জনজীবনে নেমে এসেছে জনদুর্ভোগ। চলমান শৈত্যপ্রবাহের কারণে দিনাজপুরের তাপমাত্রা ওঠানামা করলেও ১০ ডিগ্রির নিচে থাকছে প্রায়শই।

ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন রয়েছে সীমান্ত জনপদ পঞ্চগড়। কনকনে শীত, ঘন কুয়াশা আর হিমশীতল বাতাসে নাকাল সর্ব উত্তরের সীমান্ত জেলা পঞ্চগড়ের মানুষ। আঞ্চলিক সড়ক ও গ্রামীণ সড়কগুলোতে হেডলাইট জ্বালিয়ে চলতে হচ্ছে যানবাহনগুলোকে। শীতের তীব্রতায় জর্জরিত শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধরা। চরম দুর্ভোগে পড়েছে খেটে খাওয়া মানুষ। কাজকর্ম কমে যাওয়ায় অভাব অনটনের মধ্য দিয়ে কাটছে তাদের সংসার।

তেঁতুলিয়ায় বাতাসের গতিবেগ রয়েছে ঘণ্টায় ৩ থেকে ৫ কিলোমিটার এবং বাতাসে আর্দ্রতা ১০০ শতাংশ।

সামর্থ্যবান পরিবারের মানুষ বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হলেও জীবিকার তাগিদে বের হতে হচ্ছে নিম্ন আয়ের মানুষ। শীত উপেক্ষা করে কাজে বের হলেও তেমন কাজ পাচ্ছে না তারা।

এদিকে শীতের তীব্রতায় বাড়ছে নিউমোনিয়া, অ্যাজমা, হাঁপানি, শ্বাসকষ্ট ও ডায়রিয়াসহ শীতজনিত বিভিন্ন রোগ। জেলা ও উপজেলা সদরের হাসপাতালগুলোতে বেড়েছে রোগীর চাপ। স্থান সংকুলান না হওয়ায় হাসপাতালের আউটডোরে চিকিৎসা নিচ্ছেন অনেকে।


আরও খবর
সারা দেশে কমতে পারে রাতের তাপমাত্রা

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




চিৎকার করে ওঠায় গৃহবধূর চোখে-মুখে আঠা লাগায় চোর: পুলিশ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

চুরি করতে দেখে চিৎকার করে ওঠায় খুলনার পাইকগাছার গৃহবধূকে (৪৫) নির্যাতন এবং চোখে ও মুখে আঠা লাগিয়ে দিয়েছিল চোর ইমামুল ওরফে এনামুল। গ্রেপ্তারের পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে এনামুল এই তথ্য জানিয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে খুলনা জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান খুলনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুশান্ত সরকার। তিনি দাবি করেন, ইমামুল সংঘবদ্ধ চোর চক্রের সদস্য ও গৃহবধূকে নির্যাতনের ঘটনার মূল হোতা।

গত সোমবার খুলনার পাইকগাছা উপজেলার রাড়ুলি গ্রাম থেকে চোখ-মুখে আঠা লাগানো এবং অচেতন অবস্থায় এক গৃহবধুকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন স্বজনরা। ঘরের মালামাল লুট ও ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে চিকিৎসকদের জানিয়েছিলেন ওই নারীর স্বামী। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর ওই গৃহবধূর স্বামী বাদি হয়ে পাইকগাছা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার এজাহারে কারো নাম উল্লেখ করা হয়নি, সবাই অজ্ঞাত আসামি।

এ মামলায় পুলিশ এ পর্যন্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তারা হলেন- ইমামুল জোয়াদ্দার ওরফে এনামুল, আবদুস সামাদ, সুমন হালদার ও রাশিদা বেগম।

পুলিশের দাবি, এনামুল ধর্ষণ ও লুটের সঙ্গে জড়িত। তার মা রাশিদা বেগম লুট করা স্বর্ণ বিক্রি করেছিলেন। সুমন হালদার লুট করা স্বর্ণের ক্রেতা। এই তিন জনকে বৃহস্পতিবার রাতে বিভিন্ন স্থান থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া গত বুধবার ভোর রাতে আবদুস সামাদকে সন্দেহজনক ব্যক্তি হিসেবে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুশান্ত সরকার এনামুল জদ্দারের স্বীকারোক্তির বরাত দিয়ে বলেন, গত রোববার সন্ধ্যায় ওই গৃহবধূর বাড়ির পাশের বাগানে এনামুল নেশা করতে গিয়েছিলেন। বাড়িতে গৃহবধূকে একা দেখে এনামুল ঘরের সানসেট বেয়ে ছাদের উঠে সিড়ি দিয়ে ঘরে প্রবেশ করে। পরে খাবারে চেতনানাশক মিশিয়ে দিয়ে চলে যায়। পরবর্তীতে রাত ২ টার দিকে একইভাবে পুনরায় ঘরে প্রবেশ করে মূল্যবান জিনিসপত্র খোঁজাখুজি শুরু করে। তখন গৃহবধুর ঘুম ভেঙ্গে গেলে তাঁর পকেটে থাকা সুপারগ্লু বের করে গৃহবধুর চোখে এবং মুখে লাগিয়ে দেয়। এ সময় ওই গৃহবধূর সঙ্গে ইমামুলের ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। পরে  গৃহবধুর গোঙরানিতে পাশের বাড়ি থেকে সাড়া দেওয়ায় এনামুল কানের দুল ও মোবাইল নিয়ে পালিয়ে যায়।

 অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, পরবর্তীতে লুট করা কানের দুলটি ইমামুলের মা রাশিদা বেগমের মাধ্যমে চুকনগর স্বর্ণপট্টিতে মা জুয়েলার্স নামক দোকানে ৫ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়। যে কারণে এনামুলের মা ও দোকান মালিক সুমন হালদারকেও পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

তিনি জানান, এনামুলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় এ পর্যন্ত ৯টি মামলা দায়ের হয়েছে। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার দিকে তাকে পাইকগাছা পূর্বকাশিমনগর থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র ও এক রাউন্ড তাজা গুলিসহ আটক করা হয়ে। পরে জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ধর্ষণের ঘটনার কথা স্বীকার করেননি।

সুশান্ত সরকার বলেন, চূড়ান্ত মেডিকেল রিপোর্টে বোঝা যাবে ওই গৃহবধূ নির্যাতনের শিকার হয়েছেন কিনা। ধর্ষণ ও লুটের ঘটনায় আরও কেউ জড়িত আছে কি-না সে বিষয়ে বিস্তারিত তদন্ত চলছে। 


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪