আজঃ মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২
শিরোনাম
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী জানিয়েছেন

কোরবানি উদযাপনে সরকারের পক্ষ থেকে পরিপূর্ণ প্রস্তুতি আছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | ৫৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কোরবানি উদযাপনে সরকারের পক্ষ থেকে পরিপূর্ণ প্রস্তুতি আছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) রাজধানীর ফার্মগেটে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে তাঁর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আসন্ন ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষ্যে কোরবানির পশুর চাহিদা নিরূপণ, সরবরাহ ও অবাধ পরিবহন নিশ্চিতকরণ সংক্রান্ত আন্ত:মন্ত্রণালয় সভায় মন্ত্রী এ কথা জানান।

এসময় তিনি বলেন, অন্যান্য বছরের মত এবারও কোরবানির পশুর চাহিদা নিরুপন করা হয়েছে। কোরবানির চাহিদার চেয়ে অতিরিক্ত পশু প্রস্তুত আছে। এবার কোরবানিযোগ্য পশুর সংখ্যা ১ কোটি ২১ লক্ষ ২৪ হাজার ৩৮৯টি। ফলে কোরবানির জন্য কোনরকম সংশয়, সংকট বা আশঙ্কার কারণ নেই। কোরবানির হাটে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা হবে। রোগগ্রস্ত পশু হাটে বিক্রি করতে দেওয়া হবে না। ক্রেতা-বিক্রেতা কেউ হয়রানির শিকার হবেন না, ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য পর্যাপ্ত সদস্য নিয়োগ করা হবে। আমরা সুন্দরভাবে আসন্ন ঈদ-উল-আযহা উদযাপন করতে চাই।

মন্ত্রী আরও বলেন, মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য ঈদ-উল-আযহা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। এটি যাতে স্বাচ্ছন্দ্যের সঙ্গে এবং পরিপূর্ণ প্রস্তুতি নিয়ে উদযাপন করা যায় সে লক্ষ্যে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় ও সরকারের অন্যান্য দপ্তর-সংস্থা কাজ করছে। কোরবানির পশুর জন্য অতীতে পরমুখাপেক্ষী হয়ে থাকতে হতো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে আমাদের প্রাণিসম্পদ বিভাগের কর্মকর্তা, খামারি ও উদ্যোক্তারা সম্মিলিতভাবে কাজ করায় প্রাণিসম্পদ খাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে। এ খাতে আমাদের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন মাংসে আমাদের স্বয়ংসম্পূর্ণতা এসেছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, বিগত বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও কোন খামারি নিজ বাড়ি থেকে পশু বিক্রি করলে তাকে হাসিল দিতে হবে না। কোন খামারি তার পশু দূরবর্তী হাটে নিতে চাইলে, রাস্তাঘাটে জোর করে নামাতে বাধ্য করা যাবে না। এক্ষেত্রে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী কর্তৃপক্ষ, স্থানীয় সরকারের ইউনিট তথা পৌরসভা, উপজেলা বা ইউনিয়ন পরিষদ, সিটি কর্পোরেশন এ বিষয়টি নিশ্চিত করবে। হাটে আনার পথে কেউ প্রাণী বিক্রি করলে তার কাছ থেকে ইজারা গ্রাহক জোর করে চাঁদা বা হাসিল গ্রহণ করতে পারবে না। এটা আমরা নিশ্চিত করতে চাই। নগদ টাকা বহণ না করে বিকল্প উপায়ে স্মার্ট পদ্ধতিতে খামারিরা যাতে আর্থিক লেনদেন করতে পারে সেজন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে সমন্বয় করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্ত্রী বলেন, গতবছর অনলাইন প্লাটফর্মে প্রচুর গবাদিপশু বিক্রি হয়েছিল। এ বছরও এই পদ্ধতি অব্যাহত থাকবে, যা ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়ের জন্য সুখকর অবস্থা তৈরি করবে। অনলাইনে ক্রয়কৃত গরু পছন্দ না হলে টাকা ফেরত নেয়ার ব্যবস্থাও এবছর সংযোজন করা হচ্ছে। যাতে ক্রেতারা কোনভাবেই প্রতারিত না হয়।

তিনি আরও বলেন, লাভের আশায় কোরবানির অনুপযুক্ত পশু বা রোগগ্রস্ত পশু যাতে কেউ বিক্রির চেষ্টা না করে। এ বিষয়টি সকলকে তাগিদ দিতে হবে। প্রতিটি নির্ধারিত কোরবানির পশুর হাটে ভেটেরিনারি সার্জন থাকবে। গবাদিপশু কোরবানির উপযোগী কিনা বা তাদের শরীরে দূষিত পদার্থ প্রবেশ করানো হয়েছে কিনা তারা সেটা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবে। মহাসড়কে বা যেখানে হাট বসালে যান চলাচল ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে এমন কিছু যাতে না হয় এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানানো হবে। সড়কে বা সেতুতে কোরবানির পশু পরিবাহী গাড়িকে প্রাধান্য দেওয়া হবে, যাতে রাস্তায় পশু আটকে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি না হয়। এক্ষেত্রে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরে একটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ চালু করা হবে। অধিদপ্তরের হটলাইন ১৬৩৫৮ চালু থাকবে। পশু পরিবহনে খামারিদের সমস্যা সমাধানে এ নিয়ন্ত্রণ কক্ষ কাজ করবে। পশু কোরবানির ক্ষেত্রে কোন রকম সমস্যা যাতে না হয়, সেজন্য সবধরনের পদক্ষেপ নেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, সিলেট-সুনামগঞ্জ অঞ্চলে সাম্প্রতিক বন্যা ও জলোচ্ছ্বাসের কারণে গবাদিপশু কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেখানে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর থেকে গবাদিপশুর খাবার সরবরাহ করা হচ্ছে, চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা করার বিষয়টিও চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে। কোরবানির সময় যাতে ঐই অঞ্চলে দেশের অন্য অঞ্চল থেকে পশু যেতে পারে সে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব শ্যামল চন্দ্র কর্মকার, মো. তৌফিকুল আরিফ ও এস এম ফেরদৌস আলম, বিভাগীয় কমিশনারগণ, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ তথ্য দপ্তরের উপপরিচালক মো. শেফাউল করিম, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. মনজুর মোহাম্মদ শাহজাদা, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, রেলপথ মন্ত্রণালয়, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, বাংলাদেশ ডেইরি ফার্মারস অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধি প্রমুখ সভায় অংশগ্রহণ করেন।

নিউজ ট্যাগ: শ ম রেজাউল করিম

আরও খবর



করোনা: শনাক্ত ৫৪, মৃত্যু নেই

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৭ জুন ২০২২ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৫৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯ লাখ ৫৩ হাজার ৭৫৪ জনে। শনাক্তের ১ দশমিক ১৪ শতাংশ। এ সময়ের মধ্যে করোনায় কারো মৃত্যু হয়নি। ফলে মোট মারা যাওয়ার সংখ্যা ২৯ হাজার ১৩১ জন অপরিবর্তিত থাকল।

মঙ্গলবার (৭ জুন) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৪২৫ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৪ হাজার ৪৫৭ জন।

২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৮৩০টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ৪ হাজার ৭৩৮টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১ দশমিক ১৪ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৮০ শতাংশ।

২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। ২০২১ সালের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন সর্বাধিক ২৬৪ জন করে মারা যান।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



দেশের মানুষের জন্য হজযাত্রীদের কাছে দোয়া চাইলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৩ জুন ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পবিত্র নগরী মক্কা-মদিনায় হজ পালনকালে দেশ ও দেশের জনগণের সমৃদ্ধি ও কল্যাণের জন্য দোয়া করতে হজ যাত্রীদের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (০৩ জুন) সকালে ১৪৪৩ হিজরি বর্ষের হজযাত্রীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় এবং হজ কার্যক্রম ২০২২-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে (ভার্চ্যুয়াল) তিনি এ আহ্বান জানান। রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকার আশকোনা হজ ক্যাম্পে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আপনারা পবিত্র হজ পালন করতে যাচ্ছেন, আল্লাহর দরবারে যাচ্ছেন। বাংলাদেশের জন্য দোয়া করবেন, প্রাকৃতিক দুযোর্গ অথবা করোনা ভাইরাসের মতো এ রকম অতিমারির হাত থেকে এ দেশ যেন রক্ষা পায়, বিশ্ব যেন রক্ষা পায়। বিশেষ করে আমাদের দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য দোয়া করবেন। সেটাই চাই।

তিনি বলেন, আজ আমরা যেভাবে অর্থনৈতিক উন্নতি করছি, এ উন্নয়নের পথে আমরা যেন এগিয়ে যেতে পারি।  বাংলাদেশের সব মানুষ যেন অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা, চিকিৎসার সুযোগ পায়, উন্নত জীবন পায়, সুন্দর জীবন পায়, সে জন্য আপনারা দোয়া করবেন। দেশের জনগণের পাশাপাশি নিজের হারানো আপনজনদের জন্য দোয়া করার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

হজে গিয়ে হাজিদের নিয়ম-কানুন মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে সরকারপ্রধান বলেন, যারা যাবেন হজে, অবশ্যই সৌদি আরবের যে সমস্ত নিয়ম কানুন এবং আইন আছে, সেগুলো মেনে চলতে হবে। আপনার নিজের ইবাদত বন্দেগি যেমন করা, আবার দেশের মান সম্মান রক্ষা করা- এটাও কিন্তু সবার কর্তব্য। সে কথাটা আপনারা মাথায় রাখবেন।


আরও খবর



উচ্চ পরিবহন ব্যয় ২০২৩ সাল নাগাদ অব্যাহত থাকবে

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ জুন ২০২২ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্বজুড়ে বন্দরগুলোয় পণ্যজট আগামী বছরের প্রথম দিকেও অব্যাহত থাকবে। এতে উচ্চ পরিবহন ব্যয়ও অব্যাহত থাকবে বলে মনে করছেন লজিস্টিকস শিল্পের নির্বাহীরা। এজন্য তারা প্রতিষ্ঠানগুলোকে দীর্ঘমেয়াদি পরিবহন চুক্তি করার আহ্বান জানিয়েছেন। কোভিড-১৯ মহামারী ২০২০ সাল থেকে জাহাজে পণ্য সরবরাহের সময়কে দীর্ঘায়িত করেছে। এতে পণ্যবাহী পরিবহন ব্যয় রেকর্ড উচ্চতায় উন্নীত হয়েছে। এ অবস্থায় চলতি বছর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ এবং সাংহাইয়ে কভিডজনিত লকডাউন সরবরাহ চেইনের প্রতিবন্ধকতাকে ত্বরান্বিত করেছে।

ভিসি ইন্ডাস্ট্রিজের বৈশ্বিক পরিবহন বিভাগের গ্লোবাল ওশেন ফ্রেইট প্রডাক্টের প্রধান পিটার সুন্দরা বলেন, আমরা মনে করি বর্তমান যানজট কেবল বন্দরে নয়, উড়োজাহাজে পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রেও অব্যাহত থাকবে। অন্তত ২০২৩ সালের প্রথম প্রান্তিক পর্যন্ত এ অবস্থা চলমান থাকবে। আগামী বছর বৈশ্বিক বহরে আরো কিছু পণ্য পরিবহনকারী জাহাজ যুক্ত হতে যাচ্ছে। তবে তার মানে এটা নয় যে, সামুদ্রিক পরিবহন ব্যয় ব্যাপক হারে কমে যাবে। কারণ এটি আসলে নির্ভর করে কীভাবে জাহাজ পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠানগুলো বর্ধিত জাহাজের সক্ষমতা বরাদ্দ করে।

শিল্প সরঞ্জাম সরবরাহকারী বিএমটি এশিয়া-প্যাসিফিকের বিনিয়োগ সহায়ক বিভাগের প্রধান এরিক জিন বলেন, ক্রমবর্ধমান পরিবহন ব্যয়, দীর্ঘ ট্রানজিট সময় এবং উচ্চতর অনিশ্চয়তা শিপিং শিল্পের জন্য নতুন স্বাভাবিক হবে। চলতি বছর সরবরাহ চেইনের ব্যাঘাত ও বন্দরের যানজট বিশ্বব্যাপী শিপিং ব্যয়ে প্রভাব ফেলেছে। শিপিং খাতের নির্বাহীরা সুপারিশ করেন, ক্রমবর্ধমান ব্যয় ও প্রাপ্যতার সমস্যাগুলো কাটিয়ে উঠতে প্রতিষ্ঠানগুলো জাহাজ মালিকদের সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদি চুক্তি স্বাক্ষর করতে পারে। পিটার সুন্দরা বলেন, এ চুক্তি তিন মাস, ছয় মাস বা এক বছর নয়। বরং দুই থেকে তিন বছরের চুক্তি করলে এসব প্রতিবন্ধকতা এড়ানো সম্ভব। কারণ আমরা পরিবহন ও প্রাপ্যতা নিয়ে নিশ্চয়তা চাই।


আরও খবর



আবারও করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী, সতর্ক করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৩ জুন ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে গত কয়েকদিন ধরে আবারও করোনাভাইরাসের সংক্রমণে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। এজন্য সবাইকে সতর্ক করে স্বাস্থ্যবিধি পরিপালনে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। সোমবার (১৩ জুন) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ আহ্বান জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে করোনা কিছুটা বেড়েছে। গতকাল (রবিবার) শনাক্ত রোগী ছিল ১০৯ জন। কোভিড এখনও নির্মুল হয়নি। এখন স্বাভাবিক অবস্থায় থাকলেও করোনা যেকোনও সময় অস্বাভাবিক হতে পারে। ইতোমধ্যে মন্ত্রীসহ অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তি ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়েছেন।

সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এখন সবাইকে আগের মতো স্বাস্থ্য সচেতন হতে হবে, অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। সবাইকে মাস্ক পরতে হবে।’ যারা এখনও করোনা প্রতিরোধী টিকা নেননি, তাদের দ্রুত টিকা নেওয়ারও আহ্বান জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এসময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, সারাবিশ্বে যে কয়টি দেশ করোনা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে তার মধ্যে বাংলাদেশ পঞ্চম। আর এশিয়ার মধ্যে প্রথম দেশ হিসেবে বাংলাদেশ করোনা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে বলেই এখন দেশের সব কার্যক্রম স্বাভাবিক হয়েছে।

আসন্ন ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে স্বাস্থ্য খাতে যে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে তা গত অর্থবছরের তুলনায় ৪ হাজার কোটি টাকা বেশি বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এছাড়াও খাতটিতে এবছর ৫ হাজার কোটি টাকা থোক বরাদ্দ রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি।


আরও খবর



ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড-প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ জুন ২০২২ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাকিব হোসেন, ঢাকা:

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড পয়েন্ট অব সেল (পস) মেশিনে কার্ড ব্যবহার করে পণ্য ক্রয় করার সুযোগ প্রদানের লক্ষ্যে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে।

বুধবার (২২ জুন) ইসলামী ব্যাংক টাওয়ারে ব্যাংকের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও সিইও মুহাম্মদ মুনিরুল মওলার উপস্থিতিতে ডেপুটি ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও কোম্পানি সেক্রেটারি জে কিউ এম হাবিবুল্লাহ, এফসিএস ও প্রাণ-আরএফএল গ্রপ এর ফিন্যান্স ডাইরেক্টর উজমা চেীধুরী, সিপিএ সমঝোতা স্মারকে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন।

ব্যাংকের অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মুহাম্মদ কায়সার আলী ও মোঃ ওমর ফারুক খান, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট আবুল ফায়েজ মুহাম্মদ কামাল উদ্দীন, মোঃ মাকসুদুর রহমান ও মাহমুদুর রহমান, এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট মোঃ মিজানুর রহমান ভুঁইয়া ও মিফতাহ উদ্দীন এবং প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের ডেপুটি ম্যানেজার মাহফুজুর রহমান ও ফারজানা ফেরদৌস রহমান উপস্থিত ছিলেন।

এ চুক্তির আওতায় গ্রাহকগণ প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের সকল আউটলেটে ইসলামী ব্যাংকের পস মেশিনে কার্ড ব্যবহার করে পণ্য ক্রয় করতে পারবেন।


আরও খবর