আজঃ শনিবার ২৯ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

মাত্র ৫ মাসে আল কোরআনের হাফেজ হলেন ৯ বছর বয়সী সিয়াম

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ ডিসেম্বর ২০২১ | ১১০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মাত্র ৫ মাসে আল কোরআনের হাফেজ হলো ৯ বছরের এক শিশু। নাম তার সিয়াম। কুমিল্লা শহরের মোগরটুলি এলাকার আন-নূর তাহফিজ মাদরাসার হিফজ বিভাগ থেকে সে এ কীর্তি গড়েছে।  জেলার চান্দিনার লোনা গ্রামের বাসিন্দা হায়াতুল্লাহর বড় ছেলে সিয়াম।

সিয়ামের হিফজ বিভাগের শিক্ষক হাফেজ মাওলানা মাহদী হাসান জানান, সিয়াম দেশের বিস্ময় বালক। তার মেধা সাধারণের চাইতে অনেক বেশি। সিয়াম ৫ মাসে কোরানের ৩০ পারাই মুখস্ত করেছে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, সিয়াম খুব চঞ্চল প্রকৃতির, যদি একমনে সময় কাজে লাগাত তাহলে তার পক্ষে আরো শিগগির হাফেজ হওয়া সম্ভব ছিল। ভালো হাফেজ হওয়ার পাশাপাশি সিয়াম ভবিষ্যতে বড় আলেম হয়ে দেশ ও জাতির সেবা করতে চায়। তিনি সিয়ামের জন্য দেশবাসীর নিকট দোয়া চেয়েছেন।

তিনি বলেন, সিয়ামের ঐকান্তিক ইচ্ছা, শিক্ষকদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা এবং তার পরিবারের সহযোগিতায় আল্লাহ তাকে খুব শৈশবেই এই মহা পুরস্কারে ভূষিত করেছেন। এজন্য আমরা সবাই আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করছি।

নিউজ ট্যাগ: কুমিল্লা

আরও খবর
ক্ষমা মহত্ত্বের লক্ষণ

বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২২

ঈমানের পরই নামাজের স্থান

বুধবার ২৬ জানুয়ারী ২০২২




মদ উৎপাদন দ্বিগুণ করবে কেরু

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৯ জানুয়ারী ২০২২ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতি অবলম্বনের মাধ্যমে উৎপাদন দ্বিগুণ করার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে দেশের একমাত্র রাষ্ট্রীয় মদ উৎপাদন ও বাজারজাতকরণ প্রতিষ্ঠান কেরু অ্যান্ড কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেড।

কর্মকর্তারা জানান, গত বছরের একই সময়ের তুলনায় এ বছরের অক্টোবর-ডিসেম্বরে কেরুর উৎপাদিত মদের বিক্রি ৫০ শতাংশেরও বেশি বেড়েছে

এ বছরের অক্টোবরে, নভেম্বর ও ডিসেম্বরে যথাক্রমে  ১৮ হাজার ৫৭৯, ১৯ হাজার ৪৪৬ এবং ২১ হাজার কেসেরও বেশি মদ বিক্রি করেছে কেরু। প্রতিষ্ঠানটি ১৭৫ মিলিলিটার, ৩৭৫ মিলিলিটার ও ৭৫০ মিলিলিটারের বোতলে মদ বাজারজাত করে। একটি কেসে ৭৫০ মিলিলিটারের ১২টি, ৩৭৫ মিলিলিটারের ২৪টি এবং ১৭৫ মিলিলিটারের ৪৮টি মদের বোতল থাকে।

কেরুর উৎপাদিত মদ প্রতি মাসে গড়ে ১২ থেকে ১৩ হাজার কেস বিক্রি হয়ে থাকে। উৎপাদনও সে অনুযায়ী করা হয়। তবে চুয়াডাঙার দর্শনায় অবস্থিত কারখানায় বর্তমানে উৎপাদন সক্ষমতার মাত্র ৫০ শতাংশ ব্যবহৃত হচ্ছে। ২০২০-২১ অর্থবছরে কেরু মদ বিক্রি থেকে ১৯৫ কোটি টাকা লাভ করেছে।

কেরুর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোশাররফ হোসেন জানান, সরকার একটি ১০২ কোটি ২১ লাখ টাকার প্রকল্প হাতে নিয়েছে, যা ২০২২ সালে শেষ হবে। এর মাধ্যমে উৎপাদন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ স্বয়ংক্রিয় করা হবে। এ ছাড়া রূপপুর, কক্সবাজার ও কুয়াকাটায় ১টি করে বিক্রয় কেন্দ্র এবং রাজশাহী ও রামুতে ১টি করে ওয়্যারহাউস নির্মাণের মাধ্যমে বাজার সম্প্রসারণের পরিকল্পনাও করেছে কেরু। বর্তমানে সারা দেশে কেরুর ১৩টি ওয়্যারহাউস ও ৩টি বিক্রয়কেন্দ্র আছে।

এরমধ্যে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কেরুর ২টি নতুন বিক্রয়কেন্দ্রের অনুমোদন দিয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির  কর্মকর্তারা। তারা বলেন, বিক্রয়কেন্দ্রগুলো পরিচালনা করার জন্য পর্যটন করপোরেশনের সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করবে কেরু।

৮৩ বছরেরও বেশি পুরনো প্রতিষ্ঠানটির রয়েছে ৯টি ব্র্যান্ড। এগুলো হচ্ছে-  ইয়েলো লেবেল মল্টেড হুইস্কি, গোল্ড রিবন জিন, ফাইন ব্র্যান্ডি, চেরি ব্র্যান্ডি, ইম্পেরিয়াল হুইস্কি, অরেঞ্জ কুরাকাও, জারিনা ভদকা, রোসা রাম ও ওল্ড রাম।

কেরুর সূত্রগুলো জানায়, বর্তমানে তাদের কারখানায় ৯টি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের আওতায় আন্তর্জাতিক বাজারের জন্য প্রস্তুতকৃত ১০ লাখ ৮০ হাজার প্রুফ লিটার মদ, ২৬ লাখ লিটার দেশি স্পিরিট ও ৮ লাখ লিটার ডিনেচার্ড স্পিরিট উৎপাদন করা হয়। মদের পাশাপাশি ভিনেগার, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সার, চিনি ও গুড়ের মতো অন্যান্য পণ্যও উৎপাদন করে থাকে এ প্রতিষ্ঠানটি।


আরও খবর
কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে

বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২২

মিশ্র প্রবণতায় চলছে পুঁজিবাজারের লেনদেন

বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২২




মঠবাড়িয়ায় ৪ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ কাল, সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | ১০৫৫জন দেখেছেন
মনিরুল ইসলাম, মঠবাড়িয়া

Image

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় আগামীকাল (৫ জানুয়ারী) পঞ্চম ধাপের ৪ টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলার ১১ টি ইউনিয়নের মধ্যে গত ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ৬ টি ইউনিয়নে নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ায় এবার ৪ টি ইউনিয়নে নির্বাচন হচ্ছে। বাকি একটি ইউনিয়নে (মঠবাড়িয়া সদর) এর নির্বাচন কবে অনুষ্ঠিত হবে তা নিয়ে অনিশ্চয়তায় রয়েছে।

আগামীকাল অনুষ্ঠিতব্য চারটি ইউনিয়নে ৩৯ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে ২৯ জনই স্বতন্ত্র প্রার্থী। চারটি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের ৪ জন ও ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতীকের ৪ জন, তাছাড়াও দলীয় প্রতীকে জাতীয় পার্টি (এরশাদ) ০১ জন ও জাতীয় পার্টি (জেপি) থেকে ০১ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। নৌকা প্রতীকের পাশাপাশি গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন অন্যান্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও। হালকা শীতকে উপেক্ষা করে যে যার মতো সাধারণ ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। বসে নেই মেম্বার প্রার্থীরাও। হাট-বাজার, পাড়া মহল্লা, চায়ের দোকান সর্বত্র চলছে নির্বাচনী আলোচনা। আলোচনা-সমালোচনা থেকে পিছিয়ে নেই সাধারণ ভোটাররাও। তাদের মধ্যেও চলছে চুলছেড়া বিশ্লেষণ। বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে সাধারণ ভোটারদের সাথে কথা বলে জানাগেছে প্রতিটি ইউনিয়নেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে বিভিন্ন ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের কর্মীদের বিরুদ্ধে হাতপাখা, লাঙ্গল, বাই সাইকেল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের কর্মীদের মারধর, প্রচারণায় বাঁধা ও প্রচার মাইক ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে প্রার্থীরা সংবাদ সম্মেলন করে নৌকার প্রার্থীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরছেন। এদিকে ভোট গ্রহণের দিন সুষ্ঠু ভোট নিয়ে ভোটারদের মধ্যে শংকা বিরাজ করছে। তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে বলে জোর আশ্বাস দেয়া হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানাগেছে, আগামীকাল উপজেলার চারটি ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচনে বড়মাছুয়া ও ধানীসাফায় ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া বাকী দুই ইউনিয়ন দাউদখালী ও টিকিকাটায় সাধারণ পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হবে। চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা হলেন-২নং ধানীসাফা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ তালুকদার, ৪নং দাউদখালী ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান ফজলুল হক খান রাহাত, টিকিকাটা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম রিপন জমাদ্দার ও ১১নং বড়মাছুয়া ইউনিয়নে আয়েশা আক্তার মনি। এছাড়া দলীয় প্রতীকে ধানীসাফা ইউনিয়নে মোঃ ইউসুব আলী মুন্সী (হাতপাখা), দাউদখালী ইউনিয়নে সেকান্দার আলী খান (লাঙ্গল), আব্দুস শুক্কুর তালুকদার (বাইসাইকেল), মোঃ নূরুল ইসলাম মোল্লা (হাতপাখা), টিকিকাটা ইউনিয়নে মহিউদ্দিন আহমেদ লাবু মৃধা (হাতপাখা) এবং বড়মাছুয়া ইউনিয়নে জসিম হাওলাদার (হাতপাখা) প্রতিদ্বদ্বীতা করছেন।

অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা হলেন ধানীসাফায় রফিকুল ইসলাম আকন, আবু জাফর হাওলাদার, আজিজুর রহমান, এএইচএম জামাল উদ্দিন, শহীদুল হক, ইউসুফ আলী সরদার, কাঞ্চন আলী শিকদার, মো: মামুন, সাইদুল মল্লিক ও মো: শামীম আহসান। দাউদখালীতে জাহিদুল আলম শামীম, মোঃ আইউব আলী খান, মোঃ জাহাঙ্গীর খান, একেএম মাহমুদুল হাসান তৌফিক ও মুছা তালুকদার। টিকিকাটায় সুফী জহির উদ্দীন, মোসাঃ সালমা, মো: শহিদুল ইসলাম, এনামুর রহমান ও মোঃ আব্দুল হালিম এবং বড়মাছুয়ায় বর্তমান চেয়ারম্যান নাসির হোসেন হাওলাদার, কামরুজ্জামান স্বপন খান, দুলাল হাওলাদার, মাইনুল ইসলাম, মোঃ বশির আহমেদ, ছিদ্দিকুর রহমান, মোঃ আব্দুল লতিফ, মোঃ জামাল শিকদার, মোঃ হাবিবুর রহমান ও মো: নুরুল আমিন।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ নাজমুল হোসেন জানান, মঠবাড়িয়ায় আগামীকাল চারটি ইউনিয়ন পরিষদে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। দুএকটি বিশৃঙ্খলার ঘটনা ছাড়া এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি শান্তিপূর্ণ রয়েছে। অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভাবে নির্বাচন সম্পন্নের লক্ষ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।


আরও খবর



চীনে বিস্ফোরণের পর ভবন ধস, নিহত ১৬

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২২ | ৪০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চীনের চংকিং শহরে একটি ভবনে বিস্ফোরণের পর ধসের ঘটনা ঘটেছে। এতে ১৬ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আল জাজিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উলং জেলায় স্থানীয় সময় শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে বিস্ফোরণের এ ঘটনা ঘটে। এখন পর্যন্ত ২৬ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে ধসে পড়া ভবনের ভেতর থেকে। আটকা পড়াদের মধ্যে ১৬ জন মারা গেছেন।

চীনের জরুরি ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দুর্ঘটনার পর ৬০০ জনের উদ্ধারকর্মী উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছে।

জানা যায়, দুপুরের খাবার খাওয়ার সময় ক্যান্টিনের মধ্যে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, সরকারি একটি ক্যান্টিনে গ্যাস লাইনের পাইপ লিকেজ হয়ে এ বিস্ফোরণ ঘটতে পারে। এতে পাশের ভবনটিও ধসে পড়ে। তবে কিভাবে বিস্ফোরণ হলো তা তদন্ত করা হচ্ছে।

নিউজ ট্যাগ: বিস্ফোরণ চীন

আরও খবর



আমাদের বিশ্বাস যুক্তরাষ্ট্রের ভুল ধারণাটা ভেঙে যাবে: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২২ | ২২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, বাংলাদেশের র‌্যাবের কর্মকর্তাদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের আরোপিত নিষেধাজ্ঞায় তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না। বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) সকালে সাভারের বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটে (বিএলআরআই) বার্ষিক রিসার্চ রিভিউ ওয়ার্কশপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ভুল তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাবের কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এ ব্যাপারে আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইতোমধ্যে ব্যাখ্যা করেছেন। এই বিষয়ে আমরা প্রকৃত তথ্য তাদের কাছে উপস্থাপন করব।

শ ম রেজাউল করিম বলেন, আমাদের বিশ্বাস এতে যুক্তরাষ্ট্রের ভুল ধারণাটা ভেঙে যাবে। তাছাড়া যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞা দিলে আমাদের দেশের উন্নয়ন, অগ্রযাত্রাসহ অন্য কোনোকিছু ব্যাহত হওয়ার কোনো কারণ নেই।

নিবার্চন কমিশন গঠনে সার্চ কমিটির ব্যাপারে মন্ত্রী বলেন, সার্চ কমিটি নিয়ে বিএনপি নেতারা আবোল-তাবোল কথা বলে মানুষের মাঝে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করছেন। তারা চায় সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাধাগ্রস্ত করতে। আর সেই লক্ষ্যেই দলটির নেতাকর্মীরা দিন রাত ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। বর্তমান সরকার উন্নয়নবান্ধব। এই সরকারের সময় দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে, সেটিই বিএনপির গাত্রদাহের কারণ।

বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএলআরআই) মহাপরিচালক ড. এসএম জাহাঙ্গীর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. মনজুর মোহাম্মদ শাহজাদাসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ ট্যাগ: শ ম রেজাউল করিম

আরও খবর



মাদরাসা-কারিগরি শিক্ষার্থীদের টিকা নেওয়ার সময় বেঁধে দিল সরকার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৭ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের সব মাদরাসা ও কারিগরির ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের আগামী ১৩ জানুয়ারির মধ্যে করোনা টিকা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

গত বৃহস্পতিবার রাতে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের উপসচিব কাইজার মোহাম্মদ ফারারীর সই আদেশ এ তথ্য জানায়।

এতে বলা হয়েছে, টিকা নিয়ে ২০২২ শিক্ষাবর্ষে শ্রেণিকক্ষে উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানের উদ্যোগে উপজেলা বা জেলা শিক্ষা অফিসার এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বা সিভিল সার্জনের সঙ্গে সমন্বয় করে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে আগামী ১৩ জানুয়ারির মধ্যে নির্ধারিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নির্ধারিত তারিখ ও সময়ে টিকা দেওয়া নিশ্চিত করতে হবে।


আরও খবর