আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

সুন্দরবনের বাঘ লোকালয়ে, আতঙ্কে গ্রামবাসী

প্রকাশিত:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | ৬৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শরণখোলা প্রতিনিধি:

সুন্দরবন থেকে বাঘ লোকালয়ের প্রায় ১০ কিলোমিটার ভেতরে ডুকে পড়েছে।  শুক্রবার (৬ মে) রাত ৮টায় বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার বানিয়াখালী গ্রামে বাঘ দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন গ্রামবাসী। এর পর মাইকিং করে গ্রামবাসীকে সতর্ক করা হয়।  খবর পেয়ে বনরক্ষীদের একটি দল ওই গ্রামে ছুটে গেছে। শনিবার (৭ মে) সকালে বাঘটির পায়ের ছাপ দেখে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন বনরক্ষীরা।

বানিয়াখালীর ইউপি সদস্য ছিদ্দিক গাজী জানান, সুন্দরবন থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার পূর্বদিকে পশ্চিম বানিয়াখালী ৩৭ নম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সংলগ্ন মাঠে স্থানীয় বাসিন্দা কামাল হোসেন হাওলাদার গরু আনতে যান। এ সময় টর্চ লাইটের আলোতে তিনি গরুর সঙ্গে সুন্দরবনের একটি বাঘ দেখতে পান। এ সময় তার চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এসে লাঠিসোটা নিয়ে তাড়া করলে বাঘটি পালিয়ে যায়।

শরণখোলা থানার ওসি মো. ইকরাম হোসেন জানান, খবর পেয়ে ওই রাতেই পুলিশের একটি দল বানিয়াখালী গ্রাম পরিদর্শন করে।

বন বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জ কর্মকর্তা (এসিএফ) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে বনকর্মীরা সবসময় সতর্ক আছেন। এ ছাড়া কমিউনিটি প্যাট্রলিং দল (সিপিজি) ভিলেজ টাইগার রেসপন্স টিমের (ভিটিআরটি) সহযোগিতায় গ্রামে গ্রামে মাইকিং করাসহ জনসাধারণকে সচেতন করে চলছেন। বাঘ লোকালয়ে গেলে বনে ফিরিয়ে আনতে বনরক্ষীদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।


আরও খবর



ধূমপান ছাড়ার ১০টি সহজ উপায়

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | ৬১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যাঁরা ধূমপানে আসক্ত, তাঁদের জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া যেমন কঠিন, তার চেয়েও কঠিন হলো সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা। তবে ধূমপায়ীরা যদি ধূমপান ছাড়ার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অটল থাকেন, তাহলে নিচের টিপসগুলো আপনার জন্য।

১. পরিকল্পনা তৈরি করুন: প্রথমত, ধূমপান ত্যাগের জন্য স্বচ্ছ পরিকল্পনা থাকা চাই। নিজের কাছে প্রতিজ্ঞা করে একটি নির্দিষ্ট তারিখ নির্ধারণ করুন। মনে রাখবেন, এই তারিখ কোনোভাবেই আর পেছানো যাবে না। তারিখ বাছাইয়ের সময় এমনভাবে নিজেকে বোঝাবেন, যেন এটিই ধূমপান ত্যাগের জন্য শেষ তারিখ। ওই তারিখের পর ধূমপায়ী বন্ধুদের কোনো পার্টি থাকলেও এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন।

২. তালিকা করুন: কেন ধূমপান ছাড়বেন, সেই তালিকা তৈরি করুন। অসংখ্য কারণ পাবেন ধূমপান ছাড়ার। চিন্তা করে নিজের সিদ্ধান্তের পক্ষে একটি শক্ত তালিকা তৈরি করুন। তালিকায় আপনার স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি, পরোক্ষ ধূমপানের কারণে আপনার আশপাশের মানুষের স্বাস্থ্যগত ক্ষতি, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের ওপর ধূমপানের প্রভাব, আর্থিক অপচয় ইত্যাদি থাকা আবশ্যক। এরপর যখন ধূমপানের ইচ্ছা জাগবে, তখনই এসব কারণ ভাবতে শুরু করবেন। এতে আপনার ধূমপানের প্রতি আগ্রহ কমতে থাকবে।

৩. ইতিবাচক থাকুন: হয়তো এর আগেও আপনি ধূমপান ছাড়ার পরিকল্পনা করে ব্যর্থ হয়েছেন। এবারের পরিকল্পনাও যে সেগুলোর মতো সফলতার মুখ দেখবে না, এমন ভাবা যাবে না। বরং আপনার এবারের প্রচেষ্টা সফল হবেইএমন আত্মবিশ্বাস রাখুন। আগেরবারের ভুলগুলোর যেন পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সেদিকে সাবধান থাকতে হবে।

৪. খাবারের ধরন পরিবর্তন: দুপুর কিংবা রাতের আহারের পর অনেকেই ধূমপান করতে ভালোবাসেন। আমেরিকান একটি গবেষণা বলছে, অনেকের কাছে মাংসজাতীয় খাবার খাওয়ার পর ধূমপান উপভোগ্য হয়ে ওঠে। অন্যদিকে ফল কিংবা সবজিজাতীয় খাবারের পর ধূমপান কিছুটা স্বাদ হারায়। তাই ধূমপান ছেড়ে দিতে চাইলে কিছুদিন মাংস এড়িয়ে খাবারের তালিকায় শাকসবজি ও ফলমূল রেখে দেখতে পারেন। আর খাওয়া শেষ করেই এমন স্থান বা কক্ষে চলে যান, যেখানে ধূমপানের সুযোগ নেই।

৫. বদলে ফেলুন পানীয়: গবেষকেরা বলছেন, অ্যাকোহলমিশ্রিত পানীয়, কোমলপানীয়, চা, কফি ইত্যাদি পানের সময় অনেকে মনে করেন যোগ্য সংগত সিগারেট। যা পানীয়র স্বাদ আরও বাড়িয়ে দেয়। তাই এ ধরনের পানীয়র অভ্যাস প্রচুর ছেড়ে ফলের রস আর পানি পান করুন। এখন বাজার নানা রকম রসাল ফলে ভরপুর। সেসব ফলের জুস করে খেতে পারেন।

৬. ব্যস্ততা বাড়ান: দিনের কোন সময়গুলোতে আপনার ধূমপানের ইচ্ছা বেশি জাগে, সেটি শনাক্ত করুন। এরপর ওই সময়গুলোতে নিজেকে কোনো কাজের মধ্যে ব্যস্ত রাখুন। কোনো কাজ খুঁজে না পেলে হাঁটাহাঁটি করুন। ব্যায়াম করে বা পরিবারের লোকজনের সঙ্গে আড্ডা দিয়েও নিজেকে ব্যস্ত রাখতে পারেন। ব্যস্ততা বাড়লে ধূমপানের কথা ভুলে থাকা সহজ হবে।

৭. অধূমপায়ী বন্ধু বাড়ান: ধূমপান ত্যাগের ক্ষেত্রে আপনার আশপাশের মানুষের ভূমিকা অপরিসীম। তাই যতটা সম্ভব ধূমপায়ী বন্ধুদের আড্ডা এড়িয়ে চলুন। অন্তত ধূমপান ছাড়ার পর প্রথম কয়েক দিন ধূমপায়ী বন্ধুদের সঙ্গে সরাসরি আড্ডা থেকে বিরত থাকুন। একই সঙ্গে অধূমপায়ী বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটানোর চেষ্টা করুন।

৮. মুখ খালি রাখবেন না: মুখ খালি থাকলেই ধূমপানের আগ্রহ জাগবে। তাই ধূমপান বাদ দিতে চাইলে মুখ খালি রাখা যাবে না। এ সময় মুখে চকলেট, লজেন্স বা চুইংগাম রাখুন। পকেট থেকে সিগারেট, ম্যাচের বাক্স ফেলে দিয়ে লজেন্স কিংবা চুইংগাম রাখুন।

৯. বড়দের পরামর্শ নিন: ধূমপান ছেড়েছেন, এমন কাউকে চেনা থাকলে তাঁর কাছ থেকে পরামর্শ নিন। তাঁর অভিজ্ঞতাগুলোকে কাজে লাগান। ফেসবুকে একাধিক গ্রুপ রয়েছে, যেখানে ধূমপান ছাড়ার ব্যাপারে পরামর্শ ও অভিজ্ঞতা বিনিময় করা হয়। এসব গ্রুপে যুক্ত হওয়ার মাধ্যমে ইতিবাচক ফল পাওয়া যেতে পারে।

১০. প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ: কোনো কিছুতেই আসক্তি কমাতে না পারলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া নিয়ে সংকোচ বা হীনম্মন্যতায় ভোগার কোনো কারণ নেই। বরং আপনার এই পদক্ষেপের মাধ্যমেই আপনি নিজেকে ধূমপানের আসক্তি থেকে সুস্থ-স্বাভাবিক জীবনে নিয়ে আসতে পারবেন।


আরও খবর
আজকের রাশিফল!

বুধবার ২৫ মে ২০২২




ইসরায়েলে 'সন্ত্রাসী' হামলায় ৩ জন নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৭ মে ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইসরায়েলে তেল আবিবের কাছে ইলাদ শহরে সন্ত্রাসী হামলায় কমপক্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও চারজন। আহতদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বৃহস্পতিবার (৫ মে) ইসরায়েলে স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের দিন রাতে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ।

ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের দাবি, দু’জন ফিলিস্তিনি এ হামলা চালিয়েছে। তারা আক্রমণ করার পর গাড়িতে করে পালিয়ে যায়। পুলিশ ওই এলাকার সব রাস্তা বন্ধ করে দিয়ে তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ঊর্ধ্বতন নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলার পর বলেছেন, আমরা সন্ত্রাসীদের এবং তাদের সহায়কদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব, এর চরম মূল্য দিতে হবে।

ইলাদ শহরের মেয়র ওই অঞ্চলের সব অধিবাসীদের ঘরে অবস্থান করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। কারণ এখনো এলাকাটিতে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযান চলছে।


আরও খবর



১৬ অঞ্চলে ৮০ কি.মি. বেগে ঝড়ের আভাস

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | ৬৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের ১৬টি অঞ্চলের ওপর দিয়ে সর্বোচ্চ ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বয়ে যাওয়ার আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। তাই এসব এলাকার নদীবন্দরসমূহকে দুই নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ মে) সন্ধ্যায় এমন পূর্বাভাস দেয় আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়াবিদ মো. তরিফুল নেওয়াজ কবির জানিয়েছেন- রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম/উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০-৮০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরসমূহকে দুই নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এছাড়া দেশের অন্যত্র পশ্চিম/উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরসমূহকে এক নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

অন্য এক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূল ও তৎসংলগ্ন এলাকার অদূরে অবস্থানরত লঘুচাপটি পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে গুরুত্বহীন হয়ে পড়েছে। বর্তমানে পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে।

এ অবস্থায় শনিবার (১৪ মে) সন্ধ্যা পর্যন্ত রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে বিজলী চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি  ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

ঢাকায় দক্ষিণ/দক্ষিণপূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকবে ১০-১৫ কিলোমিটার, যা অস্থায়ীভাবে পশ্চিম/উত্তরপশ্চিম দিক থেকে দমকা হাওয়ার আকারে ঘণ্টায় ৩০-৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত উঠে যেতে পারে।

রোববার নাগাদ বৃষ্টিপাতের প্রবণতা হ্রাস পেতে পারে এবং তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাবে। বর্ধিত পাঁচ দিনের শেষের দিকে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে।

শুক্রবার দেশে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে দিনাজপুরে, ২০১ মিলিমিটার। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহীতে, ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৩ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।


আরও খবর



পুত্র সন্তান জন্ম দিলেন সিয়ামের স্ত্রী অবন্তী

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন চিত্রনায়ক সিয়াম আহমেদের স্ত্রী শাম্মা রুশাফি অবন্তী। মঙ্গলবার বেলা আনুমানিক ৩টায় রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে তাদের পুত্র সন্তানের জন্ম হয়।  এ সময় সিয়ামসহ দুই পরিবারের সবাই উপস্থিত ছিলেন।

সিয়াম বলেন, আমি বাবা হয়েছি। মা ও সন্তান দুজনই সুস্থ আছে। এর চাইতে আর ভালো লাগা কী হতে পারে। দুই পরিবারের সবাই খুশি আমরা।

গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর সিয়াম ফেসবুকের পোস্টে জানিয়েছিলেন, তার পরিবারের সদস্য বাড়ছে। তিনি বাবা হতে যাচ্ছেন।  ফেসবুকে সুখবরটি জানিয়ে সিয়াম ক্যাপশনে লিখেছিলেন, ১০টি ছোট হাতের আঙুল, ১০টি ছোট পায়ের আঙুল, ভালোবাসা ও আশীর্বাদের সঙ্গে আমাদের পরিবার বড় হয়। এই মূল্যবান আত্মা, খুব মিষ্টি আর নতুন, এই ছোট্ট জীবন, একটি স্বপ্ন বাস্তব হচ্ছে। আলহামদুলিল্লাহ।

আগামী ঈদুল ফিতরে সিয়ামের শান ছবিটি দেশ ও দেশের বাইরে মুক্তি পাচ্ছে। ২৪ ডিসেম্বর মুক্তি পেয়েছে সিয়ামের মৃধা বনাম মৃধা ছবিটি।  মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে অপারেশন সুন্দরবন, অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন, স্বপ্নবাজী সিনেমা।


আরও খবর



নেত্রকোনায় বাবার সামনেই ছুরিকাঘাতে মেয়ের মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পারিবারিক কলহের জেরে নেত্রকোনার পূর্বধলায় বাবার চোখের সামনেই মেয়ে আরিফা আক্তার (১৮) নিজের পেটে ছুরিকাঘাত করেছেন। এতে গুরুতর যখম অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়।

ঘটনাটি মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার জারিয়া ইউনিয়নের নাটেরকোনা চরপাড়া আরিফার শশুরবাড়ী মড়ল বাড়িতে ঘটে। এদিন একই উপজেলার আগিয়া ইউনিয়নের মহিষবেড় গ্রামের মোহাম্মদ আলী তার মেয়েকে দেখতে মেয়ের শ্বশুর বাড়ি যান। পরে বাবার সামনেই এ ঘটনা ঘটান আরিফা।

পূর্বধলা থানার ওসি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বাবার সাথে মান-অভিমান ছিলো। বাবার সামনেই এ ঘটনা ঘটিয়েছে। খবর পেয়ে আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছি। কাল বুধবার ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদী হয়ে একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ৭ মাস পূর্বে চরপাড়া গ্রামের মড়লবাড়ীর আব্দুল খালেকের প্রবাসী ছেলে সাগরের সাথে আরিফার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের মাঝে বনিবনা না হওয়ায় ঝামেলার সূত্রপাত ঘটে। এ নিয়ে প্রায় সময়ই ঝগড়া হতো। যা পারিবারিক কলহে রূপ নেয়।

মঙ্গলবার দুপুরে মেয়েকে দেখতে বাবা মোহাম্মদ আলী মেয়ের শ্বশুরবাড়িতে গেলে তার সামনেই শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সাথে মেয়ের ঝগড়া হয়। পরে মেয়ে তার বাবার সাথে বাড়ি ফিরে আসতে চাইলে বাবা এতে আপত্তি জানায়। এ সময় ঘরে থাকা ফল কাটার ছোট ছুরি হাতে নিয়েই নিজের পেটে আঘাত করে। তাৎক্ষণিক শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


আরও খবর