আজঃ মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

নৌকায় ভোট চাওয়া দেওয়ানগঞ্জের সেই ওসি বদলি

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৫ আগস্ট ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৫ আগস্ট ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
জামালপুর প্রতিনিধি

Image

নৌকায় ভোট চাওয়া জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার সেই ওসি শ্যামল চন্দ্র ধরকে বদলি করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জামালপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান।

মোবাইল ফোনে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেন, জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল চন্দ্র ধরকে বদলি করা হয়েছে। তাকে জামালপুর পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। এরপর তাকে অন্যত্র বদলি করা হবে

তবে বদলির কারণ জানতে চাইলে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেন, রাষ্ট্রীয় কারণেই তাকে বদলি করা হয়েছে। অন্য কোনো কারণ নেই

গত ১৫ আগস্ট দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার আয়োজনে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় ওসি শ্যামল চন্দ্র ধর তার বক্তব্যে নৌকা মার্কাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করার আহ্বান জানান।

তিনি নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে জনসাধারণের কাছে ভোট চান। এ ছাড়া ওই অনুষ্ঠানে ওসি শ্যামল চন্দ্র ধর তার বক্তব্যে সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদকে দেওয়ানগঞ্জ-বকশিঞ্জ আসন থেকে বারবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য, মাটি মানুষের নেতা ও নয়নের মণি বলে উল্লেখ করেন।

ওই বক্তব্যে তিনি দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নুরুন্নবী অপুকে সুযোগ্য মেয়র হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

তার ২ মিনিট ১১সেকেন্ডের এই বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা। সরকারি এক কর্মকর্তা এমন বক্তব্য দিতে পারে কিনা তা নিয়ে ওঠে প্রশ্ন। দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভার মাঠে অনুষ্ঠিত শোকসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে স্থানীয় এমপি আবুল কালাম আজাদসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

তিনি ২০০১ সালে পুলিশ বাহিনীতে এসআই পদে যোগদান করেন। ২০২২ সালের ২৮ জুলাই তিনি দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ওসি হিসেবে যোগদান করেন। তিনি দেওয়ানগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে পুলিশ পরিদর্শকের দায়িত্বে পালন করেছেন। ওসি শ্যামল চন্দ্র ধর নেত্রকোণার কেন্দুয়া থানার সেহাগপুর এলাকার বাসিন্দা।


আরও খবর



বায়ুদূষণে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ঢাকা

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ মার্চ ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

বিশ্বের ১০০টি দূষিত শহরের মধ্যে রবিবার (০৩ মার্চ) শীর্ষে রয়েছে রাজধানী ঢাকা। আজ সকাল ৭টায় সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বাতাসের মান পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স (আইকিউ এয়ার) সূচক এ তথ্য জানিয়েছে।

তালিকায় আজ সবার শীর্ষে অবস্থান করা রাজধানীর বাতাসের মানের স্কোর ১৯৪, অর্থাৎ নগরবাসীর জন্য ঢাকার বাতাস আজ অস্বাস্থ্যকর। এই অবস্থায় রাজধানীবাসীকে মাস্ক পরাসহ বাইরে ব্যায়াম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি তালিকায় ১৬৪ স্কোর নিয়ে আছে ভিয়েতনামের হানোই। এই মানও সেখানকার বাসিন্দাদের জন্য অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

এছাড়া তালিকার শীর্ষ তিন নম্বরে ১৬১ স্কোর নিয়ে আছে প্রতিবেশী দেশ ভারতের কলকাতা। দেশটির এই শহরটির বাতাসও আজ নাগরিকদের জন্য অস্বাস্থ্যকর।

স্কোর শূন্য থেকে ৫০ এর মধ্যে থাকলে বায়ুর মান ভালো বলে বিবেচিত হয়। ৫১ থেকে ১০০ হলে মাঝারি বা সহনীয় ধরা হয় বায়ুর মান। সংবেদনশীল গোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয় ১০১ থেকে ১৫০ স্কোর। ১৫১ থেকে ২০০ পর্যন্ত অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয়। স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া ৩০১-এর বেশি হলে তা দুর্যোগপূর্ণ বা বিপজ্জনক বলে বিবেচিত হয়।


আরও খবর



রাজধানীর চার হাসপাতালে র‍্যাবের অভিযান

প্রকাশিত:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

রাজধানীর শেরে বাংলা নগর এলাকায় সরকারি শিশু হাসপাতাল, পঙ্গু হাসপাতাল, হৃদরোগ ইন্সটিটিউট ও সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একযোগে অভিযান চালাচ্ছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে র‌্যাব-২ এর একাধিক দল অভিযান শুরু করে। অভিযান পরিচালনা করছেন র‌্যাব সদর দপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাজহারুল ইসলাম।

জানা গেছে, সরকারি হাসপাতাল থেকে রোগী ভাগিয়ে বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া, দালালদের দৌরাত্ম্য এবং প্রেসক্রিপশন নিয়ে রোগী-স্বজনদের বিরক্ত করার বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হচ্ছে।

এ ব্যাপারে র‌্যাব-২ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ নাজমুল্লাহেল ওয়াদুদ বলেন, রোগী ও তাদের স্বজনদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে সরকারি হাসপাতাল থেকে বের করে বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে বেশি বিল করে কমিশন বাণিজ্য করা হচ্ছে। সব টেস্ট সরকারি হাসপাতালে হলেও দালাল ও কিছু অসাধু কর্মচারীর যোগসাজশে এসব করা হচ্ছে। অভিযান শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।


আরও খবর



পবিত্র রমজানের আগে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম মসজিদ উদ্বোধন

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

আলজেরিয়ার রাজধানী আলজিয়ার্সে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম ও আফ্রিকা মহাদেশের সবচেয়ে বড় মসজিদ উদ্বোধন করা হয়েছে। কয়েক বছর ধরে বিলম্বিত হওয়ার পর অবশেষে পবিত্র রমাজন মাসের আগেই মসজিদটি উদ্বোধন করা হয়। খবর আল-জাজিরা

সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) উত্তর আফ্রিকার দেশ আলজেরিয়ার ভূমধ্যসাগরীয় উপকূলে আলজিয়ার্সের গ্র্যান্ড মসজিদ উদ্বোধন করেন দেশটির রাষ্ট্রপতি আবদেলমাদজিদ তেবোউন।

দ্য গ্রেট মস্ক অব আলজিয়ার্স স্থানীয়ভাবে জামাআ এল-জাজাইর নামে পরিচিত। যেখানে ১ লাখ ২০ হাজার মানুষ নামাজ পড়তে পারবেন। আলজিয়ার্সের গ্রেট মসজিদে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু মিনার রয়েছে-যার উচ্চতা ২৬৫ মিটার (৮৬৯ ফুট)। রাষ্ট্রীয় খরচে ২০১০ এর প্রায় পুরো দশক ধরেই একটি চীনা নির্মাণ সংস্থা দ্বারা চলেছে এই মসজিদ তৈরির কাজ।

২৭.৭৫ হেক্টর (প্রায় ৭০ একর) জুড়ে বিস্তৃত একটি আধুনিকতাবাদী কাঠামোর আকারে সাত বছর ধরে চলে মসজিদটির নির্মাণ কাজ। মসজিদটির নকশায় রয়েছে আধুনিকতা ও ঐতিহ্যের সমন্বিত ছোঁয়া। এতে আলজেরিয়ার ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে তুলে ধরার সঙ্গে সঙ্গে আরব এবং উত্তর আফ্রিকার সমৃদ্ধিকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। মসজিদটিতে রয়েছে হেলিকপ্টার অবতরণের একটি প্যাড। একটি লাইব্রেরিও আছে এখানে। সেখানে রাখা যাবে প্রায় ১০ লাখ বই।

মসজিদের উদ্বোধন মুসলিমদের ভালো ও পরিমিতিবোধের দিকে ধাবিত করবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন মুসলিম ওলামাদের বিশ্ব ইউনিয়নের জেনারেল সেক্রেটারি আলী মোহাম্মদ সালাবি।

মসজিদটি প্রায় পাঁচ বছর ধরেই পর্যটক এবং রাষ্ট্রীয় দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত ছিল। কেবল বিলম্বিত হয়েছে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন। আসন্ন রমজানে নামাজ আদায় যাতে সম্ভব হয় সে কারণে মসজিদটি আনুষ্ঠানিকভাবে জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হলো।


আরও খবর
আইনি লড়াইয়ে বড় জয় পেলেন ট্রাম্প

মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪




ফের বুরকিনা ফাসোতে হামলা: নারী-শিশুসহ নিহত ১৭০

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ মার্চ ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাসোতে হামলায় নারী ও শিশুসহ প্রায় ১৭০ জন নিহত হয়েছেন। দেশটির তিনটি গ্রামে চালানো হামলায় এই প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। তবে হামলার পেছনে কোন গোষ্ঠী জড়িত তা জানা যায়নি। সোমবার (৪ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুরকিনা ফাসোর তিনটি গ্রামে হামলা চালিয়ে নারী ও শিশুসহ প্রায় ১৭০ জনকে হত্যা’ করা হয়েছে বলে দেশটির একজন পাবলিক প্রসিকিউটর জানিয়েছেন। কমসিলগা, নর্ডিন এবং সোরো নামে তিনটি গ্রামে হামলা চালিয়ে এই হত্যাকাণ্ড ঘটনানো হয়। এই ঘটনায় আক্রমণকারীদের খুঁজে বের করতে সাহায্য করার জন্য সাক্ষীদের এগিয়ে আসার আবেদন জানিয়েছেন প্রসিকিউটর অ্যালি বেঞ্জামিন কুলিবালি।

আলাদাভাবে বুরকিনা ফাসোর সেনাবাহিনী শহুরে কেন্দ্রগুলোতে আক্রমণসহ’ ইসলামপন্থিদের আক্রমণের বর্ধিত ঝুঁকি সম্পর্কে সতর্ক করে দিয়েছে। দেশটির সেনাবাহিনী ২০২২ সালে ক্ষমতা দখল করে। তবে বুরকিনা ফাসোর এক-তৃতীয়াংশেরও বেশি এলাকা বিদ্রোহীরা নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।

কুলিবালি বলেছেন, তিনি গত ২৫ ফেব্রুয়ারি ইয়াতেঙ্গা প্রদেশে গ্রামে হামলার ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছেন। বার্তাসংস্থা এএফপি জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে কয়েক ডজন নারী ও শিশু রয়েছে। তবে হামলার পেছনে কোন গোষ্ঠী জড়িত তা জানা যায়নি। তবে শহরগুলোতে নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে বড় আকারের সিরিজের আক্রমণের শঙ্কা’ রয়েছে।

অবশ্য এই হামলা দেশটিতে সাম্প্রতিক সহিংসতার সাথে সম্পর্কিত বলে মনে করা হচ্ছে না। সম্প্রতি দেশটির একটি গির্জার পাশাপাশি একটি মসজিদ এবং সেনা ঘাঁটিতে হামলার ঘটনা ঘটে। এর আগে শুক্রবার দেশটির সেনাপ্রধান জঙ্গিদের আত্মঘাতী হামলার ঝুঁকি বাড়ার কারণে সৈন্যদের সতর্ক থাকার জন্য বলেছিলেন।

মানবিক কর্মীরা বলছেন, বুরকিনা ফাসোতে যে সংকট চলছে তা বিশ্বের অন্যতম অবহেলিত সংকট। বছরের পর বছর ধরে ব্যাপক নিরাপত্তাহীনতার কারণে ২০ লাখেরও বেশি লোক তাদের বাড়িঘর ছেড়ে বাস্তুচ্যুত মানুষে পরিণত হয়েছেন।

জাতিসংঘের ধারণা, পাঁচ বছরের কম বয়সী সকল শিশুর এক-চতুর্থাংশ ক্ষুধার কারণে বিকাশ বাধাগ্রস্ত হয়েছে। যদিও বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়ী হওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে দুই বছর আগে সামরিক বাহিনী বুরকিনা ফাসোর ক্ষমতা দখল করে, তবুও দেশটিতে এখনও সহিংসতা অব্যাহত রয়েছে।

চলতি সপ্তাহের শুরুতে ইন্সটিটিউট ফর ইকোনমিক্স অ্যান্ড পিস জানায়, সন্ত্রাসবাদের কেন্দ্রস্থল এখন চূড়ান্তভাবে মধ্যপ্রাচ্যের বাইরে এবং সাব-সাহারান আফ্রিকার মধ্য সাহেল অঞ্চলে স্থানান্তরিত হয়েছে।’

উল্লেখ্য, বুরকিনা ফাসোর এক-তৃতীয়াংশেরও বেশি এলাকা বর্তমানে বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে। দেশটির কর্তৃপক্ষ আল-কায়েদা এবং ইসলামিক স্টেটের সাথে যুক্ত ইসলামপন্থি গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে লড়াই করছে। এসব গোষ্ঠী সাহেল অঞ্চলের বিশাল অংশ দখল করেছে এবং লাখ লাখ মানুষকে বাস্তুচ্যুত করেছে।


আরও খবর
আইনি লড়াইয়ে বড় জয় পেলেন ট্রাম্প

মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪




পাকিস্তানে নির্বাচন

১৮১ আসনের ফলে এগিয়ে ইমরান সমর্থিতরা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত মোট ১৮১টি আসনের অনানুষ্ঠানিক ফল ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সমর্থিত স্বতন্ত্ররা সবচেয়ে বেশি আসন পেয়েছেন।

জিও টিভির তথ্য অনুযায়ী, স্বতন্ত্রপ্রার্থীরা পেয়েছেন ৭৬টি আসন যার বেশিরভাগই ইমরান খান সমর্থিত। নওয়াজ শরিফের পিএমএল-এন পেয়েছে ৫৪টি। আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী পিপিপি পেয়েছে ৪৩টি আসন। বাকি দলগুলো পেয়েছে মোট ৮টি আসন।

আইনি বাধার কারণে ইমরান খানের দল পিটিআইয়ের প্রার্থীরা স্বতন্ত্র হিসেবে অংশ নিয়েছেন। দেশটির নির্বাচন কমিশন তাদের দলীয় প্রতীক ক্রিকেট ব্যাট নিষিদ্ধ করায় একেকজন প্রার্থী ভিন্ন ভিন্ন প্রতীকে ভোটে লড়েছেন।

কোনো দল এককভাবে সরকার গঠন করতে চাইলে এবার ১৩৪টি আসনে জিততে হবে। তবে বিশ্লেষকেরা বলছেন, পাকিস্তানে এবার কোনো দল নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না-ও পেতে পারে।

প্রধান তিনটি দলের মধ্যে এখন পর্যন্ত লড়াই প্রায় সমান হওয়ায় বেশ নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। শেষ পর্যন্ত কে সরকার গঠন করতে পারবেন তা নিয়ে এখনও বিশ্লেষকরা কোনো পূর্ভাবাস দিতে পারছেন না।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী আরও ৮৪টি আসনের ফল ঘোষণা বাকি আছে এখনও। আর একটি আসনে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।


আরও খবর
আইনি লড়াইয়ে বড় জয় পেলেন ট্রাম্প

মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪