আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম

স্বাধীনতার পর জাতির শ্রেষ্ঠ অর্জন পদ্মা সেতু: কৃষিমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ জুন ২০২২ | ৩৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের আমলে কৃষি, যোগাযোগ ব্যবস্থা, বাণিজ্য, বিদ্যুৎ, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, আইসিটিসহ প্রতিটি খাতে অভাবনীয় উন্নতি সাধিত হয়েছে। যা সারা পৃথিবীতে প্রশংসিত ও নন্দিত হচ্ছে। তবে সকল উন্নয়নের মধ্যে স্বাধীনতার পরে যে অর্জনটি সবচেয়ে বড় ও লক্ষণীয়- তা হলো পদ্মা সেতু। সকল দিক বিবেচনায় উন্নয়নের ক্ষেত্রে স্বাধীনতার পর জাতির শ্রেষ্ঠ অর্জন এটি। পদ্মা সেতু জাতির ইতিহাসে মাইলফলক হয়ে থাকবে। একইসাথে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

আজ শুক্রবার বিকালে টাঙ্গাইল শহরের শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে এক মীর্জা তোফাজ্জাল হোসনে মুকুলের স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। টাঙ্গাইলের কৃতি সন্তান, ভাষা সৈনিক, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর সহচর মির্জা তোফাজ্জল হোসেন মুকুল এর একুশে পদক (মরণোত্তর) প্রাপ্তিতে টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগ এ স্মরণসভার আয়োজন করে।

মন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু জাতির স্বপ্নের সেতু, গর্বের সেতু, অহংকারের সেতু। ২৫ তারিখে এটির উদ্বোধন হবে, সেদিন সারা জাতি আনন্দে মেতে উঠবে। এ মহোৎসবকে কেউ যদি ষড়যন্ত্র করে বানচাল করতে চায়, তাদেরকে কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে। কোন অপশক্তিই পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের আনন্দকে ব্যাহত করতে পারবে না।

পদ্মা সেতু দক্ষিণাঞ্চলের কৃষিতেও বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, যশোরের ফুল, সাতক্ষীরার আমসহ দক্ষিণাঞ্চলে উৎপাদিত শাকসবজি, ফলমূল সহজেই ঢাকা আসতে পারবে। ঐসব অঞ্চলে কৃষি প্রক্রিয়াজাত প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে। এর ফলে স্থানীয় পর্যায়ে বাজার তৈরির পাশাপাশি বিদেশে রপ্তানিও হবে।

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন সুন্দর ও সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনায় খুবই সক্ষম। কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সুন্দর ও সুষ্ঠু হয়েছে। শুধু হার-জিত দেখলে হবে না। দুই প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে, অল্প ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জিতেছে-এ দিকগুলোও বিবেচনা করতে হবে। সব মিলিয়ে নির্বাচন সুন্দর হয়েছে।

স্মরণসভায় টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুকের সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জোয়াহেরুল ইসলাম এমপি, মো. ছানোয়ার হোসেন এমপি, পৌর মেয়র সিরাজুল হক আলমগীর প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


আরও খবর



ভারতীয় গম রপ্তানিতে আমিরাতের নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | ৩৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারত থেকে আনা গম ও গমের আটার রপ্তানি এবং পুনরায় রপ্তানি চার মাসের জন্য স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। বুধবার আমিরাতের রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা ওয়ামের বরাত দিয়ে রয়টার্স এই তথ্য জানিয়েছে। উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশটির অর্থ মন্ত্রণালয় বৈশ্বিক বাণিজ্য প্রবাহে ব্যাঘাতের কারণে গম রপ্তানি নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে। তবে অভ্যন্তরীণ ব্যবহারের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতে গমের রপ্তানিতে ভারতের অনুমোদন রয়েছে।

এর আগে, গত ১৩ মে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম গম উৎপাদনকারী ভারত এই খাদ্যশস্যের রপ্তানি নিষিদ্ধ করে এক বিবৃতিতে জানায়, ব্যবসায়ীরা কেবল সরকারি অনুমোদন নিয়ে নতুন রপ্তানি চুক্তি করতে পারবে। নিষিদ্ধ করার পরও তখন থেকে ভারত ৪ লাখ ৬৯ হাজার ২০২ টন গম রপ্তানি করেছে। সেই সময় দেশটির সরকারি আদেশে বলা হয়, বিশ্বের অন্যান্য দেশে রপ্তানির জন্য ইতিমধ্যে যেসব ঋণপত্র ইস্যু হয়েছে এবং যেসব দেশ খাদ্যনিরাপত্তার জন্য রপ্তানির অনুরোধ জানিয়েছে, সেই দেশগুলোতে গম রপ্তানির অনুমতি দেবে নয়াদিল্লি।

১৪০ কোটি জনসংখ্যার দরিদ্র এই দেশটিতে মূল্যস্ফীতি এবং খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে। পাশাপাশি খরা এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে দেশটিতে উৎপাদন কমে যাওয়ায় গম রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। এর প্রভাব পড়েছে অভ্যন্তরীণ বাজারেও; দেশটির কিছু কিছু অঞ্চলে গমের দাম বেড়েছে এবং সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে তা কোনও কোনও এলাকায় ২০ থেকে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে।

এদিকে, বিশ্বজুড়ে ব্যাপক দাম বৃদ্ধির কারণে দেশটির কিছু কৃষক সরকারের কাছে গম বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে। তারা ব্যবসায়ীদের কাছে এই খাদ্যশস্য বিক্রি করছে। এর ফলে সম্ভাব্য যেকোনও দুর্ভিক্ষ এড়াতে এবং মহামারিতে নিঃস্ব হয়ে যাওয়া লাখ লাখ পরিবারকে সহায়তার লক্ষ্যে ২ কোটি টন গম মজুতের পরিকল্পনা নিয়ে দেশটির সরকার চিন্তিত।

আমিরাতের অর্থ মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত ১৩ মের আগে আমিরাতে আনা যেসব গম কোম্পানিগুলো রপ্তানি এবং পুনরায় রপ্তানি করতে চায়, তাদের অবশ্যই অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে প্রথমে আবেদন করতে হবে। গত ফেব্রুয়ারিতে সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং ভারত একটি সম্প্রসারিত বাণিজ্যিক এবং বিনিয়োগ চুক্তি স্বাক্ষর করে। চুক্তি অনুযায়ী, উভয় দেশের সব পণ্যের শুল্ক হ্রাস এবং দ্বিপাক্ষিক বার্ষিক বাণিজ্য আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। কমপ্রিহেনসিভ ইকোনমিক পার্টনারশিপ ট্রেড এগ্রিমেন্ট (সিইপিএ) নামের এই চুক্তি গত ১ মে থেকে কার্যকর হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: গম

আরও খবর



এপ্রিলের চেয়ে মে’তে কমলো রেমিট্যান্স

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০২ জুন 2০২2 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০২ জুন 2০২2 | ৪৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সদ্য শেষ হওয়া মে মাসে ১৮৮ কোটি ৫৩ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন বিভিন্ন দেশে বসবাসরত প্রবাসীরা, যা টাকার হিসাবে (এক ডলার সমান ৮৯ টাকা) ১৬ হাজার ৭৭৬ কোটি টাকার বেশি। তবে মে মাসে আসা রেমিট্যান্স আগের মাস এপ্রিল অপেক্ষা প্রায় ১২ কোটি ৫৫ লাখ ডলার কম। গত বছরের একই মাসের (২০২১ সালের মে মাস) তুলনায় ২৮ কোটি ৫৭ লাখ ডলার কম এসেছে।

একক মাস হিসেবে গত ১১ মাসের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স আসে চলতি বছরের এপ্রিল মাসে। এপ্রিলে ২০১ কোটি ৮ লাখ ডলার পাঠিয়েছিলেন প্রবাসীরা। বুধবার (১ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। দেশের ব্যাংকগুলোকে ডলারের দাম নির্ধারণ করে দেওয়া হলেও মানছে না ব্যাংকগুলো, এমনটা দাবি রপ্তানিকারকদের। দেশের ডলার বাজারে লাগামহীন দর বেড়ে যাওয়ার মধ্যেই রেমিট্যান্সপ্রবাহ কমলো।

এদিকে রেমিট্যান্স কমার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের ঊর্ধতন কর্মকর্তারা বলছেন, সাধারণত ঈদের আগে প্রবাসীরা নিজ পরিবারের জন্য অধিক হারে রেমিট্যান্স পাঠান। ঈদের আগে সবাই জমানো টাকা পাঠিয়েছেন, তাই মে মাসে কিছুটা কমেছে। তবে প্রবাসী আয় (রেমিট্যান্স) দেশে পাঠাতে নানা প্রণোদনা দেওয়ার পরও সদ্য বিদায়ী মাসে কেন কমলো এমন প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের ঊধ্র্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, গত বছরের মে মাসে করোনার প্রকোপ থাকায় প্রবাসীরা সব টাকা নিয়ে দেশে ফেরেন, এতে রেমিট্যান্স ওই সময় বেড়েছিল। এরপর রেমিট্যান্সপ্রবাহ কিছুটা কমে আসে। আমরা উৎসাহ দিচ্ছি বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠাতে। প্রবাসীরাও পাঠাচ্ছেন। ঈদুল ফিতরের আগে রেকর্ড রেমিট্যান্স এসেছে। আমরা আশাবাদী আগামী মাসে (ঈদুল আজহার আগে) আবারও রেকর্ড রেমিট্যান্স আসবে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্যমতে, মে মাসে ১৮৮ কোটি ৫৩ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে। তবে গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ২৮ কোটি ৫৭ লাখ ডলার কম এসেছে। গত বছরের মে মাসে প্রবাসীরা ২১৭ কোটি ১০ লাখ ডলার পাঠিয়েছিলেন দেশে। চলতি বছরের জানুয়ারিতে রেমিট্যান্স আসে ১৭০ কোটি ৪৬ লাখ ডলার, ফেব্রুয়ারিতে ১৪৯ কোটি ৪৪ লাখ ডলার, মার্চে ১৮৫ কোটি ৮৭ লাখ ডলার এবং এপ্রিলে আসে ২০১ কোটি ৮ লাখ ডলার।

আলোচিত সময়ে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স এসেছে ইসলামী ব্যাংকের মাধ্যমে। এ ব্যাংকটির মাধ্যমে ৩৪৫.৬৭ মিলিয়ন ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে। এরপর রয়েছে ডাচ-বাংলা ব্যাংক (২৫৮.২৯ মিলিয়ন ডলার), অগ্রণী ব্যাংক (১২৫.৮৯ মিলিয়ন ডলার), সাউথইস্ট ব্যাংক (১০৫.৪৭ মিলিয়ন ডলার)। তবে এসময়ে কোনো রেমিট্যান্স আসেনি বিডিবিএল, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, কমিউনিটি ব্যাংক, বিদেশি ব্যাংক আল-ফালাহ, হাবিব ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান ও স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার মাধ্যমে। ২০২১ সালের মে মাসে ২১৭ কোটি ১০ লাখ ডলার বা দুই বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিলেন বিভিন্ন দেশে কর্মরত প্রবাসীরা। এরপর গত ১২ মাসের মধ্যে কোনো মাসেই দুই বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স আসেনি।

গত রবিবার (২৯ মে) এখন থেকে আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে প্রতি ডলারে ৮৯ টাকা এবং বিসি সেলিং রেট ৮৯ টাকা ১৫ পয়সা নির্ধারণ করে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। আমদানিকারকদের কাছে ডলার বিক্রির সময় হার অনুসরণ করবে ব্যাংক। বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশন (বাফেদা) এবং অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকারস, বাংলাদেশ (এবিবি) প্রস্তাব অনুসারে এ রেট নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বর্তমানে খোলাবাজারে ডলারের দামের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা কিছুটা কমে এসেছে। রাজধানীতে গতকাল মঙ্গলবার প্রতি ডলার ৯৮-৯৯ টাকায় বেচাকেনা হয়েছে। আর বাংলাদেশ ব্যাংক ৮৯ টাকা দরে ডলার বিক্রি করছে।

নিউজ ট্যাগ: রেমিট্যান্স

আরও খবর



আজকের রাশিফল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩১ মে ২০২২ | ৪৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মঙ্গলবার ৩১ মে চন্দ্র সারাদিন বৃষ রাশিতে ভ্রমণ করবে। রাতে মিথুন রাশিতে প্রবেশ করবে এই গ্রহ। বৃষ রাশি থেকে মিথুনে প্রবেশ করার সময় চন্দ্র আজ মিথুন জাতকদের জীবনে শুভ ফলাফল প্রদান করবেন। কোন রাশির জাতকদের দিন কেমন কাটবে জেনে নিন।

মেষ রাশি:

মেষ জাতকদের আজকের দিনটি স্মরণীয় হয়ে থাকবে। মিষ্টি ভাষা ও চাতুর্যের জোরে নিজের কাজে সাফল্য লাভ করবেন মেষ রাশির জাতকরা। কাজের জন্য দিন ভালো। আবার কাজে ভালো ফলাফল লাভ করবেন। ভাষা মাধুর্যের জোরে আত্মীয় ও বন্ধুদের সঙ্গে সম্পর্ক মধুর হবে। বাড়িতে শুভ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হতে পারে।

বৃষ রাশি:

বৃষ জাতকরা কাজে সাফল্য লাভ করবেন। কোনও নতুন ব্যবসা করার চিন্তাভাবনা মনে আসতে পারে ও তা কার্যকর করতে পারেন। ভাগ্যের সঙ্গ পাবেন আজ। চাতুর্যের সঙ্গে কাজ করলে তাতে সাফল্য লাভ করবেন। নিজের ইচ্ছানুযায়ী কার্য পরিকল্পনা পূর্ণ করবেন। চাকরিতে কারও সাহায্যে নতুন কিছু শেখার সুযোগ পাবেন। মনে আনন্দ থাকবে।

মিথুন রাশি:

দিনের শুরু ভালো হবে। কাজ ও পারিবারিক সুখের জন্য দিন ভালো। কর্মক্ষেত্রে আপনার প্রভাব বজায় থাকবে। ভালো অর্থ লাভের সম্ভাবনা রয়েছে। পরিবারের প্রয়োজনীয়তার বিষয় নজর দিন। চালাকির সঙ্গে কাজ পূর্ণ করবেন। লাভ ও সাফল্য পাবেন।

কর্কট রাশি:

আজ কর্কট রাশির জাতকরা পুরোদিন তরতাজা থাকবেন। চাকরিতে সাফল্য লাভ করতে পারেন এই রাশির জাতকরা। ব্যবসায় অর্থ লাভ হবে। পারিবারিক কলহের সমাধান হবে। সুসংবাদের মাধ্যমে দিন শুরু হবে। কাজে ভালো ধন লাভের যোগ রয়েছে। অর্থ সঞ্চয় করতে পারেন। সুসংবাদের ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে।

সিংহ রাশি:

আজ ভাগ্য সিংহ রাশির জাতকদের সঙ্গে রয়েছে। শুভ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন। বাণী মধুর হবে। এর ফলে অপরকে নিজের প্রতি আকৃষ্ট করতে পারবেন। নিজের চাতুর্য ও বুদ্ধির জোরে কাজে সাফল্য লাভ করবেন। কর্মক্ষেত্রে আশাতীত সাফল্য লাভ করবেন সিংহ রাশির জাতকরা। কাজের জন্য দিন ভালো।

কন্যা রাশি:

কন্যা জাতকদের পারিবারিক জীবনে ওঠা-পড়া লেগে থাকবে। পরিশ্রম ও বুদ্ধিমত্তার জোরে জীবনকে সুখী করে তুলতে পারবেন। কর্মক্ষেত্রে আপনার কাজ প্রশংসিত হবে। পরিবারের যত্ন নিন, তাদের প্রয়োজনীয়তা পূরণের চেষ্টা করুন। আর্থিক পরিস্থিতি ভালো থাকবে। তবে আকস্মিক ব্যয় বাড়তে পারে। ভাগ্য আপনার সঙ্গ দেবে।

তুলা রাশি:

গণেশ বলছেন, তুলা রাশির জাতকদের আজকের দিন খুব একটা ভালো কাটবে না। সংঘর্ষ করতে হবে। পরিবারের সঙ্গ লাভ করবেন। তাই হার মানবেন না ও কঠিন পরিস্থিতি মোকাবিলা করে যান। ভাগ্যের সঙ্গ লাভ করবেন। আপনার জেদ পরিবারকে সমস্যায় ফেলতে পারে।

বৃশ্চিক রাশি:

বৃশ্চিক রাশির জাতকদের আজকের দিন উৎসাহে ভরপুর থাকবে। কাজে পরিশ্রমের ফলাফল লাভ করবেন। বিবাহ বা শুভ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারেন। মনে আনন্দ থাকবে। আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে দিন শুরু হবে। পরিবারের স্নেহ ও সহযোগিতা লাভ করবেন। ভালো কাজের দিকে মনোনিবেশ করবেন।

ধনু রাশি:

ধনু রাশির জাতকরা আজ ভাগ্যের সঙ্গ লাভ করবেন। কাজে ভালো প্রদর্শন করবেন। বাকচাতুর্যের জোরে যে কোনও ক্ষেত্রে সাফল্যের শীর্ষে যাবেন। ছাত্ররা পড়াশোনায় মনোনিবেশ করতে পারবে না। কাজে মনোনিবেশ করুন। কারও সাহায্যে ভালো ধন লাভ করতে পারেন।

মকর রাশি:

আজ মকর রাশির জাতকরা উৎসাহে ভরপুর থাকবেন। ভাগ্য আপনার সঙ্গে রয়েছে। কাজে উৎসাহ দেখা দেবে। ছাত্ররা প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে সাফল্য লাভ করছেন। বন্ধু বা পরিচিতদের সঙ্গে আজ দেখা হবে। এর ফলে আপনার ঠোঁটের কোণায় হাসি ফুটবে। অন্যের সঙ্গে মিলে কাজ করলে তাতে ভালো লাভ অর্জন করবেন। মনে ইতিবাচক চিন্তাভাবনা উৎপন্ন হবে।

কুম্ভ রাশি:

আজ কুম্ভ রাশির জাতকরা কর্মক্ষেত্রে আগত সমস্ত বাধা থেকে মুক্তি পাবেন। সমস্ত কাজ সফল হবে। টাকা-পয়সার দিক দিয়ে দিন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আর্থিক জীবন ভালো কাটবে। পুরনো বন্ধুর সঙ্গে কথা বলবেন। পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে বাইরে ঘুরতে যেতে পারেন। স্বাস্থ্য ভালো থাকবে।

মীন রাশি:

মীন জাতকদের মনে আনন্দ থাকবে। পরিবারের সঙ্গে ভালো সময় কাটাবেন। যাত্রা উপভোগ করবেন। কাজে ভালো মুনাফা অর্জন করবেন। অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপিত হবে, তাঁদের সাহায্যে কাজে সাফল্য লাভ সম্ভব হবে। গুরুজন ও বয়স্ক সদস্যের জন্য মনে সম্মান থাকবে।


আরও খবর
বিফ সাসলিক তৈরির রেসিপি

সোমবার ২৭ জুন ২০২২




ভুয়া কাবিননামা দিয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা, কনেসহ কারাগারে-৬

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভুয়া কাবিননামা তৈরি করে যৌতুক, নারী নির্যাতন ও মোটা অঙ্কের মোহরানার দাবিতে সেই স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করে তাকে জেল খাটানোর পর তা মিথ্যা প্রমানিত হওয়ায় কথিত কনেসহ তার ৫ সহযোগীকে জেল হাজতে পাঠিয়েছে জয়পুরহাটের অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত। বুধবার (২২ জুন) বিকেলে ওই আদালতের বিচারক অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন এ আদেশ দেওয়ার পর কথিত কনেসহ ৬ জনকে সন্ধ্যায় জেল হাজাতে পাঠানো হয়।

কথিত কনেসহ অভিযুক্ত ৬ জন হলেন- দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামের মৃত রুবেল শেখের মেয়ে রিনী আক্তার (২৮), একই গ্রামের উত্তর পাড়ার এবারত আলীর ছেলে ইসরাইল শেখ (ইছা), একই উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের  মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে আবু স্ঈাদ, জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার উত্তর গোপালপুর গ্রামের  হায়দার আলীর ছেলে সোহেল রানা, একই উপজেলার রতনপুর গ্রামের মৃত কেরামত আলীর ছেলে পারভেজ আলী ও বগুড়া সদর উপজেলার আটাপাড়া গ্রামের মৃত ইমান আলী সরদারের ছেলে রবিউল ইসলাম।

মামলা সূত্রে জানায়, রিনী আক্তার ব্যবসার সুবাদে প্রায় বগুড়া জেলা শহরে যাতায়াত করতেন। রিনী তার মোটরসাইকেলের রেজিষ্ট্রেশনের প্রয়োজনে বগুড়া সদর ডাক অফিসের সরকারি কর্মকর্তা আলআমিনের সাথে পরিচয় হয়। পরবর্তীতে রীনি জানতে পারেন আলআমিন মোটা বেতনের একজন সরকারি চাকরিজীবি। অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার কৌশল হিসেবে প্রথমে তার ব্যবসায় পুঁজি বিনিয়োগ করতে আলআমিনকে প্রলুব্ধ করেন।

আলআমিন এতে রাজী না হলে রিনী আক্তার তার সহযোগীদেরকে স্বাক্ষী করে জয়পুরহাট জেলা শহরের পাটারপাড়া এলাকার মৃত কাজী নূরল ইসলামকে বিয়ের কাজী দেখিয়ে বিয়ের ভুয়া রেজিষ্ট্রি ও ৫ লাখ টাকার দেনমোহরের কাবিননামা তৈরি করেন। পরে ২০২১ সালের ২২ আগষ্ট রিনী দিনাজপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলা করেন। একই বছর ১৯ অক্টোবর সেই মামলায় হাজিরা দিতে গেলে আদালত আলআমিনকে দিনাজপুরের জেল হাজাতে নেওয়া হয় ও গত ৩১ অক্টোবর তিনি জামিনে মুক্ত হন।

এদিকে সেই ভুয়া কাবিন নামা চ্যালেঞ্জ করে আলআমিন গত বছর ৯ আগষ্ট জয়পুরহাট চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে রিনীসহ তার সহযোগীদের (কাবিন নামার স্বাক্ষী) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এতে আদালত তদন্তের জন্য জেলা সাব রেজিষ্টারের কাছে নির্দেশ দিলে সদর সাব রেজিষ্টার দোস্ত মোহাম্মদ গত বছর ১১ অক্টোবর আদালতে তদন্ত রিপোর্ট দাখিল করেন। ওই তদন্ত রিপোর্টে রিনী ও আল আমিনের বিয়ের কাবিননামা ভুয়া প্রমানিত হয়।

বুধবার (২২ জুন) বাদী পক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট মানিক হোসেন ও আসামীগনের পক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট এস এম আশফাকুল আলম রাজুর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন। তদন্ত প্রতিবেদনে ভুয়া তথ্য দিয়ে আল আমিনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করায় রিনীসহ তার ৬ সহযোগীকে জেল হাজাতে পাঠানোর নির্দেশ দেন অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল আদালতের বিচারক আব্দুল্লাহ্ আল মামুন।

আসামিগণের পক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট এস এম আশফাকুল আলম রাজু বলেন, এ আদেশের বিরুদ্ধে তারা আপীল করবেন।জয়পুরহাট আদালতের পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল লতীফ খান জানান, আইনী প্রক্রিয়া শেষে আসামিদের সন্ধ্যায় জেল হাজাতে পাঠানো হয়েছে।

 


আরও খবর



আফগানিস্তানে তীব্র খাবার সংকটের মধ্যে কলেরার শঙ্কা

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ জুন ২০২২ | ২০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আফগানিস্তানের ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর দেশটিতে খাবারে সংকট দেখা গিয়েছে। অনেকে আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছেন। দুই দশকের মধ্যে সবচেয়ে প্রাণঘাতী ভূমিকম্প থেকে বেঁচে যাওয়া লোকজন বর্তমানে কলেরার প্রাদুর্ভাবের শঙ্কাও প্রকাশ করেছেন। ভূমিকম্পে সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত হয়েছে পাকতিকা প্রদেশ।

ভূমিকম্পে নিজের পরিবার পরিজন হারানো আগা জান নামের এক ব্যক্তি সেইদিনের ঘটনার বর্ণনা দিতে দিয়ে জানায়, বুধবার ভোরে যখন কম্পন শুরু হয় তখন তিনি দৌড়ে ঘরে পরিবারের কাছে ছুটে যান। কিন্তু ততক্ষণে সব ধ্বংস হয়ে গিয়েছে। সাহায্যের জন্য চাচাতো ভাইদের ডেকে পরিবারের সদস্যদের যখন বের করে আনলাম ততক্ষণে তারা সবাই মারা গিয়েছে। নিজের পারিবারিক বাড়ির ধ্বংসস্তুপ দেখে আগা জানের চোখ কান্নায় ভরে ওঠে। এগুলো আমার সন্তানের জুতা, ধূলা ঝাড়তে ঝাড়তে বলেন তিনি। তার তিন সন্তান এবং দুই স্ত্রী ঘুমন্ত অবস্থায় ভূমিকম্পে নিহত হয়েছেন।

আগা জানের গ্রামটি পাকতিকা প্রদেশের বারমাল জেলায়। এ প্রদেশেই সবচেয়ে ভয়াবহ ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। এ ভূমিকম্পে এক হাজারের বেশি মানুষ নিহত এবং আরও তিন হাজারের বেশি আহত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সবচেয়ে কাছের বড় শহর থেকে তিন ঘণ্টার গাড়ির দূরত্বে অবস্থিত গ্রামটিতে যাতায়াতের সড়কের অবস্থাও নাজুক। সেখান থেকে আহতদের হাসপাতালে নেওয়া কঠিন হয়ে উঠেছে। তালেবানের সামরিক হেলিকপ্টারে করে কাউকে কাউকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। আগা জান ও তার বেঁচে থাকা ছেলেদের একজন খোলা জায়গায় কাঠ দিয়ে বড় একটি ত্রিপল টাঙাচ্ছিলেন। অন্য পরিবারগুলো তাদের ধ্বংস হয়ে যাওয়া ঘরবাড়ির অবশিষ্টাংশ দিয়ে কোনোরকমে মাথা গোঁজায় একটি ঠাঁই করে তাতেই আশ্রয় নিয়েছেন।  

আফগান সরকার এবং আন্তর্জাতিক ত্রাণ সংস্থাগুলো ক্ষয়ক্ষতি পর্যালোচনা এবং ত্রাণ বিতরণ করছে। কিন্তু এমন এক সংকট আর এমন সময়ে এসেছে যখন দেশটি এরইমধ্যেই ভয়াবহ মানবিক পরিস্থিতিতে রয়েছে। হতাহতদের সহায়তায় হাত বাড়িয়েছে জাতিসংঘও। সংস্থাটি সতর্ক করে বলেছে, ভূমিকম্প কবলিত এলাকায় কলেরার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।


আরও খবর