আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম

মেসি-নেইমারদের নতুন কোচ হচ্ছেন গালটিয়ের

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | ২৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লিওনেল মেসি, কিলিয়ান এমবাপে, নেইমার দা সিলভা স্যান্টোস জুনিয়রদের নতুন ম্যানেজার হচ্ছেন ক্রিস্টোফ গালটিয়ের। জানিয়ে দিলেন প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি) এর প্রেসিডেন্ট নাসের আল-খেলাইফি।

১৮ মাস আগে পিএসজির দায়িত্ব নেওয়া মাউরিসিও পোচেত্তিনোর বিকল্প হিসেবে কে আসছেন, তা নিয়ে কয়েক দিন ধরেই জল্পনা তুঙ্গে ছিল। মেসি, নেইমারদের নতুন গুরু হিসেবে শোনা যাচ্ছিল জিনেদিন জিদানের নামও। কিন্তু তিনি স্পষ্ট জানান, পিএসজি নয়, ফ্রান্স জাতীয় দলের দায়িত্ব নিতেই বেশি আগ্রহী। এরপরই নিসের ম্যানেজার গালটিয়েকে নেওয়ার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ে পিএসজি। ফরাসি সংবাদমাধ্যমের দাবি, আনুষ্ঠানিকভাবে গালটিয়ের নাম ঘোষণাই শুধু বাকি রয়েছে এখন।

পিএসজি মালিক নাসের বলেছেন, আমরা বেশ কয়েকজন কোচের নাম চূড়ান্ত তালিকায় রেখেছি। নিসের সঙ্গে আমাদের কথাবার্তা যে চলছে, তা গোপন করারও কিছু নেই।”

গালটিয়ের কোচিংয়ে ২০১০-২০১১ মৌসুমের পরে ২০২০-২০২১-এ ফরাসি লিগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল লিলে। গত মৌসুমে এই ৫৫ বছর বয়সী ফরাসি ম্যানেজার দায়িত্ব নিয়েছিলেন নিসের।

পিএসজি প্রেসিডেন্ট অবশ্য দাবি করেছেন, জিদানকে প্রস্তাব না দেওয়ার কথা। তিনি বলেছেন, আমি জিনেদিন জিদানকে ফুটবলার ও কোচ, দুই ভূমিকাতেই পছন্দ করি। অনেক ক্লাব ও জাতীয় দলই তাকে দায়িত্ব দিতে আগ্রহী। কারণ, জিদান অসাধারণ কোচ। তিনবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছেন। আমি তাকে সম্মান করি। তবে কখনওই আমরা পিএসজির কোচ হওয়ার ব্যাপারে জিদানের সঙ্গে কথা বলিনি।”

তিনি আরও বলেছেন,আমরা জিদানের বিকল্প খুঁজে পেয়েছি। এমন একজনকে নিয়োগ করতে যাচ্ছি, যিনি আমাদের পরিকল্পনার জন্য উপযুক্ত।”

একই সঙ্গে উঠেছে কিলিয়ান এমবাপের প্রসঙ্গও। পিএসজি মালিক জানিয়েছেন, ফরাসি তারকা কোনও সময়ই এই ক্লাব ছেড়ে দিতে মানসিকভাবে তৈরি ছিলেন না। তিনি বলেছেন, সংবাদমাধ্যম বিষয়টিকে যেভাবেই ব্যাখ্যা করুক, আমাদের এমবাপের এই ক্লাবে থাকা নিয়ে এক মুহূর্তের জন্যও সংশয় তৈরি হয়নি।


আরও খবর



রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বাড়ছে অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার

প্রকাশিত:সোমবার ২০ জুন ২০22 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ জুন ২০22 | ৩৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ ২০ জুন বিশ্ব শরণার্থী দিবস। ১১ লাখের বেশি মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গার ভার নিয়ে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আজ দিবসটি পালিত হচ্ছে। এমন এক সময়ে দিনটি পালিত হচ্ছে যখন রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। রোহিঙ্গাদের হাত ধরেই ক্যাম্পে অত্যাধুনিকসহ বিভিন্ন আগ্নেয়াস্ত্র ঢুকছে। ফলে বেড়েছে হতাহতের ঘটনা, সন্ত্রাস আর মাদক ব্যবসা। এতে রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়রাও ভয়ভীতির মধ্যে রয়েছেন। গত এক সপ্তাহে রোহিঙ্গা শিবিরে দুর্বৃত্তদের গুলিতে তিন জন নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে দুজনই ক্যাম্পে স্বেচ্ছায় ভলান্টিয়ার ছিলেন। মূলত রোহিঙ্গা নেতা মুহিব উল্লাহ হত্যার পরই ক্যাম্পে নিজেদের নিরাপত্তায় স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত করা হয়।

সর্বশেষ গত ১৬ জুন সীমান্ত দিয়ে প্রবেশ করে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ঢোকার সময় আমেরিকার তৈরি অত্যাধুনিক এম-১৬ রাইফেল এবং গোরাবারুদসহ উখিয়ার জামতলী ক্যাম্পের বাসিন্দা মোহাম্মদ হোসেন (৩০) ও জাহেদ হোসেনকে (৩০) আটক করে ৮-এপিবিএন। এরপর পরই সীমান্তের গোয়েন্দা সংস্থাসহ সব আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নড়েচড়ে বসে।

অস্ত্র উদ্ধারের বিষয়ে জানতে চাইলে ৮-এপিবিএনের অধিনায়ক এসপি শিহাব কায়সার খান বলেন, সীমান্তের ওপার দিয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে ওপার থেকে বিভিন্নভাবে অস্ত্র ঢুকছে। সন্ত্রাসীরা এসব অস্ত্র দিয়ে ক্যাম্পে মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজিসহ প্রভাব বিস্তারের ব্যবহার করছে। মূলত ক্যাম্পে নিরাপত্তার কাজে ব্যবহৃত ভলান্টিয়ার সিস্টেম ভাঙতে সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের ব্যবহার করছে। কারণ ভলান্টিয়াররা দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে ক্যাম্পে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে বাধা সৃষ্টি হচ্ছে। আমরা কাউকে ছাড় দিচ্ছি না। ক্যাম্পে অস্ত্র উদ্ধারেও অভিযান চলছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তথ্য মতে, ২০১৯ সালের শুরু থেকে ২০২২ সালের ১৫ জুন পর্যন্ত কক্সবাজারের সীমান্ত ক্যাম্পসহ রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকায় বিভিন্ন সময়ে অভিযান পরিচালনা করে চার হাজার ৪৮টি দেশি-বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্রসহ বিপুল পরিমাণ গোরাবারুদ উদ্ধার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এসব আগ্নেয়াস্ত্রসহ তিন শতাধিক রোহিঙ্গা ডাকাতকে আটক করা হয়েছে। যাদের বেশির ভাগই ক্যাম্পের বাসিন্দা।

৮-এপিবিএন পুলিশ জানায়, গত এক বছরে ক্যাম্প থেকে আমেরিকার তৈরি অত্যাধুনিক এম-১৬ রাইফেলসহ ২৩০টি বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র এবং বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে। পাশাপাশি মিয়ানমার থেকে এনে ক্যাম্পে মজুতকালে ১৮ লাখ ৩৫ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়রা জানান, টেকনাফ ও উখিয়া মিলে বর্তমানে চার দফায় মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের পাহাড়, বন ও জঙ্গল কেটে ৩২টি আশ্রয় শিবিরে আছে। তবে এখন উখিয়া ও টেকনাফের সর্বত্রই যেন রোহিঙ্গা শিবির। এ দুই উপজেলার স্থায়ী বাসিন্দার সংখ্যা পাঁচ লাখের মতো। দিন যতই গড়াচ্ছে, রোহিঙ্গা শিবিরে বাড়ছে অস্থিরতা।

কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরের নেতা (মাঝি) মো. হারুন বলেন, ক্যাম্পে আবারো সন্ত্রাসীদের আনাগোনা বেড়েছে। গত এক সপ্তাহে তিন জনকে হত্যা করা হয়েছে। সন্ত্রাসীরা নতুন ক্যাম্পে অস্ত্রে মজুত করছে। এতে ক্যাম্পের বাসিন্দারা ভয়ভীতির মধ্যে রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সরকারি কর্মকর্তা বলেন, রোহিঙ্গা শিবির এলাকায় মাদক আর অস্ত্র একই সূত্রে গাঁথা। পাশাপাশি ক্যাম্পে দলগত সশস্ত্র তৎপরতা, মাদক, চাঁদাবাজি, অপহরণ বাণিজ্য থেকে শুরু করে তুচ্ছ ঘটনায়ও ব্যবহার করা হচ্ছে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র। ক্যাম্পে নিজেদের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব ও প্রভাব বিস্তারে নানা অস্ত্র ব্যবহার করছে একশ্রেণির রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী। বিশেষ করে এখন মাদক পাচারে অস্ত্র ব্যবহার বৃদ্ধি পেয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরল আলম বলেন, পাঁচ বছরেও প্রত্যাবাসন শুরু না হওয়ায় স্থানীয়দের মাঝে হতাশা বিরাজ করছে। তা ছাড়া ক্যাম্পে অপরাধ বেড়ে যাওয়ায় কক্সবাজারের মানুষ ভয়ভীতির মধ্য রয়েছে। প্রত্যাবাসনের মাধ্যমে এই প্রধান সমস্যা সমাধান ছাড়া আর কোনও পথ নেই।

নিউজ ট্যাগ: রোহিঙ্গা

আরও খবর



দৌলতদিয়ায় যৌনকর্মীকে হাতুড়িপেটা

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৬ জুন ২০২২ | ৪৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লিতে এক যৌনকর্মীকে হাতুড়িপেটা করে গুরুতর আহত করার ঘটনা ঘটেছে। এর দায়ে নাইম মীর মালত (২১) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নাইম মীর মালত গোয়ালন্দ উপজেলার উজানচর ইউনিয়নের দুদুখানপাড়া গ্রামের আব্দুল আওয়াল মীর মালতের ছেলে। হামলার কারণ সম্পর্কে কেউ কিছু বলতে পারেননি।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দৌলতদিয়া যৌনপল্লির মজনু মোল্লার বাড়ির ভাড়াটিয়া এক যৌনকর্মীর ঘরে গিয়ে আটককৃত নাইম মীর মালত ও জাহাঙ্গীর মণ্ডল (২০) নামের আরেক যুবক ওই যৌনকর্মীর ওপর হামলা চালায়। এ সময় তারা পরিকল্পিতভাবে ঘরের লাইট বন্ধ করে দিয়ে ওই যৌনকর্মীর মুখে স্কচটেপ লাগিয়ে হাত-পা বাঁধার চেষ্টা করে।

বিষয়টি টের পেয়ে ওই যৌনকর্মীর বোন বাধা দিতে গেলে তাকেও পিটিয়ে আহত করা হয়। এ সময় তাদের কাছে থাকা লোহার হাতুড়ি দিয়ে ওই যৌনকর্মীকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে নাইম মীর মালতকে আটক করলেও জাহাঙ্গীর মণ্ডল পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আটক নাইম মীর মালতকে গ্রেফতার করে। পরে গুরুতর ওই যৌনকর্মীকে উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, এ ঘটনায় গুরুতর আহত যৌনকর্মীর বোন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনাস্থল থেকে লোহার হাতুড়ি, দড়ি ও স্কচটেপ উদ্ধার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে পলাতক আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

 


আরও খবর



ফরিদপুরে স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে দেয়ার অভিযোগে স্ত্রী আটক

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ জুন ২০২২ | ৪৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ফরিদপুরের মধুখালীতে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেছে তার স্ত্রী। আহত স্বামীকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত ওই নারীকে আটক করে থানায় নিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) রাত ১০টার দিকে মধুখালী পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম গাড়াখোলা মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, অভাবের কারণে ভুক্তভোগী ইলেক্ট্রিশিয়ান রাসেল বিশ্বাসের (৫৫) আগের দুই স্ত্রী তাকে ত্যাগ করে। রাসেল এরপর তার চেয়ে বয়সে বড় কামালদিয়া গ্রামের টুটু খাতুনকে (৬০) বিয়ে করেন। তারা নিঃসন্তান দম্পতি ছিলেন।

রাসেলের ছোট ভাই তোফাজ্জেল বিশ্বাস তোতা (৪০) বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ১০টার পর তার ভাইয়ের ঘর থেকে গোঙানোর আওয়াজ পেয়ে দেখেন তার ভাইয়ের পুরুষাঙ্গ কেটে রক্ত বের হচ্ছে। এরপর তারা স্থানীয় মেম্বারকে খবর দেন।

মধুখালী পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলার আনিসুর রহমান লিটন জানান, খবর পেয়ে রাত ২টার দিকে তিনি ঘটনাস্থলে যান এবং আহত রাসেলকে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

তিনি জানান, জিজ্ঞাসাবাদে টুটু খাতুন স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলার কথা স্বীকার করেছেন। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। এদিকে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানান, রাসেলের পুরুষাঙ্গের দুই-তৃতীয়াংশ কেটে গেছে। তার অবস্থা গুরুতর। প্রাথমিকভাবে পারিবারিক কলহ থেকেই এ ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয়দের ধারণা।

মধুখালী থানার এসআই অজয় বালা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গভীর রাতে খবর পেয়ে পুলিশ রাসেলকে হাসপাতালে পাঠায় এবং তার স্ত্রীকে আটক করে থানায় নিয়ে যান। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ থানায় মামলা করেনি বলেও জানান তিনি।


আরও খবর



আফগানিস্তানে ভূমিকম্পে ২৫০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২২ জুন 20২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ জুন 20২২ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভয়াবহ ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে আফগানিস্তানে। এতে নিহত হয়েছেন অন্তত ২৫০ জন। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও বহু মানুষ। বুধবার (২২ জুন) ভোরে দেশটিতে এই ভূমিকম্প আঘাত হানে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্লাটফর্মে শেয়ার করা বহু ছবি ছড়িয়ে পড়েছে। এসব ছবিতে আফগানিস্তানের পাকতিকা প্রদেশে স্ট্রেচারে করে আহত ব্যক্তিদের পাশাপাশি ধ্বংসস্তূপ এবং ধ্বংস হয়ে যাওয়া বাড়ি-ঘরের দৃশ্য উঠে এসেছে।

আফগানিস্তানের স্থানীয় এক সরকারি কর্মকর্তা বলেছেন, মৃতের সংখ্যা ২৫০ জনের বেশি বাড়তে পারে। আরও ১৫০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছেন।

ভূমিকম্পটির কেন্দ্রস্থল আফগানিস্তানের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের শহর খোস্ত থেকে ৪৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। কেন্দ্রস্থল থেকে অন্তত ৫০০ কিলোমিটার পর্যন্ত ভূমিকম্পটি অনূভত হয়েছে। এমনকি পাকিস্তান ও ভারতেও এর আঁচ পাওয়া গেছে।


আরও খবর



পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে ১০০ টাকার স্মারক নোট মুদ্রণ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ জুন ২০২২ | ৫৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাতির গৌরবের প্রতীক পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে ১০০ টাকা মূল্যমানের স্মারক নোট মুদ্রণ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থে‌কে এ তথ্য জানা‌নো হ‌য়ে‌ছে। আগামী ২৬ জুন (রোববার) থে‌কে নতুন এ স্মারক নোট বাংলাদেশ ব্যাংকের মতিঝিল অফিস এবং পরে অন্যান্য শাখা অফিসে পাওয়া যাবে।

নোটের পেছনভাগে পদ্মা সেতুর পৃথক একটি ছবি/ইমেজ সংযোজন করা হয়েছে। নোটের উপরিভাগে ডানদিকে নোটের শিরোনাম ইংরেজিতে Padma Bridge -The symbol of national pride ONE HUNDRED TAKA লেখা রয়েছে।

এছাড়া, নোটের উপরে বামকোণে ও নিচের ডানকোণে মূল্যমান ইংরেজিতে 100 এবং নিচে বামকোণে বাংলায় ১০০ লেখা রয়েছে। এছাড়া, নোটের নিচে মাঝখানে বাংলাদেশ ব্যাংকের মনোগ্রাম এবং এর বামপাশে BANGLADESH BANK ও ডানপাশে ONE HUNDRED TAKA লেখা রয়েছে।

১০০% কটন কাগজে মুদ্রিত ১০০ টাকা মূল্যমান স্মারক নোটটির সম্মুখভাগে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির বামে ৪ মিলিমিটার চওড়া নিরাপত্তা সুতা রয়েছে এবং নোটের ডানদিকে জলছাপ এলাকায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি, ২০০ এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের মনোগ্রাম মুদ্রিত রয়েছে। এছাড়া নোটের উভয় পৃষ্ঠে ভার্নিশের প্রলেপ সংযোজন করা হয়েছে।

১০০ টাকা মূল্যমান স্মারক নোটটির জন্য পৃথকভাবে বাংলা ও ইংরেজি লিটারেচার সম্বলিত ফোল্ডার প্রস্তুত করা হয়েছে। ফোল্ডার ছাড়া শুধুমাত্র খামসহ স্মারক নোটটির মূল্যনির্ধারণ করা হয়েছে ১৫০ টাকা এবং ফোল্ডার ও খামসহ স্মারক নোটটির মূল্যনির্ধারণ করা হয়েছে ২০০ টাকা।


আরও খবর