আজঃ মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

ভারতের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিশ্বের প্রধান আর উদীয়মান অর্থনৈতিক পরাশক্তি জোট জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে দিল্লির উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তার সফর সঙ্গীরা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে বেলা ১১টা ১৩ মিনিটে নয়া দিল্লির উদ্দেশে হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন।

এদিকে দিল্লিতে পৌঁছানোর পরই বিকেলে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকারি বাসভবনে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে বসবেন শেখ হাসিনা। বৈঠকে টাকারুপিতে লেনদেন সুগম করা, কৃষি খাতে গবেষণা ও সাংস্কৃতিক বিনিময় বিষয়ে তিনটি সমঝোতা স্মারক সই হবে। একই সঙ্গে বিদ্যুৎ ও রেলপথের একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন করা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে প্রেস ব্রিফিংএ এ তথ্য নিশ্চিত করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জি টুয়েন্টি সম্মেলনের দুটি অধিবেশনে বক্তব্য দেবেন। জলবায়ু পরিবর্তন, করোনা মহামারি ও যুদ্ধের কারণে জরুরি পণ্যের নিবিঘ্ন সরবরাহ নিয়ে বক্তব্য দেবেন তিনি। সম্মেলনের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত, সৌদি আরব, আর্জেন্টিনা, আরব আমিরাত, কানাডার শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করতে পারেন।

এবারের সফরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ বেশ কয়েকজন রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের পাশাপাশি একগুচ্ছ কর্মসূচিতে অংশ নেয়ার কথা প্রধানমন্ত্রীর। বিশ্লেষকরা মনে করেন, প্রধানমন্ত্রীর এবারের ভারত সফর বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ককে নিয়ে যাবে নতুন উচ্চতায়।

বিশ্বের প্রধান আর উদীয়মান অর্থনৈতিক পরাশক্তি জোট জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন সামনে রেখে নতুন রূপে সেজেছে আন্তর্জাতিক সম্মেলনস্থল ভারত মণ্ডপ, আর নজিরবিহীন নিরাপত্তায় মুড়েছে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি।

জি-২০ সম্মেলনের বিভিন্ন কর্মসূচির ফাঁকে শনিবার নয়াদিল্লিতে সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান বিন আব্দুল আজিজ, আর্জেন্টিনা ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। সম্মেলনের সাইডলাইনে এ ছাড়াও বিভিন্ন রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ হতে পারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

জি-২০ শীর্ষ এ সম্মেলন হবে আগামী ৯ ও ১০ সেপ্টেম্বর ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে।


আরও খবর



ডিপফেক ভিডিওর শিকার পপ তারকা টেইলর সুইফট

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

তারকা ও বিশেষ ব্যক্তিদের ছবি ব্যবহার করে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) কাজে লাগিয়ে একের পর এক ডিপফেক ভিডিও বানিয়ে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। গত কয়েক দিন ধরে আলোচনায় ছিল অভিনেত্রী রাশমিকার ছড়িয়ে পড়া ভিডিও নিয়ে। এবার পপ তারকা টেইলর সুইফটের আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে পড়ল সামাজিকমাধ্যমে।

সম্প্রতি সামাজিকমাধ্যম এক্সে (টুইটার) গায়িকা টেইলর সুইফটের যে ডিপফেক ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে, তা ইতোমধ্যে দেখেছে ৪৭ হাজারের বেশি মানুষ। শুধু তাই-ই নয়, তার সেই কুরুচিকর ভিডিও রিপোস্টও করা হয়েছে প্রায় ২৪ হাজার বার। ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে সাসপেন্ড করা হয়েছে একাধিক অ্যাকাউন্টও। তবে ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছিল। তার আগে প্রায় ১৭ ঘণ্টা ধরে সামাজিকমাধ্যমের পাতায় ছিল ওই ডিপফেক ভিডিও। তবে চুপ করে বসে ছিলেন না টেলরের অনুরাগী, তথা সুইফটিরাও। সুইফটিরা খুঁজে বের করেছেন এমন এক নেটাগরিককে, যিনি টেইলরের ডিপফেক ছবি সামাজিকমাধ্যমে প্রথমবার শেয়ার করেছিলেন। স্বাভাবিক ভাবেই, অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কড়া আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন গায়িকার অনুরাগীরা।

তবে, পিছু হটতে রাজি নন সেই অভিযুক্তও। তিনি একটি টুইট করে জানিয়েছেন, তিনি নাকি জোকারর মতো। তার না আছে কোনো নাম, না আছে কোনো ঠিকানা। অভিযুক্তের আরও দাবি, সুইফটিরা যতই নিজেদের ক্ষমতাশালী হোন না কেন, তারা নাকি কোনোভাবেই তার নাগাল পাবেন না। এখনো এই বিষয়ে মুখ খোলেননি পপ তারকা টেইলর নিজে।

গত বছর নভেম্বর মাসে ডিপফেক ভিডিওর শিকার হয়েছেন রাশমিকা মান্দানা, ক্যাটরিনা কাইফ, কাজল ও আলিয়া ভাট। ডিসেম্বর মাসে ডিপফেকের কেপে পড়েন আন্তর্জাতিক অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জোনাস। ভিডিও নয়, নায়িকার ভুয়া অডিও ছড়িয়ে পড়েছিল সামাজিকমাধ্যমে।


আরও খবর
আস্থার জায়গা খুঁজছেন মাহি

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




নরসিংদীতে পৃথক ঘটনায় ২ জন নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নরসিংদী প্রতিনিধি

Image

নরসিংদীতে পৃথক ঘটনায় দুজন নিহত হওয়ায় খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে সদর উপজেলার সংগীতা এলাকায় দুর্বৃত্তের হামলা নিহত হয় সুমন মিয়া (৩২) নামে এক যুবক।

তাছাড়া শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে পলাশ উপজেলায় জিনারদীতে রেললাইনের পাশে একটি ঝোপ থেকে একই নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তার বাড়ি সদর উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার মো. ইকতিয়ার উদ্দিন।

শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টার দিক নরসিংদী শহরের সংগীতা এলাকায় সুমন মিয়াকে কুপিয়ে আহত করে দুর্বৃত্তরা। পরে নরসিংদী সদর হাসপাতাল থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে নেওয়া হলে সেখানে মারা যান তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. তানভির আহমেদ।

তিনি বলেন, হামলার খবর পেয়ে ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

নিহত সুমন মিয়ার স্বজন জানান, রাতে বাসায় ফেরার পথে দুর্বৃত্তরা সুমনকে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে সে মারা যায়। নিহত সুমন পৌরসভার সংগীতা এলাকার সোবহান মিয়ার ছেলে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (বেলা ১১টা) নিহত সুমনের মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে বলে জানান তারা।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) কে এম শহিদুল ইসলাম সোহাগ বলেন, পৃথক ঘটনায় দুজন নিহত হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আমরা তৎপর রয়েছি। দুটি ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় আইনি কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

তবে ঝোপ থেকে উদ্ধার হওয়া মরদেহটি রেল দুর্ঘটনা নাকি হত্যা করা হয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান তিনি।


আরও খবর



আনসারের জাতীয় সমাবেশে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গাজীপুরের কালিয়াকৈরের সফিপুরে আনসার ও ভিডিপি একাডেমিতে পৌঁছেছেন। সেখানে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও ৪৪তম জাতীয় সমাবেশ উপলক্ষ্যে কুচকাওয়াজের আয়োজন করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সালাম গ্রহণ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এর আগে তিনি সকাল ১০টায় একাডেমিতে আগমন করেন এবং পরে অভিবাদন গ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে আরও রয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, সিনিয়র সচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান, বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল একেএম আমিনুল হক, অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নাজিম উদ্দিন, আনসার ও ভিডিপি একাডেমির কমান্ড্যান্ট মো. নূরুল হাসান ফরিদী, বাহিনীর উপ-মহাপরিচালক।

প্রতিবছর ১২ ফেব্রুয়ারি আনসার বাহিনীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সফিপুর আনসার ভিডিপি একাডেমিতে জাতীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এ উপলক্ষ্যে আনসার ভিডিপি একাডেমিতে ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



হাত-পায়ের তালু ঘামলে যা করবেন

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

ঘাম হওয়া মানুষের জীবনে স্বাভাবিক ব্যাপার। এটি কোনো অসুখ নয়। তবে অতিরিক্ত ঘাম নিয়ে অনেকেই অস্বস্তিতে ভোগেন। দেহের স্বাভাবিক তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে অতিরিক্ত ও অপ্রয়োজনীয় ঘাম হওয়াকে চিকিৎসা-বিজ্ঞানে হাইপারহাইড্রোসিস বলা হয়।

শরীরের পাশাপাশি দেহের নির্দিষ্ট জায়গাতেও এরকম হতে পারে। যেমন- হাত ও পায়ের তালু। এতে করে প্রতিদিনের বিভিন্ন কাজ যেমন লেখালেখি, মোবাইল-কম্পিউটার চালানোতে অসুবিধা হয়। কেডস, বুট বা স্নিকার্স পরলে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়। এই সমস্যাটি শীতকালে বেশি দেখা যায়। তবে গরমেও হতে পারে। এই ধরনের সমস্যা নিয়ন্ত্রণের কিছু ঘরোয়া উপায় আছে:

পানি

পানি শরীর ঠাণ্ডা রাখে। ফলে ঘাম নিয়ন্ত্রণে থাকে। তাই হাত ও পায়ের তালুর ঘাম রোধে প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান করুন। নিয়মিত বিরতিতে হাত ও পা ধোয়ার চেষ্টা করুন।

গোলাপজল

ঘাম প্রতিরোধে গোলাপজল অত্যন্ত কার্যকর। এ ক্ষেত্রে বাজার থেকে কেনা কিংবা ঘরে বানানো উভয় গোলাপজলই ব্যবহার করা যাবে। প্রতিদিন অন্তত তিনবার তুলা বা সুতি কাপড়ের সাহায্যে হাত ও পায়ের তালুতে গোলাপজল ম্যাসাজ করতে পারেন।

ব্ল্যাক টিতে হাত ও পা ভিজিয়ে রাখা

প্রতিদিন ২০ থেকে ৩০ মিনিট সময় নিয়ে ব্ল্যাক টিতে হাত ও পা ডুবিয়ে রাখা ঘাম কমাতে সহায়তা করে। গবেষণায় দেখা গেছে, এতে থাকা ট্যানিন প্রাকৃতিক অ্যাস্ট্রিজান্টয়ের প্রভাব রাখে যা ঘাম কমাতে সহায়তা করে।

বেকিং সোডা

হাত ও পায়ের তালুর অতিরিক্ত ঘাম প্রতিরোধে অন্যতম ঘরোয়া উপায় হলো বেকিং সোডা। প্রথমে এক বোল কুসুম গরম পানি নিন। এতে দুই থেকে তিন চামচ বেকিং সোডা মেশান। সোডা মিশ্রিত পানিতে অন্তত ৩০ মিনিট হাত ও পা ডুবিয়ে রাখুন। পরে শুকনা কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। এতে ঘামের সমস্যায় উপকার পাওয়া যাবে।

লেবুর রস

অ্যাস্ট্রিজান্ট উপাদান সমৃদ্ধ যা অতিরিক্ত ঘাম কমাতে সহায়তা করে। তাজা লেবুর রস হাতের তালুতে ঘষে শুকানোর জন্য অপেক্ষা করতে হবে। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। নিয়মিত ব্যবহারে ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।

কর্পূর

সামান্য গরম পানিতে কর্পূর গুলে হাত ও পা ১৫ থেকে ২০ মিনিট ডুবিয়ে রাখতে হবে। কর্পূর শীতলকারক উপাদান যা ঘাম কমাতে সহায়তা করে। এছাড়াও কর্পূরের গুঁড়ার সাথে ট্যালকম পাউডার বা নারিকেল তেল মিশিয়ে হাত ও পায়ের তালুতে ব্যবহার করা যায়। সপ্তাহে কয়েকবার ব্যবহারে ভালো ফলাফল আসে। ক্রমাগত হাত ও পা ঘামা খুবই বিরক্তিকর বিষয়। তবে সঠিকভাবে খেয়াল রাখলে আর সতর্ক হলে এর প্রকোপ অনেকটাই কমিয়ে আনা যায়।


আরও খবর
খাতনা করার আগে-পরে যেসব বিষয় জানা জরুরি

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নারীর জন্য প্রয়োজনীয় পাঁচ ভিটামিন

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দক্ষিণ সুরমায় স্কোয়াশ চাষে সফল কৃষক জহির উদ্দিন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিলেট প্রতিনিধি

Image

সিলেট জেলার দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় স্কোয়াশ চাষে সফল হয়েছেন প্রবাস ফেরত কৃষক জহির উদ্দিন। উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নে বাড়ির পাশে প্রথমবারের মতো পরীক্ষামূলক ২ বিঘা জমিতে স্কোয়াশ চাষ করেছেন তিনি। দুএকদিন পর পর জমি থেকে ফলন তুলে স্থানীয় বাজারে বিক্রি করছেন। অনেকে এসে জমি থেকে কিনে নিয়ে যাচ্ছেন।

সরেজমিনে পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের রায়খাইলের জহির উদ্দিনের জমিতে আবাদকৃত স্কোয়াশ গাছে ফলন এসেছে। প্রতি পিস ফলনের ওজন ৫০০ গ্রাম থেকে দেড় কেজি পর্যন্ত। দুজন শ্রমিক নিয়ে জমিতে পরিচর্যা করছেন তিনি। পাশের জমিতে চাষ করেছেন টমেটো, কাঁচা মরিচ, ফুলকপি, বাঁধাকপি ও বেগুনসহ নানা ধরনের শীতকালীন সবজি।

কৃষক জহির উদ্দিন জানান, প্রবাস থেকে ফিরে আর কিছু করতে না পেরে স্থানীয় কিছু পতিত জমিতে সবজি চাষ শুরু করি। প্রাথমিক ভাবে সফলতা লাভ করায়

৪ বছর ধরে কৃষি কাজ করছি। কৃষিকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছি। আমার এ সফলতা দেখে এলাকার অনেকেই আজ কৃষি কাজে এগিয়ে এসেছে পাশাপাশি পতিত জমি গুলো ও চাষাবাদের আওতায় চলে এসেছে। আমি এবার প্রথমবারের মতো ২ শতক জমিতে পরীক্ষামূলক স্কোয়াশ চাষ করেছি। বাজার থেকে বীজ নিয়ে বপন করেছি। প্রথমবারই সফল হয়েছি। জমিতে আগে থেকে মালচিং করা ছিল। তাই তেমন খরচ হয়নি। মাত্র ৩ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এরই মধ্যে ২৫ হাজার টাকা বিক্রি করেছি। আরও ৪০ হাজার টাকা বিক্রি করতে পারবো।

তিনি আরো বলেন, একটি গাছে ১০-২০ কেজি পর্যন্ত ফলন হয়। ঢাকার কয়েকটি সুপার শপের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। তারা আগামীতে আমার কাছ থেকে স্কোয়াশ কিনে নেবেন। তাই আগামীতে সিদ্ধান্ত নিয়েছি চাষের পরিধি আরও বাড়াবো।

এছাড়া ৪ বছর ধরে আগাম সবজি চাষ করে যাচ্ছি। প্রথমে সামান্য জায়গায় আগাম টমেটো চাষ শুরু করি। এবছর  ৩ শতক জমিতে টমেটো, ২ শতকে শসা,১ শতকে তাল বেগুন,২ শতকে জালি কুমড়াও ২ শতকে ঢেড়স চাষ করেছি। ফলন ভালো হয়েছে, আশা করি আর্থিক ভাবে লাভবান হতে পারবো।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা গৌতম পাল বলেন, উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের জহির উদ্দিন খুবই পরিশ্রমী একজন কৃষক। তিনি সব সময় আগাম সবজি চাষ করে ভালো লাভবান হয়ে থাকেন। এবার স্কোয়াশ চাষ করে সফল হয়েছেন। তাকে সব সময় কৃষি অফিস থেকে পরামর্শসহ বিভিন্ন ধরনের সহযোগিতা করা হয়।

উল্লেখ্য, জহির উদ্দিন গত বছর তার জমিতে মরুভূমির ফসল সাম্মাম চাষ করে বেশ সাড়া জাগিয়েছিলেন। তার এ ব্যতিক্রমী উদ্যোগ দেখতে বিভাগ ও জেলার কৃষি কর্মকর্তারা পরিদর্শন করেছিলেন।


আরও খবর