আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

রাতেই গভীর নিম্নচাপে রূপ নিতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘মিধিলি’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও এর আশপাশের এলাকায় অবস্থানরত গভীর নিম্নচাপটি রাতের মধ্যেই ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেবে বলে ধারণা করছে আবহাওয়া অধিদফতর। এটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে নাম হবে মিধিলি

আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক মো. আজিজুর রহমান ও আবহাওয়াবিদ ড. মুহাম্মদ আবুল কালাম সংবাদমাধ্যমকে জানিয়ছেন, আজ রাতের মধ্যেই গভীর নিম্নচাপটি আরও ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। এখন পর্যন্ত গতিপথ অনুযায়ী এটি বাংলাদেশের দিকেই আসছে।

শুক্রবার (১৬ নভেম্বর) দিবাগত রাত অথবা শনিবার ভোরে এটি বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করতে পারে। তবে খুব বড় মাত্রার ঘূর্ণিঝড় হবে না বলেই ধারণা তাদের।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি উপকূলীয় এলাকা, দ্বীপ এবং চরগুলোর ওপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে। ফলে এসব এলাকায় ভারি (৪৪ থেকে ৮৮ মিলিমিটার) থেকে অতিভারি (৮৯ মিলিমিটারের বেশি) বৃষ্টি হতে পারে। একইসাথে ঢাকাসহ সারাদেশে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে।

দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য দেয়া আবহাওয়া অফিসের সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে। এটি আরও ঘনীভূত হতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে রাত ১টার মধ্যে খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার জেলার ওপর দিয়ে পূর্ব অথবা উত্তর-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০-৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড় বয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

 তাই এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে থাকা মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে অতি দ্রুত নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

নিউজ ট্যাগ: ঘূর্ণিঝড় মিধিলি

আরও খবর
সারা দেশে কমতে পারে রাতের তাপমাত্রা

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ক্রিকেট ডিরেক্টরের চাকরি হারালেন হাফিজ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

বিশ্বকাপের পর পাকিস্তান দলের অধিনায়ক ও কোচরা সরে দাঁড়ান। সে সময় অস্ট্রেলিয়া ও নিউ জিল্যান্ড সফরের আগে মোহাম্মদ হাফিজকে ক্রিকেট ডিরেক্টর হিসেবে নিয়োগ দেয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। কিন্তু দুই সিরিজ পরেই সেই চাকরি হারিয়েছেন সাবেক এই অলরাউন্ডার।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) হাফিজের প্রচেষ্টার জন্য তাকে ধন্যবাদ জানায় পিসিবি। পাশাপাশি তার ভবিষ্যতের জন্য শুভ কামনা জানায়।

এক বিবৃতিতে পিসিবি লিখে, পুরুষ দলের ক্রিকেট ডিরেক্টর হিসেবে অমূল্য অবদান রাখার জন্য পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড মোহাম্মদ হাফিজের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে। খেলার প্রতি হাফিজের আবেগ খেলোয়াড়দের অনুপ্রাণিত করেছে এবং অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড সফরে তার মেন্টরশিপ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল। পিসিবি হাফিজকে তার ভবিষ্যত প্রচেষ্টায় সৌভাগ্য ও সাফল্য কামনা করে।

ক্রিকেট ডিরেক্টর হিসেবে হাফিজের সময়ে পাকিস্তান ৩-০ ব্যবধানে টেস্ট সিরিজ হারে অস্ট্রেলিয়ার কাছে। এরপর নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারে ৪-১ ব্যবধানে।

যদিও তার ক্রিকেট ক্যারিয়ার বেশ সমৃদ্ধ। পাকিস্তানের হয়ে তিনি ৫৫টি টেস্ট খেলেছেন। ওয়ানডে খেলেছেন ২১৮টি। আর টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ১১৯টি। তিন ফরম্যাটে রান করেছেন ১২ হাজার ৭৮০টি। আর উইকেট নিয়েছেন ২৫৩টি।

তাহলে হাফিজের চাকরি গেল কেন? জানা গেছে, ক্রিকেট বোর্ডের নতুন প্রধান সৈয়দ মহসীন রাজা নাকবি পাকিস্তানের অস্ট্রেলিয়া ও নিউ জিল্যান্ড সফরের পারফরম্যান্স নিয়ে হাফিজের সঙ্গে একটি মিটিং করতে। কিন্তু হাফিজ সময়ই বের করতে পারেননি সেই মিটিংয়ের জন্য। সে কারণে তাকে ক্রিকেট ডিরেক্টরের পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে দেয় পিসিবি।

যদিও গুঞ্জন রয়েছে বর্তমানে পিসিবির কর্তা ব্যক্তিদের সঙ্গে হাফিজের সম্পর্ক অতোটা ভালো নয়। সে কারণেই তিনি বোর্ড প্রধানের সঙ্গে মিলিত হননি।


আরও খবর



ঘুমধুম সীমান্তে অনুপ্রবেশের অপেক্ষায় মিয়ানমারের ৪০০ চাকমা

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তের ওপারে চলমান সংঘর্ষের মধ্যে দেশটির চাকমা সম্প্রদায়ের প্রায় ৪০০ জন বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অপেক্ষায়। পাশাপাশি কিছুসংখ্যক রোহিঙ্গাও বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অপেক্ষায় সীমান্তে জড়ো হচ্ছেন।

কক্সবাজারের শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (আরআরআরসি) মো. মিজানুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, মিয়ানমারে দেশটির সরকারের জান্তা বাহিনীর সঙ্গে বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরকান আর্মির সংঘর্ষ চলছে। এতে মিয়ানমার সীমান্তে বসবাসকারীদের মধ্যে খাদ্যসংকট দেখা দিয়েছে। তাদের জীবন ঝুঁকির মধ্যে আছে। এই অবস্থায় তারা জীবন বাঁচাতে বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা করছেন।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমারের সরকারি বাহিনী ও বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মির (এএ) মধ্যে চলা সংঘর্ষে দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) ৯৫ জন সদস্য অস্ত্রসহ বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।

বিজিবি সদর দপ্তরের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরীফুল ইসলাম জানান, মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলমান সংঘর্ষের জেরে এখন পর্যন্ত দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) ৯৫ জন সদস্য অস্ত্রসহ বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) তাদের নিরস্ত্রীকরণ করে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়েছে।

এদিকে সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মিয়ানমার থেকে ছোড়া মর্টারশেলের আঘাতে ঘুমধুম সীমান্তের জলপাইতলীতে এক বাংলাদেশিসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন ঘুমধুম সীমান্তের জলপাইতলীর বাসিন্দা হাসিনা বেগম এবং অপরজন মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা বৃদ্ধা। তিনি ওই বাড়িতে কাজ করছিলেন। তার পরিচয় জানা যায়নি।

সীমান্ত এলাকায় চলমান অস্থিরতার কারণে বান্দরবান পার্বত্য জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সীমান্তবর্তী ৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বিদ্যালয়গুলা হলো- বাইশপারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভাজবনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তুমব্রু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিমকুল তুমব্রু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও দক্ষিণ ঘুমধুম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ক্ষমতায় গেলে সবাইকে ক্ষমা করে দেবেন ইমরান খান

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জানিয়েছেন, যদি তার দল আরেকবার ক্ষমতায় আসে; তাহলে তিনি কোনো রাজনৈতিক প্রতিশোধ নেবেন না। এর বদলে সবাইকে ক্ষমা করে দিয়ে পাকিস্তানের উন্নতির জন্য কাজ করবেন তিনি। 

গতকাল শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা কারাগারে ইমরান খানের সঙ্গে দেখা করতে যান পিটিআইয়ের জ্যেষ্ঠ নেতা আলী মুহাম্মদ খান। ওই সময় তাকে এ কথা জানান ইমরান খান।

আলী মুহাম্মদ খান আরও জানিয়েছেন, ইমরান খান তাকে বলেছেন, পাকিস্তানকে এগিয়ে নিতে হলে একটি ন্যায় ও সমন্বয়সাধন কমিটি গঠন খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এ ব্যাপারে মাইক্রো ব্লগিং সাইট এক্সে (সাবেক টুইটার) একটি পোস্ট করেছেন আলী মুহাম্মদ খান। তিনি ইমরান খানের বক্তব্য উদ্ধৃত করে লিখেছেন, ক্ষমতায় আসার পর, আমরা কোনো রাজনৈতিক প্রতিশোধ নেব না। আমরা দেশ ও জাতিকে সামনে এগিয়ে নেব, দেশ এবং জাতির উন্নয়নের জন্য।

ইমরান খান কারাগার থেকে আরও বলেছেন, আমাদের ন্যায় ও ক্ষমাশীলতার সঙ্গে এগিয়ে যেতে হবে। তেহরিক-ই-ইনসাফ, ক্ষমতায় আসার পর, পাকিস্তানকে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা এবং উন্নয়নের দিকে নিয়ে যাবে। কোনো প্রতিশোধ নয়।

তিনি আরও জানিয়েছেন, ইমরান খান দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়াত অবিসংবাদিত নেতা নেলসন ম্যান্ডেলার কথা উল্লেখ করেছেন। যিনি দেশকে গড়ার জন্য একটি ন্যায় ও সমন্বয়সাধন কমিশন গঠন করেছিলেন।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের ২৬৬ আসনের মধ্যে ২৬৫টি আসনে নির্বাচন হয়। এতে ইমরান খানের পিটিআইয়ের স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ৯২টি আসনে জয় পায়। তবে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন না করায় তার দলের সরকার গঠনের সম্ভাবনা খুবই কম।

এবারের নির্বাচনে নওয়াজ শরীফের পাকিস্তান মুসলিম লীগ-এন (পিএমএলএন) দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭৫টি আসন পেয়েছে। আর বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) পেয়েছে ৫৪টি আসন।

ধারণা করা হচ্ছে, পিপিপির সমর্থন নিয়ে পাকিস্তানে নতুন সরকার গঠন করবে পিএমএলএন। তবে এই সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নওয়াজ শরীফকে দেখা যাবে না।


আরও খবর



বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

Image

দুদেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা অংশীদারিত্ব জোরদার করতে এবং স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস থেকে বাংলাদেশের উত্তরণে সহায়তা করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চিঠি দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন এ তথ্য জানিয়েছে।

চিঠিতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক বলেন, আপনি (শেখ হাসিনা) ঐতিহাসিক পঞ্চম মেয়াদে যাত্রা শুরু করেছেন। আপনার নেতৃত্বে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশের উন্নয়ন চোখে পড়ার মতো। এ অবস্থায় ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা অংশীদারিত্ব জোরদার এবং এলডিসি মর্যাদা থেকে উত্তরণে বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি আমি আবারও স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, আমাদের অংশীদারিত্ব এক গভীর অভিন্ন ইতিহাস ও বন্ধুত্বের ওপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে, যা মানুষে-মানুষে দৃঢ় বন্ধনের ওপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, অধিকার ও স্বাধীনতার অগ্রগতির পাশাপাশি রাজনৈতিক সমঝোতার মাধ্যমে বাংলাদেশ এগিয়ে যেতে পারে।

তিনি বলেন, এই মূল্যবোধগুলো কমনওয়েলথ পরিবারের মূল ভিত্তি এবং এটি একটি গতিশীল গণতান্ত্রিক সমাজ গঠন করে, যা অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির জন্য প্রয়োজনীয় বিনিয়োগ আকর্ষণ করে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, আমি অভিবাসন বিষয়ে সহযোগিতাকে আমাদের দ্বিপক্ষীয় আলোচ্যসূচির একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে দেখছি। আপনি সদয়ভাবে যুক্তরাজ্যে অবৈধভাবে অবস্থানরত বাংলাদেশি নাগরিকদেরকে ফেরত পাঠানোর একটি টেকসই ও সুশৃঙ্খল উপায়কে সমর্থন করেছেন। আমি আশা করছি, পারস্পরিক সহযোগিতার বৃহত্তর আলোচ্যসূচির অংশ হিসেবে প্রক্রিয়াটি চূড়ান্ত হয়েছে।


আরও খবর



বিপিএল দেখতে বসে টিভি বন্ধ করে দেই: হাথুরুসিংহে

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

বাংলাদেশ জাতীয় দলের হেড কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) নিয়ে রীতিমতো বোমাই ফাটালেন। তার মতে, এই টুর্নামেন্ট বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট উন্নয়নে কোনো অবদান রাখতে পারেনি!

হাথুরু ক্রিকেটভিত্তিক পোর্টাল ক্রিকইনফোর সঙ্গে আলাপকালে বিপিএলের মান নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি জানান, গুরুত্বপূর্ণ সময়ে স্থানীয় ক্রিকেটারদের ব্যবহার করে বিদেশি খেলোয়াড়দের ওপরই নির্ভর করে থাকেন বেশি।

লংকান কোচ বলেন, বাংলাদেশে উপযুক্ত কোনো টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট নেই। শুনতে খুবই অস্বাভাবিক লাগবে। কিন্তু আমি যখন বিপিএল দেখি, অনেক সময় টিভি বন্ধ করে দেই। কিছু খেলোয়াড় তো ওই মানের মধ্যেই পড়ে না।

তিনি আরও বলেন, যে পদ্ধতি মেনে চলছে সেটা নিয়ে আমার আপত্তি আছে। আইসিসির এসব ক্ষেত্রে এগিয়ে আসা উচিত। কিছু নিয়ম তো অবশ্যই থাকা উচিত। বিশেষ করে একই সময়ে একজন খেলোয়াড় একটি টুর্নামেন্ট খেলছে, পরে দেখা গেলো আরেকটিতেও অংশ নিচ্ছে। বিষয়টা পুরোপুরি সার্কাসের মতোন। খেলোয়াড়রা সুযোগের কথা বলবে; কিন্তু এটা সঠিক নয়। এমনটা হলে দর্শকরা আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। আমি নিজেও সেটা হারিয়ে ফেলেছি।

বিপিএলে বাংলাদেশি খেলোয়াড়দের মূল ভূমিকায় রাখা উচিত বলে মনে করেন হাথুরু, আমাদের এমন টুর্নামেন্ট হওয়া উচিত যেখানে স্থানীয় খেলোয়াড়রা টপ তিন নম্বরে ব্যাট করতে পারে... বাংলাদেশের বোলাররা বল করবে ডেথে। তাহলে আমরা আর কোন জায়গা থেকে শিখবো? আমাদের তো এই একটাই টুর্নামেন্ট।

এই মৌসুমে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স, সিলেট স্ট্রাইকার্স ও দুর্দান্ত ঢাকা টপ তিনের জন্য বিদেশির ওপর নির্ভর করেছে। বিপরীতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, খুলনা টাইগার্স ও রংপুর রাইডার্স স্থানীয়দের ব্যবহার করেছে। বোলিংয়ের কথা এলে কুমিল্লার স্কোয়াডে আছেন ১২জন। সেখানে ডেথে তারা আটজন বিদেশি ব্যবহার করেছে। খুলনা, ঢাকাও বিদেশিদের ওপর নির্ভর করেছে আরও বেশি। শুধু চট্টগ্রাম, রংপুর, বরিশাল ও সিলেট স্থানীয়দের ওপর বেশি গুরুত্ব দিয়েছে। এই অবস্থায় হাথুরুসিংয়ের পরামর্শ হলো বিসিবির উচিত বিপিএলের আগে আলাদা একটি টুর্নামেন্ট আয়োজন। যাতে স্থানীয় খেলোয়াড়রা আরও বেশি টি-টোয়েন্টি অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারে।

হাথুরু আরও বলেন, আমার পরামর্শ হচ্ছে বিপিএলের আগে আরেকটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করা উচিত। ফ্র্যাঞ্চাইজিরা যা খুশি করতে পারে। সেরাদের মধ্যে অনেকে খেলছে না, তাহলে আপনি কীভাবে আশা করেন বাংলাদেশ অন্য দলের চেয়ে ভালো করবে? এখানে আমি এক কঠিন যুদ্ধে আছি।


আরও খবর