আজঃ শনিবার ২৯ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

ক্ষমা চাওয়ার পর বরিস জনসনকে পদত্যাগের আহ্বান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লকডাউনের মধ্যেই শীর্ষ কর্মকর্তাদের নিয়ে মদ্যপানের পার্টি আয়োজনের ঘটনায় ক্ষমা চাওয়ার পর বরিস জনসনকে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন জ্যেষ্ঠ টোরি নেতারা।

ওই ঘটনা নিয়ে সমালোচনার মুখে বুধবার (১২ জানুয়ারি) পার্লামেন্টে দেওয়া ভাষণে আন্তরিকভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করেন বরিস জনসন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে বিবিসি।

এ বিষয়ে সংসদ সদস্য মিস্টার রস ও আরেকজন এমএসপি জানিয়েছেন, বুধবার সকালে এমপিদের কাছে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমা চাওয়ার পরে বরিস জনসনের সঙ্গে তার 'ডিফিক্যাল্ট কনভারসেশন' হয়েছে।  

ডেপুটি প্রাইম মিনিস্টার ডমিনিক রাবসহ মন্ত্রিসভার অন্য সদস্যরাও তখন জনসনের চারপাশে ছিলেন। তবে স্কটিশ টোরি নেতা ডগলাস রস, সিনিয়র ব্যাকবেঞ্চার উইলিয়াম র‌্যাগ, ক্যারোলিন নোকস এবং রজার গেল তাকে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন।

২০২০ সালের ২০ মে লকডাউনের মধ্যে বরিস জনসনের মদ্যপানের পার্টির খবর সম্প্রতি ফাঁস হওয়ার পর থেকে চাপের মধ্যে রয়েছেন তিনি। বিরোধী দলের আইনপ্রণেতারা এমনকি নিজ দলেরও কয়েকজন পার্লামেন্টারিয়ান তার পদত্যাগ দাবি করেছেন। এমন পরিস্থিতিতেই বুধবার পার্লামেন্টে বিষয়টি নিয়ে প্রকাশ্যে ক্ষমা চান তিনি।

ডাউনিং স্ট্রিট পার্টিতে কোভিড-নিয়ম ভঙ্গের অভিযোগে তদন্ত শুরু করে দেশটির পুলিশ। যা শিগগিরই প্রকাশ হবে বলে জানিয়েছে দেশটির জ্যেষ্ঠ নেতারা।


আরও খবর



না ফেরার দেশে জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৫ জানুয়ারী ২০২২ | ২৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক শহিদ উদ্দিন আহমেদ সেলিম আর নেই। আজ ভোর ৪টা ৪৫ মিনিটে মারা যান তিনি। ক্যানসারের সঙ্গে দীর্ঘ লড়াই করে শেষ পর্যন্ত না ফেরার দেশে পাড়ি জমান সাবেক ফুটবলার সেলিম। তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর।

ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্লাবের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন সেলিম। দীর্ঘ সময় ক্লাবটির অধিনায়ক ছিলেন। তাঁর নেতৃত্বে অনেক সাফল্য পায় ব্রাদার্স। ১৯৮১ সালে এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক ছিলেন সেলিম। আর ১৯৯১ সালে কলম্বো সাফ গেমসে জাতীয় দলের কোচ ছিলেন।

জাতীয় দলের চেয়ে সবাই তাঁকে ব্রাদার্সের সেলিম হিসেবে বেশি চেনেন। স্বাধীনতার পর গোপীবাগে নিজের বাসায় প্রায় পাঁচ বছর ব্রাদার্সকে ক্যাম্প করার সুযোগ করে দিয়েছিলেন তিনি। ব্রাদার্সকে নতুন রূপে গড়ে তুলতে তিনি জড়ো করেছিলেন মহসীন, হাসানুজ্জামান বাবলুদের মতো প্রতিভাদের। তাঁর উদ্যোগেই ঢাকার মাঠের পরাশক্তি হিসেবে পরিচিতি পেয়েছিল ব্রাদার্স।

১৯৭৫ সালে মারদেকা কাপে এবং পরের বছর থাইল্যান্ডে কিংস কাপে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের হয়ে খেলেন সেলিম। ১৯৭৭ সালে এশিয়া যুব ফুটবলে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক ছিলেন।


আরও খবর
সাড়ে ৩ বছর নিষিদ্ধ ব্রেন্ডন টেলর

শুক্রবার ২৮ জানুয়ারী ২০২২




নতুন বছর বরণকে ঘিরে নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ | ৩৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ রাতেই বিদায় নিচ্ছে ইংরেজি বর্ষ ২০২১। নতুন বছর বরণকে কেন্দ্র করে রাজধানীতে ব্যাপক নিরাপত্তাব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী। একই সঙ্গে কক্সবাজার ও কুয়াকাটায়ও পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নানা পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

আজ শুক্রবার রাতে রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে যেকোনো অনুষ্ঠানের আয়োজন নিষিদ্ধ করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। এ ছাড়া পটকাবাজি, আতশবাজি, বেপরোয়া গাড়ি ও মোটরসাইকেল চালনাসহ যেকোনো ধরনের অশোভন আচরণ এবং বেআইনি কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ করা হয়েছে।

গতকাল ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রাজধানীর নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে ১২টি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। নির্দেশনাগুলো হলো- ঢাকা মহানগরের সার্বিক নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলার স্বার্থে রাস্তার মোড়, ফ্লাইওভার, রাস্তায় এবং প্রকাশ্য স্থানে কোনো ধরনের জমায়েত, সমাবেশ অথবা উৎসব করা যাবে না।

উন্মুক্ত স্থানে নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে কোনো ধরনের অনুষ্ঠান, সমাবেশ, নাচ, গান ও কোনো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করা যাবে না। কোথাও কোনো ধরনের আতশবাজি অথবা পটকা ফোটানো যাবে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সন্ধ্যা ৬টার পর বহিরাগত কোনো ব্যক্তি বা যানবাহন প্রবেশ করতে পারবে না।

শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টিকারযুক্ত যানবাহন পরিচয় প্রদান সাপেক্ষে প্রবেশ করতে পারবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বসবাসরত শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তা অথবা কর্মচারীরা আজ শুক্রবার রাত ৮টার মধ্যে স্ব স্ব এলাকায় প্রত্যাবর্তন করবেন এবং ৮টার পর প্রবেশের ক্ষেত্রে কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের পরিচয়পত্র প্রদর্শন করতে হবে। গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় রাত ৮টার পর বহিরাগতরা প্রবেশ করতে পারবে না। তবে ওই এলাকায় বসবাসরত সম্মানিত নাগরিকরা নির্ধারিত সময়ের পর কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউ (কাকলী ক্রসিং) এবং মহাখালী আমতলী ক্রসিং দিয়ে পরিচয় প্রদান সাপেক্ষে প্রবেশ করতে পারবে।

একইভাবে উপর্যুক্ত সময়ে সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে গুলশান, বনানী, বারিধারা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক এলাকায় যেসব নাগরিক বসবাস করেন না তাদের বর্ণিত এলাকায় গমনের ক্ষেত্রে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। হাতিরঝিল এলাকায় সন্ধ্যা ৬টার পর থেকে কোনো সমাবেশ অথবা অনুষ্ঠান করা যাবে না এবং কোনো যানবাহন থামিয়ে অথবা পার্কিং করে কেউ অবস্থান করতে পারবে না।

গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় বসবাসরত সম্মানিত নাগরিকদের আজ রাত ৮টার মধ্যে স্ব স্ব এলাকায় প্রত্যাবর্তনের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। আজ সন্ধ্যা ৬টার পর ঢাকা মহানগরীর কোনো বার খোলা রাখা যাবে না। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সীমিত আকারে আবাসিক হোটেলগুলোতে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠান করতে পারবে।

ইংরেজি নববর্ষের প্রাক্কালে আজ সন্ধ্যা ৬টা থেকে কাল শনিবার ভোর ৫টা পর্যন্ত ঢাকার বিভিন্ন আবাসিক হোটেল, রেস্তোরাঁ, জনসমাবেশ ও উৎসবস্থলে সব ধরনের লাইসেন্স করা আগ্নেয়াস্ত্র বহন না করার জন্য সংশ্লিষ্ট সম্মানিত নগরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে ডিএমপি।

এ ছাড়া আজ রাত ৮টা থেকে কাল ভোর ৫টা পর্যন্ত গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় যানবাহন প্রবেশের জন্য কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউ (কাকলী ক্রসিং) এবং মহাখালী আমতলী ক্রসিং ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। রাত ৮টা থেকে গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় প্রবেশের ক্ষেত্রে তেজগঁঁও শিল্পাঞ্চল এলাকা, ফিনিক্স রোড ক্রসিং, বনানী ১১ নম্বর রোড ক্রসিং, চেয়ারম্যান বাড়ি ক্রসিং, ঢাকা গেট, শুটিং ক্লাব, বাড্ডা লিংক রোড, ডিওএইচএস বারিধারা-ইউনাইটেড হাসপাতাল ক্রসিং ও নতুন বাজার ক্রসিং এলাকাসমূহে প্রবেশের জন্য ব্যবহার করা যাবে না।

তবে ওই এলাকা থেকে বের হওয়ার ক্ষেত্রে এসব ক্রসিং ব্যবহার করা যাবে। সন্ধ্যা ৬টা থেকে কাল ভোর ৫টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশের ক্ষেত্রে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তা অথবা কর্মচারী ছাড়া অন্য যেকোনো ব্যক্তি অথবা যানবাহন কেবলমাত্র পুরনো হাই কোর্ট-দোয়েল চত্বর-শহীদ মিনার-জগন্নাথ হলের দক্ষিণ গেট-পলাশী মোড় দিয়ে প্রবেশ করতে পারবে।

ওই এলাকায় প্রবেশের ক্ষেত্রে অন্যান্য সব ক্রসিং বন্ধ থাকবে। রাত ৮টা থেকে শাহবাগ, নীলক্ষেত ক্রসিং, দোয়েল চত্বর ক্রসিং, বকশীবাজার ক্রসিং, পলাশী ক্রসিং এবং চাঁনখারপুল অথবা শহীদুল্লাহ হল ক্রসিং দিয়ে কোনো প্রকার যানবাহন প্রবেশ করবে না। কেউ বেপরোয়া, মদ্যপ ও বিপজ্জনক অবস্থায় গাড়ি চালালে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



বিধিনিষেধ: বাণিজ্যমেলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত আজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পূর্বাচলের বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে (বিবিসিএফইসি) মাসব্যাপী ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা চলছে। সরকারঘোষিত বিধিনিষেধের কারণে মেলা নিয়ে নতুন করে শঙ্কা তৈরি হয়েছে। এ অবস্থায় মেলা চলবে কি না সে বিষয়ে আজ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা গেছে।

সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপনে নতুন ধরন ওমিক্রনসহ করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় আগামী ১৩ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) থেকে সারাদেশে বিধিনিষেধ জারি করেছে সরকার।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, কোভিড আক্রান্তের হার ক্রমবর্ধমান হওয়ায় উন্মুক্ত স্থানে সব ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠান ও সমাবেশ পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখতে হবে।

একই সঙ্গে দোকান, শপিংমল ও বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতা এবং হোটেল-রেস্তোরাঁসহ সব জনসমাগমস্থলে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে মাস্ক পরিধান করতে হবে, অন্যথায় আইনানুগ শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে বলেও জানানো হয়।

মেলা কর্তৃপক্ষ বলছে, সরকারঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে সেটা বাণিজ্যমেলার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য কি না সেটি নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না। যেহেতু শপিংমল, বাজারসহ বিভিন্ন বাণিজ্যিক ক্ষেত্র চালু থাকছে, সেক্ষেত্রে বাণিজ্যমেলা চালু রাখা যায় কি না সেটা নিয়ে আলাপ-আলোচনা করছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। আজ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে মেলা কর্তৃপক্ষকে মন্ত্রণালয় জানাবে।

এ বিষয়ে ইপিবির সচিব ও মেলার পরিচালক মো. ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী বলেন, বাণিজ্যমেলার বিষয়ে মন্ত্রণালয় আজ হয়তো সিদ্ধান্ত নেবে। এ বিষয়ে কি করা যায় বসে সিদ্ধান্ত নেবে। তারা সিদ্ধান্ত নিলে সেই অনুযায়ী আমরা কাজ করবো। বিধিনিষেধে গণজমায়েত বন্ধের শব্দটা কিছু কনফিউশন তৈরি করেছে। আমরা আশা করছি, পজিটিভ কিছু হবে।’

মেলা চললে স্বাস্থ্যবিধি জোরদার করা হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেলা চললে স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে অবশ্যই আরও বেশি ব্যবস্থা নেবো। স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে মেলায় কঠোরতা বাড়বে। নিজেদের মতো করে বিধিনিষেধগুলো তৈরি করবো।’

নিউজ ট্যাগ: বাণিজ্যমেলা

আরও খবর
কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে

বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২২

মিশ্র প্রবণতায় চলছে পুঁজিবাজারের লেনদেন

বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২২




জাতিসংঘে ভোটাধিকার ফেরত পাচ্ছে ইরান

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৩০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাতিসংঘে বকেয়া পরিশোধ করার পর ভোটাধিকার ফেরত পাচ্ছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত ইরানের স্থায়ী প্রতিনিধি মাজিদ তাখতে রাভানচি। জাতিসংঘে বকেয়া পরিশোধে ইরান দক্ষিণ কোরিয়ায় আটকে থাকা অর্থ ব্যবহার করেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে ইরানের ৭০০ কোটি ডলার পাওনা রয়েছে। এই পাওনা অর্থের মধ্যে থেকে এক কোটি ৮০ লাখ মার্কিন ডলার জাতিসংঘকে দিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে রোববার এ তথ্য জানানো হয়।

জাতিসংঘে নিযুক্ত ইরানের স্থায়ী প্রতিনিধি মাজিদ বলেছেন, ইরান জাতিসংঘের সদস্য হিসেবে সদস্যপদের ফি নিয়মিত পরিশোধ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। কিন্তু দুঃখজনকভাবে আমেরিকার অবৈধ নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরান এ নিয়ে দ্বিতীয়বার জাতিসংঘকে অর্থ প্রদানে সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরানে ওষুধ, চিকিৎসা সরঞ্জাম ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসহ বিভিন্ন উপাদান সংগ্রহে সমস্যায় পড়েছে। শুধু তাই নয়, এ নিষেধাজ্ঞা জাতিসংঘের ওপরও প্রভাব ফেলেছে।


আরও খবর



অধিনায়ক না থাকলেও কোহলীই আমাদের দলের নেতা : বুমরা

প্রকাশিত:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২ | ২৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিরাট কোহলী টেস্ট দলের অধিনায়কত্ব ছাড়ার তাঁরা অবাক হয়েছিলেন। কিন্তু দলের প্রত্যেকে কোহলীর এই সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা করেন। এক দিনের সিরিজের আগে সাংবাদিক বৈঠকে উপস্থিত হয়ে সোমবার বললেন যশপ্রীত বুমরা।

বুমরা বলেছেন, দেখুন, বিরাট কেন টেস্ট অধিনায়কত্ব ছেড়েছে সেটা বলার জন্য তো এখানে আসিনি। এটা ওর ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। আমরা শ্রদ্ধা করি। ওর শরীর এবং মনের ব্যাপারে ও-ই সব থেকে ভাল জানে। তবে বিরাটের অধীনে খেলতে পেরে আমি গর্বিত। টেস্টে অভিষেক হয়েছিল ওর অধীনেই। দলের মধ্যে আলাদা শক্তি নিয়ে আসে ও। বরাবরই আমাদের দলের নেতা থাকবে এবং আশা করি ভবিষ্যতেও এ ভাবেই অবদান রেখে যাবে।

কখন কোহলী অধিনায়কত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্ত জানান সেই প্রসঙ্গে বুমরা বলেছেন, কেপ টাউনে হারের পর টিম মিটিংয়েই কোহলী আমাদের জানিয়ে দেয় যে, ও টেস্ট অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছে। ওর নেতৃত্বকে আমরা সম্মান করি। দলের নেতা হিসাবে যা অর্জন করেছে তার জন্য ওকে আমরা অভিনন্দন জানিয়েছি। বুমরা আরও বলেন, অধিনায়ক না হলেও বিরাট আমাদের দলের নেতা থাকবে। ওর মতো শক্তি ভারতীয় দলে প্রায় কারওর নেই। ভারতীয় ক্রিকেটে একটা বদল নিয়ে এসেছে ও। প্রত্যেকে এখন অনেক বেশি ফিট। আমাদের দলে ও-ই অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার। খেলার প্রতি ওর জ্ঞান বরাবর দলের কাজে লাগবে।

তবে বুমরা এটাও স্পষ্ট জানিয়েছেন, নেতৃত্বের এই বদল সম্ভবত দলের পারফরম্যান্সে কোনও প্রভাব ফেলবে না। বুমরার কথায়, সবার কথা বলতে পারব না। তবে আমার কাছে এই ঘটনা কোনও প্রভাব ফেলবে না। আমরা প্রত্যেকে একে অপরকে কোনও না কোনও উপায়ে সাহায্য করার জন্য তৈরি। আমরা জানি যে প্রক্রিয়া মেনে এগোচ্ছি তাতে পরিবর্তন আসবেই। তাই আমার মনে হয় না বিরাট চলে যাওয়ায় কেউ কোনও সমস্যায় পড়বে।

তিনি নিজে কখনও দলের অধিনায়ক হওয়ার ইচ্ছে পোষণ করেন? বুমরা জানালেন, দলকে নেতৃত্ব দিতে কোনও সমস্যা নেই তাঁর। বলেছেন, দলকে যে ভাবে পারি সাহায্য করতে চাই। যদি কোনওদিন নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ আসে তা হলে অবশ্যই সেটা নিয়ে ভাবব। কিন্তু নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য কখনও ধাওয়া করব না। আমি নিজের কাজটা করতেই বেশি ভালোবাসি। তার জন্য আমাকে অধিনায়ক করতেই হবে এমন কোনও ব্যাপার নেই। দলের জয়ে অবদান রাখার থেকে বড় আমার কাছে কিছু নেই।

নিউজ ট্যাগ: বিরাট কোহলী

আরও খবর
সাড়ে ৩ বছর নিষিদ্ধ ব্রেন্ডন টেলর

শুক্রবার ২৮ জানুয়ারী ২০২২