আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম

পদ্মা সেতুতে বদলে যাবে দেশ, প্রবৃদ্ধি বাড়বে ২ শতাংশ

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ জুন 20২২ | ২৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সব বাধা-বিপত্তি দূর করে আগামী ২৫ জুন সর্ব সাধারণের জন্য উন্মুক্ত হতে যাচ্ছে সর্বনাশা পদ্মার বুকে নির্মিত স্বপ্নের সেতু। দেশের জিডিপির প্রবৃদ্ধিতে এক দশমিক ২৩ শতাংশ অবদান রাখবে এ সেতু। আর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জিডিপি বাড়বে ২ দশমিক ৩ শতাংশ। পদ্মা সেতু চালু হলে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের পিছিয়ে পড়া ২১টি জেলা উপকৃত হবে। জেলাগুলো হচ্ছে- খুলনা বিভাগের খুলনা, বাগেরহাট, যশোর, সাতক্ষীরা, নড়াইল, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, ঝিনাইদহ ও মাগুরা; বরিশাল বিভাগের বরিশাল, পিরোজপুর, ভোলা, পটুয়াখালী, বরগুনা ও ঝালকাঠি এবং ঢাকা বিভাগের গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, মাদারীপুর, শরীয়তপুর ও রাজবাড়ী।

তবে পদ্মা সেতুর আরও সুফল পেতে দক্ষিণাঞ্চলে পোশাক ও পর্যটনসহ নানা খাতে বিনিয়োগ জরুরি বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদরা। পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর বলেন, দক্ষিণাঞ্চলে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বাড়াতে হবে, যাতে করে বিদেশি বিনিয়োগ আসে। দেশের দক্ষিণাঞ্চলে যত বেশি অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বৃদ্ধি পাবে, জিডিপিতে এর অবদান তত বেশি হবে। পদ্মা সেতু চালু হলে দক্ষিণাঞ্চলের পণ্য আমদানি সহজ হবে। মালামাল দ্রুত সময়ে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাবে। প্রবৃদ্ধি এক থেকে সর্বোচ্চ দুই শতাংশ বাড়বে। পদ্মা সেতুর সর্বোচ্চ বেনিফিট (উপকার) পেতে দক্ষিণাঞ্চলে বিনিয়োগ দরকার। সবখাতে বিনিয়োগ হতে পারে। এর ফলে দেশে কর্মসংস্থান বাড়বে। কুয়াকাটায় আরও বিনিয়োগ করতে হবে। মানুষ কক্সবাজার বাদ দিয়ে কুয়াকাটায় যাবে।

অর্থনীতিবিদদের মতে, পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর দেশের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার অর্থনৈতিক অবস্থার আমূল পরিবর্তন ঘটবে। এই একটি সেতুতেই এ অঞ্চলের মানুষের ভাগ্য বদলে যাবে। মোংলা ও পায়রা বন্দরের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন হবে। পদ্মা সেতুর মাধ্যমে বাংলাদেশ এশিয়ান হাইওয়েতে যুক্ত হবে, যা অর্থনীতিকে নতুন মাত্রা দেবে। এই বৃহৎ অঞ্চলে গড়ে উঠবে শিল্প প্রতিষ্ঠান ও ইপিজেড। পিছিয়ে পড়া এই অঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে। সারাদেশের অর্থনীতিতে এর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের পিছিয়ে পড়া ২১টি জেলা দীর্ঘদিন অবহেলিত থাকলেও বর্তমান সরকার দায়িত্ব নেওয়ার পর এসব জেলায় উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রয়েছে। বিশদভাবে বলতে গেলে এই সেতু দক্ষিণ এশিয়া ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার যোগাযোগ, বাণিজ্য ও পর্যটনসহ অনেক ক্ষেত্রেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। পদ্মা সেতুর কারণে জিডিপিতে অতিরিক্ত ১০ বিলিয়ন ডলার যোগ হবে, যা সেতুটির ব্যয়ের প্রায় তিনগুণ বেশি।

গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) বিশেষ ফেলো ড. মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, পদ্মা সেতু আমাদের গর্বের বিষয়। এটি শুধু সেতুই নয়, পদ্মা সেতু হবে অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি। এর ফলে আমাদের ভৌগোলিক যে বিভাজন ছিল, তাতে সংযোজন স্থাপন হবে এবং এর মাধ্যমে বাংলাদেশ একটা একীভূত অর্থনীতি হিসেবে আবির্ভূত হবে। পদ্মা সেতুর ফলে আমাদের বিনিয়োগ, বিতরণ ও বিপণনগুলোতে যে সাশ্রয় হবে, সেটা আমাদের অর্থনীতিতে ইতিবাচকভাবে ভূমিকা রাখবে। এছাড়া ব্যাপক কর্মসংস্থান হবে। এরই মধ্যে পদ্মার করিডোরের পাশ দিয়ে বিনিয়োগের বিভিন্ন ধরনের সাইনবোর্ড দেখা যাচ্ছে। তবে এসব বিনিয়োগে যে কর্মসংস্থান হবে, সেগুলো আমাদের অর্থনীতিতে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে অবদান রাখবে বলে আমরা মনে করছি।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতুর সঙ্গে যেগুলো হওয়ার কথা যেমন: বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল, ইন্ডাসট্রিয়াল পার্ক এগুলোও হতে হবে। এগুলোর জন্য আমাদের দক্ষ জনশক্তি প্রস্তুত করতে হবে। সুতরাং সেতু খোলার পরবর্তীতে যে কাজগুলো করার কথা, সেগুলো করতে পারলে সম্ভাব্য যে জিডিপিতে অবদান সেটা অনেক বেশি হবে। সরকারের ভাষ্য অনুযায়ী ১ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি বাড়বে। তবে এটা বেশিও হতে পারে। যদি আমরা অর্থনৈতিক অঞ্চল ও বিনিয়োগ বাড়াতে পারি, তবে জিডিপি প্রবৃদ্ধি বেশি হবে। তবে এটা স্বয়ংক্রিয়ভাবে হবে না। মূলত পরিকল্পনা অনুযায়ী অর্থনৈতিক অঞ্চল, বিনিয়োগ, ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক ও পর্যটন খাতের ব্যাপক উন্নয়নে এটা সম্ভব হবে।

এ সেতুর মাধ্যমে সর্বনাশা পদ্মার বুকে স্বপ্ন জেগে উঠেছে বলে মনে করেন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীরা। বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, পদ্মা ছিল কীর্তিনাশা পদ্মা, এখন হয়ে যাবে কীর্তিমান পদ্মা। এর ওপর দিয়ে আমাদের নতুন সফলতা গাঁথা হবে। তৈরি হবে নতুন ইতিহাস। পাথরে না লিখে, হৃদয়ে লেখা হোক না, শেখ হাসিনার নাম। পদ্মা সেতু যতদিন থাকবে, আমরা এই নাম হৃদয়ে নিয়েই চলবো। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, দাবায়ে রাখতে পারবা না। তার উত্তরসূরি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কিন্তু একই সুরে বলেছিলেন, বন্ধ করতে পারবা না। বিশ্বব্যাংক অনেক কথা বললো, টাকা দিলা না তোমরা। কিন্তু আমরা অতিক্রম করবোই। সেই সাহস, তেজোদ্দীপ্ত ঘোষণাই আজকের পদ্মা সেতু।

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেন, পদ্মাসেতু উদ্বোধনের পর দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার যোগাযোগ সহজ হবে। পাশাপাশি পণ্য পরিবহন ও যান চলাচল ব্যাপক বেড়ে যাবে। সে কারণে আমাদের যে পণ্য আছে, সেগুলো সহজেই ঢাকা আসবে। আবার ঢাকা থেকেও সহজেই পণ্য নিয়ে যাওয়া যাবে। এই আসা-যাওয়ার ফলে অনেক কর্মকাণ্ড সৃষ্টি হবে। পণ্যের সহজলভ্যতা বাড়বে। সে কারণে বাজারে চাহিদা সৃষ্টি হবে। আমাদের যে ওয়াইডার (বিস্তীর্ণ) ইকোনমিক মার্কেট, সেগুলো আরও ইন্টিগ্রেটেড (সমন্বিত) হবে। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের প্রভাব সরাসরি দেশের অর্থনীতিতে পড়বে। যার ফলে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ১ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়বে। এছাড়া কর্মসংস্থান বাড়ার ফলে এই এলাকার বেকারত্ব দূর হবে। যার ফলে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিত হয়ে দেশের অর্থনীতি শক্তিশালী হবে।

পদ্মাসেতুর অর্থনৈতিক প্রভাব পুরোদেশে ছড়িয়ে পড়বে দাবি করে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, যাতায়াতে খেয়াল করলে এর অবদান সরাসরি দেখা যাবে। পদ্মা সেতু চালু হলে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় চাপ কমবে। আর সেখানে চাপ কমলে যমুনা সেতুতে চাপ কমবে। সুতরাং পদ্মা সেতু শুধু দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের আশীর্বাদ নয়, দেশের উত্তর, পূর্ব, দক্ষিণ ও পশ্চিম সব দিকে এ সেতুর প্রভাব ছড়িয়ে যাবে।


আরও খবর



কমতে পারে স্বর্ণালঙ্কারের দাম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৯ জুন ২০২২ | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাজেটে স্বর্ণ আমদানিতে অগ্রিম কর বিলোপের প্রস্তাব করা হয়েছে। জুয়েলারি শিল্পের ব্যাপক বিকাশ ও সরকারের রাজস্ব বাড়ানোর লক্ষ্যে এ প্রস্তাব করা হয়। ফলে দেশের বাজারে স্বর্ণালঙ্কারের দাম আগের তুলনায় কমতে পারে।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপনকালে অর্থমন্ত্রী এ কথা জানান। ২০২২-২৩ অর্থবছরের ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকার এ বাজেট প্রস্তাব করেন মন্ত্রী।

অর্থমন্ত্রী বলেন, স্বর্ণখাতকে নিয়মতান্ত্রিক কাঠামোর অধীনে পরিচালনার মাধ্যমে সরকারের রাজস্ব আয় বাড়ানোর লক্ষ্যে ২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর স্বর্ণ আমদানি নীতিমালা ২০১৮’ প্রণীত হয়। এ নীতিমালা প্রণয়ণের পর সরকারি নিয়মনীতি অনুসরণ করে স্বর্ণ আমদানি করার লক্ষ্যে বেসরকারি পর্যায়ে বেশ কিছু উদ্যোক্তা তৈরি হয়েছে এবং উৎসাহ দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, দেশে বৈধপথে স্বর্ণ আমদানি উৎসাহিত করা এবং স্বর্ণ চোরাচালান বন্ধ করার লক্ষ্যে স্বর্ণ আমদানিতে বিদ্যমান অগ্রিম কর বিলোপের প্রস্তাব করছি। এতে জুয়েলারি শিল্পের ব্যাপক বিকাশ ঘটবে এবং সরকারের কর রাজস্ব বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করছি।

করোনাভাইরাসের অভিঘাত পেরিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় প্রত্যাবর্তনের লক্ষ্য নিয়ে প্রস্তাবিত ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটের আকার হচ্ছে ছয় লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকা। এবারের বাজেটের আকার যেমন বড়, তেমনি এ বাজেটে ঘাটতিও ধরা হয়েছে বড়।

অনুদান বাদে এ বাজেটের ঘাটতি দুই লাখ ৪৫ হাজার ৬৪ কোটি টাকা, যা জিডিপির সাড়ে ৫ শতাংশের সমান। আর অনুদানসহ বাজেট ঘাটতির পরিমাণ দুই লাখ ৪১ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা, যা জিডিপির ৫ দশমিক ৪০ শতাংশের সমান।

এটি বর্তমান সরকারের ২৩তম এবং বাংলাদেশের ৫১তম ও বর্তমান অর্থমন্ত্রীর চতুর্থ বাজেট। বাজেটে সঙ্গত কারণেই মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ, কৃষিখাত, স্বাস্থ্য, মানবসম্পদ, কর্মসংস্থান ও শিক্ষাসহ বেশকিছু খাতকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



হঠাৎ বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ওপরে মনু নদীর পানি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২১ জুন ২০২২ | ৩৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মৌলভীবাজারে মনু নদীর পানি হঠাৎ বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর ফলে এলাকাবাসীর মধ্যে গভীর আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

সোমবার (২০ জুন) সন্ধ্যা ৬টায় শহরের চাঁদনীঘাট ব্রিজ পয়েন্টে বিপৎসীমার ৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়। 

মৌলভীবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আক্তারুজ্জামান, দুপুর থেকে মনু নদীর পানি বিপৎসীমার কাছাকাছি ছিল। কিন্তু তিন ঘণ্টা পর তা বেড়ে যায়। আমি এবং পৌরসভার মেয়র মহোদয় সার্বক্ষণিক মৌলভীবাজার সদর উপজেলার চাঁদনিঘাট পয়েন্টে অবস্থান করছি।

মনু নদীর পানি ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাওয়ায় গতকাল রাত থেকে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ এবং স্থানীয় জনগণ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। জেলা প্রশাসন এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জনগণকে সতর্ক করার জন্য ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় জেলার প্রধানতম নদীগুলোর মধ্যে কুশিয়ারার পানি বিপৎসীমার ২২ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া ধলাই নদীর পানি বিপৎসীমার ৮ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে চাঁদনীঘাট ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় মনু নদীর পানির বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। প্রতি ঘণ্টায় এসব নদ-নদীতে ৫ সেন্টিমিটার করে পানি বাড়ছে। তবে ২-১ দিনের মধ্যে পরিস্থিতির উন্নতি হবে বলে মন্তব্য করেছেন মৌলভীবাজার পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আক্তারুজ্জামান।


আরও খবর



ইন্দোনেশিয়ায় বাণিজ্যমন্ত্রী বরখাস্ত

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ জুন ২০২২ | ২৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইন্দোনেশিয়ায় পাম তেল রপ্তানি নিয়ে চরম বিশৃঙ্খলা দেখা দিয়েছে। বেশ কয়েকবার নীতি পরিবর্তন করায় তৈরি হয়েছে বিতর্ক। এমন পরিস্থিতির মধ্যে দেশটির প্রেসিডেন্ট জোকো উইদুদো মন্ত্রিসভায় পরিবর্তন আনার ঘোষণা দিয়েছেন। বরখাস্ত করা হয়েছে বাণিজ্যমন্ত্রীকে। বুধবার (১৫ জুন) রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, অন্যান্য পরিবর্তনের পাশাপাশি দেশটিতে নতুন বাণিজ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন জুলকিফলি হাসান। তিনি ন্যাশনাল ম্যানডেট পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক বনমন্ত্রী। সদ্য পদচ্যুত বাণিজ্যমন্ত্রী মুহাম্মাদ লুতফি অভ্যন্তরীণ দাম নিয়ন্ত্রণে বেশ কিছু ব্যর্থ পদক্ষেপ নেন, যার মধ্যে রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা ছিল অন্যতম। পাম তেল রপ্তানিতে ইন্দোনেশিয়া হচ্ছে বিশ্বে শীর্ষ দেশ। দেশটির তিন সপ্তাহের রপ্তানি নিষেধাজ্ঞায় বাংলাদেশসহ বিশ্ব বাজারে ব্যাপক নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। ২৩ মে রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার আগে দুর্নীতির অভিযোগে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়।

প্রেসিডেন্ট বলেছেন, জুলকিফলির মাঠে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। সে চলমান সমস্যার সমাধান করতে পারবে বলেও জানান তিনি। এদিকে নতুন মন্ত্রী তার নিয়োগের পরে বিশেষ করে রান্নার তেলের প্রাপ্যতা ও ক্রয় ক্ষমতার সমস্যাগুলো দ্রুত সমাধান করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

নিউজ ট্যাগ: ইন্দোনেশিয়া

আরও খবর



প্রকৌশলীর বাসা থেকে গৃহপরিচারিকার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:সোমবার ২০ জুন ২০22 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ জুন ২০22 | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী মুন্সি শহিদ উদ্দিন মো. তারেকের শহরের বাসা বাড়ি থেকে রুবিয়া (১৪) নামের এক গৃহপরিচারিকার ঝুলন্ত মরদেহ পুলিশ উদ্ধার করেছে। রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে শহরের কাটাইখানা মোড়স্থ আব্দুল জব্বার সড়কের ওই বাসা বাড়ির গেস্ট রুমের দরজা ভেঙে ওই গৃহপরিচারিকার মরদেহ পুলিশ উদ্ধার করে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, গত প্রায় এক মাস ধরে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী মুন্সি শহিদ উদ্দিন মো. তারেকের বাসা বাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ করে আসছিল রুবিয়া। সে রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার ভাতশালঅ গ্রামের মো: নবীর মেয়ে। 

ওই বাড়ির মালিক প্রকৌশলী মুন্সি শহিদ উদ্দিন মো. তারেক জানান, বিকেল ৪টা থেকে ওই গৃহকর্মীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। তাকে না পেয়ে বাড়ির অন্য সদস্যরা অনেক খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে নিচ তলার গেষ্ট রুমের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে দরজা ভেঙে রুবিয়ার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। বাড়িওয়ালা প্রকৌশলী মুন্সি শহিদ উদ্দিন মো. তারেক আরো বলেন, ঘটনার সময় তিনি অফিসে ছিলেন।

কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাব্বিরুল আলম জানান, ওই কিশোরীর মানসিক সমস্যা ছিল। মানসিক সমস্যা থেকে মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে বলে তিনি দাবি করেন।

 


আরও খবর



যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ৩

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১০ জুন ২০২২ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যে বন্দুকধারীর গুলিতে তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন আরও একজন। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (৯ জুন) মেরিল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলে একটি কারখানায় একজন বন্দুকধারী তার সহকর্মীদের ওপর গুলিবর্ষণ করলে হতাহতের এই ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত বন্দুকধারীকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। অবশ্য তার আগে পুলিশকে লক্ষ্য করেও গুলি ছোঁড়ে সে।

শুক্রবার (১০ জুন) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

বন্দুকধারীর গুলিতে হতাহতের ঘটনার পর এক সংবাদ সম্মেলনে ওয়াশিংটন কাউন্টি শেরিফ ডগলাস মুলেনডোর বলেন, হামলাকারী যুবকের বয়স ২৩ বছর। বন্দুক হামলা চালিয়ে একটি গাড়িতে করে পালানোর চেষ্টা করার সময় মেরিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যের এক নিরাপত্তা কর্মীর সাথে বন্দুকযুদ্ধে সে আহত হয় এবং পরে তাকে হেফাজতে নেওয়া হয়।

অবশ্য অভিযুক্ত ওই যুবকের নাম জানাননি তিনি। এছাড়া সন্দেহভাজন হামলাকারী ওই যুবক ও নিরাপত্তা কর্মী উভয়েই বন্দুকের গুলিতে আহত হওয়ায় চিকিৎসার জন্য তাদেরকে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়।

মুলেনডোর অবশ্য এই হামলার পেছনে প্রেক্ষপট বা সম্ভাব্য উদ্দেশ্য সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। তবে তিনি বলেছেন, বন্দুকধারী যুবক এবং তার গুলিতে হতাহতদের সকলেই পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের সীমান্তের কাছে উত্তর মেরিল্যান্ডের স্মিথসবার্গের কলম্বিয়া মেশিনের কর্মচারী।

তিনি আরও বলেন, হামলার সময় অভিযুক্ত যুবক একটি আধা-স্বয়ংক্রিয় পিস্তল হ্যান্ডগান ব্যবহার করে গুলিবর্ষণ করেছিল।


আরও খবর