আজঃ শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণিতে কোনো পরীক্ষা নয়

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

২০২৩ সালের শুরু থেকে মাধ্যমিকের ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণিতে নতুন শিক্ষাক্রম চালু হয়েছে। নতুন শিক্ষাক্রম অনুযায়ী এই দুই শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নে কোনো প্রচলিত পরীক্ষা বা মডেল টেস্ট নেওয়া যাবে না বলে জানিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর মাউশি।

গতকাল সোমবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর থেকে এক আদেশে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অধিদপ্তরের মাধ্যমিক শাখার পরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন স্বাক্ষরিত আদেশটি এরই মধ্যে সব আঞ্চলিক উপপরিচালককে পাঠিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর।

আদেশে বলা হয়েছে, মাধ্যমিক পর্যায়ের ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নতুন শিক্ষাক্রম অনুযায়ী শিখন-শেখানো ও মূল্যায়ন কার্যক্রমের ক্ষেত্রে এনসিটিবি প্রণীত শিক্ষক সহায়িকা এবং শিক্ষাক্রমের নির্দেশনা অনুসারে করতে হবে। শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নের ক্ষেত্রে প্রচলিত কোনো পরীক্ষা বা মডেল টেস্ট নেওয়া যাবে না। ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নের বিষয়ে এনসিটিবি থেকে যে গাইডলাইন পাওয়া যাবে তা পরবর্তী সময়ে জানিয়ে দেওয়া হবে।

এতে আরও বলা হয়েছে, নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে শিক্ষক, প্রতিষ্ঠান-প্রধান, উপজেলা বা থানা একাডেমিক সুপারভাইজার, উপজেলা বা থানা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, জেলা শিক্ষা অফিসার, আঞ্চলিক উপপরিচালক এবং আঞ্চলিক পরিচালকদের নিয়মিত পরিবীক্ষণ জোরদার করতে হবে। নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সচেষ্ট ও সচেতন থাকতে হবে। এ বিষয়ে কোনো রকমের ব্যত্যয় ঘটলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি দায়ী থাকবেন।

এ দুই শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন হবে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের গাইডলাইন অনুযায়ী। এ গাইডলাইনের বিষয়ে পরে স্কুলগুলোকে জানিয়ে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর।


আরও খবর
জাবির ‘ডি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সিসিটিভি ফুটেজ গায়েব

ধর্ষণের রাতে ছাত্রলীগ সভাপতির আশ্রয়ে অন্য হলে ছিলেন মোস্তাফিজুর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

Image

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) মীর মশাররফ হোসেন হলে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমানকে অন্য হলে আশ্রয় নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু ওই হলের সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে চাইলে ফুটেজ পাওয়া যায়নি। ফুটেজ বিলোপের নির্দেশ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আকতারুজ্জামান সোহেলের বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত মোস্তাফিজুর রহমান শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) রাত ১টা ১৫ মিনিটের দিকে মীর মশাররফ হোসেন হল থেকে রান্নাঘর সংলগ্ন গেট ভেঙে বের হয়ে যান। পরবর্তীতে রোববার সকাল সাড়ে আটটায় মূল অভিযুক্ত মোস্তাফিজুর আশুলিয়া থানা কর্তৃক গ্রেপ্তার হন। 

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আকতারুজ্জামান সোহেলের নির্দেশেই মোস্তাফিজুরকে পলায়নে সহায়তা করে মীর মশাররফ হোসেন হল ছাত্রলীগের নেতা সাগর সিদ্দিকী এবং সভাপতির নির্দেশেই তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলে আশ্রয় দেয়া হয়। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন মহলের চাপে ছাত্রলীগ সভাপতির নির্দেশে আত্মসমর্পণ করেন মোস্তাফিজ।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, সভাপতি সোহেল আমাকে জানায় মোস্তাফিজুর থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করতে চায়। আমি তখন তাকে বলেছি সেটা তার বিষয়। সে আত্মসমর্পণ করুক বা না করুক সে গ্রেপ্তার হবেই।

অভিযুক্ত মোস্তাফিজুর নিজে থেকেই থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেছে- ছাত্রলীগ সভাপতি শুরুতে এমন দাবি করেন। কিন্তু যখন তাকে আবারো প্রশ্ন করা হয় আপনি কীভাবে জানলেন সে আত্মসমর্পণ করেছে যেখানে পুলিশ বলছে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। তাহলে কী আপনি আগে থেকেই তার অবস্থা সর্ম্পকে জানতেন। এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমি এই বিষয়ে কিছু জানি না।

অভিযুক্ত ধর্ষককে আশ্রয় দেয়ার সময়কালের সিসিটিভি ফুটেজ দেখতে চাইলে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হল কর্তৃপক্ষ থেকে জানানো হয়, ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের সকল সিসিটিভি ক্যামেরায় কোনো ফুটেজ রেকর্ড হয়নি। এর জন্য তারা যান্ত্রিক ত্রুটিকে দায়ী করেন। তবে সরেজমিনে সিসিটিভি সিস্টেম পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায় জানুয়ারি মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত সকল ফুটেজ রয়েছে এবং ৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে সিসিটিভি ফুটেজ রেকর্ড হচ্ছে। এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেননি।

হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক নাজমুল হাসান তালুকদার বলেন, আমি ছুটিতে ছিলাম। হল ওয়ার্ডেন প্রভোস্টের দায়িত্বে ছিল। কারগরী ত্রুটির কারণে কয়েকদিন ধরে আমাদের সিসিটিভি কাজ করছে না। পরবর্তীতে সিসিটিভি ঠিক করেছি। সিসিটিভি ফুটেজ গায়েবের মতো কোন ঘটনাই ঘটেনি।

উল্লেখ্য, শনিবার জাবির মীর মশাররফ হোসেন হলে বহিরাগত এক ব্যক্তিকে আটকে রেখে তার স্ত্রীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। রাত সাড়ে ৯টার দিকে হলসংলগ্ন জঙ্গলে ঘটা এই ঘটনায় অভিযুক্ত প্রধান আসামী ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুরকে পরদিন সকালে সাভারের একটি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে দাবি করে পুলিশ। আর শনিবার রাতেই ধর্ষককে পালাতে সাহায্যকারীরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।  অভিযুক্তরা আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ছাত্র সাগর সিদ্দিকী ও হাসানুজ্জামান, শাহ পরান, মুরাদ এবং উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র সাব্বির হাসান। 


আরও খবর



ইউএনওর নির্দেশে সরকারি ব্যারাকের ঘর ভেঙে নিলেন মেম্বার!

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

Image

লক্ষ্মীপুরে যথাযথ প্রক্রিয়া অবলম্বন না করেই অসদুপায়ে সরকারি ব্যারাকের ৩০টি পুরনো ঘরের টিনসহ বিভিন্ন মালামাল খুলে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফুর রহমানের নির্দেশে পুরনো ঘরগুলো ভাঙা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউপি সদস্য কামরুল সরকার। আর ইউপি সদস্য নিজেই কাজটি করিয়েছেন। তবে সরকারি পুরনো মালামাল বিক্রিতে নিলামের নির্দেশনা থাকলেও তা করা হয়নি।

সরেজমিনে সদর উপজেলার চররমনী মোহন ইউনিয়নের করাতিরহাট এলাকায় গেলে ব্যারাকগুলো ভাঙার দৃশ্য নজরে পড়ে। আর পুরনো মালামালগুলো বাজারের ওপর ইউপি সদস্য কামরুলের ব্যক্তিগত কার্যালয়ের পাশেই রাখে শ্রমিকরা। কামরুল একই ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার)।

ব্যারাকে পাশে থাকা ফলকে দেখা যায়, আশ্রয়ণ প্রকল্প-১ এর আওতায় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চররমনী মোহন ইউনিয়নের করাতির হাট বাজারে ২০০৬ সালে নৌ-বাহিনী কর্তৃক ৩০টি টিনসেট ঘর তৈরী করা হয়।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে জরাজীর্ণ হয়ে থাকা ঘরগুলো পুনঃসংস্কারের জন্য অসহায় পরিবারগুলো প্রশাসনের কাছে দাবি জানায়। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সেখানে নতুন ঘর নির্মাণের আশ্বাস দেওয়া হয়। সেই সূত্রে মন্ত্রণালয়ে বরাদ্দ চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়। মন্ত্রণালয় থেকে আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর অধীনে ৩০টি ঘর বরাদ্দ দেওয়া হয়। প্রতিটি ঘরের জন ৩ লাখ ৪ হাজার টাকা করে বরাদ্দ রয়েছে। এজন্যই পুরনো জীর্ণশীর্ণ ঘরগুলো ভাঙা হয়েছে। অতিদ্রুত সেখানে নতুন ঘর নির্মাণ করা হবে। এর জন্য ইট এনে রাখা হয়েছে ব্যারাকের সামনে।

আশ্রয় কেন্দ্রেটির সভাপতি মোহাম্মদ বেপারী বলেন, ৩০টি পরিবারে দেড়শতাধিক মানুষ ঘরগুলোতে বসবাস করে আসছি। দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে ঘরগুলো জরাজীর্ণ হয়ে রয়েছে। বর্ষায় পানি ঢুকে। কয়েবার আমরা নিজ উদ্যোগেই সংস্কার করেছি। পরে প্রশাসনের কাছে সংস্কারের দাবি জানাই। ইউএনও স্যার নতুন করে ঘর নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এজন্যই ঘরগুলো ভেঙে নেওয়া হয়েছে। আমাদের কোথাও যাওয়ার জায়গা নেই। এজন্য পাশেই একটি পরিত্যক্ত স্কুলের বারান্দায় আশ্রয় নিয়েছি।

ঘর অপসারণে নিয়োজিত শ্রমিক আরিফ হোসেন ও আল-আমিন সরকার জানায়, তারা চুক্তিতে ঘরগুলো ভাঙছে। এতে মেম্বার কামরুল তাদেরকে ৯০ হাজার টাকা দেবেন। পুরনো মালামালগুলো মেম্বারের কার্যালয়ের পাশে রাখা হয়েছে।

ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম সরকার বলেন, ইউএনও আমাকে ঘরগুলো সরিয়ে নিতে বলেছে। এ জন্য পুরনো ঘরগুলো ভাঙা হয়েছে। ঘরগুলো অপসারণে শ্রমিকদের সঙ্গে দেড় লাখ টাকা চুক্তি হয়েছে। পুরনো এসব মালামাল বিক্রি করে এতো টাকা পাওয়া যাবে না। ক্ষতির সম্মুখিন হতে হবে আমাকে।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক সরকারি এক কর্মকর্তা জানান, ব্যারাকের ঘরগুলো সরকারি। আইন অনুযায়ী ঘরগুলো ভাঙতে নিলামের জন্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা থাকতে হবে। অথবা জেলা-উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক রেজুলেশন করে নিলামের ব্যবস্থা করতে হবে। নিলাম ছাড়া সরকারি ঘর ভাঙার সুযোগ নেই।

বক্তব্য জানতে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফুর রহমানের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি। এর আগে দুপুরে তার কার্যালয়ে গেলেও তিনি ব্যস্ততা দেখিয়ে কথা বলেননি।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক সুরাইয়া জাহান বলেন, ব্যারাকটিতে যিনি যেই ঘরে ছিলেন ওই ঘরটি তিনিই ভেঙে নেবেন। এমনটিই আমাকে ইউএনও আরিফুর রহমান আমাকে জানিয়েছেন। ইউএনওর নির্দেশ ইউপি সদস্য ঘরগুলো ভেঙে নিচ্ছে কি না তা আমার জানা নেই। বিষয়টি নিয়ে ইউএনওর সঙ্গে কথা বলবো।


আরও খবর
৯ ছাত্রীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা বরখাস্ত

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযান, গ্রেফতার ৩০

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে ৩০ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ছয়টা থেকে মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্য উদ্ধারসহ তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

এ সময় তাদের কাছ থেকে ২৭৭৫ পিস ইয়াবা, ৫০ কেজি ৭২০ গ্রাম গাঁজা ও ২৮ পুরিয়া হেরোইন উদ্ধার করা হয়েছে বলে জা‌নিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ।

ডিএমপির নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে অ‌ভিযান প‌রিচালনা করা হয়েছে বলে জানানো হয়। সেই সঙ্গে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ২০ টি মামলা রুজু হয়েছে বলেও জানানো হয়।


আরও খবর



জন্মদিনে স্বর্ণের কেক কাটলেন উর্বশী

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

জনপ্রিয় অভিনেত্রী উর্বশী রাউতেলা ৩০ বছরে পা রাখলেন। রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) জন্মদিনে ২৪ ক্যারেট খাঁটি সোনার কেক কাটলেন তিনি। এ সময় তার পাশে ছিলেন জনপ্রিয় ব়্যাপার হানি সিং।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা ইন্দো-এশিয়ান নিউজ সার্ভিস (আইএএনএস) জানিয়েছে, বর্তমানে হানি সিংয়ের সঙ্গে একটি মিজজিক ভিডিও অ্যালবামে কাজ করছেন উর্বশী। চলছে মিজজিক ভিডিও অ্যালবামের শুটিং।

২০১৫ সালে মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন উত্তরাখণ্ডের মেয়ে উর্বশী রাউতেলা। ২০১৩ সালে ‌সিং সাহাব দ্য গ্রেট ছবির মাধ্যমে বলিউডে পা রাখেন তিনি। এরপর সনম রে, হেট স্টোরি ৪, ভার্জিন ভানুপ্রিয়ার মতো সিনেমায় অভিনয় করেছেন।


আরও খবর
টেইলর সুইফট ইফেক্টে আক্রান্ত সিঙ্গাপুর

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শাকিব ‘রাজকুমার’ হলে আমি রাজা: জায়েদ খান

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




উন্নয়ন কর্মকান্ডে জনপ্রতিনিধিদের পরামর্শ গ্রহণের আহ্বান গণপূর্ত মন্ত্রীর

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

Image

সরকারের সকল উন্নয়ন কর্মকান্ডে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের পরামর্শ অধিকহারে গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, গণপূর্ত অধিদপ্তর চট্টগ্রাম জোন এবং জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ চট্টগ্রামের অধীনে বাস্তবায়নাধীন বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, জনপ্রতিনিধিদের পরামর্শ উন্নয়ন কর্মকান্ডকে বেগবান, জনমুখী, সফল ও সার্থক করে তোলে। তাদের পরামর্শ গ্রহণ ও উন্নয়ন কর্মকান্ডে তাদের সম্পৃক্তি স্বচ্ছতা  ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার অন্যতম পূর্বশর্ত।

তিনি বলেন, সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডে জনকল্যাণকে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দিয়ে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। কর্মক্ষেত্রে বিদ্যমান সকল আইন-কানুন, বিধি-বিধান যথাযথ ভাবে মেনে চলতে হবে।

চট্টগ্রাম নগরের উন্নয়ন কর্মকান্ডে সিডিএ, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন, গণপূর্ত অধিদপ্তর ও জাতীয় গ্রহণ কর্তৃপক্ষসহ  সকল দপ্তর সংস্থার কাজে সমন্বয় সাধনের উপর তিনি গুরুত্ব আরোপ করেন।

পরিবেশ সুরক্ষার উপর গুরুত্ব দিয়ে তিনি বলেন জলাশয় ভরাট করে উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়নে সতর্ক থাকতে হবে। যেকোনো কর্মকান্ডে পরিবেশ প্রতিবেশ রক্ষা করে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে। বিশেষ করে সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পে সকল দপ্তর সংস্থায় পরিকল্পনা বৃত্তের অন্তর্ভুক্ত করার উপর তিনি জোর দেন। উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের পূর্বে তিনি প্রকল্পের সামাজিক ও পরিবেশগত প্রভাব পর্যালোচনার জন্য সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

যেকোনো প্রকল্প গ্রহণের পূর্বে প্রকল্পের সম্ভাব্য সমস্যা সমূহ পর্যালোচনা এবং তার সম্ভাব্য সমাধান সম্পর্কে পূর্ব প্রস্তুতি  গ্রহণের ব্যাপারে গুরুত্বারোপ করেন।

অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম-১১ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ আব্দুল লতিফ, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব কাজী ওয়াছি উদ্দিন, গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মোঃ শামীম আখতার, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ, চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ তোফায়েল ইসলাম, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামানসহ জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের বিভিন্ন দপ্তর সংস্থার কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন দপ্তর সংস্থা চট্টগ্রাম বিভাগের যে সকল উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে তার বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা ও বাস্তবায়ন অবস্থা পর্যবেক্ষণের জন্য গৃহায়ন  ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী দুই দিনের সফরে বৃহস্পতিবার পূর্বাহ্নে চট্টগ্রাম পৌঁছেন।

বিকেলে সার্কিট হাউস সম্মেলন কক্ষে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের সাথে তিনি মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। এছাড়াও তিনি স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে এসব বিষয়ে কথা বলেন। 


আরও খবর
৯ ছাত্রীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা বরখাস্ত

বৃহস্পতিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪