আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

সারাদেশে র‌্যাবের ৪৩৫ টহল দল মোতায়েন

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিএনপির ডাকা নবম দফা অবরোধের প্রথম দিনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে রাজধানীতে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) ফোর্সেসের ১৪১টি টহল টিমসহ সারাদেশে ৪৩৫টি টহল টিম মোতায়েন করা হয়েছে। রোববার (৩ ডিসেম্বর) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাবের সহকারী পরিচালক আ ন ম ইমরান খান।

তিনি জানান, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে রাজধানীতে র‍্যাব ফোর্সেসের ১৪১টি টহলসহ সারাদেশে ৪৩৫টি টহল টিম মোতায়েন রয়েছে। যেকোনো ধরনের নাশকতা ও সহিংসতা প্রতিরোধে বাসস্ট্যান্ড, রেলস্টেশনসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে র‍্যাবের গোয়েন্দারা ছদ্মবেশে নজরদারি অব্যাহত রেখেছে। এছাড়া যাত্রী ও পণ্য পরিবহনে নিরাপত্তা দিতে দেশের বিভিন্ন স্থানে দূরপাল্লার গণপরিবহন ও পণ্যবাহী পরিবহনকে টহলের মাধ্যমে এসকর্ট দিয়ে নিরাপদে গন্তব্যস্থলে পৌঁছে দিচ্ছে র‍্যাব।

নবম দফায় সারাদেশে বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর ডাকা ৪৮ ঘণ্টার সর্বাত্মক অবরোধ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। রোববার (৩ ডিসেম্বর) ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া এ কর্মসূচি চলবে মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) ভোর ৬টা পর্যন্ত। গত বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সর্বাত্মক অবরোধের এই দফার কর্মসূচি ঘোষণা করেন রুহুল কবির রিজভী। 

আরও পড়ুন>> ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলো গভীর নিম্নচাপ

যুগপৎ আন্দোলনের ধারাবাহিক কর্মসূচি হিসেবে সড়ক, নৌ ও রেলপথ অবরোধ সফল করার জন্য দলের নেতাকর্মী ছাড়াও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দলটি। তবে রাজনৈতিক কর্মসূচি ঘিরে যেকোনো ধরনের নাশকতা প্রতিহত করতে শক্ত অবস্থানে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

সরকারের পদত্যাগের দাবিতে বিএনপির ডাকা নবম দফার এই অবরোধ কর্মসূচি সফল করতে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মশাল মিছিল করেছে বিএনপি। শনিবার (২ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় আগারগাঁও থেকে ওই মিছিল শুরু হয়ে শেওড়াপাড়ায় গিয়ে শেষ হয়। এতে নেতৃত্ব দেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

এদিকে, নবম দফার এই অবরোধ শুরুর আগের রাতে রাজধানীতে তিনটি বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার (২ ডিসেম্বর) রাতে এসব আগুনের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দ্রুত আগুন নেভান। 

আরও পড়ুন>> ফিলিপাইনে ৭.৬ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামি সতর্কতা জারি

ফায়ার সার্ভিস জানায়, অবরোধের আগের রাতে আগারগাঁওয়ে ভুঁইয়া পরিবহন, গাবতলীতে পদ্মা লাইন ও সায়েদাবাদে গুলিস্তান-ডেমরা রুটে চলাচলকারী বাসে আগুন দেয়া হয়। এর আগে বুধবার (২৯ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াত ও সমমনা দলগুলোর ডাকা অষ্টম দফার ২৪ ঘণ্টার অবরোধ শেষ হয়।


আরও খবর



ভারতের সঙ্গে রুপিতে বাণিজ্য চুক্তি : খালিদ মাহমুদ

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাজশাহী প্রতিনিধি

Image

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের চুক্তি হয়েছে। আমরা ভারতীয় মুদ্রায় ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারব। এতে করে দেশের রিজার্ভের উপর চাপ কমবে।

সুলতানগঞ্জ-মায়া নৌরুটের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এই তথ্য জানান।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার সুলতানগঞ্জে অবস্থিত পদ্মার তীরে এই নৌবন্দরের উদ্বোধন করা হয়।

এই নৌবন্দরে ভারতীয় রুপিতে ব্যবসার ভালো প্রতিফলন পড়বে বলে প্রতিমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন।

বিআইডব্লিউটিএর তথ্যমতে, ভারত থেকে স্থলবন্দর দিয়ে প্রতি টন পাথর আনতে খরচ পড়ে ১৩ মার্কিন ডলার। সমুদ্র পখে এই খরচ ২০ ডলার। সুলতানগঞ্জ নৌবন্দর দিয়ে পাথর আমদানি করতে খরচ পড়বে মাত্র ৯ থেকে ১০ ডলার। এছাড়া বাংলাদেশের কার্গো বা জাহাজে পাথর আনা যাবে। বিল দেওয়া যাবে আন্তঃদেশীয় মুদ্রায়। ফলে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হবে। সৃষ্টি হবে বহু কর্মসংস্থান।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মায়া বন্দর থেকে নৌপথে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার সুলতানগঞ্জ নৌবন্দরের দূরত্ব মাত্র ২০ কিলোমিটার। সুলতানগঞ্জ থেকে রাজশাহীর দূরত্ব ৩৬ কিলোমিটার। রাজশাহীর সঙ্গে পাবনা, সিরাগঞ্জ, বগুড়া, নওগাঁ, জয়পুরহাট, রংপুর, দিনাজপুর, কুষ্টিয়া, খুলনা ও যশোর এমনকি ঢাকার সাথে সড়কপথে সরাসরি যোগাযোগ রয়েছে। ফলে দেশের স্থলবন্দর বা সমুদ্রবন্দরের চেয়ে অনেক সাশ্রয় হবে সুলতানগঞ্জ-মায়া নৌপথ।

বাংলাদেশে মোট পাঁচটি আন্তর্জাতিক নৌপথ চালু আছে জানিয়ে বিআইডব্লিউটিএর বৈদেশিক পরিবহন শাখার উপপরিচালক শর্মিলা খানম গতকাল বলেন, এগুলোর মধ্যে সুলতাগঞ্জ থেকে মায়া বন্দরটি সবচাইলে স্বল্প দূরত্বের। নদীর নব্য বৃদ্ধি করতে পারলে এই রুট আরিচা পর্যন্ত দীর্ঘ হবে, যা অনুমোদন হয়ে আছে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দ্বাদশ জাতীয় সংসদের যাত্রা শুরু হচ্ছে আজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের যাত্রা শুরু হচ্ছে আজ। বিকালে বসছে সংসদের প্রথম অধিবেশন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদের যাত্রার দিনে সংসদ নির্বাচন বাতিলের দাবিতে সারা দেশে আজ বিএনপি কালো পতাকা মিছিল করবে। পাল্টা কর্মসূচি দিলেও আওয়ামী লীগের পূর্বনির্ধারিত আজকের শান্তি ও গণতন্ত্র সমাবেশ স্থগিত করা হয়েছে।

এদিকে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন আজ বিকাল ৩টায় দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে ভাষণ দেবেন। এটি ২০২৪ সালেরও প্রথম অধিবেশন। সংসদীয় রীতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে রাষ্ট্রপতি প্রতি বছর সংসদের প্রথম অধিবেশনে ভাষণ দেন। এর আগে, রাষ্ট্রপতি সংবিধানের ৭২(১) অনুচ্ছেদে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে ২০২৪ সালের প্রথম সংসদ অধিবেশন আহ্বান করেন। সংসদ সচিবালয় সূত্র জানায়, ইতোমধ্যেই জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনের জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। আসন বিন্যাসের কাজ চূড়ান্ত করা হয়েছে। এই অধিবেশনে বেশ কয়েকটি বিল উত্থাপন হওয়ার কথা রয়েছে বলে সংসদ সচিবালয় জানায়।

এদিন সংসদের কার্যপ্রণালি শুরুর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদীয় কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে অধিবেশনের কার্যকাল ও আলোচ্যসূচি ঠিক করা হবে। সংসদে একাদশ সংসদের মতোই এবারও বিরোধী দল হিসেবে থাকছে জাতীয় পার্টি। এর পাশাপাশি ইতিহাসের সর্বোচ্চ সংখ্যক স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রয়েছেন দ্বাদশ সংসদে। জাতীয় পার্টির পাশাপাশি সংসদে বিরোধী ভূমিকায় থেকে সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করার সুযোগ রয়েছে স্বতন্ত্র এমপিদের। অধিবেশনের প্রথম দিনেই স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারকে শপথবাক্য পাঠ করাবেন রাষ্ট্রপতি। এরপর নতুন সংসদ সদস্যদের উদ্দেশে প্রথমবারের মতো ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। পরে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নেবেন সদস্যরা। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনের মধ্যে ভোট হওয়া ২৯৯টি সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগ পেয়েছে ২২৩টি। বিরোধী দল জাতীয় পার্টি পেয়েছে ১১টি আসন। স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ৬২টি আসনে জয়ী হয়েছেন। এ ছাড়া ওয়ার্কার্স পার্টি, জাসদ ও কল্যাণ পার্টি পেয়েছে ১টি করে আসন। স্থগিত হওয়া নওগাঁ-২ আসনে ভোট গ্রহণ করা হবে আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি।

সংসদ সচিবালয় জানিয়েছে, গতকাল ২৯ জানুয়ারি, সোমবার একাদশ সংসদের মেয়াদ শেষ হয়েছে। আজ (মঙ্গলবার) থেকে অধিবেশনের মাধ্যমে দ্বাদশ সংসদের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হতে যাচ্ছে। নতুন সংসদের প্রথম দিনের অধিবেশনে প্রধান বিচারপতি, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টারা, দেশি-বিদেশি কূটনীতিক, রাজনৈতিক নেতা, সরকারি কর্মকর্তাসহ প্রায় ৫ শতাধিক অতিথি উপস্থিত থাকবেন।

আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ স্থগিত : আজ দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনের দিনে পূর্বনির্ধারিত শান্তি সমাবেশের কর্মসূচি স্থগিত করেছে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ। গতকাল ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক প্রলয় সমদ্দার বাপ্পি স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, অনিবার্য কারণে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের শান্তি ও গণতন্ত্র সমাবেশটি সভানেত্রী ও সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশক্রমে স্থগিত করা হয়েছে।

এর আগে গত শনিবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ৩০ জানুয়ারি বিএনপির কালো পতাকা মিছিলের পাল্টা কর্মসূচি হিসেবে শান্তি ও গণতন্ত্র সমাবেশের ঘোষণা করেছিলেন।

বিএনপি আজ (মঙ্গলবার) সারা দেশে কালো পতাকা মিছিল করবে বিএনপি। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাজধানী ঢাকায় নয়াপল্টনে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপি এ কর্মসূচির আয়োজন করবে। বেলা ২টায় রাজধানীর ৭টি এলাকা থেকে একযোগে এই মিছিল বের করা হবে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি চারটি এবং মহানগর উত্তর বিএনপি তিনটি স্থান থেকে এই মিছিল বের করবে। এর মধ্যে মহানগর দক্ষিণের স্থানগুলোর মধ্যে রয়েছে, মতিঝিল পীরজঙ্গি মাজারের সামনে, ধানমন্ডি নিউমার্কেটের সামনে, যাত্রাবাড়ী কদমতলী বাসস্ট্যান্ড এবং সূত্রাপুরের দয়াগঞ্জ মোড়। মহানগর উত্তর বিএনপির স্থানগুলো যথাক্রমে- শাহজাদপুর সুবাস্তু নজর ভেলির সামনে, উত্তরা ১২ নম্বর সেক্টর কবর স্থানের সামনে এবং মিরপুর ৬ নম্বর সেকশন মসজিদের সামনে থেকে। দুই দিনের কর্মসূচি শেষে গত ২৬ জানুয়ারি ৭ জানুয়ারির নির্বাচন ও দ্বাদশ সংসদ বাতিলসহ নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবিতে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় সারা দেশে আজকের এই কালো পতাকা মিছিল কর্মসূচি ঘোষণা করেন। সারা দেশে জেলা, উপজেলা ও মহানগরীতে একযোগে এই কর্মসূচি পালনের প্রস্তুতি নিয়েছে দলটি।

৭ জানুয়ারির দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর গত ২৫ ও ২৬ জানুয়ারি জেলা ও মহানগরী পর্যায়ে দুই দিনের এই কালো পতাকা মিছিল কর্মসূচি পালন করে বিএনপি। নির্বাচনের পর এটিই ছিল বিএনপির রাজপথের প্রথম কর্মসূচি। দ্রব্যমূল্যের সীমাহীন ঊর্ধ্বগতি, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ সব রাজবন্দির মুক্তি, সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং অবৈধ সংসদ বাতিলসহ একদফা দাবি আদায়ে এই কালো পতাকা মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। আজ বেলা ১১টায় রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে কালো পতাকা মিছিল শুরু হবে। এ ব্যাপারে ডিএমপিকে চিঠি দেওয়ার পর মৌখিকভাবে অনুমতি পাওয়া গেছে বলে জানা গেছে।

এ ছাড়াও গণতন্ত্র মঞ্চ বেলা ৩টা ৩০ মিনিটে জাতীয় প্রেস ক্লাব সামনে, ১২ দলীয় জোট বেলা ৩ টা ৩০ মিনিটে বিজয়নগর পানির ট্যাংক সামনে থেকে, জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট বেলা ৩টায় জাতীয় প্রেস ক্লাব সামনে থেকে, গণ ফোরাম ও পিপলস পার্টি বেলা ৩টা ৩০ মিনিটে বিজয়নগর পানির ট্যাংক সামনে থেকে, এলডিপি বেলা ১১টায় পল্টন মোড় থেকে, গণঅধিকার পরিষদ-নুরুল হক নূর বেলা ৩টা ৩০ মিনিটে বিজয়নগর পানির ট্যাংক সামনে থেকে, গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য বেলা ১১টা ৩০ মিনিটে তোপখানা রোড মেহেরবা প্লাজা সামনে থেকে, বাংলাদেশ লেবার পার্টি বেলা ১১টায় পুরানা পল্টন আলরাজী কমপ্লেক্সের সামনে থেকে, এবি পার্টি বেলা ৩টা মিনিটে বিজয়নগর দলীয় অফিসের সামনে থেকে এই কালো পতাকা মিছিল বেল করবে।


আরও খবর



সুন্নাতে খাতনা ইসলামে কেন গুরুত্বপূর্ণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ধর্ম ও জীবন

Image

ইসলামি বিধানে পুরুষ মানুষের খাতনা করা একটি গুরুত্বপূর্ণ সুন্নত। এটি ইসলামের মৌলিক নিদর্শনের অন্তর্ভুক্ত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ফিতরাত (তথা নবীদের সুন্নত) পাঁচটি। তা হলো, খাতনা করা, নাভীর নিচের পশম পরিষ্কার করা, বগলের উপড়ে ফেলা, নখ কাটা এবং গোঁফ খাটো করা। -(সহিহ বুখারি, হাদিস : ৫৮৮৯)

একজন ছেলে শিশু শারীরিকভাবে শক্ত-সামর্থ্যবান হওয়ার পরই সুবিধাজনক সময়ে তার খাতনা করিয়ে দেয়া অভিভাবকের নৈতিক দায়িত্ব। আর কোনো কারণে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগে যদি খাতনা না করা হয় অথবা বয়স্ক হওয়ার পর কেউ ইসলাম গ্রহণ করে তাহলে তারও খাতনা করা জরুরি।

সর্বপ্রথম সুন্নাতে খাতনা পালন করেছেন হজরত ইবরাহিম (আ.)। হজরত সাইদ ইবনে মুসাইয়াব (রহ.) থেকে বর্ণিত, হজরত ইবরাহিম (আ.) হলেন খাতনার সুন্নত পালনকারী সর্বপ্রথম ব্যক্তি। (মুসান্নাফে ইবনে আবি শায়বা, হাদিস : ২৬৪৬৭)

পবিত্র কুরআনে আল্লাহ ইরশাদ করেছেন, স্মরণ করো, যখন ইবরাহিম (আ.)-কে তার রব কয়েকটি বাণী দিয়ে পরীক্ষা করেন, অতঃপর তিনি তা পূর্ণ করেন। তিনি বলেন, আমি তোমাকে মানুষের জন্য নেতা বানাব। সে বলল, আমার বংশধরদের থেকেও? তিনি বলেন, জালিমরা আমার ওয়াদাপ্রাপ্ত হয় না। (সুরা বাকারা, আয়াত : ১২৪)

সুরা বাকারার এ আয়াতের ব্যাখ্যায় আল্লামা ইবনে কাসির (রহ.) ইমাম আবদুর রাজ্জাক (রহ.)-এর সূত্রে বর্ণনা করেন, ইবরাহিম (আ.)-এর পরীক্ষাগুলোর মধ্য থেকে একটি শারীরিক পরীক্ষা হলো খাতনা করা। (তাফসিরে ইবনে কাসির : ১/৪০৬)

হজরত ইবরাহিম (আ.)-এর পর সব নবী-রাসুলই খাতনা করিয়েছিলেন। অনেক হাদিসে এ সুন্নত পালনের প্রতি উৎসাহ প্রদান করা হয়েছে।

সুন্নাতে খাতনার স্বাস্থ্যগত উপকারিতা

খাতনা করার মাধ্যমে শরীর অধিক পাকপবিত্র ও পরিচ্ছন্ন থাকে। খাতনা করালে শিশুদের মূত্রপথের সংক্রমণ প্রতিরোধ হয়। এর ফলে প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া, জ্বর, খাবারে অনীহা এবং স্বাস্থ্য ভালো না হওয়া ইত্যাদি রোগ থেকে ঝুঁকিমুক্ত থাকে। প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষের ক্ষেত্রে খাতনা করালে লিঙ্গের ক্যান্সার প্রতিরোধ হয় ও যৌনবাহিত রোগের ঝুঁকি কমে।

পুরুষাঙ্গের মাথার বাড়তি চামড়ার নিচে এক ধরনের সাদা পদার্থ জমে এবং এটিই পুরুষাঙ্গের ক্যান্সারের জন্য দায়ী। লিঙ্গের মাথায় প্রদাহ, চুলকানি ও জ্বালাপোড়া করলেও খাতনা করালে তা সেরে যায়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, পুরুষের খাতনা এইচআইভি বা এইডস প্রতিরোধে একটি কার্যকর ভূমিকা রাখে, এটি আংশিক সুরক্ষা দেয়। আফ্রিকার যেসব দেশে খাতনার হার বেশি, সেসব দেশে এইডসের হার তুলনামূলক কম।

সুন্নাতে খাতনার প্রসঙ্গে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা

পুরুষের খাতনাকে আধুনিক স্বাস্থ্যবিজ্ঞানীরা অত্যন্ত স্বাস্থ্যসম্মত বলে মনে করেন। খাতনার মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের ছত্রাকজাতীয় (ব্যাকটেরিয়া) রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। খাতনার প্রধান সুবিধা হলো, এর ফলে লিঙ্গের অগ্র ত্বকে যে তরল জমে নোংরা অবস্থার সৃষ্টি করে, তা থেকে রেহাই পেতে পারে। দেড় হাজার বছর আগে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম খাতনার কথা বলেছেন, ব্যাপক গবেষণা শেষে আজকের আধুনিক বিজ্ঞান স্বীকার করেছে, খাতনার ব্যাপক উপকারিতা আছে।

অস্ট্রেলিয়ার মেডিকেল সায়েন্সের অধ্যাপক ড. ব্রায়ান মরিস তার গবেষণায় উল্লেখ করেছেন, যেসব বালকের সারকামসিশন (খাতনা) করা হয়নি, তাদের অপেক্ষাকৃত কিডনি, মূত্রথলি ও মূত্রনালির ইনফেকশন চার থেকে ১০ গুণ বেশি হয়। তিনি মনে করেন, সারকামসিশনের (খাতনা) মাধ্যমে অন্তত এক-চতুর্থাংশ মূত্রনালির ইনফেকশন হ্রাস করা যায়।

ওয়াশিংটনের সৈনিক মেডিকেল কলেজের শিশুস্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান প্রফেসর ডা. বিজবেল বলেন, আমি প্রথমে খাতনার বিরোধী ছিলাম, পরে দীর্ঘ গবেষণার ফলে প্রমাণিত হলো যে মূত্রথলি ও মূত্রনালিবিষয়ক অনেক জটিল রোগের সমাধান হলো খাতনা।

এ ব্যাপারে ইউরোলজি জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মূত্রনালির প্রদাহ শিশুদের বেশি হয় এবং এতে কিডনির সমস্যা, জ্বর ও রক্তের ইনফেকশন পর্যন্ত হতে পারে। এমনকি খাতনা মরণব্যাধি এইডস ও যৌনরোগ প্রতিরোধে সহায়ক। সাধারণ অর্থে লিঙ্গের ক্যান্সার হলো অপরিচ্ছন্নতার ব্যাধি। পুরুষাঙ্গের শীর্ষে ঘা হয়ে ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পেয়ে একসময় ক্যান্সারে রূপ নেয়, এমন রোগীর ওপর গবেষণা করে দেখা গেছে, খাতনা করানো পুরুষের চেয়ে খাতনা না করানো পুরুষ এ ধরনের ক্যান্সারে বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকে।

যৌনবিজ্ঞানীরা বহুকাল আগে থেকেই বলে আসছেন যে পুরুষের খাতনা করালে স্পর্শকাতরতা বেড়ে যায়। এতে যৌন মিলনে অধিক আনন্দ উপভোগ করে নারী-পুরুষ উভয়ই। বর্তমানে ইংল্যান্ড, আমেরিকাসহ ইউরোপেও প্রচুর পরিমাণে খাতনা করানো হয়। সেখানে গুরুত্বের সঙ্গে এটা দেখা হয়।

নিউজ ট্যাগ: সুন্নাতে খাতনা

আরও খবর
শবে বরাত সম্পর্কে হাদিসে যা বলা হয়েছে

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল থেকে পাঁচ দালাল আটক

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

Image

লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগীদের দালাল চক্রের হাতে জিম্মি হয়ে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। বিভিন্ন প্রাইভেট হাসপাতালের হয়ে দালালরা রোগীদের সদর হাসপাতাল থেকে ভাগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন।

দালালদের এমন উৎপাতের কারণে বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) হাসপাতাল প্রাঙ্গণ থেকে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) লক্ষ্মীপুর কার্যালয়ের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ৯ জনকে আটক করে।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাদের সোপর্দ করা হয়।এদের মধ্যে ৫ জন দোষী সাবস্ত হওয়ায় তাদের প্রত্যেকের ১০ দিন করে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক। তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, ওমর ফারুক (২৭), আমিনুল (২৩), রহমান আল আজাদ (৩৭), সুজন (২৩) ও আকরাম হোসেন (২৭)।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ক্যথোয়াইপ্রু মারমা।

তিনি বলেন, ৯ জনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে যাচাই-বাছাই করে ৫ জন দোষী সাবস্ত হয়েছে। তারা নিজেদের দোষ স্বীকার করেছে। তাদের প্রত্যেকের ১০ দিন করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, প্রান্তিক জনগণ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিতে এসে এদের হাতে বিভিন্ন ভাবে হয়রানির শিকার হতে হয়। যা আইনত অপরাধ।

নিউজ ট্যাগ: লক্ষ্মীপুর

আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে গুজব ঠেকাতে বড় পরিসরে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী। এ সময় প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় এসএসসি পরীক্ষা নিয়ে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রশ্নফাঁসের গুজবের সঙ্গে রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা থাকতে পারে। প্রশ্নফাঁসের গুজব ঠেকাতে গোয়েন্দারা নজরদারি করছেন। কেউ গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, সুষ্ঠু পরিবেশে এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে পরীক্ষায় ভালো নম্বর পেলেও শিক্ষার্থীদের শেখার ঘাটতি থেকে যাচ্ছে। এ কারণে নতুন কারিকুলামে মূল্যায়ন ও শিখন পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে।

এ সময় নতুন কারিকুলামে অভিভাবকরা যেন শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন সহজেই বুঝতে পারেন সে বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে বলে জানান মহিবুল হাসান চৌধুরী।তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের প্রকৃত অর্থে মেধাবী ও কর্মোপযোগী হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এ ছাড়া শুধু বার্ষিক পরীক্ষা কেন্দ্রিক শিক্ষাব্যবস্থা নয়, সারা বছর শিক্ষার্থীর মূল্যায়ন করা হবে।

উল্লেখ্য, আজ সকাল ১০টা থেকে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হয়ে শেষ হয় দুপুর ১টায়। এবার মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ২৪ হাজার ১৯২ জন। সারাদেশে ২৯ হাজার ৭৩৫টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ৩ হাজার ৭০০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা দেন। আর বিদেশের ৮ কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।


আরও খবর