আজঃ রবিবার ০৩ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

সালমানের ছবি না করার সিদ্ধান্ত নিলেন ক্যাটরিনা

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

সালমান খানের হাত ধরে বহু নায়িকা বলিউডে প্রতিষ্ঠা পেয়েছেন। ক্যাটরিনা কাইফ তাদের মধ্যে একজন। ২০০৫ সালে ম্যায়নে প্যায়ার কিঁউ কিয়াসিনেমা দিয়ে বলিউডে পা রাখেন ক্যাটরিনা কাইফ।তার প্রথম দিককার সিনেমাগুলো ব্যর্থ হয়েছে। তা সত্ত্বেও কাজের অভাব হয়নি।কারণ পাশে ছিলেন সালমান খান।

সালমানের এই বদান্যতায় তার প্রেমে পড়ে যান ক্যাটরিনা। দীর্ঘদিন চুটিয়ে প্রেম করেন তারা।সেই প্রেম টেকেনি ।

২০২১ সালে বলিউড স্টার ভিকি কৌশলের সঙ্গে সংসার পাতেন ক্যাটরিনা। তবু কাজের সম্পর্ক ছিল তাদের মধ্যে।খুব শিগগিরই তাদের একসঙ্গে দেখা যাবে টাইগার থ্রি ছবিতে। তবে এই ছবিতেই নাকি শেষ বারের মতো জুটি বাঁধছেন তারা। টুইট করে জানিয়েছেন এক চিত্র সমালোচক।

বিয়ের পর টাইগার থ্রিতে প্রথমবার সালমনের সঙ্গে অভিনয় করেছেন ক্যাটরিনা।এই জুটিকে আবারও বড় পর্দায় দেখতে আগ্রহী দর্শক।

আর তাতেই নাকি আপত্তি ক্যাটরিনার স্বামী ভিকি কৌশলের। তাই সালমানের সঙ্গে আর অভিনয় করবেন না ক্যাট। চিত্রসমালোচক উমাইর সিন্ধু টুইটে লেখেন, ক্যাটরিনা কাইফ বলেছেন, টাইগার থ্রিসালমান খানের সঙ্গে তার শেষ সিনেমা। এর পর তার সঙ্গে আর কোনো কাজ করবেন না।

শোনা যাচ্ছে, ভিকি কৌশল নাকি ক্যাটরিনাকে সতর্ক করেছেন সলমনের সঙ্গে কাজ করার ব্যাপারে। অবশ্য ক্যাটরিনার পক্ষ থেকে এখনও কিছু জানা যায়নি।


আরও খবর



ভারতকে উড়িয়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

১৪ বছর পর ও চতুর্থবারের মতো বয়সভিত্তিক আসরের শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করলো অস্ট্রেলিয়া। দক্ষিণ আফ্রিকার বেনোনিতে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে ৭৯ রানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে অস্ট্রেলিয়া অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

টসে জিতে অস্ট্রেলিয়া আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে দাঁড় করায় ২৫৩ রানের সংগ্রহ। যুব বিশ্বকাপ ফাইনাল ইতিহাসে এর চেয়ে বেশি রান করতে পারেনি কোনো দলই। জবাবে ৪৩.৫ ওভারে ১৭৪ রানেই গুটিয়ে যায় ভারত।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ৬৪ বলে ৩ চার ও ৩ ছক্কায় সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত হারজাস সিং। এছাড়া ফিফটির কাছে গিয়েই সাজঘরে ফিরতে হয় হ্যারি ডিক্সন (৪২), হিউ ওয়েইবগেনকে (৪৮)। ৪৩ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় ৪৬ রানে অপরাজিত ছিলেন অলিভার পিক।

জবাবে নেমে মাহলি বেয়ার্ডম্যান ও রাফ ম্যাকমিলানের বোলিংয়ে কোনো প্রতিরোধই গড়তে পারেনি ভারত। সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেন ওপেনার আদর্শ সিং। শেষ দিকে মুরুগান অভিষেকের ৪২ রান কেবল হারের ব্যবধানই কমিয়েছে। অজিদের হয়ে বেয়ার্ডম্যান ও ম্যাকমিলান দুজনেই শিকার করেন তিনটি করে উইকেট। এছাড়া ক্যালাম ভিডলার নেন দুটি উইকেট।


আরও খবর



এবার সুন্নতে খৎনা করাতে গিয়ে আইডিয়াল শিক্ষার্থীর মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

শিশু আয়ানের মৃত্যুর রেশ না কাটতেই এবার মালিবাগের জেএস ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড মেডিকেল চেকআপ সেন্টারে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই শিক্ষার্থীর নাম আহনাফ তাহমিন আয়হাম (১০)। স্বজনদের অভিযোগ, লোকাল অ্যানেস্থেসিয়া দেওয়ার কথা থাকলেও তারা ফুল অ্যানেস্থেসিয়া দিয়েছে। যে কারণে আহনাফের আর জ্ঞান ফেরেনি। গতকাল মঙ্গলবার রাত ৮টায় আহনাফকে সুন্নাতে খৎনা করাতে অপারেশন থিয়েটারে নেওয়া হয়। এর ঘণ্টাখানেক পর তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মালিবাগের জেএস ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড মেডিকেল চেকআপ সেন্টারে অর্থোপেডিক ও ট্রমা সার্জন ডা. এস এম মুক্তাদিরের তত্ত্বাবধানে মঙ্গলবার রাতে সন্তানকে সুন্নাতে খৎনা করাতে আসেন শিশু আয়হামের বাবা ফখরুল আলম ও মা খায়কুন নাহার চুমকি। রাত আটটার দিকে খৎনা করানোর জন্য অ্যানেস্থেসিয়া দেওয়ার পর আর ঘুম ভাঙেনি আহনাফের। এর ঘণ্টাখানেক পর হাসপাতালটির পক্ষ থেকে শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

স্বজনদের অভিযোগ, লোকাল অ্যানেস্থেসিয়া দেওয়ার কথা থাকলেও ফুল অ্যানেস্থেসিয়া দেওয়া হয় আহনাফকে। যে কারণে তার জ্ঞান ফেরেনি।

আহনাফের বাবা ফখরুল আলম বলেন, আমরা চিকিৎসককে বলেছিলাম যেন ফুল অ্যানেস্থেসিয়া না দেওয়া হয়। তারপরও আমার ছেলের শরীরে সেটি পুশ করেন ডাক্তার মুক্তাদির। আমি বারবার তাদের পায়ে ধরেছি। আমার ছেলেকে যেন ফুল অ্যানেস্থেসিয়া না দেওয়া হয়। 

আরও পড়ুন>> সাম্প্রদায়িকতার বিষবৃক্ষ মুলোৎপাটনই আজকের দিনের অঙ্গীকার: ওবায়দুল কাদের

তিনি বলেন, আমার সন্তানকে অ্যানেস্থেসিয়া দিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এই মৃত্যুর দায় মুক্তাদিরসহ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সবারই। আমি তাদের কঠোর শাস্তি চাই।

এদিকে ঘটনার পরই ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে উধাও হয়ে যান অভিযুক্ত চিকিৎসক ডা. মুক্তাদির। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) অর্থোপেডিক বিভাগের জয়েন্ট ব্যথা, বাতব্যথা, প্যারালাইসিস বিশেষজ্ঞ হিসেবে পরিচয় দিয়ে চিকিৎসা দিতেন বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে জেএস ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড মেডিকেল চেকআপ সেন্টার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কাউকে পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, গত ৮ জানুয়ারি রাজধানীর সাতারকুল বাড্ডার ইউনাইটেড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সুন্নাতে খৎনা করাতে গিয়ে লাইফ সাপোর্টে থাকা শিশু আয়ান মারা যায়। টানা সাত দিন লাইফ সাপোর্টে ছিল আয়ান।


আরও খবর



মালিতে সেতু থেকে বাস নদীতে পড়ে নিহত ৩১

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মালিতে সেতুতে বাস উল্টে নদীতে পড়ে ৩১ জন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আহত হয়েছেন ১০ জন। বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটার দিকে মালিতে একটি বাস উল্টে সেতু থেকে নদীতে পড়ে তলিয়ে যায়। এতে বাসটিতে থাকা ৩১ যাত্রী নিহত হয়েছেন। বাসটি মালির কেনিয়েবা শহর থেকে প্রতিবেশী দেশ বুরকিনা ফাসো যাচ্ছিল। পথে বাগোই নদী পার হওয়ার সময় সেতুতে বাসটি উল্টে নিচে পড়ে যায়। আহত ১০ জনের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

মালির পরিবহন মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, সম্ভাব্য কারণ হিসেবে মনে করা হচ্ছে, চালক গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহতদের মধ্যে মালির এবং পশ্চিম আফ্রিকার অন্যান্য দেশের নাগরিকও রয়েছেন।

মালিতে সড়ক দুর্ঘটনা খুব সাধারণ বিষয়। দেশটির অনেক রাস্তা এবং যানবাহনের অবস্থা বেশ খারাপ। পাশাপাশি ধারণক্ষমতার বেশি যাত্রী পরিবহন করা

দেশটিতে সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ। চলতি মাসের শুরুতে মালির রাজধানী বামাকো অভিমুখে যাওয়ার সময় একটি বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে ১৫ জন নিহত হন। একইসঙ্গে ওই দুর্ঘটনায় ৪৬ জন আহত হয়েছিলেন।


আরও খবর



বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

Image

দুদেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা অংশীদারিত্ব জোরদার করতে এবং স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস থেকে বাংলাদেশের উত্তরণে সহায়তা করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চিঠি দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন এ তথ্য জানিয়েছে।

চিঠিতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক বলেন, আপনি (শেখ হাসিনা) ঐতিহাসিক পঞ্চম মেয়াদে যাত্রা শুরু করেছেন। আপনার নেতৃত্বে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশের উন্নয়ন চোখে পড়ার মতো। এ অবস্থায় ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা অংশীদারিত্ব জোরদার এবং এলডিসি মর্যাদা থেকে উত্তরণে বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি আমি আবারও স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, আমাদের অংশীদারিত্ব এক গভীর অভিন্ন ইতিহাস ও বন্ধুত্বের ওপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে, যা মানুষে-মানুষে দৃঢ় বন্ধনের ওপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, অধিকার ও স্বাধীনতার অগ্রগতির পাশাপাশি রাজনৈতিক সমঝোতার মাধ্যমে বাংলাদেশ এগিয়ে যেতে পারে।

তিনি বলেন, এই মূল্যবোধগুলো কমনওয়েলথ পরিবারের মূল ভিত্তি এবং এটি একটি গতিশীল গণতান্ত্রিক সমাজ গঠন করে, যা অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির জন্য প্রয়োজনীয় বিনিয়োগ আকর্ষণ করে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, আমি অভিবাসন বিষয়ে সহযোগিতাকে আমাদের দ্বিপক্ষীয় আলোচ্যসূচির একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে দেখছি। আপনি সদয়ভাবে যুক্তরাজ্যে অবৈধভাবে অবস্থানরত বাংলাদেশি নাগরিকদেরকে ফেরত পাঠানোর একটি টেকসই ও সুশৃঙ্খল উপায়কে সমর্থন করেছেন। আমি আশা করছি, পারস্পরিক সহযোগিতার বৃহত্তর আলোচ্যসূচির অংশ হিসেবে প্রক্রিয়াটি চূড়ান্ত হয়েছে।


আরও খবর



শাকিরা বললেন ‘নারীরা আর কাঁদবে না’

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী শাকিরা নতুন বছরে নারীদের উদ্দেশে নতুন চমক নিয়ে আসছেন। তিনি তার নতুন অ্যালবাম প্রকাশ করতে যাচ্ছেন আগামী মার্চ মাসে। লাস মুজেরেস ইয়া নো লোরান শিরোনামের গানটিতে উঠে আসবে দুঃখী এক নারীর জীবনের গল্প।

লাস মুজেরেস ইয়া নো লোরান এর ইংরেজি অর্থ উইমেন নো লংগার ক্রাই অর্থাৎ নারীরা আর কাঁদবে না। নারীর জীবনের প্রত্যয়, সংগ্রাম আর দুঃখগাঁথা জীবনের বাঁক এখানে স্পষ্ট বোঝা যাবে।

জানা গেছে, লাস মুজেরেস ইয়া নো লোরান শাকিরার ১২তম একক অ্যালবাম। এতে আছে মোট ১৬টি মিউজিক ট্র্যাক। যার মধ্যে একটি রিমিক্স গানের পাশাপাশি থাকছে আটটি মৌলিক গান। এ ছাড়া এতে যুক্ত করা হয়েছে বিভিন্ন সময়ের আলোচিত সাতটি একক গানের মিউজিক সেশনস ভলিউম

এই অ্যালবামের সঙ্গে যারা যুক্ত ছিলেন সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন শাকিরা। এই অ্যালবামের মধ্য দিয়ে তিনি শুরু করতে যাচ্ছেন তার নতুন অধ্যায়।

শাকিরার ভাষ্য, এই অ্যালবামের প্রতিটি গান লেখার সময় অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে। ভাবতে হয়েছে নিজেকে ভেঙেচুরে। গানগুলোতে কণ্ঠ দেয়ার সময় চোখের পানি পরিণত হয়েছে শক্তিতে। যাতে আমার গানের থিম আমি সঠিকভাবে প্রকাশ করতে পারি। বলতে পারি, নারীরা আর কাঁদবে না।

শাকিরা দুইবার গ্র্যামি পুরস্কার, সাতবার ল্যাটিন গ্র্যামি পুরস্কার পেয়েছেন। তিনি গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের জন্যও মনোনীত হয়েছিলেন। বিএমআই-এর তথ্যানুসারে, তিনি কলম্বিয়ার সর্বকালের সবচেয়ে বেশি অ্যালবাম বিক্রিত শিল্পী, এবং সেই সাথে তিনি ব্যবসায়িকভাবে সফল দ্বিতীয় ল্যাটিন অ্যামেরিকান নারী শিল্পী, যার অ্যালবাম বিশ্বব্যাপী পাঁচ কোটি কপি বিক্রি হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: শাকিরা

আরও খবর