আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

শাহজালালে সাড়ে ৪ কোটি টাকার সোনাসহ যাত্রী আটক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুবাই থেকে আসা ইউএস বাংলার একটি উড়োজাহাজের সিটের নিচ থেকে ৪৯টি সোনার বার উদ্ধার করেছে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ। আটক সোনার ওজন প্রায় পাঁচ কেজি ৬৮৪ গ্রাম। যার আনুমানিক বাজারমূল্য চার কোটি ৪১ লাখ টাকা। এ ঘটনায় মো. ফজলে রাব্বী নামে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের এক যাত্রীকে আটক করেছে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ।

বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উড়োজাহাজটিতে অভিযান চালিয়ে সোনার বারগুলো উদ্ধারসহ ওই যাত্রীকে আটক করে শুল্ক গোয়েন্দা।

শাহজালাল বিমানবন্দরের শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত সার্কেলের উপপরিচালক মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বৃহস্পতিবার ভোর ৪টা ২৫ মিনিটের দিকে ইউএস বাংলার বিএস ৩৪২ উড়োজাহাজটি শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করে। এরপর উড়োজাহাজের সন্দেহভাজন যাত্রী ফজলে রাব্বীকে চিহ্নিত করে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তারা।

পরে ওই যাত্রীর দেওয়া তথ্যে বিমানের আসন নম্বর ৩২এফ ও ৩১ এফ এর নিচে রাখা লাইফ ভেস্টের ভেতর থেকে কালো স্কচটেপে মোড়ানো দুটি বান্ডেল উদ্ধার করেন গোয়েন্দারা।

মিজানুর রহমান আরও বলেন, পরে ওই দুটি বান্ডেল গ্রিন চ্যানেলের ইনভেন্ট্রি টেবিলে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে খুলে তাতে ৪৮ পিস সোনার বার এবং যাত্রীর কাছ থেকে আরও একটি বার পাওয়া যায়।

তিনি জানান, আটক সোনার বারগুলো শুল্ক গুদামে জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। আটক যাত্রীর নামে বিমানবন্দর থানায় ফৌজদারি মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর
ছুটির দিনেও ঢাকার বায়ু ‌‘অস্বাস্থ্যকর’

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




হিংসায় জ্বলছে সন্দেশখালি, এক্স হ্যান্ডলে সরব নুসরাত

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
বিনোদন ডেস্ক

Image

জমি, ভেড়ি দখল! নারী নির্যাতন! একের পর এক নালিশের পাহাড়! গত ৫২ দিন ধরে শিরোনামে সন্দেশখালি। গ্রামবাসীদের ক্ষোভের আগুনে জ্বলছে গ্রামের পর গ্রাম। অশান্তি নিয়ে ফের মুখ খুললেন তারকা সাংসদ নুসরাত জাহান।

এক্স হ্যান্ডলে নুসরাত লেখেন, একজন মহিলা এবং জনপ্রতিনিধি হিসাবে আমি সবসময় আমার দলের নির্দেশিকা মেনেই চলি। এবং জনসেবা করারই চেষ্টা করি। সন্দেশখালিতে ইতিমধ্যে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। সাধারণ মানুষের স্বার্থে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপনাও করা হয়েছে। আমরা কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নই। সুসময় কিংবা দুঃসময়, আমি আমার সংসদীয় এলাকার মানুষদের সঙ্গে আছি। আমি বিশ্বাস করি রাজ্য সরকার এবং প্রশাসনের উপর সকলের বিশ্বাস রয়েছে। যেটা ভুল তার নিন্দা অবশ্যই করুন। তবে আমাদের একে অপরকে নিশানা করা ঠিক নয়। আসুন সকলে মিলে শান্তি ফেরানোর চেষ্টা করি। শান্তি ফেরানো এবং সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করাই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। বাকি কে কি বলল কিছু যায় আসে না। আমি আগেও বলেছি, আবার বলছি রাজনীতি করবেন না।

প্রসঙ্গত, গত ৫ জানুয়ারি তৃণমূল নেতা শেখ শাহজাহানের খোঁজে সন্দেশখালিতে হানা দেয় ইডি। তৃণমূল নেতার দেখা মেলেনি। বাড়িতে তল্লাশিও করতে পারেননি আধিকারিকরা। হামলার শিকার হন তারা। অভিযোগ, শাহজাহানের নির্দেশেই হামলার শিকার হন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। তার পর থেকেই ফাঁকা সাম্রাজ্য। ফেরার তৃণমূল নেতা। তৃণমূল নেতাকে গ্রেপ্তারের দাবিতে ফুঁসছেন গ্রামবাসীরা। ক্ষোভের আগুন দফায় দফায় জ্বলছে সন্দেশখালির একের পর এক গ্রাম। তা নিয়ে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি।

অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে সন্দেশখালিমুখী সিপিএম, কংগ্রেস, বিজেপি প্রতিনিধি দল। যদিও পুলিশি বাধায় কেউই গ্রামে ঢুকতে পারেননি। তবে বেড়মজুর গ্রামে ঘুরে বেড়াচ্ছেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী পার্থ ভৌমিক এবং সুজিত বসুরা। তা সত্ত্বেও গ্রামে দেখা মেলেনি বসিরহাটের সাংসদ নুসরাত জাহানের। এত অশান্তির পরেও সাংসদ কোথায়, তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রশ্নও উঠতে শুরু করে। গত ১২ ফেব্রুয়ারি নীরবতা ভেঙে সন্দেশখালি কাণ্ডে মুখ খোলেন নুসরাত। তার ঠিক ১৩ দিনের মাথায় আবারও সন্দেশখালি ইস্যুতে এক্স হ্যান্ডলে পোস্ট তারকা সাংসদের।


আরও খবর
ফের বিয়ে করছেন অনুপম রায়, পাত্রী কে?

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




নিজ দেশের নাগরিকদের রাখাইন ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে ভারত

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর সংঘর্ষ দিন দিন বড় আকার ধারণ করছে মিয়ানমারে। জান্তা সেনাদের সঙ্গে বিরোধ, সংঘর্ষে কার্যত ভেঙে পড়েছে দেশটির নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এমনকি বাংলাদেশ ও ভারতে বাড়ছে অনুপ্রবেশ। প্রাণে বাঁচতে সীমান্তে ভিড় জমাচ্ছেন মিয়ানমারের নাগরিকরা।

এমন অবস্থায় ক্রমাবনতিশীল পরিস্থিতির কারণে ভারতীয়দের মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে না যেতে সতর্কতা জারি করেছে দেশটির সরকার। এমনকি নাগরিকদের যারা সেখানে আছেন তাদের এখনই রাখাইন ছাড়তেও নির্দেশ দিয়েছে।

ভারতীয় বার্তাসংস্থা পিটিআইয়ের বরাত দিয়ে মঙ্গলবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় ভারতীয় নাগরিকদের মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে ভ্রমণ না করতে পরামর্শ দিয়েছে ভারত। দেশটির সামরিক বাহিনী ও বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ার পর ভারত এই প্রথম এই ধরনের সতর্কতা জারি করল।

এনডিটিভি বলছে, মিয়ানমারে সহিংসতা বৃদ্ধির পর দেওয়া প্রথম নির্দেশনায় টেলিযোগাযোগ নেটওয়ার্কে ব্যাঘাত এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের ঘাটতিসহ বিদ্যমান পরিস্থিতির কারণে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ভারতীয়দের রাখাইন প্রদেশে ভ্রমণ না করতে বলেছে।

এতে বলা হয়েছে, নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি, ল্যান্ডলাইনসহ টেলিযোগাযোগের মাধ্যম ব্যাহত হওয়া এবং প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের তীব্র ঘাটতির পরিপ্রেক্ষিতে সকল ভারতীয় নাগরিককে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে ভ্রমণ না করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরও বলেছে, যে সকল ভারতীয় নাগরিক ইতোমধ্যেই রাখাইন প্রদেশে রয়েছেন তাদের অবিলম্বে প্রদেশটি ছেড়ে চলে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলে নেয় মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। এরপর থেকে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবিতে ব্যাপকভাবে সহিংস বিক্ষোভের সাক্ষী হয়ে আসছে মিয়ানমার।

আর রাখাইন প্রদেশসহ দেশটির অন্যান্য অনেক অঞ্চলে গত বছরের অক্টোবর থেকে সশস্ত্র জাতিগোষ্ঠী এবং মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর মধ্যে তীব্র লড়াই দেখা গেছে। দুই পক্ষের মধ্যে সংঘাত গত বছরের নভেম্বর মাস থেকে ভারতের সীমান্তবর্তী মিয়ানমারের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ শহর ও অঞ্চলে দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে করে মণিপুর এবং মিজোরামের নিরাপত্তা নিয়ে নয়াদিল্লির উদ্বেগও বেশ বেড়েছে।

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী তার বিরোধীদের লক্ষ্য করে এবং সরকারের বিরুদ্ধে সশস্ত্র সংগ্রাম পরিচালনাকারী গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধেও বিমান হামলা চালিয়ে যাচ্ছে।


আরও খবর



কুড়িগ্রামে ২৪ ঘন্টায় গ্রেফতার ২৭

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মোঃ মাসুদ রানা, কুড়িগ্রাম

Image

কুড়িগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৭ জন আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জেলা পুলিশ ও জেলার বিভিন্ন থানায় অভিযান চালিয়ে আসামিদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা ওয়ারেন্টভুক্তসহ বিভিন্ন অপরাধের আসামি। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) দুপুর বারোটার দিকে এসব তথ্য জানিয়েছে কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ।

পুলিশ  জানায়, পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় অভিযান চালিয়ে জিআর ওয়ারেন্টে ছয়জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। এদের মধ্যে রাজারহাট থানায় দুইজন, নাগেশ্বরী থানায় দুইজন, ভুরুঙ্গামারী থানায় একজন, চিলমারী থানায় একজন।

এছাড়াও সিআর ওয়ারেন্টে সদর থানায় তিনজন, ফুলবাড়ী থানায় একজন, ভুরুঙ্গামারী থানায় তিনজন, রৌমারী থানায় একজন এবং সিআর সাজা ওয়ারেন্ট মূলে একজন, নিয়মিত মামলায় ছয়জন, পূর্বের মামলায় দুইজন, ১৫১ ধারায় দুইজন, ৩৪ ধারায় দুইজন সহ গত ২৪  ঘন্টায় মোট ২৭ জন আসামী গ্রেফতার করে।

কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত) মোঃ রুহুল আমীন বলেন, চুরি, ছিনতাই, মাদক, নারী নির্যাতনসহ শান্তি বিনষ্টকারী, উগ্রবাদ ও  সাইবার অপরাধের সাথে যেই জড়িত থাকুক না কেন, তাকে আইনের আওতায় আনতে বদ্ধ পরিকর কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ। নিরাপদ কুড়িগ্রামের জন্য আমাদের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সব সমীকরণ মুছে প্লে-অফে বরিশাল, খুলনার আশাভঙ্গ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

এবারের বিপিএলে চট্টগ্রাম পর্বেই প্লে-অফ নিশ্চিত করেছিল রংপুর রাইডার্স, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। অপেক্ষা ছিল চতুর্থ দলের। অবশ্য চতুর্থ দল হিসেবে বরিশালের খেলাও অনেকটা নিশ্চিত ছিল। তবে কাগজে-কলমে সুযোগ ছিল খুলনা টাইগার্সেরও।

খুলনার উঠতে সমীকরণ এমন ছিল, কুমিল্লার বিপক্ষে বরিশালকে হারতেই হবে আর দ্বিতীয় ম্যাচে সিলেট স্ট্রাইকার্সের বিপক্ষে জিততে হবে খুলনাকে। এক্ষেত্রে বড় বাধা ছিল রানরেট। এই দিক দিয়ে বরিশাল ছিল অনেক এগিয়ে। তবে দিনের প্রথম ম্যাচেই সব সমীকরণ মুছে দিল বরিশাল। তামিম ইকবালের হাফ সেঞ্চুরিতে কুমিল্লাকে ৫ উইকেটে হারিয়ে নিশ্চিত করল প্লে-অফ।

কুমিল্লার দেওয়া ১৪১ রানের লক্ষ্য টপকাতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখেন অধিনায়ক তামিম। ওপেনিংয়ে নেমে ৪৮ বলে ৬৬ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন তিনি। ৬টি চার ও ৩ ছক্কায় নান্দনিক এই ইনিংস সাজান বরিশাল অধিনায়ক। যদিও শেষের দিকে কিছুটা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছিল বরিশাল। শেষ ৩ ওভারে দরকার ছিল ২৮ রান। তবে শেষের দিকে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (১১ বলে ১২) ও সৌম্য সরকার (৩ বলে ৬) সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে এনে দেন জয়।

এর আগে জাকের আলীর ঝড়েও ১৪০ রানে থামে কুমিল্লা। মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে কুমিল্লা। ২৪ রানের মাথায় প্রথম ব্যাটার হিসেবে ফেরেন সুনীল নারাইন। পাওয়ার প্লেতে আর কোনো উইকেট না হারালেও ৪০ রানের মধ্যে লিটন দাস ও মাহিদুল ইসলাম অংকনকেও হারায় কুমিল্লা। প্রথম উইকেট ওবেড ম্যাককয় নিলেও পরের দুইটি নেন তাইজুল ইসলাম।

চতুর্থ উইকেটে বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করেন তাওহীদ হৃদয় ও মঈন আলী। ৭৬ রানের মাথায় হৃদয় ফিরলে ভাঙে সেই আশা। ২৬ বলে ২৫ রান করে ম্যাককয়ের বলে ফেরেন তিনি। এরপর ধারাবাহিকভাবেই পড়তে থাকে কুমিল্লার উইকেট। একশ রানের আগেই ফেরেন মঈন (২৩), আন্দ্রে রাসেল ও ম্যাথু ফোর্ড।

এরপর শুরু হয় জাকেরের একার লড়াই। আরেক পাশে মোহাম্মদ এনামুল থাকলেও রান আসছিল মূলত জাকেরের ব্যাটেই। ১৯তম ওভারের পঞ্চম বলে ফেরেন তিনিও। তবে শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যান জাকের। ১৬ বলে ২টি চার ও ৪ ছক্কায় ৩৮ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪০ রান তোলে কুমিল্লা।

বরিশালের হয়ে বল হাতে সবচেয়ে সফল তাইজুল। ৩ ওভারে মাত্র ২০ রান দিয়ে ৩টি উইকেট শিকার করেছেন তিনি। বল হাতে সফল শেষের দিকে বিপিএল খেলতে নামা মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনও। ৪ ওভারে মাত্র ১৬ রান খরচায় ২ উইকেট তার। ২টি উইকেট পেলেও ম্যাককয় রান দিয়েছেন ৪০।


আরও খবর
হাথুরুসিংহেকে ‘শোকজ’ করবেন পাপন!

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিশ্বের উচিত রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের উপায় বের করা: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের তাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনে এবং সেখানে তাদের মর্যাদাপূর্ণ জীবন নিশ্চিত করার ব্যবস্থা নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

রবিবার (২৮ জানুয়ারি) যুক্তরাজ্যের বাংলাদেশ বিষয়ক সর্বদলীয় সংসদীয় দলের (এপিপিজি) ভাইস চেয়ার ও ইন্দো-ব্রিটিশ বিষয়ক এপিপিজির চেয়ার বীরেন্দ্র শর্মা এমপির নেতৃত্বে যুক্তরাজ্যের ক্রস পার্টির একটি পার্লামেন্টারি প্রতিনিধিদল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তিনি এ আহ্বান জানান। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর স্পিচরাইটার এম নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্বের উচিত রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের উপায় বের করা, যাতে তারা স্বদেশে ফিরে গিয়ে সেখানে একটি সুন্দর জীবনযাপন করতে পারে। তিনি আরও বলেন, ২০১৭ সালে অমানবিক নির্যাতনের মুখে রোহিঙ্গাদের ব্যাপকভাবে দেশত্যাগের পর বাংলাদেশ তাদের আশ্রয় দিয়েছিল। মিয়ানমার তাদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে সম্মত হলেও, ছয় বছর অতিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও এই লক্ষ্যে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

এ সময় 'কভিড-১৯ মহামারি এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের পর থেকে বৈশ্বিক আর্থিক সহায়তা কমেছে' উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সুতরাং রোহিঙ্গারা এখন বাংলাদেশের মতো একটি ছোট দেশের জন্য বিশাল বোঝা হয়ে উঠছে।

পাঁচ সদস্যের সংসদীয় প্রতিনিধিদলে রয়েছেন প্রাক্তন টেক ও ডিজিটাল অর্থনীতির কনজারভেটিভ মন্ত্রী পল স্কুলি, ইউকে হাউস অব কমন্স সিলেক্ট কমিটির মেম্বার ফর ফরেন অ্যাফেয়ার্স নিল কোয়েল, হাউস অব কমন্সের বিরোধীদলীয় হুইপ অ্যান্ড্রু ওয়েস্টার্ন এবং হাউস অব কমন্সের সিনিয়র সংসদীয় সহকারী ডমিনিক মফিট।

গত ৭ জানুয়ারি বাংলাদেশে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পর এটিই যুক্তরাজ্য সংসদীয় দলের প্রথম সফর।


আরও খবর