আজঃ মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪
শিরোনাম

নাটোরে গাঁজাসহ দুই নারী গ্রেফতার

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
নাটোর প্রতিনিধি

Image

নাটোর শহরতলির বড়ভিটা এলাকায় অভিযান চালিয়ে সাড়ে ৫ কেজি গাঁজাসহ দুই নারীকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। শনিবার দুপুরে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত হলো- ওই এলাকার মো. মাসুদের স্ত্রী মোছা. রুপা বেগম ও জহুরুল ইসলামের স্ত্রী মোছা. স্বপ্না বেগম।

নাটোর গোয়েন্দা পুলিশের ( ডিএসবি) কর্মকর্তা এসআই আশরাফুল ইসলাম জানান, পুলিশ সুপারে নির্দেশে শনিবার ডিবি পুলিশের একটি দল সদর উপজেলার বড়ভিটা এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান চালায়। এসময় সাড়ে ৫ কেজি গাঁজা সহ রুমা বেগম (৩৮) ও স্বপ্না বেগম (২০) কে গ্রেফতার করা হয়। এসময় উদ্ধার করা গাঁজা জব্দ করা হয়।

এসআই আশরাফুল ইসলাম (ডিএসবি) কর্মকর্তা আরো জানান, গ্রেফতারকৃতরা নিজেদের হেফাজতে রেখে মাদক ব্যবসা করছিল। তাদের বিরুদ্ধে নাটোর সদর থানায় মাদক মামলা রুজু করা হয়েছে।


আরও খবর



ঘুরে দাড়াচ্ছে সিলেটের অর্থনীতি

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
সিলেট প্রতিনিধি

Image

চলতি ২০২৩-২৪ অর্থ-বছরের প্রথম ৭ মাসে দেশে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন ঢাকা বিভাগের প্রবাসীরা। আর এই তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে সিলেটের প্রবাসীরা। প্রথম ৭ মাসে সিলেট বিভাগে ১৪২ কোটি ৯১ লাখ ডলার রেমিট্যান্স এসেছে। আর সবচেয়ে কম রেমিট্যান্স এসেছে রংপুর বিভাগে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়, গত জুলাই-জানুয়ারি মাসে প্রবাসীরা দেশে ১ হাজার ২৯০ কোটি ৬ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকায় রেমিট্যান্স এসেছে ৬১৯ কোটি  ৫০ লাখ ডলার।এছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছে চট্টগ্রাম বিভাগে। জুলাই-জানুয়ারিতে চট্টগ্রামে প্রবাসীরা রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন ৩৬৫ কেটি ৩৯ লাখ মার্কিন ডলার, সিলেট বিভাগে ১৪২ কোটি ৯১ লাখ ডলার, খুলনা বিভাগে ৫১ কোটি ৩৭ লাখ ডলার, রাজশাহী বিভাগে ৪১ কোটি ১১ লাখ ডলার, বরিশাল বিভাগে ৩১ কোটি ডলার, ময়মনসিংহ বিভাগে ২২ কোটি ৮২ লাখ ডলার ও রংপুর বিভাগে ১৫ কোটি ৯৭ লাখ ডলার।

আর গত জানুয়ারি মাসে দেশে রেমিট্যান্স এসেছে ২১০ কোটি ৯ লাখ ৫০ হাজার ডলার, যা বিগত ৭ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ।

এর আগে, ২২ অক্টোবর থেকে বৈধ চ্যানেলে ব্যাংকের মাধ্যমে প্রবাসী আয় দেশে পাঠালে প্রতি ১০০ টাকায় আড়াই শতাংশ প্রণোদনার সঙ্গে প্রবাসীদের বাড়তি আরও আড়াই শতাংশ বেশি অর্থ দেয়ার নির্দেশনা কার্যকর করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, সরকারের দেয়া আড়াই শতাংশ প্রণোদনার পাশাপাশি অতিরিক্ত আরও আড়াই শতাংশ অর্থ বেশি দিয়ে রেমিট্যান্স কিনতে পারবে ব্যাংকগুলো।

ব্যাংক সংশ্লিষ্টদের মতে, বাড়তি প্রণোদনা পাওয়ায় প্রবাসীরা বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠানো বাড়িয়েছেন। সামনে এর পরিমাণ আরও বাড়বে।

গত জানুয়ারিতে রাষ্ট্র মালিকানাধীন ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ১৭ কোটি ১৯ লাখ ৩০ হাজার ডলার। এছাড়া বিশেষায়িত ব্যাংকের মাধ্যমে ৬ কোটি ৯৮ লাখ ১০ হাজার ডলার, বেসরকারি ব্যাংকের মাধ্যমে ১৮৫ কোটি ২৬ লাখ ৩০ হাজার ডলার ও বিদেশি খাতের ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ৬৫ লাখ ৮০ হাজার ডলার।

জানুয়ারিতে ঢাকায় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছে ১০০ কোটি ১৬ লাখ মার্কিন ডলার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছে চট্টগ্রাম বিভাগে। জানুয়ারিতে চট্টগ্রামের প্রবাসীরা রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন ৫৯ কেটি ৮৯ লাখ ডলার। এছাড়া সিলেট বিভাগে ২২ কোটি ৫০ লাখ ডলার, খুলনা বিভাগে ৮ কোটি ২৮ লাখ ডলার, রাজশাহী বিভাগে ৭ কোটি ৭৩ লাখ ডলার, বরিশাল বিভাগে ৫ কোটি ৯ লাখ ডলার, ময়মনসিংহ বিভাগে ৩ কোটি ৭৯ লাখ ডলার ও রংপুর বিভাগে ২ কোটি ৬৫ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা।

এদিকে, গত ডিসেম্বরে ১৯৮ কোটি ৯৮ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। আর গত নভেম্বর, অক্টোবর, সেপ্টেম্বর, আগস্ট ও জুলাইতে রেমিট্যান্স এসেছে যথাক্রমে ১৯৩ কোটি ৪০ হাজার, ১৯৭ কোটি ১৪ লাখ ৩০ হাজার, ১৩৩ কোটি ৪৩ লাখ ৫০ হাজার, ১৫৯ কোটি ৯৪ লাখ ৫০ হাজার ও ১৯৭ কোটি ৩১ লাখ ৫০ হাজার ডলার।

গত অর্থ-বছরের রেমিট্যান্স এসেছে জুলাইতে ২০৯ কোটি ৬৩ লাখ ২০ হাজার, আগস্টে ২০৩ কোটি ৬৯ লাখ ৩০ হাজার, সেপ্টেম্বরে ১৫৩ কোটি ৯৬ লাখ, অক্টোবরে ১৫২ কোটি ৫৫ লাখ ৪০ হাজার, নভেম্বরে ১৫৯ কোটি ৫১ লাখ ৭০ হাজার, ডিসেম্বরে ১৬৯ কোটি ৯৭ লাখ, জানুয়ারিতে ১৯৫ কোটি ৮৮ লাখ ৭০ হাজার, ফেব্রুয়ারিতে ১৫৬ কোটি ৪ লাখ ৮০ হাজার, মার্চে ২০২ কোটি ২৪ লাখ ৭০ হাজার, এপ্রিলে ১৬৮ কোটি ৪৯ লাখ ১০ হাজার, মে মাসে ১৬৯ কোটি ১৬ লাখ ৩০ হাজার ও জুন মাসে ২১৯ কোটি ৯০ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার।

নিউজ ট্যাগ: সিলেট

আরও খবর



পণ্যের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করলে কঠোর ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

আসন্ন রমজান উপলক্ষে অবৈধভাবে নিত্যপণ্য মজুত করে কৃত্রিম সংকট তৈরি করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর মধুবাগে শেরেবাংলা স্কুল অ্যান্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী অবৈধভাবে যারা নিত্যপণ্য মজুত করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী কাজ করছে। 

আরও পড়ুন>> দেশের মানুষের ন্যায় বিচার নিশ্চিত করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

বিএনপির চলমান আন্দোলন নিয়ে প্রশ্ন করা হলে জবাবে মন্ত্রী বলেন, আন্দোলনের জন্য দল গুছিয়ে বিএনপির লাভ নেই। মানুষ তাদের সঙ্গে নেই। এ দেশের মানুষ আগুনসন্ত্রাস-জঙ্গিবাদকে পছন্দ করে না। আন্দোলনের নামে বিএনপি যদি ২৮ অক্টোবরের মতো নাশকতার চেষ্টা করে তাহলে কঠোর হস্তে দমন করা হবে।

বিএনপির নেতাকর্মীরা জামিনের বিষয়ে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, জামিন আমাদের হাতে নেই, জামিন আদালতের বিষয়। তারা (বিএনপি) যদি আবারও অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর চালায় তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে।


আরও খবর



খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

এবার ভারতের হকি খেলোয়াড় বরুণ কুমারের বিরুদ্ধে এক তরুণী থানায় ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন। অভিযোগ বলা হয়েছে, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিক বার তার সঙ্গে বরুণ সহবাস করেছেন। এমনকি নাবালিকা থাকার সময়েও সহবাস করেছেন।

অভিযোগকারিণীর বর্তমান বয়স ২২। তিনি দাবি করেন, ২০১৯ সালে তার যখন ১৭ বছর বয়স, তখন ইনস্টাগ্রামে বরুণের সঙ্গে পরিচয় হয়। ব্যাঙ্গালুরুর সাই স্টেডিয়ামে জাতীয় দলের শিবিরে এলেই বরুণ তার সঙ্গে সহবাস করতেন। পরে বার বার বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েও তা রক্ষা করেননি।

অবশেষে সেই তরুণী ব্যাঙ্গালুরুর জ্ঞানভারতী থানায় অভিযোগ করেন। ইতিমধ্যে অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে বরুণের বিরুদ্ধে। তবে পুলিশের দাবি, বরুণ পলাতক। খোঁজ পাওয়ার চেষ্টা চলছে। জানা গেছে, ব্যাঙ্গালুরু পুলিশের একটি দল জালন্ধরে গিয়ে বরুণকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে।

এদিকে টোকিও অলিম্পিকের দলে স্ট্যান্ড বাই হিসাবে ছিলেন বরুণ। দল ব্রোঞ্জ জেতার পর হিমাচল প্রদেশের সরকার বরুণকে এক লাখ টাকা আর্থিক পুরস্কারও দিয়েছিল।


আরও খবর



বঙ্গবন্ধু স্বাধীন শক্তিশালী বিচার বিভাগের স্বপ্ন দেখে ছিলেন : আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
মশিউর রাহাত (পিরোজপুর)

Image

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন শক্তিশালী বিচার বিভাগের স্বপ্ন দেখে ছিলেন। যেখানে বিচার প্রার্থী জনগণ শুধু ন্যায় বিচার পাবেন। বঙ্গবন্ধু শুধু এই স্বপ্নই দেখেননি বাংলাদেশকে তিনি স্বাধীন করার পর একটি আইনি কাঠামো তৈরি করে দিয়েছিলেন। কিন্তু ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পর সামরিক শাসকদের যাতাকলে বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন আর প্রস্ফুটিত হতে পারেনি।

আজ রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সংসদ ভবনের অফিস কক্ষ থেকে আইন মন্ত্রী আনিসুল হক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৮ তলাবিশিষ্ট দৃষ্টিনন্দন চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নতুন ভবন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী মলেন, ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিচার বিভাগের সমস্যা দূরকরণে বেশ কিছু যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। যার মধ্যে অন্যতম পদক্ষেপ চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রিসির প্রথম পর্যায়ে ২ হাজার ২শ ৬০ কোটি ৩৪ লক্ষ টাকা ব্যায়ে ৪১টি জেলায় আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত নির্মন প্রকল্প। ইতোমধ্যে এর নির্মান কাজ শেষে হয়েছে। এবং আরও ৩৮টি জেলায় নির্মিত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত উদ্বোধন করা হবে।  পিরোজপুরে ৫৬ কোটি ৬৪ লক্ষ টাকা ব্যায়ে নির্মিত ৮তলা ভবন উদ্বোধন করা হলো।

মন্ত্রী আরও বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে সুখী সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মান করা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতকি অঙ্গীকার। প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে বিরামহীন ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।  তার সুদক্ষ ও দূরদর্শী নেতৃত্বেও কারনে পদ্মা সেতু কর্ণফুলী টানেল, মেট্রো রেল, হজরত শাহ জালাল বিমান বন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল, এলিভেটেড এক্সেপ্রেস ওয়ে, রূপপূর পারমানবিক প্রকল্পসহ অনেক মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়েছে। উন্নয়নের ক্ষেত্রে বিশ্বে বাংলাদেশ রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় পিরোজপুরে আরও উন্নয়ন হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গত ১৫ বছরের উন্নয়নের গতি, প্রকৃতি, অর্থনীতি, রাজনীতি, অর্থনীতি, সমাজনীতি সবকিছু বিচার বিশ্লেষণ করে দেখা যায় তিনি অভিষ্ট লক্ষ্যে পৌছাতে তিনি সঠিক পথে এগিয়ে যাচ্ছে।

এর আগে সংসদ ভবনের অফিস কক্ষ থেকে আইন মন্ত্রী আনিসুল হক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৮তলা বিশিষ্ট দৃষ্টিনন্দন চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নতুন ভবন উদ্বোধন করেন। অপর দিকে পিরোজপুর প্রান্তে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আইনমন্ত্রী আনিসুর হক উদ্বোধন ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে সম্মেলন কক্ষে স্থাপিত (অস্থায়ী) উদ্বোধনী ফলক উন্মেচন করেন পিরোজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য শ ম রেজাউল করিম, পিরোজপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মহারাজ, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রকল্পের প্রধান সম্মনায়ক (যুগ্ম সচিব) বিকাশ কুমার সাহা ও জেলা জজ মোহাম্মদ মোক্তাগীর আলম।

৫৬ কোটি ৬৪ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত এ ভবনের কাজ বাস্তবায়ন করেছে গণপূর্ত বিভাগ। ৮ তলা এই ভবনে আদালতের কার্যক্রম শুরু হলে এজলাস কক্ষ সংকটের সমাধানের পাশাপাশি বিচারকার্যে গতি বাড়বে বলে মনে করেন আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থীরা।

বিচারক, আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থীদের সুবিধার জন্য এখানে রয়েছে ২২টি এজলাস, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য ৫০০ কেবি সাবস্টেশন, অত্যাধুনিক ৩টি লিফট, অত্যাধুনিক লাইব্রেরি, কনফারেন্স রুম, ব্রেষ্ট ফিডিং কর্নার, নামাজের কক্ষ এবং বিচারকদের খাস কামরা। এছাড়াও এখানে রয়েছে নারী ও পুরুষদের জন্য পৃথক হাজতখানাসহ প্রয়োজনীয় অফিস কক্ষ, অপেক্ষমাণ কক্ষ এবং শৌচাগারের ব্যবস্থা।

আইন ও বিচার বিভাগ, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ গোলাম সারওয়ারের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন, পিরোজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য শ ম রেজাউল করিম, পিরোজপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মহারাজ, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রকল্পের প্রধান সম্মনায়ক (যুগ্ম সচিব) বিকাশ কুমার সাহা ও জেলা জজ মোহাম্মদ মোক্তাগীর আলম জেলা প্রশাসক জাহেদুর রহমান, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ শরীফুল ইসলাম, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি খান মোহাম্মদ আলাউদ্দিন, সাদারণ সম্পাদক এম ডি আউয়াল।

উপস্থিত ছিলেন গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জহুরুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট কানাই লাল বিশ্বাস প্রমূখ।


আরও খবর



ভারতে তীর্থযাত্রী বোঝাই ট্রাক্টর উল্টে নিহত ২২

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | অনলাইন সংস্করণ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image

ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যে গঙ্গাস্নানে যাওয়ার পথে ট্রাক্টর-ট্রলি উল্টে অন্তত ২২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১০ জন। স্থানীয় সময় আজ শনিবার সকালের দিকে এই ঘটনা ঘটেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। 

পুলিশের বরাত দিয়ে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজ শনিবার সকালের দিকে একদল তীর্থযাত্রী গঙ্গাস্নানের উদ্দেশ্যে কেদারগঞ্জে যাচ্ছিলেন। কিন্তু পথিমধ্যে রাজ্যের কাশগঞ্জ জেলার একটি এলাকায় তাদের বহনকারী ট্রাক্টর-ট্রলি উল্টে একটি পুকুরে পড়ে যায়। 

আরও পড়ুন>> বাংলাদেশ সফরে আসছেন বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক

পুলিশ নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছে, আহত ১০ জনকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ আহত তীর্থযাত্রীদের যথাযথ চিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে তাঁর কার্যালয়। নিহতদের পরিচয় এখনো প্রকাশ করা হয়নি। নিহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন নারীও আছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এই দুর্ঘটনার পর যোগী আদিত্যনাথ শোক প্রকাশ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে একটি টুইট শেয়ার করেছেন এবং নিহতদের পরিবারকে ২ লাখ রুপি করে ও আহতদের পরিবারকে ৫০ হাজার করে অর্থ সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

এক্সে শেয়ার করা পোস্টে যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, কাশগঞ্জ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা অত্যন্ত হৃদয়বিদারক। শোকাহত পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা। আহতদের বিনা মূল্যে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর
আইনি লড়াইয়ে বড় জয় পেলেন ট্রাম্প

মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪