আজঃ রবিবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গোপালগঞ্জে দফায় দফায় সংঘর্ষ

প্রকাশিত:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | ৪১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গোপালগঞ্জে ইভটিজিংয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে শেখ সায়েরা খাতুন মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষে ইটের আঘাতে পুলিশ ও সংবাদকর্মীসহ আহত হয়েছেন অন্ততঃ ১০ জন।

আহতদের মধ্যে ৪ জনকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার (২১ নভেম্বর) রাত ৯টা থেকে থেমে থেমে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘ‌র্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে। রাত সা‌ড়ে ১১টার দি‌কে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়।

গুরুতর আহত বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের ছাত্র সা‌য়েম (২২), স‌রোয়ার জয় (২৩), মেডি‌ক্যাল ক‌লে‌জের ছাত্র সা‌কিব (২০) ও সাখাওয়াত হো‌সেনকে (২০) গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বি‌শিষ্ট জেনা‌রেল হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি করা হ‌য়ে‌ছে। বাকি আহতরা প্রাথ‌মিক চি‌কিৎসা নি‌য়ে‌ছেন।

শিক্ষার্থীরা জা‌নি‌য়ে‌ছেন, বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের শিক্ষার্থীরা মে‌ডি‌ক্যাল ক‌লে‌জের মস‌জি‌দের সাম‌নের রাস্তার ওপর ক্রি‌কেট খে‌লেন। প্র‌তি‌দি‌নের ন্যায় রোববার তারা রাস্তার ওপর  ক্রিকেট খেল‌ছি‌লেন। তখন মে‌ডি‌ক্যালের ছাত্ররা তা‌দের খেল‌তে নি‌ষেধ ক‌রেন। একই সঙ্গে সন্ধ্যায় মে‌ডি‌ক্যালের ম‌ধ্যে ঢুক‌তে বারন ক‌রেন। তখন উভয় প্র‌তিষ্ঠা‌নের ছাত্র‌দের ম‌ধ্যে তর্ক বিত‌র্ক ও হাতাহা‌তির ঘটনা ঘ‌টে। প‌রে উভয় প্র‌তিষ্ঠা‌নের ছাত্ররা সংঘ‌টিত হ‌য়ে দফায় দফায় সংঘ‌র্ষে লিপ্ত হন। প্রায় আড়াই ঘণ্টা মে‌ডি‌ক্যাল ক্যাম্পাস রণ‌ক্ষে‌ত্রে রূপ নেয়। এতে বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের প্রক্টর ড. রা‌জিউর রহমানসহ অন্তত ২৫ ছাত্র, পু‌লিশ ও সাংবা‌দিক আহত হন। গুরুতর আহত ৪ ছাত্র‌কে হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি করা হ‌য়ে‌ছে।

শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. জাকির হোসেন বলেন, বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের ক‌য়েকজন ছাত্ররা রা‌তে মে‌ডি‌ক্যাল ক‌লে‌জের রাস্তার ওপর ক্রি‌কেট খে‌লে। এছাড়া বেশ কিছু ছাত্র মে‌ডি‌ক্যালের ভেতর আড্ডা দেয়। তারা মে‌ডি‌ক্যালের ছাত্রীদের বি‌ভিন্ন সময় ইভটিজিং  ক‌রে। এ কার‌ণে তা‌দের সন্ধ্যার পর মে‌ডি‌ক্যালের ম‌ধ্যে ঢুক‌তে নি‌ষেধ ও রাস্তায় ক্রি‌কেট খেল‌তে বারন করা হয়। এ‌তে তারা ক্ষিপ্ত হ‌য়ে শত শত ছাত্র সংঘঠিত হ‌য়ে মেডিক্যালের ছাত্র‌দের ওপর হামলা ও ভাংচুর চালি‌য়ে‌ছে।

ত‌বে বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের ক‌য়েকজন শিক্ষার্থী ইভ‌টি‌জিং‌য়ের কথা অস্বীকার ক‌রে ব‌লে‌ছেন, মে‌ডি‌ক্যালের শিক্ষার্থীরা আমা‌দের গা‌লিগালাজ ক‌রার এক পর্যা‌য়ে লা‌ঠি‌সোটা নি‌য়ে আমা‌দের ওপর হামলা চালায়। এতে আমা‌দের বেশ ক‌য়েকজন শিক্ষার্থী আহত হ‌য়ে‌ছে। খবর শু‌নে আমা‌দের প্রক্টর মে‌ডি‌ক্যালে আস‌লে তি‌নিও ই‌টের আঘা‌তে আহত হ‌য়ে‌ছেন।

গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ও‌সি) ব‌লে‌ন, প‌রি‌স্থি‌তি নিয়ন্ত্র‌ণে আন‌তে ক‌য়েক রাউন্ড টিয়ার‌সেল নি‌ক্ষেপ করা হ‌য়ে‌ছে। এখন প‌রি‌স্থি‌তি পু‌লি‌শের নিয়ন্ত্র‌ণে র‌য়ে‌ছে।

 


আরও খবর
গোপালগঞ্জে এসআইর মরদেহ উদ্ধার

মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১




করোনায় আরো ৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৬৭

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ | ১৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাতে নতুন করে শনাক্ত হওয়া রোগী সংখ্যা কমেছে, তবে বেড়েছে মৃত্যু। স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় পর্যন্ত করোনাতে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১৭৬ জন আর করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ছয় জন। এর আগে শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতর ২৪৩ শনাক্ত ও তিনজনের মৃত্যুর তথ্য জানিয়েছিল।

নতুন শনাক্ত হওয়া ১৭৬ জনকে নিয়ে দেশে করোনাতে সরকারি হিসেবে এখন পর্যন্ত মোট শনাক্ত-হলেন ১৫ লাখ ৭৭ হাজার ২৪৬ জন আর মারা যাওয়া ছয় জনকে নিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত সরকারি হিসেবে করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেলেন ২৭ হাজার ৯৯৫ জন।

করোনাতে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৬২ জন। তাদের নিয়ে দেশে করোনাতে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হলেন ১৫ লাখ ৪২ হাজার ৪৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ১৬ হাজার ২২৩টি। নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৬ হাজার ৪২৮টি। দেশে এখন পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে এক কোটি নয় লাখ ৬২ হাজার ৪৭৪টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৭৮ লাখ পাঁচ হাজার ৭৪৭টি আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৩১ লাখ ৫৬ হাজার ৭২৭টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাতে রোগী শনাক্তের হার এক দশমিক সাত শতাংশ আর এখন পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।


আরও খবর



করোনায় একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৪

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | ৫৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও একজনের জনের মৃত্যু এবং ১৫৪ রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর আগে গতকাল (শুক্রবার) ৩ জনের মৃত্যু এবং ১৯৬ জন রোগী শনাক্ত হয়েছিলো।

শনিবার (৬ নভেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনা পরিস্থিতি-সংক্রান্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তির তথ্যমতে, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৩ হাজার ১৫৫ জনের। পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ৭২টি। এ পর্যন্ত মোট ১ কোটি ৪ লাখ ৫৮ হাজার ৩৬৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এরমধ্যে রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৫ লাখ ৭০ হাজার ৮৩৫ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২৭ হাজার ৮৯১ জনের।

এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ১৫৭ জন।এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৫ লাখ ৩৪ হাজার ৬৩৫ জন।

নতুন নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১ দশমিক ১৮ শতাংশ। মোট পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ০২ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় যিনি মারা গেছেন তিনি পুরুষ। তিনি ঢাকা বিভাগে মারা গেছেন। তার বয়স ছিল ৭১-৮০ বছরের মধ্যে।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীন থেকে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস।বাংলাদেশে ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।


আরও খবর



‘আ ব্লেসড ম্যান’ সিনেমায় তাহসান-বাঁধন জুটি

প্রকাশিত:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | ৪০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বড় পর্দায় কাজের ধারাবাহিকতা রেখে আবারও সিনেমায় যুক্ত হলেন তাহসান। নাম আ ব্লেসড ম্যান। এটি নির্মাণ করবেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নির্মাতা সাদিক আহমেদ। রোববার (২১ নভেম্বর) রাতে ফেসবুকে ভিডিও বার্তায় সিনেমাটির কথা জানান তাহসান।

তিনি বলেন, রেডি হয়েছি একটি কনসার্ট আছে। কিন্তু বের হওয়ার আগেই দেখি বাসায় একটি কেক। অ্যাপল বক্স ফিল্মস থেকে এসেছে কেকটা। একটা খবর জানানোর জন্যই এই পোস্টটা করছি। নতুন সিনেমা আ ব্লেসড ম্যান-এর কাজ শুরু হতে যাচ্ছে। আপনাদের কাছে আমরা দোয়া চাচ্ছি। এই সিনেমায় কাজ করছেন বিশ্ব জয় করে আসা আমাদের সবার প্রিয় অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। তার সঙ্গে আছি আমি। আমাকে যে কেন নিলো! পরিচালনা করছেন সাদিক আহমেদ। খুব মেধাবী একজন ব্রিটিশ নির্মাতা। তিনি ইতোমধ্যে দেশে এসেছেন। তার সঙ্গে বৈঠক হয়েছে।

সিনেমাটির গল্প নিয়ে দারুণ উচ্ছ্বসিত তাহসান। বললেন, চিত্রনাট্য সত্যিই অসাধারণ। বাংলা সিনেমা অনেকভাবে আমরা দেখেছি, কিন্তু সাদিক আহমেদের দেখার ভঙ্গিমা একেবারে আলাদা।

অন্যদিকে একইভাবে ঘোষণা দিয়েছেন অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধনও। তিনি বলেছেন, এ সিনেমার গল্পটি দারুণ। আর আমার চরিত্রটি অসম্ভব রকমের পছন্দ হয়েছে। অনেক চ্যালেঞ্জিং একটা চরিত্র। প্রায় সব কিছুর প্রস্তুতি নেওয়া শেষ। কিছু দিনের মধ্যেই আমরা শুটিং শুরু করব।

বেশ কিছু দিন ধরেই দেখা যাচ্ছে, বাঁধন তার ওজন কমাচ্ছেন। সেই রহস্যটাও ফাঁস করলেন তিনি। বললেন, আমার শারীরিক ওজন কেন কমে যাচ্ছে এ প্রশ্ন অনেকেই করেছেন। এর পেছনে মূল কারণ, এই সিনেমা, এর চরিত্র। এর জন্য আরও ওজন কমাতে হবে।

নিউজ ট্যাগ: তাহসান-বাঁধন

আরও খবর



সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | ৪১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জননী সাহসিকাখ্যাত কবি বেগম সুফিয়া কামালের ২২তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। মুক্তিযুদ্ধসহ বাঙালির সমস্ত প্রগতিশীল আন্দেলনে ভূমিকা পালনকারী সুফিয়া কামাল ১৯৯৯ সালের এই দিন (২০ নভেম্বর) সকালে বার্ধক্যজনিত কারণে ঢাকায় ইন্তেকাল করেন। সম্পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যদায় তার ইচ্ছানুযায়ী তাকে আজিমপুর কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।

বেগম সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলাদা বাণী দিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে বলেন, কবি সুফিয়া কামালের জীবনাদর্শ ও সাহিত্যকর্ম বৈষম্যহীন-অসাম্প্রদায়িক সমাজ বিনির্মাণে তরুণ প্রজন্মকে উদ্বুদ্ধ ও অনুপ্রাণিত করবে। রাষ্ট্রপতি তার স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, কবি সুফিয়া কামাল ছিলেন নারী আন্দোলনের পথিকৃৎ এবং সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে এক অকুতোভয় যোদ্ধা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কবি বেগম সুফিয়া কামাল যে আদর্শ ও দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন তা যুগে যুগে বাঙালি নারীদের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে। তিনি ছিলেন একদিকে আবহমান বাঙালি নারীর প্রতিকৃতি, মমতাময়ী মা, অন্যদিকে বাংলার প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে ছিল তার আপসহীন এবং দৃপ্ত পদচারণা। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান, একাত্তরের অসহযোগ আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধ এবং স্বাধীন বাংলাদেশে বিভিন্ন গণতান্ত্রিক সংগ্রামসহ শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে তার প্রত্যক্ষ উপস্থিতি তাকে জনগণের জননী সাহসিকা উপাধিতে অভিষিক্ত করেছে।

সুফিয়া কামাল ১৯১১ সালের ২০ জুন বিকেল ৩টায় বরিশালের শায়েস্তাবাদস্থ রাহাত মঞ্জিলে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৪৭ সালে দেশ বিভাগের পর সুফিয়া কামাল পরিবারসহ কলকাতা থেকে ঢাকায় চলে আসেন। ভাষা আন্দোলনে তিনি সক্রিয়ভাবে অংশ নেন এবং এই আন্দোলনে নারীদের উদ্বুদ্ধ করেন। তিনি ১৯৫৬ সালে শিশু সংগঠন কচিকাঁচার মেলা প্রতিষ্ঠা করেন।

পাকিস্তান সরকার ১৯৬১ সালে রবীন্দ্রসংগীত নিষিদ্ধ করলে এর প্রতিবাদে সংগঠিত আন্দোলনে তিনি জড়িত ছিলেন এবং তিনি ছায়ানটের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। ১৯৬৯ সালে মহিলা সংগ্রাম কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হন এবং গণঅভ্যুত্থানে অংশ নেন।

১৯৭০ সালে তিনি মহিলা পরিষদ প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৭১ সালের মার্চে অসহযোগ আন্দোলনে নারীদের মিছিলে নেতৃত্ব দেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় তার ধানমন্ডির বাসভবন থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের সহায়তা দেন। ১৯৯০ সালে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে অংশগ্রহণসহ কার্ফু উপেক্ষা করে নীরব শোভাযাত্রা বের করেন।

সাঁঝের মায়া, মন ও জীবন, শান্তি ও প্রার্থনা, উদাত্ত পৃথিবী ইত্যাদি তার উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ। এ ছাড়া সোভিয়েতের দিনগুলি এবং একাত্তরের ডায়েরী তার অন্যতম ভ্রমণ ও স্মৃতিগ্রন্থ।

সুফিয়া কামালের লেখা কাব্যগ্রন্থ হচ্ছে- সাঁঝের মায়া, মায়া কাজল, মন ও জীবন, দিওয়ান, অভিযাত্রিক, শান্তি ও প্রার্থনা, উদাত্ত পৃথিবী ইত্যাদি। কেয়ার কাঁটা নামে একটি গল্পগ্রন্থ ছাড়াও তিনি ভ্রমণ কাহিনী, স্মৃতি কথা, শিশুতোষ এবং আত্মজীবনীমূলক রচনাও লিখেছেন। সোভিয়েতের দিনগুলি এবং একাত্তরের ডায়েরী তার অন্যতম ভ্রমণ ও স্মৃতিগ্রন্থ।

সুফিয়া কামাল দেশ-বিদেশের ৫০টিরও বেশি পুরস্কার লাভ করেছেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য বাংলা একাডেমি পুরস্কার, সোভিয়েত লেনিন পদক, একুশে পদক, বেগম রোকেয়া পদক, জাতীয় কবিতা পরিষদ পুরস্কার ও স্বাধীনতা দিবস পদক।


আরও খবর



আগাম আলু তুলতে ব্যস্ত কৃষকেরা

প্রকাশিত:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলার কৃষকেরা আগাম আলু তুলতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। ফলন একটু কম হলেও চড়া দামে বিক্রি করে লাভবান হবেন এমনটাই আশা করছেন আলু চাষিরা। দেশের বাজারে এই প্রথম নতুন আলু উঠতে শুরু করেছে। এ আলু ঢাকা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের সরবরাহ করা হয়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কৃষক মমিনুর রহমান জানান, ২ বিঘা জমিতে আলু লাগিয়েছি ভালো দামের আশায়। তবে জমি উঁচু হওয়ায় আশ্বিনা বৃষ্টিপাতে তেমন কোন ক্ষতি হয়নি। এখন সেই জমির আলু তুলছি। যা ১০ থেকে ১২ বস্তা আলু হবে। এতে খরচ বাদে দ্বিগুণ টাকা আয় হবে। স্থানীয় কৃষকরা জানান, আগাম আলুর মৌসুমে বৈরী আবহাওয়ায় কারণে আগাম আলু চাষিরা বিপাকে না পড়লে ইতোমধ্যে ৩০ শতাংশ জমির আলু বাজারে চলে আসত। এখন আলু তোলা শুরু হয়েছে।

আর কদিন গেলে উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে আলু উত্তোলন শুরু হবে। তবে বাজার দর ঠিক থাকলে আলু চাষিরা লাভবান হবেন। আলু উত্তোলনের পর ওই জমিতে পুনরায় নমলা আলুসহ  সাথী ফসল হিসেবে ভুট্রা, মিষ্টি কুমড়া, কাঁচামরিচ ও শীতকালীন সবজি চাষ করা হয়। পরবর্তীতে ওই ফসলগুলোতে সার প্রয়োগের প্রয়োজন হয় না।

কিশোরগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার মো. হাবিবুর রহমান জানান, চলতি বছর ৬ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে আলু চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। নতুন আলু উঠতে শুরু করেছে। বর্তমান আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় আলুর বাম্পার ফলনের আশা করা হচ্ছে। কৃষকরা ভাল দাম পেলে আগামীতে আগাম আলু চাষে উৎসাহিত হবেন। মাঠ পর্যায়ে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা প্রতিনিয়ত কৃষকদের পরামর্শ দিচ্ছেন।

 

নিউজ ট্যাগ: আগাম আলু

আরও খবর
চা-চাষে সম্ভাবনার দুয়ার খুলেছে নীলফামারীতে

বৃহস্পতিবার ০৭ জানুয়ারী ২০২১