আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

পাথরঘাটায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রী ধর্ষণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ এপ্রিল ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৭ এপ্রিল ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
Image

সাকিল আহমেদ, পাথরঘাটা (বরগুনা)

বরগুনার পাথরঘাটায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এসএসসি পরিক্ষার্থী এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে পাথরঘাটা আনোয়ার হোসেন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আঃ জব্বার খান এর বিরুদ্ধে। বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুফল চন্দ্র গোলদার। এনিয়ে পাথরঘাটা ব্যাপক চঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

এঘটনায় ছাত্রীর বাবা গত রবিবার ওই স্কুলের ব্যাবস্থাপনা কমিটির সভাপতি এবং পাথরঘাটা পৌর মেয়র আনোয়ার হোসেন আকনের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। এর পর পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুফল চন্দ্র গোলদারের কাছে ধর্ষিতা ঐ স্কুল ছাত্রী ও তার বাবা ওই ঘটনার জবানবন্দি দেন।

স্কুল ছাত্রীর বাবা জানান, আনোয়ার হোসেন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্কুলের প্রধান শিক্ষক আঃ জব্বার নানা কৌশলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ১৩ মার্চ স্কুলে শিক্ষা সফরের কথা বলে আমার মেয়েকে নিয়ে বরিশাল দোয়েল আবাসিক হোটেলে রাত জাপন করে। বরিশাল থেকে ফেরার পর মেয়ের শারীরিক অসুস্থতা দেখে তার কাছে জানতে চাইলে মেয়ে সকল ঘটনা খুলে বলেন। মানসম্মানের ভয়ে প্রধান শিক্ষক আঃ জব্বার আমার মেয়েকে বিবাহর প্রস্তাব দেয়। মেয়ে বয়স কম হওয়ার কারণে বিয়ে করা বিষয়টি অস্বীকৃতি জানাই। পরে এ ঘটনায় স্কুল ব্যাবস্থাপনা কমিটির কাছে বিচার চেয়ে একটি লিখিত অভিযোগ করি।

এদিকে এ ঘটনায় পাথরঘাটা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি তরিকুল ইসলাম রেজা ওই প্রধান শিক্ষকের বিচারের দাবী জানিয়ে বলেন, সে সব কুলাংঙ্গার শিক্ষকদের কাছে স্কুল ছাত্রীদের নিরাপত্তা নেই। সেই সব শিক্ষকের কঠোর থেকে কঠোর তর শাস্তির দাবি করে শিক্ষক সমাজ।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলতে তার মুঠোফোনে একাধিক বার ফোন দিয়েও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

স্কুলের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেন আকন বলেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে এক ছাত্রীর অভিযোগ করে। এঘটনা নিয়ে বুধবার ব্যবস্থাপনা কমিটি ও শিক্ষকদের নিয়ে এক জরুরি সভায় প্রধান শিক্ষক আব্দুল জব্বার খানকে সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই ঘটনা বিষয় পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুফল চন্দ্র গোলদার ঘটনাটি সত্য বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ওই স্কুলছাত্রী ও তার বাবা গত মঙ্গলবার ওই ঘটনার সকল প্রমানাদি উপস্থাপন করেছে। এর আগে গত ১৯ মার্চ অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ও স্কুল ছাত্রী বিয়ের অনুমতি নিতে আসেছিলো। মেয়ের বয়স কম হওয়ায় তাদের অনুমতি দেইনী। ওই ছাত্রীকে আইনি পরামর্শের জন্য থানায় যেতে বলা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, এঘটনার বিষয় বরগুনা জেলা প্রশাসককে অবহিত করে স্কুল কমিটির সভাপতিকে ব্যাবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: বরগুনা

আরও খবর



শেখ হাসিনার সময়ে কেউ গৃহহীন ও ক্ষুধার্ত থাকবে না: শ ম রেজাউল করিম

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ৩১ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি

Image

পিরোজপুর-১ আসনের এমপি ও সাবেক মন্ত্রী এ্যাড. শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, শেখ হাসিনার শাসন কালে কোন মানুষ গৃহহীন ও না খেয়ে থাকবে না। দেশের অসহায় মানুষের মুখে খাবার দিতে তিনি সব সময় দৃঢ় কাজ কর যাচ্ছেন। করোনাকালে পৃথিবীর ধনী দেশগুলোতেই অর্থিক ও খাদ্য সমস্যা দেখা দিলেও বাংলাদেশের কোন মানুষকে সমস্যা বা না খেয়ে থাকতে হয় নি। করোনা সহ অতীতের সকল প্রাকৃতিক  দূর্যোগ কালে তিনি দেশের সকল অসহায় মানুষের সেবা ও হাসি ফুটাতে পাশে দাঁড়িয়েছেন। এবারের ঘূর্ণিঝড় রেমালেও ক্ষতিগ্রস্থদের সরকারের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগীতা করা হবে।

শুক্রবার (৩১ মে) দিনভর উপজেলার কলারদোয়ানিয়া ও দেউলবাড়ি দোবরা এ দুই ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থদের পরিদর্শন কালে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় তিনি তার নিজস্ব তহবিল থেকে ক্ষতিগ্রস্থদের খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন ও পরবর্তীতে বিভিন্ন সহযোগীতার আশ্বাস দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অরূপ রতন সিংহ, উপজেলার কলারদোয়ানিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. হাসানাত ডালিম, দেউলবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান এফ এম রফিকুল ইসলাম বাবুল, উপজেলা আ.লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মাস্টার মো. মনিরুজ্জামান আতিয়ার, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এম খোকন কাজীসহ উপজেলা আ.লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এ সময় তিনি আরো বলেন, দেশের মানুষ শেখ হাসিনার ক্ষমতার কালে ভালো থাকে। কাজেই আপনারা মনে রাখবেন আপনাদের ভালো রাখতে আমি শেখ হাসিনার একজন কর্মী হিসাবে আপনাদের সকল ধরনের সেবা দিয়ে যাবো। আমাকে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আপনারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং  তার  প্রতীক নৌকার প্রতি ও আমার প্রতি যে সম্মান দেখিয়েছেন আমি মৃত্যু পর্যন্ত আপনাদের সেবা দিয়ে সে ঋণ শোধ করতে পারবো না।


আরও খবর



বন্ধ হচ্ছে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটের বিশেষ ট্রেন

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত চলাচলকারী বিশেষ ট্রেনটি বন্ধ করে দিচ্ছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে এই ট্রেন আর চলবে না, যদিও ১০ জুন পর্যন্ত এই ট্রেন চলাচলের কথা ছিল।

রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের সহকারী প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা (এসিওপিএস) কামাল আখতার হোসেন স্বাক্ষরিত এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়টি জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রেলওয়ের মহাপরিচালকের কার্যালয় থেকে কক্সবাজার স্পেশাল ৩ ও ৪ ট্রেনটি ১০ জুন পর্যন্ত চলাচলের নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। কিন্তু যান্ত্রিক বিভাগ থেকে ইঞ্জিন ও লোকোমাস্টারের সংকট থাকার কথা জানানো হয়েছে। এজন্য কক্সবাজার বিশেষ ট্রেন বুধবার (২৯ মে) পর্যন্ত চলবে। বৃহস্পতিবার (৩০ মে) থেকে ১০ জুন পর্যন্ত ট্রেন চলাচল বাতিল করা হলো।

গত বছরের ১১ নভেম্বর চট্টগ্রামের দোহাজারী থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত নির্মিত নতুন রেললাইনের উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর গত বছরের ১ ডিসেম্বর ঢাকা থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি পর্যটক এক্সপ্রেস নামের আরেকটি ট্রেন চালু করে রেলওয়ে। ঢাকা-কক্সবাজার রুটের দুটি ট্রেনের প্রতিটিতে ১১৫টি করে আসন বরাদ্দ রাখা হয় চট্টগ্রাম স্টেশনের জন্য। ঢাকা থেকে পরপর দুটি ট্রেন চালু করলেও চট্টগ্রাম থেকে কোনো ট্রেন দেয়া হয়নি। রেলওয়ের এমন সিদ্ধান্তে চট্টগ্রাম অঞ্চলের মানুষ ক্ষুব্ধ ছিলেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ও নাগরিক সমাজ ট্রেন চালুর দাবির প্রেক্ষিতে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে বিশেষ ট্রেন দেওার সিদ্ধান্ত নেয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। গত ৮ এপ্রিল এই ট্রেন চলাচল শুরু হয়। চালুর পর থেকে এই ট্রেন জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। যাত্রীদের চাপে এরপর দুই দফায় বিশেষ ট্রেনের সময় বাড়িয়ে ১০ জুন পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছিল। তবে নতুন করে আর সময় না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

চট্টগ্রাম-দোহাজারী-কক্সবাজার রেলওয়ে যাত্রী কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. আবু সাঈদ তালুকদার বলেন, এই ট্রেন তো ১০ জুন পর্যন্ত চলার কথা। এটি স্থায়ী করার পাশাপাশি আরেকটি নতুন ট্রেন দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন রেলওয়ের কর্মকর্তারা। কিন্তু তা না করে বিশেষ ট্রেনটি বন্ধ করে দিল। এতে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের মানুষ ট্রেনে করে যাতায়াতের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবেন। রেলওয়ের এমন সিদ্ধান্ত খুবই হতাশা ও দুঃখজনক।


আরও খবর



বাজেট: ৩ কোটি ৮০ লাখ কিডনি রোগীর খরচ কমবে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

দেশে কিডনি রোগে ভোগা মানুষের আনুমানিক সংখ্যা ৩ কোটি ৮০ লাখ। এ রোগীদের বেশির ভাগকে নিয়মিত ডায়ালাইসিস করাতে হয়। ডায়ালাইসিসে ব্যবহৃত হয় এমন দুটি অত্যাবশ্যকীয় উপকরণ হচ্ছে ডায়ালাইসিস ফিল্টার এবং ডায়ালাইসিস সার্কিট। প্রস্তাবিত বাজেটে এ দুটি পণ্য আমদানিতে শুল্ক কমিয়ে ১ শতাংশ করা হয়েছে।

প্রস্তাবিত বাজেটে আজ বৃহস্পতিবার (৬ জুন) এ দুটি পণ্যের শুল্ক কমানোর প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। জাতীয় সংসদে ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাবনায় তিনি এ ঘোষণা দেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, কিডনি রোগীর ডায়ালাইসিসে ব্যবহৃত হয় এমন দুটি অত্যাবশ্যকীয় উপকরণ হচ্ছে ডায়ালাইসিস ফিল্টার এবং ডায়ালাইসিস সার্কিট। এ পণ্য দুটির আমদানিতে বিদ্যমান আমদানি শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে হ্রাস করে ১ শতাংশ নির্ধারণ করার সুপারিশ করছি। অর্থমন্ত্রীর এ ঘোষণার পর সংসদ সদস্যরা টেবিল চাপড়ে এ প্রস্তাবকে সাধুবাদ জানান।


আরও খবর



বরগুনায় ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত; জনমনে আতঙ্ক

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
অলিউল্লাহ্ ইমরান, বরগুনা

Image

দক্ষিণ অঞ্চলের উপকূলীয় জেলা বরগুনায় ঘূর্ণিঝড় 'রেমালে'র প্রভাবে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলেছেন আবহাওয়া অফিস।

রোববার (২৬ মে) আবহাওয়াবিদ মোঃ হাফিজুর রহমানের স্বাক্ষরিত আবহাওয়া বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে দক্ষিণাঞ্চলে উপকূলীয় নয়টি জেলার মধ্যে বরগুনাকেও ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় আনতে বলা হয়েছে। এমতো অবস্থায় ঝড়ো বাতাস ও থেমে থেমে বৃষ্টির গতিবেগের কারণে জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

দেখা যায়, কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকত, বরগুনার পায়রা, বিশ খালি, বলেশ্বর নদীতে জোয়ারে পানি বৃদ্ধিসহ ঢেউয়ের উচ্চতাও বৃদ্ধি পেয়েছে। আশপাশের আবহাওয়া গম্ভীর হয়ে উঠতে শুরু করছে। বাতাসের গতিও আগের তুলনায় বাড়ছে কিছুটা এবং আকাশে কালো মেঘ ও ঝড়ো বৃষ্টি হচ্ছে। এই অবস্থায় সিপিপি, রেডক্রিসেন্ট, কোস্টগার্ড, জেলা প্রশাসকের তথ্য অফিসসহ বিভিন্ন সেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো শহর-গ্রাম ও নিম্ন অঞ্চলের মানুষকে সতর্ক বার্তা পৌঁছে দিচ্ছে।

তবে ঘূর্ণিঝড়টি 'রেমাল' উপকূলে যেকোনো সময় আঘাত হানার সম্ভাবনা রয়েছে! তাই ঘূর্ণিঝড় 'রেমালে'র সম্ভাব্য ক্ষতি মোকাবিলায় ইতিমধ্যে সরকারি-বেসরকারিসহ বিভিন্ন ভাবে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বরগুনার জেলা প্রশাসক মুহা. রফিকুল ইসলাম।


আরও খবর



কৃষিতে বরাদ্দ বাড়ছে ২ হাজার ২৭৯ কোটি টাকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

প্রস্তাবিত ২০২৪-২৫ অর্থবছেরর বাজেটে কৃষি খাতে বরাদ্দ বাড়ছে ২ হাজার ২৭৯ কোটি টাকা। আগামী ২০২৪-২৫ অর্থবছরে কৃষি, খাদ্য এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ বিভাগে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৩৮ হাজার ২৫৯ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরে এ খাতে বরাদ্দ ছিল ৩৫ হাজার ৮৮০ কোটি টাকা।

জাতীয় সংসদে বৃহস্পতিবার (৬ জুন) বাজেট বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন,  কৃষি উৎপাদনকে উৎসাহিত করতে ভর্তুকি প্রদান অব্যাহত রয়েছে এবং তা অদূর ভবিষ্যতেও চলমান থাকবে। সারে ভর্তুকি প্রদানের পাশাপাশি কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে যান্ত্রিকীকরণ উৎসাহিত করা হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, সবার জন্য খাদ্য নিশ্চিত করা এবং নিম্ন আয়ের মানুষকে মূল্যস্ফীতির চাপ থেকে সুরক্ষা দিতে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির মাধ্যমে স্বল্প আয়ের ৫০ লাখ পরিবারকে বছরে কর্মাভাবকালীন ৫ মাস প্রতি মাসে ৩০ কেজি করে চাল বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়া নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার মূল্য স্থিতিশীল রাখতে সমগ্র বাংলাদেশে নিম্ন আয়ের প্রায় ১ কোটি পরিবারের নিকট টিসিবির ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে সুলভ মূল্যে চাল, ডাল, তেল ইত্যাদি সরবরাহ করা হচ্ছে। খাদ্যের অপচয় রোধে ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে খাদ্য গুদামের ধারণক্ষমতা ২১.৮৬ লাখ মে.টনে উন্নীত করা হয়েছে এবং আগামী অর্থবছরে তা ২৯ লাখ টনে উন্নীত করা হবে।


আরও খবর