আজঃ শুক্রবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

পিরোজপুরে প্রশাসনকে সাবেক এমপি আউয়ালের হুমকি

প্রকাশিত:সোমবার ০১ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০১ নভেম্বর ২০২১ | ৫০১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পিরোজপুরের নাজিরপুরে আওয়ামী লীগের সম্প্রীতি সমাবেশে প্রশাসনকে হুমকি দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সাংসদ এ কে এম এ আউয়াল।

গতকাল রোববার বেলা তিনটা থেকে রাত পৌনে আটটা পর্যন্ত উপজেলা সদরের স্বাধীনতা মঞ্চে ওই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার পর ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগ এই সম্প্রীতি সমাবেশের আয়োজন করে।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেওয়ার সময় এ কে এম এ আউয়াল নাজিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) উদ্দেশে বলেন, দেশে আওয়ামী লীগের সরকার। সেই দলের আমি জেলা সভাপতি। আমার কথা শুনবেন না, শুনবেন খুনিদের কথা। সেটা শোনা যাবে না।

এ সময় তিনি আরো বলেন, আপনাদের যাঁরা গুরু, তাঁরা কিন্তু আমাকে স্যার বলেন। আমি ডকুমেন্ট তৈরি করে ফেলেছি। আপনারা কে কোথায় কী বলেন। কার নামে কাজ নিয়েছেন। কে কাজ তৈরি করে, আমি জানি। সব রেকর্ড কাগজ-কলমে কথা বলবে। যদি কাজ শুরু হয় এগোতে পারবেন না।

তার ওই বক্তব্যে উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের মধ্যে বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। সোমবার উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরে তার ওই বক্তব্য নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠে।

এ সময় তিনি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে উপস্থিত জনতাকে ধর্মীয় প্রতিজ্ঞা করিয়ে বলেন, আপনারা নৌকার পক্ষে কাজ করবেন ও ভোট দিবেন। ওই সমাবেশে উপস্থিত বক্তাদের মধ্যে জেলা আ.লীগের দপ্তর সম্পাদক শেখ ফিরোজ আহম্মেদ ছাড়া সকলেই নৌকার পক্ষে ভোট চান। ওই সমাবেশে উপজেলার দীর্ঘা, শাঁখারীকাঠী ও শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও ভোট চেয়ে বক্তব্য রাখেন।  

উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ছিদ্দিকুর রহমান তুহিন (চশমা প্রতীক) অভিযোগ করে বলেন, রোববার বিকালে সম্প্রীতি সমাবেশের নামে শ্রীরামকাঠীসহ উপজেলার ৩ ইউনিয়নের আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্ধারিত প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাওয়া ও বিরোধী মতাদর্শের ভোটারদের হুমকি-ধামকি দেয়া হয়েছে। ভোটারদের প্রতিজ্ঞা করিয়ে ভোট চাওয়ায় তাদের ভোটাধিকার ক্ষুন্ন করা হয়েছে। একই অভিযোগ উপজেলা ৩ ইউনিয়নের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ছিদ্দিকুর রহমান জানান, নির্বাচনের আগে প্রার্থীর পক্ষে কোন বড় জনসমাবেশে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়। তবে ওই সমাবেশের অনুমতি দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ওবায়দুর রহমান বলেন, আ.লীগের পক্ষে সম্প্রীতি সমাবেশের কথা বলে সমাবেশের অনুমতি নেয়া হয়েছে। নির্বাচনী সমাবেশের কথা বলা হয় নি। 

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মণীন্দ্র নাথ মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সমাবেশে বক্তব্য দেন নাজিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অমূল্য রঞ্জন হালদার, মঠবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র রফিউদ্দিন আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কানাই লাল বিশ্বাস প্রমুখ।  

উল্লেখ্য, ১১ নভেম্বর নাজিরপুর উপজেলার শ্রীরামকাঠি, শাঁখারিকাঠি ও দীর্ঘা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সম্প্রীতি সমাবেশে আউয়াল উপস্থিত জনতাকে শপথ করিয়ে বলেন, আপনারা নৌকার পক্ষে কাজ করবেন ও ভোট দেবেন। সমাবেশে বেশির ভাগ বক্তা নৌকার পক্ষে ভোট চান। সমাবেশে উপজেলার শ্রীরামকাঠি, শাঁখারিকাঠি ও দীর্ঘা ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও ভোট চেয়ে বক্তব্য দেন। নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে তাঁরা বড় ধরনের সমাবেশের আয়োজন করে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে ভোট চান। এসব ঘটনায় উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও ইউপি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।


আরও খবর



আজ থেকে চলবে না লঞ্চ

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | ৬০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডিজেলের দাম লিটার প্রতি ১৫ টাকা করে বাড়ানোর প্রতিবাদের ট্রাক-লরি ও বাসের পর এবার লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। শনিবার লঞ্চ মালিকদের সংগঠন ডাকা জরুরি বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সংগঠনের সদস্য ও অ্যাডভেঞ্চার লঞ্চের মালিক নিজামউদ্দিন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিজামউদ্দিন বলেন, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ায় আমাদের পক্ষে লঞ্চ চালানো সম্ভব নয়। সেজন্য আমরা আজ থেকেই লঞ্চ না চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সদরঘাট ছাড়াও দেশের কোথায় আজ থেকে লঞ্চ চলবে না।

গত বৃহস্পতিবার ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়ানোর পর শুক্রবার থেকে ধর্মঘটের ঘোষণা দেয় পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সংগঠনগুলো। তারা পরিবহনের ভাড়া বাড়ানোর দাবি তুলেছে। তাদের দাবির মুখে রবিবার বিআরটিএ বৈঠক ডেকেছে।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ধর্মঘট তুলে নিতে আহ্বান জানালেও রবিবার বৈঠকের আগে তা তুলতে নারাজ পরিবহন মালিকরা। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া ধর্মঘট আজ দ্বিতীয় দিনে গড়িয়েছে। এর ফলে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি থামছে না। এমন অবস্থার মধ্যে আজ থেকে লঞ্চ না চালানোর সিদ্ধান্ত নেয় লঞ্চ মালিকরাও।



আরও খবর
১২ ডিসেম্বর মেট্রোরেল চলবে

শুক্রবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২১

দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




তাজরীন ট্র্যাজেডি ৯ বছর: দুঃসহ যন্ত্রণায় ভুগছে বেঁচে যাওয়া শ্রমিকরা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ নভেম্বর ২০২১ | ৪০০জন দেখেছেন

Image

সাভার থেকে আসাদুজ্জামান খাইরুল

আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুরে তাজরীন ফ্যাশনে অগ্নিকাণ্ডের ৯বছর পূর্ণ হলো আজ। ২০১২ সালের ২৪শে নভেম্বর সেই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড কেড়ে নেয় ১১৩জন শ্রমিকের প্রাণ। পঙ্গু হয়ে সংসারের বোঝা হয়েছেন কয়েক'শ শ্রমিক। যারা এখনো ভুলতে পারেন না দুর্বিষহ সেই স্মৃতি।

তাজরীন ফ্যাশন নামের আটতলা পোশাক কারখানাটি ৯ বছর ধরে নিশ্চিন্তপুরবাসীর কাছে বধ্যভূমি হয়ে আছে। আগুনে আটতলা ভবনটির প্রায় সব মালামাল পুড়ে যায়। যার চিহ্ন এখনো রয়েছে ভবনটির গায়ে। মালামালের সঙ্গে পুড়ে যায় সেখানে কর্মরত অধিকাংশ শ্রমিক ও তাদের স্বজনদের স্বপ্ন।

সংসারে সচ্ছলতা আনতে গিয়ে ওই পোশাক কারখানায় যারা কাজ করছিলেন, তারা উল্টো সংসারের বোঝায় পরিণত হয়েছেন। সব হারিয়ে গত ৯ বছরে নিশ্চিন্তপুর ছেড়ে চলে গেছেন প্রায় সব শ্রমিক ও তাদের পরিবারের সদস্যরা। কেউবা সেখানে থেকে আশপাশের পোশাক কারখানায় কাজ নিয়েছেন। কিন্তু অন্য শ্রমিকদের মতো স্বাভাবিক কাজের মানসিকতা আজও ফিরে পাননি তারা। এক অজানা আতঙ্ক এখনো তাদের পিছু তাড়া করছে।

অগ্নিকাণ্ড আহত জরিনা বেগম (২৬) নামের এক শ্রমিক আগুনের হাত থেকে বাঁচতে পাঁচতলা থেকে মাটিতে লাফিয়ে পড়েছিলেন। এখন স্থানীয় অন্য একটি কারখানায় কাজ করছেন। কিন্তু সেই দুর্বিষহ স্মৃতি আজও ভুলতে পারেননি তিনি। জরিনা বেগম বলেন, দগ দগ কইরা আগুন জ্বলছিল। সিঁড়ি দিয়ে নামতে যাইয়্যা দেখি তালা দেওয়া। উপায় না পাইয়া পাঁচতলা থেইকা লাইফা পড়ি। তারপর আর কইতে পারি না। 

জরিনার ক্ষোভ, প্রথমে আগুনের বিষয়টি বুঝতে পেরে শ্রমিকরা বের হতে চাইলে মালিকপক্ষের লোকেরা একে গুজব বলে শ্রমিকদের কাজ করতে বলেন। এমনকি,  শ্রমিকরা যেন বের হতে না পারে, সে জন্য কারখানার সিঁড়ির প্রধান ফঁটকেও তালা ঝুঁলিয়ে দেওয়া হয়েছিলো। এর ফলেই এত প্রাণহানি ঘটে।

ঘটনার পর বিভিন্ন তদন্ত কমিটির অনুসন্ধানেও প্রাণহানির জন্য কারখানার মালিকপক্ষকে দায়ী করা হয়। ইনস্যুরেন্সের টাকা আদায়ের জন্য মালিকের নির্দেশে ইচ্ছাকৃতভাবে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ তোলে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন। এ ঘটনায় সে সময় দুটি মামলা হয়। যাতে তাজরীন ফ্যাশনের মালিক দেলোয়ার হোসেন গ্রেপ্তার হন। তবে বর্তমানে তিনি জামিনে রয়েছেন। মামলা দুটির তদন্ত এবং বিচারে ধীরগতির কারণে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করা যাবে কি না, সেই বিষয়টি নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স এর সাভার-আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি মোঃ ইমন শিকদার বলেন, তাজরীন ফ্যাশনের ট্রাজেডির দীর্ঘ ৯বছর অতিবাহিত হলেও আজও পর্যন্ত মালিক দেলোয়ারের সুষ্ঠ বিচার হয়নি। সে গ্রেফতার হলেও জামিনে বের হয়ে মহাসুখে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছে। অথচ অনেক হতাহত শ্রমিকরা এখনও মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। বর্তমানে যে সব শ্রমিকরা বিকলাঙ্গভাবে জীবন-যাপন করছে তাদের জন্য তাজরীন ফ্যাশনের পরিত্যক্ত ভবনটিতে বসবাসের সুযোগ করে দিলে তাহলে তারা একটু হলেও মনে প্রশান্তি পাবে বলেও এই শ্রমিক নেতা আশাবাদ ব্যাক্ত করেন। অন্যদিকে এ বিষয়ে বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অরেবিন্দু বেপারী বিন্দু বলেন, তোবা গ্রুপের প্রতিষ্ঠান তাজরিন ফ্যাশনের মালিক দেলোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে সুপরিকল্পিতভাবে কারখানায় আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়েছিলো। এঘটনায় ১১৪জন শ্রমিক অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু বরণ করেন। এই হত্যাযজ্ঞের কর্মকাণ্ডের মূলহোতা কারখানার মালিক দেলোয়ার হোসেনসহ দোষীদের এখন পর্যন্ত শাস্তি হয়নি। নিহত শ্রমিকের পরিবার ও আহত শ্রমিকরা সম্মানজনক ক্ষতিপূরণ বাবদ টাকা পয়সাও পায়নি। আর্থিক ক্ষতিপূরণ, পূর্ণবাসন ও সুচিকিৎসার অভাবে শ্রমিকরা এখনও মানবেতর জীবন-যাপন করছে। এবিষয়ে সরকারের নজর থাকলেও কোনো প্রকার শ্রমিকদের সহায়তা করছে না। কারখানার মালিক গ্রেপ্তার হয়েছিলো বটে নামমাত্র কিন্তু জামিনে বের হয়ে শরীরে হাওয়া লাগিয়ে ঠিকই ঘুরে বেড়াচ্ছে। তাই হত্যাকারীদের যথাযথ শাস্তির আওতায় আনাসহ নিহতের পরিবার ও আহতদেরকে পুর্নবাসন এবং আর্থিক ক্ষতিপূরণ দিতে জোর দাবী জানাচ্ছি।

২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর তুবা গ্রুপের মালিকানাধীন তাজরীন ফ্যাশনস লিমিটেডে অগ্নিকাণ্ডে সরকারি হিসাবে প্রাণ হারান ১১১জন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আরো দুজন। বহু শ্রমিক জীবন বাঁচাতে ভবন থেকে লাফিয়ে পড়েন মাটিতে। তাদের অনেককে বিকলাঙ্গ জীবন যাপন করতে হচ্ছে।


আরও খবর



নিউজিল্যান্ড সফরেও নেই তামিম

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ নভেম্বর ২০২১ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে থাকা তামিম ইকবাল ফেরার কথা ছিল পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে। কিন্তু নেপালে খেলতে যাওয়া এভারেস্ট প্রিমিয়ার লিগে আঙুলে চোট পান তিনি।

পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ শুরু হওয়ার আগে তা সেরে উঠার কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে এসে উল্টো ব্যাথা বাড়তে থাকে। পরে চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার পর জানা গেল পাকিস্তান সিরিজে থাকছেন না তিনি। চোট বেশি পাওয়ার কারণে এবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তার থাকা নিয়ে জেগেছে শঙ্কা।

তামিমের ব্যাপারে বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেছেন, আজ সে লন্ডনে ডাক্তারের সঙ্গে দেখা করেছে। অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন নেই বলে জানালেও ডাক্তার তাকে এক মাসের বিশ্রাম দিয়েছে। অর্থাৎ সে নিউজিল্যান্ড সফরেও যেতে পারছে না। 

নিউজ ট্যাগ: তামিম ইকবাল

আরও খবর



সু চির দুই নেতার মোট ১৬৫ বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশিত:বুধবার ১০ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১০ নভেম্বর ২০২১ | ৫২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়ায় মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী অং সান সু চির দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসির দুই নেতাকে মোট ১৬৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ওই দুই নেতা হলেন থান নাইং, যাকে ৯০ বছর এবং অপরজন হলেন নান খিন মিয়ন্ত, যাকে ৭৫ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। বুধবার (১০ নভেম্বর) তাদের আইনজীবীদের বরাতে এ খবর জানায় ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান।

সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে বলা হয়, কাইন প্রদেশের সাবেক পরিকল্পনামন্ত্রী থান নাইংয়ের বিরুদ্ধে দুর্নীতির ছয়টি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে ৯০ বছর সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

অন্যদিকে, প্রদেশটির সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ৬৭ বছর বয়সী নান খিন মিয়ন্তের বিরুদ্ধে মোট পাঁচটি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে ১৫ বছর করে মোট ৭৫ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

সংবাদমাধ্যমটি জানায়, সু চির রাজনৈতিক দলের গ্রেপ্তার হওয়া নেতাদের মধ্যে এই প্রথম কাউকে এত গুরুতর সাজা দেওয়া হলো।


আরও খবর
ভারতে ধরা পড়ল ওমিক্রন

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে ব্রাজিল

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | ৬০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে উড়ছে ব্রাজিল। গত ১১ ম্যাচের সবগুলোতে অপরাজিত থাকা সেলেকাওদের পরাজিত করতে পারেনি কলম্বিয়াও।

ঘরের মাঠে কলম্বিয়ার বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে জয় পেয়ে কাতার বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব নিশ্চিত করলো তিতের শিষ্যরা। 

সাও পাওলোতে শুক্রবার (১২ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় সাড়ে ছয়টায় শুরু হওয়া ম্যাচটির ৭২তম মিনিটে নেইমারের সহায়তায় একমাত্র গোলটি করেন দলকে জয় এনে দেন লুকাস পাকেতা। 

ঘরের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকে প্রতিপক্ষকে চাপে রেখেছিল ব্রাজিল। তবে দুর্বল সুযোগের কারণে গোলের দেখা পাচ্ছিল না সেলেকাওরা। ২৭তম মিনিটে নেইমারের শট রুখে দেন কলম্বিয়া গোলরক্ষক ওসপিনা। ২৬তম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত ব্রাজিল। কিন্তু গোলপোস্টের খুব কাছে বল নিয়ে যাওয়া দানিলোর শট প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। ৩৯তম মিনিটে কলম্বিয়া ফরোয়ার্ড লুইস দিয়াসের দুর্দান্ত শট অল্পের জন্য জালে ভেড়ায়নি। ফলে গোলশূণ্য ড্র নিয়ে বিরতিতে যায় দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ ছিল ব্রাজিলের। কিন্ত গ্যাব্রিয়েল জেসুসের বুলেট শট সহজেই ঠেকিয়ে দেন ওসপিনা। ৫৮তম মিনিটে নেইমারের ফ্রি-কিক ঝাপিয়ে ঠেকান এই গোলরক্ষক। ৬৯তম মিনিটে অ্যান্তনির ক্রস হেডে জালে ভেড়াবার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন ম্যাথিউস কুনিয়া। ৭২তম মিনিটে অবশেষে গোলের দেখা পায় স্বাগতিকরা। নেইমারের দেওয়া দারুণ পাস কাজে লাগিয়ে প্রথম শটেই কলম্বিয়ার জাল খুঁজে নেন লুকাস পাকেতা। অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটে কুনিয়ার শট ওসপিনা ফিরিয়ে দিলে ১-০ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল। 

এ জয়ে বাকি এক ম্যাচ হাতে রেখেই বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে জায়গা করে নিয়েছে ব্রাজিল। ১২ ম্যাচে ১১ জয় ও ১ ড্রয়ে শীর্ষে থেকেই পরবর্তী পর্ব নিশ্চিত করলো নেইমারবাহিনী। এক ম্যাচ কম খেলা আর্জেন্টিনা ২৫ পয়েন্ট নিয়ে অবস্থান করছে দুইয়ে। এ ম্যাচ হেরে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পাঁচে রয়েছে কলম্বিয়া।

নিউজ ট্যাগ: ব্রাজিল

আরও খবর