আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

কৃষ্ণসাগর উপকূলে মৃত ডলফিনের ঝাঁক, নেপথ্যে ইউক্রেন?

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই কৃষ্ণসাগর উপকূলে ভেসে আসছে মৃত ডলফিন। প্রাথমিক পর্যবেক্ষণে বিজ্ঞানীরা ভেবেছিলেন, রুশ-ইউক্রেন নৌবাহিনীর সংঘাতে সমুদ্রের পানিতে ধারাবাহিক বিস্ফোরণ ও দূষণের কারণেই তারা মারা যাচ্ছে। কিন্তু ডলফিনের গণমৃত্যুর কারণ হিসেবে সামনে আসছে অন্য তত্ত্বও। কৃষ্ণসাগরে যেসব রুশ নৌঘাঁটি রয়েছে সেগুলোর পাহারাদার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ডলফিনগুলোকে ইউক্রেন বাহিনী পরিকল্পিত ভাবে খুন করছে কিনা, সে প্রশ্ন উঠেছে।

এপ্রিলের তৃতীয় সপ্তাহে ইউক্রেন সেনার ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় কৃষ্ণসাগরে মোতায়েন রুশ রণতরী মস্কোভার সলিল সমাধি ঘটেছিল। তারপরেই ক্রাইমিয়ার সেভাস্তিপোলসহ কৃষ্ণসাগরের কয়েকটি রুশ নৌঘাঁটির নিরাপত্তায় বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ডলফিন বাহিনী নিয়োগ করেছিল মস্কো। গত দুসপ্তাহে সেখানকার উপকূলবর্তী এলাকায় শতাধিক ডলফিনের দেহ দেখা গিয়েছে। যদিও তাদের দেহে কোনো আঘাতের চিহ্ন মেলেনি বলে তুরস্কের একটি গবেষণা সংস্থার বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন।

সামরিক কাজে অতীতেও ডলফিনের ব্যবহার করেছে রাশিয়া। ২০১৮ সালে সিরিয়ার যুদ্ধের সময় টারটাস নৌঘাঁটিতে ডলফিন বাহিনীকে মোতায়েন করা হয়েছিল। উপগ্রহচিত্রে সেই ছবি ধরাও পড়েছিল। বস্তুত, ষাটের দশকে সোভিয়েত জমানাতেই এই বুদ্ধিমান প্রাণীগুলোকে সামরিক কাজের প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু হয়েছিল। ক্রাইমিয়ার সেভাস্তিপোলেই ছিল সেই প্রশিক্ষণকেন্দ্র। শত্রুপক্ষের ডুবুরিকে চিহ্নিত করা বা সমুদ্রের নীচে বিস্ফোরক চিহ্নিত করা এবং তা উদ্ধার করে নিয়ে আসার কাজে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় ডলফিনগুলোকে। এমনকি, সমুদ্র্রের তলায় বিস্ফোরক বসানোর জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় তাদের।

২০১৪ পর্যন্ত ক্রাইমিয়া ছিল ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রণে। ফলে ডলফিন প্রশিক্ষণকেন্দ্রের কথা কিভের অজ্ঞাত নয়। গত সপ্তাহের গোড়া থেকে স্নেক আইল্যান্ডসহ কৃষ্ণসাগরের কয়েকটি রুশ নৌঘাঁটি দখলের জন্য অভিযান শুরু করেছে ভলোদিমির জেলেনস্কির অনুগত বাহিনী। ঘটনাচক্রে তখন থেকেই বাড়াতে শুরু করেছে ডলফিনের মৃত্যুর হার।

নিউজ ট্যাগ: ডলফিন

আরও খবর



বায়তুল মোকাররমে ঈদের ৫ জামাতের সময়সূচি

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ৩০ এপ্রিল ২০২২ | ৩৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পবিত্র ঈদুল ফিতরে পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। পর্যায়ক্রমে অনুষ্ঠেয় এসব জামাতে ইমাম ও মুকাব্বিরে দায়িত্ব বণ্টন করা হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারি জনসংযোগ কর্মকর্তা শায়লা শারমীন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে আজ শনিবার এ তথ্য জানানো হয়।

জামাত ও ইমামদের তথ্য

প্রথম জামাত: সকাল ৭টায় অনুষ্ঠিত হবে। এতে ইমামতি করবেন হাফেজ মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান (সিনিয়র পেশ ইমাম, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদ)। আর, মুকাব্বিরের দায়িত্ব পালন করবেন হাফেজ মো. ইসহাক (মুয়াজ্জিন, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ)।

দ্বিতীয় জামাত: দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায়। এতে ইমামতি করবেন হাফেজ মুফতি মুহিবুল্লাহিল বাকী নদভী (পেশ ইমাম, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ)। আর, মুকাব্বিরের দায়ত্ব পালন করবেন হাফেজ মো. আতাউর রহমান (সাবেক মুয়াজ্জিন, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ)।

তৃতীয় জামাত: সকাল ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে ঈদের তৃতীয় জামাত। এতে ইমামের দায়িত্ব পালন করবেন ড. মাওলানা আবু সালেহ পাটোয়ারী (মুফাসসির, ইসলামিক ফাউন্ডেশন)। আর মুকাব্বির থাকবেন হাফেজ মো. নাছির উল্লাহ, (খাদেম বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ)।

চতুর্থ জামাত: সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে ঈদের চতুর্থ জামাত। এতে ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন হাফেজ মাওলানা এহসানুল হক (পেশ ইমাম, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ)। আর, মুকার হিসেবে থাকবেন মো. শহিদ উল্লাহ (খাদেম, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ)।

পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাত: বেলা পৌনে এগারোটায় (১০টা ৪৫মিনিট) অনুষ্ঠিত এবারের ঈদুল ফিতরের পঞ্চম ও শেষ জামাত। এতে ইমামতিত্ব করবেন মাওলানা মুহিউদ্দিন কাসেম (পেশ ইমাম, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ)। আর মুকাব্বির হিসেব থাকবেন মো. রুহুল আমিন (খাদেম, বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদ)।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, এসব জামাতে কোনো ইমাম উপস্থিত না থাকলে বিকল্প ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মুফতি মাওলানা মো. আব্দুল্লাহ।


আরও খবর
প্রথম হজ ফ্লাইট ৫ জুন শুরু

মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২




গরুর ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, যুবক নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৮ এপ্রিল ২০২২ | ৮০০জন দেখেছেন

Image

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি:

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে গরু ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পরিবারের সংঘর্ষে হোসাইন নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ২ জন গুরুতর আহত অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ ভর্তি রয়েছে।

নিহত হোসাইন (৩৩) উপজেলা সদর ইউনিয়নের চরহোসনপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। হোসাইন পেশায় একজন দর্জি। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

গতকাল (বুধবার) ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান হোসাইন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, গতকাল বুধবার সকালে আনুমানিক ৮টায় চরহোসেনপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের গরু কাশেম মিয়ার বোরো ক্ষেতে ঢুকে পাকা ধান খেয়ে ফেলে। এতে কাসেমের স্ত্রী ফাতেমা ক্ষিপ্ত হয়ে সিরাজুল ইসলামের পরিবারকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এক পর্যায়ে দুপরিবারের মধ্যে তর্কবির্তক শুরু হলে কাশেম মিয়ার ছেলে রুহুল সিরাজুল ইসলামে ছোট ছেলে মুন্নাকে ছুরিকাঘাত করে। এ অবস্থা দেখে হোসাইন মিয়া ও তার পিতা সিরাজুল ইসলাম এগিয়ে আসলে রুহুল হোসাইনের পেটে ও সিরাজুল ইসলামের পিঠে ছুরিকাঘাত করে মারাত্মক ভাবে জখম করে।

আহত অবস্থায় প্রতিবেশীরা হোসাইন ও তার পরিবারের লোকজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। বুধবার রাত সাড়ে দশটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হোসাইন মারা যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় মুন্না ময়মনসিংহ মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

নিহতের স্ত্রী বলেন, আমাদের দেখার আর কেউ রইলো না। আমার স্বামীকে যারা হত্যা করছে, আমি তাদের ফাঁসি চাই।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের মিয়া জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। এবিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজ ট্যাগ: সংঘর্ষ নিহত

আরও খবর



শিমুলিয়া-বাংলাবাজার-মাঝিরকান্দি নৌরুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ৩০ এপ্রিল ২০২২ | ৪২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বৈরী আবহাওয়ার কারণে অভ্যন্তরীণ নৌপথে সন্ধ্যা ৭টা থেকে লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে ঈদে ঘরমুখো হাজারো যাত্রী।

শিমুলিয়া ঘাটের বিআইডব্লিউটিএর  কর্মকর্তা শাহাদাত হোসেন জানান, অভ্যন্তরীণ নৌপথে ২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত বলবৎ থাকা ও কালবৈশাখী ঝড়ের আশঙ্কায় সক ধরনের লঞ্চ চলাচল সন্ধ্যা ৭টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।ঘাটে দায়িত্বরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশনাক্রমে যাত্রীদের ফেরিতে পারাপারের জন্য মাইকিং করা হচ্ছে।

ঈদকে সামনে রেখে দেশের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ঘরমুখো মানুষ ও যানবাহনের ঢল নামে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে। শনিবার (৩০ এপ্রিল) সকাল থেকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ও মাঝিকান্দি নৌরুটে পদ্মা পাড়ি দিয়ে গন্তব্যে পৌঁছতে ঘাটে আসছেন হাজার হাজার যাত্রী। মোটরসাইকেল ও যাত্রী পারাপারে হিমশিম অবস্থায় ঘাট কর্তৃপক্ষ। ফেরির পাশাপাশি লঞ্চ ও স্পিডবোট ঘাটেও যাত্রীদের প্রচণ্ড ভিড়। এর মধ্যে বৈরী আবহাওয়ার কারণে লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছে হাজারো যাত্রী। 


আরও খবর



অর্থনীতি সমিতির ২০ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকার বিকল্প বাজেট পেশ

প্রকাশিত:রবিবার ২২ মে 20২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২২ মে 20২২ | ২১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য ২০ লাখ ৫০ হাজার ৩৬ কোটি টাকার বিকল্প বাজেট প্রস্তাব করেছে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি। রোববার সকালে সমিতির ভার্চুয়াল এক সভায় সভাপতি ড. আবুল বারকাত এ প্রস্তাব পেশ করেন।

অর্থনীতি সমিতির এ প্রস্তাব চলতি অর্থবছরের বাজেটের চেয়ে ৩ দশমিক ৪ গুণ বড়। প্রতি বছরই সংসদে জাতীয় বাজেট পেশের আগে অস্বাভাবিক বড় আকারের বিকল্প বাজেট দিয়ে আসছে অর্থনীতি সমিতি।

বাজেট উপস্থাপনায় ড. আবুল বারকাত বলেছেন, বিপদজনক আয় বৈষম্যের দেশে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশ। ২০৩২ সাল নাগাদ বিদেশি ঋণ পরিশোধে বাংলাদেশ বিপদে পড়তে পারে। তখন বড় ধরনের রাজনৈতিক অস্থিরতার আশঙ্কা থাকতে পারে।

চলতি ২০২১-২০২২ অর্থবছরের বাজেটের আকার বা মোট ব্যয় প্রাক্কলন করা হয়েছিল ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা, যা জিডিপির ১৭.৫ শতাংশ। পরিচালনসহ অন্যান্য খাতে মোট বরাদ্দ রাখা হয় ৩ লাখ ৭৮ হাজার ৩৫৭ কোটি টাকা এবং বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে বরাদ্দ ধরা হয় ২ লাখ ২৫ হাজার ৩২৪ কোটি টাকা। আবুল বারকাতের বিকল্প বাজেট প্রস্তাবনায় ৩৮টি সুপারিশ রয়েছে।

বিকল্প বাজেট সংবাদ সম্মেলনের ভিডিও কনফারেন্সে দেশের ৬৪টি জেলা, ১০৭টি উপজেলা এবং ২১টি ইউনিয়ন থেকে বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সদস্য এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধিরা যুক্ত রয়েছেন।


আরও খবর
যশোরে ১০ ঢাকায় ৮০

বুধবার ২৫ মে ২০২২




মাদকের বিরুদ্ধে সামিজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে: খাদ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৩৫০জন দেখেছেন

Image

নওগাঁ প্রতিনিধি:

মাদকের বিরুদ্ধে সামিজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে এবং একই সাথে সকলকে মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার থাকার আহবান জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

আজ বেলা ১২টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই আহ্বান জানান মন্ত্রী।

এসময় মন্ত্রী আরও বলেন শুধু অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করে বা সাজা দিয়ে মাদক নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়। যে যার জায়গা থেকে সামিজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। তবেই মাদক নিয়ন্ত্রণ সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

খাদ্যমন্ত্রী মাদক নিরসনে দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্যেশে কঠোর হুশিয়ারী করে বলেন জেলা বা উপজেলা আওয়ামীলীগের কোন নেতাকর্মী কোন মাদক ব্যাবসায়ীর পক্ষে সুপারিশ করতে পারবে না। যদি কোন নেতাকর্মী কোন মাদক ব্যবসায়ীর পক্ষে সুপারিশ করতে যায় ঐ মামলার চার্জশীটে তার নাম অন্তর্ভুক্ত করার জন্যও তিনি প্রশাসনকে নির্দেশ দেন।

তিনি সকল অবিভাবকদের উদ্যেশে বলেন আগামী প্রজন্মকে মাদকের ভয়াল প্রভাব থেকে মুক্ত রেখে একটি সুন্দর জাতি ও সুষ্ঠু বাংলাদেশ গঠনে পরিবার থেকেই আন্দোলন শুরু হওয়া দরকার। পরিবারের সুশিক্ষা এবং সচেতনতা নতুন প্রজন্মকে মাদক থেকে দুরে রাখবে। মাদকের বিরুদ্ধে সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে এক সাথে কাজ করারও আহবান জানান মন্ত্রী।

জেলা প্রশাসক খালিদ মেহেদী হাসান পিএএ এর সভাপতিত্বে সভায় পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়াসহ জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারী কর্মকর্তা, বিভিন্ন কলেজের অধ্যক্ষ, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ নওগাঁ ও পত্নীতলা ব্যটালিয়ন এর কমান্ডিং অফিসারবৃন্দ, উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর
সাপাহারে আমের কেজি ২ টাকা

শুক্রবার ২০ মে ২০22