আজঃ রবিবার ০৩ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

সুনামগঞ্জে ট্রাক-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ২

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

সুনামগঞ্জের হালুয়ারগাঁও সড়কে ট্রাক ও সিএনজি চালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত আরও দুজনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সুনামগঞ্জ-সিলেট মহাসড়কের হালুয়ারগাঁও এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেনজগন্নাথপুরের হাদিউর রহমান ও চট্টগ্রাম জেলার নাসির আলম। তাৎক্ষণিক আহতদের পরিচয় জানা যায়নি।

এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সকালে হালুয়ারগাঁও এলাকায় ট্রাকের সঙ্গে সিএনজি চালিত অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে হাদিউর রহমান ও নাসির আলম নামে দুজন মারা যান। এ ছাড়া আরও দুজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। পরে আহত দুজনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান চিকিৎসকরা।

সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন বলেন, সকালে সড়ক দুর্ঘটনায় দুজনের মৃত্যুর খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।


আরও খবর



বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু হচ্ছে শুক্রবার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

টঙ্গীর তুরাগ নদের তীরে শুক্রবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। এবার অংশ নিচ্ছেন মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অনুসারীরা। ইতোমধ্যে সামিয়ানা টাঙানোর কাজ সমাপ্ত হয়েছে। মুসল্লিদের ভিড়ও বাড়ছে। তিন দিনের ইজতেমা ঘিরে টঙ্গী ও আশপাশের এলাকায় ধর্মীয় উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

শুক্রবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) ফজরের নামাজের পর ধর্মীয় বয়ানের মাধ্যমে শুরু হবে ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। পরবর্তী তিন দিন দেশ বিদেশের মাওলানারা বয়ান করবেন। রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে ইজতেমা। জানা গেছে, সন্ধ্যায় দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজ থেকে সাদের তিন ছেলেসহ ১৪ জনের একটি জামাত ইজতেমায় এসে পৌঁছেছে।

ইজতেমায় অংশ নিতে বৃহস্পতিবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মুসল্লিরা আসছেন। এবারও ইজতেমা স্থলের আশেপাশে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী। বসানো হয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা।

এদিকে বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) মাওলানা সাদকে ইজতেমায় আসার অনুমতির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে তার অনুসারী বাংলাদেশ মুসল্লি পরিষদ। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি জোরালো আহ্বান জানিয়েছেন তারা। অন্যথায় ক্ষুব্ধ মুসল্লিরা কোনো প্রকার ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি করলে তার দায়ভার সরকারকে নিতে হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তারা।

সরেজমিন দেখা গেছে, ইজতেমা ময়দানের সব প্রস্তুতি প্রায় শেষের পথে। প্রথম পর্বের মুসল্লিদের ফেলে যাওয়া ময়লা-আবর্জনা ইতোমধ্যে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে। ময়দানের পশ্চিম পাশে তুরাগ নদের পূর্বপাড়ে নামাজের মিম্বর ও উত্তর-পশ্চিম কোণে বিদেশি মেহমানদের জন্য নির্ধারিত কামরার পাশে বয়ানমঞ্চ নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়াও শামিয়ানা টানানো, বিদ্যুৎ ও মাইক সংযোগের জন্য তার টানানোসহ তাশকিল কামরা, জুড়নেওয়ালি জামাতের কামরা, তুরাগ নদের পশ্চিমপাড়ে বধিরদের বয়ান শোনার জন্য পৃথক কামরা তৈরি করা হয়েছে।

বুধবার থেকেই দেশি ও বিদেশি মেহমানরা আসতে শুরু করেছেন। আজকের মধ্যেই দেশ-বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লি ময়দানে এসে তাদের জন্য নির্ধারিত খিত্তায় অবস্থান নেবেন বলে জানিয়েছেন দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা আয়োজক কমিটির শীর্ষ মুরুব্বি প্রকৌশলী শাহ মোহাম্মদ মুহিবুল্লাহ।

অন্যদিকে প্রথম পর্বের মতো দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমাও ভালোভাবে পরিচালিত হবে বলে গাজীপুর জেলা প্রশাসক, সিটি করপোরেশনের মেয়র, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, ফায়ার সার্ভিস, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী র‌্যাব, পুলিশ, সিটিএসবি, ডিএসবিসহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেন। এদিকে ইজতেমা চলাকালে ট্রাফিক ও যাতায়াত ব্যবস্থা আগের মতোই বলবৎ থাকবে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, ১৯৬৭ সাল থেকে টঙ্গীর এই ময়দানে তাবলিগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমা হয়ে আসছে। তবে তাবলীগ জামায়াতের নেতাদের বিভেদের কারণে ২০১৭ সাল থেকে দুই পর্বে হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা।


আরও খবর



তুমব্রু সীমান্তে ফের গোলাগুলি, সতর্ক বিজিবি

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু সীমান্ত এলাকা ও মিয়ানমারের ঢেকিবুনিয়া এলাকা থেকে কয়েক দফায় বিকট শব্দ শোনা গেছে। রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৩টা ৪০ মিনিট থেকে এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত গোলাগুলির শব্দ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। এর আগে শনিবার রাত সোয়া ২টা থেকে টানা শত রাউন্ড গুলির আওয়াজ শুনেছেন বলে জানিয়েছেন স্থানীয় ইউপি সদস্য দিল মোহাম্মদ ভুট্টো।

বাইশফাড়ি সীমান্তের বাসিন্দা মো. এরশাদ বলেন, দু'দিন ধরে মিয়ানমার সীমান্তে ব্যাপক গোলাগুলিতে আমরা আতঙ্কের মধ্যে আছি। সীমান্ত এলাকায় কাজকর্ম করতে ভয় লাগছে।

তবে সীমান্ত এলাকায় বিজিবি সদস্যদের সতর্ক অবস্থানে দেখা গেছে। বন্ধ হয়ে যাওয়া সাতটি স্কুল এখনও খোলেনি। পরিস্থিতি পুরো স্বাভাবিক হলে কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদনের মাধ্যমে বন্ধ স্কুলগুলো খুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ফরিদুল আলম হুসাইনি।

সূত্রে জানা গেছে, মিয়ানমার জান্তা বাহিনীর হাতছাড়া হওয়া আরকান আর্মি নিয়ন্ত্রিত তুমব্রু রাইট ক্যাম্প থেকে গুলি ছোড়া হলে প্রতিপক্ষ অপর বিদ্রোহীরা তাদের ওপর পাল্টা গুলি চালায়।

ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ বলেন, আবরও গোলাগুলির শব্দে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে তার এলাকার হাজারও মানুষ। তবে লোকজন কাজকর্ম স্বাভাবিকভাবে চালিয়ে যাচ্ছেন।


আরও খবর



শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ভূয়সী প্রসংশা করেছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নয়াদিল্লিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তিনি এই প্রশংসা করেন।

সাক্ষাৎ শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ভারতের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে বাংলাদেশে আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছি। তিনি প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বের ভূয়সী প্রসংশা করেছেন।

একই সঙ্গে টানা চতুর্থ এবং সবমিলিয়ে পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ায় তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। নারী ক্ষমতায়নে বঙ্গবন্ধুকন্যা যে কাজ করছেন, সেটির সঙ্গেও সহমত পোষণ করেছেন দ্রৌপদী মুর্মু।

তিনি বলেন, ভারতের রাষ্ট্রপতি জানিয়েছেন বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতির সঙ্গে ভারত সবসময় ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথম দ্বিপাক্ষিক সফরে গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ভারতের রাজধানীতে পৌঁছান ড. হাছান মাহমুদ। তিন দিনের এই সরকারি সফরের সমাপ্তি দিনে ভারতের ১৫তম রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি।


আরও খবর



ডিভোর্স দেয়ায় চিকিৎসক স্ত্রীর গায়ে আগুন দিলেন স্বামী, দুজনেই দগ্ধ

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নরসিংদী প্রতিনিধি

Image

নরসিংদী রায়পুরায় সাবেক স্বামীর দেয়া আগুনে লতা আক্তার (২৭) নামের এক নারী চিকিৎসক দগ্ধ হয়েছেন। রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে। দগ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

লতার পরিবারের ঘনিষ্ঠজনরা জানান, লতা বেশ কিছুদিন আগে শাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করে বের হয়। বর্তমানে নারায়ণগঞ্জে একটি বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরত রয়েছন। দুই বছর পূর্বে নিজের পছন্দে কাপাসিয়া এলাকার মোঃ খলিলুর রহমান নামের এক ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে বিয়ে করে। বিয়ের কিছুদিন পরে জানতে পারে- ওই ছেলে একজন ড্রাইভার। পরে তাদের ডিভোর্স হয়ে যায়।

ডিভোর্স হবার পর সাবেক স্বামী খলিলুর রহমান খলিল গতকাল রোববার দুপুরে ওই চিকিৎসকের বাসায় এসে ঘরের দরজা আটকে লতার গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয় খলিলুর। এসময় লতা এবং খলিলুর দুজনেই দগ্ধ হয়। পরে তাদের ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে দ্রুত তাদের উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়।

জানা গেছে, লতা নরসিংদী জেলার রায়পুরা থানার মরজাল গ্রামের মফিজুর রহমানের মেয়ে। তারা বেশীর ভাগ সময় ঢাকাতেই বসবাস করেন। সেখানেই পরিচয় হয় খলিলের সাথে।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. মোঃ তরিকুল ইসলাম জানান, নরসিংদী থেকে দগ্ধ অবস্থায় এক নারী চিকিৎসককে জরুরি বিভাগে আনা হয়েছে। তার শরীরে ৮০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তাকে জরুরি বিভাগে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক।

পাশাপাশি খলিলুর রহমানের খোঁজ খবর নিতে তার পরিবারে ব্যবহৃত মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টার পরেও নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। তাই তার বর্তমান অবস্থা জানানো সম্ভব হয়নি।


আরও খবর



চিকিৎসক ও রোগীদের সুরক্ষার দায়িত্ব আমার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. সামন্ত লাল সেন বলেছেন, চিকিৎসকদের সুরক্ষা দেওয়ার দায়িত্ব আমার। তবে রোগীর ভালো সেবা দেবার দায়িত্ব নিতে হবে। আমার যেমন চিকিৎসকদের প্রতি দায়িত্ব আছে, তেমনি রোগীদের প্রতিও সমান দায়িত্ব আছে। এই দুই দায়িত্বই আমি নিচ্ছি। তবে, হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা থেকে কোন রোগী যেন বঞ্চিত না হয় সেটিও নিশ্চিত করতে হবে। আজ বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা মেডিকেল কলেজের ডা. শহীদ মিলন অডিটোরিয়ামে এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী একথা বলেন। 

আরও পড়ুন>> সরকারিভাবে বড় ইফতার পার্টি আয়োজন না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ঢাকা মেডিকেলের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসময় বলেন, ঢাকা মেডিকেলের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা যে পরিমাণ পরিশ্রম করেন তাদেরকে আমি মনে করি নোবেল দেওয়া উচিত। হাজার হাজার রোগীকে দিনরাত অক্লান্ত সেবা দিয়ে এই চিকিৎসকরা সুস্থ করে তোলেন। চিকিৎসকদেরকে এই কৃতিত্ব অবশ্যই দিতে হবে।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে, নর্থ আমেরিকা মেডিকেল এসোসিয়েশন এর পক্ষ থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও ব্যক্তি পর্যায়ে চিকিৎসা সামগ্রী প্রদান করা হয়।


আরও খবর