আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

স্বরূপকাঠিতে কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে রাজিয়া আক্তার (১৭) নামে এক কলেজ ছাত্রী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার সুটিয়াকাঠি ইউনিয়নের দ. বালিহারী গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে মঙ্গলবার পিরোজপুর মর্গে পাঠিয়েছে। নিহত রাজিয়া ওই গ্রামের মো. জলিলের মেয়ে এবং ফজিলা রহমান মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী।

এলাকাবাসি সূত্রে জানাগেছে, ঘটনার দিন সন্ধ্যায় বাথরুমে রাজিয়াকে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখতে পায়। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডা. ফিরোজ কিবরিয়া বলেন হাসপাতালে নিয়ে আসার পূর্বেই তার মৃত্যু হয়।

নেছারাবাদ থানার ওসি মো. গোলাম সরোয়ার বলেন, এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের শেষে লাশ ময়না তদন্তে পিরোজপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: স্বরূপকাঠি

আরও খবর



ফেনীতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ১ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাজিব মাসুদ, ফেনী

Image

ফেনীতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দেবীপুর এলাকায় সিএনজি ফিলিং স্টেশনে অটোরিকশায় গ্যাস নেওয়ার সময় সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একজন নিহত হয়েছেন। সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সাইদুল ইসলাম (৩০) দেবীপুর প্রাইম সিএনজি ফিলিং স্টেশনের কর্মচারী। তার গ্রামের বাড়ি ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের দক্ষিণ আঁধার মানিক গ্রামে। এ ঘটনায় জাহিদ আলম (২৭) নামে এক অটোরিকশা চালক আহত হয়েছেন। তাকে ফেনী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) থোয়াই অংপ্রু মারমা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সকালে অটোরিকশা চালক ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের ফেনী সদর উপজেলার দেবীপুর প্রাইম সিএনজি ফিলিং স্টেশন গ্যাস নেওয়ার জন্য আসেন। সকাল ৭টার দিকে তার অটোরিকশার সিলিন্ডারে গ্যাস দেওয়ার এক পর্যায়ে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটে। এ সময় ফিলিং স্টেশনের কর্মচারী সাইদুল ইসলাম বিস্ফোরণে মারাত্মকভাবে ঝলসে যান।

এ সময় পাশে দাঁড়ানো অটোরিকশা চালক জাহিদও আহত হয়। স্থানীয় লোকজন দ্রুত তাদের উদ্ধার করে ফেনী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসক সাইদুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিউজ ট্যাগ: ফেনী

আরও খবর



বেতাগীতে ব্যক্তি মালিকানাধীন বাশঁ কেটে নিল বন বিভাগ

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোঃ খাইরুল ইসলাম মুন্না, বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধি

Image

বরগুনার বেতাগীতে জনগণের ব্যক্তি মালিকানাধীন শতাধিক বাশঁ বিনা অনুমতিতে কেটে নিয়েছেন বন বিভাগের লোকজন। বন বিভাগের দাবি সরকারি নার্সারির কাজে ব্যবহার করা হবে এসব বাশঁ। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।

উপজেলার বেতাগী সদর ইউনিয়নের জিনবুনিয়া ও মোকামিয়া ইউনিয়নের ছোট মোকামিয়া গ্রামের বেরিবাধের পাশে রোপিত ব্যক্তি মালিকানাধীন বাশঁ ঝাড় থেকে কাউকে না বলে প্রায় দুই শতাধিক বাশঁ কেটে নিয়ে যায়। মোকামিয়া ইউনিয়নের ছোট মোকামিয়া গ্রামের মোহাম্মদ রাব্বির নিজস্ব জমির একটি বাঁশঝাড় থেকে প্রায় চল্লিশ থেকে পঞ্চাশটি বাশঁ তাকে না বলে কেটে নিয়ে যায় বন বিভাগের লোকজন।

এছাড়াও পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেরিবাধ জমিতে রোপিত ব্যক্তি মালিকানাধীন বিভিন্ন বাঁশঝাড় থেকে এভাবে বাঁশ কেটে নেয়। বেতাগী সদর ইউনিয়নের জিনবুনিয়া গ্রামের নজরুল খান উপজেলা বন কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ জানালেও কোন প্রতিকার পাননি।

মোকামিয়া ইউনিয়নের ছোট মোকামিয়া গ্রামের মোহাম্মদ রাব্বি বলেন, আমার নিজের জমিতে রোপিত বাঁশঝাড় থেকে চল্লিশ থেকে পঞ্চাশটি বাশঁ আমাকে না বলে কেটে নিয়ে যায়।

উপজেলা বন কর্মকর্তা মোঃ বেলায়েত হোসেন বলেন, সরকারি নার্সারী করার জন্য এসব বাশঁব্যবহার করা হবে। নার্সারি করার জন্য সরকারিভাবে কোন অর্থ বরাদ্দ থাকে না তাই আমাদেরকে এই প্রক্রিয়ায় বাশঁ সংগ্রহ করতে হয়।

বরগুনার সরকারি বন সংরক্ষক মোঃ তরিকুল ইসলাম বলেন, আমি বিষয়টি জানিনা তবে জেনে  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারুক আহমেদ বলেন, জনগণের বাশঁ এনে নার্সারি করার কোন সুযোগ নেই। যদি এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে আমি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।


আরও খবর



সাগর রুনি হত্যার বিচারে ৫০ বছরও লাগতে পারে: আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সাগর রুনি হত্যা মামলার তদন্তে যদি ৫০ বছর সময় লাগে সে সুযোগ দিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয় সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে এই মন্তব্য করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

 সাগর-রুনি হত্যা মামলার বিচারে কেন বিলম্ব হচ্ছেএমন এক প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, দেখেন, সাগর-রুনিকে নিয়ে কথা বলবেন, আমি বুঝলাম। কিন্তু এই মামলায় যদি পুলিশ তদন্ত শেষ না করতে পারে, তাহলে কী জোর করে সেই তদন্ত সমাপ্ত করে একটা চূড়ান্ত প্রতিবেদন কিংবা অভিযোগপত্র দেওয়ানো কী ঠিক?

আইনমন্ত্রী বলেন, তাদের তদন্তে যতদিন সময় লাগে সঠিকভাবে দোষী নির্ণয় করতে তাদেরকে ততটুকু সময় দিতে হবে। তাতে যদি ৫০ বছর লাগে, তাহলে ৫০ বছর সময় দিতে হবে।

তাহলে কী আমরা ৫০ বছর অপেক্ষা করবো এই রায়ের জন্য, জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, এই মামলাটি ব্যতিক্রমী। যেসব মামলায় অপরাধীকে ধরা গেছে, সেগুলোর বিচার তড়িৎ হচ্ছে। যেখানে অপরাধীকে ধরা যাচ্ছে না, তদন্ত শেষ করতে পারছেন না, অবশ্যই তাদেরকে সময় দিতে হবে।


আরও খবর
জানুয়ারিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪৮৬ মৃত্যু

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




২৩ দিন পর সিলেট দিয়ে শুরু হচ্ছে পাথর আমদানি

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিলেট প্রতিনিধি

Image

অ্যাসেসমেন্ট ভ্যালু বাড়ানোর প্রতিবাদে গত ৭ জানুয়ারি থেকে পাথর আমদানি বন্ধ করে দেন পাথর আমদানিকারকরা। টানা ২৩ দিন সিলেট বিভাগের সব স্থলবন্দর ও শুল্ক স্টেশন দিয়ে পাথর আমদানি বন্ধ ছিল। বুধবার (৩১ জানুয়ারি) থেকে ফের পাথর আমদানি শুরু হচ্ছে।

মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট সিলেট কমিশনারেট কমিশনার মোহাম্মদ এনামুল হকের সঙ্গে সিলেটের সব স্থলবন্দর ও স্থল শুল্ক স্টেশনের আমদানিকারক সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর ফের আমদানি শুরুর সিদ্ধান্ত হয়।

বৈঠকে সরকারের নতুন নির্ধারিত অ্যাসেসমেন্ট ভ্যালু সাড়ে ১৩ ডলার থেকে ৭৫ সেন্ট কমানোর পর ব্যবসায়ীরা পুনরায় আমদানি করতে রাজি হন।

ভোলাগঞ্জ চুনাপাথর আমদানিকারক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক ও সিলেট চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক মজিবুর রহমান মিন্টু বলেন, ভারত থেকে পাথর ও চুনাপাথর আমদানির ওপর যে হারে অ্যাসেসমেন্ট ভ্যালু বাড়ানো হয়েছিল তাতে ব্যবসায়ীরা ক্ষতির মুখে পড়েন এবং আমদানি বন্ধ থাকায় সরকারও ব্যাপক রাজস্ব ক্ষতির শিকার হয়।

সিলেট নগরীর উপশহরস্থ কাস্টমস অফিস কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন সিলেট কয়লা আমদানিকারক গ্রুপের সাবেক সভাপতি মো. এমদাদ হোসেন, সিলেট জেলা পাথর আমদানিকারক গ্রুপের সভাপতি ও সিলেট চেম্বারের সহ সভাপতি মো. আতিক হোসেন, অর্থ সম্পাদক জয়দেব চক্রবর্ত্তী, তামাবিল পাথর, চুনাপাথর ও কয়লা আমদানিকারক গ্রুপের সভাপতি মো. লিয়াকত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সারোয়ার হোসেন ছেদু, ভোলাগঞ্জ পাথর আমদানিকারক গ্র গ্রুপের সহ সভাপতি মো. বশির আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান মিন্টু, ছাতক লাইমস্টোন ইমপোর্টার্স অ্যান্ড সাপ্লাইয়ার্স গ্রুপের সভাপতি ও সুনামগঞ্জ চেম্বারের পরিচালক আহমেদ শাখায়াত সেলিম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক অরুন দাস, তাহিরপুর কয়লা আমদানিকারক গ্রুপের মনমোহন পাল মতিশ, সুনীল পাল চৌধুরী, মো. খসরুল আলম, তাহিরপুর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান আনিসুল হক, শাহীন চৌধুরী, সিলেট জেলা পাথর আমদানিকারক গ্রুপের কার্যকরী সদস্য মো. শাহ আলম, শাহীন আহমদ, আলতাফ হোসেন প্রমুখ।


আরও খবর



শরীর নিয়ে কটাক্ষ পরিচালকের, জবাবে যা বলেন ম্রুনাল ঠাকুর

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

দক্ষিণ ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ম্রুণাল ঠাকুর। দক্ষিণী সিনেমা সীতা রামম থেকে হাই নান্নার মতো জনপ্রিয় সিনেমা দিয়ে দর্শক থেকে সমালোচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছেন। তবে নিজের শারীরিক গড়ন নিয়ে ক্যারিয়ারে কিছু ঘটনার সম্মুখীন হতে হয়েছে অভিনেত্রীকে। এমন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি নিয়ে এবার মুখ খুললেন তিনি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বডি শেমিং নিয়ে কথা বলেছেন ম্রুণাল। তিনি জানান, এক পরিচালক একবার মুখের ওপর তাঁকে বলেন, সে দেখতে একটুও সেক্সি নয়। অভিনেত্রী তখন পালটা জানতে চান, মন্তব্যটি কি তাঁর অভিনীত চরিত্রটির জন্য নাকি পরিচালক বাস্তব জীবনে ম্রুণালকে দেখে এ মন্তব্য করেছেন।

ম্রুণালের প্রশ্নে পরিচালক তখন জবাব দেন, হ্যাঁ, খুব সেক্সি একটা চরিত্র। তুমি তো এর ধারেকাছেও নেই। ম্রুনাল ছেড়ে দেওয়ার পাত্রী নন, পরিচালককে তখন লুক টেস্ট নেওয়ার কথা বলেন অভিনেত্রী। ফটোশুটের শুরুতে ফটোগ্রাফারও অপমান করেন ম্রুণালকে। বলে ওঠেন, এই গেঁয়ো মেয়েটা কে? মুখে জবাব দেননি ম্রুনাল, জবাব দিয়েছেন কাজে। পরে মত বদলে ক্ষমা চান ওই ফটোগ্রাফার। ম্রুণালের কথায়, অভিনেতা হিসেবে জরুরি হল ন্যাচারাল থাকা। হাসিমুখে তিনি বলেন, যখন সেক্সি কথাটা বলা হয়, আর সেটা যদি আমি ভাবি, তাহলে আমার পায়ের মরা চামড়াও তখন সেক্সি লাগবে।

যৌন আবেদন ব্যাপারটা সবার কাছে সমান নয় জানান অভিনেত্রী। ম্রুনাল যোগ করেন, আমি একবার একটা গান করেছিলাম। সেখানে লোকজন বলছিল আমাকে ওজন কমাতে হবে। আমি পালটা বলি, আমার থাই মোটা এবং সেটা একান্ত আমার নিজের। সেটা নিয়ে যদি আমার কোনও সমস্যা না হয়, তাহলে আপনাদের সমস্যাটা কোথায়?

উল্লেখ্য, ২০২৩ সালে একাধিক কাজে দেখা গেছে ম্রুণালকে। এ বছরই বিজয় দেবেরাকোন্ডা এবং পরিচালক পরশুরাম পেটলার সঙ্গে ফ্যামিলি স্টারে অভিনয় করবেন তিনি। এ ছাড়াও সামনে তাঁকে পূজা মেরি জান সিনেমায়ও দেখা যাবে।


আরও খবর
ভারতীয় পরিচালক কুমার সাহানি আর নেই

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪