আজঃ বুধবার ২৪ জুলাই 20২৪
শিরোনাম

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে বিদায় করে সেমিফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকা

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

জিতলে সেমিফাইনালে, হারলে বিদায়- এমন সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়ে নবম টি-২০ বিশ্বকাপের সুপার এইটের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যেখানে ক্যারিবীয়দের কাঁদিয়ে শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছে এইডেন মার্করামের দল।

অ্যান্টিগুয়ার নর্থ সাউন্ডে আগে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৩৫ রান সংগ্রহ করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে বৃষ্টি বাধায় ডিএলএস মেথডে দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন লক্ষ্য দাঁড়ায় ১২৩ রান (১৭ ওভারে)। সেই লক্ষ্য তাড়ায় ৩ উইকেট হাতে রেখে জয়ের বন্দরে নোঙর করে প্রোটিয়ারা। এই জয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয় দল হিসেবে সেমিফাইনালের টিকিট পেল দক্ষিণ আফ্রিকা। অন্যদিকে লড়াকু হারে ঘরের মাঠের বিশ্বকাপে বিদায়ঘণ্টা বাজলো ক্যারিবীয়দের।

রান তাড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন কুইন্টন ডি কক ও রেজা হেনড্রিকস। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই এ জুটি ভাঙেন রাসেল। তাতে গোল্ডেন ডাক খেয়ে সাজঘরে ফেরেন রেজা। একই ওভারের শেষ বলে রাসেলের শট লেংথের বল বাউন্ডারির বাইরে আছড়ে ফেলতে গিয়ে রাদারফোর্ডের তালুবন্দী হন ডি কক। আউট হওয়ার আগে ৭ বলে ১২ করেন তিনি। এরপরেই বৃষ্টি নামে অ্যান্টিগুয়াতে।

বৃষ্টি থামার পর মাঠে নেমেই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেন এইডেন মার্করাম। তাতে অবশ্য কপালও পুড়েছে তার। আলজারি জোসেফের ওপর চড়াও হতে গিয়ে নিজের উইকেট খুইয়েছেন তিনি। ব্যাট হাতে ঝড় তুলে প্রোটিয়াদের জয়ের পথ সহজ করেন হেনরিখ ক্লাসেন। তবে ১০ বলে ২২ রান করে আউট হয়ে যান তিনি। উইকেটে এসে ব্যর্থ হয়েছেন ডেভিড মিলার। ১৪ বলে ৪ রান করেন বাঁহাতি এই ব্যাটার। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে ধীরে ধীরে ম্যাচ থেকে ছিটকে যাচ্ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত লড়াই করে দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছেড়েছেন মার্কো জানসেন। ২১ অপরাজিত ছিলেন তিনি। উইন্ডিজের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট শিকার করেন রস্টন চেজ। এছাড়া দুটি করে উইকেট নেন আন্দ্রে রাসেল ও আলজারি জোসেফ।

এর আগে টস জিতে উইন্ডিজকে আগে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক এইডেন মার্করাম। ব্যাট হাতে বড় সংগ্রহের ইঙ্গিত দিয়েও মাঝারি লক্ষ্য সংগ্রহ করে তাড়া। দলের হয়ে কাইল মেয়ার্স (৩৫) ও রস্টন চেজ (৫২) ছাড়া কেউই সেভাবে পারফর্ম করতে পারেননি। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে ধীরে ধীরে রানের গতি কমে যায় ক্যারিবীয়দের। স্বাগতিকদের ৬ ব্যাটার দুই অঙ্কের ঘর স্পর্শ করতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত ১৩৫ রানে থেমেছে স্বাগতিকরা।

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট শিকার করেছেন তাবরাইজ শামসি। এছাড়া একটি করে উইকেট নিয়েছেন কাগিসো রাবাদা, মার্কো জানসেন, কেশব মহারাজ ও এইডেন মার্করাম।


আরও খবর



বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি পরিদর্শনে চুয়েট ভিসি

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এ আগত বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি পরিদর্শন করেছেন চুয়েটের ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। এসময় পরিদর্শন বইয়ে মন্তব্য লিপিবদ্ধ করেন তিনি।

বুধবার চুয়েট টিএসসি সম্মুখে অবস্থানরত ভ্রাম্যমান লাইব্রেরি পরিদর্শনকালে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা। স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্রের মহান স্বপ্নদ্রষ্টা ও স্থপতি ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তাঁর আদর্শ, ত্যাগ তিতিক্ষা, দেশপ্রেমিক চিন্তা ভাবনা ও বলিষ্ট নেতৃত্ব ভবিষ্যত প্রজন্মের নিকট তুলে ধরার জন্য বাংলাদেশ সড়ক পবিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি) নিজস্ব কারিগরি দক্ষতায় বঙ্গবন্ধু ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি বাসটি প্রস্তুত করেছে দেখে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। আমি এই উদ্যোগের সফলতা কামনা করছি।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন চুয়েটের প্রো ভাইস-চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দীন আহাম্মদ, রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. শেখ মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির, ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মো: রেজাউল করিম, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন পরিচালক অধ্যাপক ড. কাজী দেলোয়ার হোসেন, সিএসই বিভাগের অধ্যাপক ড. কৌশিক দেব, উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) মোহাম্মদ ফজলুর রহমানসহ অন্যান্য অফিসিয়ারগণ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া সকাল থেকে চুয়েট শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং ছাত্র-ছাত্রীরা ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি পরিদর্শন করেন।


আরও খবর



মতিউরের বিরুদ্ধে গাজীপুরে বিপুল পরিমাণ সম্পদ ‘জবরদখলের’ অভিযোগ

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
গাজীপুর প্রতিনিধি

Image

বাপ-দাদার জমি রক্ষায় দীর্ঘদিন ধরে প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন গাজীপুরের শেখ মোক্তার হোসেন নামের এক নারী। কিন্তু জালিয়াতি ও মিথ্যা মামলা দিয়ে পৈত্রিক সম্পত্তির ৬৭ শতাংশ দখল করে নিয়েছেন ছাগলকাণ্ডে আলোচিত মতিউর রহমান ও তার স্ত্রী লায়লা কানিজ। এমন অভিযোগ মোক্তার হোসেনের।

তিনি বলেন, ১৯৭৪ সালে আমার বাবা-মা মিলে জমিটি কিনেছিল। আমরা এত বছর ধরে খাচ্ছি, হঠাৎ করে তারা জাল দলিল ও জাল পর্চাও বানিয়ে ফেলে। আমার নামে ৪টা মামলাও দেয়। এর মধ্যে ৩টি জমি সংক্রান্ত হলেও একটি ছিল ডাকাতির মামলা। তবে সবগুলো মামলার রায় আমার তরফেই পেয়েছি। এডিসি আপিল করেছিল কিন্তু তাতেও রায় আমিই পেয়েছি। তবে রায় পেলেও তারা আমার জমি দিচ্ছে না।

এদিকে, মতিউরের ভূমি দখল নিয়ে মুখ খুলছেন স্থানীয় অনেকেই। তারা জানিয়েছেন, কম দামে জমি বিক্রি করতে রাজি না হলে জোর করে তা দখলে নেন সাবেক রাজস্ব বোর্ডের সদস্য মতিউর। এভাবে দখল করা জমিতে গাজীপুরের খিলগাঁও এলাকায় অবৈধভাবে গড়ে তোলেন আপন ভূবন রিসোর্ট অ্যান্ড পিকনিক স্পট

যদিও জমি দখলের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন রিসোর্ট ম্যানেজার মো. রাজিব। তার দাবি, আমিতো দেড় বছর ধরে এখানে আছি, কখনো কেউ তো এমন কিছু বলেনি। দখল হলে বা কেউ অভিযোগ করলে তো পুলিশ আসতো, কিন্তু কখনো তো এমন কিছুই হয়নি।

পূবাইল ভূমি অফিস সূত্রে জানা যায়, মতিউর রহমান, তার স্ত্রী ও ছেলে-মেয়ের নামে সেখানে রয়েছে একশ ৩৯ শতাংশ জমি। এছাড়া টঙ্গীতে তার ভাইয়ের নামে রয়েছে, তৈরি পোশাক কারখানা।


আরও খবর



এইচএসসি পরীক্ষার্থী ধর্ষণের অভিযোগে পিয়ন কারাগারে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রাহুল সরকার, চট্টগ্রাম ব্যুরো

Image

চট্টগ্রাম নগরের চকবাজার থানাধীন চট্টগ্রাম কলেজের এক এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে জিম্মি করে ধর্ষণের অভিযোগে পিয়ন মোশাররফ হোসেন (৩০) আটক করা হয়েছে। বর্তমানে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছে। এর আগে কলেজ কর্তৃপক্ষ তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করে।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) এ বিষয়টি জানাজানি হয়।

চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওয়ালী উদ্দিন আকবর বলেন, চট্টগ্রাম কলেজের এক এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের মামলায় আসামি মোশাররফ হোসেনকে ফেনী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে আদালত একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিল। রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, গত ২৭ জুন এইচএসসি পরীক্ষার প্রবেশপত্র আনতে কলেজে যান ওই ছাত্রী। তখন সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কলেজের একাডেমিক ভবনের চতুর্থ তলার ওয়াশরুমের সামনে এক বন্ধুসহ পরীক্ষার্থীকে দেখতে পায় পিয়ন মোশাররফ হোসেন। তখন কলেজের অধ্যক্ষ ও ছাত্রীর পরিবারকে তাদের বিষয়ে বলে দেওয়ার হুমকি দেন মোশাররফ। তখন ওই পরীক্ষার্থী ভীত হয়ে পড়েন। পরে পরীক্ষার্থীকে বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কলেজ থেকে বের হয়ে একটি সিএনজি অটোরিকশা করে নগরের কোতোয়ালী থানার একটি হোটেলে নিয়ে যায়। সেখানে একটি কক্ষে পরীক্ষার্থীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। পরে নগরের ডবলমুরিং থানার দেওয়ানহাট এলাকায় পরীক্ষার্থীকে সিএনজি অটোরিকশা থেকে নামিয়ে দিয়েছিল পিয়ন মোশাররফ।

এই ঘটনা গত ২৭ জুন ধর্ষণের হলেও পরীক্ষার্থী মামলা করেন গত ২৯ জুন থানায় মামলা করেন। মামলার পরে গত ৩০ জুন ফেনী থেকে আসামিকে গ্রেপ্তার করে চকবাজার থানা পুলিশ। রিমান্ড শেষে আসামি কারাগারে প্রেরণ করা হয়। মামলাটি তদন্ত চলছে জানিয়েছে পুলিশ।


আরও খবর



বিপৎসীমার ওপরে ধরলা-ব্রহ্মপুত্র, আবারও বন্যার আশঙ্কা

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
জেলা প্রতিনিধি

Image

টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে কুড়িগ্রামের ধরলা ও ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বেড়ে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি দ্রুত বৃদ্ধির কারণে ব্রহ্মপুত্র ও ধরলা অববাহিকার নিচু এলাকার প্রায় ৮০টি চর-দ্বীপচরে পানি ঢুকেছে। তলিয়ে গেছে কিছু ঘরবাড়ি ও সবজির ক্ষেত।

এ অবস্থায় দ্বিতীয় ধাপে একটি স্বল্প মেয়াদী বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এ ছাড়াও দুধকুমার ও তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার খুব কাছ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

বুধবার (৩ জুলাই) সকাল ৯টায় জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ধরলা নদীর পানি তালুক শিমুলবাড়ি পয়েন্টে ৪৯ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ১১ সেন্টিমিটার ও ব্রহ্মপুত্র নদের পানি নুনখাওয়া পয়েন্টে ৫৫ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ১৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ ছাড়া অন্যান্য নদ-নদীর পানি ক্রমেই বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার কাছাকাছি অবস্থান করছে।

এদিকে নদ নদনদীর তীরবর্তী রাজারহাট, উলিপুর, চিলমারী, রৌমারী ও চর রাজিবপুর উপজেলার ১৫টি পয়েন্টে দেখা দিয়েছে নদীভাঙন।

উলিপুর উপজেলার বেগমগঞ্জ ইউনিয়নের কৃষক মো. আব্দুর রহমান বলেন, ধরলার পানি বাড়ার কারণে আমার পটল ক্ষেত তলিয়ে গেছে। এখন সব পটলের গাছ মরে যাবে। পানি না আসলে আরও অনেক টাকার পটল বিক্রি করে লাভবান হতে পারতাম।

কুড়িগ্রামের রাজারহাট কৃষি আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র সরকার বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১৩০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। যা আর দু-একদিন থেমে থেমে অব্যাহত থাকতে পারে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রাকিবুল হাসান বলেন, পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় আগামী ২৪ ঘণ্টায় তিস্তা ও দুধকুমার নদে বিপৎসীমা অতিক্রম করতে পারে। যার ফলে জেলায় দ্বিতীয় ধাপে স্বল্প মেয়াদী বন্যা দেখা দেবে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল আরীফ বলেন, ৪০০ আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রয়েছে। যেদিকে প্লাবিত হচ্ছে আমরা সেদিকেই নজর রাখছি। বন্যা মোকাবিলায় আমাদের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ চলমান।


আরও খবর



স্ত্রী-কন্যাসহ বেনজীরের সম্পদের হিসাব চেয়েছে দুদক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ, তার স্ত্রী এবং দুই কন্যার স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের হিসাব জমা দিতে নোটিশ দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। নোটিশে সম্পদের হিসাব জমা দিতে ২১ কর্মদিবস সময় দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) সংস্থাটির প্রধান কার্যালয় থেকে এ নোটিশ দেওয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন দুদক সচিব খোরশেদা ইয়াসমিন।

নোটিশে বলা হয়েছে, প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে অনুসন্ধান করে দেখা দেছে, আপনারা (বেনজীর পরিবার) জ্ঞাত আয়বহির্ভূত স্বনামে-বেনামে বিপুল পরিমাণ সম্পদ/সম্পত্তির মালিক হয়েছেন। নিজ ও আপনাদের ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তির নামে-বেনামে অর্জিত যাবতীয় স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ, দায়-দেনা, আয়ের উৎস ও তা অর্জনের বিস্তারিত বিবরণী কমিশনে দাখিল করবেন।

এর আগে বিপুল পরিমাণ অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগের বিষয়ে ২৩ ও ২৪ জুন হাজির না হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে অভিযোগের লিখিত বক্তব্য জমা দেয় বেনজীর পরিবার। বেনজীরকে ৬ জুন ও তার স্ত্রী ও কন্যাকে ৯ জুন তলব করা হয়েছিল। কিন্তু তারা না এসে দুদকের কাছে সময় চেয়েছিলেন।

গত ৩১ মার্চ বেনজীরের ঘরে আলাদিনের চেরাগ এবং ৩ এপ্রিল বনের জমিতে বেনজীরের রিসোর্ট শিরোনামে একটি দৈনিক পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এতে সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদ ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ ওঠে। অভিযোগ যাচাই-বাছাই শেষে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় দুদক।

গত ২৩ মে সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদের ৮৩টি দলিলের সম্পত্তি ও ৩৩টি ব্যাংক হিসাব জব্দের নির্দেশ দেন আদালত। অন্যদিকে, গত ২৬ মে আদালত বেনজীর ও তার পরিবারের সদস্যদের নামের ১১৯টি জমির দলিল, ২৩টি কোম্পানির শেয়ার ও গুলশানের চারটি ফ্ল্যাট জব্দের আদেশ দেন। গত ২৩ মে তাদের নামীয় ৩৪৫ বিঘা (১১৪ একর) জমি, বিভিন্ন ব্যাংকের ৩৩টি হিসাব জব্দ ও অবরুদ্ধের আদেশ দেওয়া হয়। সব মিলিয়ে ৬২৭ বিঘা জমি ক্রোক করা হয়।

এরই ধারাবাহিকতায় বেনজীর আহমেদ ও তার স্ত্রী-সন্তানদের স্থাবর সম্পদ জব্দ ও ব্যাংক হিসাব জব্দের কার্যক্রম চলমান। এরই মধ্যে রিসিভার নিয়োগ করা হয়েছে।


আরও খবর
মেট্রোরেল চলাচল পুরোপুরি বন্ধ

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪