আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

বেনজেমার জানা-অজানা

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করিম বেনজেমা দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন। ৩৪ বছর বয়সী ফুটবলার তার ক্লাব ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা মৌসুম কাটাচ্ছেন। চলতি মৌসুমে সব মিলিয়ে ৪৩ ম্যাচ খেলে ৪৩ গোল, তার মধ্যে ২৬টি লা লিগায় ও ১৫টি চ্যাম্পিয়নস লিগে। এমনকি ইউরোপ সেরার প্রতিযোগিতায় নকআউটে করেছেন দুটি হ্যাটট্রিক, পিএসজি ও চেলসির বিপক্ষে। দলকে ১৭তম ফাইনালে তোলায় রেখেছেন বড় অবদান। ক্যারিয়ারের নতুন উচ্চতায় যখন বেনজেমা, তখন তার ১০টি অজানা বিষয় নিয়ে কথা বলা যাক-

আলজেরিয়ার জার্সিতে খেলতে পারতেন: ১৯৮৭ সালের ১৯ ডিসেম্বর বেনজেমা জন্মগ্রহণ করেন আলজেরিয়ান পিতামাতা হাফিদ বেনজেমা ও ওয়াহিদা দেব্বারার ঘরে। জন্ম নেন ফ্রান্সের লিওঁ শহরে। আলজেরিয়ান বংশোদ্ভুত হওয়ায় জিনেদিন জিদানের মতো আফ্রিকান দেশটির জাতীয় দলের হয়ে খেলার সুযোগ থাকলেও সিদ্ধান্ত নেন ফ্রান্স জাতীয় দলের হয়ে খেলার।

এল ক্লাসিকো ইতিহাসে দ্রুততম গোল: ২০২১ সালের ১০ ডিসেম্বর করিম বেনজেমা এল ক্লাসিকোর ইতিহাসে দ্রুততম গোল করেন। কিক অফের ২১ সেকেন্ড যেতেই জাল কাঁপান তিনি। দুর্ভাগ্যবশত সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে অনুষ্ঠিত ম্যাচটি ৩-১ গোলে হেরে যায় রিয়াল মাদ্রিদ।

তার জীবন নিয়ে চলচ্চিত্র: ফ্লোরেন্ত বোদিন ও ড্যামিয়েন পিসকারেলের পরিচালনায় ২০১৭ সালে বেনজেমার জীবন নিয়ে মুক্তি পায় লু কে বেনজেমা নামের চলচ্চিত্র।

লিওঁর বল বয়: লিওঁর যুব দলে শুরু। বেনজেমা লিগ ওয়ান দলটির অ্যাকাডেমিতে যুক্ত হন ৮ বছর বয়সে এবং খেলেন তাদের অনূর্ধ্ব-১০ দলের হয়ে। লিওঁর যুব দলে থাকলেও এই ফরাসি ফরোয়ার্ড ক্লাবের বেশ কয়েকটি সিনিয়রদের ম্যাচে বল বয় হিসেবে কাজ করেছেন। পরে তার ক্যারিয়ারে লিওঁর সঙ্গে ফ্রান্সে সব ট্রফিই জিতেছেন, চারটি লিগ টাইটেলও আছে।

বেনজেমার দুই ভাইও ফুটবলে: লিওঁতে বড় হয়েছেন বেনজেমা। সাত ভাইবোন তার, পাঁচ বোন ও দুই ভাই (গ্রেসি ও সাবরি)। এই পরিবারের তিন ভাইয়ের প্রত্যেকে ফুটবলারের পথ বেছে নিয়েছেন। কিন্তু কেবল করিম বেনজেমা পেশাদারভাবে এটি বড় করে নিয়েছেন। গ্রেসি তার ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে খেলতেন ফ্রান্সের নিম্ন বিভাগগুলোতে। কিন্তু একাধিক ইনজুরিতে ২০১২ সালে অবসর নেন। সাবরি ফুটবল খেললেও পেশা হিসেবে নেননি, তবে তিনিও বুট তুলে রেখেছেন।

গিনেজ বিশ্ব রেকর্ডে তার নাম: ২০২১ সালে চলতি চ্যাম্পিয়নস লিগে শেরিফ টিরাস্পোলের বিপক্ষে নিজের প্রথম গোল করে লিওনেল মেসির সঙ্গে গিনেজ বিশ্ব রেকর্ডে নাম লিখেন বেনজেমা। দুজনেই রেকর্ড টানা ১৭ মৌসুম ধরে গোল করেছেন, সেই ২০০৫-০৬ মৌসুম থেকে।

ফ্রান্সের অনূর্ধ্ব-১৭ চ্যাম্পিয়ন দলের সদস্য: ২০০৪ সালে অনূর্ধ্ব-১৭ ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ফ্রান্সের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ ছিলেন বেনজেমা। ফাইনালে ২-১ গোলে স্পেনকে হারায় লু ব্লুস। সামির নাসরি ও হাতেম বেন আরফার মতো খেলোয়াড়রাও ছিলেন ওই দলে।

সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে সর্বোচ্চ গোল করা ফরাসি খেলোয়াড়: এই মৌসুমে বেশ কয়েকটি রেকর্ড ভেঙেছেন বেনজেমা। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য একটি হচ্ছে ফরাসি লিজেন্ড থিয়েরি অঁরির ক্যারিয়ার গোলকে পেছনে ফেলা। ক্লাব ও দেশের হয়ে বেনজেমার বর্তমান গোল ৪১৪টি। অঁরির চেয়ে তিনটি বেশি।

চ্যাম্পিয়নস লিগে হ্যাটট্রিক করা সবচেয়ে বয়স্ক খেলোয়াড়: ৩৪ বছর ও ১০৮ দিন বয়সী বেনজেমা চ্যাম্পিয়নস লিগের সবচেয়ে বয়স্ক খেলোয়াড় হিসেবে হ্যাটট্রিক করেছেন। চলতি মৌসুমে চেলসির বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ৩-১ গোলের জয়ে এই কীর্তি গড়েন তিনি। তারই জাতীয় দলের সতীর্থ অলিভিয়ের জিরুদের (৩৪ বছর ও ৮২ দিন) রেকর্ড ভেঙে দেন বেনজেমা।

রিয়ালের বিদেশি খেলোয়াড় হিসেবে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ: এখন পর্যন্ত সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে রিয়ালের হয়ে ৬০২ ম্যাচ খেলেছেন বেনজেমা। স্প্যানিশ জায়ান্টদের হয়ে কোনো বিদেশি খেলোয়াড়ের সর্বোচ্চ উপস্থিতি। বেনজেমার পর আছেন ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার মার্সেলো, তার ম্যাচ সংখ্যা ৫৪৫টি।

নিউজ ট্যাগ: করিম বেনজেমা

আরও খবর
৩৬৫ রানে অলআউট বাংলাদেশ

মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২




খুলনায় স্কুলছাত্র হত্যা : ১৭ জনের কারাদণ্ড

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনায় স্কুলছাত্র ফাহমিদ তানভীর রাজিন হত্যা মামলায় ১৭ আসামির প্রত্যেককে সাত বছর করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে খুলনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩-এর বিচারক আব্দুস সালাম খান এ রায় ঘোষণা করেন।

রায় ঘোষণার সময় ১৭ আসামির সবাই আদালতে উপস্থিত ছিলেন। এদের মধ্যে অপ্রাপ্ত বয়স্কদের শিশু সংশোধনাগারে পাঠানো হয়েছে।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন মঞ্জুরুল ইসলাম ওরফে সাব্বির হাওলাদার (১৬), বিএম মাজিব হাসান রয়েল (১২), শাহারিয়ার জামান তুর্য্য (১৭), রিয়ান শেখ ওরফে রেফাত (১২), ফাহিম ইসলাম মনি (১৪), সানি ইসলাম ওরফে আপন (১৩), জিসান খান (১৫), তারিন হাসান ওরফে রিজভী (১৩), শাকিব খান শিমুল (১৭), অন্তর কুসার দাস (১৫), মোঃ হাকিম (১৭), সৈকত (১৬), শেখ সাকিব (১৭), আসিফ প্রান্ত আলিফ (১৫), শেখ তামিম (১৬), সাকরান সালেহ ওরফে মিতুল (১২) এবং মোস্তফিজুর রহমান নাঈম (১৪)।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের ২০ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে কনসার্ট দেখার জন্য খুলনা পাবলিক কলেজের উদ্দেশে রওনা হয় রাজিন। রাতে অনুষ্ঠানস্থলে বসাকে কেন্দ্র করে আসামি তামিমের সাথে রাজিনের হাতাহাতি হয়। রাত ৯টার দিকে তারা রাজিনকে অনুষ্ঠানের মঞ্চের পেছনে নিয়ে চড় থাপ্পড় মারতে থাকে। একপর্যায়ে সাব্বির বলে, আমার কাছে চাকু আছে। অনেকদিন চাকুটি রক্ত খায় না। মামলার অন্য আসামিরা রাজিনের হাত চেপে ধরে। আর সাব্বির চাকুটি রাজিনের পেটে ঢুকিয়ে দিলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এরপর আসামিরা পালিয়ে যায়।

আহত অবস্থায় রাজিনকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এরপর নিহতের পিতা শেখ জাহাঙ্গীর আলম ৬ জন আসামির নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১০ জনের বিরুদ্ধে নগরীর খালিশপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। একই বছরের ১৬ ফেব্রুয়ারি খালিশপুর থানার এসআই মোঃ মিজানুর রহমান ১৭ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

রায় ঘোষণার পর নিহত রাজিনের মা খুলনা পুলিশ লাইন স্কুলের শিক্ষিকা রেহানা খাতুন অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, শিশু আইনে সর্বোচ্চ ১০ বছরের সাজার কথা বলা হলেও আদালত সেটা না করে আসামিদের ৭ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে। এ ছাড়া আসামিরা রায় ঘোষণার পর কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে সাজা শেষে কারাগার থেকে বেরিয়ে তাকে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়েছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

নিউজ ট্যাগ: কারাদণ্ড খুলনা

আরও খবর



বিপর্যয় সামলিয়ে লিটনের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | ২৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দল যখন মহা ব্যাটিং বিপর্যয়ে, ঠিক তখন ক্রিজে নামেন লিটন দাস। শুরু থেকেই দেখেশুনে খেলতে থাকেন। অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে মিলে ইনিংসকে বড় করতে থাকেন। দুজনের ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করে বিপর্যয় সামলিয়ে ম্যাচে ফিরেছে বাংলাদেশ।

শুরুতে দেখেশুনে খেললেও ধীরে ধীরে নিজের সহজাত ব্যাটিংয়ে হাত খুলতে থাকেন লিটন দাস। এরই মধ্যে তুলে নিয়েছেন টেস্ট ক্যারিয়ারে তৃতীয় শতক। ১৪৯ বল মোকাবিলায় তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করেন এই উইকেটকিপার ব্যাটার। উইলোতে রয়েছে ১৩টি চারের মার। কোনো ছয়ের মার নেই।

আজ সকালে দিনের প্রথম সেশনের শুরুর ৪৫ মিনিটেই ৫ উইকেট হারিয়ে বসে টাইগাররা। তখন দলের স্কোর ছিল ২৪ রান। সেখান থেকে মুশফিকুর রহিমকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন লিটন দাস।

এই রিপোর্ট লেখার সময় তাদের জুটি ১৮৪ রানে দাঁড়িয়েছে। মুশফিক ৮৭ ও লিটন ১০১ রানে অপরাজিত। বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেট হারিয়ে ২০৮ রান।

নিউজ ট্যাগ: লিটন দাস

আরও খবর
৩৬৫ রানে অলআউট বাংলাদেশ

মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২




দুগ্ধপণ্যের বৈশ্বিক নিলামে ৭ বছরের সর্বোচ্চ দরপতন

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৩৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গ্লোবাল ডেইরি ট্রেডের (জিডিটি) সর্বশেষ নিলামে দুগ্ধপণ্যের দাম সাত বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় পরিসরে কমেছে। কারণ রেকর্ড সর্বোচ্চ দামের জন্য ক্রেতাদের মাঝে অনীহা দেখা দেয়। সর্বশেষ নিলামে গ্লোবাল ডেইরি ট্রেডের মূল্যসূচক আগের নিলামের তুলনায় ৮ দশমিক ৫ শতাংশ কমেছে। সূচক দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩৭৯ পয়েন্টে। ২০১৫ সালের ৪ আগস্টের পর এটিই সবচেয়ে বড় দরপতন। ওই সময় মূল্যসূচক ৯ দশমিক ৩ শতাংশ কমে গিয়েছিল।

তথ্য বলছে, চলতি বছরের শুরু থেকেই বিশ্ববাজারে দুগ্ধপণ্যের তীব্র সংকট চলছে। ফলে ব্যাপক চাহিদা থাকলেও তা মেটাতে হিমশিম খাচ্ছে আমদানিকারক দেশগুলো। এ কারণে চলতি বছরের শুরু থেকে মার্চের প্রথম নিলাম পর্যন্ত অব্যাহতভাবে বেড়েছে দুগ্ধপণ্যের দাম। এটি মূল্যসূচককে রেকর্ড পর্যায়ে নিয়ে যেতে সহায়তা করেছে। তবে মার্চের দ্বিতীয় নিলাম থেকে দাম কমতে শুরু করে। তবে দাম কমার গতি ছিল শ্লথ। সর্বশেষ নিলামে রেকর্ড গতিতে দাম কমেছে।

চীনে কোভিড-১৯ জনিত লকডাউনের প্রভাবে সরবরাহ চেইন বাধাগ্রস্ত হয়েছে। ফলে সাম্প্রতিক নিলামগুলোয় নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, সর্বশেষ নিলামের ফলাফল রেকর্ড দামের কারণে ক্রেতাদের অনীহার প্রতিই ইঙ্গিত দিচ্ছে। এনজেডএক্সের ঊর্ধ্বতন বিশ্লেষক অ্যামি ক্যাসেলটন বলেন, নিলামের এ ফলাফল দেখে অনেকেই বিস্মিত হয়েছেন। দুগ্ধপণ্যের দাম কমার আশঙ্কা থাকলেও তা এমন বড় পরিসরে কমবে তা প্রত্যাশা করেননি কেউই।

জিডিটি মূল্যসূচকের তথ্য বলছে, সর্বশেষ নিলামে সর্বোচ্চ ২৭ হাজার ১৩০ টন দুগ্ধপণ্য সরবরাহ করা হয়। এর মধ্যে বিক্রি হয়েছে ২৫ হাজার ১৬৩ টন। নিলামে ১৩২ জন ব্যবসায়ী ও প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। এতে জয়ী হন ১০৭ জন। নিলামে প্রতি টন দুগ্ধপণ্যের গড় দাম উঠেছে ৪ হাজার ৪১৯ ডলার পর্যন্ত, যা আগের নিলামের তুলনায় ৮ দশমিক ৫ শতাংশ কম।

প্রতি নিলামে যে পরিমাণ দুগ্ধপণ্য উত্তোলন করা হয় তার মধ্যে অর্ধেকের বেশি ননীযুক্ত গুঁড়ো দুধ। পণ্যটির গড় দাম ৬ দশমিক ৫ শতাংশ কমে চার মাসের সর্বনিম্নে নেমেছে। প্রতি টনের মূল্য স্থির হয়েছে ৩ হাজার ৯১৬ ডলারে। পণ্যটির ক্ষেত্রে গত বছরের মার্চের পর এটিই সবচেয়ে বড় দরপতন।

ক্যাসেলটন বলেন, দাম কমে যাওয়ার পেছনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছে উত্তর এশিয়ার বাইরের শীর্ষ ভোক্তা দেশগুলো। লম্বা সময় ধরে চড়া দামে দুগ্ধপণ্য কিনলেও বর্তমান পরিস্থিতি বলছে এসব দেশ বাড়তি মূল্য পরিশোধ করা থেকে বিরত থাকতে পারে।

এদিকে ননিবিহীন গুঁড়ো দুধের দামও ৬ দশমিক ৫ শতাংশ কমে ৪ হাজার ১৩০ ডলারে নেমেছে। অ্যানহাইড্রাস মিল্ক ফ্যাটের দাম ১২ দশমিক ১ শতাংশ কমে ৬ হাজার ৮ ডলারে লেনদেন হয়েছে। মাখনের দাম ১২ দশমিক ৫ শতাংশ কমেছে। প্রতি টন বিক্রি হয়েছে ৫ হাজার ৮০৭ ডলারে। চেডার পনিরের দাম ৮ দশমিক ৬ শতাংশ কমে টনপ্রতি ৫ হাজার ৬৫২ ডলারে নেমেছে। মাখনযুক্ত গুঁড়ো দুধের দাম গত বছরের নভেম্বরের পর প্রথমবারের মতো কমল। প্রতি টন বিক্রি হয়েছে ৪ হাজার ২০৩ ডলারে, যা আগের নিলামের তুলনায় ৬ দশমিক ১ শতাংশ কম।

নিউজ ট্যাগ: দুগ্ধপণ্য

আরও খবর



প্রথম টেস্টে খেলবেন সাকিব: মুমিনুল

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৩৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রামে আগামীকাল থেকে শুরু হতে যাওয়া প্রথম টেস্টে খেলবেন সাকিব। আজ চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানিয়েছেন অধিনায়ক মুমিনুল হক।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কারণে সাকিব আল হাসান শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট খেলতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু টেস্ট শুরুর দুদিন আগে করোনামুক্ত হয়ে যান সাকিব এবং শুক্রবার বিকেলেই তিনি চট্টগ্রাম পৌঁছে যান, উদ্দেশ্য প্রথম টেস্টে খেলা।

কিন্তু সমস্যা দেখা দেয়, প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোর বক্তব্য। তিনি জানিয়ে দেন, ৫০ কিংবা ৬০ ভাগ ফিট সাকিবকে চাই না। ম্যাচ খেলার জন্য পুরোপুরি ফিট হতে হবে।

আজ শনিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সকাল থেকে কঠোর অনুশীলন করে যাচ্ছিলেন সাকিব। ১৫ মে থেকে শুরু হতে যাওয়া টেস্টে খেলার জন্য তার মধ্যে দেখা যাচ্ছিল মরিয়া প্রচেষ্টা।

এরপরই সংবাদ সম্মেলনে এসে প্রথমেই সাকিবের খেলা না খেলা বিষয়ক প্রশ্নের সম্মুখিন হন মুমিনুল হক। সেখানেই তিনি বলেন, (অনুশীলনে) দেখে তো ভালোই মনে হলো। ভালো অনুশীলন করলেন। খেলবেন ইনশাআল্লাহ।'

সাকিবের খেলা না খেলা- পুরো বিষয়টা মানসিকতার ওপর নির্ভর করছে বলে মনে করেন মুমিনুল। তিনি বলেন, আমার কাছে মনে হয় জিনিসটা পুরোপুরি আপনার চিন্তার উপরে। আপনি যখন বললেন পরিবর্তনে কোনো সমস্যা হবে কিনা..., আমি যদি চিন্তা করি তাহলে সমস্যা হবে। আমি যদি চিন্তা করি সমস্যা তৈরি হবে না- আসলে সমস্যা তৈরি হয় না।

পারিবারিক সমস্যা না থাকলে দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্ট খেলতেন সাকিব। এ নিয়ে মুমিনুল বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকায় যেটা হয়েছে উনিতো খেলতো। পারিবারিক সমস্যা ছিল এ কারণে খেলতে পারেনি। আর এখানেও খেলার কথা ছিল, ইনশাআল্লাহ খেলবে। হয়তো কোভিডের কারণে কিছুটা ঝামেলা হয়েছিল। এগুলো নিয়ে আমি অত বেশি চিন্তা করি না। আমাদের বিকল্প হয়তো উন্মুক্ত রাখতে হয়, আরেকটা খেলোয়াড়কে দেখার সুযোগও থাকে। খেলোয়াড়েরা নিজেদের মেলে ধরার সময় পায়।

আজই তো মাত্র অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন সাকিব। একদিনের অনুশীলনেই দলে জায়গা পেয়ে যাবেন? মুমিনুল হক বলেন, একটা খেলোয়াড়ের ব্যাটিং দেখলে মোটামুটি বোঝা যায়। সাইকোলজিক্যালি অনেক কিছু বোঝা যায়। আপনারাই বোধহয় সবচেয়ে বেশি দেখছেন (সাকিবের ব্যাটিং অনুশীলন) আমার চেয়ে। আমিতো আমার ব্যাটিং নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। আপনারাই ভালো বুঝতে পারবেন। আমার কাছে মনে হয় উনি শতভাগ ফিট, খেলার মতো ফিট।

শেষমেষ মুমিনুল জানিয়ে দিলেন সাকিব খেলবেন। তিনি বলেন, দেখে তো মনে হল, ফিট আছেন। খেলবেন ইনশাআল্লাহ্‌। অনুশীলনে বেশ ভালোই দেখলাম। কোচ তো বলেই দিয়েছেন, ফিট হলে খেলবেন। দেখে মনে হল উনি ফিট আছেন।


আরও খবর
৩৬৫ রানে অলআউট বাংলাদেশ

মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২




বাজারে জিনিসপত্রের দাম কমার কোনও লক্ষণ নেই: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ২৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাজারে জিনিসপত্রের দাম সহসাই কমার কোনও লক্ষণ নেই বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম না কমলে কিছুই করতে পারবো না। বুধবার (১৮ মে) দুপুরে সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে দ্রব্যমূল্য ও বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত টাস্কফোর্স কমিটির সভায় তিনি এ কথা বলেন।

নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের  দাম কবে নাগাদ মানুষের নাগালে আসবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এ প্রশ্নের উত্তর আমার জানা নেই। এটির উত্তর জানতে হলে আমার আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলে যেতে হবে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম না কমা পর্যন্ত আমরা কিছুই করতে পারবো না। কলকাতায় খবর নিন সেখানে কত দামে তেল বিক্রি হচ্ছে। মানুষকে বৈশ্বিক অবস্থা জানাতে হবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ভারত গম রপ্তানি বন্ধ করলেও বাংলাদেশের ক্ষেত্রে তা প্রযোজ্য হবে না। জিটুজি (সরকারের সঙ্গে সরকারের চুক্তি) পদ্ধতিতে আনা যাবে। দেশে গমের যথেষ্ট মজুত রয়েছে।

টিসিবির পণ্য বিক্রির বিষয়ে টিপু মুনশি বলেন, সরকারের তো বহন করার একটা ক্ষমতা আছে। তাই এক কোটি মানুষকেই এখন টিসিবির পণ্য দেওয়া হবে। যার সুবিধা পাবে পাঁচ কোটি মানুষ। এর পরিমাণ আর বাড়ানো হবে না। জুন মাস থেকে শুরু হবে এই প্রক্রিয়া।

পেঁয়াজের দাম বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ২৫ থেকে ৩০ টাকার মধ্যে পেঁয়াজের দাম হলে সেটা যৌক্তিক। ২০২৫ সালের পর আমাদের আর পেঁয়াজ আমদানি করতে হবে না, সেভাবেই উৎপাদন প্রক্রিয়া চলছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত পেঁয়াজের যথেষ্ট মজুত রয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, কিছু অসাধু ব্যবসায়ী মেঘ দেখলেই বলে ঝড় এসে গেছে। সেটা কিন্তু না। এছাড়া আমাদের দেশে এই মুহূর্তে গমের যে স্টক আছে, তাতে ভয়ের আশঙ্কা করি না।

ভোজ্যতেল ইস্যুতে তিনি বলেন, গ্লোবাল এ ক্রাইসিসকে সম্মিলিতভাবে মোকাবিলা করতে হবে। আমরা একটাই মেসেজ দিতে চাই, ভোজ্যতেলের এখন যে অবস্থা আছে, তাতে আশা করছি ক্রাইসিস হবে না।


আরও খবর