আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

খুলনায় দুর্বৃত্তের গুলিতে ব্যবসায়ী নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৪৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দুর্বৃত্তের গুলিতে খুলনার ফুলতলা উপজেলাধীন ফুলতলা বাজার বণিক কল্যাণ সোসাইটির’ ক্রীড়া সম্পাদক মো. রকিবুল ইসলাম নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১২ মে) সন্ধ্যায় ফুলতলা ও অভয়নগর উপজেলার সংযোগস্থল কপালিয়া ব্রিজের ওপর এ ঘটনাটি ঘটে।

রকিবুল ফুলতলা উপজেলা এম.এম কলেজ পাড়ার বাসিন্দা মাহবুব মিস্ত্রীর ছেলে।

ফুলতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইলিয়াস তালুকদার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ফুলতলা বনিক কল্যাণ সোসাইটির ক্রীড়া সম্পাদক মো. রকিবুল ইসলাম সন্ধ্যায় মোটরসাইকেলে স্ত্রীকে নিয়ে যশোরের অভয়নগর উপজেলায় শ্বশুর বাড়ির উদ্দেশে যাচ্ছিলেন। ফুলতলা ও অভয়নগর উপজেলার সংযোগস্থল কপালিয়া ব্রিজের ওপর গেলে দুই যুবক তাদের ডাক দেয়। এরপর রকিবুল ওই যুবকদের কাছে যাওয়া মাত্রই গুলি করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।


আরও খবর



হানিকুইন আনারসে সয়লাব রাঙামাটির বাজার

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পার্বত্য জেলা রাঙামাটির হানিকুইন আনারস দেশজুড়ে বিখ্যাত। মৌসুমী রসালো মিষ্টি ফলটি বর্তমানে জেলার বাজার দখল করে আছে। বিক্রেতাদের হাঁক-ডাক এবং ক্রেতা সমাগমে হাটগুলো বেজায় ব্যস্ত। চলতি বছর জেলায় আবহাওয়া ভালো থাকায় অন্যান্য বছরের তুলনায় ফলনও বেশ ভালো হয়েছে। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে রসালো ফলটি জেলার বাইরে চট্টগ্রাম ও ঢাকার বাজারে যাচ্ছে।

পাহাড়ের মাটি আনারস চাষের উপযোগী হওয়ায় আবাদ বাড়ছে দিনদিন। পাহাড়ে উৎপাদিত কেমিক্যালমুক্ত রসালো ফলটির স্থানীয় বাজারের পাশাপাশি জেলার বাইরে চাহিদা রয়েছে বেশ। পাহাড়ের ভাঁজে ভাঁজে কৃষকরা চাষ করে ফলটি। কৃষকরা ইঞ্জিন চালিত নৌকায় করে রাঙামাটি শহরের সমতাঘাট, তবলছড়ি, পৌর ট্রাক টার্মিনাল এবং রিজার্ভ বাজারে নিচ্ছেন এবং সেখান থেকে পাইকারি ব্যবসায়ীরা আনারস কিনে ট্রাকে করে জেলার বাইরে নিয়ে যাচ্ছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রাঙামাটি কার্যালয় সূত্র জানায়, হানিকুইন জাতের এ আনারস জেলায় চলতি মৌসুমে দুই হাজার একশ হেক্টর জমিতে চাষ করা হয়েছে। বর্তমানে আনারসের ব্যাপক চাহিদা। সেই সঙ্গে উৎপাদন ভালো হওয়ায় কৃষকদের আনারস চাষে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।

এদিকে রাঙামাটির বনরূপা, কলেজগেট, তবলছড়ি এবং রিজার্ভবাজার হাটগুলো ঘুরে দেখা গেছে, বড় প্রতিজোড়া আনারস ৬০ টাকা, মাঝারি ৪০ এবং ছোটগুলো ২০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। ফলন ভালো হওয়ায় এবং দাম হাতের নাগালে থাকায় বেজায় খুশি ক্রেতারা। রসালো ফলটি খেয়ে তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলছেন তারা।

নানিয়ারচর উপজেলার আনারস চাষি দীপ্তিময় চাকমা বলেন, এ বছর ১০ একর পাহাড়ি জমিতে আনারস চাষ করেছি। উৎপাদনও হয়েছে বেশ। তবে উৎপাদন বেশি হওয়ায় বাজারে আনারসের দাম পূর্বের তুলনায় কিছুটা কম। জেলার আনারস ব্যবসায়ী রহমত মিয়া বলেন, কখনো লাভ বেশি আবার কখনো লোকসান গুণতে হয়। এ বছর উৎপাদন ভালো হওয়ায় আনারসের দাম অন্যান্য বছরের তুলনায় কিছুট কম। 

রাঙামাটিতে আনারস কিনতে আসা চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী আসাদ সওদাগর বলেন, প্রতি বছর লাখ পিস আনারস কিনি রাঙামাটি থেকে। এ অঞ্চলের আনারস অত্যন্ত সুস্বাদু এবং ক্রেতাদের চাহিদা ব্যাপক রয়েছে। তাই প্রতি মৌসুমে এখান থেকে আনারস কিনে চট্টগ্রামে নিয়ে যাই। আনারস কিনতে আসা আবুল ফজল বলেন, আমাদের অঞ্চলের মতো এত সুস্বাদু আনারস আমি এখনো খাইনি। দাম বেশি থাকুক বা না থাকুক, প্রতি বছর পরিবারের জন্য আনারস কিনে থাকি।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রাঙামাটি কার্যালয়ের উপ-পরিচালক তপন কুমার পাল বলেন, চলতি মৌসুমে জেলায় হানিকুইন জাতের আনারসের ফলন ভালো হয়েছে। প্রতি বছর আনারসের চাহিদা বাড়ায় জেলায় আনারসের ফলন বাড়ছে। যে কারণে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চাষিদের আনারস চাষে সব ধরনের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে। কৃষকরাও লাভের মুখ দেখছেন।

কৃষক এবং ব্যবসায়ীদের অনেক বছরের দাবি, রাঙামাটিতে একটি হিমাগার দরকার। হিমাগার না থাকায় প্রতি বছর হাজার টন আনারসসহ অন্যান্য ফসল পচে যায়। যে কারণে উৎপাদিত ফল সংরক্ষণের জন্য একটি হিমাগার খুবই গুরত্বপূর্ণ। তাই জেলায় একটি হিমাগার তৈরির জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান ব্যবসায়ী এবং কৃষকরা।

নিউজ ট্যাগ: হানিকুইন আনারস

আরও খবর



ট্রেনের সেই ৩ যাত্রী আত্মীয়, স্বীকার করলেন রেলমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | ৪৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন স্বীকার করেছেন তার স্ত্রীই টিটিইর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিলেন এবং বিনা টিকিটে রেলের ৩ যাত্রী তার আত্মীয়। তবে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে তার স্ত্রী টিটিইকে বরখাস্ত করতে বলেননি বলেও জানান রেলমন্ত্রী। আজ রোববার রেলভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। রেলমন্ত্রী বলেন, 'তবে আমার স্ত্রী হিসেবে তার এই অভিযোগ করা উচিত হয়নি।' যে ঘটনাটি ঘটেছে তা আমার জন্য স্বভাবতই বিব্রতকর', বলেন মন্ত্রী।

রেলমন্ত্রী আরও জানান, তিনি পরে জানতে পেরেছিলেন যে যাত্রীরা তার আত্মীয় কিন্তু গতকাল পর্যন্ত মিডিয়াকে ব্রিফ করার সময় তিনি এ সম্পর্কে অবগত ছিলেন না। বিনা টিকিটে আন্তঃনগর ট্রেনে ভ্রমণকারী তিন যাত্রীকে জরিমানা করার জন্য টিটিইকে বরখাস্ত করা নিয়ে বিতর্কের মধ্যে মন্ত্রী আজ রেল ভবনে তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন।

এর আগে, টিটিই শফিকুল ইসলামকে যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ না করে বরখাস্ত করা হয়েছিল উল্লেখ করে সেই আদেশ প্রত্যহারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। এ ধরনের আদেশ জারি করায় রেলওয়ের পাকশী বিভাগের বাণিজ্য কর্মকর্তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

রেলমন্ত্রীর আত্মীয় পরিচয় দিয়ে বিনা টিকিটে ট্রেনে ভ্রমণকারী ৩ যাত্রীর কাছ থেকে জরিমানাসহ টিকিটের টাকা আদায় করায় টিটিই শফিকুল ইসলামকে বরখাস্ত করা হয় বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। তবে রেলওয়ে জানায়, যাত্রীদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করায় তাকে বরখাস্ত করা হয়।

ঘটনার বিষয়ে শফিকুল ইসলাম জানান, গত বৃহস্পতিবার খুলনা থেকে ঢাকাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেসে ঈশ্বরদী থেকে ৩ জন যাত্রী বিনা টিকিটে এসি কেবিনে উঠে বসেন। তারা নিজেদের রেলমন্ত্রীর আত্মীয় পরিচয় দেন। শফিকুল ওই ৩ যাত্রীকে নন-এসি টিকিটের ভাড়া হিসেবে ৩৫০ টাকা করে এক হাজার ৫০ টাকা নিয়ে নন-এসির টিকিট দেন।

শফিকুল ইসলাম বলেন, 'তাদের কাছ থেকে মোট ১ হাজার ৫০ টাকা ভাড়া আদায় করেছি এবং তার রিসিটও দিয়েছি। এসময় তাদের সঙ্গে আমি কোনো খারাপ আচরণ করিনি এবং তারাও কিছু বলেননি। খারাপ আচরণ করার তো প্রশ্নই ওঠে না।'

এসময় রেলের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন জানিয়ে শফিকুল বলেন, 'তারা এসি কামরাতে বসেই ঢাকা এসেছেন। বিষয়টি নিয়ে ট্রেনের মধ্যে কোনো সমস্যা না হলেও পরবর্তীতে ঢাকা পৌঁছানোর পর ওই যাত্রীরা আমার বিরুদ্ধে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে অসদাচরণের অভিযোগ করেছেন বলে শুনেছি এবং এরপর আমাকে বরখাস্ত করা হয়।'


আরও খবর



আমিরাতে ঈদুল আজহা ৯ জুলাই!

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | ৩৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এ বছর ঈদুল আজহায় সম্ভবত চারদিনের লম্বা ছুটি পেতে যাচ্ছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাসিন্দারা। পবিত্র এই উৎসবটি সাধারণত চাঁদ দেখার ওপর নির্ভরশীল। তবে জ্যোতির্বিদ্যার সাহায্যে আগেভাগেই ধারণা করা যায়, কবে হতে পারে এবারের কোরবানির ঈদ।

ইসলামী ক্যালেন্ডার অনুসারে, জ্বিলহজ মাসের ১০ তারিখে অনুষ্ঠিত হয় ঈদুল আজহা। এমিরেটস অ্যাস্ট্রোনমি সোসাইটির পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ইব্রাহিম আল জারওয়ান জানিয়েছেন, ইংরেজি ক্যালেন্ডার অনুসারে এ বছর ঈদুল আজহার প্রথম দিন হতে পারে ৯ জুলাই (শনিবার)।

সোমবার (২৩ মে) দুবাইভিত্তিক সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমস জানিয়েছে, আমিরাতের সরকারি ক্যালেন্ডার অনুসারে আরাফাতের দিন, অর্থাৎ ঈদুল আজহার আগের দিনও ছুটি থাকে। সেই হিসাবে, এ বছর আমিরাতবাসী জ্বিলহজ মাসের ৯ তারিখ থেকে ১২ তারিখ টানা চারদিন ঈদের ছুটি উপভোগ করতে পারেন।

ইংরেজি ক্যালেন্ডারে জুলাই মাসের ৮ তারিখ (শুক্রবার) থেকে ১২ তারিখ (সোমবার) পর্যন্ত থাকতে পারে ঈদের ছুটি। অর্থাৎ, আরাফাতের দিন ও ঈদুল আজহার তিন দিনের ছুটির সঙ্গে কোনো সাপ্তাহিক ছুটি যোগ হচ্ছে না আমিরাতের সরকারি-বেসরকারি কর্মীদের।

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে আমিরাতে এ বছর রোজা পালন শুরু হয়েছিল গত ২ এপ্রিল। তার পরের দিন, অর্থাৎ ৩ এপ্রিল থেকে রোজা শুরু হয়েছিল বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ এশিয়ার বেশিরভাগ দেশে। পরে ১ মে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার পরিপ্রেক্ষিতে ২ মে ঈদুল ফিতর উদযাপন করে সৌদি, আমিরাতসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো। আর তার পরের দিন ঈদ উদযাপিত হয় বাংলাদেশে।

ফলে আমিরাতে ৯ জুলাই ঈদুল আজহার প্রথম দিন হলে বাংলাদেশে এ উৎসব উদযাপিত হতে পারে ১০ জুলাই থেকে।


আরও খবর
প্রথম হজ ফ্লাইট ৫ জুন শুরু

মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২




রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ১১

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৬ মে ২০২২ | ৫৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ।

শুক্রবার (৬ মে ) সকালে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। এ সময় তাদের হেফাজতে থাকা এক হাজার ২২ পিস ইয়াবা ও এক কেজি ৪২৫ গ্রাম গাঁজা ও ২.৫ গ্রাম হেরোইন জব্দ করা হয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার (৫ মে) সকাল ৬টা থেকে শুক্রবার (৬ মে) সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতারসহ মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ১০টি মামলা হয়েছে।


আরও খবর



আর্জেন্টিনার সঙ্গে খেলে বিদায় বলবেন জর্জো কিয়েল্লিনি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | ৩৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অবশেষে অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইতালির জর্জো কিয়েল্লিনি। আসছে জুনে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে কোপা আমেরিকাজয়ী আর্জেন্টিনা আর ২০২১ ইউরোজয়ী ইতালিকে নিয়ে আয়োজিত হতে যাওয়া লা ফিনালিসিমা ম্যাচ খেলেই জার্সি তুলে রাখবেন এই ডিফেন্ডার।

কিয়েল্লিনি এ নিয়ে টানা দ্বিতীয়বার দেশকে বিশ্বকাপে নিয়ে যেতে পারেননি । সেইসঙ্গে বয়সের ভার তো আছেই। সব মিলিয়েই জাতীয় দলকে বিদায় বলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইতালি অধিনায়ক।

এর আগে বাছাইপর্ব থেকে সরাসরি বিশ্বকাপে জায়গা না পাওয়ায় প্লে-অফ পর্বে অংশ নিতে হয় চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালির। কিন্তু এই প্লে-অফেও খুলেনি ভাগ্যের চাকা। প্লে-অফের সেমিফাইনালপর্বের ম্যাচে নর্থ মেসিডোনিয়ার কাছে শেষ মুহূর্তের গোলে ১-০ ব্যবধানে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ে ইতালি।

কিয়েল্লিনির নেতৃত্বে ২০২০ ইউরো জেতে আজ্জুরিরা। কিন্তু ২০২২ বিশ্বকাপে জায়গা করে নিতে পারেনি। এবার জাতীয় দলের হয়ে আর না খেলার সিদ্ধান্ত জানালেন কিয়েল্লিনি। সিরি আতে সোমবার সাসোলার বিপক্ষে ২-১ গোলে জুভেন্টাসের জয়ের পর এ কথা জানান তিনি।

কিয়েল্লিনি বলেন, যদি আমি সুস্থ থাকি, তাহলে ওয়েম্বলিতে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে জাতীয় দলকে বিদায় বলবো। এটা দারুণ ব্যাপার হবে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে এমন উদযানমূলক একটা ম্যাচে ইতালির হয়ে খেলাকে বিদায় বলা। জাতীয় দলের জন্য, এটাই আমার শেষ।

২০০৪ সালে ইতালি জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক হওয়া কিয়েল্লিনি ১৮ বছরের ক্যারিয়ারে ১১৬টি ম্যাচ খেলেছেন। রক্ষণ সামলালেও ৮টি গোল রয়েছে তার।


আরও খবর