আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

টিএসএম পদে লোক নেবে শপআপ

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৮ এপ্রিল ২০২২ | ১৭৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অনলাইন শপিং মার্কেট প্লেস শপআপে টেরিটরি সেলস ম্যানেজার’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১৭ মে পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: শপআপ

পদের নাম: টেরিটরি সেলস ম্যানেজার

পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক

অভিজ্ঞতা: ০১-০৩ বছর

বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম

প্রার্থীর ধরন: পুরুষ

বয়স: ২২-৪০ বছর

কর্মস্থল: ঢাকা, বগুড়া, গাজীপুর, খুলনা, নারায়ণগঞ্জ, নীলফামারী, রাজশাহী, রংপুর, সিলেট ও ঢাকা (সাভার)

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১৭ মে ২০২২

নিউজ ট্যাগ: চাকরির খবর

আরও খবর



এনায়েত উল্লাহ আব্বাসীর বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আলোচিত ইসলামি বক্তা ড. এনায়েত উল্লাহ আব্বাসীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ফেসবুকে প্রচারিত একটি অনুষ্ঠানে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জঙ্গির সঙ্গে তুলনা করে বক্তব্য দেয়ায় তার বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করা হয়।

মঙ্গলবার রাতে শাহবাগ থানায় এ মামলাটি করেন বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন।

মামলায় এক নম্বর আসামি করা হয়েছে এনায়েত উল্লাহ আব্বাসীকে। ফেস দ্য পিপল নামের অনুষ্ঠানের সঞ্চালক সাইফুল রহমানকেও আসামি করা হয়।

শাহবাগ থানার ওসি মওদুত হাওলাদার মঙ্গলবার রাতে গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মামলায় ড. এনায়েত উল্লাহ আব্বাসীকে এক নম্বর আসামি ও অনুষ্ঠানের সঞ্চালক সাইফুল রহমানকে দুই নম্বর আসামি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা নিতে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে মতামতের জন্য পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে মতামত আসার পর মামলা নিয়ে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে।

মামলার এজহারে বলা হয়েছে, ড. এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী গত ১৪ মে রাত ৯টার দিকে ইউটিউবে ফেস দ্য পিপল নামের একটি টকশো অনুষ্ঠানে অংশ নেন। আলোচনার বিষয় ছিল ১১৬ জন আলেম নিয়ে অভিযোগ বিশ্লেষণ। এখানে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও জাতির শ্রেষ্ঠ বীর সন্তানদের জঙ্গির সঙ্গে তুলনা করে এনায়েত উল্লাহ আব্বাসী বলেন, জঙ্গিবাদ কি খারাপ জিনিস! কে বলেছে, জঙ্গিবাদ খারাপ জিনিস! জঙ্গিবিমান! এটা কি সন্ত্রাসী বিমান! জঙ্গি শব্দটা এসেছে জাং থেকে, ফার্সিতে জাং বলে যুদ্ধকে- ফাইট। অতএব, ফ্রিডম ফাইটাররাও এক অর্থে জঙ্গি।

মামলার এজহারে আরও বলা হয়েছে, মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর সন্তানদের জঙ্গির সঙ্গে তুলনা করে ধৃষ্টতা দেখিয়ে এনায়েতুল্লাহ বীর মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিরুদ্ধে স্পষ্ট প্রোপাগান্ডা ও প্রচারণা চালিয়েছেন। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ও তাদের অবদানকে অপমান ও অপদস্ত করেছেন। যা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮- এর ২১/২৮/২৯/৩৫ ধারায় দণ্ডনীয় অপরাধ।


আরও খবর



দেশের বাজারে ডলার ১০৩ টাকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৩৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে ডলারের দামে অস্থিরতা বিরাজ করছে। কয়েক দিন ধরে ডলার ক্রয়-বিক্রয়ে দাম ওঠানামা করছে। কিন্তু অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড ১০৩ টাকা দরে ডলার বিনিময় হচ্ছে। খোলা বাজারে ডলারের দাম নিয়ে এ তুঘলকি কাণ্ড নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেই বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

সামনে দাম বাড়তে পারে এমন আশঙ্কা থেকে কেউ কেউ ডলার কিনেও রাখছেন। আর মানি এক্সচেঞ্জ পয়েন্টগুলোতে যে যার মত দামে ডলার ক্রয় করছেন। তবে সর্বোচ্চ ১০৩ টাকা দামে ডলার বিক্রি হতে দেখা গেছে। এ ছাড়াও ব্যাংকগুলোও বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্ধারিত দামে ক্রয় করলেও তার চেয়ে ৫ থেকে ৭ টাকা বেশি দরে বিক্রি করছে। আর দাম নিয়ন্ত্রণে খোদ বাংলাদেশ ব্যাংকেরও কোনো হাত নেই বলে জানা গেছে।  রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন, ফকিরাপুল ও মালিবাগ এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মানি এক্সচেঞ্জ হাউসগুলোতে ডলার খুচরা ক্রয়-বিক্রি করছে। তারা এক ডলার ৯৯ থেকে ১০০ টাকা দামে ক্রয় করে ১০১ থেকে ১০৩ টাকা দরে বিক্রি করছে। আর কয়েকটি ব্যাংক ১ ডলার ৯৫ থেকে ৯৭ টাকা দরে বিক্রি করছে।

পাইওনিয়ার এক্সচেঞ্জ হাউসে ডলারের দাম জানতে চাইলে দায়িত্বরত এক কর্মী বলেন, প্রতি ডলার ১০৩ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। আর আমরা এক ডলার কিনছি ৯৯ থেকে ১০০ টাকা দরে। এক দিন পরে আরও বাড়তে পারে। কারণ, বাজারে ডলার চাহিদানুযায়ী সরবরাহ একেবারে কম।

দিলকুশায় সোবহান নামে এক ব্যক্তি বলেন, আগামী মাসে ইউএস যাব কিন্তু ডলারের দাম দিন দিন বাড়ছে। তাই কিছু ডলার কিনতে এলাম। কিন্তু কেউ ১০৩ টাকার নিচে ডলার বিক্রি করতে চাচ্ছেন না।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ডলার নিয়ে অস্থিরতা আছে। তবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক তাতে গভীর পর্যবেক্ষণ রেখেছে। চাহিদা ও মজুতে বিষয় মাথায় রেখে সম্প্রতি পাঁচবার ডলারের দাম বৃদ্ধি করেছে। তবু ডলারের মজুত কমছে, বিশেষ করে আমদানি বৃদ্ধিতে ডলার সংকট বেশি হয়েছে। রপ্তানি ও প্রবাসী আয় বাড়লে ঘাটতি কমে আসবে। তখন পুনরায় ডলারের দাম নির্ধারণ করা যেতে পারে। খোলা বাজার বা কার্ব মার্কেটের দাম কত হবে তা বাংলাদেশ ব্যাংক ঠিক করে দেয় না। সেখানে দাম বেশি হলে তা নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ ব্যাংকের কোনো হাত নেই। তবে এ কথা সত্য যে, অনেক ব্যাংক আন্ত-ব্যাংক ডলারের দামের তুলনায় বেশি দামে ডলার বিক্রি করছে। এটা খুব বেশি হওয়া উচিত নয়। তবে ব্যাংকগুলো সাধারণত খোলা বাজারের তুলনায় তেমন একটা বেশি ডলার কেনা-বেচা করে না। আর খোলা বাজারে যে পরিমাণ ডলার ক্রয়-বিক্রয় তা আমলে নেওয়ার মতো নয়। কারণ, পরিমাণটা খুব একটা বেশি নয়।

 বাংলাদেশ মানি চেঞ্জারস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে এম ইসমাইল হক বলেন, ডলার নিয়ে তুঘলকি কাণ্ড সৃষ্টি হয়েছে। আমরা কম দামে ডলার সংগ্রহ করতে পারি না। যেন ডলারের হাহাকার সৃষ্টি হয়েছে। আমরা ৯৯ থেকে ১০০ টাকা দরে ডলার কিনে তা ১০২ টাকার কমে বেচতে পারি না। ডলারের চলমান নিরসনে সরকারের বিশেষ নজরদারি দরকার।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ব্যাংক গত সোমবার ডলারের দর বেঁধে দিয়েছে ৮৭ টাকা ৫০ পয়সা। কিন্তু তাদের বেঁধে দেওয়া এ রেট বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো মানছে না। এখন ব্যাংকে এলসি করতে গেলে ডলারের বিপরীতে নেওয়া হচ্ছে ৯৩ থেকে ৯৪ টাকা। আবার কোনো কোনো ব্যাংক ৯৬-৯৭ টাকাও নিচ্ছে। আর বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২০২০ সালের জুলাই থেকে গত বছরের আগস্ট পর্যন্ত আন্তব্যাংক মুদ্রাবাজারে ডলারের দাম ৮৪ টাকা ৮০ পয়সায় স্থিতিশীল ছিল। কিন্তু এরপর থেকে বড় ধরনের আমদানি ব্যয় পরিশোধ করতে গিয়ে ডলার সংকট শুরু হয়। যা এখন পর্যন্ত অব্যাহত আছে। এ ছাড়া ২০২১ সালের ৩ আগস্ট থেকে দুই-এক পয়সা করে বাড়তে বাড়তে গত বছরের ২২ আগস্ট প্রথমবারের মত ৮৫ টাকা ছাড়ায় ডলারের দাম। চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি এটি বেড়ে ৮৬ টাকা হয়। গত ২৩ মার্চ আন্তব্যাংক লেনদেনে ৮৬ টাকা ২০ পয়সায় দাঁড়ায়। ২৭ এপ্রিল ৮৬ টাকা ৪৫ পয়সা, ১০ মে ৮৬ টাকা ৭০ পয়সা এবং গত সোমবার ৮৭ টাকা ৫০ পয়সায় দাঁড়ায় ডলারের মূল্য। যা এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ।

এদিকে আমদানির চাপে ধারাবাহিকভাবে ডলার বিক্রি করায় বৈদেশিক মুদ্রার মজুতের (রিজার্ভ) ওপর চাপ বাড়ছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের ২৪ আগস্ট এই রিজার্ভ আগের সব রেকর্ড ভেঙে ৪৮ বিলিয়ন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করেছিল। দেশের ওই রিজার্ভ ১১ মে ৪১ দশমিক ৯৩ বিলিয়ন বা ৪ হাজার ১৯৩ কোটিতে নেমে এসেছে।

নিউজ ট্যাগ: ডলার

আরও খবর
যশোরে ১০ ঢাকায় ৮০

বুধবার ২৫ মে ২০২২




মে মাসে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ০২ মে 2০২2 | ৫৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মে মাসের ৬-৭ তারিখে এ অঞ্চলে একটি লঘুচাপ তৈরি হতে পারে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর। আর ১২ মের মধ্যে তা শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেওয়ার শঙ্কা রয়েছে। বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত আন্দামান-নিকোবর দ্বীপের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে তৈরি হতে পারে এই ঝড়, যার সম্ভাব্য গতি হবে ৩৪ নটিক্যাল মাইল এবং স্থলভাগে আঘাত হানার আগে গতি হবে ঘণ্টায় ১৭৫ কিলোমিটার।

এ ঝড়ের নাম শ্রীলঙ্কান আবহাওয়া অধিদফতর দিয়েছে আসানি। আসানি সিংহলি ভাষার শব্দ যার অর্থ অত্যন্ত রাগান্বিত বা ক্ষুদ্ধ।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ ড. মো. আবুল কালাম মল্লিক সংবাদমাধ্যমকে জানান, আগামী ৬ থেকে ৭ মের মধ্যে আন্দামান-নিকোবর দ্বীপের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে একটি লঘুচাপ তৈরি হওয়ার আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এটি সুনির্দিষ্ট লঘুচাপের পর ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। বর্তমান তথ্য অনুযায়ী ঘূর্ণিঝড়টি তৈরি হলে পশ্চিমবঙ্গ, উড়িষা ও বাংলাদেশের উপকূলে চলতি মাসের ১০ থেকে ১২ মের মধ্যে আঘাত হানতে পারে।

তিনি বলেন, যদি এটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়, তাহলে পশ্চিমবঙ্গ, উড়িষ্যা ও বাংলাদেশ উপকূল বরাবর দিকটা তৈরি হতে পারে। কিন্তু এই মুহূর্তেই এই পূর্বাভাস দেওয়া সম্ভব নয়। কারণ, গত কয়েক বছরে দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে যে লঘুচাপগুলো দেখা গেছে, সেগুলো ক্ষণে ক্ষণে চরিত্র, বৈশিষ্ট্য ও দিক পরিবর্তন করেছে। এ জন্যই বলা যাচ্ছে না যে, এটা আদৌ ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেবে কি না। তবে বর্তমান তথ্য-উপাত্ত অনুযায়ী শক্তি অর্জন করে এটির ঘূর্ণিঝড় হওয়ার যথেষ্ট কারণ রয়েছে।


আরও খবর



মেয়ের বিয়ের বাজার নিয়ে ফিরলেন ঠিকই, তবে লাশ হয়ে

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৬ মে ২০২২ | ৬৩৫জন দেখেছেন
আব্দুল্লাহ আল মামুন

Image

ভোলার লালমোহনে মেয়ের বিয়ের বাজার করতে এসে সড়ক দুর্ঘটনায় লাশ হয়ে ফিরলেন বাবা। শুক্রবার (০৬ মে) বিকালে উপজেলার ইসলামপুর বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ভোলার লালমোহনে ইজিবাইকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী আবদুল রশিদ মাল(৪৫) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়।

নিহত আবদুল রশিদ লালমোহন উপজেলা বদরপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সরদার বাড়ির মৃতঃ আবদুল ওহাদ আলী মালের ছোট ছেলে। আবদুল রশিদ চট্টগ্রামে সিএনজি চালক। সেই ঈদের ছুটিতে মেজো মেয়ের বিয়ের উদ্দেশ্য বাড়িতে আসেন।

আবদুল রশিদ মালের বড় ভাই শাজাহান মাল জানান, তার ছোট ভাই জুম্মা নামাজ শেষে মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য দুই কিনতে বাড়ি থেকে নাজিরপুর বাজার উদ্দেশ্য মোটরসাইকেল নিয়ে রওয়ানা দেন ইসলামপুর বাজারে উত্তর পাশে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা ইজি বাইকের সাথে সংঘর্ষ হয়।

এতে ঘটনাস্থলেই তার ভাই মারা যান। মেয়ের বিয়ের বাজার করতে গিয়ে এভাবে লাশ হয়ে ফিরবেন তার বাবা এটা বুঝতে পারিনি’ বলে কান্নায় ভেঙে পড়েন।

লালমোহন থানার ওসি (তদন্ত) এনায়েত হোসেন বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ইজিবাইক ও মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনও অভিযোগ না থাকায় পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।


আরও খবর
হুমকির মুখে ভোলার শতকোটি টাকার শহর রক্ষা বাঁধ

বৃহস্পতিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২




এসআই পদে মৌখিক পরীক্ষা ৯ মে থেকে ৯ জুন

প্রকাশিত:রবিবার ০১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০১ মে ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পুলিশের ২০২১ সালের ক্যাডেট সাব-ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) পদে লিখিত ও মনস্তত্ত্ব পরীক্ষাসহ কম্পিউটার দক্ষতা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ২ হাজার ৫৫০ জন প্রার্থীর বুদ্ধিমত্তা ও মৌখিক পরীক্ষা আগামী ৯ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত ঢাকা পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে অনুষ্ঠিত হবে।

পুলিশের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) মো. কামরুজ্জামান বিপিএম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে রোববার এ তথ্য জানানো হয়।

পরীক্ষার্থীদেরকে পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে কেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে হবে। পরীক্ষার্থীকে লিখিত ও মনস্তত্ত্ব এবং বুদ্ধিমত্তা ও মৌখিক পরীক্ষার প্রবেশপত্র, শিক্ষাগত যোগ্যতা, নাগরিকত্ব, জাতীয় পরিচয়পত্রসহ অন্য সব সনদের মূলকপি সঙ্গে আনতে হবে। 

এছাড়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা/শহিদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের বয়স প্রমানের ক্ষেত্রে বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম লাল মুক্তিবার্তায় থাকলে লাল মুক্তিবার্তা/বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম ভারতীয় তালিকায় থাকলে ভারতীয় তালিকা/বীর মুক্তিযোদ্ধার নামে জারীকৃত গেজেটের মূলকপি এবং পরীক্ষার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা/শহিদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যা এ মর্মে প্রত্যয়ন ও মুক্তিযোদ্ধার জন্ম নিবন্ধন সনদের মূলকপিসহ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির শর্তানুযায়ী অন্য কাগজপত্র সঙ্গে আনতে হবে।

পরীক্ষার্থীদেরকে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে।পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য কোন প্রকার টিএ/ডিএ দেওয়া হবে না।


আরও খবর