আজঃ শনিবার ১৫ জুন ২০২৪
শিরোনাম

রেমালের তাণ্ডবে সুন্দরবনের ব্যাপক ক্ষতি, মিলছে বন্যপ্রাণীর মৃতদেহ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | পত্রিকায় প্রকাশিত
জেলা প্রতিনিধি

Image

প্রবল ঘূর্ণিঝড় রেমাল ইতোমধ্যে উপকূল অতিক্রম করেছে। এর প্রভাবে সুন্দরবনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া গেছে। বনের অভ্যন্তরে বনবিভাগের বিভিন্ন ক্যাম্প, সুপেয় পানির পুকুর, বনবিভাগের জলযান ও ওয়ারলেস সিস্টেম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া বেশ কিছু বন্যপ্রাণীর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ নুরুল করিম।

মঙ্গলবার (২৭ মে) দুপুরে কাজী মোহাম্মদ নূরুল করিম বলেন, ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে আমরা যতটুকু জেনেছি সুন্দরবনের বেশ কিছু জায়গা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিশেষ করে আপনারা জানেন বাগেরহাট শহর থেকে বনের অভ্যন্তরে ১০০ কিলোমিটার দূরে সাগরের কাছাকাছি আমাদের স্টেশন রয়েছে। সেগুলো সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছে। পূর্ব বন বিভাগের দুবলার চর, শেলার চর, কচিখালী, কটকা, শরণখোলা ও বরগুনা জেলার পাথরঘাটা স্টেশনের টিনের চালা উড়ে গেছে। কটকা কেন্দ্রের কাঠের জেটি ভাসিয়ে নিয়ে গেছে। বনকর্মী, জেলে বাওয়ালি ও বন্যপ্রাণীদের জন্য সুপেয় পানির যে আঁধার ছিল সেগুলো প্লাবিত হয়ে লবণ পানি ঢুকে গেছে। সুন্দরবনের কটকার সুপেয় পানির পুকুরটি সাগর গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। আমাদের ওয়ারলেস কমিউনিকেশন সিস্টেম অনেক জায়গায় নষ্ট হয়ে গেছে। আমাদের বিভিন্ন ক্যাম্পে ছোট ছোট ট্রলারগুলো ছিল সেগুলো জলোচ্ছ্বাসের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রবল বাতাসের ফলে বনের গাছ ভেঙে গেছে। যেহেতু প্রায় দুইদিন ধরে ঝড় হয়েছে এবং জলোচ্ছ্বাস অনেক বন্য প্রাণী বিপদাপন্ন হয়েছে। বেশ কিছু বন্যপ্রাণীর মৃত্যুর খবর আমরাও পেয়েছি।

তিনি আরো বলেন, যেহেতু গতকাল রাত পর্যন্ত ঝড় ছিল আমরা সরেজমিন কোথাও যেতে পারিনি। আমরা আজকে থেকে সরেজমিনে এসব এলাকায় যাব এবং ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করব।

শরণখোলা বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ টিমের সভাপতি শেখ নাজমুল বলেন, আমরা বন্যপ্রাণী নিয়ে কাজ করি। আমরা সর্বদা প্রস্তুত রয়েছি। যদি বন্যপ্রাণী লোকালয়ে আসে আমরা তাৎক্ষণিক সেটি উদ্ধার করে বনে রেখে আসি। এখন চারদিকে খোঁজখবর নিচ্ছি।

এ বিষয়ে সেভ দ্য সুন্দরবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. শেখ ফরিদুল ইসলাম বলেন, সুন্দরবনের বন্যপ্রাণীদের জন্য পর্যাপ্ত উঁচু টিলা ও শেল্টার রাখা জরুরি। তাহলে এ ধরনের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব। মিঠাপানির পুকুরের পাড় অনেক উঁচু করতে হবে যাতে বন্যার পানি সেখানে প্রবেশ করতে না পারে।

করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাওলাদার আজাদ কবির বলেন, ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে এখানকার পর্যটক চলাচলের কাঠের পোল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অসংখ্য গাছপালা ভেঙেছে। তবে পুরো সুন্দরবনের গাছপালাসহ কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা নিশ্চিত করে এখনই বলা সম্ভব নয়।

সুন্দরবনের দুবলার চর এলাকায় অবস্থায় পড়ে থাকা একটি হরিণের ছবি দিয়ে খুলনা অঞ্চলের বন সংরক্ষক মিহির কুমার দো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লিখেছেন, হরিণটি বড় ভাগ্যের জোরে বেঁচে গেলেও আরও কত হরিণ ও বন্যপ্রাণী জলোচ্ছ্বাসে ভেসে গেছে, তার কোনো হিসাব কখনো পাওয়া যাবে না। তিনি আবার দুপুর ১টায় আরেক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ঘূর্ণিঝড় রিমেল থেমে গেছে। কিন্তু জানি না এর ভয়াবহতা কতদিনে কাটিয়ে উঠবে সুন্দরবন।


আরও খবর



গুজরাটে ‌গেমিং জোনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড: শিশুসহ নিহত ২৭

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

প্রতিবেশী ভারতের গুজরাট রাজ্যের রাজকোটে একটি গেমিং জোনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ২৭ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ৯ জনই শিশু। এছাড়া আরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। খবর এনডিটিভি, হিন্দুস্তান টাইস।

স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যায় রাজকোটের টিআরপি গেম জোনে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। সেখানে এখনো কাজ করছেন দমকলের কর্মীরা। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। রাজকোটের পুলিশ কমিশনার রাজু ভার্গভ জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় সন্ধ্যার দিকে টিআরপি গেমিং জোনে আগুন লাগে।

তিনি বলেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। তবে উদ্ধার অভিযান এখনো চলছে। ইতোমধ্যেই বেশ কয়েকজনের মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। এগুলো ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

যুবরাজ সিং সোলাঙ্কি নামের এক ব্যক্তি ওই গেমিং জোনটি চালাতেন। পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন, এই ঘটনায় গাফিলতির কারণে একটি মামলা দায়ের করা হচ্ছে। উদ্ধারকাজ শেষ হওয়ার পরেই আরও তদন্ত করা হবে।

তবে আগুন লাগার কারণ এখনো জানা যায়নি। এদিকে দমকল বাহিনী জানিয়েছে, অস্থায়ী কাঠামোগুলো ভেঙে পড়ছে। এর ফলে আগুন নেভানোর ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছিল। বেশ কিছু সূত্র জানিয়েছে, ঘটনার সময় ওই এলাকায় অনেক শিশু ছিল। তাদের মধ্যে অন্তত ১৫ থেকে ২০ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র পটেল জানিয়েছেন, অবিলম্বে উদ্ধারকাজের জন্য পৌরসভা কর্তৃপক্ষ এবং স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যারা আহত হয়েছেন তাদের উদ্ধারে যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।


আরও খবর



বিক্ষোভে উত্তাল আর্জেন্টিনা, ব্যাপক সংঘর্ষ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনস এইরেস। স্থানীয় সময় বুধবার (১২ জুন) এ সংঘর্ষ হয়।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট জাভিয়ার মিলেইর প্রস্তাবিত অর্থনৈতিক সংস্কারের প্রতিবাদে হাজারো মানুষ রাস্তায় নেমে আসেন। তারা সরকারবিরোধী স্লোগান দিতে থাকেন। বিক্ষোভকারীদের উপস্থিতি বাড়ার সঙ্গে উত্তেজনাও বাড়ে। এক পর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয়।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, প্রেসিডেন্টের প্রস্তাবিত বিলের ওপর কংগ্রেসে আলোচনা চলছিল। বাইরে হাজারো বিক্ষোভকারী জড়ো হয়েছিলেন। প্রথমত তারা রাস্তার বারবিকিউ, পিকেটিং এবং প্রতিবাদী গান দিয়ে দিনটি শুরু করেন। কিন্তু বিকেলে কংগ্রেস ভবনের অভ্যন্তরে সিনেটরদের মধ্যে বিতর্ক শুরু হলে বাইরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

এ সময় বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিতে দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন করা হয়। তারা হেলমেট, লাঠিসোঁটা, ঢাল, অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জনতার দিকে তেড়ে আসে। এতে বিক্ষোভকারীরাও পুলিশকে আক্রমণ করে। তারা অন্তত দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। পুলিশ ও রাস্তার বেরিকেড ভেঙে ফেলে। পরে বিক্ষুব্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট ও জলকামান ব্যবহার করা হয়। পুলিশের বিরুদ্ধে পিপার স্প্রে করারও অভিযোগ উঠেছে।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পিপার স্প্রের কারণে সাতজন বিক্ষোভকারীকে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে হয়েছে। আরও বেশ কয়েকজন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এদিকে ধরপাকড় চালিয়েছে পুলিশ। তারা অন্তত ১৮ জনকে আটক করেছে। আর্জেন্টিনার নিরাপত্তাবিষয়ক মন্ত্রণালয় বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, অর্থনৈতিক সংস্কারের নামে একটি বিল পাস করাতে চাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট জাভিয়ার মিলেইর। তার সেই বিলের প্রস্তাবে রয়েছে, এক বছরের জন্য দেশটিতে অর্থনৈতিক জরুরি অবস্থা জারি, রাষ্ট্রীয় উড়োজাহাজ সংস্থাসহ কয়েক ডজন সরকারি প্রতিষ্ঠানকে বেসরকারি খাতে ছেড়ে দেওয়া, কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলোর কার্যক্রম গুটিয়ে নিতে প্রেসিডেন্ট মিলেইকে ক্ষমতা দেওয়াসহ আরও কিছু বিষয়।

নিউজ ট্যাগ: বুয়েনস এইরেস

আরও খবর



সুপার এইট নিশ্চিত করল আফগানিস্তান

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

টি-টোয়েন্টির বিশ্বকাপে সুপার এইট নিশ্চিত করেছে আফগানিস্তান। নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় ম্যাচেও হেরে যাওয়ায় স্রেফ সময়ের অপেক্ষা ছিল আফগানদের শেষ আটে পৌঁছানো, পাপুয়া নিউ গিনিকে ৭ উইকেটে হারিয়ে সেই কাজ করে ফেলল রশিদ খান, রহমানুল্লাহ গুরবাজরা।

নবিন উল হক, ফজলহক ফারুখিদের বোলিংয়ের সামনে সেভাবে মাথা তুলে দাঁড়াতেই পারেনি পাপুয়া নিউ গিনি, জবাবে ব্যাট করতে নেমে যথেষ্ট ভালোভাবেই ম্যাচ পকেটে পুড়ে নিয়েছে আফগানরা। এই ম্যাচ জয়ের ফলে গ্রুপ সি থেকে তারা পৌঁছে গেল সুপার এইট স্টেজে। 

গত বছর ভারতের মাটিতে ওডিআই বিশ্বকাপের মঞ্চে একাধিক বড় দলকে টেক্কা দিয়েছিল আফগানিস্তান। এমনকি অস্ট্রেলিয়াকেও প্রায় হারিয়েই দিয়েছিলেন রশিদ খানরা। কিন্তু অভিজ্ঞতার কাছেই হারতে হয়েছিল তাঁদের। ওডিআই বিশ্বকাপের অভিজ্ঞতার পুঁজি নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজে খেলতে এসেছিল তারা।  এবার অবশ্যই তারা সফল। কিউয়িদের বিশাল ৮৪ রানের ব্যবধানে হারানোর পরই পথ মসৃণ হয়ে গেছিল। শেষ পর্যন্ত পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে ৭ উইকেটে জয়ের সঙ্গে সঙ্গেই এক ম্যাচ বাকি থাকতে সুপার এইট স্টেজে পৌঁছে গেল মহম্মদ নবি, গুলবদিন নাইবদের আফগানিস্তান।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৯৫ রানেই গুটিয়ে যায় পাপুয়া নিউ গিনির ইনিংস। আফগানিস্তানের হয়ে ৩ উইকেট নেন পেসার ফজলহক ফারুকি। দুটি উইকেট নেন আরেক জোরে বোলার নবিন উল হক, একটি উইকেট পান নূর আহমেদ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে আফগানিস্তানের দুই ওপেনার তেমন নজর না কাড়লেও মহম্মদ নবি এবং গুলবদিন নাইব দলের জয় নিশ্চিত করেন।

৩৬ বলে ৪৯ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেন আফগানিস্তানের গুলবাদিন নাইব। অলরাউন্ডার মহম্মদ নবি ১৬ রানে অপরাজিত থেকে পাপুয়া নিউ গিনির বিরুদ্ধে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। এই গ্রুপ থেকে নিউজিল্যান্ডকে টপকে যে আফগানিস্তান দল সুপার এইটে পৌঁছাতে পারে, সেকথা টুর্নামেন্ট শুরু আগে হয়ত স্বপ্নেও ভাবেননি অতি বড় আফগান সমর্থকও। কিন্তু কঠোর পরিশ্রম এবং নিষ্ঠার দ্বারা অসম্ভবকেও সম্ভব করা যায়, সেটাই প্রমাণ করে দেখালেন রশিদ খান, মহম্মদ নবিরা।

গ্রুপ সি-তে তিন ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আফগানিস্তান ক্রিকেট দল। এক্ষেত্রে নেট রান রেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজেরও ওপরে রয়েছে তারা। তিন ম্যাচ ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আন্দ্রে রাসেলরা রয়েছেন। তিন ম্যাচে ২ পয়েন্ট উগান্ডার। তিন ম্যাচে ০ পয়েন্ট পাপুয়া নিউ গিনির, দু ম্যাচে ০ পয়েন্ট নিউজিল্যান্ডের।  ফলে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং আফগানিস্তান পৌঁছে গেল সুপার এইটে।


আরও খবর



চট্টগ্রামে বর্তমান ও সাবেক মন্ত্রীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ১৫

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

Image

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় বাজেটকে স্বাগত জানাতে গিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়েছেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান ও সাবেক ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরীর অনুসারীরা।  এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ছয় রাউন্ড গুলি ছোড়ে পুলিশ। এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মন্নান চৌধুরী ও পুলিশ সদস্য মো. জাবেদসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (৭ জুন) বিকেলে উপজেলার কাফকো সেন্টার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আনোয়ারা থানার ওসি সোহেল আহাম্মদ ও বন্দর ফাঁড়ির ইনচার্জ মিজানুর রহমান।

আহত বাকিরা হলেন- আনোয়ারা উপজেলার বরুমচড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন, চাতরী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি তাজউদ্দীন, অজিদ কুমার নাথা, সাইফুল ইসলাম, ফরিদুল আলম টিপু, কাকন আইচ, জামশেদুল ইসলাম, মোহাম্মদ এরশাদ, পথচারী মোহাম্মদ মনির। এদের মধ্যে অধ্যাপক এমএ মান্নান চৌধুরীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রস্তাবিত ২০২৪-২০২৫ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে সাবেক ভূমিমন্ত্রীর অনুসারী আনোয়ারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক এমএ মান্নান চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিনের নেতৃত্বে কাফকো সেন্টারে আনন্দ মিছিল ও সভার আয়োজন করা হয়। একই স্থানে পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করে অর্থ প্রতিমন্ত্রীর উপজেলার সাবেক ও বর্তমান আওয়ামী লীগের নেতারা। বিকেলে দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা অনুষ্ঠানস্থলে মিছিল নিয়ে জড়ো হন। এ সময় তারা পাল্টাপাল্টি স্লোগান দেন। একপর্যায়ে দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি ও পরবর্তী সময়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় ১৫ জন আহত হন। ঘটনার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

অর্থ প্রতিমন্ত্রীর অনুসারী উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক জিয়া উদ্দিন বাবলু বলেন, জাতীয় বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করা হয়। আমরা বিকেল তিনটায় অবস্থান নিয়েছি। তারা বিকেল ৪টার দিকে এসে আমাদের শান্তিপূর্ণ মিছিলে অতর্কিত হামলা চালায়।

সাবেক ভূমিমন্ত্রীর অনুসারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের ব্যানারে কর্মসূচি ঘোষণার পর তারা একই স্থানে পাল্টা কর্মসূচি দিয়েছে। পরিকল্পিতভাবে আমাদের কর্মসূচিতে হামলা চালিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে আহত করে।

আনোয়ারা থানার ওসি সোহেল আহাম্মদ বলেন, দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচিতে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটেছে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। কয়েকজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কর্ণফুলী থানার ওসি জহির হোসেন বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ছয় রাউন্ড গুলি ছোড়ে। সংঘর্ষের ঘটনায় মো. জাবেদ নামে এক পুলিশ আহত হয়েছেন।


আরও খবর



প্রথমবার ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মনোনয়ন ফরম তুললেন নারী প্রার্থী

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়তে প্রথমবারের মতো কোন নারী প্রার্থী মনোনয়ন ফরম তুলেছেন। তার নাম জোহরা ইলাহিয়ান। ৫৭ বছর বয়সী এই নারী ইরানের সাবেক আইনপ্রণেতা এবং পেশায় চিকিৎসক। তিনি ইরানের পার্লামেন্টের সদস্য ছিলেন।

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির মৃত্যুর পর দেশটির নির্বাহীর পদ শূন্য হয়। আর সেই পদ পূরণ করতেই ২৮ জুন দেশটিতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই নির্বাচনে লড়তে মনোনয়ন ফরম তুলেছেন জোহরা ইলাহিয়ান। খবর ইরান ইন্টারন্যাশনালের

দুবার ইরানের পার্লামেন্ট সদস্য নির্বাচিত হওয়া এই নারী রাজনীতিবিদও কট্টরপন্থী ঘরানার। মনোনয়ন ফরম তোলার পর তার সমর্থকদের উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে তিনি বলেন, সুস্থ সরকার, সুস্থ অর্থনীতি এবং সুস্থ সমাজ- হলো আমার নির্বাচনী লক্ষ্য। এ সময় তিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধেও লড়াইয়ের ঘোষণা দেন।

অন্য কট্টরপন্থীদের মতো ইলাহিয়ান বাধ্যতামূলক হিজাবের নিয়ম সমর্থন করেন। বাধ্যতামূলক হিজাব অমান্যকারী নারীদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর নীতি ও পদক্ষেপ গ্রহণের পর মাত্র কয়েক মাস পরই ইলাহিয়ান তার প্রার্থিতা ঘোষণা করলেন।

এদিকে, আসন্ন নির্বাচনে লড়তে নিজের প্রার্থিতার জন্য রেজিস্ট্রেশন ফরম পূরণ করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আহমাদিনেজাদ।


আরও খবর