আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম

র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে ব্রাজিল, সেরা তিনে আর্জেন্টিনা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | ২৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলতি জুনের দারুণ পারফর্ম্যান্সের সুবাদে ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তিনে উঠে এসেছে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। শীর্ষে আছে ব্রাজিলই। তবে দুঃসংবাদ আছে বাংলাদেশের। চলতি মাসের বাজে পারফর্ম্যান্সের কারণে জামাল ভূঁইয়ার দল নেমে গেছে চার ধাপ। আছে র‍্যাঙ্কিংয়ের ১৯২তম অবস্থানে।

মার্চের ফিফা উইন্ডো শেষে প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে আর্জেন্টিনার অবস্থান ছিল ৪র্থ। চলতি মাসে মেসিরা খেলেছেন দুই ম্যাচ। ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দশে থাকা ইতালিকে ফিনালিসিমায় ৩-০ গোলে হারায় দলটি। এরপর মেসির পাঁচ গোলের সুবাদে এস্তোনিয়াকে হারায় ৫-০ ব্যবধানে।

ওদিকে র‍্যাঙ্কিংয়ের তিনে থাকা ফ্রান্স চার ম্যাচ খেলে জেতেনি একটিতেও, তিনটি ড্রয়ের পাশাপাশি আছে একটি হার। দুই দলের এমন বিপরীতমুখী পারফর্ম্যান্সের ছাপ পড়েছে র‍্যাঙ্কিংয়ে, ফ্রান্সকে পেছনে ফেলে আর্জেন্টিনা চলে এসেছে ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তিনে।

ব্রাজিল আছে শীর্ষে। চলতি মাসে দুই ম্যাচ খেলে দুটোতেই জিতেছে কোচ তিতের শিষ্যরা। যার ফলে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে দলটি। দুইয়ে থাকা বেলজিয়াম এক ড্রয়ের বিপরীতে তিন জয় নিয়ে ধরে রেখেছে নিজেদের অবস্থান।

র‍্যাঙ্কিংয়ের নিচের দিকে থাকা বাংলাদেশের জন্য আছে দুঃসংবাদ। চলতি মাসের বাজে পারফর্ম্যান্সের ফলে র‍্যাঙ্কিংয়ে আরও অবনতি হয়েছে কোচ হ্যাভিয়ের ক্যাবরেরার দলের। চলতি মাসে ফিফা উইন্ডোটা ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে ড্র দিয়ে শুরু করলেও বাংলাদেশ হেরেছে পরের তিন ম্যাচেই। এর ফলেই র‍্যাঙ্কিংয়ে আরও নিচের দিকে নেমেছেন জামাল ভূঁইয়ারা। মার্চের র‍্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ ছিল ১৮৮তম অবস্থানে, আজ প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে চার ধাপ নেমে এখন আছে ১৯২তম অবস্থানে।


আরও খবর



যুদ্ধে আমাদের ১০ হাজার সেনার মৃত্যু হয়েছে : ইউক্রেন

প্রকাশিত:রবিবার ১২ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১২ জুন ২০২২ | ৪০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কির উপদেষ্টা ওলেকসি আরেস্তোভিচ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, এ পর্যন্ত যুদ্ধে প্রায় ১০ হাজার ইউক্রেনীয় সেনার মৃত্যু হয়েছে। গত ৩ জুন পর্যন্ত কতজন ইউক্রেনীয় সেনার মৃত্যু হয়েছে, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

রাশিয়ার সামরিক অভিযান শুরুর পর প্রথম দিকে ইউক্রেন কেবল রুশ সেনাদের হতাহতের তথ্য দিয়ে আসছিল। সম্প্রতি নিজ সেনাদের দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা সম্পর্কে ধারণা দিলেও এই প্রথম কিয়েভ কর্তৃপক্ষ মোট সেনা মৃত্যুর তথ্য তুলে ধরল।

যুদ্ধে কয়েক দিন ধরে ১০০ থেকে ২০০ জন ইউক্রেনীয় সেনার মৃত্যু হচ্ছে বলে সম্প্রতি জানিয়েছিলেন ইউক্রেনের শীর্ষ পর্যায়ের বিভিন্ন কর্মকর্তা। এর মধ্যে মোট সেনা মৃত্যুর তথ্য এলো।

ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা আরেস্তোভিচ দাবি করেন, ইউক্রেনের চেয়ে বেশ কয়েকগুণ বেশি সেনা হারিয়েছে রাশিয়া। কিয়েভ কর্তৃপক্ষের দাবি, রুশ সেনা মৃত্যুর সংখ্যা ৩০ হাজারের বেশি। অবশ্য যুদ্ধের ওপর নজর রেখে আসা যুক্তরাজ্যের গোয়েন্দাদের তথ্য মতে, ওই সংখ্যা ১৫ হাজার।

এসব তথ্যের বিপরীতে ক্রেমলিন গত ২৫ মার্চ জানিয়েছিল, ইউক্রেন যুদ্ধে সাধারণ সেনাসদস্য ও কর্মকর্তা মিলিয়ে এক হাজার ৩৫১ জনকে হারিয়েছে রাশিয়া। এরপর আর রাশিয়ার দিক থেকে কোনো হালনাগাদ তথ্য আসেনি।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে রাশিয়া। এরপর উভয় পক্ষ যুদ্ধসংক্রান্ত যেসব তথ্য দিয়েছে, সেগুলোর সবকিছু স্বাধীনভাবে যাচাই করতে পারেনি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো। সেনা হতাহতের তথ্যের ব্যাপারেও একই পরিস্থিতি।


আরও খবর



২৮২ জনকে চাকরি দেবে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ জুন ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক। ব্যাংকটিতে তিনটি ভিন্ন পদে মোট ২৮২ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী যোগ্য প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

পদের নাম:

গাড়িচালক, নিরাপত্তাপ্রহরী ও অফিস সহায়ক।

পদসংখ্যা:

মোট ২৮২ জন।

শিক্ষাগত যোগ্যতা:

স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ন্যূনতম অষ্টম শ্রেণি/ মাধ্যমিক পাস প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। ন্যূনতম ১৮ থেকে অনূর্ধ্ব-৩০ বছর পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। নিরাপত্তা প্রহরী পদে আবেদনের জন্য সেনাবাহিনী/বিডিআর/পুলিশ/আনসার বাহিনী থেকে অবসরপ্রাপ্ত সদস্যদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

বেতন:

গাড়িচালক পদের বেতন ৯৩০০-২২৪৯০/-টাকা,

নিরাপত্তাপ্রহরী ও অফিস সহায়ক পদের বেতন ৮২৫০-২০০১০/-টাকা ।

আবেদন ফি:

গাড়িচালক পদের জন্য ১১২টাকা (আবেদন ফি ও টেলিটক চার্জ সহ),

নিরাপত্তাপ্রহরী ও অফিস সহায়ক পদের জন্য ৫৬ টাকা (আবেদন ফি ও টেলিটক চার্জ সহ)।

আবেদন প্রক্রিয়া:

আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন (http://pkb.teletalk.com.bd) এই ঠিকানায়।

আবেদনের শেষ তারিখ:

৬ জুলাই, ২০২২।

নিউজ ট্যাগ: চাকরির খবর

আরও খবর



মাসিকের সময় পরিচ্ছন্ন থাকার টিপস

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৩ জুন ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মাসিক বা ঋতুচক্র নিয়মিত স্বাভাবিক শারীরিক প্রক্রিয়া। এটি শারীরিক গঠন বা প্রক্রিয়ার অংশ। যদিও এখনো আমাদের অনেকের কাছেই এটি ট্যাবুর মতো। অনেকেই এটিকে গোপন বা লজ্জাজনক বিষয় মনে করেন। তাই এ সময় পরিচ্ছন্নতার থেকে বেশি নজর দেয় গোপনীয়তার দিকে। কেউ যদি বুঝে যায় তার মাসিক হয়েছে এই ভয়ে, অনেকেই ন্যাপকিন বদলাতেও চান না। এমনও হয় সারাদিন একই ন্যাপকিন ব্যবহার করছেন। অথচ এ ন্যাপকিন বদলানোর নির্দিষ্ট সময় রয়েছে সে বিষয়ে অনেকেই জানেন না। বিশেষ করে গ্রাম ও ছোট শহরগুলোতে মেয়েরা এখনো তাদের মাসিকের সময় অস্বাস্থ্যকর কাপড়ের টুকরা বারবার ব্যবহার করে থাকে। মাসিক হওয়াকে এখনো অশুচি বা অপরিষ্কার হিসেবে মানা হয়। অথচ এ সময় নারীদের পরিচ্ছন্নতার দিকে বিশেষ নজর দেওয়া উচিত। মাসিকের সময় স্বাস্থ্যকর থাকার কিছু পরামর্শ বা টিপস জেনে নিই।

আগে মাসিকের সময় নারীরা সাধারণত কাপড় ব্যবহার করলেও বর্তমানে নানা ধরনের পদ্ধতি রয়েছে। যেমন- স্যানিটারি ন্যাপকিন, ট্যাম্পনস ও মেন্সস্ট্রুয়াল কাপ। তবে এর মধ্যে সর্বাধিক ব্যবহৃত পদ্ধতি হলো স্যানিটারি ন্যাপকিন। যদিও বিশেষজ্ঞদের মতে মাসিকের প্রবাহমাত্রার উপর নির্ভর করে পদ্ধতি নির্বাচন জরুরি। ট্যাম্পন ব্যবহারের ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে এটার সর্বনিম্ন শোষণ ক্ষমতা কত এবং তা আপনার প্রবাহমাত্রা বা প্রয়োজন অনুযায়ী উপযুক্ত কি না। দ্রুত ব্র্যান্ড পরিবর্তন করা অনেক সময় অস্বস্তির কারণ হতে পারে। কারণ প্রত্যেকটা ব্র্যান্ড আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্য বহন করে এবং আপনার সেটা পছন্দ নাও হতে পারে।

একেক জনের মাসিকের স্থায়িত্ব একেক রকম হয়। তবে সবার ক্ষেত্রে মাসিকের শেষের দিকে যখন কম রক্তস্রাব হয় তখন শরীরের মাধ্যমে আক্রমণ হতে পারে। যদি ব্যবহৃত ন্যাপকিনটি স্যাঁতস্যাঁতে হয় তাহলে যোনির মধ্যে থাকা অণুজীবগুলো ঘামের মাধ্যমে যৌনাঙ্গে যেতে পারে। যখন অণুজীবগুলো উষ্ণ ও আর্দ্র পরিবেশ পায় তখন এরা বংশবৃদ্ধি করতে থাকে, যার ফলে ইউরেনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন, ভ্যাজাইনাল ইনফেকশন ও স্কিন র‍্যাশ হতে পারে।

প্যাড বা ন্যাপকিন পরিবর্তন করার সঠিক সময় ৬ ঘণ্টা পর পর। কিন্তু ট্যাম্পন বদলাতে হয় দুই ঘণ্টা পর পর। এটি পরিবর্তনের সময় আপনার প্রয়োজনের সঙ্গে সম্পর্কিত। কোনো নারীর রক্তপ্রবাহ বেশি হলে দ্রুতই পরিবর্তনের প্রয়োজন হয়, আবার কারো জন্য সেটা পরিমাণে অল্প হয়। আবার অনেক সময় স্যানিটারি ন্যাপকিন বা ট্যাম্পন যদি পুরোপুরি না ভেজে বা ব্যবহৃত নাও হয় তবু নির্দিষ্ট সময় অন্তর আপনাকে অবশ্যই এটি পরিবর্তন করতে হবে। ট্যাম্পন ব্যবহারের ক্ষেত্রে এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি ভ্যাজাইনার ভেতর ঢুকানো থাকে যা দীর্ঘ সময় থাকলে টক্সিক শক সিন্ড্রোম বা টিএসএস-এর মতো অবস্থার সৃষ্টি করতে পারে, যেখানে শরীরের ভেতর ব্যাকটেরিয়া প্রবেশ করে মারাত্মক সংক্রমণের সৃষ্টি করতে পারে।কখনো কখনো মৃত্যুর আশঙ্কাও থাকে।

মাসিকের সময় অতিরিক্ত রক্ত ভ্যাজাইনা ও আশেপাশের ত্বকে লেগে থাকে যা অবশ্যই নিয়মিত ধুয়ে ফেলতে হবে। এভাবে নিয়মিত পরিষ্কার রাখলে ভ্যাজাইনার আশেপাশে দুর্গন্ধ থাকেনা। সুতরাং এটি খুব জরুরি যে যখন প্যাড বা ন্যাপকিন পরিবর্তন করা হয় তখন অবশ্যই ভ্যাজাইনা ও ল্যাবিয়া ধুয়ে পরিষ্কার করতে হবে। যদি ধোয়া না হয় তাহলে ভেজা রুমাল বা টিস্যু দিয়ে পরিষ্কার করা যেতে পারে।

ভ্যাজাইনা পরিষ্কার রাখার নিজস্ব কৌশল রয়েছে, যা এত ভালো কাজ করে যে ভালো ও খারাপ ব্যাকটেরিয়াগুলোর ভারসাম্য নিজেই নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে। সাবানের ব্যবহার ভ্যাজাইনার ভালো ব্যাকটেরিয়াগুলোকে মেরে ফেলে এবং সংক্রমণের দিকে যাবার রাস্তা তৈরি করে। সুতরাং যোনি ও এর আশেপাশে নিয়মিত পানি দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার রাখা গুরুত্বপূর্ণ এবং এক্ষেত্রে একটু উষ্ণ গরম পানি ব্যবহার করা প্রয়োজন। কিন্তু সাবান ব্যবহার করা যাবে না।

ধোয়ার করার সময় খেয়াল রাখতে হবে এটি যেন ভ্যাজাইনা থেকে মলদ্বার পর্যন্ত হয়। কখনোই বিপরীত অভিমুখে পরিষ্কার করা যাবে না। কারণ এতে মলদ্বারের ব্যাকটেরিয়া ভ্যাজাইনা ও মূত্রনালির পথে গিয়ে সংক্রমণ ঘটাতে পারে। এক্ষেত্রে ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন ঘটার আশঙ্কা রয়েছে।

এক সময়ে কেবলমাত্র একটি পদ্ধতি বা মাধ্যম ব্যবহার করা জরুরি। যাদের মাসিকের রক্তপ্রবাহ অনেক বেশি থাকে তারা অনেকেই এ সময় কয়েকটা পদ্ধতিতে প্যাড বা ট্যাম্পন ব্যবহার করে থাকেন- দুইটা স্যানিটারি প্যাড, একটা ট্যাম্পন ও স্যানিটারি প্যাড, একটা স্যানিটারি প্যাড সঙ্গে একটা কাপড়ের টুকরা। এটি একেবারেই ভালো নয়। এতে নানা রকম সমস্যা দেখা দিতে পারে।

প্রত্যেক নারীর মাসিকের জন্য আলাদা প্রস্তুতি থাকা জরুরি। এ সময় অতিরিক্ত স্যানিটারি প্যাড বা ট্যাম্পন একটা পরিষ্কার থলি বা পেপারের ব্যাগে সঠিক উপায়ে সংরক্ষণ করতে হবে। এ ছাড়া একটা নরম তোয়ালে, কিছু পেপার টিস্যু, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ছোট বিন ব্যাগ, কিছু স্বাস্থ্যকর নাস্তা, এক বোতল পানি, একটি অ্যান্টিসেপটিক টিউব, ব্যথার ওষুধ (ডাক্তারের পরামর্শ মতো) সঙ্গে রাখতে হবে।

নিউজ ট্যাগ: ঋতুচক্র মাসিক

আরও খবর
বিফ সাসলিক তৈরির রেসিপি

সোমবার ২৭ জুন ২০২২




বজ্রপাতে কক্সবাজারে ৩ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ২০ জুন ২০22 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ জুন ২০22 | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় ও পেকুয়ায় পৃথক বজ্রপাতের ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়াও বজ্রপাতে দুইজন আহত হয়েছেন। রোববার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে কুতুবদিয়া উপজেলার উত্তর ধূরুং ইউনিয়নের চুল্লারপাড়া গ্রামে বজ্রপাতে দুইজন নৌকা শ্রমিকের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও একজন।

নিহতরা হলেন- উত্তর ধূরুং ইউনিয়নের চুল্লারপাড়া গ্রামের জাকের উল্লার ছেলে মো. ইমতিয়াজ (২৫) ও দক্ষিণ ধূরুং ইউনিয়নের ধূরুং কাঁচা গ্রামের ছাবের আহমদের ছেলে মো. করিম (৩৫)। এ ঘটনায় জাকের উল্লার ছেলে মো. আক্কাস (২২) আহত হন।

উত্তর ধূরুং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল হালিম সিকদার জানান, উত্তর ধূরুং ইউনিয়নের চুল্লারপাড়া গ্রামে মাছ ধরার নৌকা মেরামতের সময় বজ্রপাতে ২ জন নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। তারা সবাই নৌকার শ্রমিক।

একইদিন দুপুর ১২টার দিকে পেকুয়া উপজেলা মগনামায় বজ্রপাতে রমজান আলী নামের যুবকের মৃত্যু হয়েছে। মগনামা ইউনিয়নের শরৎ ঘোনা এলাকায় বজ্রপাতের এ ঘটনা ঘটে। রমজান আলী ওই এলাকার মো. হোসেনের ছেলে।

একই ঘটনায় উপজেলার টৈটং ইউপির কাটা পাহাড় এলাকার জুনাইদুল ইসলামের স্ত্রী কলি আক্তার (২৫) গুরুতর আহত হন। কক্সবাজার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম কুতুবদিয়া ও পেকুয়ায় পৃথক বজ্রপাতে তিনজন নিহত ও দুজন আহত হওয়ার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।


আরও খবর



এটিই সাই পল্লবীর আত্মত্যাগ

প্রকাশিত:বুধবার ০১ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০১ জুন ২০২২ | ৪৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

২০০৫ সালে শিশুশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রে পা রাখেন সাই পল্লবী। ৩০ বছর বয়েসী এই অভিনেত্রী এখন দক্ষিণ ভারতের ভার্সেটাইল অভিনেত্রী। ন‌্যাচারাল অভিনয়ে তার দারুণ খ‌্যাতি রয়েছে। ২০১৪ সালে মালায়ালাম ভাষার প্রেমাম সিনেমায় প্রথম কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন সাই পল্লবী। এতে অভিনয় করে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড জিতে নেন তিনি। ২০১৭ সালে তেলেগু ভাষার ফিদা সিনেমায় অভিনয় করে দর্শকের নজর কাড়েন। ক‌্যারিয়ার দীর্ঘ না হলেও খুব বেছে বেছে কাজ করেন সাই পল্লবী।

সাই পল্লবীর পরবর্তী সিনেমা বিরতা পারভাম। বেনু উড়ুগুলা পরিচালিত এ সিনেমায় সাই পল্লবীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন রানা দাগ্গুবতী। তেলেগু ভাষার এ সিনেমা আগামী ১৭ জুন মুক্তির কথা রয়েছে। এ সিনেমার কাজ করতে গিয়ে সাই পল্লবীর আত্মত্যাগে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন নির্মাতা।


সম্প্রতি ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে বেনু উড়ুগুলা বলেন, শুটিং সেটে সিনেমাটির গুরুত্বপূর্ণ একটি দৃশ্য নিয়ে আলোচনা করছিলাম। ব্যাখ্যা করার পর দৃশ্যটিতে নিজের চরিত্রের গুরুত্ব বুঝতে পারেন সাই পল্লবী। তারপর সিদ্ধান্ত নেন, ওই দিন কোনো খাবার খাবেন না। কারণ চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলার জন্য এটি খুব প্রয়োজন ছিল। এটিই সাই পল্লবীর আত্মত্যাগ।

নব্বই দশকে তেলেঙ্গানায় নকশালবাদের পটভূমিতে গড়ে উঠেছে বিরতা পারভাম সিনেমার কাহিনি। এতে কমরেড রাবনার চরিত্রে অভিনয় করেছের রানা দাগ্গুবতি। রাবনার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে বেনেলার। আর এই বেনেলা চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাই পল্লবী। এ ছাড়াও অভিনয় করেছেনপ্রিয়ামনি, নন্দিতা দাস, নবীন চন্দ্র, ঈশ্বরী রাও, সাই চন্দন প্রমুখ।

সাই পল্লবী অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা শ্যাম সিং রায়। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করেন নানি। গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর মুক্তি পায় তেলেগু ভাষার সিনেমাটি। গত ৯ মে ছিল সাই পল্লবীর জন্মদিন। এদিন ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করে নতুন সিনেমায় অভিনয়ের ঘোষণা দেন তিনি। গার্গি শিরোনামের এই সিনেমা পরিচালনা করছেন গৌতম রামচন্দ্রন।

নিউজ ট্যাগ: সাই পল্লবী

আরও খবর