আজঃ মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

শেরপুরে চাঞ্চল্যকর ইজিবাইক চালক হত্যাকারী মূলহোতাসহ গ্রেফতার ৫

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ০৮ মে ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
মো. নাজমুল হোসাইন, শেরপুর

Image

শেরপুর জেলার সদর উপজেলার কামারিয়া ইউনিয়নের খুনুয়া চরপাড়া (মধ্যপাড়া) গ্রামের মৃত নুর ইসলাম ওরফে হলু শেখের ছেলে ইজিবাইক চালক উজ্জল মিয়া (৪২) হত্যাকাণ্ডের মূলহোতা ও হত্যাকারী সদর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের মো. সুরুজ মিয়ার ছেলে মো. শামীমসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪।

গ্রেফতারকৃত অন্যান্যরা হলেন- সদর উপজেলার বলাইয়েরচর ইউনিয়নের দুছুরা ছনকান্দা (কালাম বাজার) গ্রামের মো. মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে মো. আবুল হোসেন (২৭), জামালপুর জেলার সদর উপজেলার জিগাতলা গ্রামের মো. আজাহার আলীর ছেলে মো. রুবেল হোসেন (৩৫), একই উপজেলার কোচনধরা গ্রামের মৃত জিন্নাত আলীর ছেলে মো. সুলতান মিয়া (৪৫) ও হরিপুর গ্রামের আঃ করিমের ছেলে মো. মঞ্জুরুল হক (৩০)।

ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪ এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) ও অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান চাঞ্চল্যকর ইজিবাইক চালক মো. উজ্জল মিয়াকে হত্যা পরবর্তী তার ইজিবাইকের ব্যাটারীসহ অন্যান্য যন্ত্রাংশ বিক্রি করার পর তা উদ্ধার ও মূল হত্যাকারীসহ অপরাপরদের গ্রেফতারের বিষয়ে ৮ মে সোমবার শেরপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, গত ২৮ এপ্রিল সকালে ইজিবাইক চালক ৬ সন্তানের জনক দরিদ্র মো. উজ্জল মিয়া জীবিকার সন্ধানে তার ইজিবাইকটি নিয়ে বাড়ী থেকে বের হয়ে যায়। এরপর সে আর সন্ধ্যায় বাড়ী ফিরেনি। পরে ২৯ এপ্রিল রাত ১টার দিকে উজ্জল মিয়া তার ছোট ভাই মো. সুজন মিয়াকে মোবাইল ফোনে জানায় সে যাত্রী নিয়ে ঘুঘুরাকান্দি এলাকায় আছে। এদিকে যাত্রী বেশি ইজিবাইক ছিনতাইকারীরা রাতের কোন এক সময়ে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে তার ইজিবাইকটি ছিনতাই এবং তার লাশ খুনুয়া পশ্চিম পাড়ার জনৈক দোছ মাহমুদের ধান খেতের পার্শ্বে ফেলে রেখে যায়।

এদিকে পরিবারের লোকজন উজ্জল মিয়া বাড়ী ফিরে না যাওয়ায় স্থানীয়দের তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে এক ব্যক্তির লাশ পড়ে আছে। পরে খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন ওই স্থান গিয়ে তার মৃতদেহ সনাক্ত করে। এঘটনায় নিহতের ছোট ভাই মো. সুজন মিয়া বাদী হয়ে শেরপুর সদর থানায় ওইদিন একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ৬৪, তাং-২৯-৪-২৩ইং।

আরও পড়ুন >> রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই গ্রুপের গোলাগুলি, শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ৪

পরবর্তীতে এঘটনায় র‌্যাব-১৪ ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং হত্যার রহস্য উদঘাটন করতে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-১, জামালপুর ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার স্কোয়াড্রন লিডার আশিক উজ্জামানের নেতৃত্বে সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার এম.এম. সবুজ রানা সঙ্গীয় ফোর্সসহ ৭ মে দুপুর ২টার দিকে ঢাকা জেলার ধামরাই কলেজ রোড এলাকা থেকে প্রথমে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত ও ইজিবাইক ছিনতাইয়ের মূল আসামী মো. শামীমকে গ্রেফতার করা হয়। পরে সে ইজিবাইক চালক উজ্জল মিয়াকে হত্যার স্বীকারোক্তি এবং ছিনতাইকৃত ইজিবাইক বিক্রিয়ের কথা ও ক্রয়কারীদের নাম, ঠিকানার বর্ণনা দেন।

এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের অভিযানিক দল জামালপুর জেলার সদর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ওইদিন অভিযান চালিয়ে পর্যায়ক্রমে সংঘবদ্ধ ইজিবাইক ছিনতাই ও ক্রয়বিক্রয় দলের চার সদস্যকে গ্রেফতার করে বলে প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীদের জানানো হয়। এসময় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ ট্যাগ: শেরপুর হত্যা

আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




রিচা চাড্ডা ও আলি ফজল মা-বাবা হচ্ছেন

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

বলিউড অভিনেত্রী ইয়ামি গৌতম মা হচ্ছেন। গতকালই এই আনন্দের খবর শেয়ার করেছেন সবার সঙ্গে। তার এক দিন পরই জানা গেল বলিউডের আরেক তারকা দম্পতি রিচা চাড্ডা ও আলি ফজলের ঘরে আসছে নতুন অতিথি। তাদের নতুন অতিথি আসার খবর অভিনব উপায়ে জানিয়েছেন তারা।  একটি পোস্ট দিয়ে তাঁরা লিখেছেন, ১‍+১=২; এরপর  থেকেই ভক্ত-অনুসারীরা তাঁদের শুভকামনা জানিয়েছেন।

নিজেদের আরেকটি ছবি দিয়ে তাঁরা লিখেছেন, ছোট্ট একটা হৃৎস্পন্দন এখন আমাদের দুনিয়ার সবচেয়ে প্রবল শব্দ।

এ ছাড়া তাঁদের অভিনন্দন জানিয়েছেন শ্বেতা বসু প্রসাদ, সায়ামি খের, শ্রিয়া পিলগাওকর, ম্রুনাল ঠাকুর, কৃতি খরবান্দা, এলনাজ নুরানিসহ অনেক বলিউড তারকা।

ফুকরে সিনেমা ফ্র্যাঞ্চাইজি দিয়ে জনপ্রিয়তা পান রিচা চাড্ডা ও আলি ফজল। ২০২২ সালে তাঁর বিয়ে করেন। অভিনয় ছাড়াও রিচা ও আলি চলচ্চিত্র প্রযোজনাও করেছেন। তাদের প্রযোজিত সিনেমা প্রদর্শিত হয়েছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে।


আরও খবর
ফের বিয়ে করছেন অনুপম রায়, পাত্রী কে?

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ভারত থেকে ‘পেঁয়াজ আমদানির খবরে’ অস্থির খাতুনগঞ্জের পাইকারি বাজার

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অর্থ ও বাণিজ্য ডেস্ক

Image

ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির খবরে অস্থির হয়ে উঠেছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম পাইকারি বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ। দাম একদিন কমে তো একদিন বাড়ে। পেঁয়াজের আড়তদারদের মধ্যেও নেই স্বস্তি। ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আসছে, ঘোষণায় বাজার অস্থির হয়েছে। ভারতীয় পেঁয়াজের আশায় অন্য কোনো দেশ থেকে ব্যবসায়ীরা এলসি করছেন না। ফলে সরবরাহে তৈরি হচ্ছে নতুন সংকট। তারা আরও বলছেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ এলে বা আমদানি না করার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিলে খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীরা স্বস্তি পেতেন।

দেশের বাজারে পেঁয়াজের সরবরাহ স্বাভাবিক থাকলেও দাম না কমায় ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির জন্য দেনদরবার শুরু করে সরকার। পবিত্র রমজান মাসে দেশের বাজারে দাম কমাতে নির্দিষ্ট পরিমাণে চিনি ও পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিতে ভারতকে আনুষ্ঠানিক চিঠি দেয় বাংলাদেশ। ১৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু সাংবাদিকদের জানান, রোজার আগেই ভারত থেকে দেড় লাখ টন চিনি ও পেঁয়াজ আমদানি করা হবে। এরমধ্যে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ ও ১ লাখ মেট্রিক টন চিনি।

এরপর বাংলাদেশে সীমিত পরিমাণে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতিও দেয় ভারত। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুপারিশের ভিত্তিতে এ অনুমতি দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশের পাশাপাশি শ্রীলঙ্কা, নেপাল, ভুটান, বাহরাইন এবং মরিশাসেও সীমিত আকারে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে ভারত সরকার।

ভারত সরকারের এমন ঘোষণার পরই দেশে পেঁয়াজের দামে প্রভাব পড়তে শুরু করে। চট্টগ্রামের পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জে দাম কমতে শুরু করে। তবে তিনদিনেও ভারতীয় পেঁয়াজ বাজারে না আসায় ফের পেঁয়াজের দাম বেড়েছে।

ভারত স্থানীয় বাজারে সরবরাহ ঠিক রাখতে গত ৮ ডিসেম্বর থেকে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। এরপর বাংলাদেশের বাজারে হু হু করে বাড়তে থাকে দাম। দেশের বাজারে ২৪০ টাকা পর্যন্ত ওঠে পেঁয়াজের দাম। পরবর্তী সময়ে দেশীয় পেঁয়াজ বাজারে আসা শুরু করলে ধীরে ধীরে দাম কমে ৫০-৬০ টাকাতেও পেঁয়াজ বিক্রি হয়। ফেব্রুয়ারি মাসের শুরু থেকে আবারও দাম বেড়ে এখন ১২০-১৩০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) বলছে, ঢাকা মহানগরীর খুচরা বাজারগুলোতে দেশি পেঁয়াজ প্রতিকেজি ১১০-১২০ টাকা এবং আমদানিকৃত পেঁয়াজ ১০০-১২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। এক মাস আগেও দেশি পেঁয়াজ ছিল ৬৫-৭৫ টাকা এবং এক বছর আগে এই সময়ে দাম ছিল মাত্র ৩০-৩৫ টাকা কেজি।

অন্যদিকে এক মাস আগে আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম ছিল প্রতিকেজি ৮০-৯০ টাকা এবং এক বছর আগে একই সময়ে আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম ছিল ৩৫-৪০ টাকা।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকেলে সরেজমিনে খাতুনগঞ্জ ও চাক্তাইয়ের আড়তগুলোতে প্রচুর পেঁয়াজের মজুত দেখতে পাওয়া যায়। প্রায় সব আড়তেই রয়েছে দেশি নানান জাতের পেঁয়াজ। রয়েছে ভারতীয় নাসিক জাতের পেঁয়াজও। ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির খবরে দাম কেজিপ্রতি ২০ টাকার মতো কমে গিয়ে বৃহস্পতিবার আবার বেড়েছে।

মধ্যম চাক্তাইয়ের বশর অ্যান্ড সন্সের ম্যানেজার তাহসিনুল করিম বলেন, চট্টগ্রামে এখন দেশি পেঁয়াজ রয়েছে। মেহেরপুরি ও চুয়াডাঙ্গার ভালোমানের মোটা পেঁয়াজ পাইকারিতে ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ভারতীয় পেঁয়াজ আসবে বলা হলেও এখনো আসেনি। এখন ভারতীয় যেসব পেঁয়াজ বাজারে রয়েছে, সেগুলো বিগত সময়ে বর্ডার থেকে নানান ভাবে দেশে আসা। এগুলো ১২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

তিনি দাবি করেন, ভারতীয় পেঁয়াজ নিয়ন্ত্রণ করে বর্ডারকেন্দ্রিক সিন্ডিকেট। ভারতীয় পেঁয়াজ আসার খবরে চট্টগ্রামের ছোট ছোট পেঁয়াজ আমদানিকারকরা অন্য দেশের জন্য এলসি খোলা বন্ধ করে দিয়েছেন। অথচ এখন বাজারে পেঁয়াজের দাম এত হওয়ার কথা নয়। ভারত থেকে পেঁয়াজ আনা হবে না সরকার এমন সিদ্ধান্ত চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের জানিয়ে দিলে, অসংখ্য ব্যবসায়ী আমদানি করতেন। বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানির জন্য চট্টগ্রামের ছোট ছোট অনেক আমদানিকারক মুখিয়ে আছেন। বর্তমানে মিশর, তুরস্ক, পাকিস্তান, চীনসহ কয়েকটি দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানির সুযোগ রয়েছে। এসব পেঁয়াজ আমদানি করা গেলে বাজারে ৫০-৬০ টাকার বেশিতে পেঁয়াজ বিক্রি করতে হতো না।

মধ্যম চাক্তাইয়ের মেসার্স জে কে ট্রেডিংয়ে ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি করতে দেখা যায়। ওই আড়তের ম্যানেজার বলেন, ভারতীয় এসব পেঁয়াজ পাইকারিতে ১২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

খাতুনগঞ্জের মেসার্স আল্লাহর দান নামের পেঁয়াজের আড়তে কথা হয় মো. সুমনের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমাদের কাছে বর্তমানে চুয়াডাঙ্গার দেশি পেয়াঁজ রয়েছে। ৭৪-৭৮ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। তাছাড়া পাবনার মুড়িকাটা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৯৫ টাকা কেজিতে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে খাতুনগঞ্জের লামার বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. ইদ্রিস বলেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আসার খবরে খাতুনগঞ্জ ও চাক্তাইয়ে পেঁয়াজের দাম কেজিপ্রতি ২০ টাকা কমে গিয়েছিল। ভারতীয় পেঁয়াজ ৯৫-১০০ টাকায় চলে এসেছিল। বৃহস্পতিবার থেকে আবার তা বেড়ে ১১৬-১১৭ টাকা হয়েছে। তাছাড়া দেশীয় মেহেরপুরি পেঁয়াজও ৬৫-৭৫ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। দেশি মুড়িকাটা জাতের পেঁয়াজ ৯৫-১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।


আরও খবর
২৪ দিনে প্রবাসী আয় ১৮ হাজার কোটি টাকা

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জাতীয় ক্রিকেট দলের স্পন্সর হলো রবি

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের স্পন্সরের স্বত্ত্ব পেয়েছে রবি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সঙ্গে ফেব্রুয়ারি থেকে ২০২৭ সালের জুলাই পর্যন্ত অর্থাৎ সাড়ে তিন বছরের চুক্তি হয়েছে রবির।

শুক্রবার মিরপুর স্টেডিয়ামের বিসিবি কার্যালয়ে বিসিবি ও রবির মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। রবির পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রাজীব শেঠি, চিফ কমার্শিয়াল অফিসার শিহাব আহমাদ এবং বিসিবির পক্ষে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রবি ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত জাতীয় ক্রিকেট দলের স্পন্সর হিসেবে যুক্ত ছিল। নতুন করে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ার বিষয়ে রবির এমডি ও সিইও রাজীব শেঠি বলেন, দেশের ক্রিকেটের অনেক সাফল্যের সঙ্গে রবি নামটি যুক্ত। রবি পারবে তুমিও চেতনায় উদ্দীপ্ত হয়ে টাইগাররা আগামীতেও বিশ্বমঞ্চে বড় বড় পাবে। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে আবারও যুক্ত হতে পেয়ে রবি গর্বিত।

বিসিবির সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, জাতীয় দলের স্পন্সর হিসেবে রবির মতো প্রতিষ্ঠানকে পাশে পেয়ে বিসিবি আনন্দিত। এ চুক্তির মাধ্যমে সামনের দিনে বাংলাদেশের ক্রিকেট নতুন উচ্চতায় পৌঁছে যাবে বলে আমরা প্রত্যাশা করি।


আরও খবর
হাথুরুসিংহেকে ‘শোকজ’ করবেন পাপন!

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিএনপির ৭ আইনজীবী নেতার আদালত অবমাননার শুনানি ১২ ফেব্রুয়ারি

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

Image

আপিল বিভাগের দুজন বিচারপতির পদত্যাগে আল্টিমেটাম দেওয়ার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলীসহ বিএনপিপন্থি সাতজন আইনজীবী নেতার বিরুদ্ধে করা আদালত অবমাননার অভিযোগ বিষয়ে শুনানির জন্য ১২ ফেব্রুয়ারি দিন ঠিক করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

প্রধান বিচারপতি উপস্থিত না থাকায় সোমবার (২৯ জানুয়ারি) আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি বোরহান উদ্দিনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিচারপতির ৫ সদস্যের বিচারপতির বেঞ্চ এ দিন ধার্য করেন।

আদালত অবমাননার অভিযোগ ওঠা বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা হলেন, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের মহাসচিব ও বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট ফাহিমা নাসরিন মুন্নি, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সুপ্রিম কোর্ট শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল জব্বার ভূঁইয়া, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সহ-সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান খান ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সুপ্রিম কোর্ট শাখার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট গাজী মো. কামরুল ইসলাম সজল।

এর আগে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের দুই বিচারকের পদত্যাগ দাবি করে সংবাদ সম্মেলন ও মিছিল-সমাবেশ করায় বিএনপিপন্থি সাত আইনজীবীকে আদালত অবমাননার ব্যাখ্যা দিতে বলেন আপিল বিভাগ। গত বছরের ১৫ নভেম্বর প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে আদালত প্রাঙ্গণে মিছিল-সমাবেশের বিষয়েও রায় মেনে চলার নির্দেশ দেন আপিল বিভাগ।

গত বছরের ৩০ আগস্ট অবসরে যাওয়া প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি হয়। এ বিষয়ে ব্যাখ্যাও তলব করেছিলেন সর্বোচ্চ আদালত।

গত বছরের ১৫ আগস্ট শোক দিবসের আলোচনা সভায় সংবিধান অনুসারে বিচারপতিরা শপথবদ্ধ রাজনীতিবিদ উল্লেখ করে বক্তব্য দেওয়ায় আপিল বিভাগের দুজন বিচারপতির বিরুদ্ধে একাধিকবার সংবাদ সম্মেলন করে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম। এছাড়া ওই দুজন বিচারপতিকে বিচারকাজ থেকে বিরত রাখতে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। এ নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনে বিএনপিপন্থি আইনজীবী নেতারা মিছিল-সমাবেশও করেন।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে ২৭ আগস্ট ওই সংবাদ সম্মেলন হয়। এতে দেওয়া বক্তব্যের কয়েকটি লাইন উদ্ধৃত করে ২৯ আগস্ট সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. নাজমুল হুদা আবেদনটি করেন। এতে বিচারপতিদের নিয়ে ব্যানার, লিফলেটসহ বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের মিছিল ও অবস্থানের ছবি যুক্ত করা হয়।

দুদিন পর ২৯ আগস্ট সুপ্রিম কোর্টে আদালত অবমাননার এ আর্জি জানান যুবলীগ সভাপতি শেখ ফজলে শামস পরশের স্ত্রী ও আইনজীবী অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি। এদিন আইনজীবী নাহিদ সুলতানা যুথি প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বেঞ্চে এ আবেদনের বিষয়টি উপস্থাপন করেন।

তখন প্রধান বিচারপতি বলেন, যেহেতু বেঞ্চ পুনর্গঠনের প্রয়োজন রয়েছে কাজেই ২৯ আগস্ট এ আবেদন শোনা যাবে না। তিনি তার সচিবের কাছে আবেদনটি জমা দিয়ে যেতে বলেন। আইনজীবী নাজমুল হুদার পক্ষে অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি এ আবেদন করেন।

আবেদনে বলা হয়, বিচারপতির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন ও মিছিল-সমাবেশ করায় বিএনপিপন্থি আইনজীবীদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ আনা হয়েছে। বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামালসহ সাতজনকে বিবাদী করে তাদের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ আনা হয়।


আরও খবর



সাতক্ষীরা সীমান্ত নদী ইছামতি থেকে বিএসএফ সদস্যের মৃতদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

Image

সাতক্ষীরার সীমান্ত নদী ইছামতিতে ঘূর্ণিঝড়ে ট্রলার ডুবে ভারতীয় বিএসএফ সদস্য রিয়াজুল ইসলাম (৩০) নিহত হয়েছেন। দেবহাটা উপজেলার দক্ষিণ হাড়তদ্দাহ এলাকায় নদীর চরে তার মৃতদেহ পড়ে ছিল। পরে ভারতীয় বিএসএফ উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে মৃতদেহটি নিয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাত ১১টার দিকে ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়ে ইছামতি নদীতে টহলকারী ট্রলার ডুবে এ দুর্ঘটনা ঘটে। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে তার মৃতদেহ খুঁজে পাওয়া যায়। নিহত বিএসএফ সদস্য সৈনিক পদে চাকরিরত ছিলেন।

১৭ বিজিবির শাখরা টাউন শ্রীপুর কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার মুজিবর রহমান জানান, রাতে আকস্মিক ঘূর্ণিঝড় ও বৃষ্টিপাত হয়। ওই সময়ে নদীতে ভারতীয় বিএসএফের একটি টহলকারী ট্রলার অবস্থান করছিল। ঘূর্ণিঝড় কবলে পড়ে ট্রলারটি ডুবে যায়। রাতেই বিএসএফ অভিযান করে ট্রলারের মাঝিকে খুঁজে পায়। তবে একজন সৈনিক নিখোঁজ ছিলেন। নদীতে তখন জোয়ার ছিল। সকালে ভাটার সময় নিখোঁজ ট্রলার ও বিএসএফ সৈনিকের মৃতদেহ দক্ষিণ হাড়তদ্দাহ বালুরচরে পড়ে থাকতে দেখা যায়। তখন ভারতীয় বিএসএফ উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে মৃতদেহটি নিয়ে যায়। বিএসএফের কাছে থাকা অস্ত্র উদ্ধার হলেও একটি ওয়ারলেস পাওয়া যায়নি।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪