আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

মেসির মায়ামি আসছে এশিয়ায়

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

গত মৌসুমের সাফল্য-ব্যর্থতাকে পেছনে ফেলে লিওনেল মেসির চোখ এখন নতুন মৌসুমের দিকে। ২০২৪ সালেই মূলত পূর্ণাঙ্গ মৌসুম খেলবেন মেসি। যেখানে বড় কিছুর লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামবে তাঁর দল। মৌসুম সামনে রেখে এর মধ্যে প্রথম প্রাক্‌-মৌসুম প্রীতি ম্যাচের সূচিও ঠিক করেছে ইন্টার মায়ামি। যেখানে তারা প্রথম ম্যাচ খেলবে এল সালভাদরের বিপক্ষে। আগামী ১৯ জানুয়ারি সান সালভাদরের এস্তাদিও কাসকাতলানে মুখোমুখি হবে মায়ামি ও সালভাদর। এরপর আর্জেন্টাইন পরাশক্তি রিভার প্লেটের সঙ্গেও ইন্টার মায়ামির ম্যাচ খেলতে পারে।

আর প্রাক মৌসুমে মেসির ইন্টার মায়ামি নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো আন্তজার্তিক সফর করবে। আর প্রথম সফরেই এশিয়া ভ্রমণ করবে ফ্লোরিডার ক্লাবটি।  ইন্টার মায়ামি জানিয়েছে, তারা চীনের প্রথম সারির লিগের খেলোয়াড়দের মধ্য থেকে নির্বাচিত একাদশের (হংকং একাদশ) বিপক্ষে ৪ ফেব্রুয়ারি হংকং স্টেডিয়ামে প্রীতি ম্যাচ খেলবে। এক বিবৃতিতে ইন্টার মায়ামির সহমালিক হোর্হে মাস বলেন, আমরা হংকং ভ্রমণ নিয়ে রোমাঞ্চিত। এটা আমাদের প্রথম এশিয়া ভ্রমণ হবে।

ইন্টার মায়ামির বৈশ্বিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে মাস আরও বলেছেন, শুরু থেকেই আমরা ইন্টার মায়ামিকে একটা বৈশ্বিক ক্লাব হিসেবে দাঁড় করাতে চেয়েছি। এটা দারুণ একটি সুযোগ। আমরা আশা করছি হংকং এবং এশিয়াজুড়ে আমাদের সমর্থকেরা এর ফলে উৎসাহিত হবে।

মায়ামির অন্য সহমালিক ডেভিড বেকহাম ২০০৩ সালে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার পর হংকং ভ্রমণ করেছিলেন। তিনিও সৌন্দর্যের নগরী হংকংয়ে খেলার অপেক্ষায় থাকার কথা জানিয়েছেন। বেকহাম বলেছেন, ক্যারিয়ারজুড়ে আমি অনেকটুকু সময় এশিয়ায় কাটিয়েছি। ইন্টার মায়ামিকে প্রথমবারের মতো নান্দনিক শহরটিতে খেলতে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়ে আমি আনন্দিত।

এই সফর নিয়ে ইন্টার মায়ামির প্রধান সকার অফিসার এবং স্পোর্টিং ডিরেক্টর ক্রিস হেন্ডারসন বলেছেন, ক্লাবের বিশেষ অভিজ্ঞতার জন্য আমরা এই সফরের অপেক্ষায় আছি। এ ছাড়া ২০২৪ মৌসুমের জন্য ক্লাব যতটা সম্ভব প্রস্তুত করারও এটা দারুণ একটি সুযোগ। এই ম্যাচ আমাদের খেলোয়াড়দের নতুন প্রতিপক্ষ ও নতুন পরিবেশের মুখোমুখি হওয়ার সুযোগ করে দেবে।

২০২৩ মৌসুমের শেষে অবশ্য ইন্টার মায়ামির চীন সফরে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির কারণে সেই সফর বাতিল করার কথা জানানো হয়। হংকংয়ে এই ম্যাচ সামনে রেখে ১৫ ডিসেম্বর থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হওয়ার কথা জানা গেছে। এই সফর ছাড়াও বেশ কিছু প্রীতি ম্যাচের সূচিও ঠিক করেছে ইন্টার মায়ামি।

প্রাক্‌মৌসুম দিয়ে মেসিকেও নতুনরূপে দেখার অপেক্ষায় আছেন সমর্থকেরা। গত জুনে ইউরোপ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলে যাত্রা শুরু করেন লিওনেল মেসি। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন মেসির আগমন বদলে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের খেলার দুনিয়াকে। মাঠে ও মাঠের বাইরে তাঁর হাত ধরেই সকার হয়ে উঠেছে ফুটবল। এর মধ্যে মায়ামিকে ইতিহাসের প্রথম শিরোপাও জিতিয়েছেন মেসি।

মৌসুমের শেষ দিকে চোট এবং ক্লান্তির কারণে ঠিকঠাক খেলতে পারেননি মেসি। যার ফলে ইউএস ওপেন কাপের ফাইনালে উঠেও আর শিরোপা জেতা হয়নি। এমনকি জায়গা নিশ্চিত করতে পারেনি এমএলএসের প্লে-অফেও। এটুকু বাদ দিলে অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলে মেসির শুরুটা দুর্দান্তই বলতে হবে। পুরো মৌসুম খেলা না হলেও অল্প সময়ের মধ্যে দারুণ প্রভাব রেখেছেন মেসি।


আরও খবর
হাথুরুসিংহেকে ‘শোকজ’ করবেন পাপন!

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বেগুনি-হলুদ রঙিন ফুলকপি চাষে সফল ঈশ্বরদীর শফিকুল

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি

Image

ঈশ্বরদীতে পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ সবজি বেগুনী ও হলুদ ফুলকপির বাণিজ্যিকভাবে চাষ করছেন এক কৃষক। উপজেলার দাশুড়িয়া ইউনিয়নের নওদাপাড়া গ্রামের কৃষক মো. শফিকুল ইসলাম বেগুনী ও হলুদ ফুলকপির চাষ করে বাম্পার ফলনে লাভবান হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। অন্যান্য ফুলকপির মতোই এ বেগুনী ও হলুদ জাতের ফুলকপির চাষ পদ্ধতি এবং খরচও কম।

নওদাপাড়া গ্রামে রঙিন ফুলকপি দেখতে ও কিনতে আসেন একই গ্রামের আঃ সালাম, আলামিন, মুক্তা এবং মনিকা। তারা বলেন, প্রথমবার এমন বাহারি রঙের বেগুনী ও হলুদ ফুলকপি দেখলাম। শফিকুল ভাইয়ের কাছ থেকে হলুদ ও বেগুনি রঙের ফুলকপি কিনলাম। বাহারি রঙের ফুলকপি দেখতেও বেশ ভালো লাগছে। খেয়েছি, এটা খুবই সুস্বাদু। শফিকুল ভাই এটা আবাদ করে লাভবান হয়েছে। আগামী বছর আমরাও এই রঙিন ফুলকপির চাষ করবো।

কৃষক শফিকুল ইসলাম জানান,  প্রতি বছর সাদা ফুলকপি চাষ করলেও এবার ১০ কাঠা জমিতে বেগুনি ও হলুদ ফুলকপির চাষ করেছি। জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশন (এনজিও) এর সদস্য হওয়ায় এই রঙিন ফুলকপির বীজ পাঁচ হাজার টাকায় ১০ গ্রাম প্রদান করেন কর্তৃপক্ষ। প্রথমে মনে করেছিলাম হয়তো এই আবাদে লাভ আসবে না। কিন্তু যখন ক্ষেতে এই রঙিন কপি ভরে যায় তখন লাভের আসায় মনটা ভরে যায়।  বর্তমান বাজারে অন্য কপির চেয়ে বেগুনী ও হলুদ ফুলকপির চাহিদা বেশি, প্রতি পিস বেগুনী ও হলুদ রঙের ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা। ১০ কাঠা জমি থেকে ৬৫ থেকে ৭০ হাজার টাকার কপি বিক্রি হবে আশা করি।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমার এই কপি চাষে উপজেলা কৃষি অফিস থেকে কোন পরামর্শ বা সহযোগিতা পাইনি। এমনকি ইউনিয়নে যে উপ-সহকারী কর্মকর্তা থাকেন তিনিও কখনও খোঁজ খবর নেননি। সহযোগিতা পেলে হয়তো আরো বেশি পরিমাণ জমিতে কপি চাষ করতে পারতাম, আরোও লাভবান হতাম।

ঈশ্বরদী উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মিতা সরকার জানান, উপজেলায় ৯৫০ হেক্টর জমিতে ফুলকপি চাষ হয়েছে। রঙিন ফুলকপি খুব কম পরিমাণ চাষ হয়েছে। তিনি বলেন, ফুলকপি চাষে কৃষকদের আমি তো তেমন সুযোগ সুবিধা দিতে পারি নাই, শুধু টেকনোলজিক্যাল সাপোর্ট আমার এসও সাহেবরা যেটুকু দিতে পারছে সেটুকই। এছাড়া অর্থনৈতিক সাপোর্ট আমি দিতে পারি নাই। আমার যে সকল প্রদশনী ছিল সেগুলোতে আমি আমার প্রকল্প থেকে যে সাপোর্টা সেটা পুরোপুরিই দিয়েছি। ফুলকপির প্রদশর্নী কয়েকটি ছিল।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দামি ক্লাবের তালিকায় তৃতীয় স্থানে মেসির মায়ামি

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
ক্রীড়া প্রতিবেদক

Image

মেসিকে দলে ভেড়ানোয় আয় বেড়েছে ইন্টার মায়ামির। মেজর লিগ সকারের (এমএলএস) সবচেয়ে দামি ক্লাবের তালিকায় তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে ক্লাবটি। খেলাধুলার তথ্য-উপাত্ত নিয়ে গবেষণা ও বিশ্লেষণের কাজ করা প্রতিষ্ঠান স্পোর্টিকো এ তথ্য জানিয়েছে।

মেসি যোগ দেওয়ার আগে বাজারমূল্যের দিক থেকে এমএলএসের ২৯টি ক্লাবের মধ্যে ১০ নম্বরে ছিল ইন্টার মায়ামি। এক বছরেরও কম সময়ের ব্যবধানে সেই ক্লাবটিই সাত ধাপ এগিয়েছে। ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের এই ক্লাবের দাম গত এক বছরে বেড়েছে ৭৪ শতাংশ।

বর্তমানে ইন্টার মায়ামির বাজারমূল্য ১০২ কোটি ডলার। ১১৫ কোটি ডলার বাজারমূল্যের লস অ্যাঞ্জেলেস এফসি আছে সব দলের শীর্ষে। তাদের থেকে ১০ কোটি ডলার কমে ১০৫ কোটি ডলার বাজারমূল্য নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে আটলান্টা ইউনাইটেড।

লস অ্যাঞ্জেলেস গ্যালাক্সি ১০০ কোটি ডলার বাজারমূল্য নিয়ে তালিকার চারে। এবারই প্রথম এমএলএসের চারটি ক্লাবের বাজারমূল্য শত কোটি ডলার ছুঁয়েছে। গত বছর প্রথম ক্লাব হিসেবে এই অঙ্ক ছুঁয়েছিল লস অ্যাঞ্জেলেস এফসি।


আরও খবর
হাথুরুসিংহেকে ‘শোকজ’ করবেন পাপন!

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বাংলাদেশে গণমাধ্যম পূর্ণাঙ্গ স্বাধীনতা ভোগ করছে : আরাফাত

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

গণমাধ্যমের স্বাধীনতার জায়গায় কোথাও কোনভাবে সমস্যা তৈরি হোক এটা সরকার চায়না এবং হতে দেবে না বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত।

আজ বুধবার বিকালে সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে এডিটরস গিল্ড বাংলাদেশ-এর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের সাথে মতবিনিময়কালে প্রতিমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেমে গণমাধ্যম পূর্ণাঙ্গ স্বাধীনতা ভোগ করছে এবং করবে। গণমাধ্যমের স্বাধীনতার জায়গায় কোথাও কোনভাবে সমস্যা তৈরি হোক এটা সরকার চায়না এবং হতে দেবে না। কিন্তু একইসাথে গণতন্ত্র এবং উন্নয়নের অগ্রগতি-অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে। একইসাথে সরকার এটাও বিশ্বাস করে, যারা যুদ্ধাপরাধী, মুক্তযুদ্ধবিরোধী অপশক্তি, জঙ্গি, উগ্রবাদী তাদের একটা জায়গায় রেখে গণতন্ত্র কখনোই সফল হয় না। এজন্য সরকারের অবস্থান উগ্রবাদের বিপক্ষে, জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসের বিপক্ষে, মৌলবাদের বিপক্ষে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাইরে যারা তাদের বিপক্ষে, গণতন্ত্রের পক্ষে, নির্বাচনের পক্ষে। সে জায়গায় গণমাধ্যম, রাজনীতিবিদ, সরকার-সবার মধ্যে ঐকমত্য আছে।

সরকার পরিচালনায় ভুল-ভ্রান্তি, বিচ্যুতি থাকলে সমালোচনা করার জন্য গণমাধ্যম সম্পাদকদের এ সময় আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী। সরকার এটিকে স্বাগত জানাবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী। পাশাপাশি সরকারের ভালো কাজগুলোর স্বীকৃতি দিয়ে সেটি গণমাধ্যমে তুলে ধরার আহ্বানও জানান তিনি ।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ, বাংলাদেশের পতাকা, আমাদের জাতীয় সঙ্গীত, জাতির জনক, সংবিধান, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রশ্নে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। একইসাথে ষড়যন্ত্র যেগুলো অতীতে বাংলাদেশে হয়েছে- জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র, দেশের ভেতরেও অনেকে এসব ষড়যন্ত্রে অংশগ্রহণ করে এবং তার ফলাফল হিসেবে ৭৫ এর ১৫ আগস্ট আমরা দেখেছি, অতীতে অনেক অভিজ্ঞতা আমাদের আছে। এসব ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে।

তিনি আরো বলেন, অনেক ক্ষেত্রে আমাদের বিদেশি বন্ধুরা বলতে চান সংসদ একতরফা হয়ে গেছে। তারা বলেন, এখানে বিরোধী দল নাই। আমরা অবশ্যই শক্তিশালী বিরোধী দল চাই, সমালোচনা চাই, সংসদের মধ্যে আলোচনা চাই। কিন্তু আমরা জঙ্গিবাদ, উগ্রবাদ ও মুক্তযুদ্ধবিরোধী কোন অপশক্তি চাই ন। এ বিষয়ে আমাদের ঐক্য থাকতে হবে।

যারা নির্বাচন বর্জন করতে বলে, হুমকি দেয় তারা কি গণতন্ত্রের পক্ষে হতে পারে?-মতবিনিময়কালে এমন প্রশ্ন তোলেন প্রতিমন্ত্রী।

এবারের নির্বাচন, যারা নির্বাচন বর্জনকারী তাদের না বলার নির্বাচন। তাদের এ দেশের জনগণ না বলেছে- যোগ করেন প্রতিমন্ত্রী।

এডিটরস গিল্ড গণতন্ত্রের পক্ষে, নির্বাচনের পক্ষে, বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার পক্ষে সরকারে সাথে একসাথে থাকবে-এ সময় আশাবাদ ব্যক্ত করেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী।

এডিটরস গিল্ড বাংলাদেশ -এর কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি ও একাত্তর টেলিভিশনের প্রধান সম্পাদক মোজাম্মেল বাবু, সাধারণ সম্পাদক ও দি বিজনেস স্ট্যান্ডার্ডের সম্পাদক ইনাম আহমেদ, আজকের পত্রিকার সম্পাদক গোলাম রহমান, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, দৈনিক সংবাদ সম্পাদক আলতামাশ কবির, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, ডিবিসি টেলিভিশনের প্রধান সম্পাদক মঞ্জুরুল ইসলাম, আমাদের অর্থনীতির প্রধান সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খান, দৈনিক যুগান্তর সম্পাদক সাইফুল আলম, বাংলাদেশ জার্নাল সম্পাদক শাহজাহান সরদার, ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত,  গ্লোবাল টেলিভশনের সিইও সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, বাংলা ট্রিবিউন সম্পাদক জুলফিকার রাসেল, এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার সম্পাদক মোল্লাহ এম আমজাদ হোসেন, এক টাকার খবর সম্পাদক মুন্নী সাহা, আমাদের নতুন সময় সম্পাদক নাসিমা খান মন্টি এবং এটিএন বাংলার প্রধান নির্বাহী সম্পাদক জ ই মামুন প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



চট্টগ্রাম-২ আসনের এমপি সনির সংসদ সদস্য পদ বাতিল চেয়ে রিট

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের হলফনামায় ব্যাংক ঋণের তথ্য গোপনের অভিযোগে চট্টগ্রাম-২ (ফটিকছড়ি) আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের বিজয়ী খাদিজাতুল আনোয়ার সনির সংসদ সদস্য পদ বাতিল ছাড়াও আসনটিতে পুনর্নির্বাচনের জন্য মামলা করা হয়েছে। একই আসনের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি-বিএসপির চেয়ারম্যান সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমেদ এ মামলা করেছেন। রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শাহ্আলম অভি জানান, নির্বাচনী হলফনামায় খেলাপি ঋণ সংক্রান্ত অর্থঋণ আদালতের মামলাসহ ৮টি ব্যাংক ঋণের তথ্য গোপন করে প্রতারণামূলকভাবে সংসদ সদস্য পদে নির্বাচন করেছেন খাদিজাতুল আনোয়ার সনি। রোববার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

গত ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী খাদিজাতুল আনোয়ার সনি পেয়েছেন ১ লাখ ৩৭০ ভোট। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ও তরমুজ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসাইন মো. আবু তৈয়ব পেয়েছেন ৩৬ হাজার ৫৮৭ ভোট।

এছাড়াও নির্বাচনে অন্যদের মধ্যে একতারা প্রতীকে সুপ্রিম পার্টির চেয়ারম্যান সাইফুদ্দিন আহমদ মাইজভান্ডারী ৩ হাজার ১৩৮ ভোট, ঈগল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ শাহাজাহান ২৫৭ ভোট, মোমবাতি প্রতীকে মো. হামিদুল্লাহ ১ হাজার ৫২৫ ভোট, চেয়ার প্রতীকে মীর ফেরদৌস আলম ৫২৫ ভোট, ফুলকপি প্রতীকে রিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী ৩১৩ ভোট এবং লাঙ্গল প্রতীকে জাতীয় পার্টির মো. শফিউল আজম ২৫৫ ভোট পেয়েছেন। আর নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানো ১৪ দলীয় জোট নেতা ও এই আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ফুলের মালা প্রতীকের প্রার্থী সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী পেয়েছেন ২১৩ ভোট।

ফটিকছড়ি উপজেলায় ১৮টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভায় মোট ১৪২টি ভোট কেন্দ্রে ৪ লাখ ৫৬ হাজার ৪৮৭ জন ভোটার রয়েছেন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৩৯ হাজার ৯০২ জন ও নারী ভোটার ২ লাখ ১৬ হাজার ৫৮২ জন।


আরও খবর
ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে কয়েদির মৃত্যু

সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




আওয়ামী লীগেই থাকতে চায় স্বতন্ত্ররা: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
নিজস্ব প্রতিবেদক

Image

দ্বাদশ সংসদে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, স্বতন্ত্ররা আওয়ামী লীগেই থাকতে চায়।

তিনি বলেন, তারা (স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য) সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করতে পারবেন। এই একটা বিষয় আমাদের সংসদ নেতা, দলের সভাপতি পরিষ্কারভাবে বলেছেন।

রোববার রাতে গণভবনে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক শেষে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, দ্বাদশ জাতীয় সংস নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিভিন্ন মার্কার কিছু সংঘাত, সহিংসতা, অন্তকলহ এসব বিষয় রয়েছে। কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্নভাবে অবাঞ্চিত ঘটনা ঘটছে। এটা আর হতে দেয়া যাবে না, নেত্রী আমাদেরকে বলেছেন। তারা (স্বতন্ত্র) দাবি করেছে আওয়ামী লীগেই থাকতে চায়। ভিন্ন কোনো নামে পরিচয় দিতে গেলে আমাদের বিবেক-আবেগ আহত হয়। নিজেরা নিজেদের মধ্যে অন্তকলহ বিবেদ মিটিয়ে ফেলতে হবে। নির্বাচন ইশতেহার বাস্তবায়নে সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, নারী সংরক্ষিত আসনের ব্যাপারে সংসদ নেতা শেখ হাসিনা যাদেরকে মনোনীত করবেন তাদের প্রতি স্বতন্ত্রদের সমর্থন থাকবে, তারা এটা ব্যক্ত করেছেন।

স্বতন্ত্র এমপিরা কোন হুইপের আওতায় থাকবে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, চিফ হুইপ সংসদ নেতার সঙ্গে আলাপ করে সিদ্ধান্ত নেবেন।


আরও খবর