আজঃ শুক্রবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

পাটুরিয়ায় ডুবে গেছে শাহ আমানত ফেরি

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ | ৩৫৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ায় ৫ নম্বর ফেরিঘাটে রো রো আমানত শাহ নামের একটি ফেরি ডুবে গেছে। বুধবার (২৭ অক্টোবর) সকাল পৌনে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তবে কি কারণে ফেরিটি ডুবে যায়, তা জানা যায়নি।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন আরিচা শাখার উপমহাব্যবস্থাপক মো. জিল্লুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ঘাট থেকে যানবাহন লোড করে পাটুরিয়ার ৫ নম্বর ফেরিঘাটে নোঙর করে রো রো ফেরি আমানত শাহ। ফেরি থেকে দুই থেকে তিনটি যানবাহন নামার পরপরই ফেরিটি ডুবে যায়।


আরও খবর
বগি লাইনচ্যুত, ট্রেন চলাচল বন্ধ

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




বুসান আন্তর্জাতিক মৎস্য মেলায় বাংলাদেশের উৎপাদিত মাছ প্রদর্শন

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দক্ষিণ কোরিয়ার বুসান আন্তর্জাতিক সামুদ্রিক খাদ্য ও মৎস্য মেলা ২০২১-এ সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাস অংশগ্রহণ করেছে। তিন দিনব্যাপী এ মেলায় বাংলাদেশের উৎপাদিত মাছ ও সামুদ্রিক খাদ্য প্রদর্শন করা হয়েছে।

শনিবার (৬ নভেম্বর) দক্ষিণ কোরিয়ার বাংলাদেশ দূতাবাস এ তথ্য জানায়।

দূতাবাস জানায়, গত ৩ থেকে ৫ নভেম্বর বুসান আন্তর্জাতিক সামুদ্রিক খাদ্য ও মৎস্য মেলা ২০২১ অনুষ্ঠিত হয়। গত কয়েক বছর মতো এবারও বাংলাদেশ মেলায় সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ নেয়। এই মেলার মাধ্যমে দেশের উৎপাদিত মাছ ও সামুদ্রিক খাদ্য প্রদর্শন করা হয়।

মেলাটি বুসান মেট্রোপলিটন সিটি কর্তৃপক্ষ ও বুসান এক্সিবিশন অ্যান্ড কনভেনশন সেন্টার (বেক্সকো), ন্যাশনাল ফেডারেশন অব ফিশারিজ কো-অপারেটিভ ও কোরিয়া ফিশারি ট্রেড অ্যাসোসিয়েশনের সম্মিলিত সহযোগিতায় আয়োজিত হয়ে আসছে।

এতে দক্ষিণ কোরিয়াসহ ১৪টি দেশ ও তাদের সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। ৫৫১টি বুথের (৩৬টি বিদেশি এবং ৫১৫টি কোরিয়ান) মাধ্যমে দেশগুলো সামুদ্রিক খাদ্য ও মৎস্য জাতীয় পণ্য আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তুলে ধরে।

দূতাবাস জানায়, এ মেলায় প্রতিদিন প্রায় ১০০ জন কোরীয় ও অন্যান্য দেশের দর্শনার্থী বাংলাদেশের প্যাভিলিয়ন ঘুরে দেখেছেন। তিন দিনব্যাপী এ মেলায় দেশের বিভিন্ন প্রজাতির মাছ বিশেষ করে- ইলিশ, রুই, পাঙ্গাস, তেলাপিয়া, শিং মাছ, বাগদা ও গলদা চিংড়ি, হরিনা চিংড়ি, মাড কাঁকড়া, ইল মাছ, কাটল মাছ, স্কুইড, ম্যাকারেল, চাইনিজ পমফ্রেট, সিলভার পমফ্রেট, সারডিন, লেদার জ্যাক মাছ, ছুরি মাছ, টুনা এবং হেলিবাট মাছ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দর্শনার্থীদের সামনে তুলে ধরা হয়।


আরও খবর
দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1

এএসপি হলেন ২২ পুলিশ কর্মকর্তা

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




কেন বিশ্বকাপে অপ্রতিরোধ্য দেখাচ্ছে বাবরের পাকিস্তানকে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর ২০২১ | ৪৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এ বারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে একটিও ম্যাচ না হেরে শেষ চারে উঠেছে পাকিস্তান। তারাই একমাত্র দল, যারা অপরাজিত। বিরাট কোহলীর ভারতকে হারিয়ে শুরু হয়েছিল পাকিস্তানের বিশ্বকাপ অভিযান। বুধবার তারা সেমিফাইনালে নামছে। বিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। দেখে নেওয়া যাক, কোন কারণে এ বার পাকিস্তান আক্ষরিক অর্থে অপ্রতিরোধ্য।

# শুরুতে দুই সেরা ব্যাটার

পাকিস্তান ক্রিকেটে বরাবরের একটা প্রথা, দলের সেরা ব্যাটারের পরের দিকে নামা। যেমন ইনজামাম উল হক বেশ কয়েক বছর ধরে পাঁচ নম্বরে নামতেন। কিন্তু এই বিশ্বকাপে দলের সেরা দুই ব্যাটার বাবর আজম ও মহম্মদ রিজওয়ান একেবারে ওপেন করতে নামছেন।

# পরিকল্পনা করা এবং তার সঠিক রূপায়ন

এটা পুরোটাই সম্ভব হয়েছে কোচ সাকলিন মুস্তাক ও ব্যাটিং কোচ ম্যাথু হেডেনের জন্য। কোনও ম্যাচে যদি এরকম পরিকল্পনা থাকে, শুরুতে বেশি ঝুঁকি না নিয়ে খেলে যাওয়া হবে, পরে রান রেট বাড়ানোর দিকে মন দেওয়া হবে, তা হলে বাবর আজম, শাহিন আফ্রিদিরা সেটাই করছেন। নিখুঁত পরিকল্পনা ছকে দেওয়ার কাজটা করছেন সাকলিন, হেডেন।

# দল নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষায় না যাওয়া

পাকিস্তান পাঁচটি ম্যাচেই এক দল খেলিয়েছে। ফখর জামান ব্যাট হাতে ছন্দে না থাকলেও, বা হাসান আলি প্রচুর রান দিলেও পাকিস্তান তাদের দলে কোনও বদল ঘটায়নি। তাদের সমানে সুযোগ দিয়ে যাচ্ছে। সাংবাদিক সম্মেলনে বাবর বলেই দিয়েছেন, ও যে কোনও দিন একার ক্ষমতায় ম্যাচের রঙ বদলে দিতে পারে। ওর প্রতি আমাদের অগাধ আস্থা আছে।

# ফিল্ডিংয়ে ব্যাপক উন্নতি

সাম্প্রতিক অতীতে পাকিস্তানের এত ভাল ফিল্ডিং দেখা যায়নি। গ্রুপের পাঁচটি ম্যাচে বল গলানো বা ক্যাচ ফস্কানোর ঘটনা পাকিস্তান দলে তেমন দেখা যায়নি। শাহিন আফ্রিদি একটি ক্যাচ ফেললেও পাঁচটি ম্যাচে একটি ক্যাচ পড়ার ঘটনা কোনও অনুপাতেই আসে না।

# চাপ সামলাতে শেখা

এ বারের বিশ্বকাপে পাকিস্তান দলকে দেখে মনে হচ্ছে, চাপ কী করে সামলাতে হয়, সেটা খুব ভাল ভাবে শিখে এসেছে তারা। বিশেষ করে ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচে পাকিস্তানের খেলা দেখে একটা সময়ের জন্যও মনে হয়নি, তাদের ক্রিকেটাররা বিন্দুমাত্র চাপে রয়েছে।


আরও খবর



ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও ১২৩ জন হাসপাতালে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত একদিনে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১২৩ জন। এরমধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ৯৪ জন এবং ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ২৯ জন নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম এসব তথ্য জানিয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, চলতি মাসে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ২৪২ জন। ডেঙ্গুতে প্রাণ হারিয়েছেন মোট ৯৭ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আরও জানায়, সারা দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে বর্তমানে ৫৯৪ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি আছে। এরমধ্যে ঢাকার বাসিন্দা ৪৭৮ জন। বাকি ১১৬ জন ঢাকার বাইরের অন্য বিভাগের।

চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ১৬ নভেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৫ হাজার ৮৯৭ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৫ হাজার ২০৬ জন।


আরও খবর
আরও ১০৮ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1

করোনায় মৃত্যু ৩, শনাক্ত ২৬১ জন

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




বিকালে বাসায় ফিরছেন খালেদা জিয়া

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৭ নভেম্বর ২০২১ | ৫৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

তিন সপ্তাহেরও বেশি সময় হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে বাসায় ফিরছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। রোববার বিকাল ৩টার পর তিনি রাজধানীর গুলশানের ভাড়া বাসা ফিরোজার উদ্দেশে হাসপাতাল ত্যাগ করবেন।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে টেলিফোনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান। ১২ অক্টোবর খালেদা জিয়াকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর পর ২৫ অক্টোবর তার অস্ত্রোপচার করা হয়। 

ওই দিন গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক জাহিদ হোসেন জানিয়েছিলেন, খালেদা জিয়ার একটি মাইনর অপারেশন করা হয়েছে। এখন তিনি আইসিইউতে আছেন। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক অধ্যাপক শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে মেডিকেল বোর্ডের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নেন সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এভারকেয়ার হাসপাতালে ৫৩ দিন চিকিৎসা শেষে ১৯ জুন বাসায় ফেরেন খালেদা জিয়া। এর পর থেকে গুলশানের ভাড়া বাসা ফিরোজায় ছিলেন তিনি। 

খালেদা জিয়া বহু বছর ধরে আথ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, দাঁত ও চোখের সমস্যাসহ নানা জটিলতায় ভুগছেন। এপ্রিলে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। নানা শারীরিক জটিলতায় ২৭ এপ্রিল খালেদা জিয়াকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। একপর্যায়ে তাকে সিসিইউতে নেওয়া হয়। প্রায় দুই মাস তিনি সিসিইউতে ছিলেন। ১৯ জুন বাসায় ফেরেন। এর মধ্যে করোনার টিকা নেওয়ার জন্য খালেদা জিয়া দুই দফায় মহাখালীর শেখ রাসেল ন্যাশনাল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে যান। ১৯ জুলাই করোনার প্রথম ডোজ টিকা নেওয়ার পর ১৮ আগস্ট দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেন তিনি।

দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে খালেদা জিয়া ২০০৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে যান। করোনা মহামারির প্রেক্ষাপটে গত বছরের ২৫ মার্চ সরকার শর্ত সাপেক্ষে তাকে সাময়িক মুক্তি দেয়। এ পর্যন্ত তিন দফায় খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হয়। তবে বিএনপির নেতারা খালেদা জিয়ার শর্তসাপেক্ষে এ মুক্তিকে গৃহবন্দি বলছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে বারবার আবেদন করা হলেও সরকার তা নাকচ করে দেয়। তাকে দেশে থেকেই চিকিৎসা নিতে হবে বলে শর্তও দেওয়া হয়।


আরও খবর



হতাশাতেই দিন কাটালো টাইগার বোলাররা

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ৪৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনটা বাংলাদেশের হলে আজ দ্বিতীয় দিনটা পাকিস্তানের। দিনের খেলা শেষ হওয়ার আগে ৫৭ ওভার বোলিং করেও যে পাকিস্তানের একটা উইকেট ফেলা সম্ভব হলো না। এর আগে দিনের শুরুতে শেষ ছয় উইকেটে বাংলাদেশকে ৭৭ রানের বেশি যোগ করতে দেয়নি পাকিস্তানি বোলাররা।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশকে ৩৩০ রানে বেঁধে রেখে পাকিস্তান ১৪৫ রান করে দিনের খেলা শেষ করেছে কোনো উইকেট না হারিয়ে। সেঞ্চুরির পথে আছেন পাকিস্তান ওপেনার আবিদ আলী। বাংলাদেশ বোলারদের কোনো সুযোগ না দিয়ে ১৮০ বলে ৯৩ রানে অপরাজিত আছেন তিনি। নয় চারের সঙ্গে আবিদ তাঁর ইনিংসটি সাজিয়েছেন দুই ছক্কায়। তাঁর সঙ্গী আবদুল্লাহ শফিকও অভিষেকেই ফিফটি ছাড়িয়ে গেছেন। মুমিনুল হককে ছক্কা মেরে টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি পূর্ণ করেন শফিক।

দুজনের দারুণ ব্যাটিংয়ে হতাশার একটি দিন কাটিয়েছে বাংলাদেশ। তবে আবিদ-শফিকের ১৪৫ রানের জুটি ভাঙতে পারত ৩১ রানেই। তাইজুল ইসলামের করা ১৩তম ওভারের পঞ্চম বলে আউট হতে পারতেন অভিষিক্ত শফিক। তাইজুলের আর্মার বলটা তাঁর পায়ে লাগলে এলবিডব্লিউর আবেদন করেন তাইজুল-লিটনরা। আম্পায়ার সাড়া না দেওয়ায় রিভিউও নেয়নি বাংলাদেশ। পরে টিভি রিপ্লেতে দেখা যায় বলটি আগে প্যাডে লেগেছে এবং সেটি আঘাত হানত স্টাম্পে। ১ রানে বেঁচে যাওয়া শফিক দিন শেষে অপরাজিত আছেন ৫২ রানে।

এর আগে দিনের শুরুতে আগের দিনের দলীয় সংগ্রহ ২৫৩ রানকে বাড়িয়ে নিতে পারেননি লিটন আর মুশফিক। প্রথম দিনের সঙ্গে আর কোনো রান না যোগ করেই ফিরে যান লিটন (১১৪)। সেঞ্চুরিবঞ্চিত হওয়ার হতাশায় পোড়েন মুশফিকুর রহিম। টেস্ট ক্যারিয়ারে চতুর্থবার নার্ভাস নাইনটিতে আউট হওয়ার আগে করেন ৯১ রান। তবে এক প্রান্তে চেষ্টা করেছিলেন মেহেদি হাসান মিরাজ। সঙ্গীর অভাবে মিরাজ শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন ৩৮ রানে।


আরও খবর