আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

শেরপুরে চাঞ্চল্যকর ইজিবাইক চালক হত্যাকারী মূলহোতাসহ গ্রেফতার ৫

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ০৮ মে ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
মো. নাজমুল হোসাইন, শেরপুর

Image

শেরপুর জেলার সদর উপজেলার কামারিয়া ইউনিয়নের খুনুয়া চরপাড়া (মধ্যপাড়া) গ্রামের মৃত নুর ইসলাম ওরফে হলু শেখের ছেলে ইজিবাইক চালক উজ্জল মিয়া (৪২) হত্যাকাণ্ডের মূলহোতা ও হত্যাকারী সদর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের মো. সুরুজ মিয়ার ছেলে মো. শামীমসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪।

গ্রেফতারকৃত অন্যান্যরা হলেন- সদর উপজেলার বলাইয়েরচর ইউনিয়নের দুছুরা ছনকান্দা (কালাম বাজার) গ্রামের মো. মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে মো. আবুল হোসেন (২৭), জামালপুর জেলার সদর উপজেলার জিগাতলা গ্রামের মো. আজাহার আলীর ছেলে মো. রুবেল হোসেন (৩৫), একই উপজেলার কোচনধরা গ্রামের মৃত জিন্নাত আলীর ছেলে মো. সুলতান মিয়া (৪৫) ও হরিপুর গ্রামের আঃ করিমের ছেলে মো. মঞ্জুরুল হক (৩০)।

ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪ এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) ও অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান চাঞ্চল্যকর ইজিবাইক চালক মো. উজ্জল মিয়াকে হত্যা পরবর্তী তার ইজিবাইকের ব্যাটারীসহ অন্যান্য যন্ত্রাংশ বিক্রি করার পর তা উদ্ধার ও মূল হত্যাকারীসহ অপরাপরদের গ্রেফতারের বিষয়ে ৮ মে সোমবার শেরপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, গত ২৮ এপ্রিল সকালে ইজিবাইক চালক ৬ সন্তানের জনক দরিদ্র মো. উজ্জল মিয়া জীবিকার সন্ধানে তার ইজিবাইকটি নিয়ে বাড়ী থেকে বের হয়ে যায়। এরপর সে আর সন্ধ্যায় বাড়ী ফিরেনি। পরে ২৯ এপ্রিল রাত ১টার দিকে উজ্জল মিয়া তার ছোট ভাই মো. সুজন মিয়াকে মোবাইল ফোনে জানায় সে যাত্রী নিয়ে ঘুঘুরাকান্দি এলাকায় আছে। এদিকে যাত্রী বেশি ইজিবাইক ছিনতাইকারীরা রাতের কোন এক সময়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে তার ইজিবাইকটি ছিনতাই এবং তার লাশ খুনুয়া পশ্চিম পাড়ার জনৈক দোছ মাহমুদের ধান খেতের পার্শ্বে ফেলে রেখে যায়।

এদিকে পরিবারের লোকজন উজ্জল মিয়া বাড়ী ফিরে না যাওয়ায় স্থানীয়দের তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে এক ব্যক্তির লাশ পড়ে আছে। পরে খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন ওই স্থান গিয়ে তার মৃতদেহ সনাক্ত করে। এঘটনায় নিহতের ছোট ভাই মো. সুজন মিয়া বাদী হয়ে শেরপুর সদর থানায় ওইদিন একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ৬৪, তাং-২৯-৪-২৩ইং।

আরও পড়ুন >> রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই গ্রুপের গোলাগুলি, শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ৪

পরবর্তীতে এঘটনায় র‌্যাব-১৪ ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং হত্যার রহস্য উদঘাটন করতে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-১, জামালপুর ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার স্কোয়াড্রন লিডার আশিক উজ্জামানের নেতৃত্বে সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার এম.এম. সবুজ রানা সঙ্গীয় ফোর্সসহ ৭ মে দুপুর ২টার দিকে ঢাকা জেলার ধামরাই কলেজ রোড এলাকা থেকে প্রথমে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত ও ইজিবাইক ছিনতাইয়ের মূল আসামী মো. শামীমকে গ্রেফতার করা হয়। পরে সে ইজিবাইক চালক উজ্জল মিয়াকে হত্যার স্বীকারোক্তি এবং ছিনতাইকৃত ইজিবাইক বিক্রিয়ের কথা ও ক্রয়কারীদের নাম, ঠিকানার বর্ণনা দেন।

এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের অভিযানিক দল জামালপুর জেলার সদর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ওইদিন অভিযান চালিয়ে পর্যায়ক্রমে সংঘবদ্ধ ইজিবাইক ছিনতাই ও ক্রয়বিক্রয় দলের চার সদস্যকে গ্রেফতার করে বলে প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীদের জানানো হয়। এসময় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ ট্যাগ: শেরপুর হত্যা

আরও খবর



তমার বিরুদ্ধে ২০ কোটি টাকার মানহানির মামলা করছেন মিষ্টি

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

ঢাকাই সিনেমার নায়িকা ও দন্ত চিকিৎসক মিষ্টি জান্নাত আরেক নায়িকা তমা মির্জার বিরুদ্ধে ২০ কোটি টাকার মানহানির মামলা করার ঘোষণা দিয়েছেন। তমা মির্জার পাঠানো আইনি নোটিশে মিষ্টির বিরুদ্ধে ১০ কোটি টাকার মানহানির মামলার খবরের পর মিষ্টি জান্নাত এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

জানা গেছে, মানহানিকর মন্তব্যের অভিযোগ এনে জনসম্মুখে ক্ষমা চাওয়া এবং দশ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে আইনি নোটিশটি মিষ্টির বিরুদ্ধে দিয়েছেন তমা। বৃহস্পতিবার (২৩ মে) রেজিস্ট্রি ডাকযোগে তমা মির্জার পক্ষে নোটিশ পাঠান তার আইনজীবী ব্যারিস্টার সজীব মাহমুদ আলম। আগামী সাত দিনের মধ্যে এ নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

তবে এখনও নোটিশ পাননি বলে জানিয়েছেন মিষ্টি জান্নাত। সংবাদ মাধ্যমের বরাতে এই ব্যাপারে অবগত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন এই আলোচিত চিত্রনায়িকা। এই প্রসঙ্গে মিষ্টি জান্নাত বলেন, পরিষ্কার বলতে চাই, সাক্ষাৎকারে আমি তার নাম উল্লেখ করে কিছুই বলিনি। উনি কেন গায়ে মাখলেন জানি না। এখন আমি পাল্টা আইনি ব্যবস্থা নেব। এরকম মিথ্যা নোটিশ দিয়ে হয়রানি করার মানে কি? এখন আমাকেও আইনের দ্বারস্থ হতে হবে। এরই মধ্যে আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলেছি। ভিত্তিহীন অভিযোগ এনে আমার সম্মানহানি করায় উল্টো ২০ কোটি টাকার মানহানি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। সাপ্তাহিক ছুটির দিন শেষ হলেই ব্যবস্থা নেব।

মূলত উপস্থাপক শাহরিয়ার নাজিম জয়কে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত। মিষ্টি জান্নাতের একটি ভিডিও সাক্ষাৎকার মোটেও ভালোভাবে নেননি তমা মির্জা। সম্প্রতি তমা মির্জা নিজের ফেসবুকে এক স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন। এতে তমা কারো নাম উল্লেখ না করলেও স্পষ্ট তিনি মিষ্টি জান্নাতকে ইঙ্গিত করে স্ট্যাটাসটি দিয়েছিলেন। এরপর সবকিছু ছিল নীরব ভূমিকায়। হঠাৎ করে তমার আইনি নোটিশের খবরে ফের উত্তাল ঢালিউড।

মিষ্টি জান্নাত বলেন, বিষয়টি ছিল জয় ভাই ও আমার মধ্যে। মাঝখানে তিনি এসে ঢুকে গেলেন। ইঙ্গিতপূর্ণ একটা স্ট্যাটাস দিয়ে শুরুটা কিন্তু তিনিই করেছেন। তারপরও আমি চুপচাপ ছিলাম। ঘটনা যখন শেষের দিকে তখন তিনি উড়ে এসে জুড়ে বসেছেন। কোনো ইউটিউবার যদি আমার সাক্ষাৎকারের সঙ্গে নিজের মন মতো থাম্বনেল এবং ক্যাপশন জুড়ে দেয় সেই দায়ভার তো আমি নেব না। কারণ, আমি তো তাকে নিয়ে কিছু বলিনি। সে বিষয়টি নিয়ে আমার সাথে কথা বলতে পারত। তা না করে আদালতে গিয়েছে। এখন আমিও আইনি ভাবেই বিষয়টি দেখব।


আরও খবর



কর্ণফুলীতে ২৯ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ৩

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মো.আমজাদ হোসেন, আনোয়ারা

Image

চট্টগ্রামের কর্ণফুলীতে প্রায় তিন লাখ টাকা মূল্যের ২৯ কেজি গাঁজা নিয়ে দুই নারীসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৭। গত বুধবার (৫ জুন) সকাল পৌনে ৯টার দিকে কর্ণফুলীর মইজ্জ্যারটেক টোলপ্লাজা এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, পটিয়া হাইদগাঁও এলাকার মোসলেম উদ্দিনের ছেলে ইমতিয়াজ উদ্দিন (২৬), নগরীর বাকলিয়া বাস্তহারা এলাকার মো. হোসেনের স্ত্রী বিউটি বেগম (৩৫) এবং কক্সবাজার টেকনাফ এলাকার মো. সালামের স্ত্রী হামিদা বেগম (৩৫)।

তারা কৌশলে ট্রাভেল ব্যাগের ভেতরে পলিথিন মোড়ানো অবস্থায় গাঁজা রেখে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার যাওয়ার পথে কর্ণফুলীতে র‍্যাবের হাতে আটক হয়। এই গাঁজার মূল্য ২ লাখ ৯০ হাজার কোটি টাকা বলে জানায় র‍্যাব।

এ বিষয়ে কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ জহির হোসেন বলেন, ২৯ কেজি গাঁজাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব সদস্যরা থানায় মামলা দিয়েছেন। কর্ণফুলী থানায় তাদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা হয়েছে।


আরও খবর



যত প্রভাবশালীই হোক, অপরাধ করলে সরকার সুরক্ষা দেবে না

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

কেউ অপরাধ করলে তিনি যত প্রভাবশালীই হোন না কেন সরকার তাকে সুরক্ষা দেবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

বুধবার (২৯ মে) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে কলকারখানা ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানে দুর্ঘটনা রোধ এবং নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতকরণে জাতীয় কমিটির তৃতীয় বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

সাবেক সেনাপ্রধান এবং পুলিশ প্রধানের অনিয়মের বিষয়টি আলোচিত হচ্ছে। এ নিয়ে সরকার বিব্রত কি না এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রীর এ উপদেষ্টা বলেন, আমাদের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক স্পষ্টভাবে বলেছেন, কেউ যদি আইন ভঙ্গ করেন‌, তাহলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সালমান এফ রহমান বলেন, এখানে সরকার বিব্রত হবে বলে আমি বিশ্বাস করি না। আইন নিজের গতিতে চলবে। তিনি যেটা বলেছেন, লোকটা যতই ইনফ্লুয়েনশিয়াল (প্রভাবশালী) হোক না কেন, সরকার কোনোরকম প্রটেকশন কাউকে দেবে না। আইন নিজের গতিতে চলবে।

ভারতে বাংলাদেশের একজন সংসদ সদস্য খুন হওয়ার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন, আমরা সবাই কিন্তু এটা নিয়ে খুবই শকড (ব্যথিত) হয়েছি। আপনারা জানেন, ঘটনাটি তদন্তাধীন আছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত আমার মনে হয় এটার ওপর কমেন্ট করা ঠিক হবে না।

বাজেটের পর দ্রব্যমূল্যের ক্ষেত্রে নতুন কোনো অস্বস্তি তৈরি হবে কি না জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রীর এ উপদেষ্টা বলেন, এটা তো হাইপোথেটিক্যাল কোশ্চেন। বাজেট কী হবে, বাজেটের পরে কী হবে, আমরা সুস্থ থাকব নাকি অসুস্থ থাকব, সেটা তো বাজেট দেখার পর আমি উত্তর দিতে পারব।


আরও খবর



প্রথম ঘণ্টায় শেষ উত্তরবঙ্গের ১২ হাজার টিকিট

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জুন 2০২4 | হালনাগাদ:রবিবার ০২ জুন 2০২4 | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশ রেলওয়ের ঈদযাত্রার প্রথম দিনে পশ্চিমাঞ্চলের রংপুর, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। এর মধ্যে প্রথম ঘণ্টাতেই রংপুর বিভাগের টিকিট বিক্রি শেষ হয়ে গেছে। এ নিয়ে যাত্রীদের মধ্যে হতাশা দেখা গেছে।

রবিবার (২ জুন) সকাল ৮টা থেকে পশ্চিমাঞ্চল আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু হয়।

জানা গেছে, প্রথম ঘণ্টাতে পশ্চিমাঞ্চলের ১৪ হাজার ১৫৭টি টিকিটের মধ্যে বিক্রি হয়েছে ১১ হাজার ৯৪০টি।

কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার মাসুদ সারওয়ার বলেন, প্রথম ঘণ্টাতেই ১১ হাজারের বেশি টিকিট বিক্রি হয়েছে। আর বিক্রি শুরুর আধা ঘণ্টায় ৬০ লাখ হিট হয়েছে সহজের সার্ভারে।

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের উত্তরবঙ্গের ঢাকা-পঞ্চগড় রুটে চলাচলকারী একতা, দ্রুতযান ও পঞ্চগড় এক্সপ্রেসের টিকিটের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। এর পরই রয়েছে ঢাকা-কুড়িগ্রাম রুটের কুড়িগ্রাম ও রংপুর এক্সপ্রেস এবং ঢাকা-নীলফামারী রুটের চিলাহাটি ও নীলসাগর এক্সপ্রেসের চাহিদা। এই তিন রুটের টিকিট প্রথম ১০ মিনিটেই শেষ হয়ে গেছে।


আরও খবর



মেহেরপুরে পানিতে ডুবে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জুন 2০২4 | হালনাগাদ:রবিবার ০২ জুন 2০২4 | অনলাইন সংস্করণ
আব্দুল আলিম, মেহেরপুর

Image

মেহেরপুর শহরের গড়পুকুরে গোসল করতে নেমে তৌফিক হোসেন (১২) নামের এক স্কুল ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তৌফিক হোসেন মেহেরপুর ট্যাকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ও শহরের নতুনপাড়ার তোজাম্মেল হোসেনের ছেলে।

তৌফিকের বন্ধু রিফাত আলী জানান, সে, তৌফিক, মিতুল, অয়ন ও তানিম স্কুলে যাওয়ার জন্য সকালবেলা বাড়ি থেকে বের হয়। তারা স্কুলে না গিয়ে শহরের মেহেরপুর সরকারী উচ্চ বালক বিদ্যালয় মাঠে ফুটবল খেলা দেখা শেষে সকাল ১০টার পর শহরের গড়পুকুরে গোসল করতে নামে তারা। গোসলের এক পর্যায়ে পা ফসকে গভীর পানিতে তলিয়ে যেতে থাকে তৌফিক ও রিফাত। রিফাতকে অন্য বন্ধুরা উদ্ধার করতে পারলেও তৌফিককে কোনভাবেই উদ্ধার করতে পারেনি। তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা উদ্ধারের চেষ্টা চালায়। সেই সাথে খবর দেওয়া হয় ফায়ার সার্ভিসকর্মীদের। টানা এক ঘন্টা চেষ্টার পর ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা তৌফিককে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। পরে তাকে নেওয়া হয় মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে। হাসপাতালের ইমারজেন্সি মেডিকেল অফিসার ডাঃ সৌউদ কবীর তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কনী মিয়া জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলা হচ্ছে। কোন অভিযোগ না থাকলে ময়নাতদন্ত ছাড়ায় লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হবে।


আরও খবর