আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

সৌদির আইসিটি খাতের আকার ৪ হাজার কোটি ডলার

প্রকাশিত:শনিবার ১১ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ১১ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক

Image

সৌদি আরবের তথ্যপ্রযুক্তির (আইসিটি) বাজার গত বছর ৪ হাজার ১০০ কোটি ডলারে পৌঁছেছে। রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত বার্তা সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সির (এসপিএ) প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। এটি এখন মেনা অঞ্চলের (মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকা) বৃহত্তম ও দ্রুতবর্ধনশীল ডিজিটাল অর্থনীতি।

সম্প্রতি রিয়াদে অনুষ্ঠিত আইসিটি ইন্ডিকেটর ফোরাম ২০২৩-এ তথ্য প্রকাশ্যে আসে। অনুষ্ঠানে পৃষ্ঠপোষকতা করেন যোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল-সাওয়াহা। তিনি একই সঙ্গে যোগাযোগ, মহাকাশ ও প্রযুক্তি কমিশনের (সিএসটি) পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

সিএসটির গভর্নর মোহাম্মদ আল-তামিমি জানিয়েছেন, ডিজিটাল অবকাঠামোয় সৌদি আরবের মোট মূলধন বিনিয়োগ গত ছয় বছরে ২ হাজার ৫০০ কোটি ডলার ছাড়িয়েছে, যা ডিজিটাল পরিষেবা উন্নতির দিকে নিয়ে গেছে। উদাহরণস্বরূপ, মোবাইল ইন্টারনেটের গতি দ্বিগুণ হয়ে প্রতি সেকেন্ডে ১৮১ মেগাবিটস হয়েছে, যা আগের গতির চেয়ে ১১ গুণ এবং বিশ্বব্যাপী দ্বিগুণ হয়েছে। বর্তমানে মোবাইল ইন্টারনেট গতির মধ্যে শীর্ষ ১০ দেশের একটি সৌদি আরব।

সৌদির বিভিন্ন অঞ্চলের ২১ হাজার গ্রাম ও অভিবাসন এলাকায় উচ্চগতির ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করেছে। এর ফলে ৫০ লাখের বেশি মানুষের যোগাযোগ ও প্রযুক্তিগত মান উন্নত হয়েছে।

আল-তামিমি আরো জানান, দেশে ফাইভজি কভারেজ ৫৩ শতাংশ বেড়েছে। রিয়াদে এটি ৯৪ শতাংশ ছাড়িয়েছে। এছাড়া ফাইবার অপটিকস কভারেজ ৩০ লাখ ৭০ হাজার বাড়িতে পৌঁছেছে। গ্লোবাল নলেজ ইনডেক্স (জিকেআই) ২০২২ অনুযায়ী, বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ইন্টারনেট ব্যবহারকারী দেশ সৌদি আরব এবং এর আইটি দক্ষতা রয়েছে। ‌ইন্টারনেট ব্যবহারকারী জনসংখ্যার হার এবং ‌মানসম্মত আইসিটি ব্যবহারকারী দক্ষ ব্যক্তিদের হারে জিকেআইয়ের সূচকে দেশটির অবস্থান প্রথম।


আরও খবর
শনিবার ইন্টারনেট সেবায় বিঘ্ন ঘটার শঙ্কা

বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বগুড়ার চরাঞ্চলে বাদামের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বগুড়া প্রতিনিধি

Image

বগুড়া সারিয়াকান্দি উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া যমুনা নদীর চরে এখন সবুজের সমারোহ । শুরু হয়েছে কৃষি বিপ্লব। আগে চরের মানুষ যেখানে দুমুঠো খাবার খেতে পেতনা। তারা এখন তাদেরও আদরের ছেলে মেয়েদের স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় পাঠায় লেখাপড়া শেখার জন্য। বদলে গেছে চরের অবকাঠামো গত চেহারা।

সারিয়াকান্দি চালুয়াবাড়ী ইউনিয়নের হাটবাড়ি চরে গিয়ে দেখা গেছে সেখানকার জনবসতি দাড়ানোর সময় নেই। সব সময় তারা ব্যস্ত সময় পার করছে।

সুইজারল্যান্ড ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে এমফরসি প্রকল্পের আওতায় দেশের অন্যান্য জেলা উপজেলার ন্যায় সারিয়াকান্দি ও ফুলছড়ি উপজেলায় শুরু হয়েছে কৃষি বিপ্লব। চীনা বাদাম একটি স্বল্পমেয়াদি অর্থকরী ফসল। এটি একটি উৎকৃষ্ট ভোজ্য তেলবীজ। চীনা বাদামের বীজে শতকরা ৪৮ থেকে ৫০ ভাগ তেল এবং শতকরা ২২ থেকে ২৯ ভাগ আমিষ রয়েছে।

বাদাম মুলত বছরে দুই বার চাষ করা যায়। বাসন্তী বাদাম মূলত দুই দানা থাকে। এছাড়া ঝিংগা বাদামে তিন থেকে চারটি করে দানা থাকে। ত্রিদানা বাদামেও তিন-চারটি করে দানা থাকে। কৃষকরা তরমুজ, শিম, বেগুন, মরিচ, গোল আলু, ভুট্টা, সরিষা, তিলের পাশাপাশি চাষ করছেন চীনা বাদাম। জামালপুরের সরিষাবাড়ী, মাদারগঞ্জ, ইসলামপুর, দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার যমুনার দুই পাশে জেগে ওঠা চরে বাদাম চাষ হয়।

দেশের অন্যান্য জেলায় উৎপাদিত বাদামের তুলনায় সারিয়াকান্দির বাদাম আকারে বেশ বড় ও সুস্বাদু হয়। ফলে চাহিদাও ব্যাপক। দেশের চাহিদার প্রায় ৩০ ভাগ বাদাম পাওয়া যায় উত্তর অঞ্চলে। এসব বাদাম রাজধানীসহ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে।

হাটবাড়ি গ্রামের কৃষক সজিব ও মামুন জানান, আমরা পড়াশুনার পাশাপাশি মাঠে বাবাকে সাহায্য করি। আমাদের চরে এবার বাদামের মূল মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় বাদামের ফলন বেশি হবে বলে আশা করছেন কৃষকরা।

এ উপজেলার বাদাম চাষি শাকিল জানান, এবার বৃষ্টিপাত ও শীত কম হওয়ায় বাদাম গাছে রোগ-বালাই নেই বললেই চলে। ফলে ফলন বেশি হবে। তিনি আরও বলেন আর ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যেই বাদাম তোলা শুরু হবে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার তুলনামূলক বাদামের ফলন বেশি হবে।

পল্লী উন্নয়ন একাডেমীর যুগ্মপরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক (এমফোরসি) ড. মোঃ আব্দুল মজিদ প্রামানিক বলেন, এমফোরসি-২য় পর্যায় শীর্ষক প্রকল্পের মাধ্যমে চরাঞ্চলে অনাবাদী জমি আবাদের আওতায় আনতে আমরা এক যোগে কাজ করে যাচ্ছি।

বগুড়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. মতলুবর রহমান জানান, চলতি বছর বেশ জমিতে বাদাম চাষ হচ্ছে। হেক্টর প্রতি চীনা বাদামের গড় ফলন মাত্র ১.৫০ মেট্রিক টন। উন্নত প্রযুক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে চীনা বাদামের ফলন বৃদ্ধির যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে।

তিনি আরও জানান মূলত ঝিংগা বাদাম, ত্রিদানা বাদাম ও বারি বাদাম চাষ করা হয়। তবে বাসন্তী বাদামের চাষ হয় বেশি।


আরও খবর
৯ ছাত্রীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা বরখাস্ত

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




খারাপ হয়েছে ঢাকার বায়ু

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বায়ুদূষণের শীর্ষে উঠে এসেছে ভারতের দিল্লি। তবে দূষণ মাত্রার দিক থেকে রাজধানী ঢাকার অবস্থান চতুর্থ। শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টা ৫ মিনিটে বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের (আইকিউএয়ার) সূচক থেকে জানা গেছে এ তথ্য।

তবে গতকাল বৃষ্টির প্রভাবে বায়ুমানে বেশ উন্নতি ঘটলেও একদিনের ব্যবধানে আবারও অস্বাস্থ্যকর হয়ে উঠেছে ঢাকার বায়ু। গতকাল ঢাকার স্কোর ছিল ১৬১ এবং তালিকায় ঢাকার অবস্থান ছিল ষষ্ঠ।

আজ তালিকার শীর্ষে অবস্থান করা দিল্লির বায়ুর মানের স্কোর হচ্ছে ১৮১ অর্থাৎ সেখানকার বায়ু অস্বাস্থ্যকর পর্যায়ে রয়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে পাকিস্তানের করাচি। শহরটির স্কোর হচ্ছে ১৭০ অর্থাৎ সেখানকার বায়ুর মানও অস্বাস্থ্যকর। 

আরও পড়ুন>> বিদ্যুতের ভর্তুকি আমরা সমন্বয় করতে চাই : ওবায়দুল কাদের

সূচকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারতের কলকাতা এবং শহরটির স্কোর হচ্ছে ১৬৭। এর অর্থ দাঁড়ায় সেখানকার বায়ুর মানও অস্বাস্থ্যকর। দূষণের তালিকায় আজ ঢাকার অবস্থান চতুর্থ। রাজধানী ঢাকার দূষণমাত্রার স্কোর হচ্ছে ১৬৪ অর্থাৎ এখানকার বায়ু মান আজ অস্বাস্থ্যকর।

স্কোর শূন্য থেকে ৫০ এর মধ্যে থাকলে বায়ুর মান ভালো বলে বিবেচিত হয়। ৫১ থেকে ১০০ হলে মাঝারি বা সহনীয় ধরা হয় বায়ুর মান। সংবেদনশীল গোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয় ১০১ থেকে ১৫০ স্কোর। ১৫১ থেকে ২০০ পর্যন্ত অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয়। স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া ৩০১-এর বেশি হলে তা দুর্যোগপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়।


আরও খবর



বিশ্বজুড়ে মেডিকেল সেক্টরে বড় মাফিয়া চক্র কাজ করে: হাইকোর্ট

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আদালত প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশসহ বিশ্বজুড়ে মেডিকেল সেক্টরে বড় মাফিয়া চক্র কাজ করে বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর বাড্ডার সাতারকুলে ইউনাইটেড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে খতনার পর শিশু আয়ানের (৫) মৃত্যুর ঘটনায় দায়ের করা রিটের শুনানিতে এমন মন্তব্য করেন উচ্চ আদালত।

আদালত বলেছেন, মেডিকেলে মাফিয়াদের বড় টার্গেট তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোই।

এদিন মামলায় পক্ষভুক্ত হয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মুহাম্মদ শিশির মনির। তিনি মেডিকেল নেগলিজেন্স নিয়ে আবেদন করেছেন। পরে এ বিষয়ে আগামী মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) শুনানি ও আদেশের জন্য দিন ঠিক করেন বিচারপতি মোস্তাফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি আতাবুল্লার সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।আজ আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের প্রতিবেদন তুলে ধরেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

আদালতে পক্ষভুক্ত হওয়ার শুনানিতে ছিলেন শিশির মনির। তাকে সহযোগিতা করেন অ্যাডভোকেট যায়েদ বিন আমজাদ। রিটের পক্ষে আইনজীবী এ বি এম শাহজাহান আকন্দ নিজেই শুনানি করেন। শুনানির সময় শিশুটির বাবা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এদিন শিশু আয়ানের পরিবারসহ ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে যাওয়া ক্ষতিগ্রস্ত অন্যান্য ভুক্তভোগীরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গত ১১ ফেব্রুয়ারি শিশু আয়ানের মৃত্যুর ঘটনায় দায়ের করা রিটের বিষয়ে শুনানি ও আদেশের জন্য আজকের দিন ধার্য করেন উচ্চ আদালত। সেই ধারাবাহিকতায় আজ সেটি শুনানির জন্য আদালতের কার্যতালিকায় ওঠে।

সুন্নাতে খতনা করাতে গত ৩১ ডিসেম্বর রাজধানীর সাতারকুল ইউনাইটেড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল শিশু আয়ানকে। অনুমতি ছাড়াই ফুল অ্যানেস্থেসিয়া দিয়ে সুন্নতে খতনা করান চিকিৎসক। এরপর আর জ্ঞান ফেরেনি তার। অস্ত্রোপচারের সময় অবস্থা বেগতিক দেখে সাতারকুল ইউনাইটেড মেডিকেল কলেজ থেকে আয়ানকে পাঠানো হয় গুলশান-২ ইউনাইটেড হাসপাতালে। সেখানে টানা সাত দিন লাইফ সাপোর্টে থাকার পর শিশু আয়ান মারা যায়।


আরও খবর
জজ কোর্ট চত্বরে ককটেল বিস্ফোরণ

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




‘বেদা’র ফার্স্ট লুকে চমক দিলেন আব্রাহাম!

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

নতুন বছরে অ্যাকশনের ইঙ্গিত দিলেন বলিউড অভিনেতা জন আব্রাহাম। নিজের পরবর্তী ছবি বেদার ফার্স্ট লুক দিয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছেন তিনি। দুটি ছবি শেয়ার করেছেন জন।

যার একটিতে দেখা যাচ্ছে বলিউডের এক উদীয়মান নায়িকাকে। তিনি বলিউডের নতুন বাবলি শর্বরী ওয়াঘ। বান্টি অউর বাবলি ২ সিনেমায় রানি-সাইফের পাশাপাশি নজর কেড়েছিলেন মহারাষ্ট্রের এই মেয়ে। বাজিরাও মস্তানি, সনু কে টিটু কি সুইটি সিনেমায় সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন শর্বরী। তার পর শুরু করেন অভিনয়। আমাজন প্রাইমের ওয়েব সিরিজ দ্য ফরগটেন আর্মি: আজাদি কে লিয়েতে দেখা গিয়েছিল শর্বরীকে। তার পরই বান্টি অউর বাবলি ২তে সুযোগ পান।

এবার বেদা সিনেমায় শর্বরীকে বেশ লড়াকু মেজাজেই দেখা যাবে।

এদিকে পোস্টারের ক্যাপশনে জন লিখেছেন, ওর ত্রাতার প্রয়োজন ছিল, পেল অস্ত্র।

জানা গেছে, ছবিতে শর্বরীর চরিত্রের মেন্টর হিসেবে দেখা যাবে জনকে। জন-শর্বরী ছাড়াও এই ছবি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।


আরও খবর
টেইলর সুইফট ইফেক্টে আক্রান্ত সিঙ্গাপুর

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শাকিব ‘রাজকুমার’ হলে আমি রাজা: জায়েদ খান

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাল আওয়ামী লীগ

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে দেশের বৃহৎ রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শহীদ মিনারের বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়।

এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, আব্দুর রাজ্জাক, মোহাম্মদ ফারুক খান, মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, মাহবুব উল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, দীপু মণি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, আবু সাঈদ আলম মাহমুদ স্বপন, মির্জা আজম, এসএম কামাল হোসেন, সুজিত রায় নন্দী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে জাতির পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মহান ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পুষ্পস্তবক অর্পণের পর রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থেকে ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় অমর একুশের কালজয়ী গান আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি…’ বাজানো হয়।

এর আগে রাত ১১টা ৫১ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শহীদ মিনারে এসে পৌঁছলে তাকে অভ্যর্থনা জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল।

রাত ১১টা ৫৩ মিনিটে রাষ্ট্রপতি রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন মিনার অঙ্গনে উপস্থিত হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ঢাবি উপাচার্য তাকে অভ্যর্থনা জানান।


আরও খবর