আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

যুক্তরাষ্ট্রে বাড়ি: বিচারপতি সিনহার বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩১ মার্চ ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩১ মার্চ ২০২২ | ৭৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রে সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহার একটি তিনতলা বাড়ির খোঁজ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ ঘটনায় এস কে সিনহা ও তার ভাই অনন্ত কুমার সিনহার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) দুদকের উপপরিচালক মো. গুলশান আনোয়ার প্রধান মামলাটি দায়ের করেন।

দুদকের মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২ লাখ ৮০ হাজার ডলার অর্থাৎ প্রায় আড়াই কোটি টাকা দিয়ে সিনহা তার ভাইয়ের নামে ২০১৮ সালের ১২ জুন যুক্তরাষ্ট্রের ১৭৯, জ্যাপার স্ট্রিট, প্যাটারসন নিউ জার্সি ০৭৫২২ এলাকায় তিন তলাবিশিষ্ট বাড়িটি কেনেন। এস কে সিনহা প্রধান বিচারপতি থাকার সময় অপরাধলব্ধ অর্থ হুন্ডিসহ বিভিন্ন কায়দায় আমেরিকায় পাচার করেন। পরে তার ছোট ভাই অনন্তর অ্যাকাউন্টে এসব অর্থ ট্রান্সফার করেন।

দুদক সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, এস কে সিনহা প্রধান বিচারপতি থাকাকালে বিভিন্নভাবে অর্জিত অর্থ হুন্ডিসহ বিভিন্ন অবৈধ পন্থায় আমেরিকায় পাচার করে তার ছোট ভাই নরেন্দ্র কুমার সিনহার হিসাবে ট্রান্সফার করেন। তা দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ২ লাখ ৮০ হাজার ডলার নগদ প্রদান করে বাড়িটি ক্রয় করেন। যা মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ২০১২ এর ৪(২) ও ৪(৩) ধারায় এবং ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় অপরাধ হওয়ায় মামলা রুজু করা হয়।

মামলার এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, সিনহার ছোট ভাই অনন্ত কুমার সিনহা যুক্তরাষ্ট্রে ডেন্টিস্ট হিসেবে কর্মরত। আমেরিকার একটি ব্যাংক থেকে ৩০ বছরের জন্য ঋণ নেন ১ লাখ ৮ হাজার ৭৫০ ডলার।তারপর ১ লাখ ৪৫ হাজার ডলার দিয়ে একটি বাড়ি কেনেন তিনি। ২০১৮ সালের ১২ জুন ২ লাখ ৮০ হাজার ডলার নগদ অর্থ দিয়ে আরেকটি বাড়ি কেনেন তিনি।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, অর্থ পাচারের অভিযোগে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এস কে সিনহার সম্পদের তথ্য চেয়ে চিঠি দেন দুদকের উপ-পরিচালক মো. গুলশান আনোয়ার প্রধান। এ চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্রে এস কে সিনহার তিনতলা বাড়ির রেকর্ডপত্র হাতে আসে দুদকের।

রোববার (২৭ মার্চ) এ বিষয়ে রেকর্ডপত্রের বরাত দিয়ে দুদকের এক কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে বলেন, এস কে সিনহা তার ছোট ভাই অনন্ত কুমার সিনহার মাধ্যমে বাড়ি কেনার অর্থ যুক্তরাষ্ট্রে পাচার করেছেন বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এছাড়া ২০২১ সালের ৭ অক্টোবর ক্ষমতার অপব্যবহার করে রাজউকের প্লট বরাদ্দ ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে এস কে সিনহার বিরুদ্ধে আরও একটি মামলার তদন্ত চলমান রয়েছে। মামলায় তার বিরুদ্ধে ৭ কোটি ১৪ লাখ টাকার সম্পদ বেনামে অর্জন করেছেন বলে অভিযোগ আনা হয়েছে।


আরও খবর



শিমুলিয়াঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ, গুনতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া

প্রকাশিত:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | ৪২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাট এলাকায় যানবাহনের চাপ গত কয়েক দিনের তুলনায় স্বাভাবিক রয়েছে। আজ শনিবার সকালে যানবাহনের চাপ থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কমতে শুরু করেছে। তবে, লঞ্চঘাট এলাকায় দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ঢাকামুখী যাত্রীদের চাপ বেড়েছে কয়েকগুণ।

এর মধ্যে শিমুলিয়া ফেরিঘাট এলাকায় পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় অর্ধশতাধিক যানবাহন। বাংলাবাজার থেকে লঞ্চে করে আসা যাত্রীদের গণপরিবহণের জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছে। আর বাসে করে ঢাকায় পাড়ি দিতে গুনতে হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া।

এদিকে, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার-মাঝিকান্দি নৌরুটে ১০টি ফেরি দিয়ে ২৪ ঘণ্টা যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে বলে নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহণ করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) ফয়সাল আহমেদ। অপরদিকে, ১৫৫টি স্পিডবোট ও ৮৫টি লঞ্চ দিয়ে যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহণ কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) শিমুলিয়া ঘাটের বন্দর কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন।

হনুফা বেগম নামের ইলিশ পরিবহণের এক যাত্রী বলেন, বাংলাবাজার হয়ে শিমুলিয়া ঘাটে এসেছি। লঞ্চে ৪৫ টাকা ভাড়া নিয়েছে, বেশি নেয়নি। তবে, বাসে যেখানে ৮৫ টাকা ভাড়া, সেখানে আমাকে ১০০ টাকা দিতে হয়েছে। তারা অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে।

ঢাকাগামী যাত্রী আশিক চৌধুরী বলেন, গ্রেট বিক্রমপুর পরিবহণে করে  ঢাকা যাব। আমি কলেজছাত্র, তাই আগেভাগে ঢাকা যাচ্ছি। দেড়শ টাকা ভাড়া বলে বাসে উঠেছি।

ঢাকার বেসরকারি এক প্রতিষ্ঠানের আইটি কর্মকর্তা আফজাল হোসেন বলেন, লঞ্চে নির্ধারিত ভাড়া রেখেছে। তবে, অতিরিক্ত যাত্রী ছিল। গুলিস্তান যাব, ভাড়া রেখেছে ১২০ টাকা।

ইলিশ পরিবহণের বাসচালক জয়নাল মিয়া বলেন, ৮৫ টাকার ভাড়া ১০০ টাকা রাখতেছি। এর বেশি দেয় না। ঢাকা থেকে খালি গাড়ি নিয়ে আসতে হইতাছে, তেলের খরচ লাগে না? যদি খালি গাড়ি নিয়া না আহি, ঢাকায় পইড়া থাকি, তাইলে এখানে যাত্রীর ভিড় লাগব। পরিবহণ সংকট হইব।

মাওয়া বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রোমান মিয়া বলেন, প্রচেষ্টা পরিবহণ বেশি ভাড়া নেয় না। আর, অন্য কোনো পরিবহণ এখানে বেশি ভাড়া নেওয়ার কথা না। এখন চালকেরা নিলে আমরা দেখছি। তবে, ঘাট থেকে গুলিস্তান মিরপুরসহ বিভিন্ন দূরত্বে বাস যায়। এখানে ভাড়া কম-বেশি হতে পারে।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) ফয়সাল আহমেদ বলেন, শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রী এবং যানবাহনের চাপ কম। ঘাট এলাকায় অর্ধশতাধিকের মতো গাড়ি রয়েছে পারাপারের অপেক্ষায়, যার বেশিরভাগই পিকআপ। বাংলাবাজার থেকে যেসব ফেরি আসছে, প্রতিটি ফেরিতে যানবাহনের সঙ্গে যাত্রীদের বহন করতে হচ্ছে। আগামীকাল অফিস-আদালত চালু থাকায় শিমুলিয়া ঘাট এলাকায় ঢাকামুখী বাড়তি যাত্রী ও যানবাহনের চাপ সৃষ্টি হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ শিমুলিয়া বন্দর কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন বলেন, লঞ্চঘাট এলাকায় যাত্রীদের বাড়তি চাপ রয়েছে। বাংলাবাজার থেকে যেসব লঞ্চ আসছে, প্রতিটি লঞ্চে যাত্রীতে কানায় কানায় পরিপূর্ণ। আগামীকাল অফিস খোলা। তারা পদ্মা লঞ্চে পাড়ি দিয়ে বাসে করে ঢাকায় যাচ্ছে। গতকাল ২৯২টি লঞ্চ ট্রিপে ৮০ হাজারের বেশি যাত্রী পারাপার করেছে। আজ সকাল থেকে যে যাত্রীর চাপ পড়েছে, মনে হচ্ছে আরও বেশি যাত্রী পারাপার হবে।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইয়াসিনা ফেরদৌস রিথি বলেন, আমরা এরই মধ্যে খেয়াল করেছি দু-একটি বাস অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে। এ ব্যাপারে এরই মধ্যে কঠোরভাবে বলা হয়েছে, যাতে যাত্রীদের জিম্মি করে অতিরিক্ত ভাড়া না নেওয়া হয়।


আরও খবর



খুলনায় দুর্নীতির মামলায় স্ত্রীসহ পুলিশের সাবেক ওসি কারাগারে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | ৩৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দুদকের দায়ের করা মামলায় খুলনার বটিয়াঘাটা থানার সাবেক ওসি শেখ আবু বকর সিদ্দিক ও তার স্ত্রী সুলতানা রাজিয়া পারুলকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। খুলনা মহানগর দায়রা জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক মো. মনিরুজ্জামান বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

দুদক খুলনার আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মজিবর রহমান জানান, জামিনের মেয়াদ শেষ হলে সাবেক ওসি ও তার স্ত্রী বৃহস্পতিবার আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আদালত জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে উচ্চ আদালত থেকে ৪ সপ্তাহের অন্তবর্তীকালীন জামিনে ছিলেন তারা। উচ্চ আদালত তাদের নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছিলেন। তারা নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করলে উভয় পক্ষের আইনজীবীর শুনানি শেষে আদালত আসামিদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

তিনি জানান, মামলায় প্রাথমিকভাবে প্রায় ৩৪ লাখ টাকার দুর্নীতি ধরা পড়লেও তদন্তে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তিসহ সাবেক ওসি শেখ আবু বকর সিদ্দিকের আরও প্রায় ৫১ কোটি টাকার অবৈধ স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি পাওয়া  গেছে।

২০২১ সালের ৯ নভেম্বর দুদক খুলনার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে দুটি মামলা দায়ের করেন দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক মো. আল আমীন। জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ২০০৪ সালের দুদক আইনের ২৬ (২), ২৭ (১) ধারায় এবং মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের ২০১২ এর ৪ (১) ও ৪ (২) ধারায় আবু বকর সিদ্দিক ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে এ দুটি মামলা হয়। এর মধ্যে আয়বহির্ভূত ৩৩ লাখ ৮৯৫ টাকার সম্পদ অর্জনের অভিযোগে আবু বকর সিদ্দিকের বিরুদ্ধে এবং ওই সম্পদ স্ত্রীকে হস্তান্তরের অভিযোগে সুলতানা রাজিয়া পারুল ও শেখ আবু বকর সিদ্দিকের বিরুদ্ধে এ মামলা হয়।

নিউজ ট্যাগ: খুলনা

আরও খবর



কক্সবাজারে দুই তরুণের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ | ২৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কক্সবাজার সৈকতের কবিতা চত্বরের ঝাউগাছে ঝুলন্ত ও ইনানী সৈকতে ভাসমান অবস্থায় দুই তরুণের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে পৃথক সময়ে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়। তাদের পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি উদ্ধারকারীরা।

তবে, কবিতা চত্বরের ঝাউবনে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা যুবকের বয়স ২০-২২ বছর আর ইনানী সৈকতে ভেসে আসা যুবকের বয়স ৩০ বছর হতে পারে বলে ধারণা করেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম।

তিনি জানান, কবিতা চত্বর এলাকায় গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় তরুণের মরদেহ ঝুলছে এমন খবর পেয়ে কক্সবাজার সদর থানার পুলিশের একটি টিম পাঠানো হয়। তারা মরদেহটি উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে নিয়ে যায়। ময়নাতদন্তের পর ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে।

কক্সবাজার মডেল থানার ওসি শেখ মুনীর উল গীয়াস বলেন, ফাঁসিতে ঝুলন্ত তরুণের পরণে সাদা পাঞ্জাবি-পায়জামা রয়েছে। তার পরিচয় শানাক্তে কাজ চলছে।

কক্সবাজার টুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম জানান, টুরিস্ট পুলিশ ইনানী সাব-জোনের ইনানীর রয়েল টিউলিপ হোটেলের পশ্চিম পার্শ্বে, শফির বিল প্রাইমারি ইস্কুলের কাছে সমুদ্রের কিনারে একটি অজ্ঞাত নামা তরুণের মরদেহ মিলেছে। তার বয়স অনুমান ত্রিশ বছর। গায়ে কালো হাফহাতা গেঞ্জি, পরনে কাল হাফ প্যান্ট রয়েছে। গায়ের রং শ্যামলা, উচ্চতা অনুমানিক ৫ ফিট ৬ ইঞ্চি। মুখে খোঁচা খোঁচা দাড়ি রয়েছে। সকালে স্থানীয় কিছু মানুষ লাশটি দেখতে পেয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশকে সংবাদ দেয়। টুরিস্ট পুলিশ ইনানী পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দিলে তারা গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

উখিয়া থানার ওসি আহমেদ সনজুর মোরশেদ বলেন, ইনানী ফাঁড়ির ইনচার্জ অলিউর রহমানের মরদেহটি থানায় আনার পর কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। মরদেহের পরিচয় এখনে মিলেনি। পুলিশ তার মৃত্যুর কারণ জানার চেষ্টা করছে।


আরও খবর



লাখ আলেয়াদের দোয়া-আশীর্বাদে হাজার বছর বেঁচে থাকুন বঙ্গবন্ধুকন্যা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৯ এপ্রিল ২০২২ | ৫৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বৃদ্ধা আলেয়া বেগম প্রায় তিন যুগ ধরে বরগুনা শহরের ভাড়ানি খালের মাছ বাজার ব্রিজের নিচে বসবাস করে আসছেন। ব্রিজের নিচে ময়লার ভাগাড়ের পাশেই কাঠের তক্তা পেতে কোনোমতে একটি খুপরি ঘর তুলেছেন তিনি। এখানেই ৯টি সন্তান জন্ম দেন আলেয়া।

শিশু সন্তানদের ঘুমিয়ে রেখে জীবিকার তাড়নায় বাজারে কাজে যেতেন তিনি; এসে দেখতেন খাট থেকে গড়িয়ে পড়ে খালের পানিতে ডুবে মরে পড়ে আছে নাড়িছেঁড়া ধনটি। এভাবে একটি স্বাভাবিক ঘরের অভাবে নয়টি সন্তানই মারা যায় তার।

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব-১ এম এম ইমরুল কায়েস তার ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে এসব তথ্য জানান।

তিনি আরও লিখেন, অবশেষে, বরগুনা সদরের খাজুরতলা আশ্রয়ণ প্রকল্পের একটি ঘরে এবার ঠাঁই হলো ৬৫ বছরের আলেয়া বেগমের। এরকম লাখ লাখ আলেয়াদের দোয়া ও আশীর্বাদে, দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য হাজার বছর বেঁচে থাকুন আপনি, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা।

ইমরুল কায়েস বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২৬ এপ্রিল তৃতীয় পর্যায়ে সারা দেশে ৩২ হাজার ৯০৪টি অনগ্রসর-ছিন্নমূল পরিবারের কাছে ঈদ উপহার হিসেবে জমিসহ ঘর হস্তান্তর করেন। এ উপলক্ষে টিভি-প্রিন্ট-অনলাইন মিডিয়ার ২১ সদস্যের একটি টিম নিয়ে গত ২৫ এবং ২৬ এপ্রিল কাজ করেছি বরগুনা শহরে। ঘুরে ঘুরে স্বচোখে দেখেছি প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ে ঘর পাওয়া দুস্থ-নিঃস্ব মানুষের পরিবর্তিত নতুন জীবন আর শুনেছি তাদের দিন বদলের গল্প; অবলোকন করেছি তৃতীয় পর্যায়ে অর্থাৎ এবারে ঈদ উপহার পাওয়া ভূমিহীন-গৃহহীনদের আনন্দ অশ্রু।


আরও খবর



আসামে পাহাড়ি ঢলে উল্টে গেল ট্রেন

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৩৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের আসাম রাজ্যে ভারী বৃষ্টির ফলে সৃষ্ট পাহাড়ি ঢলে স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকা রেলের কয়েকটি বগি উল্টে গেছে। রাজ্যের দিমা হাসাও জেলার হাফলং রেলওয়ে স্টেশনে আজ এই ঘটনা ঘটেছে। বন্যার কারণে রাজ্যের ২০ জেলার রেলযোগাযোগ ব্যাহত হয়েছে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া মিনিট তিনেকের একটি ভিডিওতে পাহাড়ি ঢলে ক্ষতিগ্রস্ত রেলের চিত্র উঠে এসেছে। রেলস্টেশনের পদচারীসেতুর ওপরে দাঁড়িয়ে থেকে ওই ভিডিওটি করা হয়।

ভিডিওতে দেখা যায়, মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে গোটা হাফলং স্টেশন প্লাবিত হয়। রেললাইনে ট্রেন দাঁড়িয়ে না থাকলে বোঝার উপায় ছিল না যে এটি কোনো রেলস্টেশন। চারপাশে কাদাপানি যেন থইথই করছে। এর মধ্যেই নেমে আসে কাদাপানির ঢল। আতঙ্কিত হয়ে পড়েন ভিডিও চিত্র ধারণ করা ব্যক্তি। এ সময় বৃষ্টিও ঝরছিল। মেঘলা আকাশ প্রকৃতিতে যেন জেঁকে বসেছে। হঠাৎ কাদাপানির ঢলে পুরো চেহারাই বদলে গেল স্টেশনের।

কয়েক মিনিটে চারপাশ যেন একটা স্রোতস্বিনী চেহারা ধারণ করে। এর মধ্যেই গাছ, কাঠ, ধ্বংসস্তূপ ঠেলে নিয়ে স্টেশনেই দাঁড়িয়ে থাকা একটি গোটা ট্রেনের ওপর আছড়ে পড়ে কাদাপানির ঢল। এ সময় রেললাইনে দুটি ট্রেন দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। পানির ঢলে একটি ট্রেনের অনেক বগি দুলতে দুলতে উল্টে যায়।

বন্যায় ভারতের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশটির বাজালি, বাকসা, কাছাড়, চরাইদেও, দারাং, ধেমাজি, দিব্রুগড়, দিমা হাসাও, কামরূপ, কার্বি আলং, নওগাঁও, শোনিতপুর, মাজুলি ও হোজাইসহ ২০টি জেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে আসামের ৬৫২টি গ্রামের অন্তত দুই লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ঢলে রেলের বগি উল্টে যাওয়ার পর স্টেশনে অপেক্ষমাণ যাত্রীদের উদ্ধারে তৎপরতা চালায় ভারতের নর্থইস্ট ফ্রন্টেয়ার রেলওয়ে। এক টুইটবার্তায় তাঁরা উদ্ধার অভিযানের বেশ কয়েকটি ছবিও প্রকাশ করেছে। টুইটে লেখা হয়েছে, রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের ত্বরিত পদক্ষেপের কারণে দিতোকচেরায় লাইনচ্যুত ট্রেনের যাত্রীদের নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া সম্ভব হয়েছে। উদ্ধারকাজে বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারও ব্যবহার করা হয়। 


আরও খবর