আজঃ মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

সুশান্তকে ভুলে ফের প্রেম করছেন রিয়া, শিগগিরই বিয়ে

প্রকাশিত:বুধবার ২৫ অক্টোবর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ অক্টোবর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

২০২০ সালের জুলাই মাসে মুম্বাইয়ের বান্দ্রা এলাকার এক অ্যাপার্টমেন্ট থেকে উদ্ধার করা হয় বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের ঝুলন্ত মরদেহ। যে মৃত্যু রহস্যের এখনও কোনো কিনারা হয়নি।

কেউ মনে করেন সুশান্ত মাদকের নেশায় আসক্ত ছিলেন। কারও ধারণা, তাকে খুন করা হয়েছে। কাকতালীয়ভাবে সুশান্তের মৃত্যুর কয়েক দিন আগেই মৃত্যু হয়েছিল অভিনেতার ম্যানেজার দিশার সালিয়ানের। সেই মৃত্যুও স্বাভাবিক ছিল না।

সব মিলিয়ে সুশান্তের মৃত্যুর পর জীবন নরক হয়ে উঠেছিল তার প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর। যে কি না বলিউড অভিনেত্রী। জলেবির মতো বেশকিছু ছবিতে অভিনয় করেছিলেন তিনি।

অভিনেতার মৃত্যুর পর অভিযোগ, রিয়া নাকি সুশান্তকে মাদক দিতেন। তার মৃত্যুতে নাকি প্ররোচনাও দিয়েছিলেন। সুশান্তের মৃত্যু পরবর্তী দুবছর পর্যন্ত কোনও কাজও ছিল না রিয়ার। যেতে হয়েছিল জেলেও। যদিও এখন ধীরে-ধীরে ছন্দে ফিরছে অভিনেত্রীর জীবনে। এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে নাকি সম্পর্কও তৈরি হয়েছে।

সম্প্রতি একটি টকশোতে এসে মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে কথাও বলেছেন তিনি। রিয়া জানিয়েছেন, সুশান্ত নাকি মানসিক রোগী ছিলেন। যে মন্তব্যের জবাবে তাকে কটাক্ষও করেছেন সুশান্তের বোন।

তবে কানাঘুষো শোনা যায়, রিয়া নাকি এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছেন। সেই ব্যবসায়ীর নাম নিখিল কামাত। যিনি ২০১৯ সালে এক বিদেশিকে বিয়ে করেছিলেন। এরপর বিশ্ব সুন্দরী মানুষী চিল্লারের সঙ্গেও সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন। কিন্তু সেই সম্পর্কে ভাঙন ধরে তৃতীয় ব্যক্তির প্রবেশে। আর সেই তৃতীয় ব্যক্তিই হচ্ছেন রিয়া চক্রবর্তী। যার সঙ্গে এখন প্রেম করছেন তিনি।

বেশ কিছুদিন আগে নিখিলের সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় দেখা গেছে রিয়াকে। সুশান্তের মৃত্যুর পর এখন তার সঙ্গেই নতুন করে সম্পর্ক তৈরি হয়েছে অভিনেত্রীর। এই জুটি নাকি একসঙ্গে থাকার সিদ্ধান্তও নিয়েছেন। যেখান থেকে খুব শীঘ্রই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন রিয়া-নিখিল।

নিউজ ট্যাগ: রিয়া চক্রবর্তী

আরও খবর



বিলুপ্তির পথে বাউফলের কুটির শিল্প

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দূর্জয় দাস, বাউফল (পটুয়াখালী)

Image

আধুনিকতার ছোঁয়ায় গ্রামীণ জনপদ থেকে শত শত বছরের ঐতিহ্যবাহী বাঁশ ও বেত শিল্পগুলো বিলুপ্তির দ্বারপ্রান্তে এসে পৌঁছেছে। পরিবেশের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর পরিবারের জন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় প্লাষ্টিক পণ্য বাজার দখল করায় বাঁশ ও বেতের তৈরি পণ্যের কদর কমে গেছে। ফলে ঐতিহ্য হারাতে বসেছে গ্রামীণ এই কুটির শিল্পটি। প্রয়োজনীয় পুঁজি, বাজারজাতকরণ ও পরিকল্পিত উদ্যোগের অভাবে পটুয়াখালীর বাউফলে কুটির শিল্প প্রায় বিলুপ্তির পথে।

উপজেলার গুটি কয়েক পরিবারের কিছু মানুষ আঁকড়ে রেখেছে এই শিল্পকে। কিন্তু দিন দিন বাঁশ আর বেতের তৈরি বিভিন্ন পন্যের চাহিদা কমে যাওয়ায় ভালো নেই এই শিল্পের সঙ্গে জড়িত কারিগররা। উৎপাদিত পণ্য সামগ্রী ন্যায্যমূল্য না থাকায় এ শিল্পের সঙ্গে যারা জড়িত তারা আজ পেশা পাল্টাতে শুরু করেছেন।

জানা যায়, বাঁশ-বেত দিয়ে তৈরি হতো গৃহস্থালী ও সৌখিন পণ্যসামগ্রী। বাড়ির পাশের ঝাঁর থেকে তরতাজা বাঁশ-বেত কেটে তৈরি করতেন হরেক রকমের পণ্য। এসব নিজেদের ব্যবহারের পাশাপাশি, বাজারে বিক্রি করে চলতো তাদের জীবন-যাপন।

আধুনিক প্রযুক্তির দাপটে আর প্লাস্টিকের তৈরী বিভিন্ন রং  বেরঙের  এর আর্কষনীয় ডিজাইনের  দ্রব্য সামগ্রী বের হাওয়ায়  এখন আর কেউ বাঁশের তৈরি সামগ্রী ব্যবহার করেনা। এক দিকে যেমন ব্যবহারকারীর অভাব, অন্যদিকে বাঁশের স্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির কারণ বাঁশ শিল্পীরা তাদের পৈত্রিক   পেশা  ছড়ে দিয়ে অন্য পেশায় চলে যাছেন। হাতেগোনা কয়েকজন শিল্পী অনেকটা নিরুপায় হয়ে এ পেশায় টিকে থাকার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা চালিয় যাছেন। এককালে কুলা, খাঁচা, চালনি, চাটাই, ডোল, ঝুড়ি,  ডালা, ওর,  প্রভৃতি  বাঁশজাত পণ্যর বাউফল উপজেলা ছাড়াও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ব্যাপক চাহিদা ছিল।  বিগত কয়েক বছর ধরে এ শিল্প বিরাজ করছে চরম মন্দা। ফলে এ শিল্পের ওপর নির্ভরশীল লোকজন বেকার হয়ে মানবতর জীবনযাপন করছে।

কুটির শিল্পের সাথে জড়িতরা জানান, আমরা কুটির শিল্পের কাজ করতে একটা বাঁশ কিনতে হয় একশ টাকা দিয়া। বাজারে গেলে সেই দাম পাইনা। আগের মত হাজি ঢালা চলেনা, আমাগো সংসার চলেনা কষ্ট হয়। তারপরেও আমরা কুটির শিল্প টিকিয়ে রাখছি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. বশির গাজী বলেন, উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন কুটির শিল্পের যে সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র রয়েছে সেগুলো নিয়ে আমরা কাজ করছি। কুটির শিল্পে অনেকই কাজ করে তাদের অনেকের লোনের সমস্যা, ক্যাশের সমস্যা আমরা উপজেলা প্রশাসনে একটি প্রকল্প নিয়েছি তাদের প্রশিক্ষন দিবো এবং তাদের লোনের ব্যবস্থা করব ।    

সচেতন মহলের দাবী, কুটির শিল্পকে ধংসের হাত থেকে রক্ষা করা দরকার। এ শিল্প বাঙালি সংস্কৃতির একটা বড় অংশ। তাই এ পেশার সঙ্গে যারা এখনো জড়িত রয়েছেন তাদের পরিবারে ভিত্তিকে ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা গ্রহণ ও তাদের পেশার উন্নয়নে সরকারের সহায়তা করা উচিত।

নিউজ ট্যাগ: কুটির শিল্প

আরও খবর



রাজধানীতে কিশোর গ্যাংয়ের ৩৯ সদস্য গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

কিশোর গ্যাং পাটালি গ্রুপর অন্যতম মূলহোতা মো. সুজন মিয়া ওরফে ফর্মা সজিবসহ একই সঙ্গে চাঁন গ্রুপলেভেল হাইসহ বিভিন্ন গ্রুপের ৩৯ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-২ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন খান।

তিনি জানান, রাজধানীর মোহাম্মাদপুর, আদাবর, হাজারীবাগ এলাকায় ছিনতাই, চাঁদাবাজি, বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্ত্রাসী গ্যাং পাটালি গ্রুপ এর অন্যতম মূলহোতা মো. সুজন মিয়া ওরুফে ফর্মা সজিব, চাঁন গ্রুপলেভেল হাই সহ বিভিন্ন গ্রুপের ৩৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বসিলায় র‌্যাব-২ এর কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান তিনি।


আরও খবর



কুমিল্লায় চাচাকে হত্যার দায়ে ভাতিজার মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রবিউল বাশার খান, কুমিল্লা

Image

কুমিল্লার তিতাসে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা হাজী নবী হোসেনকে (৬৪) কুপিয়ে কেটে হত্যার দায়ে আপন ভাতিজা আ. আউয়ালকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ চতুর্থ আদালতের বিচারক মো জাহাঙ্গীর হোসেন এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মো. আ. আউয়াল কুমিল্লার তিতাস উপজেলার জগতপুর ইউনিয়নের কৈয়ারপাড় গ্রামের মৃত আ. রব এর ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০২০ সালের ২৯ জানুয়ারি তিতাস থানার এক মামলায় আ. আউয়ালকে গ্রেপ্তার করলে অভিযুক্ত আ. আউয়ালের সন্দেহ হয় যে, তার আপন চাচা নবী হোসেন তাকে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেন।

এরপর আ. আউয়াল জামিনে বের হয়ে ওই বছরের ২৪ মে স্থানীয় বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে নবী হোসেনকে (৬৪) ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও গলা কেটে পালিয়ে যায়। মুমূর্ষ অবস্থায় নবী হোসেনকে উদ্ধার করে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনার দিন নিহতের ছেলে রাসেল (২৬) বাদি হয়ে আ. আউয়ালসহ অজ্ঞাতনামা দুজনকে আসামি করে তিতাস থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ে করে। এরপর তদন্ত করে আ. আউয়ালের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ওই বছরের ১৫ জুলাই আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

২০২২ সালের ২১ আগস্ট আসামি নবী হোসেনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের ১১ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ ও শুনানি শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাঁকে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত।

এ রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপক্ষে কৌশলী এডভোকেট মো. মজিবুর রহমান বাহার বলেন, আমরা আশা করছি, মহামান্য হাইকোর্ট এ রায় বহাল রেখে শিগগির রায় কার্যকর করে আসামির ফাঁসি নিশ্চিত করবেন।


আরও খবর



মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলন শেষে দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

জার্মানের মিউনিখে তিন দিনের সরকারি সফর শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। তিনি মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলন ২০২৪-এ যোগ দিতে জার্মানি যান।

রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি নিয়মিত ফ্লাইটে সফরসঙ্গীদের নিয়ে জার্মানির মুনচেন ফ্রাঞ্জ জোসেফ স্ট্রস বিমানবন্দর ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী। তাকে বিদায় জানান জার্মানিতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় ফ্লাইটটি ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে।

প্রধানমন্ত্রী ১২তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়লাভ করে দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথম সরকারি সফরে ১৫ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় মিউনিখ এসে পৌঁছান। সেখানে অবস্থানকালে মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন শেখ হাসিনা। পাশাপাশি বেশ কয়েকজন বিশ্ব নেতার সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি।

জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলৎজ, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি, নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটে, আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ, কাতারের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন আবদুল রহমান আল-থানি এবং ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডেরিকসেনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী।

জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলৎজ, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এবং আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় যুদ্ধ, বিশেষ করে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ ও গাজায় হামলা বন্ধের আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

শেখ হাসিনার সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বর্তমান পররাষ্ট্র, কমনওয়েলথ ও উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রী লর্ড ক্যামেরন এবং জার্মান ফেডারেল অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন মন্ত্রী সভেনজা শুলজেও সাক্ষাৎ করেন।

শেখ হাসিনা ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে ব্যবসা করার জন্য বাংলাদেশ ও ভারতীয় মুদ্রা টাকা ও রুপি ব্যবহারের ওপর জোর দেন।

উইমেন পলিটিক্যাল লিডারের (ডব্লিউপিএল) প্রেসিডেন্ট সিলভানা কোচ-মেহরিন, সিনিয়র ম্যানেজিং ডিরেক্টর, ডেভেলপমেন্ট পলিসি অ্যান্ড পার্টনারশিপ অ্যাক্সেল ভ্যান টর্টসেনবার্গ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মহাপরিচালক পেড্রোস আধানম গেব্রিয়াসিস, মেটার গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্সের প্রেসিডেন্ট এবং যুক্তরাজ্যের সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী ড. স্যার নিক ক্লেগও আলাদাভাবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

মিউনিখ সিকিউরিটি কনফারেন্সে ফ্রম পকেট টু প্ল্যানেট, স্কেলিং আপ ক্লাইমেট ফাইন্যান্স শীর্ষক একটি প্যানেল আলোচনায় বক্তৃতা ও ছয়টি প্রস্তাব উত্থাপন করেন শেখ হাসিনা। ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর জন্য জলবায়ু অর্থায়ন ছাড় করতে এবং অস্ত্র প্রতিযোগিতা বন্ধ করে সে অর্থ জলবায়ু তহবিলে জমা দিতে বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

মিউনিখের বার্গারহাউস গার্চিং হোটেলে জার্মানি ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সংবর্ধনায়ও যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


আরও খবর



বাঁচানো গেল না সিআইডি কর্মকর্তা বিচিত্রাকে

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) বিচিত্রা রানী বিশ্বাস (৪৬) মারা গেছেন। ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার ১০ দিন পর শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে ঢাকা রাজারবাগের পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন তিনি।

এর আগে গত ৭ ফেব্রুয়ারি ফরিদপুরের নগরকান্দার মহিলারোডে একটি ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেলে থাকা সিআইডির পুলিশ অফিসার বিচিত্রা রানী আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিচিত্রা ফরিদপুরে সিআইডির উপ-পরিদর্শক (এসআই) পদে কর্মরত ছিলেন।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে ফরিদপুর সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এ বি এম ফয়জুল ইসলাম বলেন, ওই সড়ক দুর্ঘটনার ঘটনায় কোতয়ালী থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলায় অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কোতয়ালী থানা পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছে।


আরও খবর