আজঃ মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

‘জাতিসংঘে পাঠানো চিঠি গণমাধ্যমে প্রকাশ করা উচিত হয়নি’

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
সিলেট প্রতিনিধি

Image

জাতিসংঘে পাঠানো পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের থ্যাংকস লেটারটি (চিঠি) গণমাধ্যমে ছাপা উচিত হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। যারা এটি ছেপেছে তারা দেশের শত্রুর মতো আচরণ করছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সিলেটে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব মন্তব্য করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রতি বছরই জাতিসংঘ সফর শেষে এ ধরনের চিঠি দেয়া হয়। এটা একান্তই ব্যক্তিগত, এটি কীভাবে গণমাধ্যমে ছাপা হয় তা বোধগম্য নয়।

এ সময় পোশাক খাতে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে আব্দুল মোমেন বলেন, এসব খামোখা। আমার কাছে এমন কোনো তথ্য নেই। কিছু বিপথগামী লোক নির্বাচন বানচাল করতে এসব কথা বলে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা করছেন।

জাতিসংঘে পাঠানো চিঠির বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, আমরা গিয়েছিলাম সেপ্টেম্বর মাসে জাতিসংঘে। সেই সময় অনেকের সঙ্গেই সাক্ষাৎ হয়। আমাদের একটি রেওয়াজ আছে যাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা হয়, দেখা-সাক্ষাৎ হয় তাদের একটি ধন্যবাদপত্র দেয়ার। এবারও সেটাই হয়েছে। ধন্যবাদ দেয়ার পাশাপাশি আমাদের যেসব বিষয়ে আলোচনা হয়েছে সেসব কথাবার্তা চিঠিতে উল্লেখ করা ছিল; যা একান্ত ব্যক্তিগত চিঠি। আর এটা খামোখা একটি পত্রিকা ছেপে দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এটা বড় লজ্জার বিষয়। আমি জানি না এটা কীভাবে হলো, আমাদের দেশে কিছু লোক আছে যারা দেশের শত্রুর মতো আচরণ করছে। বাহবা পাওয়ার জন্য যা পাচ্ছে তাই গণমাধ্যমে নিয়ে আসছে। এটা হওয়া উচিত নয়। এটা খুব দুঃখজনক।


আরও খবর



ইতালি গেলেন বিমান বাহিনী প্রধান

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Image

বাংলাদেশ বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান, বিবিপি, বিইউপি, এনএসডব্লিউসি, এফএডব্লিউসি, পিএসসি তিনজন সফরসঙ্গীসহ এক সরকারি সফরে ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, রবিবার ইতালির উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করেন।

বাংলাদেশ বিমান বাহিনী প্রধান ইতালির সামরিক সরঞ্জামাদি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান লিওনার্দো এস.পি.এ এর আমন্ত্রণে ১৯-২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ তারিখ ইতালি সফর করবেন। সফরকালে তিনি রোমে অবস্থিত লিওনার্দো সদর দপ্তরসহ, ইলেকট্রনিক্স ডিভিশন, ইউএভি প্রোডাকশন ফ্যাসিলিটিজ এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা পরিদর্শন করবেন। এছাড়াও বিমান বাহিনী প্রধান লিওনার্দো এস.পি.এ এর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে মতবিনিময় করবেন।

বিমান বাহিনী প্রধান উক্ত সরকারি সফর শেষে ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ তারিখে বাংলাদেশে প্রত্যাবর্তন করবেন।


আরও খবর



বসন্ত উৎসবে ‘আমার ভাষার চলচ্চিত্র’

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

Image

বসন্ত উৎসবে মেতেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। এই উপলক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক মিলনায়তন কেন্দ্রের প্রাঙ্গণে ভিড়ছে দূর দূরান্তের মানুষ। পাঁচ দিনব্যাপী চলমান আমার ভাষার চলচ্চিত্র উৎসবেও ভিড় বেড়েছে। চলচ্চিত্র উৎসবে বুধবারের (১৪ ফেব্রুয়ারি) আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। উৎসবমুখর আবহ নিয়ে আনন্দ প্রকাশ করেছেন তিনি।

তিনি বলেন, ২১ বছর ধরে এই আয়োজন চলছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের যারা সদস্য, যারা এই সংগঠনটা চালায় এটা তাদের খুবই ভালো উদ্যোগ। বিভিন্ন সময়ই আমার বিভিন্ন চলচ্চিত্র এই উৎসবে দেখানো হয়েছে কিন্তু এই প্রথম আসার সুযোগ হলো। তাই ভালোই লাগছে।

উৎসবের তৃতীয় দিন সকাল ১০টায় প্রদর্শিত হয়েছে সৈয়দ সালাউদ্দীন জাকি পরিচালিত ঘুড্ডি (১৯৮০), দুপুর ১টায় ঋতুপর্ণ ঘোষ পরিচালিত আবহমান (২০১০), বিকেল ৩:৩০টায় গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত মনপুরা (২০০৯), এবং সন্ধ্যা ৬:৩০টায় হিমেল আশরাফ পরিচালিত প্রিয়তমা (২০২৩) প্রদর্শিত হয়।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় প্রদর্শিত হবে জহিরুল হক পরিচালিত রংবাজ (১৯৭৩), দুপুর ১টায় বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত পরিচালিত টোপ (২০১৭), বিকেল ৩:৩০ টায় ইমতিয়াজ হোসেন পরিচালিত জাস্ট আ জোক ডার্লিং, এবং সন্ধ্যা ৬:৩০ টায় চয়নিকা চৌধুরী পরিচালিত প্রহেলিকা (২০২৩) প্রদর্শিত হবে।‌

উৎসবের শেষদিন উপমহাদেশের প্রথম চলচ্চিত্রকার হীরালাল সেন স্মরণে অনুষ্ঠিত হবে হীরালাল সেন পদক প্রদান এবং সমাপনী অনুষ্ঠান। উৎসবটি চলবে আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। প্রদর্শনী সকলের জন্য উন্মুক্ত। টিকিটের শুভেচ্ছা মূল্য মাত্র ৫০ টাকা। টিএসসির প্রবেশমুখের বুথ থেকে টিকিট সংগ্রহ করা যাবে।


আরও খবর



পোশাক কারখানায় ছাঁটাই বন্ধ ও কারখানাভিত্তিক রেশন চালুর দাবি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের নেতারা সারা দেশে রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকদের বিরুদ্ধে অব্যাহত ছাঁটাই-বরখাস্ত, গ্রেড কারচুপি, টার্গেটের নামে ফাও খাটানোসহ সকল হয়রানি, নির্যাতন অবিলম্বে বন্ধ এবং রেশনিং ব্যবস্থা চালুর দাবি জানিয়েছেন।

শুক্রবার (০২ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে কেন্দ্রীয় শ্রমিক সমাবেশে এসব দাবি জানান সংগঠনের নেতারা। গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি শ্রমিকনেতা মন্টু ঘোষের সভাপতিত্বে এবং সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ শাহাজাহানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন গার্মেন্ট টিইউসির উপদেষ্টা আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, সাধারণ সম্পাদক সাদেকুর রহমান শামীম, সহসভাপতি জলি তালুকদার, কেন্দ্রীয় নেতা দুলাল সাহা, আব্দুস সালাম বাবুল, বাবুল হোসেন ও মাসুদ রানা প্রমুখ।

এ সময় শ্রমিকনেতারা মজুরি আন্দোলনে কারাবন্দি শ্রমিক ও নেতৃবৃন্দের মুক্তি এবং আন্দোলনে নিহত ৪ শ্রমিকের আজীবন আয়ের সমপরিমাণ ক্ষতিপূরণ প্রদান, হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচারের দাবি জানান।

সমাবেশে শ্রমিকনেতা মন্টু ঘোষ বলেন, শ্রমিকদের দাবি ও বর্তমান বাজার পরিস্থিতি অনুসারে মজুরি বৃদ্ধি করা হয়নি। উপরন্তু যে যৎসামান্য মজুরি বৃদ্ধি হয়েছে তা থেকেও নানা অপকৌশলে শ্রমিকদের বঞ্চিত করা হচ্ছে। উল্লেখযোগ্য সংখ্যক কারখনার শ্রমিকরা অভিযোগ করেছেন, তাদের পূর্বের গ্রেড থেকে পদাবনতি ঘটানো হয়েছে। একাধিক কারখানায় শ্রম আইন লঙ্ঘন করে আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী কমিটির নির্বাচিত সদস্যদের বরখাস্ত করা হয়েছে। নতুন মজুরি কাঠামো থেকে বঞ্চিত করতে ছাঁটাই-বরখাস্তের শিকার শ্রমিকদের নামে মিথ্যা তারিখ দিয়ে নোটিশ জারি করা হয়েছে। তিনি এসব অত্যাচার বন্ধের দাবি জানিয়ে দ্রুত সময়ের মধ্যে কারখানাভিত্তিক রেশন চালু করার দাবি জানান।

উপদেষ্টা আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন বলেন, বর্তমানে দেশ লুটেরাদের স্বার্থে পরিচালিত হচ্ছে। দেশের ৯৫ ভাগ শ্রমিক মেহনতি মানুষ লুটপাট ও অর্থ পাচারের নির্মম পরিণতি ভোগ করছে। এই পরিস্থিতিতে শ্রমিকশ্রেণির রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করাই মুক্তির পথ। দেশে শ্রম মন্ত্রণালয় থাকলেও সেটা শ্রমিকদের স্বার্থে কাজ না করে মালিকের স্বার্থ রক্ষা করে চলেছে। নামে শ্রম মন্ত্রণালয় হলেও প্রকৃত অর্থে তা মালিক মন্ত্রণালয়ে পরিণত হয়েছে।

সাধারণ সম্পাদক সাদেকুর রহমান শামীম বলেন, শ্রম মন্ত্রণালয়ের দুটি দপ্তর, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর ও শ্রম অধিদপ্তর এ সব অনিয়ম ও আইন লঙ্ঘনের ঘটনায় তাদের দায়িত্ব পালন করছে না। একদিকে মজুরি বোর্ড খুবই অপর্যাপ্ত মজুরি নির্ধারণ করেছে, অন্যদিকে মালিকপক্ষ নানাভাবে শ্রমিকদের হয়রানি ও নির্যাতন করছে। অবিলম্বে এই অবস্থার প্রতিকার না করলে শ্রমিকরা কঠোর অবস্থান গ্রহণে বাধ্য হবে।

সহসভাপতি জলি তালুকদার বলেন, টঙ্গী বিসিক শিল্প নগরীতে ডিসেম্বর ২০২৩-এর প্রথম সপ্তাহে প্যাট্রিয়ট ইকো অ্যাপারেল লি. কারখানার অংশগ্রহণকারী কমিটির দুজন নির্বাচিত সদস্যকে বেআইনিভাবে বরখাস্ত করা হয়। যা বাংলাদেশ শ্রম আইনের ধারা ২০৫(১০) ও ধারা ১৯৫ লঙ্ঘনের কারণে শাস্তিযোগ্য অপরাধ। অথচ দীর্ঘদিন পূর্বে অভিযোগ গ্রহণ করেও অদ্যবধি শ্রম মন্ত্রণালয়ের দুই অধিদপ্তর কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।


আরও খবর



স্টেডিয়ামে প্রকাশ্যে দুইজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করল তালেবান

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

তালেবান কর্তৃপক্ষ পূর্ব আফগানিস্তানের একটি ফুটবল স্টেডিয়ামে হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত দুই ব্যক্তিকে প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে। এসময় মৃত্যুদণ্ড দেখতে স্টেডিয়ামের ভিতরে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হয়েছিল।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, দেশটির সুপ্রিম কোর্টের কর্মকর্তা আতিকুল্লাহ দারবিশ তালেবানের সর্বোচ্চ নেতা হিবাতুল্লাহ আখুন্দজাদার স্বাক্ষরিত একটি মৃত্যু পরোয়ানা উচ্চস্বরে পড়ার পর উভয় ব্যক্তিকে পিছন থেকে গুলি করে তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

আতিকুল্লাহ দারবিশ বলেন, এই দুই ব্যক্তিকে হত্যার অপরাধে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। আদালতে দুই বছর ধরে বিচার চলার পর তাদের মৃত্যুদণ্ডের আদেশে স্বাক্ষর করা হয়েছে।

১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালেবানের প্রথম শাসনামলে জনসমক্ষে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের ঘটনা বেশ স্বাভাবিক ছিল। তবে ২০২১ সালের আগস্টে নতুন করে ক্ষমতায় ফিরে আসার পর এই নিয়ে মাত্র চারজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হল দেশটিতে।


আরও খবর



টাঙ্গাইলে ট্রেনে কাটা পড়ে বাবা-ছে‌লেসহ তিনজন নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
লতিফ তালুকদার, কালিহাতী (টাঙ্গাইল)

Image

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে ট্রেনে কাটা পড়ে বাবা-শিশু ছেলেসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কালিহাতীর আনালিয়াবাড়ি এলাকায় এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- নাটোর বড়াই গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে রতন (২৭) ও তার ছেলে সানি (৬) এবং শরিফ (৪০) রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বেলপুকুর গ্রামের মাহিন্দ্রা গ্রামের আলম মণ্ডলের ছেলে।

বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার ওসি আলমগীর জানান, স্থানীয়রা ট্রেনে কাটা পড়ে লাশ দেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে রেলওয়ে পুলিশকে জানানো হয়েছে।

টাঙ্গাইল ঘারিন্দা রেলওয়ে পুলিশের এসআই আলী আকবর জানান, রাত ৮টা ২০ মিনিটে ঢাকাগামী চিলাহাটি এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা নাটোর থেকে বাসে করে ঢাকা যাচ্ছিলেন বাসটি ঘটনাস্থলে পৌঁছালে নষ্ট হয়। এ সময় তারা বাস থেকে নেমে পাশে রেল লাইনে হাঁটাহাঁটি করতে গেলে ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই তারা মারা যান। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হবে।

টাঙ্গাইল-৪ কালিহাতী আসনে সংসদ সদস্য আবদুল লতিফ সিদ্দিকী খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪