আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

মানিকগঞ্জে অবৈধভাবে তেল মজুদ করায় ১ লাখ জরিমানা

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | ৪৯৫জন দেখেছেন

Image

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:

বাজারে সরবরাহ না করে অবৈধভাবে তেল মজুদ করে সংকট সৃষ্টির অপরাধে মানিকগঞ্জ শহর বাজারের তীর তেলের পরিবেশক প্রতিষ্ঠান মেসার্স কালিপদ এন্ড সন্স কে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী ১,০০,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ মে) সকালে ভোক্তা অধিকার মানিকগঞ্জের পরিচালনায় এ অভিযান পরিচালিত হয়। এসময় অভিযুক্ত  প্রতিষ্ঠানে ১৩০০ লিটারের অধিক তেল পাওয়া যায়।

ভোক্তা অধিকার মানিকগঞ্জের সহকারী পরিচালকের তত্ত্বাবধায়নে অভিযান চলাকালে জেলা ক্যাব ও ভিজিএফ আইসহ পুলিশের একটি টিম সহযোগিতা করে।

ভোক্তা অধিকার মানিকগঞ্জের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল বলেন, বাজারে সয়াবিন তেলের বেশ চাহিদা রয়েছে। এরপরও ওই ডিলার বাজারে তেল বিক্রি না করে অবৈধভাবে মজুত করে খোলাবাজারে বিক্রি করে আসছিলেন। কৃত্রিম সংকট তৈরি না করতে এবং তেলে সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে ওই বাজারের ব্যবসায়ীদের সতর্ক করা হয়েছে। অভিযানের পরে মজুত করা তেল ক্রেতাদের মাঝে ন্যায্যমূল্যে বিক্রি করা হয়। তিনি আরো জানান ভোক্তা অধিকার নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসক আবদুল লতিফ এর নির্দেশে তাদের অভিযান পরিচালনা অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য দেশের মাঝে তেল ব্যাবসায়ীদের কৃত্রিম সংকট তৈরির ক্ষেত্রে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে প্রাতিষ্ঠানিক অভিযান চালিয়ে সারা দেশের মাঝে ভোক্তা অধিকার কাজ করে যাচ্ছে, যার ধারাবাহিকতায় মানিকগঞ্জে গেল কয়েক দিন ধরে ভোক্তা অধিকার মানিকগঞ্জের অভিযান লক্ষ্য করা গেছে।


আরও খবর



৯ দিনের ছুটির ফাঁদে বেনাপোল স্থলবন্দর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | ৪৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাপ্তাহিক ছুটি, মে দিবস ও ঈদ-উল-ফিতরের ছুটির কারণে টানা ৬ দিন, এর মাঝে একদিন অফিস হয়ে আবারও ২ দিন সাপ্তাহিক ছুটি। তাতে মোট ৯ দিন দেশের সবচেয়ে বড় স্থলবন্দর বেনাপোল দিয়ে আমদানি-রপ্তানিসহ বন্দর ও কাস্টমসের কার্যক্রম বন্ধ থাকছে।

এর ফলে স্থবির হয়ে পড়বে বেনাপোল-পেট্রাপোল স্থলবন্দরের কার্যক্রম। দেশের অর্থনীতিতে বেনাপোল বন্দরের ভূমিকা অপরিসীম। ভারত থেকে আমদানিকৃত পণ্যের ৯০ ভাগই আসে এই বন্দর দিয়ে।

লম্বা ছুটির কারণে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যে পড়বে বিরুপ প্রভাব। এমনিতেই বেনাপোল বন্দরে পণ্যজট লেগেই আছে। লম্বা ছুটিতে অনেক শিল্প প্রতিষ্ঠানে কাঁচামালের সংকট দেখা দিতে পারে। সীমান্তের দুপাশের ট্রাকজট আরও বাড়বে বলে মনে করছেন বন্দর সংশ্লিষ্টরা।

তবে এ ছুটিতে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে পাসপোর্টধারী যাত্রী চলাচল স্বাভাবিক থাকবে।

বন্দর সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) বিকাল থেকে ঈদের ছুটি শুরু হবে। শুক্র ও শনিবার (২৯, ৩০ এপ্রিল) সাপ্তাহিক ছুটি, ১ মে শনিবার মহান মে দিবস ও ২ মে থেকে ৪ মে পর্যন্ত ঈদের ছুটিতে বন্ধ থাকবে দুদেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানিসহ বন্দরের কার্যক্রম।

৫ মে বৃহস্পতিবার আমদানি-রপ্তানি চালু হবে। কাস্টমস ও বন্দর খুললেও কোন পণ্য খালাসের সম্ভাবনা নেই। এরপর ৬, ৭ মে শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। সে হিসেবে রোববার (৮ মে) থেকে কর্মচাঞ্চল্য ফিরে আসবে এ বন্দরে।

এদিকে টানা ছুটির কারণে সীমান্তের দুপাশের বন্দরে ট্রাকজট আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করছেন বন্দর ব্যবহারকারীরা। বেনাপোলের মতোই পেট্রাপোল বন্দরেও ট্রাকজট রয়েছে। বন্দরে স্থান সংকুলান না হওয়ায় বন্দরের ট্রাক টার্মিনাল, পেট্রাপোল পার্কিং ও কালীতলা পার্কিং টার্মিনালে কয়েকশ পণ্য বোঝাই ট্রাক অপেক্ষা করছে বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায়। তবে দীর্ঘ ছুটির কারণে অনেক পণ্য পেট্রাপোল থেকে বেনাপোল বন্দরে ঢুকবে ছুটি শেষে।

বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবির তরফদার জানান, ২৮ এপ্রিল বিকাল থেকে ঈদের ছুটি হয়ে যাচ্ছে। ছুটিতে বন্দরের কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ৫ ও ৭ মে ভারত থেকে পণ্য আমদানি হলে সে পণ্য আনলোড করা হবে।

ঈদের ছুটির মধ্যে বন্দরে যাতে কোন ধরনের নাশকতামূলক বা অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। বন্দরের নিজস্ব নিরাপত্তা বাহিনী ও আনসার সদস্যরা দিনে-রাতে বন্দর এলাকায় টহল দিবে বলে জানান তিনি।


আরও খবর



ইস্পাতের বৈশ্বিক উৎপাদনে নিম্নমুখিতা অব্যাহত

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | ৩৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত মাসে অপরিশোধিত ইস্পাতের বৈশ্বিক উৎপাদন কমেছে। এ নিয়ে টানা নয় মাস ধরে উৎপাদনে নিম্নমুখিতা অব্যাহত আছে। এতে প্রধান ভূমিকা রেখেছে চীন। তবে ভারতের উৎপাদনে প্রবৃদ্ধি এসেছে। ওয়ার্ল্ড স্টিল অ্যাসোসিয়েশনের দেয়া তথ্যানুযায়ী, অপরিশোধিত ইস্পাতের বৈশ্বিক উৎপাদন গত মাসে ৫ দশমিক ৮ শতাংশ কমেছে। মোট উৎপাদন হয়েছে ১৬ কোটি ১০ লাখ টন। গত বছরের জুলাইয়ের পর থেকে ইস্পাত উৎপাদন অব্যাহতভাবে কমছে। তখন থেকেই এর পেছনে বড় ভূমিকা রাখছে চীন। এর আগে সর্বশেষ গত বছরের জুনে বৈশ্বিক উৎপাদন ১১ শতাংশ বেড়েছিল।

চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) ধাতুটির বৈশ্বিক উৎপাদন কমেছে ৬ দশমিক ৮ শতাংশ। উৎপাদনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৫ কোটি ৬৬ লাখ টন।

ওয়ার্ল্ডস্টিলের দেয়া তথ্যে দেখা গিয়েছে, প্রথম প্রান্তিকে চীনে ইস্পাত উৎপাদন কমেছে ১০ দশমিক ৫ শতাংশ। এ সময় সব মিলিয়ে ২৪ কোটি ৩৪ লাখ টন ইস্পাত উৎপাদন হয়। মার্চে উৎপাদন গত বছরের একই সময়ের তুলনায় কমেছে ৬ দশমিক ৪ শতাংশ। উৎপাদন হয়েছে ৮ কোটি ৮৩ লাখ টন। তবে এক বছরের ব্যবধানে উৎপাদন কমলেও চলতি বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারির তুলনায় উৎপাদন বেড়েছে। ওই দুই মাসে সব মিলিয়ে ৮ কোটি ৩০ লাখ ও ৮ কোটি ১৭ লাখ টন করে উৎপাদন হয়েছিল।

জলবায়ু পরিবর্তন রোধজনিত কারণের পাশাপাশি সম্প্রতি চীনে করোনা মহামারীর ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ প্রবাহ নিম্নমুখী উৎপাদনে জ্বালানি জুগিয়েছে। দেশটিতে মহামারী দুই বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। সংক্রমণের হার দ্বিগুণ বেড়েছে।

চীনের অর্থনৈতিক হাব হিসেবে খ্যাত সাংহাই শহরে কোভিড-১৯ প্রতিরোধে কঠোর বিধিনিষেধ ও লকডাউন আরোপ করা হয়েছে। সাংহাই ছাড়া অন্যান্য ১৭টি প্রাদেশিক পর্যায়ে কভিড-১৯ সংক্রমণ তীব্র আকার ধারণ করছে। তবে ভারতে গত মাসে অপরিশোধিত ইস্পাতের উৎপাদন গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ৯ শতাংশ বেড়েছে। উৎপাদনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৯ লাখ টনে। অন্যদিকে প্রথম প্রান্তিকে উৎপাদন দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ১৯ লাখ টনে।

শুধু তাই নয়, চলতি বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারির তুলনায়ও উৎপাদন বেড়েছে। ওই দুই মাসে উৎপাদন ছিল যথাক্রমে ১ কোটি ১ লাখ ও ১ কোটি ৮ লাখ টন। মার্চে ভারতের উৎপাদন ছিল দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। গত মাসে উৎপাদন বৃদ্ধির দিক থেকে ব্রাজিল ছিল শীর্ষস্থানে। দেশটির ইস্পাত উৎপাদন গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ৪ শতাংশ বেড়ে ৩০ লাখ টনে উন্নীত হয়েছে। তবে প্রথম প্রান্তিকে উৎপাদন ২ দশমিক ২ শতাংশ কমে ৮৫ লাখ টনে নেমেছে।

বিশ্বের তৃতীয় শীর্ষ ইস্পাত উৎপাদক জাপান। গত মাসে দেশটি ৮০ লাখ টন ইস্পাত উৎপাদন করে, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪ দশমিক ৩ শতাংশ কম। যদিও চলতি বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারির তুলনায় উৎপাদন বেড়েছে। এদিকে ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধের কারণে রাশিয়ার উৎপাদন কমেছে ১ দশমিক ৭ শতাংশ। গত মাসে দেশটি ৬৬ লাখ টন ইস্পাত উৎপাদন করে। বছরের প্রথম প্রান্তিকে উৎপাদনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৮৭ লাখ টনে, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১ দশমিক ২ শতাংশ কম।

নিউজ ট্যাগ: ইস্পাত চীন

আরও খবর



আবাসিক শিক্ষার্থীকে জোরপূর্বক হল থেকে নামিয়েই দিলো ছাত্রলীগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন

Image

রাবি প্রতিনিধি:

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শহীদ হবিবুর রহমান হল থেকে জাবের হোসেন নামে এক আবাসিক শিক্ষার্থীকে জোরপূর্বক বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের হল সভাপতি মোমিন ইসলামের বিরুদ্ধে।

গতকাল সোমবার (১৬ মে) রাত সাড়ে এগারোটায় হলের ৪২৬ নম্বর কক্ষ থেকে ওই শিক্ষার্থীর বিছানাপত্র বেড থেকে নিচে ফেলে দিয়ে ওই সিটে প্রথম বর্ষের অনাবাসিক এক শিক্ষার্থীকে উঠিয়ে দেয়া হয়েছে বলে জানা যায়।

ভুক্তভোগী জাবের হোসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ও হল প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, গত সপ্তাহে হল প্রাধ্যক্ষের মাধ্যমে জাবের হোসেন ৪২৬ নম্বর কক্ষে ওঠেন। সোমবার (১৬ মে) রাত সাড়ে এগারো টায় ঘুম থেকে তুলে ওই শিক্ষার্থীকে ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা কর্মী গিয়ে জোরপূর্বক তার বিছানাপত্র বেড থেকে নিচে ফেলে দেয়। অভিযুক্ত সবাই হল সভাপতি মোমিন ইসলামের অনুসারী বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী বলেন, সোমবার সাড়ে এগারোটার দিকে ছাত্রলীগের দশ বারোজন রুমে আসে। তখন আমি ঘুমে ছিলাম। আমাকে ঘুম থেকে তুলে আমার বিছানাপত্র বইসহ অন্যান্য জিনিসপত্র ফেলে দেয়। পরে তারা আমাকে বলে, এটা রাজনৈতিক সিট এখানে তুমি থাকতে পারবা না। এখনই সিট থেকে নেমে যাবে। এভাবে কথা বলতে বলতে তারা আমার জিনিসপত্র সব বের করে দিয়ে এপ্লাইড ম্যাথমেটিক্স ১৯-২০ সেশন এর একটা ছেলের জিনিসপত্র তুলে দেয়। পরে আমি আমার আবাসিকতার কার্ড দেখালে তারা বলে এসব কার্ড দেখিয়ে কোনো লাভ নাই। প্রভোস্ট তোমাকে উঠাইছে তুমি তার কাছে যাও। আমাদের কাছে বলে কোনো লাভ নাই।

জাবের আরও বলেন, ঘটনার পরে মোমিন ভাই আমাকে রুমে ডেকে নিয়ে যায় পরে তিনি বলেন, এটা রাজনৈতিক সিট এই সিটের আশা তুমি করো না। রাজনৈতিক সিটে তুমি বরাদ্দ কেমনে পাও, তুমি এইসব কথা প্রভোস্টকে গিয়ে বলো। তখন আমি প্রভোস্ট স্যারকে বললে, স্যার সেই ছেলেকে ডেকে বলে কিন্তু সে এখনও সিট ছাড়ে নাই।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে হল সভাপতি মোমিন হোসেন বলেন, এই সিটটা পলিটিক্যাল সিট দীর্ঘদিন যাবত আমাদের দখলে ছিল। কিন্তু প্রভোস্ট স্যার নতুন করে সীট বরাদ্দ দিয়ে সেই শিক্ষার্থীকে তুলে দিয়েছেন। যে সব সিটে আমাদের পলিটিক্যাল নেতাকর্মীরা আগে থেকেই ছিলেন তাদেরকে সিট বরাদ্দ না দিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সীট বরাদ্দ দিয়ে তুলে দিচ্ছেন। আমরা স্যারকে অনেকবার বলার পরও তিনি পলিটিক্যাল সিটগুলো এভাবে নতুন করে সীট বরাদ্দ দিচ্ছেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো.জাহিদুল ইসলাম বলেন, আমি ছেলেটার বিষয়ে জানি। কালকে রাত থেকে সমাধান করার চেষ্টা করতেছি। আমি নতুন ছেলের সাথে কথা বলেছি আমার চেষ্টা অব্যহত আছে। আমি সব সময় সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশে আছি এবং তাদের যে কোন সমস্যা সমাধানে জন্য কাজ করে যাচ্ছি।


আরও খবর



নিউমার্কেটে নিহত নাহিদ ও মোরসালিনের পরিবারের পাশে বসুন্ধরা গ্রুপ

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | ৬১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হেইদিন সকাল ১০টা বাজেও আমার লগে কথা হইছে। বলছিলো অফিস থেকে ফিরা আমারে নিয়া মার্কেটে যাইবো। সে আর ফিরা আইলো না। আমার নাহিদকেতো আর ফিরা পামু না। মরে গিয়াও সে আমাগো ভবিষ্যত ঠিক করে দিয়া গেছে। বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তা পাইয়া বাঁইচা থাকার স্বপ্ন দেখতাছি। বুধবার বসুন্ধরা গ্ৰুপের সহায়তা হাতে পেয়ে এ কথা বলছিলেন নিহত নাহিদ হাসানের স্ত্রী শিলা মনি।

প্রসঙ্গত, নিউমার্কেট এলাকার ঘটনার পর গণমাধ্যমে নাহিদ ও মোরসালিনের পরিবারেরর অসহায়ত্বের বিষয় জানতে পারেন বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান। বিশেষ করে মোরাসালিন শেষবার বাসা থেকে বের হওয়ার সময় মেয়ের ঈদের জামা চাওয়ার বিষয়টি ওনাকে কষ্ট দেয়। তিনি মোরসালিন ও নাহিদের দুই পরিবারকে সহায়তা দেওয়ার সিন্ধান্ত নেন।

বুধবার বিকেল তিনটায় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর নিজ বাসভবনে দুই পরিবারকে ১০ লাখ করে ২০ লাখ টাকার আর্থিক সহায়তার চেক তুলে দেন।

নাহিদ হাসানের বাবা মো. নাদিম মিয়ার হাতে তিন লাখ, মা নার্গিসকে তিন লাখ, স্ত্রী শিলা এবং শিলার বাবা ডালিমের হাতে চার লাখ টাকার চেক এবং মোরসালিনের মা নূরজাহানের হাতে ৩ লাখ ও তাঁর স্ত্রী অনি আক্তার মিতুর হাতে দুই সন্তান ও তার জন্য সাত লাখ টাকার চেক তুলে দেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। এসময় উপস্থিত ছিলেন ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের পরিচালক ইমদাদুল হক মিলন, বসুন্ধরা গ্রুপের গণমাধ্যম বিষয়ক উপদেষ্টা মোহাম্মদ আবু তৈয়ব, নিউজ২৪ এর নির্বাহী সম্পাদক রাহুল রাহা।

ইমদাদুল হক মিলন বলেন, নিউমার্কেটের ঘটনায় নিহত নাহিদ ও মোরসালিনের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপ। এমন পাশে দাঁড়ানো অতুলনীয় একটি উদ্যোগ। দুটি পরিবারকে যে ১০ লাখ করে টাকা দেওয়া হয়েছে এটি অসহায় পরিবার দুটির ভবিষ্যতের জন্য কাজে আসবে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিকেল তিনটার মধ্যেই নাহিদ ও মোরসালিনের পরিবারের সদস্যরা বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের বাসভবনে উপস্থিত হন। এসময় সবার চোখে-মুখে প্রিয় মানুষ হারানোর বেদনায় অশ্রসজল চোখ দেখা যায়। পরে আর্থিক সহায়তা পেয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন কেউ কেউ। মোরসালিনের পরিবার জানায়, ঘটনার দিন বাসা থেকে বের হওয়ার সময় ছোট্ট মেয়ে লামহা বাবাকে (মোরসালিন) বলেছিলো ঈদের জামা নিয়ে বাসায় আসতে। কিন্তু মোরসালিনের আর বাসায় ফেরা হয়নি। মেয়ের জন্য জামাও নেওয়া হয়নি। মোরসালিনের এক ছেলে এক মেয়ে। ছেলে হাবীব হামজার বয়স সাড়ে তিন বছর। আর মেয়ে হুমায়রা ইসলাম লামহা (৭) কামরাঙ্গিরচরের একটি মাদ্রাসায় নার্সারিতে পড়ছে।

মোরসালিনের স্ত্রী অনি আক্তার মিতু বলেন, আমার মেয়েটা এখনো রাতে বাবাকে খোঁজে। ও জানে না ওর বাবা আর ফিরবে না। এখনো বাবা ঈদের জামা নিয়ে আসবে বলে সে ভাবে। কিভাবে বলি তাঁর বাবা আর দুনিয়াতে নেই। আমাদের ছেড়ে চলে গেছে। তারে মেরে ফেলছে।

ছেলে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের বিচার চেয়ে নিহত মোরসালিনের মা নূরজাহান বলেন, আমার পোলাডারে যারা মেরে ফেলছে তাগো বিচার আল্লাহ করব। দুনিয়ার মধ্যেও যেনো তাগো বিচার দেখতে পারি। আমার বুকে (হার্ড) রোগ আছে। প্রতিমাসে দুই আড়াই হাজার টাকার ওষুধ লাগে। আমার পোলা কত কষ্ট করে সে টাকা জোগাইতো। আমারে অনেক ভালোবাসতো। এহন আরেক পোলা আছে বসুন্ধরার দেওয়া টাকা দিয়া তার লাইগা কিছু করে দিতে চেষ্টা করমু।

তিনি বলেন, আমার বাবাটা এইভাবে চইলা যাইবে জীবনেও ভাবতাম পারি নাই। আমার দুই ছেলে এক মেয়ে আছিলো। এহন একজন একজন হইয়া গেছে। বড় পোলাডা গাউসিয়ায় কাপড়ের দোকানে কাজ করে। তাঁর জন্য ভয় লাগে।

মোরসালিনের শশুর মকবুল বলেন, এই টাকা (সহায়তা) দিয়ে আমার মেয়েটার জন্য তাঁর ভবিষ্যতের জন্য কিছু একটা করার চিন্তা আছে। হয়তো তারে কয়েকটা সেলাই ম্যাশিন কিনে দিব। যাতে নিজে ও দুইটা বাচ্চারে নিয়ে চলতে পারে।

নাহিদের মা নার্গিস বলেন, শেষবার যখন পোলাডার কথা শুনছি আমার সামনেই আছিলো কিন্তু ভালো করে দেখতেও পারি নাই। মারা যাওনের আগের দিন সেহরির সময় আমারে ভাত খাইতে ডাকলো। তখন লাইট বন্ধ আছিলো ঠিক মতো দেখিও নাই। পোলাডারেতো আর ফিরা পামু না। যতদিন দুনিয়ায় আছিলো ততদিন আমাগো কথাই চিন্তা করছে। এমন বিপদের সময় কাউরে পাশে পাইতেছিলাম না। মইরা গিয়াও আমাগো পাশেই আছে নাহিদ। বসুন্ধরা গ্ৰুপ আইশা পাশে দাঁড়াইলো, আল্লাহ তাগোরে আরো বড় করুক।

পাশে থাকা নাহিদের বাবা নাদিম হোসেন বলেন, এমন পুতুলের মতো পোলাডারে মাটিতে রাইখা আসলাম। আমার বাজানরে আমি মরার আগ পর্যন্ত ভুলতে পারমু না। এমন কইরা পোলাডা মইরা যাইবো। রাস্তায় মাইরা ফালাইবো কোন শত্রুর  জন্যও এমনটা ভাবি নাই। ছোট ছেলেরে এহন ঘর থেকে বাইর হইতে দিতে মন চায় না, ভয় হয়।

তিনি বলেন, বসুন্ধরার দেওয়া টাকা দিয়া ভালো কিছু করার চেষ্টা করমু। ছেলেহারা আমার অসহায় পরিবারের পাশে কেউ ছিল না।

প্রসঙ্গত, গত ১৮ই এপ্রিল সোমবার রাতে নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ বাঁধে। রাত ১২টা থেকে আড়াটা পর্যন্ত চলে সংঘর্ষ। এরপর পরের দিন মঙ্গলবার সকালে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আবারও সংঘর্ষ শুরু হয় ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের, থেমে থেমে চলে সংঘর্ষ। এই ঘটনায় গুরুতর আহত নাহিদ ও মোরসালিন পরে হাসপাতালে মারা যায়।


আরও খবর



শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা আজ

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জগতের সকল প্রাণী সুখী হোক এই অহিংস বাণীর প্রচারক গৌতম বুদ্ধের আবির্ভাব, বোধিপ্রাপ্তি আর মহাপরিনির্বাণ এই স্মৃতি বিজড়িত দিনটিকে বুদ্ধ পূর্ণিমা হিসেবে পালন করেন বুদ্ধ ভক্তরা। আজ শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা। দেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায় তাদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বুদ্ধ পূর্ণিমা সাড়ম্বরে উদযাপন করবে আজ।

গৌতম বুদ্ধের শুভজন্ম, বোধিজ্ঞান ও নির্বাণ লাভ এই ত্রিস্মৃতি বিজড়িত বৈশাখী পূর্ণিমা বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব। বিশ্বের সব বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীর কাছে এটি বুদ্ধ পূর্ণিমা নামে পরিচিত।

বৌদ্ধ ধর্ম মতে, আজ থেকে আড়াই হাজার বছর আগে এই দিনে মহামতি গৌতম বুদ্ধ আবির্ভূত হয়েছিলেন। তার জন্ম, বোধিলাভ ও মহাপ্রয়াণ বৈশাখী পূর্ণিমার দিনে হয়েছিল বলে এর (বৈশাখী পূর্ণিমা) অপর নাম দেওয়া হয় বুদ্ধ পূর্ণিমা

সারা দেশে রাষ্ট্রীয় ছুটির এ দিনের শুরুতে শান্তি শোভাযাত্রা ও বৌদ্ধ মঠ ও মন্দিরগুলোতে দিনব্যাপী প্রদীপ প্রজ্বলন, পূজা ও প্রার্থনার আয়োজন করে বুদ্ধের আদর্শ অনুসারী বৌদ্ধ সম্প্রদায়। এ উপলক্ষে রাজধানীসহ দেশজুড়ে বৌদ্ধ বিহারগুলোতে বুদ্ধ পূজা, প্রদীপ প্রজ্বলন, শান্তি শোভাযাত্রা, ধর্মীয় আলোচনা সভা, প্রভাত ফেরি, সমবেত প্রার্থনা, আলোচনা সভা ও বুদ্ধ পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া মানবজাতির সর্বাঙ্গীণ শান্তি ও মঙ্গল কামনায় বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে।

বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণীতে বৌদ্ধ সম্প্রদায়সহ সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

নিউজ ট্যাগ: বুদ্ধ পূর্ণিমা

আরও খবর
প্রথম হজ ফ্লাইট ৫ জুন শুরু

মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২