আজঃ শনিবার ২২ জুন ২০২৪
শিরোনাম

স্বরূপকাঠিতে কমে গেছে জাহাজ নির্মাণ: বেকার হয়ে পড়ছে বহু শ্রমিক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি এলাকাটি জেলার প্রধানতম শিল্পসমৃদ্ধ এলাকা। এই উপজেলার হাজার হাজার লোক জাহাজ নির্মাণ শিল্প, ছোবড়া শিল্প, কাঠ শিল্প, নার্সারি শিল্প, কামার শিল্প, মৃৎ শিল্প, ক্রিকেট ব্যাট শিল্পের  সাথে জড়িত। শুধু এলাকার লোকই নন এসব শিল্পকে কেন্দ্র করে উপজেলার বাইরের খুলনা, রাজবাড়ী ও মাদারীপুর সহ বিভিন্ন এলাকারও বহু লোকের এখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

পিরোজপুর জেলা একটি নদীমাতৃক অঞ্চল। বাহন হিসেবে এককালে এসব অঞ্চলে কাঠের তৈরি নৌকা ও ট্রলারের প্রচলন থাকলেও এখন স্টিলের তৈরি লঞ্চ, ট্রলার ও কার্গোর প্রচলন বৃদ্ধি পেয়েছে। আর তাই এসব নৌযান তৈরির লক্ষে উপজেলার স্বরূপকাঠি সদর, সোহাগদল, সুটিয়াকাঠি, তারাবুনিয়া, নাওয়ারা, কালীবাড়ী, বরছাকাঠি, ডুবিরহাট ও বালিহারিতে ছোট বড় মিলিয়ে প্রায় শতাধীক ডকইয়ার্ড গড়ে উঠেছে।

নানা প্রতিকূলতা স্বত্বেও সম্পূর্ণ বেসরকারিভাবে গড়ে ওঠা এসকল ডকইয়ার্ডে বিভিন্ন পেশায় প্রায় ১০ হাজার শ্রমিক কর্মরত আছেন। এদের প্রত্যেকের দৈনিক মজুরী ৩৫০ টাকা থেকে শুরু করে ৯০০ টাকা পর্যন্ত। এছাড়াও ওভার টাইম নিয়েও কাজ করেন অনেক শ্রমিক এজন্য তারা সন্তোষজনক হারে মজুরী পেয়ে থাকেন।

তবে বর্তমানে নৌযান নির্মানের প্লেট, ঝালাইকাঠি ও রং সহ নানা ধরনের কাঁচামালের মুল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় নৌযান তৈরির ব্যয় বেড়ে গেছে বহুগুন। আর এ কারণেই ডক ইয়ার্ডগুলোতে নৌযানের মেরামতের কাজ কিছুটা আগের মত চললেও নতুন নৌযান নির্মান কমে গেছে। শুধু পণ্যের মুল্য বৃদ্ধির কারণেই নয় পদ্মাসেতু চালু হওয়ায় দক্ষিণাঞ্চলের সড়কপথে পণ্যপরিবহন বেড়ে গেছে। এ কারণে ট্রাকবডি সহ পরিবহনের নৌযান তৈরি কমে গেছে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। এর ফলে এই এলাকার ডকইয়ার্ড শিল্পের অর্থনীতিতে মারাত্মক প্রভাব ফেলছে।

এ ব্যাপারে শ্রমিক মো. নজরুল ইসলাম জানান, আগে এখানকার ডক ইয়ার্ডগুলোতে এত পরিমান নৌযান তৈরি হত যে শ্রমিকদের দিনে কাজ করার পরেও রাতে ওভারটাইম কাজ করতে হতো। ইদানিং জাহাজ নির্মান কমে যাওয়ায় শ্রমিকের চাহিদা কমে গেছে, বেতনও আগের তুলনায় কম। বেকারও হয়ে পড়েছেন কেউ কেউ।

হাওলাদার ডকইয়ার্ডের কন্ট্রাকটর মো. জাহাঙ্গীর হাওলাদার, জাহাজ তৈরির জন্য যে প্লেট সহ অন্য কাঁচামাল ব্যবহার করা হচ্ছে সেগুলোর দাম হঠাৎ করে বেড়ে যাওয়ায় ইদানিং জাহাজ নির্মান বা সংস্কারে মালিকদের আগ্রহ কমে গেছে। পূর্বের ৬৫ থেকে ৭০ হাজার টাকার প্রতি টন প্লেট ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকায় কিনতে হচ্ছে। প্রথমে ছোট ছোট নৌযান তৈরি ও মেরামত করা হলেও বর্তমানে বড় বড় নৌযানও তৈরি হচ্ছে ডকইয়ার্ডগুলোতে। এমনকি বর্তমানে এখান থেকে তৈরিকৃত কার্গো ঢাকা ও এর পাশ্ববর্তী কয়েকটি এলাকায় সরবরাহ করা হচ্ছে।

শুধু ডকইয়ার্ডেই নয় এ শিল্পকে কেন্দ্র করে উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপ, হার্ডওয়ার, রং ও মেশিনারী দোকান গড়ে ওঠেছে। সেখানেও বহু শ্রমিকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

ফরাজি এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. মাসুম ফরাজি জানান, আগে প্রতিমাসে ৩০ থেকে ৩৫ লক্ষ টাকার রং বেচাকেনা হত। বর্তমানে মুল্য বৃদ্ধির কারণে জাহাজ নির্মান কমে যাওয়ায় প্রতিমাসে ২০ থেকে ২২ লক্ষ টাকা বেচাকেনা হচ্ছে।

উপজেলা সদরের মেসার্স ছালেহীয়া ডক ইয়ার্ডে বর্তমানে মেসার্স পাতারহাট শিপিং লাইনস্ এর এম ভি দোয়েল পাখি ১০ নামক লঞ্চটি নির্মানাধীন আছে। লঞ্চটির দৈর্ঘ্য ১৯৫ ফুট এবং প্রস্থ ৪২ ফুট।

ওই ডক ইয়ার্ডের পরিচালক মো. নূর এ কাওসার বাবু জানান, আগে ডকে জাহাজ নির্মান ও সংস্কারের জন্য জায়গা দিতে গিয়ে হিমসিম খেতে হতো। আর এখন নির্মান কমে যাওয়ায় বহু জায়গা খালি পড়ে থাকে। কাজ না থাকায় শ্রমিকদের বেকার বসিয়ে রাখতে হচ্ছে।

অগ্রগতি ডক ইয়ার্ড শিপ বিল্ডার্সের স্বত্বাধিকারী মো. সেলিম হাসান জানান, তার ঢাকার কেরানীগঞ্জে ও স্বরূপকাঠির নাওয়ারায় দুটি ডকইয়ার্ড রয়েছে। ডক দুটিতে প্রায় ৩০০ জন লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ হয়েছে। চট্টগ্রামের এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা স্ক্রার্র্প, প্লেট, এ্যঙ্গেল ও ঝালাই কাঠির কৃত্তিম সংকট তৈরি করে এগুলোর দাম বৃদ্ধি করায় বর্তমানে জাহাজ নির্মান ও সংস্কার কমে আছে। ফলে বর্তমানে আর্থিকভাবে তারা বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

এ ব্যাপারে নেছারাবাদ ইউএনও মো. মাহবুব উল্লাহ মজুমদার জানান, স্থানীয় পর্যায়ে কিছু ব্যবসায়ীরা নিজেদের উদ্যোগে এই ব্যবসা চালু করেছেন। এর ফলে এখানে বহু লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হয়েছে। সরকার এই সম্ভাবনাকে যাচাই করে সমন্মিতভাবে এটাকে কিভাবে আরও প্রসারতা ও উন্নতি ঘটানো যায় সে বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছে।

জাহাজ নির্মানের এ শিল্পের প্রসারতা বৃদ্ধির লক্ষে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যেক্তারা আর্থিক সহায়তা নিয়ে এগিয়ে আসলে এ শিল্প হতে পারে কোটি কোটি টাকা আয়ের উৎস। পাশাপাশি হাজার হাজার লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। আর এর মাধ্যমে খুলে যেতে পারে এই অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নের নতুন দ্বার।


আরও খবর



জাতীয় ঈদগাহে পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা : ডিএমপি কমিশনার

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

এবার জাতীয় ঈদগাহে ঈদুল আজহার প্রধান জামাতের নিরাপত্তার জন্য পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান। রোববার (১৬ জুন) রাজধানীর হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে অবস্থিত জাতীয় ঈদগাহ ময়দান পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

ডিএমপি কমিশনার আরও জানান, ঈদগাহ ও এর আশপাশের এলাকায় এসবির ইকুইপমেন্ট দ্বারা সুইপিং করা হবে। ডিএমপির ডগ স্কোয়াড দিয়ে সুইপিং করা হবে।

তিনি বলেন, পুরো এলাকা সিসি ক্যামেরা দিয়ে পর্যবেক্ষণ, ড্রোন পেট্টোলিং ও ওয়াচ টাওয়ারের মাধ্যমে নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হবে।

হাবিবুর রহমান বলেন, মেটাল ডিটেকটর ও আর্চওয়ের মাধ্যমে তল্লাশি করা হবে। ইউনিফর্ম পুলিশ ছাড়াও ডিবি, এসবি ও অন্যান্য গোয়েন্দা সংস্থার কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। কোনো দাহ্যবস্তু নিয়ে ঈদের জামাতে আসা যাবে না।

জঙ্গি তৎপরতার আগাম খবর নেই জানিয়ে তিনি বলেন, তারপরও ডিএমপি পুরো বিষয়টি বিবেচনায় রেখে নিরাপত্তা পরিকল্পনা তৈরি করেছে।

এ ছাড়া কোরবানির পশুর চামড়া যেন কোনোভাবে পাচার না হয় সেজন্য পুলিশ সচেষ্ট থাকবে বলেও জানান ডিএমপি কমিশনার।


আরও খবর



বাজেট: অধিকাংশ মোটরসাইকেলেরই দাম কমছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে দেশে ইঞ্জিন সংযোগ করা মোটরসাইকেলের যন্ত্রাংশ আমদানিতে ডিউটি ও সম্পূরক শুল্ক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। ২৫০ সিসির নিচের সব মোটরসাইকেলের ওপর নীতি কার্যকর থাকবে। এর ফলে দেশে ব্যবহৃত অধিকাংশ মোটরসাইকেলেরই দাম কমবে।

বর্তমানে দেশে অনেক কোম্পানিই মোটরসাইকেলের ইঞ্জিন সংযোজন করছে। মোটরসাইকেল উৎপাদনকারী এসব প্রতিষ্ঠানকে উৎসাহ দিতে মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের যন্ত্রাংশসমূহকে মোটরসাইকেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের উপকরণ আমদানি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনে অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাব করা হয়েছে। উল্লিখিত পণ্যসমূহের আমদানির বিপরীতে আরোপকৃত তিন শতাংশের অতিরিক্ত আমদানি শুল্ক এবং সমুদয় রেগুলেটরি ডিউটি ও সম্পূরক শুল্ক থেকে অব্যাহতির প্রস্তাব করা হয়েছে।

তবে, ২৫০ সিসির ঊর্ধ্বসীমার ইঞ্জিন ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরসাইকেলের জন্য এসব যন্ত্রাংশগুলো আমদানির ক্ষেত্রে আমদানি শুল্ক ১০ শতাংশ ধার্য করার সুপারিশ করা হয়েছে। একইসঙ্গে বাংলাদেশ কাস্টমস ট্যারিফ এ সংশ্লিষ্ট পণ্যের বিপরীতে বিদ্যমান আমদানি শুল্ক ৫ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি করে ১৫ শতাংশ ধার্য করার সুপারিশ করেছেন অর্থমন্ত্রী।


আরও খবর



এমপি আনারের সঙ্গে ফ্ল্যাট থাকা কে এই শিলাস্তি?

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

এখনও মরদেহ উদ্ধার না হলেও ঝিনাইদহ-৪ আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য ভারতে গিয়ে যে খুন হয়েছেন তা নিশ্চিত হওয়া গেছে দুই দেশের পুলিশের কথায়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলছেন, আনোয়ারুল আজিম খুনের পেছনে কয়েকজন বাংলাদেশি জড়িত। এ ঘটনায় তিনজনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

এদিকে এ ঘটনার সাথে উঠে আসছে এক তরুণীর নাম। তিনি হলেন শিলাস্তি রহমান। 

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এমপিকে হত্যার জন্য কলকাতার নিউ টাউনে অভিজাত সঞ্জীবনী গার্ডেনের যে ফ্ল্যাট ভাড়া নেওয়া হয়েছে, সেখানে অবস্থান করেছিলেন ওই তরুণী।

শিলাস্তি রহমান এমপি আনার খুনের মূল পরিকল্পনাকারী আক্তারুজ্জামান শাহীনের বান্ধবী বলে জানা যাচ্ছে। তবে তার বিষয়ে এখনও পুরোপুরি নিশ্চিত তথ্য হাতে পাওয়া যায়নি। এমপি আনোয়ারুল আজিম আনারকে শেষবার কলকাতা শহরতলির এই অ্যাপার্টমেন্ট কমপ্লেক্সের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছিল

সঞ্জীবনী গার্ডেনের সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করেছে কলকাতা পুলিশ। এতে দেখা যাচ্ছে ১৩ মে ওই ফ্ল্যাটে তিনজন একসঙ্গে ঢোকেন। তাদের মধ্যে দুজন পুরুষ ও একজন নারী। একদিন সেখানে অবস্থানের পর ফ্ল্যাট থেকে বের হয়ে আসেন এক পুরুষ ও এক নারী। ধারণা করা হচ্ছে, ওই নারীই শিলাস্তি। ১৩ মে তিনি আমানুল্লাহ ও এমপি আনারের সঙ্গে ফ্ল্যাটে ঢুকে থাকতে পারেন।

এমপি আনারকে কলকাতা নিতে এই তরুণীকে ফাঁদ হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে বলেও সন্দেহ করা হচ্ছে।


আরও খবর



যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ার একটি বাড়িতে আগুনে পুড়ে ৬ জন নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের একটি বাড়িতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। এতে তিন শিশুসহ ছয়জন নিহত ও পাঁচজন আহত হয়েছেন। সোমবার স্থানীয় কর্তৃপক্ষর বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে সিনহুয়া নিউজ এজেন্সি।

জর্জিয়ার স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিহতদের বয়স ৬ থেকে ৭৪ বছর। তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া আহতদের উদ্ধার করে আটলান্টার একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

সিনহুয়ার প্রতিকেদনে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় সোমবার ভোর ৫টার দিকে আটলান্টার দক্ষিণ-পশ্চিমের কোয়েটা কাউন্টির একটি বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পাওয়া মাত্র ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দ্রুত দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

কীভাবে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে, তা এখনও জানা যায়নি। অগ্নিকাণ্ডের সময় বাড়িটিতে ১১ জন বাসিন্দা ছিলেন বলে জানা গেছে।


আরও খবর



বিমান বিধ্বস্তে মালাউইয়ের ভাইস প্রেসিডেন্টসহ নিহত ১০

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

বিমান বিধ্বস্ত হয়ে পূর্ব আফ্রিকার দেশ মালাউইয়ের ভাইস প্রেসিডেন্ট সাওলোস চিলিমা নিহত হয়েছেন। এছাড়াও প্রাণ হারিয়েছেন বিমানটিতে থাকা আরও ৯ জন। মঙ্গলবার (১১ জুন) দেশটির সরকার এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম টাইমস নাউ। এর আগে চিলিমাকে বহনকারী বিমানটি নিখোঁজ হওয়ার খবর পাওয়া যায়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্টের কার্যালয় ও মন্ত্রিসভা থেকে সাধারণ জনগণকে জানাতে চাই, সোমবার (১০ জুন) নিখোঁজ হওয়া মালাউই ডিফেন্স ফোর্সের বিমানটির উদ্ধার অভিযান শেষ হয়েছে। বিমানটিতে থাকা ভাইস প্রেসিডেন্ট সাওলোস ক্লাউস চিলিমাসহ ১০ জনকে আজ সকালে চিকানগাওয়ায় পাওয়া গেছে।’

এতে আরও বলা হয়, দুর্ভাগ্যবশত বিমানটিতে থাকা সবাই নিহত হয়েছেন। বিমানটি রাডারের বাইরে চলে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই মালাউইয়ের প্রতিরক্ষা বাহিনী, পুলিশ সার্ভিস, বেসামরিক বিমান চলাচল বিভাগসহ বিভিন্ন সংস্থা অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযান শুরু করে।’

প্রতিবেদন মতে, বিমান দুর্ঘটনার খবর দেশটির প্রেসিডেন্ট ড. লাজারাস ম্যাককার্থি চাকভেরাকে জানানো হয়েছে। তিনি দুর্ঘটনায় নিহত ভাইস প্রেসিডেন্টের পরিবারসহ অন্যান্যদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেছেন।

এদিকে ভাইস প্রেসিডেন্ট ও তার সহযোগীদের মৃত্যুতে দেশজুড়ে শোক ঘোষণা করা হয়েছে। আজ (মঙ্গলবার) থেকে শেষকৃত্যের দিন পর্যন্ত পতাকা অর্ধনিমিত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ম্যাককার্থি।

উল্লেখ্য, সোমবার ভাইস প্রেসিডেন্ট সাওলোস চিলিমাকে বহনকারী বিমানটি রাজধানী লিলংওয়ে থেকে মুজুজু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিল। গন্তব্যস্থলে পৌঁছানোর আগেই বিমানটি হঠাৎ রাডারের বাইরে চলে গেলে, বিমান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ সময় বিমানটিতে ভাইস প্রেসিডেন্ট ছাড়া আরও ৯ জন আরোহী ছিলেন।


আরও খবর