আজঃ বুধবার ২৫ মে ২০২২
শিরোনাম

হাসপাতাল বেডে ভিক্ষুক নির্যাতন: ৪ এসআই বরখাস্ত

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৫২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বেডে চিকিৎসাধীন এক ভিক্ষুক ও তার পরিবারের সদস্যদের শারীরিক নির্যাতন ও গ্রেফতারের ঘটনায় ৪ এসআইকে সাময়িক বরখাস্ত এবং ২ কনস্টেবলকে  প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বুধবার (১১ মে) জামালপুরের পুলিশ সুপার মো. নাছির উদ্দীন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

সাময়িক বরখাস্তরা হলেন-সরিষাবাড়ী থানার এসআই আলতাব হোসেন, এসআই সাইফুল ইসলাম, এসআই ওয়াজেদ আলী ও এসআই মুন্তাজ। এছাড়া কনস্টেবল মোজাম্মেল হক ও নারী কনস্টেবল সাথী আক্তারকে পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

জানা গেছে, সরিষাবাড়ী পৌরসভার বাউসি বাজার এলাকার মৃত মহির উদ্দিনের ছেলে ভিক্ষুক আব্দুল জলিল (৬৫) বিশ শতক জমিতে বসতভিটা বানিয়ে দীর্ঘদিন বসবাস করে আসছিলেন। সম্প্রতি ওই জমি একই এলাকার প্রভাবশালী মুজিবুর রহমান দাবি করায় দুপক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। পরবর্তীতে ঐ জমি নিয়ে জজ আদালতে মামলা হলে আদালত ভিক্ষুক আব্দুল জলিলের পক্ষে ডিক্রি প্রদান করেন। আদালতের আদেশ অমান্য করে সোমবার (৯ মে) সকালে প্রতিপক্ষ মুজিবুর রহমান তার সহযোগীদের নিয়ে আব্দুল জলিলের পরিবারের ওপর হামলা চালায়। হামলায় আব্দুল জলিল (৬৫), তার স্ত্রী লাইলী বেগম, বড় ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক, মেজো ছেলে ওয়ায়েজ করোনি, ছোট ছেলে হামদাদুল হকসহ পরিবারের অন্য সদস্য জসিম মিয়া আহত হন। পরে এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।  হামলার পর উল্টো মুজিবুর রহমান বাদী হয়ে চিকিৎসাধীন ৪ জনসহ ১৫ জনকে আসামি করে সরিষাবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে মঙ্গলবার দুপুরে চিকিৎসাধীন ভিক্ষুক আব্দুল জলিলসহ ৪ জনকে হাসপাতালের বেডে শারীরিক নির্যাতন ও গ্রেফতার করে নিয়ে যায় সরিষাবাড়ী থানার পুলিশ। পরে তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়।

পুলিশ সুপার মো. নাছির উদ্দীন আহমেদ জানান, এ ঘটনায় ৪ এইআইকে বরখাস্ত ও ২ কনস্টেবলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে সরিষাবাড়ী থানার ওসি মীর রকিবুল হাসানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযান, গ্রেপ্তার ৭২

প্রকাশিত:শনিবার ২১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ২৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে ৭২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)-এর বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। শনিবার (২১ মে) সকালে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস শাখা গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ডিএমপির নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে শক্রবার (২০ মে) ভোর ৬টা থেকে আজ শনিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ সময় তাদের কাছ থেকে ২৪২৫৫ পিস ইয়াবা, ২১ কেজি ৭২৫ গ্রাম ৩০ পুরিয়া গাঁজা, ৩৭ গ্রাম ১৭ পুরিয়া হেরোইন, ১৩ বোতল ফেন্সিডিল ও ১৫টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন জব্দ করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৫৬টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।


আরও খবর



রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৪৫

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | ৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে ৪৫ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) এর বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। শুক্রবার (১৩ মে) ডিএমপির গণমাধ্যম শাখা থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

ডিএমপি জানায়, গ্রেফতারের সময় তাদের হেফাজত থেকে ১৬৫৫ পিস ইয়াবা, ৫ কেজি ৮৫৫ গ্রাম ৭ পুরিয়া গাঁজা, ১১ গ্রাম হেরোইন, ১০২ বোতল ফেন্সিডিল ও ১০৪ বোতল দেশি মদ উদ্ধারমূলে জব্দ করা হয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ এর নিয়মিত মাদক বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার (১২ মে ২০২২) সকাল ছয়টা থেকে আজ সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতারসহ মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের নামে ডিএমপির বিভিন্ন থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ডিএমপি।


আরও খবর



রামগতিতে শেয়ালের মাংস বিক্রির দায়ে কারাদণ্ড

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৩ মে ২০২২ | ২৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে শেয়ালের মাংস বিক্রির অপরাধে রঞ্জিত চন্দ্র দাস নামের এক ব্যক্তিকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার (২৩ মে) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার সদর আলেকজান্ডার বাজারে অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম শান্তুনু চৌধুরী এ রায় দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম ও রামগতি থানার পুলিশ সদস্যরা। অভিযানকালে কয়েক কেজি শেয়ালের মাংস জব্দ করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম শান্তুনু চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পশু জবাই ও মাংসের মান নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১১ অনুযায়ী অভিযুক্তকে ১৫ (পনেরো) দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।


আরও খবর



জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির যোগ্যতা বাড়ায় বিপাকে শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত:শনিবার ২১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ২৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তির যোগ্যতা বাড়ানো হয়েছে। এবার এসএসসিতে জিপিএ ৩.০০ থেকে বাড়িয়ে ৩.৫০ করা হয়েছে। এতে চরম বিপাকে পড়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। কারণ, এদের অনেকেরই প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সামর্থ্য নেই। ফলে জিপিএ কম থাকায় এসব শিক্ষার্থীর উচ্চশিক্ষা থেকে বঞ্চিত হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

এ বিষয়ে মো. ফয়সাল ইসলাম নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, প্রান্তিক পর্যায়ে শিক্ষার মান উন্নত না করে এই সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী। এ রকম হটকারী সিদ্ধান্ত কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।

প্রিন্স নূর নামে একজন বলেন, সামগ্রিকভাবে খুবই খারাপ হবে। কারণ, অধিকাংশ গরিব ও দুর্বল ছাত্রদের আস্থার জায়গা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। এখন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ছাড়া এদের উপায় থাকবে না। ফলে তারা উচ্চশিক্ষা থেকে ছিটকে পড়বে।

মনসুরা আফরোজ সুপ্তি নামে একজন বলেন, খারাপ একটি সিদ্ধান্ত। অনেক ছাত্র হয় তো আছে এসএসসিতে খারাপ ফলাফল করেছে, এরপর চেষ্টা করে এইচএসসিতে ভালো ফলাফল করেছে। দুটো মিলিয়ে হয় তো তার জিপিএ ৮.০০ আসছে। কিন্তু তারপরও সে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হতে পারবে না। এটা খুবই অসন্তোষজনক। কারণ, অনেকেরই প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সামর্থ্য নেই। সে ক্ষেত্রে তার ক্যারিয়ারটা নষ্ট হতে পারে।

সিদ্দিক-উর-রহমান নামে এক শিক্ষার্থী জানান, তার এসএসসির ফলাফল কিছুটা খারাপ, তবে এইচএসসির ফলাফল ভালো। এখন এসএসসিতে ভর্তির যোগ্যতা বাড়ায় তার উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে।

এদিকে ভর্তির যোগ্যতা বাড়িয়ে ইতিমধ্যে বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশ করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। এবারও এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে প্রতিটি কলেজের জন্য আলাদাভাবে বিষয়ভিত্তিক মেধা তালিকা প্রণয়ন করা হবে।

এতে দেখা গেছে, আগামী ২২ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত অনলাইনে প্রাথমিক আবেদন গ্রহণ করা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির অফিসিয়াল ওয়েবসাইট (www.nu.ac.bd/admissions) থেকে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। এবার প্রাথমিক আবেদন ফি ২৫০ টাকা।


আরও খবর



মারিউপোলের ইস্পাত কারখানা থেকে সব নারী ও শিশু উদ্ধার

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইউক্রেনের মারিউপোল শহরের অবরুদ্ধ আজভস্তাল ইস্পাত কারখানা থেকে সব বেসামরিক নারী, শিশু ও বয়স্ক মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে। রুশ বাহিনীর হামলার মধ্যেই গত এক সপ্তাহ ধরে কয়েক শ মানুষকে এ কারখানা থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ইউক্রেনের উপ-প্রধানমন্ত্রীর বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। উপ-প্রধানমন্ত্রী ইরিনা ভেরেশচুক এক টেলিগ্রাম পোস্টে বলেছেন, মারিউপোলে মানবিক উদ্ধার অভিযান শেষ হয়েছে।’

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজভস্তাল ইস্পাত কারখানাটি সোভিয়েত যুগের। ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে দশ সপ্তাহ ধরে চলমান যুদ্ধে মারিউপোলের এই একটি কারখানাই ইউক্রেনের সেনারা এখন পর্যন্ত নিজেদের দখলে রাখতে পেরেছে। ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চল দখলের জন্য মরিয়া হয়েছে রুশ বাহিনী। তাদের দখল প্রচেষ্টায় প্রতিরোধের প্রতীক হয়ে উঠেছে এই ইস্পাত কারখানাটি।

আজভস্তাল কারখানার ভূগর্ভস্থ বাংকারে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ইউক্রেনের কয়েক শ বেসামরিক মানুষ ও যোদ্ধা অবরুদ্ধ অবস্থায় ছিল। রুশ বাহিনীর গোলাবর্ষণের মধ্যে খাদ্য, পানি ও ওষুধের অভাবে আটকে পড়া এই মানুষেরা অবর্ণনীয় অবস্থায় বেঁচে ছিলেন। ইউক্রেনের একজন সামরিক কমান্ডার জানিয়েছেন, ইউক্রেনের বন্দরনগরী মারিউপোল কৌশলগত কারণে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই শহর থেকে ইউক্রেনের সেনাদের সরিয়ে দেওয়ার জন্য এবং আজভস্তালের দখল নেওয়ার জন্য শনিবার আবার কামানের গোলাবর্ষণ করা হয়েছে এবং ট্যাংক দিয়ে আক্রমণ চালানো হয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, কয়েক সপ্তাহ ধরে রুশ বাহিনীর অবিরাম গোলাবর্ষণে মারিউপোল ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। আজভস্তাল ইস্পাত কারখানাও অনেকাংশে ধ্বংস হয়ে গেছে। এই কারখানায় আটকে পড়া কয়েক শ মানুষকে সরিয়ে নিতে গত সপ্তাহে জাতিসংঘ এবং রেড ক্রসের আন্তর্জাতিক কমিটির মধ্যস্থতায় অপসারণ কার্যক্রম শুরু হয়।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি  এক ভাষণে বলেছেন, ইস্পাত কারখানা থেকে ৩০০ জনেরও বেশি বেসামরিক নাগরিককে উদ্ধার করা হয়েছে। আমরা এখনকার চিকিৎসক ও আহত বেসামরিক মানুষদের সরিয়ে নেওয়ার দিকে মনোযোগ দেব। আমরা চেষ্টা করব কারখানার আশপাশের জনবসতি থেকেও লোকজনকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেওয়ার।’

এদিকে রুশ সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীরাও আজভস্তাল ইস্পাত করখানা থেকে ১৭৬ জনকে সরিয়ে নেওয়ার খবর দিয়েছে। আরও বেসামরিক মানুষ সেখানে আছেন কি না তা এখনো জানা যায়নি।  কারখানার ভেতরে থাকা যোদ্ধারা আত্মসমর্পণ করবে না বলে জানিয়েছে। সেখানে কতজন যোদ্ধা এখনো রয়েছেন তা স্পষ্ট নয়। ইউক্রেনের কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছেন যে সোমবারের মধ্যে রুশ বাহিনী সম্ভবত এ কারখানা গুঁড়িয়ে দেবে।  এদিকে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার পরিচালক উইলিয়াম বার্নস বলেছেন, এ যুদ্ধে পুতিন হারতে পারেন তা এখনো বিশ্বাস করতে পারছেন না।’

গত ২১ এপ্রিল রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মারিউপোলে বিজয় ঘোষণা করেছিলেন এবং আজভস্তাল ইস্পাত কারখানা সিল করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। তারপর ইউক্রেন যোদ্ধাদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানিয়েছিলেন। কিন্তু ইউক্রেন বাহিনী এ আহ্বানে সাড়া না দিলে রুশ বাহিনী হামলা শুরু করে।

নিউজ ট্যাগ: ইউক্রেন

আরও খবর