আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

মোটরসাইকেলে ঘুরতে বেরিয়ে সড়কে ঝরল ২ বন্ধুর প্রাণ

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কে থ্রি-হুইলারের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই বন্ধুর মৃত্যু হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন আরেক বন্ধু সুমন। তাকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

মঙ্গলবার (৩ মে) দিনগত রাত ১২টার দিকে ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া ইউনিয়নের কাঠেরঘর এলাকায় বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন বরিশাল নগরের ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের শাহপরান সড়কের বাসিন্দা শাহজাহান মৃধার ছেলে নীরব (২৫) এবং একই এলাকার নাছির হাওলাদারের ছেলে লিমন (২০)।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নীরব তার মোটরসাইকেলে দুই বন্ধু লিমন ও সুমনকে নিয়ে বরিশালের দিকে যাচ্ছিলেন। পথে কাঠেরঘর এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি আলফা (থ্রি-হুইলার) তাদের মোটরসাইকেলটিকে (বাইক) ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই নীরব নিহত হন। এসময় আহত হন লিমন ও সুমন। এ অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় লিমনও মারা যান।

নলছিটি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। কিন্তু এর আগেই নিহত‌ দু’জনকে এবং আহত যুবককে উদ্ধার করে বরিশালে নেওয়া হয়।

নলছিটি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান বুধবার সকালে জানান, মঙ্গলবার রাতে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু পুলিশ পৌঁছার আগেই নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে বরিশালে শেবাচিম হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



আজ বিশ্ব জীববৈচিত্র্য দিবস

প্রকাশিত:রবিবার ২২ মে 20২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২২ মে 20২২ | ১৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্ব জীববৈচিত্র্য দিবস আজ। প্রতিবছরের মতো এবারও বাংলাদেশে যথাযথ গুরুত্বের সঙ্গে পালিত হবে দিবসটি। এবারের প্রতিপাদ্য সব প্রাণীর জন্য একটি সমন্বিত ভবিষ্যৎ গড়ে তুলি

জীববৈচিত্র্য সম্পর্কে বিশ্ববাসীকে সচেতন করতেই ২২ মে দিনটি বিশ্ব জীববৈচিত্র্য দিবস হিসেবে উদযাপন করে আসছে জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচি।

স্বাধীনতার পর ১৯৭৪ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জীববৈচিত্র্য ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ সেল ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন প্রণয়ন করেন। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ ১৯৯২ সালের ২২ মে কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে বায়োডাইভার্সিটি (সিবিডি) চুক্তিতে সই করে।

এরপর ৫ জুন ১৯৯২ সালে ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতে জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচির ধরিত্রী সম্মেলনে সিবিডি বিভিন্ন দেশের স্বাক্ষরের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিশ্বের প্রায় ১৬৮টি দেশ সিবিডি চুক্তিতে সই করে এবং সিবিডি ওই বছরের ২৯ ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হয়। বর্তমানে এ চুক্তিতে স্বাক্ষরকারী দেশের সংখ্যা ১৯৫ টি।


আরও খবর



যে ৫ খাবার ভুলেও প্রেশার কুকারে রাঁধবেন না

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৪০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রেশার কুকারে অনেক তাড়াতাড়ি রান্না হয়। তবে কয়েকটি জিনিস প্রেশারে না রান্না করাই ভাল।

সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হয়ে গিয়েছে। এ দিকে অফিসে বেরোনোর তাড়াও রয়েছে। এই পরিস্থিতি বেশি কিছু রান্না করার সময়ও থাকে না। তখন ভরসা প্রেশার কুকার। পেট ভরাতে চটজলদি কিছু একটা বানিয়ে ফেলতে প্রেশার কুকার ছাড়া উপায় নেই। চাল, ডাল, নুন, তেল, হলুদ একসঙ্গে দিয়ে চাপিয়ে দিলেই তৈরি হয়ে যায় খিচুড়ি বা ওই জাতীয় বহু পদ। তবে অনেক খাবার আছে যেগুলি প্রেশার কুকারে রান্না করা একেবারেই ঠিক নয়। এতে সেই খাবারগুলির পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়।

কোন ধরনের খাবার প্রেশার কুকারে রান্না করবেন না?

১) দুগ্ধজাত খাবার:

দুধ দিয়ে তৈরি কোনও খাবার প্রেশার কুকারে রান্না না করাই ভাল। প্রেশার কুকারে রান্না করলে তার স্বাদও ঠিক থাকে না। যাবতীয় পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়।

২) ডিম:

তাড়াহুড়োয় অনেকেই ডিম প্রেশার কুকারে সেদ্ধ করে নেন। ডিম সেদ্ধ করতে গিয়ে বেশি তাপমাত্রার প্রয়োজন হয়। তাই ডিম খোলা পাত্রে সেদ্ধ করাই সবচেয়ে ভাল। এতে ডিম ফেটে যাওয়ার আশঙ্কা কম থাকে। ডিম সেদ্ধ হল কি না তা বুঝতেও প্রেশার কুকারের চেয়ে বড় কোনও পাত্র ব্যবহার করাই ভাল।

৩) শাকসব্জি:

সব্জির মধ্যে অনেক পুষ্টিগুণ থাকে। সেই জন্যেই প্রেশার কুকারে রান্না করা উচিত নয়। এতে সব্জিতে থাকা ভিটামিন, খনিজ, এবং অন্যান্য পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়। শাকসব্জি সব সময় কড়াইতে রান্না করাই ভাল। দেরি হলেও স্বাদ ও পুষ্টিগুণ বজায় থাকবে।

৪) ভাত:

তাড়াতাড়ি হয়ে যাবে বলে অনেকেই ভাতও প্রেশারে রান্না করেন। প্রেশার কুকারে রান্না করা ভাত শরীরের পক্ষে একেবারেই ভাল নয়। প্রেশার কুকারে ভাত রাঁধলে শরীরে নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।। এতে ফ্যান ঝরানো যায় না। ফ্যান ভাতের সঙ্গেই মিশে থাকে। এর ফলে ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

৫) মাছ:

 মাছ এমনিতে খুব তাড়াতাড়ি রান্না হয়ে যায়। প্রেশারে মাছ রাঁধলে বেশি সেদ্ধ হয়ে যায়। মাছ বেশি সেদ্ধ হলে স্বাদও চলে যায়। নষ্ট হয়ে যায় পুষ্টিগুণও। তাই মাছ রান্না করুন কড়াইয়ে।

এই খাবারগুলো এখন থেকে আর প্রেশার কুকারে রান্না করবেন না। দ্রুত ডাল বা মাংস সেদ্ধ করতে এটি ব্যবহার করতে পারেন। 


আরও খবর
আজকের রাশিফল!

বুধবার ২৫ মে ২০২২




প্রতি শলাকায় সিগারেটের দাম বেড়েছে এক টাকা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ | ৩৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রতি বছরই জাতীয় বাজেটে বাড়ানো হয় তামাকপণ্যের দাম। আর এ কারণেই বাজেট ঘোষণায় আগেই সিন্ডিকেট করে সিগারেটের দাম বাড়িয়ে দেন ডিলার ও ডিস্ট্রিবিউটররা। এবারও এর ব্যত্যয় ঘটেনি। ইতোমধ্যে রাজধানীসহ সারাদেশের খুচরা বাজারে সব সিগারেটেই শলাকা প্রতি দাম বেড়েছে এক টাকা করে।

এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে ক্রেতারা বলেন, গত বছর বাজেটের দুই-তিন দিন আগে দাম বেড়েছিল। কিন্তু এবার অনেক আগেই সিন্ডিকেট করে দাম বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

তবে খুচরা বিক্রেতাদের দাবি, গত দুই-তিন দিন থেকে কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটররা সিগারেট সরবরাহ করছেন না। তাই বাধ্য হয়ে ডিলারদের কাছ থেকে আগের দামের থেকে বেশি দামে সিগারেট কেনার ফলে বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।

রাজধানীর পান্থপথ, কাওরানবাজার, ফার্মগেট ঘুরে দেখা গেছে, সব ধরনের সিগারেটই শলাকা প্রতি আগের দরের চেয়ে এক টাকা বেশি ধরে বিক্রি হচ্ছে। গত ৩-৪ দিন থেকেই এই বেশি ধরে সিগারেট বিক্রি হচ্ছে বলে জানান বিক্রেতারা। ক্ষোভ প্রকাশ করে বেলাল মিয়া নামের এক ক্রেতা বলেন, গত বছর বাজেটের দুই-তিন দিন আগে সিগারেটের দাম বেড়েছিল। কিন্তু এবার সিন্ডিকেট করে মাস-দেড়েক আগে দাম বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এটা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নজর দেওয়া জরুরি। একাধিক খুচরা বিক্রেতার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ডার্বি, রয়েল, হলিউড, মেরিজসহ পাঁচ টাকা শলাকা দামের সিগারেটগুলো এখন বিক্রি হচ্ছে ছয় টাকা। আট টাকা শলাকা দামের স্টার সিগারেট বিক্রি হচ্ছে নয় টাকা। গোল্ডলিফ প্রতি শলাকা আগে ছিল ১১ টাকা। তা এখন বিক্রি হচ্ছে ১২ টাকা। বেনসন, মার্লবোরোসহ ১৫ টাকা শলাকা দামের সিগারেটর এখন বিক্রি হচ্ছে ১৬ টাকা।

ইসরাফিল আলম বলেন, সিগারেটের গায়ের দাম কিন্তু আগের মতোই আছে। অথচ ডিলাররা সিন্ডিকেট করে দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। এখানেতো আমাদের কিছু করার নেই। বাধ্য হয়ে বাড়তি দামে সিগারেট কিনতে হচ্ছে।

আরেক বিক্রেতা বাবলু মিয়া বলেন, আগে প্রতিদিন ডিস্ট্রিবিউটরদের কাছ থেকে ১৫-২০ হাজার টাকার সিগারেট কিনতাম। কিন্তু গত কয়েকদিন থেকে কোনো কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটরা সিগারেট দিচ্ছে না। ডিস্টিবিউটারদের এখন ফোন দিলেও কেউ ফোন রিসিভ করে না।

নিউজ ট্যাগ: জাতীয় বাজেট

আরও খবর



আবদুল গাফফার চৌধুরী আর নেই

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৩২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট আবদুল গাফফার চৌধুরী আর নেই। বৃহস্পতিবার (১৯ মে) স্থানীয় সময় আনুমানিক সকাল ৭টায় যুক্তরাজ্যের লন্ডনে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ।

যুক্তরাজ্যপ্রবাসী স্বনামধন্য এ সাংবাদিক স্বাধীনতা যুদ্ধে মুজিবনগর সরকারের মাধ্যমে নিবন্ধিত স্বাধীন বাংলার প্রথম পত্রিকা সাপ্তাহিক জয় বাংলার প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী সম্পাদক ছিলেন। তিনি ভাষা আন্দোলনের স্মরণীয় গান আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারির রচয়িতা।

আবদুল গাফফার চৌধুরীর জন্ম ১৯৩৪ সালের ১২ ডিসেম্বরে বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার উলানিয়া গ্রামে। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি যুক্তরাজ্যের লন্ডনের মিডলসেক্সের এজোয়ারের মেথুইন রোডের ৫৬ নম্বর বাড়িতে স্থায়ীভাবে বসবাস করতেন।

ছাত্রজীবনেই লেখালেখিতে হাতেখড়ি তার। ১৯৪৯ সালে মোহাম্মদ নাসিরউদ্দীন সম্পাদিত মাসিক সওগাত পত্রিকায় তার গল্প প্রকাশিত হয়। ১৯৫২ সালে সাময়িকপত্রে প্রকাশিত হয় প্রথম উপন্যাস চন্দ্রদ্বীপের উপাখ্যান। আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীর সাংবাদিকতায় হাতেখড়িও ছাত্রজীবনে। ঢাকা কলেজের ছাত্র থাকাকালে যোগ দেন দৈনিক ইনসাফ পত্রিকায়। ১৯৫১ সালে যোগ দেন খায়রুল কবীর সম্পাদিত দৈনিক সংবাদের বার্তা বিভাগে। ১৯৫৬ সালে যোগ দেন তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া সম্পাদিত দৈনিক ইত্তেফাকে।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী কলমযোদ্ধার ভূমিকায় অবতীর্ণ হন। জয় বাংলা পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। মুক্তিযোদ্ধাদের ক্যাম্পে মডারেটরের ভূমিকাও পালন করেন। স্বাধীনতার পর ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক জনপদের প্রধান সম্পাদক ছিলেন আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী।

তিনি ১৯৭৪ সালের অক্টোবর মাসে লন্ডনে পাড়ি জমান। ১৯৭৬ সালে আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী সেখানে বাংলার ডাক নামে একটি সাপ্তাহিক পত্রিকার সম্পাদনা করেন। সাপ্তাহিক জাগরণ পত্রিকায়ও কিছুদিন কাজ করেন। পরে তিনি নতুন দিনপূর্বদেশ পত্রিকা বের করেন। প্রবাসে থাকলেও গাফ্ফার চৌধুরী আমৃত্য বাংলাদেশের প্রধান সংবাদ মাধ্যমে নিয়মিত লিখে গেছেন। এছাড়া ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন নানা সভা-সেমিনারে। গাফ্ফার চৌধুরী ইউনেস্কো পুরস্কারসহ বাংলা একাডেমি পদক, একুশে পদক, শেরেবাংলা পদক, বঙ্গবন্ধু পদকসহ অসংখ্য পদক ও সম্মাননা পেয়েছেন।


আরও খবর



মাধ্যমিকে ৪৭১ জন শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মাধ্যমিকের শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরএ) বিশেষ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির আওতায় ৪৭১ জন প্রার্থীকে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়েছে। সোমবার (২৫ এপ্রিল) রাতে এনটিআরসিএ’র চেয়ারম্যান মো. এনামুল কাদের খান সই করা অফিস আদেশ জারি করা হয়।

আদেশে বলা হয়, সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রামের (সেসিপ)ভোকেশনাল কর্মসূচির জন্য বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যায়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরএ) বিশেষ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির আওতায় প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ৫৯১ জন প্রার্থীর পুলিশ নিরাপত্তা ভেরিফিকেশন চলমান অবস্থায় নিয়োগ সুপারিশ প্রদানের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ হতে গত ১৮ এপ্রিলের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে ৪৭১ জন প্রার্থীকে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করে। প্রার্থীদের এবং সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ইতোমধ্যে জানানো হয়েছে।

১২০ জন প্রার্থীর পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য ভিআর ফরম জমা না দেওয়ায় নিয়োগ সুপারিশ করা হয়নি। আগামী ১২ মে’র মধ্যে ভিআর ফরম জমা দিলে তাদের নিয়োগের সুপারিশ করা হবে। এ সময়ের মধ্যে ভিআর ফরম জমা না দিলে প্রাথমিক নির্বাচন বাতিল বলে গন্য হবে। আর নিয়োগ সুপারিশ পাওয়া ৪৭১ জন প্রার্থীকে সংশ্লিষ্ট ম্যানেজিং কমিটি নিয়োগ দেবে।


আরও খবর