আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

ট্রেনের যাত্রীর কাছে জুতার ভিতরে মিলল ১৬ লাখ টাকার হিরোইন

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
সুজন কুমার মন্ডল, জয়পুরহাট

Image

জয়পুরহাটে যাত্রীবাহী একটি ট্রেনে তল্লাশি চালিয়ে জুতার ভিতরে অভিনব কায়দায় হেরোইন পাচারকালে এক নারী মাদককারবারীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

রোববার (৩ ডিসেম্বর) দুপুরে জয়পুরহাট রেলস্টেশন এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্যে ১৬ লাখ টাকা।

গ্রেফতারকৃত নারী মাদক কারবারি মোতাহারা বেগম রাজশাহী গোদাগাড়ী উপজেলার সহরাগাছী গ্রামের রিপনের স্ত্রী।

জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোঃ শেখ সাদিক জানান, গ্রেফতারকৃত ওই নারী মাদক কারবারি রাজশাহী সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মাদক সংগ্রহ করে রাজশাহী, নওগাঁ ও জয়পুরহাট জেলার বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করে আসছিলেন ।

রাজশাহী থেকে চিলাহাটিগামী তিতুমীর এক্সপ্রেস ট্রেনে সে মাদক পাচার করছে এমন গোপন সংবাদ আসে র‌্যাবের কাছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে ট্রেনে অভিযান চালালে সে পালানোর চেষ্টা করলে তাকে আটক করে র‌্যাব। পরে তার পায়ের জুতার তলার ভেতর বিশেষ কায়দায় লুকানো অবস্থান ১৬০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




এক ছবি তুলেই চির নিদ্রায় জাপানের চন্দ্রযান?

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

সফল অবতরণের পরই বাঁধে বিপত্তি। জাপানের চন্দ্রযান স্লিম ল্যান্ডারটি চাঁদের পৃষ্ঠে উলটে গিয়েছিল। তবে এক সপ্তাহ পর সব প্রতিকূলতা পেরিয়ে জেগে উঠেছিল স্লিম।

কিন্তু এখন চাঁদে রাত নেমেছে। ল্যান্ডারটিও তাই বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য কোনো সূর্যালোক  পাচ্ছে না। ফলে পরবর্তীতে এটি আর জেগে নাও উঠতে পারে বলে শঙ্কা করা হচ্ছে।

জাপানের মহাকাশ সংস্থা জাক্সা গেল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার আগে চাঁদের শিওলি ক্রেটারে মহাকাশযানটির তোলা শেষ ছবি শেয়ার করেছে। এমন এক সময়ে ছবিটি তোলা হয়েছে যখন চাঁদে রাত নেমে আসছিল। চাঁদের একট রাত পৃথিবীর দুই সপ্তাহের সমান। আর সে সময়ে তাপমাত্রা মাইনাস ১৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে নেমে যায়।


আরও খবর



পুলিশ বক্সে মাদকের আসর

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

Image

চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর আঞ্চলিক সড়কে পথচারীদের যাতায়াত নিরাপদ করতে জেলা পরিষদের অর্থায়নে মরিচাডাঙ্গায় একটি পুলিশ বক্স নির্মাণকাজ শুরু হলেও গত ৬ বছরেও শেষ হয়নি। ঢালাই করা একটি ঘর নির্মাণ করা হলেও সেখানে এখন নিয়মিতই বসে মাদকের আসর।

সংশ্লিষ্টসূত্রে জানা গেছে, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে গোমস্তাপুর উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের মরিচাডাঙ্গায় পুলিশ বক্সটি নির্মাণ কাজ শুরু হয়। নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত পুলিশদের থাকার সুবিধার্থে এ ঘরটি নির্মাণের জন্য ২ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয় জেলা পরিষদ। এই উন্নয়ন প্রকল্পের দাতা ছিলেন জেলা পরিষদের সাবেক সংরক্ষিত সদস্য ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হালিমা খাতুন।

পুলিশ বক্সটি পরির্দশনকালে দেখা যায়, ইট দিয়ে ঘেরা একটি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। ঘরটিতে ছাদ থাকলেও পলেস্তারা করা হয়নি এখনও। নেই দরজা কিংবা জানালাও। দীর্ঘদিন ঘরটি পরিত্যক্ত থাকায়, দেয়ালগুলোয় মাকড়সা জাল বুনেছে। ইটের ফাঁকে পরজীবী উদ্ভিদ বেরিয়ে দুইপার্শ্বের গোটা দেয়াল ছেয়ে গেছে। পড়ে রয়েছে সিগারেটের ব্যবহৃত প্যাকেটসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্যের পরিত্যক্ত অংশ।

এসময় পথচারীরা বলেন, এই সড়কটিতে ডাকাতের উপদ্রব থাকায় যাতায়াতকারীদের কথা ভেবে পুলিশ বক্স নির্মাণের উদ্যোগ নেয় জেলা পরিষদ। দুই লাখ টাকা গচ্চা গেলো ঠিকই, কাজের কাজ হয়নি কিছুই।

আরেক পথচারী জানান, এই সড়কটির অনেক এলাকাজুড়ে মানুষের বসতি নাই। ফলত রাতের বেলায় সড়কটি পথচারীদের জন্য খুব একটা নিরাপদ নয়। ফলে পুলিশ বক্সটির নির্মাণ কাজ শেষ করে, এখানে পুলিশি পাহারা জোরদার করা হোক। তাহলে পথচারীরা নির্বিঘ্নে পথ চলতে পারবে।

পথচারীদের অনেকেই জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর সড়কে একটি পুলিশ বক্স থাকা খুবই প্রয়োজন। প্রায়ই দিনের বেলায় ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। সড়কটিতে পুলিশ বক্স থাকলে দুর্বৃত্তরা এধরনের কাজ করতে পারতো না।

পরিত্যক্ত পুলিশ বক্সের কথা জানেন না উল্লেখ করে গোমস্তাপুর থানার ওসি চৌধুরী জোবায়ের আহাম্মদ জানান, ওই সড়কটিতে নিয়মিত পুলিশ গাড়ি নিয়ে টহল দেয়। এছাড়া অপ্রীতিকর কোন খবর পেলেই পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

জেলা পরিষদের সাবেক সংরক্ষিত আসনের সদস্য প্রকল্পদাতা হালিমা খাতুন বলেন, সড়কটিতে দিনদুপুরে ডাকাতি-ছিনতাইয়ের মতো ঘটনা প্রায়ই ঘটে। পথচারীদের যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে জেলা পরিষদ থেকে বরাদ্দ নিয়ে রাস্তার পাশে একটি পুলিশ বক্স নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। গোমস্তাপুর থানা পুলিশের নজরদারিতে ওই পুলিশ বক্সটির নির্মাণকাজ শুরু হয়। পরে টাকার অভাবে কাজটি শেষ করা সম্ভব হয়নি। যদিও আরও দুই লাখ টাকা চেয়ে জেলা পরিষদের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের পুলিশ বক্সটির নির্মাণকাজ শেষ করার জন্য বলেছিলাম। পরে তারাও আর উদ্যোগ নেয়নি, কাজও শেষ হয়নি।

হালিমা খাতুন আরও বলেন, পুলিশ বক্সটি নির্মাণকাজ শেষ করা খুবই প্রয়োজন। সম্প্রতি এক নারীর কাছ থেকে দুপুরে টাকা নিয়ে গেছে ছিনতাইকারীরা। পুলিশ সেখানে থাকলে ছিনতাইকারী চক্রের সদস্যরা এই সুযোগ পেতো না।

রাস্তার পাশের এই পুলিশ বক্সটির নির্মাণকাজ শেষ করে জায়গাটিতে পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করতে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি কামনা করেন জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য হালিমা।

সচেতন মহলের অভিযোগ, লাখ লাখ টাকা ব্যয় করে জেলা পরিষদ অনেক উন্নয়ন কাজ শুরু করেন। কিছু কিছু নির্মাণ কাজ টাকার সংকটের  কারণে সম্পন্ন হয় না। পরে ওই কাজের বিপরীতে যে টাকা খরচ হয় তা মানুষের জন্য উপকারে আসেনা। এসব ক্ষেত্রে নতুন বরাদ্দ দিয়ে অসম্পন্ন কাজটি সম্পন্ন করতে হবে নইলে রাষ্ট্রের মোটা অংকের টাকা গচ্চা যাবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব মনিরুজ্জামান বলেন, সরকারি দুই লাখ টাকা খরচ করে যেহেতু রাস্তার পাশে পুলিশ বক্স নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। গত ৬ বছর ধরে এই কাজটি সম্পন্ন হয়নি। সংশ্লিষ্টদের উচিত আবারও নতুন করে বরাদ্দ দিয়ে যে লক্ষ্য-উদ্দেশ্য নিয়ে ঘরটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল, তা সম্পন্ন করা।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আফাজ উদ্দিন পুলিশ বক্সটি নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ার সময় এখানে কর্মরত ছিলেন না উল্লেখ করে বলেন, আমরা সেখানে লোক পাঠাবো। যদি নতুন বরাদ্দ দিয়ে পুলিশ বক্সের নির্মাণকাজ সম্পন্ন করা যায়, তাহলে সেটাই করবো।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মিয়ানমার ইস্যুতে জটিল সমীকরণে বাংলাদেশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সীমান্তের ওপারে রাখাইন রাজ্যে চলমান সংঘাতের জেরে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া সীমান্তরক্ষীদের (বিজিপি) ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের সঙ্গে যোগাযোগ করে এ পর্যন্ত ইতিবাচক সাড়া মেলেনি। একেই বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন নিয়ে জটিলতা কাটছে না। এমতাবস্থায় নতুন করে সীমান্তরক্ষীদের আশ্রয়দানের পর যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে, তাতে করে বাংলাদেশকে বুঝেশুনে পদক্ষেপ নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশ্লেষকরা। এসব বিষয় যত দ্রুত সম্ভব আন্তর্জাতিক ফোরামে তুলে ধরারও পরামর্শ দিচ্ছেন তারা।

গত কয়েকদিন থেকে রাখাইনে চলছে বিরামহীন গুলির আওয়াজ। বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপি ও সেনাসদস্যসহ মোট ৩২৮ জন বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। প্রায় ১৫ লাখ রোহিঙ্গার বোঝা মাথায় নিয়ে চলা বাংলাদেশের সামনে তাই স্বাভাবিকভাবে নতুন সংকট তৈরি হয়েছে। সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী বলেছেন, আর একজনকেও বাংলাদেশে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ জানান, মিয়ানমারের সেনাদের পালিয়ে অন্য দেশে আশ্রয় নেওয়ার ঘটনা নতুন কিছু নয়। তিনি বলেন, ভারতের সীমান্তে এর আগে এমনটা হয়েছে। গত বছরও দেশটিতে আশ্রয় নেয়। ভারত সরকার দ্রুত তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠিয়েছে। চীনও তাই করেছে।

ড. ইমতিয়াজ জানান, পশ্চিমা সমর্থিত মিয়ানমারের বিদ্রোহী গ্রুপ পিপলস ডিফেন্স ফোর্স (পিডিএফ) জান্তা সরকারের ওপর হামলার তীব্রতা বাড়িয়েছে। তবে চীন চায় না পিডিএফ একক ক্ষমতা কাঠামো তৈরি করুক। সে কারণে তারা আরাকান আর্মিসহ বিভিন্ন গ্রুপকে সহায়তা দিচ্ছে। তিনি বলেন, আরাকান আর্মি সব দিক থেকে তাদের ক্ষমতা শক্তিশালী করেছে। অনেক জায়গা দখলও করেছে। যার প্রভাবে মিয়ানমারের জান্তা সেনারাও অনেক সময় পিছু হটছে। যাদের অনেকে বাংলাদেশে আশ্রয় পর্যন্ত নিয়েছে। যত দ্রুত পারা যায় তাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো দরকার। তার আগে দেখে নিতে হবে ভারত ও চীন কীভাবে বিষয়টি সমাধান করছে।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক আদালতের নির্দেশনা স্মরণ করিয়ে দিয়ে ড. ইমতিয়াজ বলেন, রোহিঙ্গাদের ওপর নতুন করে হামলা হলে গণহত্যা হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। এ কারণে তাদের ওপর হামলার ঘটনা দেখা যাচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে নতুন করে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের সুযোগ নেই বলে মনে করেন এই আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষক।

রাখাইনে সংঘর্ষ চলতে থাকলে তা ভারত ও চীনের জন্যও হুমকি হয়ে উঠতে পারে বলে জানান ড. ইমতিয়াজ। তিনি বলেন, বাংলাদেশের উচিত বড় আকারে এ দুই দেশের সঙ্গে আলোচনায় বসা। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারতে যাওয়ার আগে ইতোমধ্যে জানিয়েছেন তিনি ভারতের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলবেন। সেই আলোচনায় ভারতকেও কথা বলতে হবে। আর যদি বাংলাদেশের দিকে হতাহত আরও বেড়ে যায় এবং মর্টারশেল বন্ধ না হয়, তা হলে আন্তর্জাতিকীকরণ আরও বাড়ানো দরকার। পাশাপাশি জাতিসংঘে যদি বিষয়টি উঠাতে হয়, তা হলে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে। বিভিন্ন ফোরামকে কাজে লাগাতে হবে।

রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতি ভবিষ্যৎ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের ওপর প্রভাব ফেলবে বলে মনে করেন নিরাপত্তা বিশ্লেষক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব) এম সাখাওয়াত হোসেন। তিনি বলেন, রাখাইনের সংঘাতের ওপর এ অঞ্চলে চীন-ভারতের দ্বন্দ্বও নির্ভর করবে। পালিয়ে আসারা কোনো বন্দি নয়, আবার শরণার্থীও নয়। তারা একটা পক্ষ ত্যাগ করে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছেন। এখন বিজিবির হেফাজতে রাখা মানে হচ্ছে, তারা যে এখানে এসে আত্মসমর্পণ করেছে, সেটা গৃহীত হয়েছে।

এই নিরাপত্তা বিশ্লেষক বলেন, রাখাইন অঞ্চলে ভারত, চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের বলয় তৈরি হয়েছে। কাজেই রণক্ষেত্র না হলেও বাংলাদেশ একটা বড় সমস্যার সম্মুখীন হতে যাচ্ছে। ভূ-রাজনৈতিক আঙ্গিকে বাংলাদেশের অবস্থান বিশেষ করে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সীমান্ত এবং সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতের পথ খোঁজা জরুরি। পরিস্থিতি কীভাবে সামাল দেবে, সেটা সরকারকে বিবেচনা করতে হবে।


আরও খবর



বইমেলা দুই দিন বাড়ানোর অনুরোধ প্রকাশকদের

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অমর একুশে বইমেলা আগামী ২ মার্চ পর্যন্ত বাড়ানোর জন্য অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির নেতারা। এ ব্যাপারে মেলার আয়োজক বাংলা একাডেমির মহাপরিচালককে চিঠিও দিয়েছে তারা।

চিঠিতে আগামী ১ ও ২ মার্চ যথাক্রমে শুক্র ও শনিবার সময় বাড়ানোর প্রস্তাব দেওয়া হয়।

গতকাল শনিবার এই চিঠি পাঠিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন সমিতির সহ-সভাপতি শ্যামল পাল। তিনি বলেন, ‌মেলার স্টল বরাদ্দ পেতে বিলম্ব হওয়া এবং প্রথম দিকেই বৃষ্টি হওয়ার কারণে প্রকাশকরা আর্থিকভাবে ক্ষতির মুখে পড়েছেন। এজন্য প্রকাশকদের চাওয়া মেলা যেন দুদিন বাড়ানো হয়।

বইমেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব কে এম মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা চিঠি পেয়েছি। তবে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। মেলার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করেএ ব্যাপারে যা সিদ্ধান্ত হয়, তা জানানো হবে।

নিউজ ট্যাগ: বইমেলা প্রকাশক

আরও খবর
ছুটির দিনেও ঢাকার বায়ু ‌‘অস্বাস্থ্যকর’

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কাকে মনোনয়ন দিলেন ইমরান খান

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিজের পছন্দের প্রার্থী বাছাই করেছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ওমর আইয়ুবকে এবং পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী হিসেবে মিয়া আসলাম ইকবালকে মনোনয়ন দিয়েছেন ইমরান খান। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

গতকাল বৃহস্পতিবার ইমরানের পাকিস্তানতেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) পার্টির বর্তমান চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার গহর খান বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী হিসেবে ওমর আইয়ুবকে এবং পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী পদে মিয়া আসলাম ইকবালকে মনোনয়ন দিয়েছেন।

ব্যারিস্টার গহর এবং অন্যান্য পিটিআই নেতারা বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আজ কারাবন্দি দলীয় প্রধানের সঙ্গে বৈঠক করার পরে এই সিদ্ধান্ত জানান।এছাড়া, পাঞ্জাব ও বেলুচিস্তানের মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী হিসেবে যথাক্রমে মিয়া আসলাম ইকবাল ও সালার কাকারকে মনোনীত করেছেন।

ব্যারিস্টার গহর বলেন, পিটিআই নেতা আসাদ কায়সারের ভাই আকিবুল্লাহ খানকে খাইবার পাখতুনখোয়া (কেপি) প্রদেশের স্পিকার পদের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে।


আরও খবর