আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

পঞ্চগড়ে পুলিশ-মুসল্লি সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৩ মার্চ ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
পঞ্চগড় প্রতিনিধি

Image

পঞ্চগড়ে আহমদিয়া সম্প্রদায়ের (কাদিয়ানি) তিন দিনের বার্ষিক জলসা বন্ধের দাবিতে পঞ্চগড়-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন মুসল্লিরা। এ সময় পুলিশ ও মুসল্লিদের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে দুই পক্ষের অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সংঘর্ষ চলছে।

স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার (৩ মার্চ) জুমার নামাজের পর জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে মুসল্লিরা একত্রিত হয়ে কাদিয়ানিদের জলসা বন্ধের দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দেন। এ সময় পুলিশ তাতে বাধা দিলে দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এতে পুলিশসহ দুই পক্ষের অর্ধশতাধিক আহত হন। এ সময় কাদিয়ানি সম্প্রদায়ের অনুসারীদের দোকানপাট ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করেন বিক্ষুব্ধরা।

পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শতাধিক রাউন্ড রাবাব বুলেট ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলছে। এঘটনায় পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব ও বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

জানা যায়, স্থানীয় আহমদিয়া সম্প্রদায় (কাদিয়ানি) শুক্র, শনি ও রোববার সালানা জলসার আয়োজন করে। এই জলসা বন্ধ ঘোষণার দাবিতে আজ বেলা ১১টার দিকে শহরের চৌরঙ্গী মোড়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের পঞ্চগড় শাখা, সম্মিলিত খতমে নবুয়ত সংরক্ষণ পরিষদ, ইমান-আকিদা রক্ষা কমিটি, ইমাম-মোয়াজ্জিন কল্যাণ সমিতি, পঞ্চগড় কওমি ওলামা পরিষদ ও জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের হাজারও লোক মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেন। এ সময় শহরে প্রবেশের প্রধান সড়কগুলো বাঁশ ফেলে বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে বিভিন্ন গন্তব্যের যাত্রীরা ভোগান্তিতে পড়েন।

ইসলামি দলের নেতারা জানান, কাদিয়ানিরা মুসলিম নয়। তারা মুসলিম নাম ব্যবহার করে সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছে। কাদিয়ানিদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণার দাবি জানিয়ে তারা বলেন, কাদিয়ানিরা অমুসলিম হিসেবে অন্যান্য সম্প্রদায়ের মতো এই দেশে বাস করুক, তাতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই।

এর আগে ২০১৯ সালেও পঞ্চগড়ে জলসা করতে চেয়েছিল আহমদিয়া সম্প্রদায়। তবে তখন হেফাজতে ইসলামের তৎকালীন আমির আল্লামা আহমদ শফীর কঠোর হুঁশিয়ারির কারণে শেষ পর্যন্ত সেই জলসা স্থগিত করা হয়।


আরও খবর



ঈদে ৭ দিন বন্ধ থাকবে বুড়িমারী স্থলবন্দর

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
উপজেলা প্রতিনিধি

Image

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে লালমনিরহাটের বুড়িমারী স্থলবন্দর সাপ্তাহিক ছুটিসহ ৭ দিনের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। এ সময় দুই দেশের আমদানি-রপ্তানির কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। তবে বুড়িমারী ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে দুই দেশের যাত্রী পারাপার চালু থাকবে।

বুধবার (১২ জুন) সকালে বুড়িমারী স্থলবন্দর কাস্টমস ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্ট (সিঅ্যান্ডএফ) অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ছায়েদুরজ্জামান সায়েদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে সোমবার (৪ জুন) ত্রি-দেশীয় বুড়িমারী স্থল বন্দরের বোর্ডে ছুটির নোটিশ জারি করে কাস্টমস ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্ট (সিঅ্যান্ডএফ) অ্যাসোসিয়েশন।

বুড়িমারী স্থলবন্দর সূত্রে জানা গেছে, পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ছুটির বিষয়ে ভারতের চ্যাংরাবান্ধা ও বাংলাদেশের বুড়িমারী স্থলবন্দর সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশন, ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন ও ভুটান এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশনসহ সংশ্লিষ্ট সব সংগঠনকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

সেখানে আগামী ১৫ জুন থেকে ২০ জুন পর্যন্ত টানা ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। সাপ্তাহিক ছুটি শুক্রবার থাকায় আগামী শনিবার (২২ জুন) বুড়িমারী স্থল বন্দরে যথারীতি বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক হবে।

বুড়িমারী স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশ কর্মকর্তা এসআই আহসান হাবিব পলাশ বলেন, আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকলেও বন্দর দিয়ে দুই দেশের পাসপোর্টধারী যাত্রীদের যাতায়াত স্বাভাবিক থাকবে।

এ ব্যাপারে বুড়িমারী শুল্ক স্টেশনের (কাস্টমস) সহকারী কমিশনার নাজমুল হাসান বলেন, দুই দেশের ব্যবসায়ীদের সিদ্ধান্তে এ স্থল শুল্ক স্টেশন ৭ দিন বন্ধের বিষয়ে চিঠি পেয়েছি।


আরও খবর



রাত পোহালেই ভোটগ্রহণ, কঠোর নিরাপত্তা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মো.আমজাদ হোসেন, আনোয়ারা

Image

রাত পোহালেই শুরু হবে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩য় ধাপে আনোয়ারায় নির্বাচন । অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট গ্রহণের জন্য ব্যাপক নিরাপত্তার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। মঙ্গলবার কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে নির্বাচনী সরঞ্জাম। ভোর চারটায় পাঠানো হবে ব্যালট পেপার। সাথে থাকবে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা, সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

জানা গেছে, ২৯ মে আনোয়ারার ১১টি ইউনিয়নের ৭৪টি ভোট কেন্দ্রে ব্যালেট পেপারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ উপজেলায় ২ লাখ ৩৩ হাজার ১০৯ জন ভোটার সংখ্যা রয়েছে। এরমধ্যে ১ লাখ ২৩ হাজার ৮৮৮জন পুরুষ এবং ১ লাখ ৯ হাজার ২২১জন মহিলা ভোটার। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে ৬ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নিবার্চন অফিস সূত্র জানায়, অতি ঝুঁকিপূর্ণ হিসাবে বিবেচিত কেন্দ্রগুলোতে ৪৯ হাজার ৮৪১ জন জন ভোটার রয়েছে। যা মোট ভোটারের প্রায় ২২ শতাংশ। তবে ভোটারেরা যাতে নির্বিঘ্নে কেন্দ্রে যেতে পারে ও বিশৃঙ্খলা এড়াতে সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে নিবার্চন কমিশন। সোমবার থেকে মাঠে নেমেছে বডার্র গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

ভোটের মাঠে থাকবে ১৪ জন ম্যাজিস্ট্রেট, মোবাইল টিম, ১ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, ১১টি পুলিশ স্ট্রাইকিং টিম, ৪ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাব ফোর্স। পাশাপাশি বেশ কয়েকটি রিজার্ভ ফোর্স রাখা হয়েছে।

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও আনোয়ারা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবু জাফর ছালেহ জানান, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট গ্রহণের জন্য আনোয়ারায় ব্যাপক নিরাপত্তার প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। সব মিলিয়ে বলা চলে আনোয়ারায় নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে নেওয়া হয়েছে। আশা রাখি কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা হবে না।

আরও খবর



বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটারে বাড়তি চার্জ : সংশ্লিষ্টদের আইনি নোটিশ

প্রকাশিত:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আদালত প্রতিবেদক

Image

জরুরি ভিত্তিতে বিদ্যুতের বিলিং প্র্যাকটিস পর্যালোচনা ও নিরীক্ষা, স্বচ্ছতা, অতিরিক্ত চার্জের রিফান্ড, জনসাধারণের সঙ্গে যোগাযোগ এবং নীতি সংস্কার করার দাবি জানিয়ে সংশ্লিষ্টদের লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এ এম জামিউল হক ফয়সাল, কামরুল হাসান রিগ্যান ও জাকির হায়দারের পক্ষে অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল হাদী এ নোটিশ পাঠান। বুধবার অ্যাডভোকেট জামিউল হক ফয়সাল নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জ্বালানি ও বিদ্যুৎ সচিব, পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন, বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ড, বাংলাদেশ রুরাল ডেভেলপমেন্ট বোর্ড, ডেসকো, ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, নর্দার্ন ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি ও ডিপিডিসির কর্তৃপক্ষকে এ লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়।

নোটিশে বলা হয়, প্রিপেইড মিটার চালু হওয়া সত্ত্বেও ভোক্তারা অতিরিক্ত চার্জ, গোপন চার্জ এবং স্বচ্ছতার অভাবসহ বিভিন্ন কারণে অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন। সমস্যাগুলো ব্যাপক অসন্তোষ ও আর্থিক কষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু এখনো কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। এ অবস্থায়, জরুরি ভিত্তিতে বিলিং প্র্যাকটিস পর্যালোচনা ও নিরীক্ষা, স্বচ্ছতা, অতিরিক্ত চার্জের রিফান্ড, জনসাধারণের সঙ্গে যোগাযোগ এবং নীতি সংস্কার প্রয়োজন।

নোটিশে আরও বলা হয়, আগামী ২৬ মের মধ্যে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয়েছে। এর ব্যত্যয় হলে প্রয়োজনীয় আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করার ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে নোটিশে উল্লেখ করেন আইনজীবীরা।

তারা জানান, বাংলাদেশে প্রিপেইড মিটার চালু করা হয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে সকল বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীকে এর আওতায় আনা হবে বলে ঘোষণা রয়েছে। কিন্তু এরপরও ভোক্তারা অতিরিক্ত চার্জ, গোপন চার্জ এবং স্বচ্ছতার অভাবসহ নানাভাবে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন।

নিউজ ট্যাগ: প্রিপেইড মিটার

আরও খবর



বিএনপি নেতা ইশরাক কারাগারে

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

নাশকতার অভিযোগে পল্টন থানার মামলায় ঢাকা মহানগর বিএনপির সিনিয়র সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেনকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আস-সামছ জগলুল হোসেন রোববার এ আদেশ দেন।

এ মামলায় উচ্চ আদালত থেকে জামিনে ছিলেন ইশরাক। এদিন আদালতে আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিন বর্ধিত করার আবেদন করেন তিনি। শুনানি শেষে আবেদন বাতিল করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। গত ২৯ ফেব্রুয়ারি নাশকতার ১২ মামলায় ইশরাক হোসেন হাইকোর্ট থেকে ছয় সপ্তাহের আগাম জামিন পান।

আসামিপক্ষের আইনজীবী তাহেরুল ইসলাম তৌহিদ জানান, ১২ মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেছিলেন ইশরাক। শুনানি শেষে ১১ মামলায় তার স্থায়ী জামিন মঞ্জুর করেন আদালত। তবে পল্টন থানার একটি মামলায় জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

গত বছরের ২৮ অক্টোবরে বিএনপির ডাকা মহাসমাবেশে সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাবেক মেয়র প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেনের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় নাশকতার অভিযোগে ১২টি মামলা করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: বিএনপি আদালত

আরও খবর



১০ হাজারের বেশি বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাবে যুক্তরাজ্য

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

Image

রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়ে অনেকেই যুক্তরাজ্যে আবেদন করেছিল। এদের মধ্যে যাদের আবেদন ব্যর্থ হয়েছে সেসব বাংলাদেশিকে ফাস্ট-ট্রাক (দ্রুত) পদ্ধতিতে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাবে দেশটি।

গত এক বছরে শুধুমাত্র স্থায়ীভাবে থাকার প্রয়াসে প্রায় ১১ হাজার বাংলাদেশি রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন জমা দিয়েছে। দেশটির গণমাধ্যম টেলিগ্রাফে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবদনে বলা হয়েছে, আশ্রয়ের আবেদন খারিজের পাশাপাশি যারা বিদেশি অপরাধী ও যাদের ভিসার বৈধ মেয়াদ অতিবাহিত হয়ে গেছে তাদেরকেও ফেরত পাঠানো হবে বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসীদের ফেরত পাঠানো সহজ করতে বাংলাদেশের সঙ্গে একটি নতুন চুক্তি করেছে যুক্তরাজ্য। লন্ডনে দুই পক্ষের মধ্যে চুক্তিটি হয়।

যুক্তরাজ্যের অবৈধ অভিবাসনবিষয়ক মন্ত্রী মাইকেল টমলিনসন বলেছেন, লন্ডনে অনুষ্ঠিত স্বরাষ্ট্রবিষয়ক যুক্তরাজ্য-বাংলাদেশ প্রথম যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে চুক্তির ব্যাপারে দুই দেশ সম্মত হয়। ওয়ার্কিং গ্রুপে উভয় দেশ অংশীদারত্ব জোরদারে অঙ্গীকার করে। পাশাপাশি অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক বিষয়ে সহযোগিতা জোরালো করতে প্রতিশ্রুতি দেয়।

ওয়ার্কিং গ্রুপ বিদ্যমান ভিসা রুটগুলোর মাধ্যমে বৈধ অভিবাসনের সুবিধা অব্যাহত রাখা, অবৈধ অভিবাসন মোকাবিলা, তথ্য ভাগাভাগি জোরদার করা, গুরুতর সংগঠিত অপরাধ মোকাবিলায় নিজ নিজ পন্থা সম্পর্কে পরস্পরের সঙ্গে বোঝাপড়া বাড়ানোর ব্যাপারেও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়।


আরও খবর