আজঃ মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

রমজান উপলক্ষ্যে বর্ণিল সাজে সেজেছে ব্রিটিশ রাজধানী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ মার্চ 20২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ মার্চ 20২৩ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ইতিহাসে প্রথমবারের মতো মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের পবিত্রতম মাস রমজান উপলক্ষ্যে বর্ণিল সাজে সেজেছে ব্রিটিশ রাজধানী লন্ডনের পশ্চিম প্রান্ত। গোটা এলাকা প্রায় ৩০ হাজার বাতির আলোয় উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে। রমজান উপলক্ষ্যে যুক্তরাজ্যের এ শহরটিতে এ ধরনের সাজসজ্জা আগে কখনো দেখা যায়নি।

পশ্চিম লন্ডনের লিসেস্টার স্কয়ারের সঙ্গে পিকাডিলির সংযোগ ঘটানো কভেন্ট্রি স্ট্রিটে গেলেই সাজসজ্জার দৃশ্য চোখে পড়ে। দেখা যায়, মাথার ওপর উজ্জ্বল আলোয় জ্বলজ্বল করছে হ্যাপি রামাদান তথা শুভ রমজান লেখা।

সম্প্রতি এই আলোকসজ্জার উদ্বোধন করেছেন লন্ডনের মেয়র সাদিক খান। শহরটিতে ১৩ লাখ মুসলিমের বাস। তবে এই প্রদর্শনী আয়োজনের পেছনে যিনি রয়েছেন, সেই উদ্যোক্তার নাম আয়েশা দেশাই।

এ বছর সবচেয়ে বেশি সময় না খেয়ে থাকতে হবে আইসল্যান্ডের বাসিন্দাদের। রমজানের প্রথম দিন অর্থাৎ ২৩ মার্চ সেখানে উপবাস থাকতে হবে ১৫ ঘণ্টা ৩৩ মিনিট। রমজানের শেষ দিন সেখানে ফজর ও মাগরিবের মধ্যে ব্যবধান হবে ১৬ ঘণ্টা ২০ মিনিট। অর্থাৎ দেশটিতে সর্বশেষ রোজাটি হবে ১৬ ঘণ্টা ২০ মিনিটের।


আরও খবর
আইনি লড়াইয়ে বড় জয় পেলেন ট্রাম্প

মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪




পহেলা ফাল্গুন আজ

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শীতের রিক্ততা ভুলিয়ে আবহমান বাংলার প্রকৃতিতে এসেছে ফাগুনের ছোঁয়া, আগুনরাঙা বসন্তের সুর। গাছে গাছে ফুটছে লাল পলাশ ফুল। দূর থেকে দেখলে মনে হয়, গাছের ডালে ডালে যেন লেগেছে আগুন। দখিনা বাতাস আর নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়ার মধ্যে ঋতুরাজ বসন্তের আগমন ঘটল আজ বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি)।

বসন্তকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। বসন্ত বরণের বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি। ২২৫ জন নৃত্যশিল্পীর পরিবেশনার মধ্য দিয়ে বসন্ত বরণের আয়োজন করেছে সংস্থাটি।

রাজধানীর রমনায় এদিন বিকেল সাড়ে ৩টায় শতায়ু অঙ্গনের পাশে মঞ্চে পরিবেশিত হবে শিশু-নৃত্যদল এবং শিশু সঙ্গীত দলের এই পরিবেশনা। অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে বিকেল সাড়ে ৪টায় বসন্তের রঙিন শোভাযাত্রা শুরু হবে। শোভাযাত্রাটি রমনা পার্ক থেকে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে সমবেত হবে। বিকেল সাড়ে ৫টায় একাডেমির উন্মুক্ত মঞ্চে আয়োজন করা হচ্ছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

শিল্পকলার বসন্তবরণের এই আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী। শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন সংস্কৃতি সচিব খলিল আহমদ। স্বাগত বক্তৃতা করবেন একাডেমির সচিব সালাহউদ্দিন আহাম্মদ।

উন্মুক্ত মঞ্চের এ আয়োজনে শুরুতেই পরিবেশিত হবে দলীয় ঢাক নৃত্য। পরিবেশন করবে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নৃত্যদল। পরে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি নৃত্যদল পরিবেশন করবে দলীয় নৃত্য শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা। এরপর দলীয় সংগীত আনন্দ লোকে পরিবেশন করবে শিল্পকলা একাডেমি শিশু সংগীত দল। দ্বৈত আবৃত্তি রুমঝুম কে বাজায় পরিবেশন করবেন ডালিয়া আহমেদ ও জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়। একক সংগীত যেথা রামধনু উঠে হেসে পরিবেশন করবেন মেহরিন মাহমুদ।

এরপর দ্বৈত সংগীত পরিবেশন করবেন নওশিন তাবাসসুম স্মরণ ও মোমিন বিশ্বাস। ধারাবাহিক পরিবেশনায় দলীয় নৃত্য সুন্দরের অতন্দ্র প্রহরী পরিবেশন করবে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি শিশু নৃত্য দল। এরপর দ্বৈত নৃত্য আজি দক্ষিণ পবনে পরিবেশন করবে আবু নাইম ও আনন্দিতা খান। দ্বৈত সংগীত পরিবেশন করবেন শারমিন সাথী ইসলাম ও বুলবুল ইসলাম। এরপর আবার দলীয় সংগীত মন শুধু মন ছুয়েছে পরিবেশন করবে ঢাকা সাংস্কৃতিক দল। দ্বৈত আবৃত্তি করবেন তামান্না তিথি ও মাহিদূল ইসলাম। দলীয় নৃত্য বসন্ত মুখর আজিনীল দিগন্তে পরিবেশন করবে রেওয়াজ পারফর্মার্স স্কুল। নৃত্য পরিচালনা করেছেন মুনমুন আহমেদ। দ্বৈত নৃত্য বিশ্ববীণা রবে ও আজ সখি পরিবেশন করবেন সামিনা হোসেন ও মাহতাব মেহেদী। এরপর একক সংগীত চেনা চেনা লাগে পরিবেশন করবেন মো. ইউসুফ আহমেদ খান। দ্বৈত সংগীত পরিবেশন করবেন কিরণ চন্দ্র রায় ও চন্দনা মজুমদার। দ্বৈত নৃত্য ফাগুন লেগেছে শাখে শাখে পরিবেশন করবেন জুয়েইরিয়াহ মৌলি ও মারিয়া ফারিহ উপমা। এরপর দলীয় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী নৃত্য পরিবেশন করবে তপস্যা নৃত্যদল। পরিচালনা করেছেন নৃত্য পরিচালক ফিফা চাকমা। এরপর দ্বৈত আবৃত্তি করবেন শিমুল মোস্তফা ও রূপা চক্রবর্তী। দ্বৈত নৃত্য একটুকু ছোঁয়া লাগে পরিবেশন করবেন অনিক বোস ও কস্তুরী মুখার্জী। এরপর দলীয় নৃত্য অবাক চোখে পরিবেশন করবে কত্থক নৃত্য সম্প্রদায়। নৃত্য পরিচালনা করেছেন নৃত্য পরিচালক সাজু আহমেদ। পরে, পরিবেশিত হবে দ্বৈত নৃত্য বাগিচায় বুলবুলি, পরিবেশন করবেন আরোহী ইসলাম (আরিফুল ইসলাম অর্ণব) ও হেনা হোসেন। সবশেষে শিল্পকলা একাডেমির নৃত্যদলের অংশগ্রহণে পরিবেশিত হবে ফ্যাশন ডান্স প্যারেড।

ঢাকা রির্পোটার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) এ বছর বসন্তবরণ উৎসব ও ভালোবাসা দিবস উদযাপন উপলক্ষে ভালোবাসার দিনে বসন্ত উৎসব শিরোনামে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। দুপুর ১২টায় ডিআরইউ বাগানে বাউল গানের আসর অনুষ্ঠিত হবে। ফকির লালন সাঁই, বাউলসাধক শাহ আব্দুল করিমসহ বাংলার লোককবিদের বাউল গান শোনাবেন শিল্পকলা একাডেমির বাউলদল।


আরও খবর



টেক্সাসের চিড়িয়াখানায় সিজারে জন্ম নিল গরিলার বাচ্চা

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

সিজারে, অর্থাৎ সি সেকশনের মাধ্যমে মানুষের বাচ্চা হওয়া খুব স্বাভাবিক একটি ব্যাপার। কিন্তু যদি শোনেন কোনো গরিলার বাচ্চা হয়েছে এ ধরনের অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে, তবে নিশ্চয় চমকে উঠবেন। এমন কাণ্ড ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি চিড়িয়াখানায়।

টেক্সাসের ফোর্ট ওয়র্থ জুতে জরুরি অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে জন্ম হয় অপরিণত গরিলাশাবকটির। প্রিঅ্যাক্লাম্পশিয়ায় ভুগছিল মা গরিলাটি। জমিলা নাম দেওয়া গরিলাশাবকটির অবস্থার উন্নতি হচ্ছে বলে ধারণা করছে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। এসব তথ্য জানা যায় ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে।

জমিলার ঐতিহাসিক ও আবেগময় জন্মের বিষয়টি ফোর্ট ওয়র্থ চিড়িয়াখানা তার ফেসবুক পেজে নিশ্চিত করেছে। গরিলাশাবকটি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সাহায্যে নির্দিষ্ট সময়ের চার থেকে ছয় সপ্তাহ আগেই জন্ম নেয়। চিড়িয়াখানার ১১৫ বছরের ইতিহাসে এটিই প্রথম গরিলা, যেটি সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে জন্ম নিয়েছে।

সোয়াহিলি ভাষায় জমিলা অর্থ সুন্দর। ৫ ফেব্রুয়ারি জন্ম নেয় গরিলাটি। এর মা সেকানির বয়স ৩৩ বছর, সে একটি ওয়েস্টার্ন লোল্যান্ড গরিলা। বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেয় মা এবং শিশু উভয়কে বাঁচানোর জন্য একটি সিজারিয়ান অপারেশন জরুরি। ভালোবাসা দিবস, অর্থাৎ ১৪ ফেব্রুয়ারি নিজেদের ফেসবুক পেজে পোস্ট দিয়ে গরিলা শাবকের জন্মের বিষয়টি নিশ্চিত করে।


সেকানির মতো ওয়েস্টার্ন লোল্যান্ড গরিলাদের বাস মধ্য আফ্রিকায়। শিকার ও রোগের কারণে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচার (আইইউসিএন) এদের চরম সংকটাপন্ন ঘোষণা করেছে।

ওয়ার্ল্ড লাইফ ফান্ডের দেওয়া তথ্য বলছে, গত ২০-২৫ বছরে এই গরিলাদের সংখ্যা ৬০ শতাংশের বেশি কমেছে। এদিকে এই গরিলাদের জন্মহার কম হওয়ায় জনসংখ্যা হ্রাস থামাতে এটি বড় ভূমিকা রাখতে পারছে না।

এই অস্ত্রোপচার ও পরবর্তীতে বড় ভূমিকা ড. জেমি আরউইনের। তিনি জানান, জমিলার ডেলিভারি তাঁর কর্মজীবনের বড় ঘটনাগুলোর একটি।

সেকানির অ্যানাটমি আমার মানবরোগীদের সঙ্গে যেভাবে মিলেছে, তা আমাকে অবাক করে। এক বিবৃতিতে বলেন ড. আরউইন।

চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, জমিলার অপরিণত জন্মের কারণে তার জরুরি চিকিৎসাসেবা প্রয়োজন হয়।  চার থেকে ছয় সপ্তাহের আগে জন্ম নেওয়ায় জমিলার অবিলম্বে চিকিৎসা পর্যবেক্ষণ ও মনোযোগ প্রয়োজন হয়।

নবজাতক বিশেষজ্ঞ রবার্ট উরসপ্রুং গরিলা শাবকটির অবস্থা স্থিতিশীল করার প্রচেষ্টায় সহায়তা করেছিলেন। এর একটি সুষম খাবারের তালিকাও তৈরি করে দেন।

এই গরিলা মা-শিশুর পরিস্থিতির সঙ্গে একই পরিস্থিতিতে জন্ম নেওয়া শিশুদের জন্য হাসপাতালে যা দেখি তার অবিশ্বাস্য রকম মিল ছিল। ড. উরসপ্রুং বলেন, প্রসবের পরে কয়েক ঘণ্টার জন্য শিশুটির শ্বাস নিতে জরুরি সহায়তার প্রয়োজন ছিল, কিন্তু সে যখন গর্ভের বাইরে জীবনের সঙ্গে একটু অভ্যস্ত হয়, বেশ চমৎকারভাবে উন্নতি হয় তার অবস্থার।

চিড়িয়াখানাটি জানিয়েছে, মা সেকানি তারপর সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠেছে। তবে এখনো তার নতুন শিশুর জন্য প্রস্তুত হয়নি।

মা এবং শিশুর পুনর্মিলনের বারবার প্রচেষ্টা সত্ত্বেও সেকানি তার শিশুর যত্ন নেওয়ার ব্যাপারে খুব কমই আগ্রহ দেখিয়েছে। জানায় চিড়িয়াখানাটি।

তারা যোগ করে, কেন সঠিকভাবে মা এবং শিশুর বন্ধন হচ্ছে না তা জানা কঠিন। তবে চিড়িয়াখানা বিশেষজ্ঞরা সন্দেহ করেন যে সেকানি হরমোনের সংকেত অনুভব করেনি যা একটি পুরোপুরি প্রাকৃতিক ও স্বাভাবিক জন্মের সঙ্গে আসতে পারে।

স্টাফরা তখন থেকে তাদের মনোযোগ গ্রেসি নামের ২৪ বছর বয়সী একটি গরিলার দিকে সরিয়ে নিয়েছে। তাকে জমিলার পলক মা হওয়ার জন্য প্রশিক্ষণ দিচ্ছে।


আরও খবর
আইনি লড়াইয়ে বড় জয় পেলেন ট্রাম্প

মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪




দেশের প্রয়োজনে সীমান্তে পুলিশের প্রতিটি সদস্য প্রস্তুত : আইজিপি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ঘুমধুম সীমান্ত এলাকায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী পুলিশ কাজ করছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন।

তিনি বলেছেন, দেশের প্রয়োজনে দায়িত্ব পালনের জন্য বাংলাদেশ পুলিশের প্রতিটি সদস্য প্রস্তুত আছে।

মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে গত ২৮ অক্টোবর বিএনপির সমাবেশে গুরুতর আহত রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পুলিশ সদস্য রাজ্জাককে দেখতে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। ভারতে উন্নত চিকিৎসা শেষে রাজ্জাককে রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘুমধুম সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি ভয়াবহ। স্থানীয় লোকজন আতঙ্কে আছে, সীমান্ত এলাকায় পুলিশ কী ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে জানতে চাইলে আইজিপি বলেন, এখন পর্যন্ত আহত হয়ে যারা আমাদের দেশে এসেছেন তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা সরকার করছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ, বিজিবি ও প্রশাসন সবাই মিলে সরকারের নির্দেশনার আলোকে দায়িত্ব পালন করছে। বাংলাদেশ পুলিশের প্রতিটি সদস্য প্রস্তুত আছে দেশের প্রয়োজনে দায়িত্ব পালনের জন্য।

সীমান্ত এলাকায় মর্টার শেলের আঘাতে দুজন নিহত হয়েছে, এখন তারা কাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করবে? জানতে চাইলে আইজিপি বলেন, কে মর্টার শেল নিক্ষেপ করেছে তা এখনো সুনিশ্চিত না। এ ঘটনায় আমরা একটা মামলা নিয়েছি। মামলার আসামি অজ্ঞাত। তদন্তে যাদের নাম আসবে পরবর্তী সময়ে সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সীমান্তের বর্তমান পরিস্থিতিতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি কী নির্দেশনা আছে জানতে চাইলে পুলিশপ্রধান বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আছে। জেলা পুলিশসহ এপিবিএন সতর্ক আছে। সীমান্তে বিজিবি দায়িত্ব পালন করছে। তাদের দায়িত্ব পালনে যে সহযোগিতা চাচ্ছে আমরা সে সহযোগিতা দিচ্ছি। স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ, বিজিবি ও গোয়েন্দা সংস্থা মিলে যে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন সে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, বর্তমান সীমান্ত পরিস্থিতিতে রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় নজরদারী বৃদ্ধি করা হয়েছে। এসব এলাকায় পুলিশের উপস্থিতি বৃদ্ধিসহ পেট্রোল বৃদ্ধি করা হয়েছে। সীমান্ত এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশসহ সব সংশ্লিষ্ট সংস্থা দায়িত্ব পালন করছে।

এসময় পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) প্রধান মনিরুল ইসলাম ও ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমানসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



বাংলাদেশের প্রশংসায় বিশ্বব্যাংকের এমডি

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিশ্ব অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে প্রকল্প বাস্তবায়ন ও ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ভালো অবস্থানে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস) অ্যানা বেজার্ড।

রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর দফতরে তার সঙ্গে বৈঠক করেন বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। বাংলাদেশের সমসাময়িক ও বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে চলমান প্রকল্প নিয়ে বৈঠক শেষে সংবাদকর্মীদের এ কথা বলেন তিনি।

অ্যানা বেজার্ড বলেন, বিশ্ব অর্থনীতি সংকটের মধ্যে রয়েছে। বাংলাদেশ যার বাইরে না। এসবের মধ্যে প্রকল্প বাস্তবায়ন ও ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ভালো অবস্থানে রয়েছে।

বৈঠকে আলোচনার বিষয়ে তিনি বলেন, মূল্যস্ফীতি কমাতে বিশ্বব্যাংক কীভাবে সহায়তা করতে পারে তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তাছাড়া সামাজিক সুরক্ষা, এসএমই খাতের উন্নয়ন নিয়েও কথা হয়েছে।

একদিনের সফরে ঢাকায় অবস্থান করছেন বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস) অ্যানা বেজার্ড। বাংলাদেশে এটি তার প্রথম সফর।

অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকশেষে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, বেসরকারি খাতে নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন অ্যানা বেজার্ড। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গেও তিনি সাক্ষাৎ করবেন বলে জানিয়েছে বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশ অফিস।

স্বাধীনতার পর বাংলাদেশকে সহায়তাকারী প্রথম উন্নয়ন সহযোগীদের মধ্যে বিশ্বব্যাংক অন্যতম। দেশ স্বাধীনের পর বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে ৪১ বিলিয়ন ডলারের বেশি সহায়তা দিয়েছে। এই ঋণের বেশিরভাগই অনুদান বা রেয়াতি ঋণ।

বাংলাদেশে বর্তমানে বিশ্বব্যাংক গ্রুপের ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইডিএ) সমর্থিত বৃহত্তম কর্মসূচি চলমান।


আরও খবর



জাকারবার্গের আকস্মিক মৃত্যু হতে পারে: মেটার প্রতিবেদন

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

মার্ক জাকারবার্গের বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ কার্যক্রম নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন মেটার নির্বাহীরা। তাঁরা বিনিয়োগকারীদের সরাসরি সতর্ক করে বলেছেন, জাকারবার্গের আকস্মিক মৃত্যু ঘটতে পারে।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর প্রকাশিত মেটার বার্ষিক আর্থিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাকারবার্গ ও ব্যবস্থাপনা বোর্ডের সদস্যরা (নাম উল্লেখ নেই) বিভিন্ন উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ কার্যকলাপে যুক্ত। যেমন ঝুঁকিপূর্ণ খেলা, বিনোদনমূলক উড়োজাহাজ চালনা। এগুলো গুরুতর আঘাতের এবং মৃত্যুর কারণ হতে পারে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, জাকারবার্গের আকস্মিক অনুপস্থিতি কোম্পানির কার্যক্রমের ওপর প্রতিকূল প্রভাব ফেলতে পারে। এ ধরনের কার্যক্রম ব্যবস্থাপনা সদস্যদের পাশাপাশি মূল প্রকৌশল, পণ্যের উন্নয়ন, বিপণন, বিক্রয়সহ অন্যান্য বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ কর্মীদের ক্ষতি করতে পারে এবং ব্যবসার ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে।

এই বিবৃতির মধ্য দিয়ে বোঝা যায়, শুধু নিজের জীবনই নয়, মার্ক জাকারবার্গ সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্টটির বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মী ও ব্যবসাকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলছেন। গত বছরে কয়েক দফা ছাঁটাইয়ের পরও মেটার সঙ্গে প্রায় ৬৭ হাজার কর্মীর জীবিকা জড়িত। 

আরও পড়ুন>> পাকিস্তানে জোট গঠন নিয়ে যে ঘোষণা দিল পিটিআই

গত গ্রীষ্মে জাকারবার্গের প্রতিদ্বন্দ্বী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সের (সাবেক টুইটার) মালিক ইলন মাস্ক মল্লযুদ্ধের প্রস্তাব দেন। দুই সিইও চ্যালেঞ্জ নিতে সম্মতও হন। শেষ পর্যন্ত মাস্কের সুপারমডেল মায়ের আপত্তিসহ বিভিন্ন কারণে এই মল্লযুদ্ধ আর অনুষ্ঠিত হয়নি।

তবে ইলন মাস্কই জাকারবার্গের মৃত্যুর কারণ হতে পারেনএমন কোনো দাবি করছেন না কোম্পানির নির্বাহীরা। জাকারবার্গ মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। প্রতিযোগিতায়ও অংশ নিয়েছেন।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, জাকারবার্গের অন্যান্য উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ ক্রিয়াকলাও তাঁর মৃত্যুর কারণ হতে পারে। উঁচু হাইড্রোফয়েলিং সার্ফিংয়ে জাকারবার্গের ব্যাপক আগ্রহ। সেই সঙ্গে উড়োজাহাজ চালনার লাইসেন্সও পেতে চান তিনি।

এসব সতর্কতা সত্ত্বেও আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশের পর মেটার শেয়ারদর অনেক বেড়ে গিয়েছিল। কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনে সিইওকে নিয়ে মৃত্যুর আশঙ্কা শেয়ারদরে কোনো প্রভাবই ফেলেনি। 


আরও খবর
আইনি লড়াইয়ে বড় জয় পেলেন ট্রাম্প

মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪