আজঃ বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

অবৈধভাবে মাটি কাটায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

প্রকাশিত:শনিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২3 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২3 | অনলাইন সংস্করণ
শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি

Image

বগুড়ার শেরপুরে অবৈধভাবে মাটি কাটার দায়ে একজনকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের বোয়ালকান্দি গ্রামে সহকারী কমিশনারের (ভূমি) নেতৃত্বে এই আদালত পরিচালিত হয়।

দন্ডিত হেলাল উদ্দিন বোয়ালকান্দি গ্রামের সানোয়ার হোসেনের ছেলে।

জানা যায়, হেলাল উদ্দিন অনুমোদন না নিয়ে প্রায় দুই বিঘা ধানী জমিতে পুকুর খনন করছিলেন। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সংবাদ পেয়ে শেরপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) এস এম রেজাউল করিম ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেন। এসময় শেরপুর থানা পুলিশের এএসআই হাবিবুর রহমান হাবিব ও পুলিশ সদস্যরা সহযোগীতা করেন।

এবিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি এস এম রেজাউল করিম বলেন, অনুমোদন না নিয়ে ভূমির শ্রেণি পরিবর্তন করা দণ্ডনীয় অপরাধ। এজন্য অভিযুক্তকে বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন-২০১০ এর আইনে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: বগুড়া জরিমানা

আরও খবর



যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্যের হামলায় ১৭ ইয়েমেনি যোদ্ধা নিহত

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ফিলিস্তিন ইসরায়েল যুদ্ধের পর থেকে অস্থিতিশীল লোহিত সাগর। গাজায় ইসরায়েলি হামলার জবাবে এ নৌপথে হামলা চালিয়ে আসছে ইয়েমেনের বিদ্রোহী গোষ্ঠী হুতিরা। গোষ্ঠীটিকে মোকাবিলায় একের পর এক হুঁশিয়ারি দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য।

হুতিরা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্যের যৌথ হামলায় তাদের ১৭ যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। নিহত এসব যোদ্ধার রাজধানী সানায় জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) আলজাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

শনিবার হুতিদের সরকারি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্যের বোমা হামলায় নিহত সেনা ও নিরাপত্তা বাহিনীর যোদ্ধাদের মরদেহ রাজধানী আজ সানায় নেওয়া হয়েছে। সেখানে জাঁকজমকপূর্ণভাবে তাদের জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। সংবাদমাধ্যমটি নিহতদের তালিকাও প্রকাশ করেছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) যুক্তরাষ্ট্র জানায়, তাদের সামরিক বাহিনী হুতিদের লক্ষ্য করে বেশ কয়েকটি হামলা চালিয়েছে। লোহিত সাগরে মার্কিন রণতরীসহ বাণিজ্যিক জাহাজে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার প্রস্তুতিকালে এ হামলা চালানো হয় বলে দাবি মার্কিনিদের।

উল্লেখ্য, জানুয়ারির মাঝামাঝি সময় থেকে যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য হুতিদের লক্ষ্য করে হামলা শুরু করেছে। লোহিত সাগরে জাহাজে হামলার জবাবে এ জোট গোষ্ঠীটির ওপর হামলা চালিয়ে আসছে।

হুতিদের দাবি, তারা লোহিত সাগরে ইসরায়েলের সাথে সম্পর্কিত জাহাজে হামলা চালিয়ে আসছে। গাজায় ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে তারা ফিলিস্তিনের প্রতি সমর্থন জানিয়ে আসছে। দেশটিতে ইসরায়েলি হামলা বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত তারাও হামলা চালিয়ে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়ে আসছে।


আরও খবর
সাত দশক পর পাকিস্তানে প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাশিয়াকে ‘জুলফিকার’ ক্ষেপণাস্ত্র দিচ্ছে ইরান

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




গ্রামীণ ব্যাংকের কোনো প্রতিষ্ঠানে ড. ইউনূসের মালিকানা নেই : চেয়ারম্যান

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

গ্রামীণ ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ড. এ কে এম সাইফুল মজিদ বলেছেন, গ্রামীণ ব্যাংকের কোনো প্রতিষ্ঠানে ড. মুহাম্মদ ইউনূসের মালিকানা নেই। উনি শুধু একজন পূর্ণকালীন কর্মকর্তা ছিলেন। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীতে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

ড. সাইফুল বলেন, পরিচালনা পর্ষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গ্রামীণ টেলিকম, গ্রামীণ কল্যাণ, গ্রামীণ ফান্ডের চেয়ারম্যান পদ থেকে ড. ইউনূসকে সরানো হয়েছে। শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দুই ভাগে দেয়া হয়েছে। অর্ধেক ড. ইউনূসের ব্যক্তিগত। আর বাকিটা গ্রামীণ ব্যাংকের।

তিনি বলেন, মানিলন্ডারিংয়ের আলামত আমরা পেয়েছি। এরই মধ্যে অনেক তথ্য সরিয়ে ফেলা হয়েছে। অনুসন্ধান শেষ হওয়ার আগে কাউকে দোষী করছি না। পরে এ নিয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

এসময় গ্রামীণ ব্যাংক পরিচালনা পর্ষদের প্রধান আইন কর্মকর্তা ব্যারিস্টার মাসুদ আকতার বলেন, ড. ইউনূস আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়েছেন। সর্বোপরি, গ্রামীণ ব্যাংকের কোনও মালিকানা নেই। এটি দাতব্য প্রতিষ্ঠান। সদস্যদের কল্যাণে এ ব্যাংক কাজ করবে। এদেশের এক চতুর্থাংশ মানুষের ভাগ্য এ ব্যাংকের সঙ্গে জড়িত।

তিনি বলেন, নতুন পরিচালনা পর্ষদ কাজ করতে চায়। টেলিকম ভবনসহ সবকিছু গ্রামীণ ব্যাংকের টাকা দিয়ে করা হয়েছে। এর বাইরে কিছু হলে সেটি আইনগত অপরাধ। গ্রামীণ ব্যাংকের ৭টি প্রতিষ্ঠানে যাদের চেয়ারম্যান ও পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে, তাদের নাম পরবর্তীতে চিঠি দিয়ে জানানো হবে।


আরও খবর
দেশে ৩০ শতাংশ খাদ্য অপচয় হয়: কৃষিমন্ত্রী

বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেহবাজকে মনোনয়ন দিলেন নওয়াজ

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) প্রধান নওয়াজ শরিফ দলটির প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী হিসেবে শেহবাজ শরিফকে মনোনয়ন দিয়েছেন। শেহবাজ বর্তমানে দলটির প্রেসিডেন্ট ও নওয়াজ শরিফের ভাই। এর আগের জোট সরকারে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। পিএমএল-এন এর ইনফরমেশন সেক্রেটারি মরিওয়ম আওরঙ্গজেব এক এক্স বার্তায় এ খবর জানিয়েছেন।

এদিকে শেহবাজ শরিফ জানিয়েছেন, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মরিওয়ম নওয়াজকে মনোনয়ন দেওয়া হবে।

অন্যদিকে বাবা আসিফ আলী জারদারিকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখতে চান পাকিস্তান পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান বিলওয়াল ভুট্টো। জোট ও সরকার গঠনের বিষয়ে দলের কার্যনির্বাহী কমিটির সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এ কথা জানিয়েছেন।

বিলওয়াল বলেন, তিনি আমার বাবা সে জন্য এটা চাচ্ছি না। পাকিস্তান বর্তমানে গভীর সংকটে। তাই এই মুহূর্তে যিনি যথাযথ কাজটি করতে পারবেন তিনি হলেন আসিফ আলী জারদারি।

তাছাড়া প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দাবি থেকেও সরে এসেছেন পাকিস্তান পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান বিলওয়াল ভু্ট্টো জারদারি।

বলা হয়েছে, পিপিপি প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের ক্ষেত্রে পিএমএল-এনকে সাহায্য করবে কিন্তু তারা সরকারের অংশ হবে না। এমনকি কেন্দ্রীয় সরকারে কোনো মন্ত্রীও তাদের দল থেকে হবে না।


আরও খবর
সাত দশক পর পাকিস্তানে প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাশিয়াকে ‘জুলফিকার’ ক্ষেপণাস্ত্র দিচ্ছে ইরান

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বৈশ্বিক শান্তি সম্মেলনে যোগ দিতে বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ জানিয়ে জেলেনস্কির টুইট

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি বাংলাদেশের সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। তিনি বৈশ্বিক শান্তি সম্মেলনে যোগ দিতে বাংলাদেশকে আমন্ত্রণও জানিয়েছেন।

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় সকালে জার্মানিতে মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের সাইড লাইনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেন ভলোদিমির জেলেনস্কি। বৈঠকের পর এক্স হ্যান্ডলে (সাবেক টুইটার) এক পোস্টে বৈঠকের ভিডিও শেয়ার করেছেন ভলোদিমির জেলেনস্কি।

পোস্টে জেলেনস্কি লিখেছেন, আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওয়াজেদের সঙ্গে দেখা করে ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি বাংলাদেশের সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমরা শান্তি ফর্মুলার উপর ভিত্তি করে ইউক্রেনের ন্যায়সঙ্গত শান্তির দৃষ্টিভঙ্গির পাশাপাশি বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করেছি। আমি বাংলাদেশকে দৃষ্টিভঙ্গি বাস্তবায়ন ও উদ্বোধনী গ্লোবাল পিস সামিটে অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ জানিয়েছি।


আরও খবর
দেশে ৩০ শতাংশ খাদ্য অপচয় হয়: কৃষিমন্ত্রী

বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




নাইট্রোজেন গ্যাসে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করায় জাতিসংঘের নিন্দা

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা অঙ্গরাজ্যে খুনি কেনেথ ইউজিন স্মিথকে নাইট্রোজেন গ্যাসে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবার স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) বিতর্কিত পদ্ধতিতে এই মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। তবে জাতিসংঘ, ইইউ এবং মৃত্যুদণ্ড বিরোধী কর্মীরা নাইট্রোজেন গ্যাস ব্যবহার করে প্রথম মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের নিন্দা জানিয়েছে।

কেনেথ ইউজিন স্মিথকে বৃহস্পতিবার রাতে আলাবামার অ্যাটমোরে একটি রাষ্ট্রীয় উইলিয়াম সি. হলম্যান কারেকশনাল ফ্যাসিলিটিকারাগারে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

১৯৯৬ সাল থেকে কারাগারে বন্দি ছিলেন স্মিথ। কেনেথ ইউজিন স্মিথ ১৯৮৯ সালে এক ধর্ম যাজকের স্ত্রী এলিজাবেথ সেনেটকে হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হন। এলিজাবেথ সেনেটকে খুন করার জন্য কেনেথ স্মিথ এবং তাঁর এক সহযোগীকে ভাড়া করেছিলেন সেনেটের স্বামী চার্লস সেনেট। আইনজিবীরা বলেছেন, স্ত্রীর বিমার টাকা পেতে এ ষড়যন্ত্র করেছিলেন চার্লস।

পরে তিনি আত্মহত্যা করেন। এ হত্যার ঘটনায় স্মিথের সহযোগীকেও মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। সেনেটকে ফায়ারপ্লেসে ব্যবহৃত একটি সরঞ্জামি দিয়ে পিটিয়ে, বুকে এবং ঘাড়ে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়েছিল। বাড়ির এমন অবস্থায় করে রেখে যাওয়া হয়েছিল যেনো মনে হয় সেখানে চুরির ঘটনা ঘটেছে।

মৃত্যুদণ্ডের প্রত্যক্ষদর্শী একজন সাংবাদিক বলেছেন, গতকাল সন্ধ্যা ৭টা ৫৩ মিনিটের দিকে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের প্রক্রিয়া শুরু হয়। রাত ৮টা ২৫ মিনিটের দিকে তাঁকে মৃত ঘোষণা করা হয়। মৃত্যুদণ্ড প্রত্যক্ষকারী পাঁচজন সাংবাদিকের একজন বলেছেন, তিনি এতোদিন যা দেখেছেন তা থেকে এই পদ্ধতি ছিল সম্পূর্ণ ভিন্ন। আলাবামার সাংবাদিক লি হেজেপেথ বলেছেন, আমি এর আগে চারটি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হতে দেখেছি এবং কেনেথ স্মিথকে নাইট্রোজেন গ্যাস দেওয়া শুরু হলে তিনি যেভাবে এর প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছিলেন, তা আমি কখনোই কোনো কয়েদির ক্ষেত্রে দেখিনি। তিনি আরো বলেন, স্মিথ বারবার নিশ্বাস নেওয়ার জন্য হাঁপিয়ে উঠছিলেন এবং মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে মোট প্রায় ২৫ মিনিট সময় লেগেছিল।'

নাইট্রোজেন গ্যাস শরীরে প্রবেশ করলে মস্তিষ্কে অক্সিজেন সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। মৃত্যুদণ্ড তথ্য কেন্দ্রের মতে, মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার ক্ষেত্রে এই পদ্ধতিটি আগে কখনো ব্যবহার করা হয়নি। আলাবামার কর্মকর্তারা এর আগে আদালতে বলেছিলেন, স্মিথ সেকেন্ডের মধ্যে জ্ঞান হারাবেন এবং কয়েক মিনিটের মধ্যে মারা যাবেন। তবে স্মিথের একজন উপদেষ্টা রেভারেন্ড জেফ হুড মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হবার পর বলেন,আমি মনে করি যারা পুরো প্রক্রিয়াটি প্রত্যক্ষ করেছেন, তারা সবাই জানেন দুই বা তিন সেকেন্ডের মধ্যে আমরা তাঁকে অজ্ঞান হতে দেখিনি। হুড আরো বলেন, আমরা যা দেখেছি তা হলো, বাঁচার আপ্রাণ চেষ্টা। ওই রুম উপস্থিত কর্মকর্তারাও অবাক হয়েছিলেন, এই পদ্ধতিতে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া কতটা ভয়ংকর।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার ভলকার তুর্ক বলেছেন, নাইট্রোজেন গ্যাসের মাধ্যমে শ্বাসরোধ করে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার পদ্ধতিটি  নিষ্ঠুর, অমানবিক বা অবমাননাকর আচরণ, নির্যাতন করার সমান। তিনি বিষয়টি নিয়ে গুরুতর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। এদিকে এক বিবৃতিতে ইইউ কর্মকর্তারা নাইট্রোজেন গ্যাস নিয়ে মৃত্যুদণ্ড দেওয়াকে নিষ্ঠুর এবং অস্বাভাবিক শাস্তি বলে অভিহিত করেছেন।

রাষ্ট্রীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পরিকল্পনা অনুযায়ী মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। আলাবামা ডিপার্টমেন্ট অফ কারেকশনের কমিশনার জন হ্যাম বলেছেন, ধারণা করা হচ্ছে স্মিথ যতক্ষণ পেরেছেন তাঁর শ্বাস আটকে রেখেছিলেন। তিনি আরো বলেন, অস্বাভাবিক নড়াচড়া এবং শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে দেখা যায় তাঁকে। মৃত্যুদণ্ডের পর সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, এগুলো সবই প্রত্যাশিত ছিল এবং আমরা নাইট্রোজেন হাইপোক্সিয়া নিয়ে গবেষণায় যে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার কথা জেনেছি তাঁর মধ্যে সবই ছিল।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি কারিন জিন-পিয়েরে শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) সাংবাদিকদের বলেছিলেন, বাইডেন প্রশাসন মৃত্যুদণ্ড  খুবই উদ্বেগজনক বলে মনে করে। একটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুসারে স্মিথের শেষ কথা ছিল, আজ রাতে আলাবামা মানবতাকে এক ধাপ পিছিয়ে নিয়ে গেছে। আমি ভালবাসা, শান্তি এবং আলো নিয়ে চলে যাচ্ছি। আমাকে সমর্থন করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনাদের সবাইকে ভালবাসি। তিনি সাইন ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়ে আই লাভ ইউ সাইনও তৈরি করেছিলেন বলে সাংবাদিকরা জানিয়েছেন।

হত্যাকাণ্ডের শিকার সেনেটের ছেলে মাইক সেনেট বলেছেন,স্মিথ তাঁর ঋণ পরিশোধ করেছেন। তিনি বলেন, আজ এখানে যা ঘটেছে তা তাঁর মাকে ফিরিয়ে আনবে না। তবে আমরা আনন্দিত যে, এই দিনটি শেষ হয়েছে। একটি বিবৃতিতে স্মিথের আইনী দল বলেছে, তারা এ ঘটনায় অত্যান্ত দুঃখিত। তিনি তাঁর জীবন বাঁচানোর জন্য আপিল করেছিলেন কিন্তু একজন বিচারক তাঁর সিদ্ধান্তকে অগ্রাহ্য করেছেন।

এর আগেও ২০২২ সালে আলাবামা প্রাণঘাতী ইনজেকশন দিয়ে স্মিথের মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়েছিল। তখন দণ্ড কার্যকরের সিদ্ধান্ত স্থগিত করা হয়। ২০২৩ সালের মে মাসেও দ্বিতীয় দফায় মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের প্রচেষ্টা চালানোর এ সিদ্ধান্তকে আদালতে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন স্মিথ। এরপর অঙ্গরাজ্যটির গভর্নর কে আইভি মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের প্রক্রিয়া নতুন করে পর্যালোচনা করার ঘোষণা দেন এবং এর কয়েক মাস পর নাইট্রোজেন গ্যাস প্রয়োগ করে তাঁর মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) আলাবামা স্মিথ শেষ ৪৮ ঘণ্টা কীভাবে কাটিয়েছেন তার বিররণ প্রকাশ করা হয়েছে। স্মিথকে তাঁর পরিবারের সদস্য, দুই বন্ধু, তার একজন উপদেষ্টা ও আইনজিবীর সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হয়। তিনি দুটি বিস্কুট, ডিম, আঙ্গুরের জেলি, আপেল সস এবং কমলার জুস দিয়ে নাস্তা করেন। তাঁর শেষ খাবার ছিল স্টেক এবং ডিম।


আরও খবর
সাত দশক পর পাকিস্তানে প্রথম নারী মুখ্যমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাশিয়াকে ‘জুলফিকার’ ক্ষেপণাস্ত্র দিচ্ছে ইরান

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪