আজঃ বুধবার ২৪ জুলাই 20২৪
শিরোনাম

নিমপাতায় কমবে হাই ব্লাড সুগার, খাবেন যেভাবে

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ মে ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
জীবন ধারা ডেস্ক

Image

ডায়াবেটিস একটি গুরুতর অসুখ। এই অসুখে আক্রান্ত রোগীকে প্রতিনিয়ত সচেতন থাকতে হয়। নইলে জাপটে ধরে ভয়াবহ কিছু শারীরিক সমস্যা। তালিকায় আছে কিডনি ডিজিজ, ডায়াবেটিস নেফ্রোপ্যাথি, হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক ও গ্লকোমার মতো কিছু গুরুতর রোগ। তাই ব্লাড সুগারকে নিয়ন্ত্রণে রাখা চাইই চাই। আর এই কাজে আপনাকে সাহায্য করতে পারে হাতের কাছে থাকা নিমপাতা।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ডায়াবেটিস রোগীর শরীরে ইনসুলিন হরমোন কম বের হয় বা বের হলেও তা ঠিকমতো কাজ করতে পারে না। এই কারণেই রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়তে থাকে। আর দীর্ঘদিন ধরে রক্তে শর্করার পরিমাণ বেশি থাকলে সমস্যার শেষ থাকে না। এক্ষেত্রে বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

আরও পড়ুন: গরমে তেল ব্যবহার করুন চুলের সমস্যা বুঝে

তবে মনে রাখবেন, আমাদের হাতের কাছে থাকা নিমপাতার গুণেই কিন্তু এই সমস্যার সহজ সমাধান করা সম্ভব। তাই যুগ যুগ ধরে মধুমেহ রোগের প্রকোপ কমাতে নিমপাতার ব্যবহার হয়ে আসছে। এমনকি প্রাচীন ভারতীয় আয়ুর্বেদ শাস্ত্রেও এই নিয়ে বিশদে বর্ণনা রয়েছে। তাই ডায়াবেটিস রোগীরা সুস্থ থাকতে নিমপাতার দ্বারস্থ হতেই পারেন।

নিমের গুণেই সুগার কমবে

নিমপাতার মতো অত্যন্ত উপকারী ভেষজ আপনি অন্য একটি খুঁজে পাবেন না। এতে রয়েছে গ্লাইকোসাইডস এবং ট্রিপটোপেনয়েডসহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ফ্ল্যাভানয়েডস। আর এসব উপাদান একসঙ্গে মিলেই রক্তে শর্করার লেভেল নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। এই প্রসঙ্গে এনসিবিআইতে প্রকাশিত একটি গবেষণায় জানানো হয়েছে, নিমপাতায় রয়েছে অ্যান্টিডায়াবেটিক প্রপার্টিজ। আর এসব উপাদান ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। তাই ডায়াবেটিস রোগীরা নিয়মিত নিমপাতা খেলে উপকার পাবেন।

আরও পড়ুন: চুলের দুর্গন্ধ দূর করবেন যেভাবে

নিমপাতার পানীয় অত্যন্ত উপকারী

ডায়াবেটিসের মতো জটিল সমস্যাকে বাগে আনতে চাইলে নিমপাতার পানীয় তৈরি করে পান করতে পারেন। এক্ষেত্রে একটি পাত্রে পানি নিন। সেই জলে কয়েকটি নিমপাতা ফেলে দিন। এরপর জল টগবগ করে ফোটা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। জল ফুটতে শুরু করলে দেখবেন জলের রং হালকা সবুজ হয়ে গেছে। এর অর্থ হলো আপনার নিমপাতার পানীয় তৈরি। এরপর এই পানীয় ছেঁকে নিয়ে দিনে অন্তত দুবার পান করুন। এতেই দেখবেন সুগার লেভেল কমেছে। আপনি অনায়াসে সুস্থ থাকতে পারবেন।

রোজ সকালে চিবিয়ে খান

নিমপাতা চিবিয়ে খাওয়ার প্রথা যুগের পর যুগ ধরে চলে আসছে। গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত নিমপাতা চিবিয়ে খেলে রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে আসে। তাই আয়ুর্বেদ বিশেষজ্ঞরা প্রতিটি সুগার রোগীকে রোজ সকালে উঠে খালিপেটে কয়েকটি নিমপাতা চিবিয়ে খেয়ে নিতে বলেন। নিমপাতা চিবিয়ে খেলে এর থেকে সর্বাধিক উপকার পাওয়া যায়। এমনকি খুব দ্রুত সুগারের মাত্রাও কমে।

আরও পড়ুন: ঘুমে নাক ডাকা বন্ধের পাঁচটি উপায়

ওষুধ খাওয়া ছাড়লে চলবে না

মুশকিল হলো, এই প্রতিবেদনটি পড়ার পর অনেকেই ওষুধ খাওয়া বন্ধ করে নিমপাতা খাওয়া শুরু করতে পারেন। এই ভুল একদম করবেন না। মনে রাখবেন, নিমপাতা সুগার কমাতে পারে মাত্র। কিন্তু এই পাতা ডায়াবিটিসের ওষুধের বিকল্প নয়। তাই নিমপাতা খাচ্ছেন বলে ওষুধ খাওয়া ছাড়লে বিরাট বিপদ হতে পারে। তাই কোনোভাবেই সুগারের ওষুধ বা ইনসুলিন বন্ধ করবেন না।

ডায়াবেটিসের মতো ঘাতক অসুখকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে চাইলে দিনে ৩০ মিনিট ব্যায়াম হলো মাস্ট। এক্ষেত্রে জিমে সময় কাটাতে পারলে সবচেয়ে ভালো হয়। জিম করা সম্ভব না হলে সাইকেল চালানো, সাঁতার কাটা, জগিং বা হাঁটার মতো এরোবিক এক্সারসাইজ করতে পারেন। এর মাধ্যমেই ব্লাড সুগারের ফাঁদ থেকে বাঁচতে পারবেন। এমনকি দেহের অন্যান্য অঙ্গও থাকবে সুস্থ।


আরও খবর



ঠাকুরগাঁও সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি যুবক নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৫ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
রেদওয়ানুল হক মিলন, ঠাকুরগাঁও

Image

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে রাজু মিয়া (২০) নামের বাংলাদেশি এক যুবক নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে উপজেলার নাগরভিট সীমান্ত এলাকায় বিওপি আওতাধীন মেইন পিলার ৩৭৬/৫এস হতে ১০০ গজ ভারতের অভ্যন্তরে তিনগাঁও নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রাজু মিয়া বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার মোড়ল হার্ট ইউনিয়নের গড়িয়ালী গ্রামের বাসিন্দা মো. হবিবরের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঠাকুরগাঁও ৫০ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. তানজীর আহম্মদ বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। পতাকা বৈঠকের জন্য আমরা তাদেরকে (বিএসএফ) আহ্বান জানিয়েছি।

এর আগে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে আজমুল হোসেন নামে এক বাংলাদেশি আহত হন। বৃহস্পতিবার ভোর ৫টায় সীমান্তের ওপারে ভারতের ভেতর এ ঘটনা ঘটে। আহত ওই বাংলাদেশিকে উদ্ধার করে দেশটির শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করে বিএসএফ।


আরও খবর



সরকারি চাকরিতে কোটা নিয়ে চূড়ান্ত শুনানি ৪ জুলাই

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | অনলাইন সংস্করণ
আদালত প্রতিবেদক

Image

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বাতিলের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় বহাল থাকবে কি না, এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। আগামী ৪ জুলাই এ বিষয়ে আপিল বিভাগে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। মঙ্গলবার রিটকারী পক্ষ ও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা এ তথ্য জানিয়েছেন।

গত ৯ জুন প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা পদ্ধতি বাতিলের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় স্থগিত না করে আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়ে দেন চেম্বার আদালত। আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন।

ওই দিন আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মোতাহার হোসেন সাজু। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন।

সে দিন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেছিলেন, প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা পদ্ধতি বাতিলের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় বহাল থাকবে না কি বাতিল হবে এ বিষয়ে আপিল বিভাগই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।

এর আগে গত ৫ জুন প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা পদ্ধতি বাতিলের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা করেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে জারি করা রুল যথাযথ ঘোষণা করে বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন।

২০১৮ সালের ৪ অক্টোবর সরকারি চাকরিতে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির পদে সরাসরি নিয়োগে বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি তুলে দিয়ে মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে পরিপত্র জারি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। 

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব ফয়েজ আহম্মদ স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়, সরকার সকল সরকারি দফতর, স্বায়ত্তশাসিত/আধা-স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান এবং বিভিন্ন করপোরেশনের চাকরিতে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ১৭/০৩/১৯৯৭ তারিখের সম(বিধি-১)এস-৮/৯৫(অংশ-২)-৫৬(৫০০) নং স্মারকে উল্লিখিত কোটা পদ্ধতি নিম্নরূপভাবে সংশোধন করিল:

(ক) ৯ম গ্রেড (পূর্বতন ১ম শ্রেণি) এবং ১০ম-১৩তম গ্রেডের (পূর্বতন ২য় শ্রেণি) পদে সরাসরি নিয়ো ক্ষেত্রে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ প্রদান করা হইবে; এবং

(খ) ৯ম গ্রেড (পূর্বতন ১ম শ্রেণি) এবং ১০ম-১৩তম গ্রেডের (পূর্বতন ২য় শ্রেণি) পদে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি বাতিল করা হইল।

এই আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হইবে বলেও উল্লেখ করা হয় পরিপত্রে।

কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের দীর্ঘ আন্দোলনের পর সরকারি চাকরিতে নবম থেকে ত্রয়োদশতম গ্রেডে নিয়োগের ক্ষেত্রে ৪৫ শতাংশ কোটা তুলে দিয়ে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগে সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। 


আরও খবর
কোটা নিয়ে আপিল বিভাগে শুনানি রোববার

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




অধিনায়ক হিসেবে শান্তর ওপরই আস্থা বিসিবির

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

চলতি বছরের শুরুতে তিন ফরম্যাটে অধিনায়ক করা হয় নাজমুল হোসেন শান্তকে। বিশ্বকাপে দল সাফল্য পেলেও ব্যাট হাতে পারফরম্যান্স সন্তোষজনক ছিল না। সাত ম্যাচে ৯৫.৭২ স্ট্রাইক রেটে ১১২ রান করেন তিনি। ব্যাট হাতে পারফরম্যান্সের কারণেই অধিনায়কত্ব থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়ার কথা উঠছে।

এ নিয়ে জানতে চাইলে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেন, আমরা শান্তকে ম্যান্ডেট দিয়েছি এক বছরের জন্য। এখন পর্যন্ত এই বিষয় নিয়ে আমরা আলোচনা করিনি। তাসকিন শুরু করেছে সহঅধিনায়ক হিসেবে। আমার মনে হয়, সে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে পারে।

কিন্তু এই মুহুর্তে অধিনায়ক পরিবর্তন হবে কি না, ভবিষ্যতেও হবে কি না, এই বিষয় নিয়ে আমি আলোচনা করতে পারব না। সবকিছু বোর্ডের সিদ্ধান্তে হয়। শান্তকে আমরা এই বছরের জন্য ম্যান্ডেট দিয়েছি। বাকিটা বোর্ডের ইচ্ছা।

এবারের বিশ্বকাপে বেশ কয়েকজন ব্যাটার ছিলেন অফ ফর্মে। এ নিয়ে দলকেও ভুগতে হয়েছে। জালাল ইউনুস এ ব্যাপারে জানান, পারফর্ম করেই দলে এসেছিলেন তারা। ভবিষ্যতেও পারফরম্যান্সেই জোর দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

জালাল আরও বলেন, সাকিব-মাহমুদউল্লাহ কারও নাম নিয়ে বলছি না, যারা পারফর্ম করে সামনে আসবে তারাই খেলবে। এখন যারা খেলছে তারা সবাই পারফর্ম করেই এসেছে। যারা টি-২০ দলে গিয়েছে প্রত্যেকেই সামর্থ্য দেখিয়েই টিমে ছিল। দলের মধ্যে পারফর্ম্যান্সকেই সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার দেওয়া হয়।


আরও খবর



বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের দখলে প্রগতি সরণি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

কমপ্লিট শাটডাউনের অংশ হিসেবে রাজধানীর প্রগতি সরণি বসুন্ধরা গেটের সামনে থেকে নদ্দা, নতুন বাজার পর্যন্ত কোটাবিরোধী আন্দোলন করছেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। নদ্দা বাস স্টেশনের সামনে কয়েকশ শিক্ষার্থী আন্দোলনে অংশ নিচ্ছেন। পুরো প্রগতি সরণি সড়ক দখলে নিয়েছেন তারা।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) বেলা ১১টার পর রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা।

সরেজমিনে দেখা যায়, নর্থ সাউথসহ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করে রেখেছেন। এ সময় যাতায়াতকারী সব যানবাহনের চলাচল বন্ধ রয়েছে। শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধের কারণে রাস্তায় অনেক যানবাহন আটকে আছে। আন্দোলন থেকে শিক্ষার্থীরা নানা স্লোগান দিয়ে যাচ্ছেন।

গতকাল রাজধানীর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও শনির আখড়ায় পুলিশের সাথে আন্দোলনকারীদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে তিনি বলেন, উচ্চ আদালত থেকে ছাত্রসমাজ ন্যায়বিচার পাবে এবং তাদের হতাশ হতে হবে না।

এরপর দেশে কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচির ঘোষণা করে বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন। কর্মসূচি অনুযায়ী, হাসপাতাল ও জরুরি সেবা প্রতিষ্ঠান ছাড়া সবকিছু বন্ধ থাকবে এবং রাস্তায় অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া কোনো যানবাহন চলবে না বলে জানানো হয়।


আরও খবর



ঢাকাসহ ১৫ জেলায় ঝড়ের আশঙ্কা

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

ঢাকাসহ দেশের ১৫ জেলায় ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

শনিবার (৬ জুলাই) দিনগত রাত ১টার মধ্যে দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর সমূহের জন্য দেওয়া এক পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, যশোর, কুষ্টিয়া ফরিদপুর, খুলনা, ঢাকা, বরিশাল, পটুয়াখালী, কুমিল্লা, নোয়াখালী এবং সিলেট অঞ্চলসমূহের ওপর দিয়ে রাত ১টার মধ্যে দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পূর্বদিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এদিকে, রোববার সকাল ৯টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি থেকে প্রবল অবস্থায় রয়েছে।

এ অবস্থায় রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং ঢাকা ও খুলনা বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।


আরও খবর