আজঃ শুক্রবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২১
শিরোনাম

মুন্সীগঞ্জে নির্বাচনী সহিংসতায় নৌকার সমর্থক নিহত, গুলিবিদ্ধ ৫

প্রকাশিত:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২২ নভেম্বর ২০২১ | ৪৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মুন্সীগঞ্জ সদরের চরকেওয়ার ইউনিয়ন। বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের হামলা, গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণে এক নৌকার সমর্থক নিহত হয়েছেন। এ সময় কমপক্ষে পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন বলে জানা গেছে। 

রোববার রাত ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত ইউনিয়নের খাসকান্দি ও ছোট মোল্লাকান্দি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী সতন্ত্র প্রার্থী আক্তারুজ্জামান জীবনসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সম্পাদককে দল থেকে বহিষ্কার করায় এ ঘটনা ঘটে।

হামলায় গুলিবিদ্ধ নৌকা প্রতীকের পাঁচ সমর্থকদের মধ্যে তিনজনকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো কয়েছে। অন্য দুজন মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এদিকে হামলায় ককটেল বিস্ফোরণের সময় আতঙ্কে স্ট্রোক করে আব্দুল হক (৪৮) নামে এক ব্যক্তি মারা গেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে তার স্বজনদের দাবি, মারধর করে হত্যা করা হয় আব্দুল হককে। নিহত আব্দুল হক স্থানীয় মঞ্জিল হকের ছেলে।

ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নির্বাচন কেন্দ্র করে উত্তপ্ত অবস্থা বিরাজ করছিল চরকেওয়ার ইউনিয়নে। রোববার রাতে ছোট মোল্লাকান্দি ও খাসকান্দি এলাকায় স্বতন্ত্র আনারস প্রতীকের প্রার্থী আক্তারুজ্জামান জীবনের সমর্থকরা অতর্কিত হামলা চালায় নৌকার প্রার্থী আফসার উদ্দিন ভূঁইয়ার সমর্থকদের ওপর। এ সময় হামলাকারীরা ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলিবর্ষণ করে।

ভাঙচুর চালায় অর্ধশতাধিক ঘরবাড়ি। হামলায় নৌকার সমর্থক শরিফ, সাইফুল, বাবু হালদার, মনির ও রমজান গুলিবিদ্ধসহ বেশ কয়েকজন আহত হন। এ সময় আতঙ্কে স্ট্রোক করে একজনের মৃত্যু হয়।

মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সোহাগ জানান, নিহত ব্যক্তির শরীরে কোনো গুলি বা আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাঁচজন হাসপাতালে এসেছে। তাদের মধ্যে তিনজনকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। অন্য দুজনের চিকিৎসা চলছে।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ওসি আবুবকর সিদ্দিক জানান, ওই ঘটনার সময় একজন স্ট্রোক করে মারা গেছেন। কয়েকজন গুলিবিদ্ধের খবর শুনেছি। খবর পেয়ে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।


নিউজ ট্যাগ: মুন্সীগঞ্জ

আরও খবর
বগি লাইনচ্যুত, ট্রেন চলাচল বন্ধ

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




ডেঙ্গু আক্রান্ত আরও ১৫১ জন হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৮ নভেম্বর ২০২১ | ৪৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে আরও ১৫১ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকায় ১০৩ জন ও ঢাকার বাইরে ৪৮ জন ভর্তি হয়েছে।

আজ সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের নিয়মিত ডেঙ্গুবিষয়ক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি থাকা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৬২ জন। এর মধ্যে ঢাকার ৪৬টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছে ৫২৩ জন এবং অন্যান্য বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছে ১৩৯ জন।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, গত ১ জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ২৪ হাজার ৭৯৬ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছে ২৪ হাজার ৩৯ জন।

অপরদিকে চলতি বছরে ডেঙ্গুতে মৃত্যুবরণ করেছে ৯৫ জন।


আরও খবর
আরও ১০৮ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1

করোনায় মৃত্যু ৩, শনাক্ত ২৬১ জন

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




সন্তানদের পড়াশোনার ব্যয় বহন করেন টুইঙ্কেল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1 | ৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউডের জুটিদের মধ্যে জনপ্রিয়তার দিক থেকে অন্যতম অক্ষয় কুমার ও টুইঙ্কেল খান্না। বলিউডের প্রথম সারির অভিনেতা অক্ষয় একটি ছবির জন‍্য কোটি কোটি টাকা পারিশ্রমিক নেন। আগামী অন্তত দু বছরের শিডিউল তৈরি করা থাকে অক্ষয়ের। সম্প্রতি তারকাদের একটি শো ঘর ঘর কি কহানি-তে অভিনেত্রী কাজলের কাছে অক্ষয়- টুইঙ্কেল দম্পতি কিভাবে সংসারের খরচ চালায় তা ফাঁস করলেন টুইঙ্কল।

এখন আর অভিনয় না করলেও অনেক সম্পত্তির মালিক অক্ষয়ের স্ত্রী টুইঙ্কেল খান্না। সংসারের সমস্ত খরচপত্র স্বামীর সঙ্গে ভাগ তো করেনই, সন্তানদের পড়াশোনার খরচও নিজে বহন করেন টুইঙ্কেল। কাজলের সাক্ষাৎকার নেওয়ার সময় অক্ষয় ঘরণী তাকে জিজ্ঞাসা করেন, অজয় দেবগণ ও তিনি ঘরের খরচ পত্র ভাগাভাগি করেন কীভাবে। নিজের সংসারের উদাহরণ দিয়ে টুইঙ্কল বলেন, তার বাড়িতে দুই ছেলে মেয়ে আরভ ও নিতারার পড়াশোনার ব‍্যয়ভার তিনি বহন করেন। যাতে ভবিষ‍্যতে তিনি সন্তানদের এটা অন্তত বলার সুযোগ পান যে তারা শিক্ষিত হয়েছে তাদের মায়ের জন‍্য।

অন্যদিকে কাজল জানান, তার বাড়িতে অনলাইনের সমস্ত বিল তিনি নিজে ভরেন আর অজয় ভরেন অফলাইনগুলো। কাজল বলেন, মেয়ে নায়সা এবং ছেলে যুগের যে কোনও দরকারে বাবা অজয় থাকেন। তিনি বলেন, যদি কোনও দিন যুগের স্কুলের জন্য আমায় সকাল ৭টায় ঘুম থেকে উঠতে হয়, ঠিক তখনই অজয়ও উঠে পড়ে। ছেলের সঙ্গে বসে গল্প করে, খাবার খাওয়ায়, ড্রেস পরিয়ে স্কুলে পাঠায়, সবই করে। নায়সা যখন ছোট ছিল, তখনও অজয় এটাই করত।

উল্লেখ‍্য, প্রভূত সম্পত্তির অধিকারী হওয়া সত্ত্বেও সন্তানদের হাতে অত‍্যন্ত কম টাকা তুলে দেন অক্ষয়। অন‍্যান‍্য তারকা সন্তানদের মতো অক্ষয় পুত্র আরভকে খুব কমই দেখা যায় বলিউডের পার্টিতে। ছেলেকে কড়া শাসনে বড় করে তুলছেন অক্ষয়। কারণ তিনি চান না আরভ ধনী বাবার বিগড়ে যাওয়া সন্তানদের মতো হোক।

অক্ষয় নিজে অত‍্যন্ত পরিশ্রম করে ইন্ডাস্ট্রিতে জায়গা করেছেন। এক সময় তিনিই ছিলেন বহিরাগত। আজ সম্পূর্ণ নিজের চেষ্টায় তিনি এই উচ্চতায় উঠেছেন। প্রতিটি পয়সার মূল‍্য বোঝেন অক্ষয়-  টুইঙ্কেলটুইঙ্কেল। নিজেদের শিক্ষাতেই শিক্ষিত করতে চান তারা দুই ছেলেমেয়েকে।


আরও খবর



শ্রীবরদীতে বিদ্যুতায়িত জিআই তারে জড়িয়ে বন্য হাতির মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৯ নভেম্বর ২০২১ | ৬২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শেরপুর প্রতিনিধি:

শেরপুরের গারো পাহাড়ে বিদ্যুতায়িত জিআই তাড়ে জড়িয়ে একটি বন্য হাতি মারা গেছে। আজ ভোরে শ্রীবরদী উপজেলার মালাকুচা নেয়া বাড়ি টিলার কাছে আমির উদ্দিনের সবজি বাগানে বিদ্যুতায়িত জিআই তারের বেড়ার সাথে জড়িয়ে হাতিটি মারা যায়।

শেরপুরের গারো পাহাড়ের বন্যহাতির বিচরণ এলাকায় স্থানীয় লোকজন বনবিভাগের জবর দখলকৃত জমিতে বাড়ি-ঘর নির্মাণ এবং ধান ও সবজি বাগান করে আসছে। এসব স্থানে বনবিভাগের নির্দেশনাকে উপেক্ষা করে সবজি, ধান ক্ষেত ও বাড়ির চারপাশে বিদ্যুতায়িত জিআই তারের বেড়া দিয়েছে। এসব জিআই তারে জড়িয়ে প্রায়ই হাতির মৃত্যুর ঘটনা ঘটে আসছে।

বন কর্মকর্তাদের নানাভাবে হুমকি ও আন্দোলন করে আসছে তারা। বনবিভাগের পক্ষ থেকে বিদ্যুতায়িত জিআই তারের বেড়া তুলে নেয়ার জন্য বারবার নিষেধ করার পরও তারা তা মানছে না। একারণেই আজ মালাকুচা নেয়া বাড়ি টিলার কাছে আমির উদ্দিনের সবজি বাগানে বন্য হাতিটি বিদ্যুতায়িত জিআই তারে জড়িয়ে মারা যায়।

মৃত হাতিটির ময়না তদন্ত করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে রেঞ্জ কর্মকর্তা মো: রবিউল ইসলাম জানান।

অপরদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিলুফা আক্তার জানান, আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি। যারা দায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



‘ওয়ালটন স্মার্ট ফ্রিজ, স্মার্ট মেকার’: সেরা দশ নির্মাতা পুরস্কৃত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ | ২৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শেষ হলো ওয়ালটন স্মার্ট ফ্রিজ, স্মার্ট মেকার-সিজন টু শীর্ষক ভিডিও নির্মাণ প্রতিযোগিতার প্রথম রাউন্ড। ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর আয়োজিত ওই স্মার্ট ভিডিও কনটেস্টের প্রথম রাউন্ডে বিজয়ী সেরা দশ নির্মাতাকে পুরস্কৃত করেছে কর্তৃপক্ষ। পুরস্কার হিসেবে তারা প্রত্যেকে ৫০ হাজার টাকা করে পেয়েছেন। ওই টাকায় তারা দ্বিতীয় পর্বের জন্য আরেকটি ভিডিও নির্মাণ করবেন। তাদের মধ্য থেকে তিন চূড়ান্ত বিজয়ী পাবেন যথাক্রমে ৩, ২ এবং ১ লাখ টাকা পুরস্কার।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) রাজধানীর ওয়ালটন করপোরেট অফিসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সেরা দশ নির্মাতাকে পুরস্কৃত করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর নজরুল ইসলাম সরকার, ইভা রিজওয়ানা নিলু ও মো. হুমায়ূন কবীর, ওয়ালটন প্লাজা ট্রেডের সিইও মোহাম্মদ রায়হান, জ্যেষ্ঠ নির্বাহী পরিচালক এস এম জাহিদ হাসান, রেফ্রিজারেটরের চীফ বিজনেস অফিসার আনিসুর রহমান মল্লিক, কনটেস্টের সিজন টুর বিচারক প্যানেলের তিন সদস্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী কুসুম শিকদার, ওয়ালটনের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ও প্রধান বিপণন কর্মকর্তা ফিরোজ আলম এবং সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ও হেড অব ব্র্যান্ড ম্যানেজমেন্ট আমিন খান, ফ্রিজের সিনিয়র ব্র্যান্ড ম্যানেজার মাহমুদুল হাসান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বিচারক প্যানেলের অন্যতম সদস্য ফিরোজ আলম বিজয়ী প্রতিযোগিদের গুরুত্বপূর্ণ দিক-নির্দেশনা দেন। তিনি দ্বিতীয় রাউন্ডের ভিডিও তৈরির জন্য ৫টি থিম উপস্থাপন করেন। সেগুলো হলো: সুন্দর আগামি ও উন্নত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ওয়ালটনের ভূমিকা, প্রযুক্তিসম্পন্ন আধুনিক বাংলাদেশে ওয়ালটনের ভূমিকা, অর্থনৈতিক উন্নয়নে ওয়ালটনের ভূমিকা, জীবন-যাত্রার মানোন্নয়নে ওয়ালটনের ভূমিকা এবং জলবায়ু সুরক্ষায় ওয়ালটনের ভূমিকা।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, গত ৬ অক্টোবর শুরু হয়ে প্রথম রাউন্ড চলে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত। প্রথম পর্বে এক হাজারেরও বেশি প্রতিযোগি রেজিস্ট্রেশন করেন। সেখান থেকে চার শতাধিক ভিডিও জমা পড়ে। ভিডিওগুলোর মধ্যে গল্পে ২৫, নির্মাণশৈলীতে ৫০ এবং সোশ্যাল মিডিয়া একটি ভিটিতে ২৫ নম্বরের মধ্যে যারা বেশি পেয়েছেন, এমন ১০ জন নির্মাতাকে নির্বাচন করা হয়। 

ওই ১০ জন স্মার্ট মেকারকে নিয়ে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় রাউন্ড। তারা ওয়ালটনের দেয়া ৫টি থিমের ওপর সর্বোচ্চ ২ মিনিটের আরেকটি ভিডিও নির্মাণ করবেন। ওই ভিডিওগুলোর নির্মাণশৈলীতে ৫০ এবং সোশ্যাল মিডিয়া একটিভিটিতে ৫০ নম্বর দেয়া হবে। দ্বিতীয় পর্বের প্রতিযোগিদের মধ্যে যারা প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হবেন, তাদেরকে যথাক্রমে ৩, ২ এবং ১ লাখ টাকা পুরস্কার দেয়া হবে। বাকি প্রতিযোগিদের জন্য থাকছে ওয়ালটন রেফ্রিজারেটরের সৌজন্যে আকর্ষণীয় গিফট হ্যাম্পার।

ওয়ালটন স্মার্ট ফ্রিজ, স্মার্ট মেকার সিজন টু কনটেস্টের প্রথম পর্বের পুরস্কারপ্রাপ্ত ১০ নির্মাতা হলেন: শরিফুল ইসলাম শামীম, আলম মোরশেদ, মিনহাজুর রহমান, আসিফুর রহমান, মেসবাহ কামাল, পাপন, সারওয়ার জাহান অপু, রাফিউর রহমান, পৃথ্বীরাজ প্রধান এবং তানিম আবদুল্লাহ।


আরও খবর
আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা

বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর 2০২1




ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি তুলে নিলেন লিটন দাস

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৬ নভেম্বর ২০২১ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ব্যর্থতার কারণে পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজেও জায়গা হারান লিটন দাস। তবে বেশিদিন অফ-ফর্মে থাকতে হলো না এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটারকে।

টেস্ট ক্রিকেটে ফিরতেই পেলেন প্রথম সেঞ্চুরি। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পেলেন লিটন। চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথমদিনে স্পিনার নওমান আলীর করা ইনিংসের ৭৮তম ওভারের তৃতীয় বলে ঝুঁকিপূর্ণ সিঙ্গেল নিয়ে তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগারে পা রাখেন এই ডানহাতি ব্যাটার।

১০ম টেস্ট ফিফটিকে সেঞ্চুরি বানালেন লিটন। শাহীন শাহ আফ্রিদির বলে ব্যক্তিগত ৬৭ রানে জীবন পান তিনি। আর ১৯৯ বলে তুলে নেন সেঞ্চুরি। তার আগে ৯৫ বলে করেন ফিফটি।

৪৯ রানে টপ-অর্ডারের ৪ উইকেট; চট্টগ্রামের রৌদ্রজ্জ্বল দিনেও হতাশার কালো মেঘ ভর করেছিল বাংলাদেশিদের মুখে। তবে দারুণ ব্যাটিংয়ে সেই কালো মেঘ ধীরে ধীরে সরিয়ে দেন মুশফিকুর রহিম ও লিটন।

এই প্রতিবেন লেখা পর্যন্ত টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৮৫ ওভারে ৪ উইকেটে ২৫৩ রান করে প্রথম ইনিংস শেষ করেছে বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ে অপরাজিত আছেন মুশফিক (৮২) ও লিটন (১১৩)।

২৬ টেস্টে ও ৪৩তম ইনিংসে এসে সেঞ্চুরির দেখা পেলেন লিটন। তার আগে এই উইকেটরক্ষকের সর্বোচ্চ ইনিংস ছিল ৯৫ রান। গত জুলাইয়ে হারারাতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাত্র ৫ রানের জন্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত হন তিনি। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ব্যর্থ হলেও টেস্টের গত ১০ ইনিংসের মধ্যে ৬টিতে পঞ্চাশোর্ধ্ব রান পেলেন লিটন।


আরও খবর